নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বোকা মানুষের কথায় কিই বা আসে যায়

বোকা মানুষ বলতে চায়

আমি একজন বোকা মানব, সবাই বলে আমার মাথায় কোন ঘিলু নাই। আমি কিছু বলতে নিলেই সবাই থামিয়ে দিয়ে বলে, এই গাধা চুপ কর! তাই আমি ব্লগের সাহায্যে কিছু বলতে চাই। সামু পরিবারে আমার রোল নাম্বারঃ ১৩৩৩৮১

বোকা মানুষ বলতে চায় › বিস্তারিত পোস্টঃ

কাশ্মীর ভ্রমণ পরিকল্পনা এবং বাজেট (একটি অপূর্ণাঙ্গ পোস্ট ;) :P )

১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৩৭



কাশ্মীর ভ্রমণের সিরিজ পোস্ট দেয়ার পর অনেকেই অনেক তথ্য-উপাত্ত জানতে চেয়েছেন বিভিন্ন সময়ে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এই পোস্টের অবতারণা। কাশ্মীর ভ্রমণের জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ ভ্রমণ পরিকল্পনা নিয়ে পোস্ট করার ইচ্ছে ছিল। আজ সেই উদ্দেশ্য নিয়ে এই পোস্ট। প্রথমেই আলোচনা করা যাক পাসপোর্ট করা নিয়ে। পাসপোর্ট করার নিয়মকানুন সবাই কমবেশী জানেন। অনলাইনে পাসপোর্টের জন্য আবেদন ফর্ম পাওয়া যায় এই ঠিকানায়ঃ পাসপোর্ট এপ্লিকেশন ফর্ম (পিডিএফ) Click This Link এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা পাওয়া যাবে এই ঠিকানায়ঃ http://www.passport.gov.bd/ যেখানে Online MRP Instruction নামে একটি মেনুবার আছে, এখানে ক্লিক করলে ১৪ পাতার একটি নির্দেশিকা পিডিএফ ফাইল আকারে পাবেন। এখান হতে পাসপোর্ট সংক্রান্ত যাবতীয় প্রয়োজনীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।

এবার পাসপোর্ট হাতে পাওয়ার পর, দরকার হবে ভারতীয় ভিসা। ভারতীয় ভিসা’র জন্য বর্তমানে “ষ্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া” পরিচালিত ভারতীয় ভিসা সেন্টারের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন জমা দিতে হয়। এখানে যত যন্ত্রণা, বর্তমানে কোন এজেন্ট ছাড়া অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার ডেট পাওয়া দুষ্কর। ১৫০০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত সার্ভিস চার্জ নিয়ে আপনার আবেদনপত্র জমার ডেট পাইয়ে দিতে পারে এই সকল এজেন্টরা। আপনি যেহেতু অনলাইনে জমা দিতে পারছেন না, প্রয়োজনে ওদের এম্বাসির ভিসা প্রসেসিং সেকশনে মেইল করতে পারেন। আমার পরিচিত একজন এই প্রক্রিয়ায় আবেদনপত্র জমা দেয়ার ডেট পেয়েছে। যেহেতু এখানে টুরিস্ট ভিসার কথা আলোচনা করছি, তাই একটা কথা বলা প্রয়োজন। টুরিস্ট ভিসার জন্য সলভেন্সি প্রুভ হিসেবে আপনার কমপক্ষে ১৫০ ইউএস ডলার সমপরিমাণ অর্থ পাসপোর্টে এন্ডোর্স করতে হবে অথবা ব্যাংক স্টেটমেন্ট জমা দিতে হবে। তবে সবচেয়ে বেটার ডলার এন্ডোর্স করা। আমার এক বন্ধুর ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর ট্রানজেকশন প্যাটার্ন এর কারণে ভিসা এপ্লিকেশন রিফিউজ হয়েছে। আপনি চাইলে আপনার ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড দিয়েও ডলার এন্ডোর্স করাতে পারেন। http://www.ivacbd.com/visas_and_document.php এই ঠিকানায় দেয়া নির্দেশিকা হতে সহজেই জেনে নিতে পারবেন আপনার ভিসা আবেদনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগতে পারে। সাধারণত টুরিস্ট ভিসা’র জন্য যা যা লাগেঃ

* ২”X২” সাইজের পাসপোর্ট সাইজের ছবি (দুই কপি)। (অনলাইন আবেদনপত্র জমা দেয়ার ক্ষেত্রে এই ছবিই স্ক্যান করে দেবেন)

* জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি

* কর্মজীবীদের জন্য অফিস হতে অনাপত্তিপত্র (NOC), ব্যবসায়ীদের জন্য আপডেট ট্রেড লাইসেন্সের ফটোকপি।
অফিস পরিচয়পত্র (এমপ্লয়মেন্ট আইডি কার্ড)

* ভিজিটিং কার্ড

* কমিশনার সার্টিফিকেট

* বর্তমান ঠিকানার সাম্প্রতিক কোন ইউটিলিটি বিলের ফটোকপি।

এখানে মনে রাখবেন, ইউটিলিটি বিলে ঠিকানা যেভাবে লেখা থাকবে, ঠিক সেইভাবে ভিসা এপ্লিকেশন ফর্মে দিতে হবে। উদাহরণ স্বরূপ, আপনি পাসপোর্ট করার যে বাসায় ছিলেন, এখনো সেখানেই আছেন। ঠিকানা ১০০৪, বিষ্ণু চরন দাস স্ট্রীট, লালবাগ, ঢাকা। কিন্তু আপনার ইউটিলিটি বিলে লেখা আছে, ১০০৪, বি সি দাস স্ট্রীট, লালবাগ, ঢাকা। এক্ষেত্রে আপনি ইউটিলিটি বিলেরটাই আবেদনপত্রে দিবেন। উল্লেখ্য যে, ভিসা আবেদনে চারটি বিষয় বিবেচনা করা হয়ঃ (১) আপনি কোন দেশের নাগরিক (এর জন্য জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি), (২) আপনার স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা (ইউটিলিটি বিলের ফটোকপি এবং কমিশনার সার্টিফিকেট এর জন্য প্রয়োজন), (৩) আপনার পেশার সত্যতা (এজন্য এনওসি, আইডি কার্ড এবং ভিজিটিং কার্ড) এবং (৪) সলভেন্সি (এজন্য নুন্যতম ১৫০ ইউএস ডলার এন্ডোর্সমেণ্ট)।

তো আর কি? এবার পাসপোর্ট এবং ভিসা পর্ব শেষ, আসুন শুরু করি কাশ্মীর যাত্রা। মনে রাখবেন, এই পোস্টে আমি প্রতিটি ভিন্ন ভিন্ন খরচের জন্য পাঁচটি ক্যাটাগরি রাখবো। আপনি যে খরচ যে ক্যাটাগরিতে করতে চান, সেটির খরচ আলাদা করে হিসেবে রেখে আপনার মোট খরচ বের করতে পারবেন।

