নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

চার হাত থেকে আধ হাত কম..

সৈয়দ তাজুল ইসলাম

জীবনের পুত্র

সৈয়দ তাজুল ইসলাম › বিস্তারিত পোস্টঃ

ভারতের আনুগত্য থেকে বেরিয়ে আসতে না পারা আওয়ামীলীগের তাণ্ডব

৩০ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১০



বঙ্গবন্ধুর লোকান্তরিত হওয়ার পর থেকে আওয়ামীলীগ কর্তৃক ভারতের পাচাটার দৃশ্যটি যে হারে বৃদ্ধি পেয়ে আসছে তারই একটি নিদর্শন হচ্ছে বর্তমান বাংলাদেশের এই অরাজকতাপূর্ণ অবস্থা। মধ্যখানে আমরা নিজেদেরকে নিরপেক্ষ দাবী করতে গিয়ে কোন দিকে চলে যাচ্ছি তা স্পষ্ট করতে পারছি না। নিজেদের শুদ্ধিকরণ আমাদেরকে ধাবিত করছে এই অনিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থার সহায়ক হিসেবে।

বিবিসির ২ নভেম্বরের নিউজে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে হেফাজতের যে কর্মকাণ্ডের বর্ণনা আসে তা ছিল গত শুক্রবারের তুলনায় অনেক বেশি ব্যাপকতা বিস্তারকারী আন্দোলন। অথচ তার দমন প্রক্রিয়া ছিল গত শুক্রবারের তুলনায় অনেক নমনীয় পর্যায়ের। প্রশ্ন এখানে আওয়াজ তুলে, গত শুক্রবারের দু'শ মুসল্লিকে নিয়ন্ত্রণ করতে আমাদের প্রশাসনকে কেন এতো কঠোরতা অবলম্বন করতে হল? যদি প্রশাসন নামের আওয়ামীলীগের সেবকেরা ফ্রান্সের বিরুদ্ধে হেফাজতের তাণ্ডবপূর্ণ আন্দোলনে কোন আক্রমণ পূর্বক সমাধান বের করতে পারে তবে গত শুক্রবারে কেন পারলো না?

গত শুক্রবার যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা–কর্মীরা পুলিশের সহযোগিতায় মসজিদের মুসল্লিদের উপর আক্রমণ করার দৃশ্য আমাদের সামনে না আসার কারণ আমাদের সাংবাদিক ভাইদের উপর আক্রমণ। হ্যা, এমনটাই ঘটে সবসময়। আওয়ামিলীগ ও তার অঙ্গ সংঘঠনগুলো নিজেদের অপকর্মের কোন ক্লু কখনো রাখতে চায় না। সেই ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবারে ছবি তুলতে যাওয়া সাংবাদিকদের ওপর তারা হামলা করে। কারও ক্যামেরা, কারও মুঠোফোন কেড়ে নেওয়া হয়। গত শুক্রবার অন্তত ১০ জন সাংবাদিক ও ফটোসাংবাদিক আহত হন।

বায়তুল মুকাররমের দক্ষিণ গেটে আন্দোলনকারী ২০০ জন মুসল্লীকে নিয়ন্ত্রণ করতে আমাদের পুলিশলীগ ১ হাজার ১৩৭টি গুলি (৮২৭টি রাবার ও ৩১০টি সিসা) ও ৯৩ কাঁদানে গ্যাসের শেলও নিক্ষেপ করে। যদিও পুলিশের দাবী এখানে দু'পক্ষকে নিয়ন্ত্রণ করতেই তারা এর আশ্রয় নেয়। কিন্তু তাদের এক তরফা এই দাবী না মানা ছাড়া আমাদের গণমাধ্যমের অন্য কোন পথ খোলা নেই।
বড়ই দুঃখের বিষয় যে, বর্তমান বাংলাদেশে আন্দোলনের জন্য কারো জন্যই কোন উপযুক্ত স্থান খোলা নেই। আবার সবার জন্যই খোলা। সরকার দেশটাকে নিজের মত করে পরিচালনা করতে গিয়ে আন্দোলন নিয়ন্ত্রণের অদক্ষতার ছাপকে গ্রহণ করছে সফলতার সার্টিফিকেট হিসেবে। বিশ্বে তা দেখাচ্ছে নিজেদের পয়েন্ট বৃদ্ধির সহায়ক হিসেবে। সেখানে কোন কোন আন্দোলনকারীর কপালে ঘটছে ঘরে ফেরা আর কোন কোন আন্দোলনকারীর ভাগ্যে জোটছে মৃত্যু। সহজ ভাষায় বলা গেলে, বর্তমান বাঙলায় জন্ম ও মৃত্যুর মালিক কেবলই আওয়ামিলীগ।

