নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সব কিছুর মধ্যেই সুন্দর খুঁজে পেতে চেষ্টা করি............

জুল ভার্ন

সামু, আমার প্রিয় সামু-প্রত্যাশা পুরণে ব্যার্থতার ভারে নূহ্য! বর্তমান সামু কোনো দিন প্রত্যাশিত ছিলনা-তাই আপাতত সামু চর্চা বন্ধ। আপাতত সামু নষ্টদের দখলেই থাকুক। যদি মডারেটর চান-তাহলেই সামু আবার ফিরে আসবে স্বমহিমায়, ফিরে আসবো আমিও অনেকের মতই। ভালো থেকো প্রিয় বন্ধুরা। সকলের জন্য শুভ শুভ কামনা। * প্রানবন্ত কল্পনাশক্তির প্রয়োগে স্বচ্ছ ভাবনা আর বাস্তবতার মিশেলে মানুষ ক্রমশই সংকীর্ণ আর ক্ষুদ্র গন্ডিতে আবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে।সব কিছু ছোট হয়ে যাচ্ছে, ছোট হয়ে যাচ্ছে আমাদের চিন্তা শক্তি-ছোট হয়ে যাচ্ছে আমাদের মন। আসুন পারস্পরিক মূল্যবোধ বিনিময়ে নিজ নিজ ভুল্গুলো শুধরে নিয়ে নিজেকে বিকশিত করি।

জুল ভার্ন › বিস্তারিত পোস্টঃ

"The Mind Game"...

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১২:৩২

"The Mind Game"...[/su

জাপানিরা সবচেয়ে বেশি পছন্দ করে যে ভাত- সেটার নাম 'স্টিকি'। মানে ভাতের দানা একটার সাথে আরেকটা লেগে থাকে।
'আমার ধারণা ছিল, স্টিকি ভাত কাঠি দিয়ে সহজে খাওয়া যায় বলেই জাপানিরা এটা এত পছন্দ করে। আমি এই ভাত খেতে একদমই পছন্দ করতাম না। ইন্টারেস্টিং বিষয় হলো জাপানের বাজারে জাপানি কৃষকদের উৎপাদিত এই বিশেষ ভাতের চালের দামই সবচেয়ে বেশি।

বাজার থেকে কয়েকবার বিভিন্ন ধরণের চাল কেনার পর বুঝলাম এই চাল যদি জাপানিরা নিজেরা উৎপাদন না করে আশেপাশের কোনও দেশ থেকে আমদানি করতো তাহলে এর দাম বেশ কম পড়তো। আমি কৌতুহলী হয়ে আমার সুপারভাইজার প্রফেসর কামিজিমাকে একবার জিজ্ঞেসই করে ফেললাম..'-
* "আচ্ছা প্রফেসর, তোমরা এই চাল বিদেশ থেকে আমদানি করো না কেন? আমদানি করলে তো দাম অনেক কম পড়তো!"
** কামিজিমা: "তা হয়তো পড়তো.."
* আমি: "তাহলে?"
** কামিজিমা: "সরকার ইচ্ছে করেই কৃষকদের কাছ থেকে উৎপাদন খরচের অনেক বেশি দামে এই চাল কেনে।"
* "কেন?"
** 'কৃষকদেরকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য।'
* "মানে?"
** "কৃষক যদি ভালো দাম না পায় তাহলে কি ওরা আর কৃষিকাজ করবে? পেশা বদলে ফেলবে না!"
* "তাই বলে সরকার এত বেশি দামে চাল কিনবে কৃষকদের কাছ থেকে?"
** "শোনো, আমরা আসলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কথা ভুলিনি। জাপান একটা দ্বীপরাষ্ট্র। ঐরকম একটা যুদ্ধ যদি আবার কখনো লাগে আর শত্রুরা যদি আমাদেরকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে! তখন কী হবে ভেবেছ?"
* "বুঝলাম না!"
** "বাইরে থেকে কোনও খাবার জাপানে আসতে পারবে? আমরা কি তখন এই টয়োটা গাড়ি খাব? কৃষক যদি না বেঁচে থাকে তাহলে ঐসময় আমরা বাঁচব?!"
আমি অনেকক্ষণ স্তব্ধ হয়ে রইলাম কামিজিমার কথা শুনে। ভাবলাম, আমরা কী অবলীলায়ই না আমাদের কৃষকদেরকে মেরে ফেলার যাবতীয় আয়োজন সম্পন্ন করছি।

"The Mind Game" বই থেকে উদ্ধৃত।

মন্তব্য ২১ টি রেটিং +৭/-০

মন্তব্য (২১) মন্তব্য লিখুন

১| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:৪১

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: আমাদের কৃষকরা পেশা বদলে ফেলছে। তাদের অবস্থা ভালো না। এক মণ ধান বিক্রি করে ১ সের গরুর মাংস জোটে, এর চাইতে নির্মমতা আর কী হতে পারে?