কবে যাবেনঃ
প্রথমেই আসি কোন সময়ে কাশ্মীর ভ্রমণের জন্য উপযুক্ত সময়। কাশ্মীরের পরিপূর্ণ রূপ উপভোগ করতে হলে, আপনাকে কমপক্ষে তিনবার যেতে হবে কাশ্মীর। সেপ্টেম্বর-অক্টোবর এর দিকে, যখন বর্ষার শেষে চারিদিকে থাকবে সবুজের সমারোহ, গাছে গাছে ধরবে আপেল। আবার ডিসেম্বর-ফেব্রুয়ারি, যখন বরফে ছেয়ে যাবে চারিধার। আর একটি হল এপ্রিল, যখন কাশ্মীরের বিখ্যাত টিউলিপ গার্ডেনে ধরবে ফুল, সাথে থাকবে বরফে ঢাকা পাহাড়ের সারি, রৌদ্রোজ্জ্বল দিন। আর সব বিবেচনা করে, আপনি যদি একবারের জন্য কাশ্মীর যেতে চান, তাহলে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ হবে আপনার জন্য সেরা সময়।

কিভাবে যাবেনঃ
ঢাকা থেকে শ্রীনগর যাওয়ার বিভিন্ন রুট রয়েছে। ঢাকা হতে কলকাতা বা দিল্লী যেতে হবে প্রথমে। সেখান থেকে সরাসরি শ্রীনগর (বিমানে) অথবা জম্মু হয়ে শ্রীনগর (রেল ও সড়ক পথে)।

কোথায় কোথায় বেড়াবেনঃ
শ্রীনগরঃ ডাল ও নাগিন লেক, মুঘল গার্ডেনস (নিশাতবাগ, শালিমারবাগ, চাশমেশাহি, পারিমাহাল), শঙ্করাচার্য হিল, জামে মসজিদ, হযরত বাল মসজিদ, টিউলিপ গার্ডেন, জাদুঘর, বোটানিক্যাল গার্ডেন।
পাহেলগাওঃ চান্দানওয়ারি, বেতাবভ্যালি, আরুভ্যালি, বাইসারান, লিদারওয়াত রিভার, সান টেম্পল, তুলিয়ান লেক।
গুলমার্গঃ গুলমার্গ গণ্ডোলা, আফারওয়াত পিক, খিলানমার্গ, বাবা রেশির মাজার, গলফ কোর্স, সেন্ট মেরী চার্চ, এলপাথর লেক, বায়সফিয়ার রিজার্ভ, ফিরজপুর নাল্লাহ।
সোনামার্গঃ জজিলা পাস, থাজিওয়াস গ্লেসিয়ার, গাঙ্গাবাল লেক, গাদসার লেক, ভিসান্তার লেক, সাসতার লেক।

সময়ের হিসেবঃ
এখন আসুন সময়ের হিসেবে। শ্রীনগরের সবকয়টি স্থান ভ্রমণের জন্য তিন-চার দিন সময় লাগবে। পাহেলগাও এর সবকয়টি স্থান ভ্রমণে চারদিন, গুলমার্গ তিনদিন, সোনামার্গ দুই দিন। সবমিলে ১২-১৩ দিন কাশ্মীর এর সবকয়টি স্পট ঘুরে দেখতে চাইলে। সাথে ইন্টারনাল ট্রান্সফারে আরও ২-৩ দিন যোগ করে ১৫ দিন। ১৫ দিনে আপনি মোটামুটি সবকয়টি স্থান ঘুরে দেখতে পাবনে। তবে একসপ্তাহের একটা ট্যুর হতে পারে এমনঃ পাহেলগাও তিনদিন, শ্রীনগর দুদিন, গুলমার্গ একদিন, সোনামার্গ একদিন।

খরচের হিসেবঃ

যাতায়াতঃ

ঢাকা থেকে কলকাতাঃ
Category A: ঢাকা থেকে যশোহর হয়ে বেনাপোল। সেখান থেকে কলকাতা। খরচ ৫০০-১০০০ টাকা।
Category B: ঢাকা থেকে বেনাপোল হয়ে কলকাতা (নন-ট্রানজিট এসি বাস)
Category C: ঢাকা থেকে বেনাপোল হয়ে কলকাতা (ট্রানজিট এসি বাস)
Category D: ঢাকা থেকে ট্রেনে (মৈত্রী এক্সপ্রেসে কলকাতা) ৫০০-১০০০ টাকা।
Category E: ঢাকা থেকে বাই এয়ারে কলকাতা। খরচ ৬০০০ টাকা।

কলকাতা-শ্রীনগরঃ
Category A: কলকাতা থেকে জম্মু হয়ে শ্রীনগর ১২০০-১৫০০ টাকা।
Category B: কলকাতা থেকে দিল্লী হয়ে জম্মু। সেখান থেকে বাসে শ্রীনগর। ১৫০০-২০০০ টাকা (নন-এসি স্লিপার ক্লাস)
Category C: কলকাতা থেকে দিল্লী হয়ে জুম্মু। সেখানে থেকে প্রাইভেট কারে শ্রীনগর। ৬০০০-৭০০০ টাকা।
Category D: কলকাতা থেকে দিল্লী বাই এয়ার। দিল্লী থেকে শ্রীনগর বাই এয়ার। ১০০০০-১২০০০ টাকা।
Category E: কলকাতা থেকে সরাসরি শ্রীনগর (উইথ/উইদাউট ট্রানজিট) ১২০০০-১৫০০০ টাকা।

থাকাঃ
Category A: জম্মু এন্ড কাশ্মীর ট্যুরিজম কর্পোরেশনের ডরমিটরিতে সিট, ৪০০ টাকা।
Category B: সাধারণ মানের ব্যাচেলরদের জন্য আদর্শ মানের হোটেল। ৬০০ টাকা।
Category C: ষ্ট্যাণ্ডার্ড হোটেল। ১২০০-১৫০০ টাকা।
Category D: তিন তারকা অথবা সম-মানের হোটেল। ২০০০-৩০০০ টাকা।
Category E: লাক্সারি তিন তারকা-চার তারকা হোটেল। ৩০০০-১৫০০০ টাকা। (উল্লেখ্য কাশ্মীর জোনে কোন পাঁচ তারকা হোটেল নেই। সবচেয়ে নামকরা গ্র্যান্ড মুমতাজ।)