আমি এই পোস্টে কোন মোল্লা তন্ত্রের পক্ষ নিচ্ছি না। আমি কথা বলি বাঙালি নিয়ে। যেখানে যুক্ত হিন্দু—মুসলিম, আওয়ামী—বিএনপি সবাই। আমার এই বিষয়ের লেখা এক পোস্টেই সমাপ্ত হওয়ার নয়। যদি পুলিশলীগ বায়তুল মুকাররমে আক্রমণ না করে শান্তভাবে আন্দোলনকারীদের নিয়ন্ত্রণ করতো। তবে হাটহাজারীতে পাঁচটি নিরিহ প্রাণের মৃত্যু ঘটতো না। পুলিশের আক্রমণের পরেই হাটহাজারীতে আক্রমণ হয়। যদি বায়তুল মুকাররমে পুলিশলীগ আন্দোলকারীদের উপর ১ হাজার ১৩৭টি গুলি (৮২৭টি রাবার ও ৩১০টি সিসা) ও ৯৩ কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ না করে কৌশলে শান্তিপূর্ণ ভাবে তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করা হত, তবে দেশের এমন অরাজকতার সৃষ্টি হতো না।

পরিশেষে বলতে গেলে, পুলিশের এই স্বেচ্ছাচারিতা ও হেফাজতের এই বোকামিতে যে ক্ষতি হয়েছে তার পুরো দায় সরকারকেই বহন করতে হবে। সরকার দলীয় আওয়ামীলীগকেই বহন করতে হবে এই ১৯টি মৃত্যুর দায়।

মন্তব্য ৩৯ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (৩৯) মন্তব্য লিখুন

১| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৬

অক্পটে বলেছেন: পুলিশের ছত্রছায়ায় নিরস্র মুসল্লিদের উপর যাদেরকে আক্রমণ করতে দেখা গেছে তারা অবশ্যই জারজ সন্তান। হয় পুলিশ জারজ না হয় ওরা জারজ। পুলিশ বলছে দুপক্ষ! তাহলে একপক্ষ পুলিশের সাথে কেন। জারজ জারজ ভাই ভাই তাই বলে বোধহয়।

৩০ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
'জারজ জারজ ভাই ভাই'
আমাদের পুলিশ ও আওয়ামিলীগ পন্থীরা আপনার এই বাক্যের যথার্থতা অনেক পূর্বেই প্রমাণ করেছেন।

এতসব স্পষ্টতার পরও কিছু সচেতন ভাইলোক বলে বেড়ান, এগুলো আওয়ামীলীগের অদক্ষতা নয়। তারাও তাদের সহোদর বলা যায়।


আমাদের উচিত সঠিক কথা বলার মাধ্যমে সত্য অবলম্বন করা। সত্যের পক্ষে চিন্তা করা। সত্য উদঘাটনে আপোন অবস্থান থেকে সচেষ্ট ভূমিকা রাখা।

২| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৪২

পাঁচ-মিশালি বলেছেন: মৃত্যু ৫ টা হোক অথবা ১৯ টা ,এটা মনে রাখতে হবে সবকিছুই আল্লাহর ইচ্ছাতে সম্পন্ন হয়। তাঁর ইচ্ছা বিনা গাছের একটা পাতাও নড়তে পারে না। হায়াত -মৌত সবই আল্লাহর ইচ্ছায়। এনিয়ে দ্বি মতের কোন জায়গা নেই।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১:৫৯

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: আপনার মা-বাবার মৃত্যুকালে আপনি কাঁদেন কেরে?

