নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সবাই যখন নীরব, আমি একা চীৎকার করি \n--আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি।\n

গিয়াস উদ্দিন লিটন

গিয়াস উদ্দিন লিটন › বিস্তারিত পোস্টঃ

ব্রিটিশ কিক বক্সিং চ্যাম্পিয়ন রুকসানা বেগম (সামুর একজন ব্লগার সহ -একের ভিতর চার )

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৮

প্রবাসে বাংলাদেশের রক্তের উত্তরাধিকারী গুণীগন- ৯৬ ,৯৭ ,৯৮ ,৯৯ ।

৯৬ / ব্রিটিশ কিক বক্সিং চ্যাম্পিয়ন রুকসানা বেগম ।






ওয়ার্ল্ড টাইটেল ফাইটের খেতাব জয়ের জন্য কিক বক্সিংয়ে বৃটিশ চ্যাম্পিয়ন মেয়েটি মুখোমুখি হয়েছিলেন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন লুডিভিন লানিয়েরের সাথে । ৩ রাউন্ডের ৯ মিনিটের ফাইটে কয়েকবার এডভান্টেজ নিলেও শেষ পর্যন্ত বিচারকের রায়ে মেনে নিতে হয়েছে পরাজয় । বিশ্বের সেরা কিক বক্সারের মুকুটটি অল্পের জন্য হাত ফস্কে যায় মেয়েটির ।

এই মেয়ে ব্রিটেনের মূলধারার সংবাদ মাধ্যমের ব্রিলিয়ান্ট বেগম খ্যাত রুকসানা বেগম । রুখসানা এক বিজয়িনীর নাম । এক বাংলাদেশী রক্ত ধারীর নাম ।

ব্রিটিশ বাংলাদেশি রুখসানা গত চার বছর ধরে নিজের দখলে রেখেছেন ব্রিটিশ কিক বক্সিং ও মুয়ে থাই চ্যাম্পিয়নের সম্মান । কিন্তু সেই পথচলা খুব সহজ ছিলনা রুখসানার, কিক বক্সিং উচ্চমাত্রার শারীরিক কসরত নির্ভর একটি খেলা । আর এমন একটি খেলায় ব্রিটেনের চ্যাম্পিয়ন রুখসানা বেগম ।

ব্রিটেনে আর দশজন স্বাভাবিক বাংলাদেশির মতোই পূর্ব লন্ডনে বেড়ে উঠা তাঁর লন্ডনের বেথনাল গ্রিন এলাকার একটি ব্যায়ামাগারে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন, খ্যাতনামা প্রশিক্ষক বিল জাডের কাছে থাইল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী মুয়ে থাই শেখার সুযোগ পান রুখসানা ।

রুখসানার প্রথম সাফল্য আসে ২০০৯ সালে । ব্রিটেন জাতীয় দলের হয়ে ব্যাংককে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড অ্যামেচার কিক বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে তৃতীয় স্থান অর্জন করে আলোচনায় আসেন তিনি । সেই থেকে স্বপ্নের পথচলা শুরু; বাড়তে থাকে তাঁর ওপর দেশ ও দশের প্রত্যাশা ।
২০১১ সালে রুখসানা লাটভিয়ায় আয়োজিত ইউরোপিয়ান ক্লাব কাপে সোনা জেতেন ।

সম্প্রতি ব্রিটেনের উইমেনস হেলথ সাময়িকীর প্রতিবেদনে যুক্তরাজ্যের সেরা ফিটেস্ট নারীর মধ্যে উঠে এসেছে রুখসানা বেগমের নাম ।


শখের বশে শুরু করে এখন বিশ্বজয়ের পথে হাটছেন রুখসানা, ব্রিটেন বাঙালির সাফল্য গাঁথায় উজ্জ্বল এখন রুখসানার নাম ।
একবার পরাজয় মানে হেরে যাওয়া নয় । রুখসানা আগামীতে বিজয় মুকুট নিয়ে আসবেন,বিশ্বের দরবারে স্বর্ণাক্ষরে লিখবেন বাংলাদেশের নাম । শুভ কামনা রুখসানার জন্য ।

সুত্র -


৯৭ / যুক্তরাষ্ট্রের ‘এন্ট্রাপ্রেনিউর অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কার প্রাপ্ত মাহফুজ আহমেদ এর প্রতিষ্ঠান ''ডাইসিস'', যার বার্ষিক আয় ৪০০ মিলিয়ন ডলার ।




যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার সেন্টারভিল। বাড়ির ভূগর্ভস্থ অংশে ছোট্ট পরিসরের একটি কক্ষ। সেখানে পাঁচ বন্ধু মিলে চালু করলেন তথ্যপ্রযুক্তির সেবাপ্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানের নাম ডিজিটাল ইন্টেলিজেন্স সিস্টেম। সংক্ষেপে ডাইসিস। সেটা ১৯৯৪ সালের কথা।

এখন সেই ডাইসিস আটটি দেশে খুলেছে ২৬টি কার্যালয়। বছরে আয় ৪০০ মিলিয়ন (৪০ কোটি) ডলারের বেশি। বাড়ির নিচের ছোট্ট পরিসর থেকে এমন বিশ্বময় হয়ে ওঠার নায়ক প্রকৌশলী মাহফুজ আহমেদ।