খাওয়াঃ
Category A: যা পাই, তাই খাই। ড্রাই ফুড (রুটি কলা টাইপ) প্রতি বেলা অনধিক ৫০ টাকা।
Category B: সাধারণ ভারতীয় থালি টাইপ খাবার। প্রতি বেলা ১০০ টাকা।
Category C: ষ্ট্যাণ্ডার্ড মিল। ২০০ টাকা প্রতি বেলা।
Category D: ভালো মানের রেস্টুরেন্ট ৩০০-৪০০ টাকা প্রতি বেলা।
Category E: নামী রেস্তোরাঁ ৫০০-১৫০০ টাকা প্রতি বেলা।
(সকালের নাস্তার জন্য অর্ধেক খরচ ধরতে পারেন। আর হোটেলের থাকার সাথে ব্রেকফাস্ট ফ্রি থাকলে খরচ শূন্য। আমার মতে, থাকা উচিত এমএপি (মডিফাইড আমেরিকান প্ল্যান) এ, সকালের নাস্তা এবং রাতের খাবার হোটেল)

সাইট সিয়িংঃ
এই ক্ষেত্রে ক্যাটাগরি ভাগ করে দেয়া যাচ্ছে না। কাশ্মীরে এক জোনের প্রাইভেট কার, অন্য জোনে আপনাকে ড্রপ করে দেবে ঠিকই, কিন্তু ঐ জোনের সাইট সিয়িং এর জন্য আলাদা করে প্রত্যেক জোনের গাড়ী ভাড়া করতে হবে। চারজনের জন্য ট্যাক্সি টাইপ প্রাইভেট গাড়ী দৈনিক ১২০০-১৫০০ টাকা থেকে শুরু করে অনধিক ৩০০০ টাকা। নির্ভর করে সময় এবং কয়টা সাইট ভিজিট করবেন তার উপর। লোকাল ট্রান্সপোর্ট দিয়ে এক এলাকা থেকে অন্য এলাকা যেতে পারেবেন। কিন্তু সাইট সিয়িং এর জন্য কোন পাবলিক ট্রান্সপোর্ট দেখি নাই। পাহেলগাও, গুলমার্গ এসব এলাকায় সাইট সিয়িং এর জন্য পনি রাইড (ঘোড়ায় চড়া) রয়েছে, খরচ ২০০-১০০০ টাকা, সময় এবং দরদাম এর উপর নির্ভর করে। আর টিকেট বাবদ লাগতে পারে মোট ৫০০ রুপী সর্বোচ্চ; তবে তা গণ্ডোলা রাইড ছাড়া। গণ্ডোলা রাইড এর জন্য লাগবে ৮০০-৩০০০ রুপী পর্যন্ত। বিস্তারিত পাবেন এই লিঙ্কেঃ http://gulmarggondola.com/

তো আর কি? এবার নিজের হিসেব নিজেই করুন। কয়দিন থাকবেন, কোথায় কোথায় বেড়াবেন এর উপর ভিত্তি করে বের করে ফেলুন আপনার বাজেট। সবার সুবিধার জন্য আমি একটা প্ল্যান দিচ্ছিঃ

দিন 0: ঢাকা থেকে কলকাতা। বিআরটিসি-শ্যামলী এসি বাস। ছাড়বে রাত দশটায়। ভাড়া ১৭০০/১৯০০ টাকা

দিন ১ঃ কলকাতা পৌঁছে ট্যাক্সি যোগে চলে যান হাওড়া রেল ষ্টেশন। ভাড়া ১০০-২০০ রুপী। রাজধানী এক্সপ্রেসে দিল্লী, থ্রি টায়ার এসি, ভাড়া বাংলাদেশী টাকায় ৩৩০০ (এজেন্ট এর প্রাইস)। রুপীতে ভাড়া ২১৫০ রুপী।

দিন ২ঃ দিল্লী পৌঁছে রেস্ট অথবা মিনি দিল্লী দর্শন। রাতের জম্মুগামী রাজধানী এক্সপ্রেসে জম্মু। সেখানে পৌঁছে প্রাইভেট গাড়ীতে জম্মু-শ্রীনগর। খরচ ২০০০ রুপী সব মিলিয়ে।
(এক্ষেত্রে কলকাতা থেকে প্লেনে শ্রীনগর চলে যেতে পারেন। সবচেয়ে ভাল হয় এয়ার ইন্ডিয়া’র ঢাকা-দিল্লী ফ্লাইটে দিল্লী এসে রাত থেকে পরদিন সকালের প্লেনে শ্রীনগর চলে এলে। খরচ সব মিলিয়ে ১৫০০০ টাকা।)

দিন ০৩ঃ শ্রীনগর ভ্রমণ।

দিন ০৪ঃ শ্রীনগর-পাহেলগাঁও। ভ্রমণ এবং রাত্রি যাপন।

দিন ০৫ঃ পাহেলগাঁও ভ্রমণ এবং রাত্রি যাপন।

দিন ০৬ঃ পাহেলগাঁও-গুলমার্গ, ভ্রমণ এবং রাত্রি যাপন।

দিন ০৭ঃ গুলমার্গ-শ্রীনগর, ভ্রমণ এবং হাউজবোটে রাত্রি যাপন।

দিন ০৮ঃ শ্রীনগর-সোনামার্গ, ভ্রমণ এবং শ্রীনগর এসে রাত্রি যাপন।

দিন ০৯ঃ শ্রীনগর-দিল্লী হয়ে কলকাতা’র উদ্দেশ্যে যাত্রা।

দিন ১০ঃ কলকাতা পৌঁছান এবং রাত্রি যাপন।

দিন ১১ঃ ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা।

উল্লেখ্য, দিন ০৯ এ শ্রীনগর থেকে দিল্লী হয়ে ঢাকার বিমান ধরতে পারেন। এক্ষেত্রে খরচ আগের মতই ১৫০০০ টাকা পড়তে পারে।
এই প্ল্যানে মোট খরচ হবে ৩৫০০০-৬০০০০ টাকা।

তথ্য সহায়তা পেতেঃ https://www.tripadvisor.in/ http://www.makemytrip.com/ http://www.booking.com/

আরও কোন তথ্য জানার থাকলে যে কোন সময় কমেন্টে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। চেষ্টা থাকবে যথাযথ সহায়তা করার।

মন্তব্য ৭৯ টি রেটিং +৩৬/-০

মন্তব্য (৭৯) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:০৩

ভ্রমণ বাংলাদেশ বলেছেন: টাকা নাই, কেমনে যাই ।

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:২৮

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ব্যাংক লোণ লন মিয়া ভাই। ;)

২| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:১১

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: দারুন ভ্রমনপিডিয়া!!!!

এক ক্লিকে সব! প্লান বাজেট, দর্শনীয স্থান, খুটিনাটি :)

ভ্রমনপিপাসুদের (কাশ্মীর) জন্য আদর্শ ব্লগ!