৩| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



শেখ হত্যার পর, প্রাণ ভয়ে শেখ হাসিনা কোথায় পালিয়েছিলেন ৫ বছর? কে সাহস যুগিয়ে উনাকে বাংলাদেশে পাঠিয়ে ছিলো? উনি কি আপনাকে ধন্যবাদ দেবেন, নাকি ভারতকে ধন্যবাদ দেবেন? এত কম মগজ নিয়ে কতদিন ব্লা ব্লা করবেন?

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১:০৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ধন্যবাদ ;)

৪| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৮:০৯

ওমেরা বলেছেন:
চাঁদগাজী বলেছেন: শেখ হত্যার পর, প্রাণ ভয়ে শেখ হাসিনা কোথায় পালিয়েছিলেন ৫ বছর? কে সাহস যুগিয়ে উনাকে বাংলাদেশে পাঠিয়ে ছিলো? উনি কি আপনাকে ধন্যবাদ দেবেন, নাকি ভারতকে ধন্যবাদ দেবেন? এত কম মগজ নিয়ে কতদিন ব্লা ব্লা করবেন?
শুধু কি তাই, তাদের দয়ায় এখনো ক্ষমতায় আছেন।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১:৫৮

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: চাঁদগাজী ভাই 'বিচার মানি তালগাছ আমার' নীতিতে বিশ্বাসী। আপনি সারা দিন সূর্য আর চাঁদের পরিচয় নিয়া ক্লাস দেওনের পর রাত্রে উনারে চাঁদ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে বলবেন চাঁদই সূর্য, অন্ধকারের কারণে ইহা নিবু নিবু কচ্ছে!

৫| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৮:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



ওমেরা বলেছেন, "শুধু কি তাই, তাদের দয়ায় এখনো ক্ষমতায় আছেন। "

-শেখ হাসিনা আপনার থেকে কম জানেন না, উনি নিজ বলে ও কৌশলে ক্ষমতায় আছেন।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ২:০৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
বঙ্গবন্ধুর বাকশাল প্রতিষ্ঠা পরবর্তী ব্যর্থতা থেকেই বঙ্গবন্ধু কন্যা শিক্ষা নিয়েছেন কেমনে আবার সংবিধানের মূলনীতিগুলো নামকা ওয়াস্তে ব্যবহারের ফাঁকে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করন যায়। বঙ্গবন্ধুর বাকশাল ব্যর্থতার কারণ উদঘাটন পরবর্তী নির্দেশনা, বাংলার জনগণকে জেল জুলুমের মাধ্যমে ভয় দেখিয়ে ক্ষমতার অবৈধ দখল করাকে আপনি কৌশল বলছেন, অথচ তা সম্পূর্ণভাবে অপকৌশল। যা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ধ্বংসের প্রধান কারণ।

৬| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:১১

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: কেউ ভারত পন্থী কেউ পাকি পন্থী বাংলাদেশ পন্থী খুব কম।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ২:০৮

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
কেউ ভারত পন্থী কেউ পাকি পন্থী বাংলাদেশ পন্থী খুব কম।

বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুকে হারানোর পর থেকে কেবলই ভারতপন্থী ও পাকিপন্থীদের হাতে অদলবদল হচ্ছে। যার কারণে দৃশ্যমান সাময়িক উন্নয়ন দেখে আমরা ভাবি এই সরকারই ভালো, ঐ সরকাওই ভালো। অথচ মূলে এরা কেউই বাংলাদেশপন্থী নয়।

সুন্দর কথা বলার জন্য ধন্যবাদ।

৭| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:৪০

চাঁপাডাঙার চান্দু বলেছেন: চাঁদগাজী বলেছেন: উনি নিজ বলে ও কৌশলে ক্ষমতায় আছেন

আগে জানতাম শেখ হাসিনা ভোটের আগে মুখ খুললে জ্যামিতিক হারে আসন কমে যায়। ১৯৯১ এ আওয়ামী লীগের অপ্রত্যাশিত হারের জন্য বিশ্লেষকরা নির্বাচনের আগে শেখ হাসিনার সর্বশেষ ভাষনকেই দায়ী করে। যেখানে তিনি দেশের ভবিষ্যতের কথা কিছু না বলে একে তাকে গালাগাল করেই পুরো ঘন্টা পার করেন। এখনো উনি মুখ খুললে একই জিনিস বের হয়। কাজেই কৌশল শব্দটা উনার সাথে মানায় না। এটা অন্য কারও ডিপার্টমেন্ট।

