নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

দূরে থাকুন; ভালো থাকুন।

ঋণাত্মক শূণ্য

নেগেটিভিটিতে বিশ্বাস করি না; তাই এমন নাম বেছে নিলাম, যা বাস্তব নয়!

ঋণাত্মক শূণ্য › বিস্তারিত পোস্টঃ

ন চাহিলে ন পাইবেন!

২৫ শে জানুয়ারি, ২০২২ রাত ১:০২

কোথাও পড়েছিলাম If you don't ask, you don't get! কথাটার খুব গভীর অর্থ আছে। যদিও অর্থ আপনাকেই বুঝে নিতে হবে।



এই কথারই ধারাবাহিকতায় কোন একটা ভিডিওতে টিপস দেখেছিলাম কিভাবে বিমানে বা যে কোন খানে একটু বাড়তি সুবিধা পাওয়া যায়।

ঐ লোকের কথা ছিলো কিছুটা নিচের মত।

ধরেন আপনি বিমানে কোথাও যাচ্ছেন। আপনার খুব পানির পিপাসা লেগেছে; কিন্তু আপনি লজ্জায় বিমান বালার কাছে জিজ্ঞাসা করতে পারছেন না যে ফ্রিতে পানি পাওয়া যাবে কি না। আপনি হয়ত ভাবছেন, ফ্রিতে চাইলে কি না কি মনে করবে।

উনার সাজেশন হচ্ছে; চেয়েই দেখেন; লজ্জার কিছু নাই। কারণ যদি লজ্জা পেতেও হয়, তো সমস্যা নাই। এই বিমান বালার সাথে আপনার আবার দেখা হবার সম্ভাবনা খুবই কম। দেখা হলেও সে মনে রাখবে এমন সম্ভাবনা খুবই কম। সে মনে রাখলেও লোকজনকে বলে বেড়ালেও, যাদের কাছে বলা হয়েছে তাদের সামনে আপনার পড়ার সম্ভাবনা আরও কম।

আমি নিজে কিছু বিষয়ে খুব ইন্ট্রোভার্ট টাইপের। কিছু বিষয়ে খুব বেশী এক্সট্রোভার্ট। ধরেন আমি রেষ্টুরেন্টে গিয়ে একটা জিনিষ অর্ডার করলাম, তারা অন্য কিছু দিয়ে দিলো। যদি দেখি দামটা তেমন পার্থক্য না; আমি কিছু বলতে পারি না। চুপচাপ খেয়ে চলে আসি।

তো, সেই আমি একবার উপরের কথায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ২০১৯ সালের শেষ দিকে এক কাজ করে ফেললাম। নভেম্বরের ২২ অথবা ২৩ তারিখ ছিলো। এমিরাটসের বিমানে করে সৌদী ফিরছি। ঢাকা থেকে ছাড়ার পর যখন সিট বেল্ট সাইন উঠে গেলো, আমি উঠে গিয়ে একজন বিমান বালাকে জিজ্ঞাসা করলাম যে কোন ভাবে আমি অন্য খানে, সম্ভব হলে বিজনেস ক্লাসে বসতে পারি কি না।

আমি "না" শোনার জন্য প্রস্তুত ছিলাম। এমনকি বিমান বালা একটা তাচ্ছিল্যের হাসি দিবে তার জন্যও প্রস্তুত ছিলাম। এর পর ঐ বিমান বালা অন্য বিমান বালার কানে কানে আমাকে দেখিয়ে গল্প বলবে সেটার জন্যও প্রস্তুত ছিলাম। প্রস্তুত ছিলাম না তার "একটু দাড়াও, আমি দেখছি" এবং কিছুক্ষণ পর এসে "বিজনেস ক্লাসে একটা সিট দেওয়া যাবে, ব্যাগ নিয়ে চলে আসো" শোনার জন্য!

ঐ একবারই এমনটা করেছিলাম। তারপর আর করিনি। সংকোচ লাগে। তবে এখনও মনে পড়ে ঐ একবারের কথা।

আর একবারের কথা বলি। আমাদের অফিসে নতুন ল্যাপটপ দেওয়া শুরু হয়েছে। আমি একদম নতুন জয়েন করেছি মাত্র। প্রথম চালানের প্রথম ল্যাপটপই আমি পাই! অফিসের অন্যেরা তখনও পায়নি। সবারটা চ্যানেলে আছে; আস্তে আস্তে আসবে।

প্রথম দুই মাস কাজ করবার পর বসকে জিজ্ঞাসা করলাম, ল্যাপটপের সাথে একটা ডকিং স্টেশন পাওয়া যাবে কি না। বস চোখ বড় বড় করে তাকিয়ে বললো, অন্য সবাইতো ডকিং স্টেশন ছাড়া কাজ করছে; তোমার লাগবে কেন? পুরাই কুচকে গেলাম। পরের দুইমাস কোন শব্দ করি নি।

এবার আইটির লোককে জিজ্ঞাসা করলাম। সে বললো ডকিং কেনার কথা কোথাও সে পায়নি। আগের মডেলের ল্যাপটপের সাথে ডকিং স্টেশন ছিলো; নতুনটার সাথে নাই।

তৃতীয় ট্রাই করলাম আমাদের অফিসের সোশ্যাল মিডিয়ায়। পোষ্ট করলাম এমন ভাব করে যেন সবাই ডকিং স্টেশন পাচ্ছে। তো কে কোনটা ব্যবহার করছে তা জানতে চেয়ে পোষ্ট করলাম। প্রায় ৪০টা দেশ থেকে ৭০/৮০জন কমেন্টে মডেল নম্বর লিখলো।

আমি সেই পেজ এর লিংক আমার বস এবং আইটি ম্যানেজারকে দিয়ে পাঠালাম। ৭দিনের মধ্যে ডকিং স্টেশন হাজির।

--------------------------

চাইতে আমরা অনেকই লজ্জা পাই। তবে কথা হচ্ছে If you don't ask, you don't get........... লজ্জা সাময়িক, পাওয়াটাই স্থায়ী।

মন্তব্য ৬ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৫ শে জানুয়ারি, ২০২২ সকাল ১০:৩৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: আসলেই এমন পরিস্থিতি আসে শেষ পর্যন্ত আর চাওয়া হয় না সংকোচ এর জন্য

সুন্দর পোস্ট

২৫ শে জানুয়ারি, ২০২২ দুপুর ১২:৫৪

ঋণাত্মক শূণ্য বলেছেন: সংকোচ থেকে বের হতে হবে।

ধন্যবাদ।

২| ২৫ শে জানুয়ারি, ২০২২ দুপুর ২:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: যেটা আমার পাওনা সেটা চাইতে সমস্যা নাই।

২৫ শে জানুয়ারি, ২০২২ বিকাল ৪:৩২

ঋণাত্মক শূণ্য বলেছেন: হুম, সমস্যা থাকার কথা না। তবে আমরা সবাই কম বেশী দ্বিধাবোধ করি।

৩| ৩০ শে জানুয়ারি, ২০২২ রাত ২:৪৫

জটিল ভাই বলেছেন:
ঠিক। না কাঁদলে মা'ও খাবার দেয়না :(

৩১ শে জানুয়ারি, ২০২২ রাত ২:৫৩

ঋণাত্মক শূণ্য বলেছেন: সেটাই!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.