নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সত্যের সন্ধানে ও শান্তির অন্বেষায় ...

সব বিষয়ে জানতে ও শিখতে আগ্রহী একজন উদার মনের মানুষ।

জোবাইর

বিনয়ী মূর্খ অহংকারী বিদ্বান অপেক্ষা মহত্তর। Copyright © Zobair

জোবাইর › বিস্তারিত পোস্টঃ

বাংলাদেশ: ফিরে দেখা ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৮

আজ থেকে ১০ বছর পূর্বে আজকের এই দিনে (২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর) আধা সামরিক সরকারের অধীনে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

মহাজোটের মহাবিজয়
নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের এক অভাবনীয় মহাবিজয় ঘটেছে। রাজধানী ঢাকাসহ প্রায় সব জেলায়ই মহাজোটের প্রার্থীদের জয়জয়কার হয়েছে। আওয়ামী লীগ তাদের প্রতিক্রিয়ায় এই অভূতপূর্ব বিজয়কে জোট সরকারের ‘দুর্নীতি ও লুণ্ঠনের’ বিরুদ্ধে এবং দিন বদলের পক্ষে জনগণের নীরব ভোট বিপ্লব হিসাবে বর্ণনা করেছে। ২০০১ সালে চারদলীয় জোটের বিজয়ের জোয়ারেও এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়নি। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বাদে জোট সরকারের সব প্রতাপশালী মন্ত্রী-এমপিদের ভরাডুবি হয়েছে। জামায়াতের আমীর মাওলানা নিজামীসহ তাদের ৩৮ প্রার্থীর ১ জন বাদে সবাই ধরাশায়ী হয়েছেন। বিএনপির ঘাঁটি বলে পরিচিত জেলাগুলোতে মহাজোটের বিজয়ের স্রোত বইছে। আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মহাজোট নেত্রী শেখ হাসিনা তিনটি আসনে বিপুল বিজয় লাভ করেছেন। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদসহ মহাজোটের প্রায় সব নেতাই নির্বাচিত হয়েছেন। এই নির্বাচনে জনগণের সামনে ‘দিন বদলের’ অঙ্গীকার রেখে নির্বাচনী অভিযানে নামেন শেখ হাসিনা। আর খালেদা জিয়ার শ্লোগান ছিল ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও’।

নির্বাচনে মহাজোট বিপুলভাবে বিজয় অর্জন করতে চলেছে। সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী মহাজোট প্রার্থীরা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছে। এনটিভি সূত্রে প্রাপ্ত খবরে জানা যায় এ পর্যন্ত মহাজোটের ২২৩, ৪ দলীয় জোটের ২৮ এবং অন্যান্য ৫ জনকে ইতিমধ্যেই বেসরকারীভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী রাত পৌনে ৩টা পর্যন্ত মোট ২৯৯ আসনের মধ্যে ২৫৬টি আসনের বেসরকারি ফলাফল পাওয়া গেছে। অবশিষ্ট ৪৩টি আসনেও মহাজোট প্রার্থীদের অনেকে এগিয়ে রয়েছেন। এদিকে রাঙ্গামাটিতে ১২টি কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত করা হয়েছে।