ডাইসিসের কাজ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সফটওয়্যারের রক্ষণাবেক্ষণ ও হালনাগাদ করা, তথ্যপ্রযুক্তি অবকাঠামো দেখভাল করা এবং দরকার হলে সেখানে কর্মীও সরবরাহ করা। বর্তমানে মাহফুজ প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ও ৮০ শতাংশের মালিক ।

তথ্যপ্রযুক্তি মানুষের জীবনে এনেছে স্বাচ্ছন্দ্য। একই সঙ্গে দিনে দিনে বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলোও তথ্যপ্রযুক্তির ওপর নির্ভরশীল হয়ে উঠছে। বিশ্বের সব বড় বড় বহুজাতিক কোম্পানি তাদের পণ্য, সেবা এবং কর্মীদের খোঁজ রাখার জন্য ব্যবহার করেন নতুন নতুন হার্ডওয়্যার, নেটওয়ার্ক সিস্টেমস ও জটিল সফটওয়্যার। এসব অবকাঠামো এবং সফটওয়্যারের রক্ষণাবেক্ষণ ও হালনাগাদ করার কাজটি প্রতিষ্ঠানের নিজেদের লোক দিয়ে অনেক সময়ই কার্যকর রাখা সম্ভব হয় না। আর এখানেই কাজ করে মাহফুজের ডাইসিস।

ডাইসিসের কর্মীরা অন্য প্রতিষ্ঠানের জটিল সফটওয়্যার দেখাশোনা, তাতে নতুন নতুন ফিচার যোগ করেন। বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান এক্সন মোবিল, মার্কিন গণমাধ্যম সংস্থা টার্নার ব্রডকাস্টিং, বহুজাতিক বিমান সংস্থা ডেল্টা এয়ারলাইনস ও ইউপিএসের মতো প্রায় ৩০০ প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজ করে ডাইসিস। এগুলোর বেশির ভাগই যুক্তরাষ্ট্রের ফরচুন সাময়িকী প্রকাশিত বিশ্বের প্রথম ৫০০টি ধনী প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে। সম্প্রতি ডাইসিস ক্লাউড কম্পিউটিং সেবাও চালু করেছে।

সরকারি কর্মকর্তা মনসুর আহমেদ এবং শিক্ষিকা শামিম মনসুরের দুই সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয় মাহফুজ। তাঁর বয়স যখন ছয় তখনই বাবা মারা যান। নানা সাদিক আহমেদ চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে মাহফুজ সেন্ট যোসেফ স্কুল থেকে এসএসসি ও নটর ডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরশাদের স্বৈরশাসনের সময় টানা বন্ধ ও সেশনজটের কারণে নানা সাদিক আহমেদ চৌধুরী মাহফুজকে পাঠিয়ে দেন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ মেসন বিশ্ববিদ্যালয়ে।

এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৩ সালে তড়িৎ প্রকৌশলে সম্মানসহ স্নাতক পাস করার পরপরই মাহফুজ এক্সন মোবিল কোম্পানিতে সফটওয়্যারের মান নিয়ন্ত্রণ বিভাগে যোগ দেন । সেখানে তিনি স্বয়ংক্রিয় নিয়ন্ত্রণব্যবস্থার একটি কম্পিউটার প্রোগ্রাম লিখে ‘পাঁচজনের কাজ একজন দিয়ে করানোর’ সুযোগ তৈরি করেন।

এর পরের বছরই মাহফুজ গড়ে তোলেন ডাইসিস। সকাল সাতটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত মবিলে চাকরি। তারপর গ্রাহকের কোম্পানিতে মধ্যরাত পর্যন্ত কাজ । এক সাক্ষাৎকারে মাহফুজ বলেছিলেন , ‘১৮ মাস ধরে, আমার স্ত্রীকে দেখেছি কেবল ঘুমিয়ে থাকার সময়’ ।

যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টা, ডালাস, বোস্টন ও ক্যালিফোর্নিয়া শহরে কার্যালয় চালুর পর থেকে তাঁর কোম্পানির আয়-উন্নতি বাড়তে থাকে, সঙ্গে গ্রাহকের সংখ্যাও । ছড়িয়ে পড়েন ব্রাজিল, হাঙ্গেরি, নেদারল্যান্ডস, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও ভারতে । ২০১০ সালে মাহফুজ সঙ্গীদের কাছ থেকে তাদের যাবতীয় শেয়ার কিনে একাই কোম্পানির মালিক হন । পরে তিনি একটি বিনিয়োগ কোম্পানির কাছে ২০ শতাংশ মালিকানা ছেড়ে দেন ।

গড়ে ৩০ শতাংশ প্রবৃদ্ধির কারণে বিশ্বখ্যাত গবেষণা প্রতিষ্ঠান আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়ং মাহফুজ আহমেদকে ২০১৩ সালের ‘এন্ট্রাপ্রেনিউর অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কারে ভূষিত করে। ২০১০ সালে ওয়াশিংটনের ৪০ বছরের কম বয়সী ৪০ জন সফল উদ্যোক্তার তালিকা ‘ফর্টি আন্ডার ফর্টি’তে স্থান পান তিনি। ওয়াশিংটন পোস্টসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন পত্রিকায় তাঁর সাফল্যের কাহিনি প্রকাশিত হয়েছে। গত বছর মাহফুজ জর্জ মেসন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই ট্রাস্টি বোর্ডের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য নির্বাচিত হন।