++++++++++

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০০

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ বিদ্রোহী ভাই, চেষ্টা করেছি সংক্ষেপে মোটামুটি সব বিষয় তুলে ধরতে। যদিও পোস্টটি কেমন অসম্পূর্ণ মনে হচ্ছে আমার কাছে। দেখি মাঝে মাঝে পোস্টে ঢুঁকে এডিট করে করে আরও কিছু তথ্য সংযুক্ত করে দেব। :)

সুন্দর মন্তব্যে ভালো লাগা রইল। ভালো থাকুন সবসময়।

৩| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:২৮

সুমন কর বলেছেন: কোন কথা হবে না। সোজা প্রিয়তে এবং প্লাস।

** পরে প্রিন্ট করে নেবো... !:#P

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:১৪

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: বন্ধু, এই পোস্টটি লেখার সময় তোমার কথা মাথায় ছিল, আর মিথ্যা করে বলি, বীথি আপুর কথাও মাথায় ছিল। (বীথি আপু নইলে আবার মাইন্ড করতে পারে :P )

সবার কাজে লাগলেই এই পরিশ্রম সার্থক। দেখি এই পোস্টটি আরেকটু পরিমার্জন এবং পরিবর্ধন করার ইচ্ছে আছে। সময় করে একফাঁকে করে ফেলব। :)

৪| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ৯:২৬

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন: তো আর কি? এবার পাসপোর্ট এবং ভিসা পর্ব শেষ, আসুন শুরু করি কাশ্মীর যাত্রা। ------

দাদুভাই, ভিসা আবেদনের কাগজপত্র জমা দিলেই ভিসা পাওয়া যাবে? সম্ভবনা কত পারসেন্ট?

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:০৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: সকল কাগজপত্র ঠিকঠাক থাকলে এবং ফর্মে কোন ভুলভ্রান্তি না থাকলে তো ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা শতকরা আশি ভাগ। বুঝলেন দিদিমণি? :P

৫| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সকাল ১০:০৯

ইমরাজ কবির মুন বলেছেন:
গুড পোস্ট!

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১:০২

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ চাঁদ ভাই :P

৬| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১:০৫

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: অসাধারন বললেও কম হবে। প্রিয়তে নিলাম।

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৭

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: প্লিজ কা_ভা, পিলিজ, একটু বেশী বলেন। বোকা মানুষকে কম বলে চলে যাবেন না প্লিজ। :P

ধন্যবাদ উৎসাহব্যাঞ্জক মন্তব্যের জন্য। বসন্তের শুভেচ্ছা রইল।

৭| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১:৪৩

আনোয়ার ভাই বলেছেন: দারুন পোস্ট- এক কথায় - একের ভিতর-----------অধিক। প্রিয়তে গুদামজাত।

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:০৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ আনোয়ার ভাই, ভালো থাকুন সবসময়।

৮| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৪:৪২

সারাফাত রাজ বলেছেন: শ্রীনগরের সাইট সিয়িং এ কিন্তু লোকাল ট্রান্সপোর্ট আছে। নিশাতবাগ, শালিমারবাগ, চাশমাশাহি, পারিমহল,জামে মসজিদ, হযরত বাল মসজিদ, বোটানিক্যাল গার্ডেন, গুরুদুয়ারা, বাদোওয়ারি পার্ক এগুলো ঘুরতে আমার মোটামুটি ১১৩ রুপি লেগেছিলো।

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:৪২

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: আমরা দশজনের দল ছিলাম, ফলে লোকাল ট্রান্সপোর্ট খোঁজ করে দেখি নাই। শ্রীনগরের সাইট সিয়িং লোকাল ট্রান্সপোর্ট দিয়ে করা সম্ভব, কারণ সব স্পটই রাস্তার কাছে। কিন্তু পাহেল্গাও, গুলমার্গ, সোনামার্গ এসব জায়গায় তা সম্ভব নয়।

৯| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:১৮

এহসান সাবির বলেছেন: ওখানের ইন্টারনেটের কি অবস্থা?

ওখানে যেয়েই না হয় আমি বলব '' আইচি আমি''



এক গুচ্ছ ভালো লাগা।
প্রিয়তে।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৮

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: আমরা যে যে হোটেলে ছিলাম (হাউজবোট সহ) সব জায়গাতেই ফ্রি ওয়াইফাই ইন্টারনেট সংযোগ ছিল। প্রতিটি স্পটেও কমবেশী মোবাইল কাভারেজ আছে। সমস্যা হল কাশ্মীর জোনের জন্য আপনাকে আলাদা সিম নিতে হবে, যা একজন টুরিস্ট হিসেবে পাওয়াটা অনেক দুস্কর। আমাদের গাড়ীর ড্রাইভার কাম গাইড সাহিল তার একটা সিম দিয়েছিল আমাদের এক সপ্তাহের ভ্রমণকালে ব্যবহারের জন্য।

আপনার পোঁছানোর অপেক্ষায় রইলাম। :)

১০| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩৩

আবু শাকিল বলেছেন: পোষ্টের জন্য অনেক কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ বোমা ভাই।
পোষ্ট প্রিয়তে নিয়ে যাচ্ছি।
কাজে লাগবে।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:৫১

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ বরাবরের মত সাথে থাকার জন্য। ভালো থাকুন সবসময়। :)

১১| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:০৫

উল্টা দূরবীন বলেছেন: টাকা জমানো শুরু করতে হবে।
পোস্ট প্রিয়তে।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ৯:৩৮

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: শুরু করে দেন, কাশ্মীর ভ্রমণ মানেই পুরো পয়সা উশুল টাইপ ভ্রমণ। অগ্রিম শুভকামনা রইল।

১২| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৩:১৬

অগ্নি সারথি বলেছেন: কাজের পোস্ট ভাই। প্রিয়তে নিয়া রাইখ্যা দিলাম।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:০৮

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, ভালো থাকুন সবসময়।

১৩| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৫

গেম চেঞ্জার বলেছেন: মানুষ আজকাল বড্ড বড্ড স্বার্থপর। প্রিয় বাটনে চাপতে পারে অথচ প্লাস বাটনে চাপতে পারে না। :||

হাঃ হাঃ হাঃ

কি কইতাম ভ্রাতা? আমাদের এই না হলো দশা..... :P

অশেষ ধন্যবাদ এই পোস্টটির জন্য আর (৫) ও প্রিয়তে তো অবশ্যই....