নির্বাচনের ফলাফল প্রদর্শনে ইসির উদ্যোগ
নির্বাচনের ফলাফল প্রদর্শনের জন্য নির্র্বাচন কমিশনের (ইসি) বাইরে স্থাপিত বিশালাকারের পর্দাকে ঘিরে রাতভর ছিল উৎসুক জনতার ভিড়। স্ক্রীনের বিভিন্ন পাশে রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা অবস্থান নেন। যখনই স্ক্রীনে কোন আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হচ্ছিল তখনই উল্লাসে ফেটে পড়েন এগিয়ে থাকা দল ও প্রার্থীর সমর্থকরা। অন্য অংশে তখন পিনপতন নিরবতা।
উল্লেখ্য, কমিশনের অভ্যন্তরে অস্থায়ীভাবে নির্মিত ফলাফল ঘোষণা ও সম্প্রচার কেন্দ্র থেকে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হচ্ছে। সেখানে সাংবাদিক, বিভিন্ন স্যাটেলাইট চ্যানেলের সম্প্রচার কর্মী, পর্যবেক্ষক ও রাজনৈতিক দলের আমন্ত্রিত নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সাধারণ জনগণকে সেখানে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। তাদের জন্য কমিশনের বাইরে বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী কেন্দ্রের সামনে বড় আকারের স্ক্রীন স্থাপন করা হয়। তাতে ঘোষিত ফলাফল সরাসরি প্রদর্শন করা হচেছ। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক সাধারণ মানুষ উপস্থিত থেকে তা সরাসরি উপভোগ করেন।

এ রায় দুর্নীতি ও দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে : আওয়ামী লীগ
আওয়ামী লীগ বলেছে, নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ দুর্নীতি, দুঃশাসন ও দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে। রাত সাড়ে ১২টায় দলের তথ্য ও এক প্রেস বিফিংয়ে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, যে প্রত্যাশা নিয়ে জনগণ ভোট দিয়েছে তা পূরণে আওয়ামী লীগ অঙ্গীকারাবদ্ধ। লেনিন বলেন, মহাজোট প্রার্থীরা অনেক আসনে জয়লাভ করেছেন। আবার উল্লেখযোগ্যসংখ্যক আসনে আমাদের প্রার্থীরা অগ্রগামী। চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবেন বলে তিনি জানান।

মন্তব্য ১৬ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (১৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: অতীত আর বর্তমান সময়টা এক নয়।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৪

জোবাইর বলেছেন: সময়টা এক নয়, তবে ফলাফল মনে হয় প্রায় একই হবে। :)

২| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩২

জগতারন বলেছেন:
রাজীব নুর বলেছেন: অতীত আর বর্তমান সময়টা এক নয়।

তবে খুউবই কাছা কাছি মনে হয়।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৩

জোবাইর বলেছেন: ঠিক বলেছেন, বাকীটা দেখা যাক!

৩| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫০

নাহিদ০৯ বলেছেন: চোখ বন্ধ করে বলে দেয়া যায় মহাজোট জিতবে। আমার ভোট টা আমার এলাকার আ।মী প্রার্থী ই হয়তো পাবে। কিন্তু ২০০৮ এর বিজয় আর ২০১৮ এর নির্বাচন এর মধ্যে আকাশ পাতাল ব্যবধান থাকবে।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৭

জোবাইর বলেছেন: বিজয়টা ২০০৮ সালের মতই হতে পারে, তবে নির্বাচনটা যে ২০০৮ সালের মত হবে না তা সার্বিক পরিস্থিতি দেখে বুঝায় যায়! নির্বাচনটাও যদি ২০০৮ সালের মত হতো খুব খুশি হতাম।

৪| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:০৮

রাকু হাসান বলেছেন:

জোবাইর ভাইয়া ,আপনি পোস্ট করেছেন! :) ।আমি চলে যাচ্ছিলাম ,আপনার পোস্ট দেখেই থেমে গেলাম । দারুণ দিনে দারুণ কিছুর স্মৃতিচারণ করলেন । নির্বাচন নিয়ে হতাশ আমি ,শেষ চাওয়া হত্যাকান্ড যত কম হয় ,গত বার তো লীগের হিসাবে ৩০০+ । ২০০৮ সালের নির্বাচনটা ভালো ছিল বলে মনে করি । তেমন মাঠ দেখছি না । অনেক দিনপর তারপর কেমন আছেন ?