তবে হ্যাঁ বল যে উনার আছে সেটা আল জাজিরাতেই দেখেছি।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ২:১৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:

আল জাজিরা বর্তমান অবৈধ সরকারের একটি মাত্র অংশের শক্তির প্রকাশ করেছে। বাকি অংশের কথা তো গোপনে রয়েই যায়। তবে আপনাকে স্বীকার করতেই হবে যে, শেখ হাসিনা এবং খালেদা জিয়া কিন্তু কথার মারপ্যাঁচ খেলতে যথেষ্ট পুক্ত। শেখ হাসিনা সবার উর্ধ্বে সেটা স্বীকৃত।


চাঁদগাজীর শব্দ হবে 'অপকৌশল'।

৮| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:৫৩

চাঁপাডাঙার চান্দু বলেছেন: নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: কেউ ভারত পন্থী কেউ পাকি পন্থী বাংলাদেশ পন্থী খুব কম।

এসব ভন্ডামি আলাপ বাদ দেন ভাই। আমি বিগত চার দশকে দেখি নাই পাকিস্তান আমাদের দেশের কাউকে গুলি করে মারছে, কিংবা চাল রপ্তানি বন্ধ করে চালের দাম বাড়িয়েছে অথবা নদীতে বাঁধ দিয়ে বাংলাদেশে মরুকরণ করছে। কখনো দেখি নাই বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থায় পাকিস্তানকে হস্তক্ষেপ করতে, বরং দাদারা করেছে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বলার জন্য কখনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কাউকে খুন করা হয়েছে জানা নাই কিন্তু ভারতের বিরুদ্ধে বলার জন্য আবরারের প্রাণ গেছে, মোদির বিরোধিতা করায় আরও ১৯জনকে হত্যা করা হইছে।

পাকিস্তান সুদূর অতীত ব্যাপার আর ভারতের লাইভ শো চলে। ভারতের ইস্যু আসলেই যারা এই পাকিস্তানি জুজু টেনে এনে ঘটনা চাপা দেয় তাদের 'পন্থী'তেই মূল সমস্যা।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ২:৪১

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: জিয়াউর রহমান শাসক হওয়ার পর কিছুটা করেছেন যেমন স্রোতের বিপরীতে চলতে না পারা খড়কুটো। উনি দেশের যে বারোটা বাজিয়েছেন তার মধ্যে সবচেয়ে বড় কর্মটি হচ্ছে দেশের শিল্পকারখানাগুলো ব্যক্তি মালিকানায় ছেড়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু করে গিয়েছিলেন। যা আমাদের চির শত্রু পাকিস্তানও করেনি। জিয়াউর রহমানের এই অপকর্মের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে এগিয়ে এসেছিল এরশাদ কাগুও। হ্যা, ভারত কর্তৃক বাংলাদেশ শোষনের ইতিহাস দীর্ঘ। এখানে ভারতের উপকারে মত্ত আছেন আমাদের শেখ হাসিনা।

কর্মই কিন্তু আপনি কোন পন্থী তা প্রকাশ করে।

৯| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১০:১২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: মোদি এত বড় একটা মিথ্যা বলে গেলো বাংলাদেশের যুদ্ধের জন্য জেল খেটেছে কিন্তু একটা মিড়িয়া এটা নিয়ে কোনো অনুসন্ধানী রিপোর্ট করলো না। আওয়ামীলীগ ধর্ম নিরপেক্ষ দল বলে আর মোদিকে নিয়ে গেল মন্দিরে কিন্তু কেনো।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১০:৪৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: শুনলাম, জাফরুল্লাহ নাকি বলছেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় মোদি ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধী।