স্ত্রী সায়মা আহমেদ, দুই কন্যা সানজি ও আনুসকা এবং পুত্র আরেজকে নিয়ে মাহফুজ আহমেদের সংসার।

বাংলাদেশে ডাইসিসের কার্যালয় চালুর ব্যাপারে আগ্রহ আছে মাহফুজের । এ জন্য একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খোলার চেষ্টা করছেন তিনি ।


৯৮ / ডয়চে ভেলের ‘দ্য বেস্ট অব ব্লগস-ববস ’ জয়ী প্রকল্প ''বাংলা ব্রেইল'',প্রধান সমন্বয়ক যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামে কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রাগিব হাসান , যিনি সামহোয়্যার ইন ব্লগের একজন ব্লগার



বিখ্যাত জার্মান বেতার সংস্থা ডয়চে ভেলের ‘দ্য বেস্ট অব ব্লগস-ববস ২০১৪’ প্রতিযোগিতার জুরি পুরস্কার গ্রহণ করলেন রাগিব হাসান । তিনি জার্মানির বন শহরে ‘বাংলা ব্রেইল’ প্রকল্পের পক্ষে এ পুরস্কার গ্রহণ করেন।

‘গ্লোবাল মিডিয়া ফোরাম’-এর উদ্বোধনী দিনে বিজয়ীদের মধ্যে চলতি বছরের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মিসর, ফিলিস্তিন, বাংলাদেশ, ভারত ও ইউক্রেনের দ্য ববস বিজয়ী প্রকল্পের প্রতিনিধিরা পুরস্কার গ্রহণ করেন।

বাংলাদেশের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিশুদের এ পুরস্কার উৎসর্গ করেছেন রাগিব হাসান।

বাংলা ভাষায় ২০১৪ সালে দ্য ববসের ‘সেরা উদ্ভাবন’ বিভাগে বিচারকমণ্ডলীর রায়ে এবং ইন্টারনেট ভোটে পুরস্কার পায় বাংলা ব্রেইল প্রকল্প (http://www.banglabraille.org )। এ প্রকল্পে অনলাইন উদ্যোগের মাধ্যমে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য ব্রেইল বইয়ের ডিজিটাল সংস্করণ এবং অডিও বই তৈরি করা হচ্ছে৷ ওয়েবসাইট ও একটি ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে প্রকল্পটি পরিচালনা করা হয়।

পুরস্কার প্রাপ্তির পর বাংলা ব্রেইলের সমন্বয়ক ও যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রাগিব হাসান বলেন, ‘বাংলা ব্রেইল প্রকল্পের প্রায় তিন হাজার স্বেচ্ছাসেবীর পক্ষ থেকে এই পুরস্কার গ্রহণ করে আমার খুব ভালো লেগেছে। আমাদের কর্মীরা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন নিঃস্বার্থভাবে। এটি তাঁদের কাজের স্বীকৃতি। তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করে বলেন, ‘সবার সাহায্য পেলে এই শিশুদের কাছে আমরা পৌঁছে দিতে পারব জ্ঞানের আলো, এটাই আমার স্বপ্ন।’

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে শুরু হয় বাংলা ব্রেইল প্রকল্প। এতে অনেকেই স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছেন। বাংলা ব্রেইল ছাড়াও এবারের ববসে বাংলাদেশের উইমেন চ্যাপ্টার ও জিরো টু ইনফিনিটি সাইট পিপলস চয়েস পুরস্কার পেয়েছে।

উল্যেখ করা আবশ্যক যে , বাংলা ব্রেইলের সমন্বয়ক ও যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব রাগিব হাসান সামহোয়্যার ইন ব্লগের একজন ব্লগার ।তথ্যটি দিয়ে সহযোগীতে করেছেন , আরেকজন গুণী ব্লগার - আরজুপনি ।

আরও উল্যেখ্য যে , বাংলাব্রেইল এর এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তি উপলক্ষে সামুতে ‘দ্য বব্স’ জুরি অ্যাওয়ার্ড জয় করলো বাংলাব্রেইল প্রকল্প নামে একটি পোস্ট স্টিকি করা হয়েছিল ।


৯৯ / কাতার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত তামিম রায়হান ।




চলতি বছরে কাতার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া ৩৩ জন মেধাবী ছাত্রের হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেন দেশটির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিত্ব ডেপুটি আমির শেখ আবদুল্লাহ বিন হামাদ আলথানি । কাতার জাতীয় কনভেনশন সেন্টারে ৩৮তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে পুরস্কার গ্রহনকারীদের একজন বাংলাদেশী তামিম রায়হান ।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে কাতারের প্রধানমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন নাছের বিন খলিফা আলথানি এবং মন্ত্রি পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা সহ কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক শেয়খ আবদুল্লাহ আল মিসনাদ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগের ডিন ও শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

এবারের সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছয়টি কলেজ থেকে ৩০০ জন অনার্স, ৭৯ জন মাস্টার্স এবং একজন ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন। এই ৩০০ ছাত্রের মধ্যে বাংলাদেশি ছাত্র ছিলেন মাত্র ৭ জন। তামীম রায়হান একমাত্র বাংলাদেশী ছাত্র যে স্বর্ণপদক লাভ করেন। তামিম তার নিজের মেজর সাবজেক্টে (দাওয়া অ্যান্ড মাস মিডিয়িা) প্রথম স্থান অর্জন করেন।

