নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আসলে স্বার্থের পৃথিবীতে কেউ আপন নয় ।

ইসিয়াক

একজন অতি সাধারণ মানুষ ।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

দুরন্ত কৈশরের দিনগুলোতে অশান্ত যৌবনের বিশৃঙ্খল ব্যবহার এবং ভিডিও মোবাইলের প্রয়োজনীয়তা

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৭:৪৩


আজকাল অবসরের বিকালগুলো সামুতে কাটাতেই ভালো লাগে। অচেনা এবং অদেখা মানুষগুলোর প্রতি কেমন যেন টান চলে এসেছে ।যাদের সাথে আমার চেনা নাই জানা নাই ।কোনদিন দেখা হয়নি।আবার কোনদিন হয়তো দেখা হবেও না ,তবু মানুষগুলোর প্রতি কি রকম এক ভালোবাসার টান জন্মেছে । ভাবতেই অবাক লাগে ।এই ভালোলাগায় মাঝে মাঝে বিভ্রাট ঘটায় বিদুৎ ।তখন যা রাগ হয় যে কি বলবো।
যাহোক এরকম এক বিকালে বসে আছি জানালার ধারে । বিকাল বলা ভুল শেষ বিকাল বলতে হবে।আমি থাকি চারতলাতে আশেপাশে দুদিকে বিল্ডিং থাকলেও সামনে বড় রাস্তা আর পেছনে দোতলা বাড়ি । এ বাড়ির ছাদটা বেশ নিরিবিলি । এবাড়িতে লোকজন মনে হয় ছাদে খুব একটা ওঠেনা। ফাঁকাই থাকে। আমি এই দিকের জানালা দিয়ে আকাশটা দেখি। এই আকাশ দেখেই অনেক কবিতা আমি কিভাবে কিভাবে যেন লিখে ফেলেছি। যদিও সেগুলো কবিতা কিনা তা আমি জানি না।যা হোক পোষ্টটাকে চুইংগামের মতো টেনে বাড়ানোর কোন মানে হয় না।যা বলছিলাম সেদিন বসে আছি। একটু ঝিমুনি মতো এলো, দেখি হঠাৎ করে গোটা পাঁছ ছয় ছেলে ক্যারাম বোর্ড গুটি নিয়ে ছাদে হাজির।দ্রুত হাতে সব সাজিয়ে খেলতে লাগলো ক্যারাম। এক পাশে এক ঢ্যাঙা মতো চোয়াল তুবড়ানো ছেলে মনে হলো মোবাইলে ব্রাউজ করছে।ওপাশ থেকে এক মোটা হোদল কুতকুত টাইপের ছেলে জানতে চাইলো ।
-পেয়েছিস ।
-দাড়া vpn দিয়ে ঢুকতে হবে । সময় নেবে।
-তাড়াতাড়ি কর ।আটটা বাজলেই কিন্তু বাবা মা চলে আসবে।
-পাঁচ মিনিট সময় দে দোস্ত ।আমি এসব ব্যাপারে হেভী এক্সপার্ট। পি এইচ ডি বলতে পারিস।
ইতিমধ্যে আজান দিয়ে দিয়েছে । ক্যারাম বাদ দিয়ে অনতি বিলম্বে সবাই গোল হয়ে মোবাইলে চোখ রাখলো । চোখের পলক আর পড়েনা যেন।তারপর অদ্ভুদ সব আচরন আর নানা শারীরিক কসরৎ চলতে লাগলো । বলাবাহল্য যে তার সবগুলোই অশ্লীল।
যে কেউ একটু আগ্রহ নিয়ে খেয়াল করতে বুঝতে পারলাম ওরা কি করছে। আমার গাঁ একটু ঘিনঘিন করে উঠলো । এইটুকু টুকু বাচ্চারা থ্রি এক্স মুভি দেখছে। আর আধার আরো ঘন হতেই...................।পাঠক বুঝে নেবেন। আমার পক্ষে আর লেখা সম্ভব নয়।লিখতে গেলে 3x gay movie হয়ে যাবে।এদের ভবিষ্যত কি তা ভবিষ্যত ই বলে দেবে।
ছোট ছোট বাচ্চাদের হাতে টাচ ভিডিও মোবাইল দেওয়ার আগে অভিভাবকগণ কি একটু ভেবে দেখবেন

