নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ব্লগের স্বত্বাধিকারী সামিয়া

সামিয়া

সৎ, সাদাসিধা মানুষ। একটু স্বাধীন টাইপ। পড়তে ভাললাগে, লিখতে ভাললাগে, ছবি তুলতে ভাললাগে, মানুষের মুখে হাসি দেখতে ভাললাগে।

সামিয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

অভিভাবকদের মাস্ক পড়া বাচ্চার মুখে মাস্ক নেই

২৯ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:০৮




অনুমান করে বোঝা যায় কেউ শিশুটির মা, খালা, বোন, ভাই বাবা, নানা নানী, দাদা দাদী, তারা প্রত্যেকে মুখে মাস্ক পড়ে হাতে গ্লাফস লাগিয়ে মার্কেটে রাস্তায় হেঁটে চলে বেড়ালেও সাথের শিশুটির কোন প্রোটেকশন না থাকলেও সাথে থাকা মা বাপ ভাই বোন নিশ্চিন্ত, যেন তাদের প্রোটেকশই বাচ্চার প্রোটেকশন, হ্যান্ড গ্লাফস মাস্ক তারা পড়েছেন কাজেই বাচ্চার পড়া হয়ে গেছে।

এই অসতর্ক চলাফেরার কারন হতে পারে শিশুটি মাস্ক পড়তে চায় না, কিংবা উনার পড়ার মতন কিড মাস্ক বাসায় নাই। উনি বাবা মায়ের আত্মীয় পরিজনের সাথে বাইরে বের হবার জন্য অতিরিক্ত লাফালাফি করেছেন, যে কারনে তার পরিবারের লোকজন তার প্রোটেকশন ছাড়াই বাইরে বের করতে বাধ্য হয়েছেন। আবার এইটাও একটা সম্ভাবনা যে বাসায় কার কাছে রেখে আসবেন বাচ্চাকে ওইদিকে আবার ঈদের জামা কিনে দিতেই হবে এইরকম বায়না ধরে বসে আছেন বলেই এইভাবে বের করতে বাধ্য হয়েছেন। অবুঝ অভিভাবক।

আমরা এমনিতেই অবুঝ! বিচার মানি কিন্তু তাল গাছটি আমার দর্শনে বিশ্বাসী, আমরা করোনা ভাইরাসের এতসব হুমকি ধামকি, রোজ ৩ হাজার প্লাস আক্রান্ত, তিরিশ/চল্লিশ জনের মৃত্যুর খবরও এখন আর আমাদের মনে ভয়ের উদ্রেক করেনা।

এখন তো গরুর হাটে অথবা শপিং মলে কিংবা রাস্তায় ফুচকা চটপটির দোকানে মুখের মাস্ক থুঁতনিতে নামিয়ে গল্প গুজব করতে করতে; খাওয়া দাওয়া করতে করতে; বেখেয়ালে করোনা ভাইরাস বলে পৃথিবীতে আসলে কিছু আছে এই কথা আর খেয়ালে রাখতে মন চায় না।

চলার পথে, ফুটপাতে,শপিং মলে, বিশ্বাসে বাবা মা এর হাত ধরে ঈদের জামা কিনতে যাওয়া বাচ্চাগুলাকে আল্লাহ্‌ অলৌকিক ভাবে করোনা মুক্ত রাখুক। অথবা অভিভাবকদের শুভ বুদ্ধি হোক বাচ্চাগুলাকে মাস্ক ছাড়া বাইরে বের না করুক। বাইরে বের করেই বা কোন সাহসে আশ্চর্য।

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:০৫

ফুয়াদের বাপ বলেছেন: করোনার ক্রান্তিকাল চলবে আগামী বহুদিন। তাই সর্বদা সতর্ক থাকার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে আমাদের সবার।

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:১৯

সামিয়া বলেছেন: ঠিক বলেছেন।

২| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৯

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

অভিভা্বক বেঁচে থাকুক
বাচ্চা পাওয়া যাবে
এমনই মনোভাব
হয়তো!!

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:১৯

সামিয়া বলেছেন: হুম সেটাই

৩| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১০:১২

সাইন বোর্ড বলেছেন: অনেক জায়গায় তো অভিভাবক, বাচ্চা কেউই মাস্ক পরছে না, কী আর করার !

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:২০

সামিয়া বলেছেন: তাদের অনেকের বিশ্বাস করোনা বলে পৃথিবীতে কিছু নেই

৪| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: যারা মাস্ক পড়ছে তারা আল্লাহর উপর বিশ্বাসী। তাদের ধারনা আল্লাহ কোনো না কোনো ভাবে বাচিয়ে দিবেন।

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:২১

সামিয়া বলেছেন: করোনা বলে কিছু যে আছে তাই ই বিশ্বাস করে না

৫| ৩০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪১

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: মাস্ক ছোট বড় সবার পরা উচিত। করোনা শুরুর সময় থেকে মাস্কের ব্যাপারে সবাই সতর্ক হলে রোগ নিয়ন্ত্রণ সহজ হতো। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও এ ব্যাপারে ভুল করেছে। প্রথম দিকে তারা মাস্কের উপর গুরুত্ব নেয়নি।

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:২১

সামিয়া বলেছেন: ঠিক বলেছেন

৬| ০১ লা আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় নিয়ে লিখেছ আপু। অনেকেরই পোস্টটি পড়ে উপকার হবে, সচেতনতা বাড়বে।
পোস্টে বিশাল লাইক।

০৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:২৩

সামিয়া বলেছেন: অনেক দিন পর কথা হচ্ছে তোমার সাথে, আশা করি ভালো আছো, আমার জীবনে তো বিশাল পরিবর্তন হয়ে গেছে এই কয়দিনে, যাই হোক ভালো থেকো দোয়া থাকলো।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.