নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

চমকিয়া উঠে মোর ধ্যানের কৈলাসে মহামৌন যোগীন্দ্র শিব

হিজ মাস্টার ভয়েস

ভুল করবার অধিকার

হিজ মাস্টার ভয়েস › বিস্তারিত পোস্টঃ

ইন্দিরা গান্ধীর হাত ঘড়ি ও জিয়াঃ

১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:২৯



মুক্তিযোদ্ধা জিয়া, প্রেসিডেন্ট হবার কিছুদিন পর মিসেস গান্ধীর আমন্ত্রণে স্বপরিবারে ইন্ডিয়া সফরে যান। স্বাধীনতার ঘোষক জিয়া বনাম ৭১ এর প্লে মেকার ইন্দিরা'জীর আলোচনা দেখতে উদগ্রীব ছিলেন তৎকালীন রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা।


জিয়ার শাষনে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রভাব হারানো ইন্ডিয়ান প্রধানমন্ত্রী খুব ভালভাবে জানতেন রাষ্ট্রের প্রতি জিয়ার ডেডিকেসন ও সততার কথা। জিয়ার শাষনে রাষ্ট্র ভারত ক্ষতিগ্রস্থ হলেও অক্সফোর্ড স্কলার ইন্দিরা গান্ধীর ব্যক্তিগত মুগ্ধতা ছিল জিয়ার সততা ও দেশপ্রেমের প্রতি।


ইন্দিরা জানতেন রাষ্ট্রীয় উপহারের সব টুকুনই বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় সংগ্রহশালাতে জমা হবে। ব্যক্তি #জিয়া কোনটাই নিজ জিম্মাতে নেবেন না। তাই অফিসিয়াল ডিনার প্রগ্রামের পর সম্পূর্ণ অনানুষ্ঠানিক পরিবেশে #ইন্দিরা গান্ধী জিয়াকে একটি ঘড়ি উপহার দিলেন। আরো তিনটি ঘড়ি নিজের হাতে বেগম জিয়া, পিনো ও কোকো'র হাতে পড়িয়ে দিলেন। বললেনঃ

'লিসেন জিয়া, এগুলো রাষ্ট্রীয় নয়, আমি একান্ত ব্যক্তিগত ভাবে সংগ্রহ করেছি এবং খুব ব্যক্তিগত ভাবে ঘড়ি তিনটি তাদের উপহার দিলাম। ঢাকাতে ফিরার পরেও এগুলো ওদেরই থাকবে, ওরা ব্যাবহার করবে'।

ঢাকাতে ফিরে যথারীতি নিজের উপহার পাওয়া ঘড়ি রাষ্ট্রীয় #সংগ্রহশালাতে জমা দিয়ে ব্যাস্ত দিন শুরু করলেন জিয়া। পিনো, কোকো ছুটি শেষে নতুন ঘড়ি হাতে স্কুল যাত্রা শুরু করল।

মাস খানিক পর হটাৎ পুত্রদ্বয়ের হাতে দেখতে পেলেন সেই ঘড়ি। সাথে সাথে হুংকার ছাড়লেন প্রেসিডেন্ট জিয়া। বেগম জিয়াকে জিজ্ঞাস করলেন এই #ঘড়ি বাড়িতে কেন? বেগম জিয়া স্মরণ করিয়ে দিলেন ইন্দিরা জী'র ব্যক্তিগত উপহার ছিল এগুলো..

রুদ্রমূর্তি ছেড়ে মূহুর্তে স্মিত হাসলেন পুরুষ জিয়া, বললেন এই রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট না হলে কি ব্যক্তিগত উপহার গুলো পাওয়া যেত বলতো?

বেগম জিয়া যা বুঝার বুঝে নেন। নিজের সহ তিনটি হাত ঘড়ি প্যাকেট করে তুলে দেন
Zia: The Patriot - দ্যা প্যাট্রিয়ট এর হাতে..