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩৮

জুল ভার্ন বলেছেন: জনবিচ্ছিন্ন কৃষক মারা সরকারের কাছে ভাল কিছু প্রত্যাশা নাই।

২| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ২:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: জানানিরা পরিশ্রমী জাতি। এবং অত্যন্ত ভদ্র।
আমাদের দেশে কেউ কৃষকদের কথা ভাবে না। ফসল ফলাতে অনেক কষ্ট, অনেক পরিশ্রম করতে হয়।

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩৯

জুল ভার্ন বলেছেন: রাইট।

৩| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ বিকাল ৩:৪৩

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



জাপানিরা বুদ্ধিমান এবং ধীর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ভয়াবহতা থেকে জাপানিজরা যে শিক্ষা নিয়েছিল তা কাজে লাগিয়ে সুষ্ঠু পরিকল্পনায় এগিয়ে যাচ্ছে। তারা চাইলেই স্টিকি রইস অন্যদেশ থেকে কিনে আনতে পারতো। কিন্তু সবার আগে দেশ এই ভাবনা থেকেই তারা কৃষকদের বাঁচিয়ে রাখছে। তারা অন্য কোন দেশের উপর নির্ভরশীল হতে চায় না। ভবিষ্যতে কোন যুদ্ধ কিংবা মহামারি হলে প্রধান খাদ্য ভাতে যাতে টান না পড়ে সে বিষয়ে তারা সচেতন।

আমরা?।আমরা এখন সিঙ্গাপুর, কানাডা হয়ে গেছি বিধায় কৃষকদের আর কোন প্রয়োজন নেই।

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪১

জুল ভার্ন বলেছেন: আমরা এখন বিশ্বের রোল মডেল!

৪| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ বিকাল ৩:৫৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: জুল ভার্ন ,




জাপানীদের জন্যে সরকারের সিদ্ধান্ত কৃষকদের "বেঁচে থাকার খেলা" আর আমাদের সরকারের গৃহীত নীতিমালা কৃষকদের জন্যে "দ্য ফার্মারস কিলিং গেম"!

একটা সরকার তার চিন্তা-চেতনা, দূরদর্শিতা দিয়ে ধ্বংশস্তুপের ভেতর থেকেও যে নিজের মেরুদন্ড সোজা রেখে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে, এমন কথাই তুলে ধরেছেন "দেবীকা দাশ"।

ধন্যবাদ বইটি থেকে এই অংশটুকু শেয়ার করার জন্যে।

নববর্ষের শুভেচ্ছা।

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪৫

জুল ভার্ন বলেছেন: আমরা এতোই সম্পদশালী দেশ যে এমন অতি মারীসময়েও টানা দুই বছরব্যাপী রাস্ট্রীয় ভাবে উৎসব পালনে রাস্ট্রীয় সর্বশক্তি নিয়োগ করতে পারি....কি আর বলবো!

৫| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ বিকাল ৪:১৬

বিদ্রোহী সিপাহী বলেছেন: ধন্যবাদ এই অংশটুকু শেয়ার করার জন্য। জাপানিদের মত সঠিক প্রেরণা পেলে বিশ্বের এক নাম্বার কৃষক আমরাই হতাম।

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪৫

জুল ভার্ন বলেছেন: আলবাত!

৬| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ বিকাল ৫:০৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



জাপানী শিক্ষিতরা দেশের মানুষের নাগরিক অধিকার নিয়ে ভাবেন, যাতে মানুষ ভালো থাকতে পারেন; আাদের শিক্ষিত ব্লগারেরা ধর্ম নিয়ে বেশী ভাবেন, যাতে মানুষ মৃত্যুর পর বেহেশতে স্হান পেতে পারেন।

১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪৭

জুল ভার্ন বলেছেন: তাইতো কবি বলেছেন, এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি.....

৭| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ রাত ৮:০২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: আমরা আর কবে শিখবো????


১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:৪৮

জুল ভার্ন বলেছেন: জিন্দেগীতেও না।

৮| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ রাত ৮:৫৪

নেওয়াজ আলি বলেছেন: আমাদের দেশে তার উল্টাটা চলে কৃষক লস দেয়

১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:৪৮

জুল ভার্ন বলেছেন: সত্য।

৯| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২১ রাত ১০:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: জাপান দক্ষিন কোরিয়ার জনগন ভদ্র এবং শিক্ষিত। এরা দেশকে ভালোবাসে।

১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:৪৮

জুল ভার্ন বলেছেন: নিশ্চয়ই।

১০| ১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ রাত ১২:৪৮

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: খাদ্যশস্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন এ কত প্রয়োজন সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।
দেশকে যারা সিংগাপুর, সুইজারল্যান্ড বানাতে চায় তাদের মূল লক্ষ্য নিজের আখের গুছানো (পকেট ভারি করা)।
জনগণকে বোকা বানিয়ে কানাডার 'বেগম পাড়ায়' বাড়ি বানানো হলো তাদের সন্তুষ্টি।
মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল কিংবা ভিশন ২০২১ একবার পড়ে দেখবেন, বাস্তবতা কিছুটা ধারণা করতে পারবেন।

১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১:৪৯

জুল ভার্ন বলেছেন: হান্ড্রেড পার্সেন্ট বাস্তবতা।

১১| ১৭ ই এপ্রিল, ২০২১ দুপুর ১২:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: আচ্ছা, সত্যিই কি কানাডাতে বেগম পাড়া বলে কোনো জায়গা আছে?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.