কাতারের সবগুলো পত্রিকা ও টিভি চ্যানেলে অনুষ্ঠানের ব্যাপক প্রচার করা হয়। দেশটির অন্যতম প্রভাবশালী পত্রিকা পেনিনসুলার প্রথম পাতায় স্থান পায় বাংলাদেশি এ ছাত্রের ছবি । তামিমের পিতা ডা. গোলাম হোসেন, সৌদিআরবের মদীনায় কর্মরত চিকিৎসক । মা আমেনা আফরোজ, চারভাই এক বোনের মধ্যে দ্বিতীয় তামিম ।

তামীম একজন কোরআনে হাফেজ , তিনি বাংলাদেশের লালবাগ মাদ্রাসা থেকে দাওরায়ে হাদিস সমাপ্ত করে মাওলানা সনদ লাভ করেছেন ।

উল্ল্যেখ্য, কাতার বিশ্ববিদ্যালয় দেশটির একমাত্র সরকারি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ।


( ২০০৯ সাল । কায়রো বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তৃতা করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা । রাজনৈতিক বক্তব্যের পাশাপাশি নিজেদের কথা বলতে গিয়ে ওবামা বললেন, “আমি কৃতজ্ঞ চিত্তে শ্রদ্ধা জানাই এক বাঙালি প্রকৌশলীকে ------ ''

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যাঁকে কৃতজ্ঞ চিত্তে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সেই কিংবদন্তীকে উপস্থাপনের মাধ্যমে আগামী পর্বে এই সিরিজের শতক পূর্ণ হবে ,আশা করি পূর্বের মতই সাথে থাকবেন। )



আগের পর্বের লিঙ্ক -



মন্তব্য ৭৪ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (৭৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৮

নাজমুল হাসান মজুমদার বলেছেন: +++++++্

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রথম মন্তব্য কারী ও লাইকার নাজমুল হাসান মজুমদার আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।

২| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১২

অগ্নি সারথি বলেছেন: ''ডাইসিস'', যার বার্ষিক আয় ৪০০ মিলিয়ন ডলার । B:-) B:-) B:-)
স্যালুট বস।

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সাথে থাকায় অসংখ্য ধন্যবাদ অগ্নি সারথি ।
ইয়ে স্যালুট'টা কারে দিলেন ? :P

৩| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৬

অগ্নি সারথি বলেছেন: স্যালুট দিসি মাহফুজ আহমেদ রে। আর আপনের লিগ্যা সহস্র ধন্যবাদ কারন খুব কষ্ট করে, অনেক খাটাখাটুনি করে আপনি গুণীজনদের কীর্তিগাথা আমাদের সামনে তুলে আনছেন। :)

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মজাক করলাম অগ্নি সারথি ভাই । :P
''গুণীজনদের কীর্তিগাথা '' তুলে ধরার কারনে যে আপনাদের পুটপ্রিন্ট পাচ্ছি এটা আমার কাছে
স্যালুট এর চেয়ে বেশি । আবার ও ধন্যবাদ জানবেন ।

৪| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৩২

গুলশান কিবরীয়া বলেছেন: আপনার কালেকশন দেখে অবাক আমি । It's a great collection indeed!! রুকসানা বেগম একজন আর্কিটেক্টও এবং সে আর আমি একই ইউনিভার্সিটির ছাত্রী । বেশ গর্ব হচ্ছে তাঁকে নিয়ে :)
আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।


৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৩৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রুকসানা বেগম একজন আর্কিটেক্ট ও এবং সে আপনার একই ইউনিভার্সিটির ছাত্রী জেনে ভাল লাগলো ।

প্রবাসে বাংলাদেশের রক্তের উত্তরাধিকারী গুণীগন এর কোন এক পর্বে গুলশান কিবরীয়া'ও উঠে আসুক এই কামনা করছি ।
শুভ কামনা জানবেন গুলশান ।

৫| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৩৮

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন: অসাধারণ সব ব্যাক্তিত্ব । অনেক ধন্যবাদ এক অনবদ্য সিরিজ শেয়ারে ।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৫১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার কমেন্টে বরাবরই উৎসাহ পাই ।
অনেক ধন্যবাদ কথাকথিকেথিকথন ভাই/বোন :P

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৫১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার কমেন্টে বরাবরই উৎসাহ পাই ।
অনেক ধন্যবাদ কথাকথিকেথিকথন ভাই/বোন :P

৬| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৩৩

ধমনী বলেছেন: প্রথম ছবিটা মেলাতে পারছি না।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রথম ছবিটা রেসার জুবায়েরের ।
লম্বা ব্যাখ্যায় না গয়ে , এক কথায় বলবো , আমি লজ্জিত !!
ধমনী , এবার দেখুন ।

৭| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৪৩

রক্তিম দিগন্ত বলেছেন: বরাবরের মতই চমৎকার পোষ্ট! +

একশো-এর অপেক্ষায় রইলাম।

রুকসানা বেগমের ছবিটায় টাশকি খাইতেছি। বক্সিং এর থেকে বেশি ফর্মুলা ওয়ান ওয়ান লাগে।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:০৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সুপ্রিয় রক্তিম দিগন্ত , আপনি বা ধমনী আরও আগে পোস্টটি পড়লে আমি লজ্জার হাত থেকে বেঁছে জেতাম ।
আপনার ধারনা সঠিক । ছবিটা ফর্মুলা ওয়ান রেসার ট্র্যাকার জুবায়েরের ছিল ।
রুকসানার তিনটা ছবি দিয়ে প্রায়শ্চিত্য করলাম ।