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:৫৫

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই। কিছু বলার দরকার নাই। আমি ব্লগে লিখি নিজের খোলা ডায়রি হিসেবে, বিশেষ করে ভ্রমণ পোস্টগুলো। পুরানো ভ্রমণ পোস্ট পড়লে নস্টালজিক হয়ে যাই, অদ্ভুত এক অনুভূতি।

ভালো থাকা হোক সবসময়।

১৪| ১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:৩৮

প্রোফেসর শঙ্কু বলেছেন: ওয়াও, কি সুন্দর গুছিয়ে লিখেছেন। প্রিয়তে এবং প্লাস।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১১:২৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ প্রফেসর সাহেব, কেমন আছেন? ভালো থাকুন সবসময়। :)

১৫| ১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৯

প্লাবন২০০৩ বলেছেন: ধন্যবাদ @বো_মা ভাই,
আমার প্ল্যান টা ঠিক কইরা নিলাম। লেখাটা প্রথমে প্রিয়তে। এরপর সময়মত প্রিন্ট করে অনুসরণ।
কাজীমকে নিয়ে যেতে চাচ্ছি। আইন শৃংখলা পরিস্থিতি কেমন এখন ওখানে?

১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:৩৫

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: নিশ্চিন্তে যেতে পারেন। আমরা যখন কাশ্মীর যাই, তখন জম্মু-কাশ্মীর গরু জবাই'কে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত, জম্মু আর গুলমার্গ যেদিন যাই, সেদিন ছিল হরতাল। কিন্তু আমরা কোথাও কোন সমস্যায় পড়ি নাই। বিদেশী পর্যটক হিসেবে সব জায়গায় সুবিধা পেয়েছি। আপনি কোন এজেন্টের মাধ্যমে গেলে বেটার, প্রয়োজন হলে কমেন্টে বলবেন, আমি ওদের মেইল এড্রেস এবং ফোন নাম্বার দিয়ে দিব।

আমার এক বন্ধ সস্ত্রীক এপ্রিলের দিকে কাশ্মীর যাওয়ার প্ল্যান করছে। শুভকামনা রইল।

৩০ শে মার্চ, ২০১৬ রাত ৮:১৩

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: Sumaira Zargar
Asst. Manager - Kashmir
Mob: +91 9796 937777
Your Holiday is being looked after by:
Visit Kashmir.Net
A Business Unit of Distant Holidays
Ground Floor, Sheikh Building
Shiraz Chowk, Khanyar Road
Srinagar – 190003, J&K, India.
Tel: +91 194 2452544 / 2481260 / 2484492
Fax: +91 194 2481567
Email: [email protected]

১৬| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৩:৩৪

রেজওয়ানা আলী তনিমা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। ভ্রামণপ্রিয়দের জন্য খুব দরকারী একটা পোস্ট।

১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:৫৭

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ রেজওয়ানা আলী তনিমা। বইয়ের কি অবস্থা? দেখি, আগামী দুই/তিন দিনের মধ্যে বইমেলায় যাব, আপনার এবং আরও দুই তিনজন সহব্লগারের বই কেনার জন্য। শুভকামনা রইল, ভালো থাকুন সবসময়।

১৭| ১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১১:০১

রেজওয়ানা আলী তনিমা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। বই মেলায় এসেছে জানি, হাতে তুলে দেখা হয় নি। যদি কেনা হয় তবে পড়ে ভালো/মন্দ জানিয়ে আরো ভালো করার প্রেরণা জোগাবেন আশা রইলো। ভালো থাকবেন আপনিও।

১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১২:০২

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: অতি অবশ্যই, বই কিনে পড়ে রিভিউ লেখার ইচ্ছে আছে। দেখা যাক, একটু দেরীতে হলেও দেয়ার ইচ্ছে আছে। শুভকামনা জানবেন।

১৮| ১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১১:৪৩

প্লাবন২০০৩ বলেছেন: আমার ই-মেইল অ্যাড্রেসঃ [email protected]

১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১:০১

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ওকে, গট ইট। আপনার মোবাইল নাম্বার দেয়া কমেন্টটা মুছে দিলাম। ভালো থাকুন সবসময়, কাজীম এর জন্য দোয়া এবং ভালবাসা রইল। শুভকামনা সতত।

১৯| ১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১:১০

প্লাবন২০০৩ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই। দোয়া করবেন।

১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:৪০

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: অবশ্যই। :)

২০| ১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:৫৯

ডি মুন বলেছেন: প্রিয়তে নিলাম।

++++

এত সুন্দর করে হিসাব কিতাব করে দিয়েছেন যে এখুনি ঘুরে আসতে ইচ্ছে করতেছে।
কবে যে যেতে পারব কাশ্মীর দর্শনে আল্লাহপাকই জানেন।

ভালো থাকা হোক বোকা মানুষ ভাই :)

১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৬

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় ব্লগার। এই ধরণের ভ্রমণের জন্য দরকার একান্ত ইচ্ছে, দেখবেন বাকী সব কিভাবে যেন ম্যানেজ হয়ে যাবে। জাস্ট প্ল্যান করুন, দেখবেন একদিন কাশ্মীর ঘুরে এসে পোস্ট দিচ্ছেন।

ভালো থাকুন সবসময়, শুভকামনা নিরন্তর। :)

২১| ১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:৩৪

রঞ্জন সরকার জন বলেছেন: হিমাচল (শিমলা, মানালি, রোহটাং পাস)-কাশ্মীর (আপনাদের ঘুরা সব প্লেস+লাদাখ, কারগিল) একত্রে ঘুরে আসতে চাই। একবার ওইদিকে গেলে সব ঘুরে না আসাটা লস আমার মত গরীব মানুষের জন্য। বাংলাদেশ থেকে ওইদিকে একবার যেতে আসতেও মিনিমাম ১০ হাজার করে খরচ আছে জনপ্রতি। সারাফাত রাজ ভাইয়ের ঘুরার সিস্টেমটা আমার ব্যাপক পছন্দ হইছে। ওই সিস্টেমেই ঘুরার প্ল্যান করতেছি। পার্থক্য বলতে আমরা স্বামী-স্ত্রী দুইজন যাব। আর উনি কিছু কিছু সাইটসিয়িং করেননি ওইগুলা আমরা করব। জনপ্রতি বাজেট ২৫ হাজার, দুইজন ৫০ হাজার। বিপদ-আপদের জন্য ১০ হাজার এক্সট্রা রাখব। ১ মাস হাতে নিয়ে যেতে হবে। কবে যে এই সময়টা বের করতে পারব :(

১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:৪০

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ব্লগে অনেকেই কিন্তু সমালোচনা বা নেগেটিভ কিছু শুনতে পছন্দ করে না। তারপরও বলছি, প্লিজ ডোন্ট মাইন্ড।

