নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সময়ের ব্যবধানে বেজে বেজে চলে, সূর্য চাঁদ সবচেয়ে- দূরতম শব্দের মাস্তল, যেন কোন অজ্ঞাত নিবাস থেকে ছুটে আসি।পরিচিত শ্টেশন এলেই তুৃমি দেখাও নিশান- আমি উঠে পড়ি...

কিরমানী লিটন

কিরমানী লিটন › বিস্তারিত পোস্টঃ

যাপিত- যন্ত্রনা.....

২৬ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৬



তোমার ক্ষতের গর্ত গুলো
গভীর কতখানি,
তোমার ক্ষোভের আগুন-গীরির
সত্যটাকেও- চিনি!

তোমার মাাথায় আকাশ ভাঙ্গার
গল্পটা তো- জানি,
প্রতিঘাতের জবাব গুলো
ন্যায্য বলেই মানি।

কীর্তি তোমার গর্ব দেখে
আকাশ ন্যুয়ায় মাথা,
তোমার আবাদ ফলন ফুলে
তোমার মালা- গাঁথা।

আমার ঘুড়ির নরম সুঁতো
একাই গেছে কেটে,
নাটাই চোখে বিষন্ন মেঘ
বৃষ্টিতে যায় হেঁটে।

ধৈর্য ধরা এই নত মুখ
শুকিয়ে যাওয়া ফুল,
ঢেউ হারিয়ে নদীর বুকে
জেগে থাকা কূল।

সাগর চেয়ে ঢেউগুলোকে
পুকুর মাঝে ছাড়ি,
সেখানটাতে আটকে থেকে
ছটফটিয়ে মরি।

মন্তব্য ২ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে মার্চ, ২০২০ দুপুর ১:১৯

ইসিয়াক বলেছেন: খুব সুন্দর।

২| ০৩ রা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৭

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




কবিতার ছয়টি কাব্যধারা প্রশংসার দাবী রাখে।

সাগর চেয়ে ঢেউগুলোকে
পুকুর মাঝে ছাড়ি,
সেখানটাতে আটকে থেকে
ছটফটিয়ে মরি।

সাগরের ঢেউয়ের যে মুক্ত স্বাধীনতা তা পুকুরে দুরের কথা এমনকি নদীতেও সে পাবে না। - তার করুণ মৃত্যু হবে।
পোষ্টে লাইক +++


আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.