ধন্যবাদ , অনেক ধন্যবাদ ।

৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১:০৮

আরজু পনি বলেছেন:

আরে আপনি তো রাগিব ভাই সম্পর্কে আসল তথ্যই দিলেন না...উনি সামহোয়্যারইন ব্লগেরই একজন ব্লগার !:#P

রাগিব ভাইয়ের সম্মানে পোস্টটা প্রিয়তে নিলাম ।

তামিমের খবরটাও দারুণ লাগলো...লালবাগতো বাসার কাছেই ।

...........
আপনার আগের পোস্টটাতে মন্তব্য মিস হয়ে গেছে...পড়বো কি ! আমি খালি মেয়েটার হাসিই দেখছিলাম বারবার !

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৪৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাগিব সামহোয়্যারইন ব্লগের একজন ব্লগার , তথ্যটা নিঃসন্দেহে চমকপ্রদ ! ভাবতে ভাল লাগছে তিনি আমাদের লোক !

আমার কাছে এ সংক্রান্ত কোন তথ্যসুত্র নাই ।
আপনার অনুমতি প্রাপ্ত হলে তথ্যটা পোস্টে এড করার ইচ্ছা রাখছি ।
আপনাদের কমেন্ট পেলে আনন্দিত হই ,আবার লজ্জাও লাগে ;ক্লেশ স্বীকার করেন বলে ।

শুভ কামনা জানবেন আরজুপনি ।

৯| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ৮:১৪

মায়াবী ঘাতক বলেছেন: এনাদের কপাল ভালো, বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করলেও এনাদের বাংলাদেশে থাকতে হয় নাই। উপরে রুকসানা বেগম তো খুবই ভাগ্যবতী। বাংলাদেশে তো কিক বক্সিং খেলাটাই প্রচলিত না। যাই হোক সবাইকে অভিনন্দন সেই সাথে আপনাকেও।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রুকসানা বেগম তো খুবই ভাগ্যবতী। বাংলাদেশে তো কিক বক্সিং খেলাটাই প্রচলিত না।


বাংলাদেশে কিক বক্সিং এর চর্চা করতে চাইলে তিনি অনেক আগেই গ্রেফতার হতেন । সরকার থেকে বলা হতো , তাকে দেখে মেয়েরা বক্সিং শিখবে , কাউকে ঘুষি মেরে ,মেরে ফেলবে ।
মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে । :P

আপনাকে আমার ব্লগে প্রথম পেলাম । শুভ কামনা জানবেন ।

১০| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:৪৪

কান্ডারি অথর্ব বলেছেন:


যথারীতি +++

দেশের মানুষ দেশে সন্মান না পেলেও বিদেশে ঠিকই সন্মান পায়। কি অদ্ভুত তাই না !!

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৪৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কান্ডারি অথর্ব , সন্মান অনেক পরে ,আমাদের দেশে মেধা সঠিক নার্সিংই পায়না ।

চোখ বন্ধ করে একটু ভাবুন তো !

পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ জীবিত পদার্থ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং বাংলাদেশে জন্মালে , আজিমপুর গোরস্থানে গিয়ে ভিক্ষা করা ছাড়া কোন গতি ছিল ? :P

১১| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৩৯

ধমনী বলেছেন: এবার ঠিক আছে। ভালো লাগা অব্যহত...

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৪৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শুভ কামনাও অব্যাহত ধমনী । :D

১২| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৫৩

হামিদ আহসান বলেছেন: অামাদের লোকদের কথা ....

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:০৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সঠিক বলেছেন হামিদ আহসান ভাই , এরা আমাদেরই লোক , একজনতো একেবারে আমাদের সামুরই লোক ! :)

১৩| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪৫

আরজু পনি বলেছেন:
আপনি নির্দ্বিধায় যুক্ত করতে পারেন...ব্লগাররা অনুপ্রাণিত হবেন ।
রাগিব ভাইয়ের ব্লগ প্রোফাইল থেকে কপি-পেস্ট করলাম ।
...........
আমি রাগিব হাসান। ভুট্টা ক্ষেতের মাঝে বসে আমি গণক মশাইকে পাহারা দিতাম। আর পাহারা দেয়ার তরিকা নিয়ে গবেষণা করতাম। পিয়াঁজ কাটা শেষ চলে এসেছিলাম মায়ানগরে, আর পরে সেখানকার পাট চুকিয়ে এখন থাকি জাদুনগরে।

পেশায় ও নেশায় গণকের মিস্তিরি। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে গণক মিস্তিরি হিসাবে শিক্ষা পেয়ে, পরে ওখানে গণক বানানোর তরিকা নিয়ে বিদ্যাদান করেছিলাম কিছুদিন। এখন পৃথিবীর উল্টা দিকে বসে তারা দেখি। জাদুনগরের পাঠশালায় বিদ্যাদানের অপচেষ্টাও করে বেড়াই এর সাথে সাথে। হিজিবিজি লিখে চলি আমার সাইটের লেখার খাতায় ...