মন্তব্য ১৬ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:০০

Naseer Ahmed বলেছেন: বিদ্যুৎ বড্ড বেমানান, ঠিক দরকারের মূহুর্তে পাওয়া যায়না। তবে আমি বহির্বিশ্বে থাকার কারনে অনেক বছর লোডশেডিং নামক শব্দটা মুখে নেওয়ার প্রয়োজন পড়েনি।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৩৫

ইসিয়াক বলেছেন: আপনাকে আমার ব্লগে স্বাগতম।আমার লেখা পড়ছেন এজন্য আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি।
অনেক ধন্যবাদ ।
শুভসকাল ।

২| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৪০

জগতারন বলেছেন: আমি আসিয়াছিলাম আপনার ব্লগ বাড়ী। ভালো আছেন ও ভালো থাকবেন কামনা করি। এবার আগড়ুম-বাগড়ুম বাদ দিয়া সংসারী হউন। মনে শান্তি পাবেন। যথা উপযুক্ত বহুয়া ছাড়া জীবন অর্থহীন।
প্রচলিত কথা;
যার নাই বউ,
তার নাই কেউ।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৪২

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ

৩| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৪৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: কর্তৃপক্ষের অবস্থায় রাস্তায় নোংরা থাকতেই পারে। পথচারীর উচিত নোংরা এড়িয়ে চলা। এরপরেও যদি জুতোতে লাগে, সাবধানে থাকতে হবে যেন গায়ে না লাগে। তাই বলে গোটা রাস্তা পরিষ্কার করার দায় পথচারীর নয়। আবার নোংরার দুঃখে কান্নাকাটি করে ঘরে বসে থাকাও কাম্য নয়।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৪৯

ইসিয়াক বলেছেন: ইদানিং আমার বেশ কিছু ষ্টুডেন্টের মোবাইলে খারাপ ভিডিও দেখার আসক্তি আমাকে বেশ ভাবিয়ে তুলছে।
ভালো ভালো ছাত্রগুলো সব ভুল পথে চলতে শুরু করছে। একজন আরেকজনকে নষ্ট করছে। এসব নিয়ে ভাবার সময় এসেছে মনে হয়।

৪| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:০৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: নিশিদ্ধ আকর্ষণ বোধ করতে বাবা মায়ের ভুমিকাই সবচেয়ে বেশি। তাই বাবা মায়ের সচেতনতা জরুরি।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:১৫

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ

৫| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:১০

রাজীব নুর বলেছেন: বাবা মার উচিত যেহেতু তারা সন্তান দুনিয়াতে এনেছে, তাই তাদের প্রতি প্রতিটা মুহুর্ত খেয়াল রাখা।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৬

ইসিয়াক বলেছেন: সহমত । ধন্যবাদ।

৬| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:১২

রাজীব নুর বলেছেন: এখনকার ছেলে মেয়েরা অনেক স্মার্ট। আমার আমলে নেট, মোবাইল ছিল না।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৭

ইসিয়াক বলেছেন: আপনার মতো করে ব্লগিং করার চেষ্টা করছি । অন্য রকম কিছু।
হচ্ছে কিনা কে জানে.............।সত্যি সত্যি ভয়ে ভয়ে আছি।

৭| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৮

সাাজ্জাাদ বলেছেন: প্রযুক্তির উপর উপযুক্ত শিক্ষা, এর যথাযথ ব্যাবহার আর এর সীমাবদ্ধতার উপর আলোকপাত না করে ইন্টারনেট একেবারে সহজলভ্য করে দেয়ায় এর কুফল সমাজ পাচ্ছে। এই কারনেই সমাজে ধর্ষণ অনেকাংশে বেড়ে গেছে।
আমাদের বুঝতে হবে, এগুলো কিন্তু পরস্পরের সাথে সম্পর্কযুক্ত।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: সঠিক বলেছেন ভাই।
ধন্যবাদ

৮| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: আপনাকে শুধু একটা কথাই বলি, মনের সব কথা বুকের মধ্যে জমিয়ে না রেখে শুধু লিখে যান। মন ভরে, প্রান ভরে শুধু লিখে যান। কেউ পড়লো, কে না পড়লো- তা নিয়ে মোটেও ভাববেন না।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৩

ইসিয়াক বলেছেন: আমিও তাই ভেবেছি। এতে মনটা হালকা হয়।
ধন্যবাদ

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.