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৬

জোবাইর বলেছেন: কী খবর রাকু হাসান! আশা করি সবকিছু ভালো। আমি ভালো আছি, আলহামদুলিল্লাহ। সময়ের অভাবে ব্লগে খুব একটা আসা হয় না। বর্তমান ভোটের উৎসব-উত্তাপে ২০০৮ সালের অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্মৃতি রোমন্থন করলাম।

৫| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫২

উম্মু আবদুল্লাহ বলেছেন: তবে কি জানেন? ঐ নির্বাচন নিয়ে খোদ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবদুল জলিল এক দীর্ঘ ইন্টারভিউ দিয়েছিলেন যার সারকথা ছিল ঐ নির্বাচন ডিজিএফআই পরিচালিত নির্বাচন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে যত নির্বাচন হয়েছে তার মধ্যে সেই নির্বাচনের সুষ্ঠুতা নিয়ে সবচেয়ে বেশী প্রশ্ন রয়েছে।

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১:০৫

জোবাইর বলেছেন: বাংলাদেশের প্রতিটি নির্বাচনের ফলাফলের পরে বিজয়ীদের মন্তব্য - নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়েছে, জনগণ তাদের পক্ষে রায় দিয়েছে। পরাজয়ীদের মন্তব্য - নির্বাচনে স্থুল/সুক্ষ্ণ কারচুপি হয়েছে, ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করে ফলাফল বদলানো হয়েছে, নির্বাচনে র/আইএসআই/ডিজিএফআই-র হাত রয়েছে ইত্যাদি। সেনাবাহিনী, ডিজিএফআই, সরকারী দল যেই নির্বাচন পরিচালনা করুক না কেন সদিচ্ছা থাকলে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন দেওয়া সম্ভব।

৬| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১:২৯

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: ভালো লাগল।

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৩৫

জোবাইর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৭| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ২:০৪

উম্মু আবদুল্লাহ বলেছেন: "পরাজয়ীদের মন্তব্য - নির্বাচনে স্থুল/সুক্ষ্ণ কারচুপি হয়েছে, ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করে ফলাফল বদলানো হয়েছে, নির্বাচনে র/আইএসআই/ডিজিএফআই-র হাত রয়েছে ইত্যাদি।"

অবশ্যই। তবে ২০০৮ এরটা একটু আলাদা। আবদুল জলিল ছিলেন জয়ী প্রার্থী। জয়ী দলের একজন। তিনি মোটামুটি বিশদ ভাবে সবকিছুর বর্ননা দেন। এরকমটা অন্য তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নির্বাচনে দেখা যায় নি।

৮| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ভোর ৪:১৯

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: আমার দেখা ভোট : জনগনের ভাবনা
................................................................................................
কিছুক্ষন আগেই সংবাদ এলো ২/১ জনের প্রান গেল , ব্যালট বক্স ছিনতাই হলো,
পুলিশের ঘুম হারাম হলো । কেন এই সহিংসতা ???
..................................................................................................
আমার ব্লগে আসুন "ভোট দিন "

৯| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:২৩

প্রবালরক বলেছেন: আমার দেখা ভোট:
গত ২ দিন-রাত থেমে থেমে বোমাবাজি চলছে। কোথাও কোন সহিংসতা নেই। বিরোধী দলের কেউ আশেপাশে নেই। লীগের কর্মীরা পাহারায় রয়েছে। কোথাও বিরোধী দলের কাউকে দেখা যায় কিনা।
অবশেষে আজ সকাল ৯টায় কেন্দ্রে গেলাম। দেখলাম ৪/৫ জন মানুষ ঘোরাফেরা করছে কেন্দ্রের সামনে। আমাকে জানানো হল সব ভোট দেয়া হয়ে গেছে। সিইসি বলেছিলেন – আপনার ভোট দেয়া হয়ে গেলেও আপনি ভোট দিতে পারবেন – বলতেই শুনলাম এখন ভোট দিতে চাইলে প্রিসাইডিং অফিসারের সামনে নৌকায় ভোট দিতে হবে।

১০| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:১৮

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: গণতন্ত্র মুক্তি পাক
পরিবারত্ন্ত্র নিপাত যাক

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.