কাজের চেয়ে খই ভাজাতেই মনোযোগ বেশি। পুঁথি লিখতে আপত্তি নাই। পুঁথি পড়তে পছন্দ করি, যদি পাঠশালার পুঁথি না হয়।

রাগিব

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাগিব ভাইয়ের সম্মানে পোস্টটা প্রিয়তে নিলাম ।

পূর্বে জানলে উনার সন্মানার্থে শিরোনামটা উনাকে দিয়েই করতাম ।

রাগিব হাসান এর ব্লগে গিয়ে অনেকক্ষণ ছিলাম , দেখলাম উনি একজন ট্যালেন্টেড মানুষ , খুব মজা করে লিখেন ।

আপনি তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করায় আমার পোস্টটি সমৃদ্ধ হল । শিরোনাম সহ উনার অংশ সম্পাদনা করেছি ।
সময় থাকলে নজর বুলিয়ে যাবার অনুরোধ রইল ।

১৪| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০২

কান্ডারি অথর্ব বলেছেন:


ভাই নিউটন এই দেশে জন্মালে গাছ থেকে আপেল পড়লে আর গবেষণা করার চান্স পেতো না। লোকে তারে পাগল ভেবে এড়িয়ে যেতো।

যাই হোক পোষ্ট এডিট করায় এবার ভাল লাগতেছে খুব। :)

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৪২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাগিব হাসান সামুর ব্লগার জেনে আরেক বার এডিট করেছি । আরেক টু দেখলে খুশি হব ।

১৫| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০৭

সাহসী সন্তান বলেছেন: চমৎকার তথ্যবহুল পোস্ট! অনেক ভাল লাগে আপনার এই সিরিজ পোস্টটা পড়তে! আপনার মাধ্যমে জানতে পারি আমাদেরই কিছু গর্বিত ভাই বোনদের কথা, সেজন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ!



বিঃদ্রঃ- আরো ভাল লাগলো! আরজুপনি আপুর মন্তব্য পড়ে। রাগিব ভাইযে আমাদেরই ব্লগের একজন সদস্য সেইটা আগে জানা ছিল না! আপনার মাধ্যমে আরজুপনি আপুকে ধন্যবাদ চমৎকার এই তথ্যটা জানানোর জন্য......!!

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সাহসী সন্তান , আপনার মন্তব্যে বরাবরই অনুপ্রাণিত হই । আরজুপনির তথ্যটি পোস্টে জুড়ে দিয়েছি ।
উনার কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে রইলাম ।
আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।

১৬| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৫৮

কাবিল বলেছেন: আপনার এই সিরিজ পোস্টটা পড়তে খুব ভাল লাগে। আজকের পোস্টটা রাগিব ভাইয়ের তথ্য জানতে পেরে অনেক ভাল লাগছে।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:১৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাগিব ভাইয়ের তথ্যটি আমি পোস্টে সংযুক্ত করে দিয়েছি ।
মন্তব্যে অনুপ্রাণিত করায় ধন্যবাদ কাবিল ভাই ।

১৭| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:০১

সুলতানা রহমান বলেছেন: রুকসানা বেগম এর কথা জেনে, ছবি দেখে আমি মুগ্ধ।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার নামের সাথেও বেশ মিল আছে সুলতানা !
আপনার সৌজন্যে রুকসানা বেগম এর একটি পোস্টার -

১৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:১৩

হাসান মাহবুব বলেছেন: চমৎকার! এইবার একজন সামুর ব্লগারও পাওয়া গেলো। দারুণ!

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এর পুরো ক্রেডিট আরজুপনি আপুর । তথ্যটি আমার একদম জানা ছিলনা হাসান মাহবুব ভাই ।

১৯| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:২৪

গেম চেঞ্জার বলেছেন: পিলাচ+++++++


কথা হইলো..... এই পোস্টে রাগিব ভাইয়ের একটা মন্তব্য পাইলে খুব ভাল লাগতো.............।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সম্ভবত ব্যস্ততা হেতু উনি বছর খানেক থেকে সামুতে অনুপস্থিত ।
পাঠ , মন্তব্য , প্লাসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ গেম ।

২০| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২৬

ফেরদৌসা রুহী বলেছেন: জেনে ভাল লাগলো উনাদের কথা।

ধন্যবাদ আপনাকে পোস্টের জন্য।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:২৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পাঠ ও মন্তব্যের জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ রুহী ।

২১| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৬

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: সব নামেতেই মন ভরে যায়
চোখে সুখের জলে ভাসান;
এক নামেতো খুশীর জোয়ার
মোদের সামুর রাগিব হাসান।

দেখলে নারী,প্রেমের ফাগুন
ছিঁচকে দিলে দেয় হানা;
অথৈ জলে খাই হাবুডুবু
যেই দেখেছি রুখসানা।

নামের মতোই মিস্টি ভারি
দেখতে ভীষন ............;
কলমা পড়ে দিলুম ভোঁ দৌঁড়
যেই তার ইভেন্ট দেখছি। ;) :P :-B

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রুখসানা জানলে আপনার খপর ছিল !
দৌড় দিয়ে ভাল করেছেন ।
কিক বক্সারদের ঘুষির ওজন জানেন ?
বছর কয়েক আগে ঘুশি মারার সময় এক বক্সারের গ্লাবস খুলে যায় । প্রতিপক্ষ মাথার খুলি উল্টে স্পট ডেথ ।

