নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আধার রাত্রি ভোরের অনেক বাকী স্বপ্ন দেখার সুযোগ এখন তাই

চলে যেতে যেতে বলে যাওয়া কিছু কথা

মাহিরাহি

বাড়ী আখাউড়া। আখাউড়া রেলওয়ে হাইস্কুল থেকে পাস করে সোজা ঢাকায় চলে আসি। কিছুদিন সিটি কলেজে ছিলাম। ছিলাম জগন্নাথেও। তারপর টোকিওতে কাটিয়েছি সাড়ে ছয়টি বছর। দেশে ফিরে এসে চাকুরি আর সংসার নিয়ে আছি। দুটো ছেলে, মাহি আর রাহি। একজনের সাড়ে ছয় আর আরেকজনে সদ্য চার পেরিয়েছে। ওদের নামদুটো জুড়ে দিয়েই আমার নিকের জন্ম। বেশিরভাগ সময়কাটে সন্তানের সান্নিধ্য। ঘরকুনো মানুষ আমি। লেখালেখিতে হাতেখড়ি এই সা ইন বল্গে এসেই। কেউ বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিল ফিরিয়ে দেয়ার মত উদ্ধত্য আমার নেই। সবারই বন্ধু হতে চাই।

মাহিরাহি › বিস্তারিত পোস্টঃ

অভিশপ্ত পরকীয়া (ছোট গল্প)

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:১৪

রাসেল দেশে ফেরল শুধুমাত্র জোশনার খাতিরে।
যদিও ৫ বছর আগে তার দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাটির বিয়ে হয়ে গিয়েছিল পাশের গ্রামের আরেকটি ছেলের সাথে। জোশনাও মন থেকে বরটিকে গ্রহন করতে পারেনি।
তাই এবারের পরিকল্পনা পুরোনো প্রেমিকার হাত ধরে পলায়ন।
বিমান বন্দর থেকে নেমে সোজা বাস ষ্ট্যান্ডে।
কিন্তু কপাল মন্দ ছুটির মওসুম হওয়াতে বাসের টিকেট একটিও অবশিষ্ট নেই।
নিজ এলাকার এক ভদ্রলোকের সাথে পরিচয় হয়ে গেল এরি মধ্যে। তিনিও দেশে ফিরছেন। বিদেশ ফেরত রাসেলের বাড়ী ফেরার তাগাদা দেখে, রাসেলের প্রতি সদয় হয়ে তার টিকেট দিতে রাজী হলেন এক শর্তে। কিছু জিনিসপত্র পৌছে দিতে হবে তার বাড়িতে।

মনের আনন্দে ট্রেনে চড়ল রাসেল। ভদ্রলোকের বাড়ির ঠিকানা জানার পর আনন্দ শতগুন বেড়ে গেল দুষ্ট চরিত্রের রাসেল। জিনিসপত্রগুলো আর কেউ নয় জোশনার হাতেই পৌছে দিতে হবে।

বাস গন্তব্যে পৌছলে তড়িঘড়ি করে জোশনার শশুর বাড়ীর দিকে নাচতে নাচতে রওয়ানা দিল সে, রাত তখন অনেক।

জোশনার বাড়ীর কাছাকাছি একটা অন্ধকার মত জায়গায় কয়জন লোক ঘিরে ফেলল তাকে। সবকিছু দিয়েও লোকগুলোর পরিত্রান মিলল না রাসেলের। তাদের উদ্দ্যেশ অন্যকিছু।

আজ রাতেই এই পথ ধরেই ফেরার কথা ছিল জোশনার স্বামীর।
তাই প্রেমের যে পথটি তাতে কাটা হয়ে দাড়িয়েছিল যে লোকটি তাকে অর্থাত স্বামীকে সরিয়ে দিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা নেয় মেয়েটি। রাসেলের জন্য সবকিছু এমনকি খুন করতেও প্রস্তুত ছিল জোশনা।