আর আওয়ামীলীগ নিজেদের যে কতটুকু পবিত্র তা এখন সবাই জানে। যারা আওয়ামীলীগের ভারত আনুগত্যের ব্যাপারে সন্দেহ লালন করেন তারা এসব নিয়ে হালকা-পাতলা চিন্তা করলেই আওয়ামীলীগ সম্পর্কে পূর্ণ অবগত হতে পারেন।

১০| ৩০ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১১:০২

রাজীব নুর বলেছেন: পোষ্ট এবং মন্তব্য গুলো মন দিয়ে পড়লাম।

৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১০:৪৬

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ধন্যবাদ

১১| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ২:২২

এ কাদের বলেছেন: ইন্দিরা গান্ধীর করুণ মৃত্যুর কারন ছিল শিখ স্বর্ণ মন্দিরে হামলা। একি ভাবে আফগানিস্তানে বিশাল বুদ্ধ মূরতি ভেঙ্গে ফেলার ফলেই তালেবানরা সারাবিশবের কুনজরে পড়ে। আর বিনা উস্কানিতে বাংলাদেশের প্রধান মসজিদে অব মাননাই বাংলাদেশ ও ভারতের রাজনিতিতে একটা টারনিং পয়েন্ট। এর ফলে এই অঞ্চলে চীনের প্রভাব বেড়ে যাবে এবং ভারত ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ধারনা হয় যে চীনের ভয়েই ভারত বাংলাদেশকে যেনতেন ভাবে নিজ বলয়ে রাখতে বদ্ধ পরিকর।
বাংলাদেশে এমনকি পাকিস্তানেও অনেকেই ভারতকে চীনের চাইতে ভালবাসে ।
চীন কে টেকাতে চাইলে ভারতের উচিত বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সাধারন জনগনের সাথে সম্পরক স্তাপন করা তাদের মন জয় করা। তা নাহলে অদূর ভবিষ্যতে চীকেন নেক ভেঙ্গে যেকোন সময় ভারত ভেঙ্গে কয়েক টুকরা হয়ে যাওয়া অসম্ভব কিছু নয়।

ভারতের্ উচিত বাংলাদেশের গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বাধা না দেওয়া। কাশ্মীরবাসীর প্রতি সদয় হোওয়া এবং সারক কে শক্তিশালি করে পাকিস্তানের সাথে স ম্পরক উন্নয়নের পদক্ষেপ নেওয়া। মনে রাখা দরকার ভারতের প্রধান প্রতিপক্ষ চীন, পাকিস্তান নয়। আর এই চীনের উন্নতি আকাশ্চুম্বি। তারা আমেরিকার মত দেশের পন্যের ৮০% যোগান্দাতা। তাই আমেরিকাও সহসাই তাদের ঘাটাবে না। তবে আমিরিকা চায় বিকল্প কেউ চীনের স্থানটি পূরন করুক। এখানেই পাকিস্তান বাংলাদেশ ও প্রধানত ভারতের সামনে বিরাট সূযোগ।
ভারত যদি প্রক্রিত বড় ভাই হয়ে এগিয়ে আসে তাহলে চীনের ক্রমবরধ্মান আগ্রাসন থেকে আমরা স বাই বাচতে পারি। আর ভারত য দি বাস্তব অবস্তা না বূজে তাহলে ক্ষ তি ভারতেরই বেশী।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:২৮

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ভারতের উপকারে বাংলাদেশের ক্ষতি বেশি এটা যেমন সত্য, তেমনি বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ভারতের বাধা না দেওয়ায় ভারতেরই ক্ষতি বেশি। এমন স্পষ্ট সত্য উপেক্ষা করে ভারত কখনো বাংলাদেশকে ছাড় দিবে না, যদিও এটা ভারতের ছাড় দেওয়ার বিষয় নয় বরং বাংলাদেসের অধিকার কিন্তু বাংলাদেশের জন্য অবস্থা এতটাই জঠিল যে এই অধিকার আদায়েও ভারতের কাছে হাতজোড় করতে হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর থেকে ক্ষমতায় আসা প্রতিটি সরকারই ভারতকে এই শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে আসছে। আর এভাবেই আমাদের প্রতিবেশী দেশ আমাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করার নামে অমাদের অধিকারকে খর্ব করে চলেছে।