তবে আপনি যেরকম ছড়ার কারিকর !
আপনার ছড়া / কবিতা শুনে রুখসানার রাগ পানি হয়ে যাবে । :P

২২| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: হায় হায় আমার প্রোপিক কই ? =p~

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৩৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন:
( আমি মাঝে মাঝে সামুতে ঢুকতে পারিনা, অন্য সাইটে সমস্যা হয় না । এটা শুধু আমার সমস্যা কিনা বুঝতেছিনা । )

২৩| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৯

শতদ্রু একটি নদী... বলেছেন: কিক বক্সিং এ দেখি বাঙ্গালীর জয়জয়কার। পোস্টে ভালোলাগা রইলো লিটন ভাই। :)

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:৪৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রুকসানা সুন্দর আছে কিনা সেইটা কইলেন না ?
নাকি কিক বক্সার শুইনা ডরাইছেন শতদ্রু ভাই ? :P

২৪| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:০৫

রক্তিম দিগন্ত বলেছেন: আগের ছবিই ভালা আছিলো ভাই!!!

এখন দেইখা তো প্রেমে পইড়া গেলাম!!! বক্সারের প্রেমে পড়লে তো দাঁত-মুখ ভোঁতা হইয়া যাওয়ার সম্ভবনা!!!

কামডা ঠিক হইল না ভাই!!!!!

/:)

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:৫২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রক্তিম ভাই , বক্সারের প্রেমে পড়েন আপত্তি নাই , তবে হেলমেট টা মাথা থেকে খুলবেন না । =p~

২৫| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:২৪

আরজু পনি বলেছেন:

আমি আজ কয়েকবার দেখে গেছি কী জবাব দিলেন, অথচ নোটিফিকেশন কীভাবে মিস হলো তাই ভাবছি B:-)

রাগিব ভাইয়ের ব্লগে আপনার পোস্টের লিঙ্ক দিয়ে এসেছি ।
আশা করি কখনো উনার চোখে পড়বে এই পোস্ট ।
ফেসবুকে উনাকে নিয়মিত অনুসরণ করতাম ।
কখনো আপনার এই পোস্ট আমার কাজে আসবে হয়তো...
আপডেট দেখে ভালো লাগছে ।

আর সবাই রুকসানার ব্যাপারে বলছে, আমি চুপ করেই থাকি । 8-|

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৫০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার প্রদেয় লিঙ্ক ধরে আমিও রাগিব ভাইয়ের ব্লগে গিয়েছিলাম ।
বাংলায় উনার চমৎকার দখল ! লিখেনও খুব মজা করে !
আপনার কমেন্ট দেখে এসেছি , আন্তরিকতায় আবিভুত !


(অন্য সাইটে সমস্যা হয়না শুধু সামুতে ঢুকতে পারিনা, ,তাই রিপ্লাই দিতে দেরি হয়।)

২৬| ০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৭

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: মাহফুজ আহমেদ এবং রাগিব হাসানের কথা জেনে ভালো লাগলো, চলতে থাকুক সুন্দর এই সিরিজটি। +++

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:২৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পাঠে মন্তব্যে অনুপ্রাণিত , আজকে শততম পর্ব পোস্ট করলাম । পাঠের আমন্ত্রন জানিয়ে রাখছি ।
আপনাকে ধন্যবাদ বোকা মানুষ বলতে চায় ।

২৭| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৪৪

রিকি বলেছেন: পোস্টে বরাবরের মত এত এত ভালো লাগা রইল। আজকে কফি খাব না---চা-ই দেন !!! কিন্তু থাইল্যান্ডের দিয়েন না যেন!!! :(

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আজ বৈঠক খানা চেঞ্জ হয়ে গেছে আপু ! =p~
আজকের পোস্টে আসেন , চা কফি যা মর্জি ---- =p~ =p~

২৮| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন ,



যথারীতি উৎসাহব্যঞ্জক ।
একজন সতীর্থ ব্লগারের নামটি দেখে গর্বে বুকটা ভরে উঠলো ।

১২ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:১৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ আহমেদ জী এস ভাই ।

২৯| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৭:০৬

রাগিব বলেছেন: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। আসলে অনেকদিন সামু ব্লগে আসা হয় না, যদিও বছর দশেক আগে খুব নিয়মিতভাবে লিখেছি, বাংলা ব্লগিং শুরুই করেছি এখানে। ভালো থাকুন।

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাগিব ভাই , আপনি সামুর একজন ব্লগার , এই তথ্য আমার জানা ছিল না । তথ্যটি দিয়ে আমার পোস্টকে সমৃদ্ধ করেছেন
ব্লগার - আরজুপনি ।
আপনার কমেন্ট প্রাপ্তিতে সন্মানিত বোধ করছি ।
শুভ কামনা জানবেন ।
আরজুপনি'কেও ধনবাদ।

৩০| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৭:০৭

রাগিব বলেছেন: বাই দ্য ওয়ে, বাংলাব্রেইলের পাশাপাশি আমার আরেকটা কাজ হলো view this link

১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৩৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: দুদিনে ''শিক্ষক'এ অনেক সময় কাটিয়েছি ।

২০১৩ গুগল রাইজ এওয়ার্ড

২০১৩ ISIF Award

২০১৩ দ্য বব্স ইউজার এওয়ার্ড

২০১৪ ইন্টারনেট সোসাইটি (ISOC) কমিউনিটি গ্রান্ট । আপনার ইত্যাকার অর্জন সম্পর্কে জেনে চমৎকৃত হয়েছি ।
শিক্ষক'এ অসাধারণ কাজ করছেন রাগিব ভাই । পেজটি বুকমার্ক করে রাখলাম ।

শুভ কামনা জানবেন ।


৩১| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৬

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: মুগ্ধ!