[sb]https://dminefield.blogspot.com/2019/05/blog-post_23.html?m=1

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


এখনো হয়তো, কাশিমপুরে বেগম জিয়ার সাথে ছেলেদের ভবিষ্যত নিয়ে আলাপ আলোচনা করেন জেনারেল জিয়া; ইণ্দিরাও হয়তো আসেন সময় করে।

২| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৭:৪৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনার লেখা ২ বার প্রকাশিত হয়েছে, আপনি একটাকে সরানোর কথাও ভাবেননি।

৩| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৭:৫২

ইমরান আশফাক বলেছেন: ইণ্দিরা গান্ধী জিয়াকে একটি ঘড়ি উপহার দিলেন। আর তিনটি ঘড়ি নিজ হাতে বেগম জিয়া, পিনো ও কোকোর হাতে পড়িয়ে দিলেন।

প্রশ্ন: পিনো ও কোকো কি রাষ্ট্রিয় খরচে দিল্লি গিয়েছিল প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডির সাথে?

৪| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৮:০৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
This is only story. Fairy tales.

৫| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:১০

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: কামারের দোকানে কোরান পড়ে লাভ নেই ভায়া

যারা চেতনার নামে গণতন্ত্র হত্যাকে বৈধ ভাবে
মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে স্বৈরাচারিতাকে প্রতিষ্ঠিত করে..
তাদের এবং তাদের সমর্থকদের কাছে সত্য বড্ড তেতো! তারা সব দেখে শুধু আয়ানাতে নিজেদের দেখে না।

প্রত্যেকেই তার কর্মগুনেই বেঁচে থাকে। ভাল বা মন্দ!
হিটলারো বেঁচে আছে, ঘৃনায়
স্বৈরাচারিরা যতই দম্ভ দেখাক-পরিণতি তেমনি।

দু:খ জিয়ার সন্তানগুরো পিতার আদর্শকে ধরে রাখতে পারলো না।

৬| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৪০

রাজীব নুর বলেছেন: জিয়া উর রহমান সৎ ছিলেন। এটা সত্য।

৭| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:১২

যাযাবর জোনাকী বলেছেন: কিঞ্চিত ক্ষমতার লোভ থাকলেও জিয়াকে দেশপ্রেমিক মনে করি।

৮| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:৫৬

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
একই লেখা দুইবার কেন?
প্রথম পাতায় অন্যদের সুযোগ
দেবার জন্য একটি মুছে দিন।

জিয়াউর রহমান কি ছিলেন সে
বিষেয়ে এখন গবেষণার আবশ্যকতা
নাই। মুসলমান হিসেবে তার আত্মার
শান্তি কামনা প্রত্যেক মুসলমানের কর্তব্য।

৯| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: কামারের দোকানে কোরান পড়ে লাভ নেই ভায়া

উপমাটা নতুন শুনলাম।

১০| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:২৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রেসিডেন্ট জিয়ার রুহের মাগফেরাত কামনা করছি।

১১| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:৩৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: খালেদা জিয়া বাহিরে থাকলে আপনার বিরুদ্ধে ও যেখান থেকে লেখাটা নিয়েছেন তার বিরুদ্ধে মামলা করতো। এক জন্মদিনের জ্বালায় আজ উনি কয়েদি আপনাদের এসব কল্পকাহিনর জন্য উনাকে মাশুল দিতে হয়, আপনাদের কিছুই হয়না।

১২| ১৮ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১২:৫০

অখ্যাত নবাব বলেছেন: মেজর জিয়াউর রহমান ভালো লোক ছিলেন! বিভিন্ন কবি'র ভাষায় এবং গল্পে পড়েছিলাম। যদিও সেগুলো বর্তমানে নিষিদ্ধ।
আমি জানি এর জন্য স্বয়ং খালেদা জিয়া এবং জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠিত দল বিএনপি দায়ী।
====
এবং বর্তমানে শেখ মুজিবর রহমানের বেশ জয়জয়কার। আমরা সবাই জানি, একদিন এই শেখ মুজিবর রহমান এর নাম নেওয়াও বাংলাদেশে নিষিদ্ধ হয়ে যাবে। (এটা একবার প্রমাণিতও হয়েছিলো)।

যাইহোক!
লোকে বলে, ভালো মানুষেরা বেশীদিন বেঁচে থাকে না। তেমনি বর্তমানে সত্য ইতিহাসও বেঁচে থাকে না।
দোয়া করি, তাহাঁরা ওপারেই ভালো থাকুক।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.