১২| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৩:৩৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



লেখক বলেছেন, " বঙ্গবন্ধুর বাকশাল প্রতিষ্ঠা পরবর্তী ব্যর্থতা থেকেই বঙ্গবন্ধু কন্যা শিক্ষা নিয়েছেন কেমনে আবার সংবিধানের মূলনীতিগুলো নামকা ওয়াস্তে ব্যবহারের ফাঁকে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করন যায়। "

-বাকশাল আপনি বুঝেন বলে মনে হয় না; শেখ সাহেব সফল হননি, তবে, আপনার লেভেলের লোক ছিলেন না।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১:০৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ধন্যবাদ।

আপনার পূর্ণ সুস্থতা কামনা করি

১৩| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ সকাল ৯:৪৮

এমেরিকা বলেছেন: শেখ হাসিনাকে ভারত এদেশে আনেনি - এনেছে জিয়াউর রহমান। ভারত ওনাকে পরপর তিনবার ক্ষমতায় বসিয়েছে এবং বসে থাকতে সবরকম সহায়তা দিয়েছে। তাই ভারতের বিরুদ্ধে কোন আন্দোলন উনি বিন্দুমাত্র সহ্য করবেন না - এটাই স্বাভাবিক। প্রাক্তন বিচারপতি শামসুদ্দিন আহমেদ মানিকের বাংলাদেশ প্রতিদিনে লেখা আর্টিকেলগুলো পড়লে আওয়ামী লীগের মনেক কথা সব সেন্সর ছাড়াই জানা যায়।

https://www.bd-pratidin.com/first-page/2021/03/31/633839

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:৪০

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: আওয়ামিলীগের উচিত কর্ম ছেড়ে আওয়ামিলীগ ভুল পথ ধরে এগুচ্ছে। যেই তাদের কর্মকাণ্ডের বাধা হয়ে দাঁড়ায় সেই রাষ্ট্রের শত্রু। তারা নিজ গঠনমূলক সমালোচনাকারীদের সহজেই পাকিস্তানি বা অন্য কোন রাষ্ট্রের দালালের কাতারে ফেলে দেয় অথবা জঙ্গির পোশাক পরিয়ে থাকে অন্ধকার ঘরে ফেলে দেয়। রাষ্ট্রের উন্নয়নে আপনি আমি যাই বলি না কেন, তা যদি তাদের মন মতো না হয় তবে সহজেই আমরা তাদের শত্রু হয়ে যাবো। এমন অবস্থায় চাঁদগাজীর ভাষায় আমাদের মত যারা 'ব্লগে ব্লা ব্লা' করেন তারা দেশে মোটেও নিরাপদ নয়।

আপনার আর্টিকেলটি পড়ছি।

১৪| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ সকাল ১১:২৪

নীল আকাশ বলেছেন: এই বিষয়ে সত্য কিছু বলতেই ভয় লাগে।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:৫২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: দেশে অবস্থান করে দেশের বিরুদ্ধে লিখবেন আর আমরা আপনাদেরকে ছাড় দিয়ে দিবো এরম ভাবতাছেন কেলা! শুনেন, দেশএ কেবলই আমাদের নীতি সত্য এবং উন্নয়নকামী৷ আর তাই দেশ নিয়ে আমরা চগাড়া যারা ভাবেন তারা বিদেশি/পাকিদের চর।

আমরা আওয়ামিলীগ।
আওয়ামিলীগ হোন দেশ নিয়ে ভাবুন।

১৫| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ দুপুর ১২:১১

রানার ব্লগ বলেছেন: রাজনীতি !!! ইহাই রাজনীতি !!!!