প্রথমত আপনি যে প্ল্যানিং দিয়েছেন সেগুলো ঘুরে দেখতেই (সাইট সিয়িং অনলি) এক মাস লেগে যাবে। তার সাথে আপনার বাজেটে এক জায়গা হতে আরেক জায়গা যেতে আরও ১৫ দিনের বেশীও লাগতে পারে। দ্বিতীয়ত, যে সিজনে কাশ্মীর-সিমলা-মানালি বেড়ানোর উপযুক্ত, সেই সিজনে কারগিল-লাদাখ-রোহটাং পাস বরফে ঢাকা থাকে, বন্ধ থাকে সড়ক পথ। তখন ভরসা আকাশপথ। আবার ঐ রাস্তা যখন খোলা, তখন কাশ্মীর-সিমলা-মানালি ভ্রমণের সময় নয়। তৃতীয়ত, এক মাসের ট্যুরে জনপ্রতি বরাদ্দ রাখছেন ৩০,০০০ টাকা, অর্থাৎ ২৫০০০-২৬০০০ রুপী, দৈনিক ৮৫০ রুপী'র মত। সকালের নাস্তা ৫০ রুপী, দুপুর আর রাতে ১০০ করে ২০০ রুপী (এটা সর্বনিম্ন), হোটেল ভাড়া ৪০০-৫০০ রুপী। কথা হল ট্রান্সপোর্টের কি হবে। সবচেয়ে বড় যে জিনিস, তা হল, সাথে স্ত্রী'কে নিয়ে যাচ্ছেন, ফলে সব জায়গায় এই বাজেটে থাকা-খাওয়া সম্ভব হবে না।আরকেটা ব্যাপার হল, এই বাজেটে অনেক সাইট সিয়িং বাদ দিতে হবে। উদাহরণ স্বরূপ, পাহেলগাও গেলেন, সান টেম্পেল যাবেন না? এটা কোনটা, সম্প্রতি "হায়দার" নামক ভারতীয় হিন্দি সিনেমার সুপার হিট গান 'বিসমিল' এখানে চিত্রায়ন হয়েছে। বাজরাঙ্গি ভাইজান হয়েছে গুলমার্গ এর রসির মাজারে। এরকম প্রচুর সুন্দর সুন্দর পর্যটন কেন্দ্র নিশ্চয়ই মিস করতে চাইবেন না। তাই পরামর্শ রইবে, প্রয়োজনে দুবার/তিনবার যান, কিন্তু একটি এলাকা বেড়াতে গেলে সেখানকার আকর্ষণীয় স্পটগুলো সব দেখার চেষ্টা করুন। অনেকেই সিমলা গেছে কিন্তু কুফরি-ফাগু সহ আরও কয়েকটি জায়গা, মানালি গেছে কুলু-মানিকারান-কুলু তিব্বতিয়ান মনস্ট্রি দেখেনি, কাশ্মীর গেছে গুলমার্গ-সোনামার্গ যায় নাই, লাদাখ গেছে কিন্তু পেনডং লেক দেখতে যায় নাই। এরকম বহু বহু ঘটনা জানি, দেখেছি অনেককে। আসলে দুই ধরণের ভ্রমণ হয়ঃ একটা বলার জন্য আমি অমুক অমুক জায়গায় গিয়েছিলাম; আরেকটা প্রাণ ভরে একটা স্পটের সব জায়গা ঘুরে দেখা। তাই, পছন্দ আপনার। উপযাজক হয়ে অনেক কথা বলে ফেললাম, আশা করি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

২২| ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ২:৪২

রঞ্জন সরকার জন বলেছেন: মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ ভাই। আপনার অভিজ্ঞতা অনেক। আপনি যা বলেছেন তার প্রায় সবই ঠিক। আপনি যা জানেন তার ১০ ভাগও আমি জানি না। তাই ভুল হতেই পারে। কিছু কথা বলতে চাই এবার। দয়া করে শুনবেন।

ভাই সাধ থাকলেও অনেকেরই সাধ্য থাকে না। তাই কম খরচে ভ্রমণ করি। কম খরচে ভ্রমণ করতে গেলে ছাড় তো দিতেই হবে। এটা করতে পারি এর একটা বড় কারণ আমার স্ত্রী। টিপিক্যাল বাঙ্গালী মেয়ে বলতে যা বুঝায় আমার স্ত্রী সৌভাগ্যবশত সেরকম নয়। শুধু মেয়ে মানুষ বলে ওর জন্য কখনই খুব বেশী বাড়তি আরাম-আয়েশের ব্যবস্থা আমার করতে হয়নি। আমি ও আমার স্ত্রী একই ধরণের মানুষ। খরচ বাঁচানো-অ্যাডভেঞ্চারের জন্য আমরা অনেক কিছুই করি। দুটি উদাহরণ দিতে পারি, একটি হচ্ছে জাহাজ থাকতেও ট্রলারে করে টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যাওয়া আর অন্যটি হচ্ছে মে মাসের রোদের মধ্যে ৪ ঘন্টার উপরে হেঁটে হেঁটে সেন্টমার্টিন থেকে ছেঁড়াদ্বীপ যাওয়া। যাই হোক, দুজন দুইটা ব্যাকপ্যাক নিয়ে চলে যাব। যা আছে কপালে। :)

এবার আসি রাস্তা খোলা-বন্ধ থাকার ব্যাপারে। যদি আগস্টের শেষের দিকে রওনা হই তাহলে কি সব জায়গার রাস্তা খোলা পাব না? এই ব্যাপারে আমি কিন্তু খুব বেশী কিছু জানি না। তাই সঠিক তথ্যটা দিয়ে সাহায্য করবেন। আমার সাধারণ জ্ঞান বলে ওই সময় তো কোথাও বরফ থাকার কথা না। কিন্তু আমার ভুলও হতে পারে।

হোটেলের ব্যাপারে আমি যা শুনেছি তা হল প্রায় সব হোটেলেই নাকি ডাবল বেডের রুমই বেশী। অফ সিজনে গেলে নাকি ৫০০/৬০০ রুপির মধ্যে ভাল রুমই পাওয়া যায়। তো আমরা যখন যাব তখন তো অফ সিজনই থাকার কথা। প্রতি দিন খাওয়ায় আমাদের জনপ্রতি ২৫০ রুপির বেশী লাগবে না। ইন্ডিয়ান থালির ভেজ খাবার আমাদের পছন্দের। কর্ণাটক-তামিলনাড়ু গিয়ে খাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়েছিল।