কিন্তু জোশনা কল্পনাও করতে পারেনি তার পরিকল্পনায় স্বয়ং তার প্রেমিকটিই প্রান হারাতে বসেছে। প্রেমের সমাধি রচনার প্রাথমিক কাজটি সেরে ফেলতে চলেছে দৃর্বত্তগুলো তারই নির্দেশে।

মন্তব্য ২০ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২০) মন্তব্য লিখুন

১| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:৫৫

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: জীবন বোধের বদল না হলে এই বিষ নামবেনা সহজে

আধনিক হতে গিয়ে ধর্মবিমূখতা! জীবনে অল্পে সন্তুষ্ঠির বদলে কর্পোরেট আরো চাই আরো চাই মানসিকতা!
ভোগ আর বিত্তের নীল বিষ ছোঁয়ায় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার একটি হল পরকিয়া!

বিশ্বাস বদলান। সব বদলে যাবে। :)

++++

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:১৯

মাহিরাহি বলেছেন: ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য, ভয়াবহ ব্যপার এই যে এটিকে অনেকেই সহজভাবে গ্রহণ করতে শুরু করেছে।

২| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


অভিশপ্ত পরকীয়া ভালো হতে পারে না; শুভকামনাযুক্ত পরকীয়া হলে কোনভাবে চলে, হয়তো!

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:১৯

মাহিরাহি বলেছেন: সব পরকীয়ই অভিশপ্ত

৩| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:৩৭

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: সাধারণ প্লট

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:২০

মাহিরাহি বলেছেন: সস্তাভাবে লেখা

৪| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: আহার---

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:২০

মাহিরাহি বলেছেন: আহারে!

৫| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:৩৭

হাবিব স্যার বলেছেন: তবুও কি তাদের হুশ হবে?

০৪ ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৪

মাহিরাহি বলেছেন: ধন্যবাদ

৬| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:৪৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: গল্প তো বাস্তব নিয়েই হয়, ডাঃ আকাশ কোন অভিশপ্ত প্রেমে হত্যা হয়েছে এখন তা দেখার বিষয়

০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৭

মাহিরাহি বলেছেন: ধন্যবাদ।

৭| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:৫৩

মাহের ইসলাম বলেছেন: আন্যের জন্য কুয়া খুড়লে, নিজেই কুয়ায় পড়তে হয়।

০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৮

মাহিরাহি বলেছেন: What Goes Around Comes Around

৮| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৮:০৪

সনেট কবি বলেছেন: পরকিয়া খুব খারাপ।

০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৮

মাহিরাহি বলেছেন: হারাম

৯| ০৪ ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৭

উম্মু আবদুল্লাহ বলেছেন: পরকীয়া জঘন্য। তবে স্বামী স্ত্রীর এরকম আলাদা থাকাটা পরকীয়ার দুয়ার খুলে দেয়।

০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৯

মাহিরাহি বলেছেন: আলাদা থাকাটা একেবারেই উচিত।না।

১০| ০৪ ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৩

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সন্ধ্যা,
লেখাটা বেশ তাড়াহুড়ো করে লেখা হয়েছে। আরও সুন্দর করে প্লটটা ফুটিয়ে তুলতে পারতেন। বিয়ের আগের আর পরের ঘটনা দিতে পারতেন। পাঠকরা পড়তে বেশ আগ্রহ পেতে। যদি কিছু মনে না করেন, এই বিষয়ের উপর আমার কয়েকটা গল্প আছে, এর মধ্যে শইল্যের জ্বালা.....নামে একটা গল্প আছে সেটা পড়ে দেখতে পারেন। ভাল আইডিয়া পাবেন।
আমি চাই আপনি ঠিক এই বিষয়ে আরও গল্প লিখুন। সমাজের এই সব নোংরা সংস্কৃতিগুলি সবার সামনে তুলে ধরুন।
ধন্যবাদ আর শুভ কামনা রইল!

০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১০

মাহিরাহি বলেছেন: ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.