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:৫৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: এমন রাজনীতির পাছায় লাতি দিতে গিয়ে আপনি আমি লাতি খাওন ছাড়া কিছুই করার নাই! তয় আপনি আওয়ামিলীগ হইলে আপনি সাদরে আমন্ত্রিত হবেন আর যারা আওয়ামী বিরোধী তারা পাকিদের দালাল। এখানে আওয়ামী বিরোধী বলতেই কিন্তু সুনীতি বিরোধী উদ্দেশ্য। কারণ সুনীতি ভাবনা কেবলই আওয়ামিলীগের আসে।

১৬| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ দুপুর ১:০০

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:


আমার মনে হয়, এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে এসেছে।

হেফাজতের ভাইয়েরা শফি হুজুরের উপর আক্রমণ করে যে ভুল করেছিলেন, সেটার প্রায়শ্চিত্ত এই পরাজয়।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:৫৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: তাহলে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীরা এখনো কেমনে আরামে বসে আছে?

আল্লাহ বড্ড বিপদে আছেন!

১৭| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ দুপুর ১:৫১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ভারতের আনুগত্য থেকে বেরিয়ে আসতে তো চায়-ই না। স্বামী-স্ত্রীর পবিত্র বন্ধন ছিন্ন করা কি মুখের কথা? অবশ্য এই ব্যাপারে আমার জ্ঞান সীমিত। ব্লগের সন্মানীত ভাদাগন এই ব্যাপারটা ভালো ব্যাখ্যা করতে পারবেন। =p~

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১:০০

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: বিষয়টাকে আমি স্বামী-স্ত্রীর মিলন মেলা ভাববো না। কারণ দিন শেষে ইহা আমাদের জন্যই কিন্তু অপমানজনক।

সত্যিকার অর্থে সরকার কি এই অরাজকতা তৈরি না করে মোদির আগমন ও অবস্থানকালীন সময়কে সুন্দরভাবে যেতে দিতে পারতো না?

১৮| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:০২

জিকোব্লগ বলেছেন:



চাঁদগাজী বলেছে, "এত কম মগজ নিয়ে কতদিন
ব্লা ব্লা করবেন?",

চাঁদগাজীর মন্তব্য শুরুই হয় ব্যক্তিআক্রমণ দিয়ে।
কিন্তু সামুর বান্ধা ফ্রি/পেইড কামলা বলে, এই সব
করেও, সে মাফ পেয়ে যায়। আর এটা সে জানে
বলে, সে এই আচরণ আরো বেশি বেশি করে যায়।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১:০২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ধন্যবাদ।


ব্লগের দুর্দিনে চাঁদাগাজী অনেক সক্রিয়তা রক্ষা করেছে। এছাড়াও চাঁদগাজী ভাইয়ের আরো কিছু ভালো গুণ অবশ্যই আছে। যদিও সেগুলো সবসময় গোপনে থেকে যায়। তবে উনি আসলেই একজন ভালো মানুষ।

সবসময় আমি তাঁর সুস্থতা ও স্থিরতা কামনা করি।

১৯| ৩১ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১১:০৩

রানার ব্লগ বলেছেন:

হেফাজতের জন্য যারা চোখের জলে সাগর করছিলেন তাদের স্বান্তনার জন্য।

০১ লা এপ্রিল, ২০২১ রাত ১:০৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: পোস্টকারী দেখি 'সৈয়দ'।

উনার মাথায় কী নিয়া হাঁটেন সেটাই আমায় ভাবায়! সাথে আপনারো!

আপনার এই ছবিটা কি আমি আমার পরবর্তী পোস্টের জন্য ব্যবহার করতে পারি?

২০| ০২ রা এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:১৫

চাঁপাডাঙার চান্দু বলেছেন: একটা বটমলেস বাস্কেটকে ইকোনমিকালি ইমার্জিং টাইগারে পরিণত করতে, দেশ থেকে দুর্ভিক্ষ দূর করে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে গৃহীত পদক্ষেপসমূহ অপকর্ম ছিল? এই ২০২১ এ এসেও বাহিরের বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য হা পিত্যেস করতে হয় সেখানে জিয়া সেই আমলে বেসরকারিকরণ করে ভুল করছিল? আর এর সাথে পাকিস্তানেরই সম্পর্ক বা কি??

এই টাইপ কথাগুলো সিপিবি বলে যদিও আরেকটু মেধা খাটিয়ে বলে। আর সিপিবিকে আওয়ামী লীগ থেকে আলাদা করতে সেন্ট্রিফিউজ মেশিনে ঢুকাতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.