আর রাগিব ভাইয়ের বিস্তারিত জেনে গর্ব অনুভব করছি। এমন একজন গুনি লোকের সাথে ব্লগিংয়ের স্তৃতিও অসাধারন হবে বলাই বাহুল্য!!!

+++++++++++++++

১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আর রাগিব ভাইয়ের বিস্তারিত জেনে গর্ব অনুভব করছি। এমন একজন গুনি লোকের সাথে ব্লগিংয়ের স্তৃতিও অসাধারন হবে বলাই বাহুল্য!!!
সহমত ভৃগু ভাই ।
প্লাসের জন্য ধন্যবাদ জানবেন ।

৩২| ১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৩২

মনযূরুল হক বলেছেন: তবে রাগিব হাসান-এর একটা নিক নেম ছাড়া কোনো ব্লগপোস্ট খুঁজে পেলাম না..

১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৩২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মনযূরুল হক ভাই , আপনি উনার নিকে ক্লিক করে উনার ব্লগে যেতে পারেন ।
তাছাড়া উনি উনার আরেকটা ব্লগের লিঙ্ক দিয়েছেন , চমৎকার কিছু কাজ দেখতে ওখানেও যেতে দেখতে পারেন ।
আপনাকে ধন্যবাদ ।

৩৩| ১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৮

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: কারণ ১৯১৯ সালে আইনস্টাইনের প্রথম স্ত্রী মিলেভা মারিচের সাথে তার বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এর আগের ৭ বছর ধরে আইনস্টাইন তাঁর কাজিন এলসার সাথে পরকীয়া করছিলেন। বিবাহবিচ্ছেদের শর্ত ছিলো, খোরপোশের টাকা দেয়ার বদলে আইনস্টাইন যদি ভবিষ্যতে নোবেল পান কখনো, পুরা টাকাটা মিলেভা মারিচ নিয়ে যাবেন।

আহারে মরনডার লগে যদি এই কনটাক্টে আইবার পারতাম.............আহহহহাআআআআ :P

১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কি করি ভাই বয়স তোমার সবে মোটে ষাট
এক্ষুনি মরবে কেন ? ষাট বালাই ষাট !

ঘুষি খেয়ে মর যদি পাবে কাড়ি কাড়ি
ওপারেতে করতে পারবে গাড়ির সাথে বাড়ি ।

তোমার সাথে আমার ভায়া অলিখিত চুক্তি
আধেক মোরে দিয়ে যেও , তবেই তোমার মুক্তি =p~ =p~






৩৪| ১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৮

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: এতো বোকা কেনো তুমি
বুঝলেনা কথাকটি;
এমরন মৃত্যূ নয়
আসলে শশুরের বেটি ;)

২০ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শশুরের বেটি বলে
বুঝাচ্ছেন শ্যালিকা
ভাবি ঠিকই জানে সব
নন তিনি বালিকা ! ;)

৩৫| ২০ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:২২

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: দুষ্টের শিরোমনি
নোয়াখালির সুলতান;
শালী নিয়ে খাও তুমি
শেয়ারিং এ মিঠা পান।;)

২১ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: একটা কথা বলি ভায়া
শুনতে লাগবে কটু ,
নিজের দোষটা পরের ঘাড়ে
দিতে তুমি পটু ! :-P

৩৬| ২১ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:১০

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: ধ্যাৎ ভায়া কি যে বলো
মাঝে সাঝে টুকিটাকি;
এছাড়া চামে চামে
শালিটাকে বউ ডাকি। :P :-B ;)

২২ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৫২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন:

বউএর সাথে শালী'টাকে
পেয়েছো কি ফ্রি ?
দেখতে বুঝি বউয়ের চেয়ে
শালীটা সুশ্রী ? :P

তাইলে এক কাজ কর
শালীকে পরাও টায়রা ,
আজ থেকে তুমি আমি
হয়ে গেলাম ভায়রা । :-B

নইলে আমার সন্দেহ হবে
তুমি বিরাট লুল !
ভাবীর কানে তুললে তোমার
ছিঁড়বে মাথার চুল ।। ;)

৩৭| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:৫২

আরজু পনি বলেছেন: !:#P

রাগিব হাসান আমার পোস্টে কমেন্ট করে গেছেন ।
যত ভারী গাছ তত নুয়ে পড়ে যেনো...।

উনার বই অথচ উনি নিজেই দিয়ে গেলেন তাঁর তথ্য ।
এই ব্যাপারটা আমার কাছে অভাবনীয় । আমি বইয়ের এই পোস্ট করে অনেক অদ্ভুত অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। কখনো সুযোগ পেলে তিতা, টক, ঝাল, মিষ্টি অভিজ্ঞতা শেয়ার করবো ।

আপনার আন্ডারলাইন করা অংশটুকু নিলাম ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.