এরপর বলব ট্যুর প্ল্যান সম্পর্কে। আমার ইচ্ছা হল ঢাকা-বেনাপোল-বনগাঁ-দমদম-ফেয়ারলি প্লেস-হাওড়া-কালকা মেল-কালকা-শিমলা-মানালি-রোহটাং পাস-লেহ (লাদাখ)-কারগিল-সোনমার্গ-শ্রীনগর-গুলমার্গ-শ্রীনগর-পাহেলগাঁও-শ্রীনগর-হাওড়া-দমদম-বনগাঁ-বেনাপোল-ঢাকা। এখন ভাই আমি জানি এই জায়গাগুলোতে এমন অনেক স্পটই আছে যেখানে রিজার্ভ গাড়ি ছাড়া যাওয়া যায় না। সেগুলোর ৮০% আমাদের না গিয়ে থাকতে হবে। কারণ আমরা মাত্র দুইজন আর গাড়ি রিজার্ভ নেওয়া আমাদের সামর্থ্যের বাইরে। আমরা লোকাল ট্রান্সপোর্টে ঘুরব। আর শুধু সেই সেই জায়গাগুলোতে যাব যেগুলো বেশী বিখ্যাত আর সবাই চেনে। যেমন কক্সবাজারে গেলে মেইন বিচ ছাড়াও হিমছড়ি, ইনানী, মহেশখালী, রামু ইত্যাদি অনেক জায়গা আছে। কিন্তু সেই সবগুলোতে সবাই যায় না। তেমনি আমরাও পাহেলগ্রাম গেলে বেতাব ভ্যালি, আরু ভ্যালি, চান্দানওয়্যারি যাব, এর বেশী কিছু ঘুরব না (উদাহরণ দিলাম)।

তবে ভেজাল হতে পারে লাদাখ নিয়ে। এই একটা জায়গায়ই অনেকগুলা স্পট আছে অকল্পনীয় সুন্দর। আমার মত গরীব কোনটা রেখে কোনটা দেখবে সেটা ঠিক করাই মুষ্কিল। আর জায়গাগুলো দেখাও অনেক কস্টলি। প্যাঙ্গং লেইক, দ্রাস ওয়্যার মেমোরিয়াল, থিক্সি মনেস্ট্রি, গুরুদুয়ারা পাথার সাহিব, ইন্দুস-জান্সকার নদীর মিলনস্থল, শান্তি স্তূপা, চাংলা পাস, লিকির মনেস্ট্রি, জান্সকার ভ্যালি, মরিরি লেইক আরও আছে নাম মনে আসতেছে না। অনেককিছুই বাদ পড়বে। :(( কি করব বলেন ভাই। প্রতিবার ৫০ হাজার করে তিনবারে ১ লাখ ৫০ হাজার আর দুইজনে তিন লাখ টাকা খরচ করার সাধ্য নাই যে !!

২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:৩০

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: যেহেতু আপনি অনেক স্পট স্যাক্রিফাইস করতে রাজী আছেন, সেহেতু আপনার প্ল্যান ঠিক আছে। আশা করি আপনারা নিরাপদে ভ্রমণ করে আসবেন এবং আমাদের বেশ কিছু মজাদার এবং রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ পোস্ট উপহার দিবেন।

শুভকামনা।

২৩| ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ভোর ৪:১১

েস িলম েমাঃ রুম্মান বলেছেন: এইরকম একটা খরচের হিসাব খুঁজছিলাম। আপনার পোস্টে ক্যাটাগরি অনুযায়ী হিসাবটা পেয়ে অনেক সুবিধা হলো। এপ্রিলের জন্য প্ল্যান করে ফেললাম। পোস্টটির জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:৫৪

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভাই, আপনাদের উপকারে লাগলেই আমার পরিশ্রম সার্থক হবে। পাঠ এবং মন্তব্যে কৃতজ্ঞতা রইল।

২৪| ২৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:২৫

[email protected] বলেছেন: Nice and very very helpful post. Vaia may be i will be visiting Kashmir in April. Kindly can u provide me sahil drivers phone no. vaia u have any idea about himgiri express, i want to travel by that train Kolkata to Jammu. My mail address [email protected].

১৪ ই মার্চ, ২০১৬ বিকাল ৫:২৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: আপনি এই ঠিকানায় যোগাযোগ করুনঃ
Distant Holidays Tours & Travel,
Ground Floor, Sheikh Building, Shiraz Chowk, Khanyar Road,
Srinagar – 190003, Jammu & Kashmir, India.
Telephone: 0091 194 2452544, 2481260, 09906 966571 Fax: 0091 194 2481567
Email: [email protected] Website: http://www.distant-holidays.com

২৫| ১৪ ই মার্চ, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ভাই এসব আমি নিজে করতে পারবো না, কোন এক এপ্রিলে আবার আপনি আমাকে নিয়ে যাইয়েন

১৪ ই মার্চ, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: হা হা হা, ইনশাল্লাহ, আপনি নিয়ে গেলে যাব। ;) গাইড হিসেবে :P

তার আগে লাদাখ আর আন্দামান যাইতে চাই, রেডি থাকবেন, সময় সুযোগ পেলে দৌড় দিব, অবশ্যই তার আগে আওয়াজ দেয়া হবে। :)

২৬| ১৫ ই মার্চ, ২০১৬ সকাল ৮:১০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: যাইতে তো চাই ই, সময় সুযোগ মেলে কিনা সেটা নিয়েই ভাবি

১৫ ই মার্চ, ২০১৬ দুপুর ২:৪১

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: :-B

২৭| ১৮ ই মার্চ, ২০১৬ দুপুর ১:২৩

মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম বলেছেন: ব্যাপক পোস্টরে ভাই, ধইন্যা পাতা ! গিয়েছিলুম একদা ওখানে, খুব ভাল লেগেছিল। সোনমার্গে যেতে পারি নি তুষারপাত শুরু হয়ে যাওয়া্তে...

১৯ শে মার্চ, ২০১৬ রাত ১২:০১

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: কাশ্মীর যাওয়ার আগে আপনার পোস্ট পড়েছিলাম, সেই ক্যামেরা ফেলে মসজিদে চলে যাওয়া, পড়ে ফেরত পাওয়া... এখনো মনে আছে (যদি ভুল ন করে থাকি)। আমরাও সোনমার্গ স্কিপ করেছিলাম, সময় কম থাকার জন্য।

ধন্যবাদ ভাই, পাঠ এবং মন্তব্যে কৃতজ্ঞতা জানবেন। ভালো থাকুন সবসময়।

২৮| ২২ শে মার্চ, ২০১৬ সকাল ১১:১৬

চাঁদের অরণ্য বলেছেন: সব ভ্রমণ পোষ্ট পড়ি, আর এত বড় বড় দীর্ঘশ্বাস ফেলি। উপকারী পোষ্ট। খুব কাজে আসবে।

২২ শে মার্চ, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৬

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: নাহ, এবার দীর্ঘশ্বাস না ফেলে, নিজে বেড়িয়ে পড়ুন। শুরু করুন আশপাশের কোন জায়গা দিয়েই না হয়। :)

অনেক ধন্যবাদ আপনাকে, বোকা মানুষের ব্লগে স্বাগতম। ভালো থাকুন সবসময়।

২৯| ০১ লা মে, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০৩

ভোলাভালা আদমি বলেছেন: এমন সব পোস্টের জন্যই সামি ব্লগে আজো আসি, স্যালুট ভাই

০৩ রা মে, ২০১৬ রাত ১২:২৪

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ ভোলাভালা আদমি। ভালো থাকুন সবসময়।

