নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি তো আমিই। একজন গল্প লেখক, সমাজকর্মী ও সামু-র একজন ব্লগার। আর এর চেয়েও বড় পরিচয় হলো আমি একজন মানুষ। আমার সম্পর্কে আরো জানতে - www.facebook.com/YourNeels

সজিব আহমেদ আরিয়ান

অতীত আর ভবিষ্যত নিয়ে কখনো ভাবি না। অতীত নিয়ে ভেবে কোন লাভ নেই কারণ সেটা আর ফিরে আসবে না আর ভবিষ্যত নিয়ে ভাবি না কারণ সেটা আমার জীবনে আসবে কিনা তা কেউ জানে না, তাই যা করবো আজই। সর্বদা যা করবো বর্তমান পরিস্থিতি দেখে।

সজিব আহমেদ আরিয়ান › বিস্তারিত পোস্টঃ

আবারও কি পিছিয়ে যাবে জেএসসি পরীক্ষার তারিখ? ; এটা কী ধর্মঘট নাকি সাধারণ মানুষ ও শিক্ষাথীদের দুর্ভোগ?

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২২



ধর্মঘট!.....ধর্মঘট!!.....ধর্মঘট!!!

নভেম্বর মাস মানেই জেএসসি ও জেডেসি পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা । এবছরেও তার ব্যাতিক্রম নয়৷
কিন্তু সাথে আছে এক নতুন সমস্যা সেটা হলো আসন্ন জাতীয় নির্বাচন। ছোট থেকে বড় সবার মাঝেই আছে তার ভয়ভীতি।
দেশ এখন উত্তপ্ত।
চারিদিকে কিছুটা থমথমে পরিবেশ বিরাজমান প্রভাবশালী কিছু কিছু লোকের জন্য।

তাতে শিক্ষা বোর্ডের কী যায় আসে???

তারা তাদের পরীক্ষা যথাসময়েই নিবে এতে করে কারো কোন সমস্যা বা মাথা ব্যাথা থাকার কথা নয়।
আচ্ছা এইরকম একটা পরীক্ষার মৌসুমে রাজনৈতিক দলগুলো কী একটু স্থির হতে পারে না???

রাজনৈতিক দল স্থির হলে আবার এখন চেতলো শ্রমিকরা ( ড্রাইভার)। পরীক্ষার মৌসুমে তারা করছে ধর্মঘট। যেখানে এক কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা অন্য দূরবর্তী কেন্দ্রে যেমন ঢাকা উত্তর বাড্ডার একটা স্কুলের পরিক্ষার কেন্দ্র হচ্ছে আজীমপুরে। এখন শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে এমনিই অনেক সমস্যা পোহাতে হচ্ছে। সকাল ১০ টায় পরীক্ষা শুরু কিন্তু যাদের পরিক্ষার কেন্দ্র এইরকম দূরে যে তাদের বাসা থেকে বের হতে হচ্ছে সকাল ৬টা বা ৭ টার দিকে। সকালে উঠে একটু মেমোরি সেট করবে নাকি বাসের জন্য যুদ্ধ করবে??? সাহেবদের কাছে প্রশ্ন!

এই রবিবার ধর্মঘটের কারণে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে জুনিয়ার স্কুল সার্টিফিকেট-এর পরীক্ষার্থীদের ইংরেজি পরীক্ষা। যাক কোন সমস্যা নেই কিন্তু দিলো তো দিলো কোন দিন শুক্রবার???

শুক্রবার কিশোররা নামাজ পড়বে নাকি রেস্ট নিবে নাকি আবার বাসের জন্য দৌঁড়াবে???

যাক তাও মানলাম কিন্তু পরীক্ষায় ফেল করলে যে একটা কিশোর বা কিশোরী একটা বছর পিছিয়ে যাবে তার দায়ভার কে নেবে? অনেকে বলতে পারেন কেনো ফেল করবে কেনো???

আচ্ছা বলেন তো আপনি যখন শিক্ষার্থী ছিলেন তখন আপনার কাছে সবচেয়ে কঠিন বিষয় ছিলো কোনটি - গণিত, বিজ্ঞান নাকি ইংরেজি???

অনেকের কাছে হয়তো সবগুলোই কঠিন। তাহলে ভাবুনতো একটা অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলে-মেয়েদের এই তিনটা পরীক্ষাই যদি পরপর পরে তাহলে তার উপর কী পরিমাণ ম্যান্টাল প্রেসার যায়?! আর জীবনে প্রথমবার কোন বড় একটা বোর্ড পরীক্ষা হয় যদি সেটা তাহলে কিছু নাহলেও তার মধ্যে একটা ভয় কাজ করবেই এটাই স্বাভাবিক।

পরে ফেল করলে কাক্কু আবার বলবে, ' আপনারা পাশের হার দেখিয়েন না শিক্ষার হার দেখেন '। কিন্তু কিভাবে দেখবো আমাদের তো চোখ বন্ধ। দেখতে গেলে যে চাকরি থাকবে না।

তাহলে কোন হিসেব করে এইরকম একটা রুটিন করা হলো??? আর কেনোই বা এইসময় এই ধর্মঘট??? সরকার না করলে কি এটা পিছিয়ে দেওয়া যেতে না???

উপরোক্ত কথাগুলো কিছু জেএসসি পরীক্ষার্থীদের কথা ও ক্ষোভ শুনে লেখা হয়েছে। কথাগুলো শুনে আমি প্রথমে বেশ অবাক হয়েছিলাম কারণ মাত্র জেএসসি দেওয়া শিক্ষার্থীদের কাছে যে এমন কঠিন কিছু শুনবো কখনও ভাবি নি। অতীতের কথা স্মরণ করে তাদের মনে এখন একটাই শুধু ভয় আবারও যদি হয় কোন হরতাল কিংবা ধর্মঘট তবে আবারও কী পেছাতে পারে পরিক্ষা?

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৬

আমিই রানা বলেছেন: সত্যিই তো, তাতে শিক্ষা বোর্ডের বা কর্তা ব্যক্তিদের কি আসে যায়!!!

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:১৭

সজিব আহমেদ আরিয়ান বলেছেন: তাদের একটাই কথা, ' I need cash ' .

২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৯

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: কি আর বলার।এমনি হয়ে আসছে অনেক আগে থেকেই আরও হবে।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:২১

সজিব আহমেদ আরিয়ান বলেছেন: হুম মনে আছে ২০১৩ সালের কথা বরিশালে একদিনে দুই পরীক্ষা হয়েছিলো....আরো হবে তাতে তাদের কী?

৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৯

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: এসবে ছাত্রদের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে, অনার্সের পরীক্ষাও নাকি পেছাইছে!

এটা তো ছাত্রদের মনস্তাত্ত্বিক দুর্বলতা বাড়িয়ে দেয়!

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৩৯

সজিব আহমেদ আরিয়ান বলেছেন: কথা সত্য।

৪| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: গত দশ বছরে বাংলাদেশের লেখা পড়ার মান অনেক কমে গেছে।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫৩

সজিব আহমেদ আরিয়ান বলেছেন: অনেক বেশি

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.