৩০| ২১ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩৪

মাহমুদ০০৭ বলেছেন: ভাই আপনার অনেক টাকা !!!
B-) কিছু ধার দেন ।

দারুণ পোস্ট। একদিন না একদিন এই ভূস্বর্গ দেখার ইচ্ছে রইল ।
ভাল থাকুন বোকা ভাই ।

২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০০

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: হা হা হা, সবাই তাই ভাবে মাহমুদ ভাই। কিন্তু ভেতরের গল্প অন্যরকম, বলা যাবে না, বললেই আপনি আর ডি মুন মিলে একটা বই লিখে আগামী বইমেলায় বের করে ফেলবেন। ;) :P

ইচ্ছে আছে আগামী ডিসেম্বর অথবা এপ্রিলের দিকে যাওয়ার, যদি ভাগ্যে থাকে আর কি। কাশ্মীর গেলে যে কোন একটা পোস্টে একটু নক করতে ভুলবেন না যেন।

ভাল থাকুন সবসময়, শুভকামনা রইল।

৩১| ২২ শে জুলাই, ২০১৬ দুপুর ১২:৫৯

ইকরামুল ইসলাম 2016 বলেছেন: bhai 3 of us (me, my wife and friend) want to visit Delhi + Shimla + Kullu + Manali + Leh in August 2016. I have done my visa already and planning to start on 3rd week of August. It will be a great help if you please share the Tour Agent's details so that I can talk to them to make my trip as well. your travel diary inspired me to go there a lot. thank you :)

২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০৩

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: you just mail at [email protected]

আমি মেইলে উত্তর দিব আপনাকে, সকল ধরনের সহায়তা পাবেন ইনশাআল্লাহ।

৩২| ২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:১৬

আবুল হায়াত রকি বলেছেন: বৌ-রে নিয়া কাশ্মির প্রথম হানিমুন করার ইচ্ছা আছে।

২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৩

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: খুবই ভাল পরিকল্পনা। তবে অবশ্যই মার্চ এর শেষ দিকে রওনা হবেন যেন এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ কাশ্মীরে থাকেন। আর চেষ্টা করবেন একটু ভাল কোন এজেন্সির মাধ্যমে হানিমুন প্যাকেজ নিতে, নরমাল বা রেগুলার প্যাকেজ না। লাইফ টাইম মেমরেবল জার্নি হবে আশা করি।

৩৩| ২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৩১

আবুল হায়াত রকি বলেছেন: খুব গুরুত্বপূর্ন একটি বিষয়ে ধারণা দিয়ে রাখলেন। যদি ভবিষ্যতে সূযোগ করে উঠতে পারি অবশ্যই আপনার উপদেশ কাজে লাগাব।

আপনার ভ্রমণভিত্তিক লেখাগুলো অসাধারণ। শুভ কামনা জানবেন ভাই। অহ আমার মনে হয় পৃথিবীতে স্বর্গের একটা টুকরা হচ্ছে এই কাশ্মির আর স্বর্গ দখলের লড়াইটাও চলবে আজীবন!!!

কাশ্মীরকে বাংলাদেশের ভূখন্ড দাবি করে বিশ্ব দরবারে একটা আপিল করা যায়। হা হা।।

ধন্যবাদ প্রতিউত্তরের জন্য। তাও দ্রুততার সহিত!

২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪১

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: মজার মন্তব্যে +++

কাশ্মীর ভ্রমণ নিয়ে আমার ১৫-১৬টা পোস্ট আছে এই ব্লগে, পড়ে দেখতে পারেন। আর কাশ্মীর ভ্রমণে গেলে কোন হেল্প লাগলে যে কোন পোস্টে এসে নক করবেন, যতটুকু পারি সহায়তা করার ইচ্ছে রইল।

ভাল থাকুন সবসময়, শুভকামনা রইল।

৩৪| ২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪৬

আবুল হায়াত রকি বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ ভাই। অবশ্যই লেখাগুলা সময় করে পড়ে নেব।

২৭ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ ভাই। বোকা মানুষের ব্লগে স্বাগতম। :)

৩৫| ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:৪৭

শামছুল ইসলাম বলেছেন: মাঝে (জুন-আগস্ট) কিছুদিন আমি ব্লগে অনুপস্থিত ছিলাম।
এত দারুণ ভ্রমণ পোস্ট।
থাক প্রিয়তে, কী জানি কখন কাজে লাগে।

ভাল থাকুন। সবসময়।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:২৭

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ শামছুল ইসলাম ভাই। আমি তো এখন ব্লগে আছি নাকি নাই, নিজেই বুঝি না। নানান ঝামেলা আর মানসিক ক্লান্তিতে ব্লগে সময় দিতে পারছি না। আশা করি আগামী মাসের শেষের দিকে নিয়মিত হয়ে যেতে পারবো আগের মত, ইনশাআল্লাহ্‌।

আপনিও ভাল থাকুন ভাই সবসময়, অনেক অনেক ভাল।

৩৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:৩৯

জে আর সিকদার বলেছেন: শ্রম খেকো পোস্ট, পান্ডুশ্রম হয়নি। লাইক ৩২ প্রিয় ৩৬।

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:৩৬

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ সিকদার ভাই, পুরানো পোস্টগুলো আগ্রহ নিয়ে পড়ছেন দেখে ভাল লাগল। আমি গত মাস ছয়েক, সামুতে অনিয়মিত, তাই প্রতিত্তর দিতে দেরী হচ্ছে। তেমন সময় দেয়া হচ্ছে না। প্রতি মাসেই খুব ইচ্ছে থাকে নিয়মিত হওয়ার, আর হয়ে ওঠে না। দেখা যাক, এবার পারি কি না।

ভাল থাকুন সবসময়, শুভকামনা জানবেন।

৩৭| ২২ শে ডিসেম্বর, ২০১৭ রাত ৩:৫৩

আব্দুল মোমেন বলেছেন: ধন্যবাদ, ভালোলাগলো । ২০১৮ খৃ: মাঝামাঝি যাব বলে ভাবছি ।

০২ রা জুন, ২০১৮ রাত ১০:৪৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই

যাত্রা শুভ হোক। ভাল থাকুন সবসময়।

৩৮| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ১:৫০

সাহাদাত উদরাজী বলেছেন: চলুক। ভাল লাগলো।

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ২:০৭

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ।

৩৯| ৩১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ১১:০৪

তারেক সিফাত বলেছেন: খুবই তথ্যমূলক লিখা। +++

একবারে প্রিয়তে।

০১ লা সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৫

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ধন্যবাদ তারেক সিফাত।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.