নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

শিক্ষক, সাংবাদিক ও সাহিত্যিক। ফেসবুকে যুক্ত হোনঃ www.facebook.com/dev.d.nipun

...নিপুণ কথন...

সময়ের সাথে দৌঁড়ে পারিনা,জীবনের দৌঁড়েও পিছিয়ে আমি!খুঁজে ফিরি আপন মানুষ, মাঝে মাঝে হই বেহুঁশ...হৃদয়ে অবিরাম স্বপ্ন গাঁথন, বলব আজ নিপুণ-কথন ।

...নিপুণ কথন... › বিস্তারিত পোস্টঃ

প্রত্যেক ক্রিয়ার একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছেঃ বাস্তব দৃষ্টান্ত

২৩ শে জুলাই, ২০১৫ রাত ১১:২৪

প্রত্যেক ক্রিয়ার একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে। স্যার আইজ্যাক নিউটন এটাই বলে গেছেন। নিউটনের তৃতীয় সূত্র এর ওপর ভিত্তি করেই টিকে আছে এই পৃথিবী, এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ড। আপনি দাঁড়িয়ে আছেন আপনার ঘরের মেঝে তথা মাটি তথা পৃথিবীর ওপর। পৃথিবীর ওপর দাঁড়িয়ে আপনি একটি বল প্রয়োগ করছেন। এই বল আসছে আপনার ওজন থেকে। আপনার নিজের শরীরের ভর এর সাথে গুণ করুন পৃথিবীর অভিকর্ষজ ত্বরণ, অর্থাৎ যে বলে পৃথিবী আপনাকে এর কেন্দ্রের দিকে টানছে তা দিয়ে। আপনি পেয়ে যাবেন আপনার ওজন, তথা পৃথিবীর ওপর আপনার প্রযুক্ত বল। এই বল প্রয়োগের ফলে আপনি যেহেতু মাটি বা পৃথিবীর ভেতরে ঢুকে যাচ্ছেন না, সেহেতু আপনি সহজেই বুঝতে পারছেন, কোন বিপরীত বল আপনাকে মাটির ভেতর প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। এই বলটি আসছে পৃথিবী থেকে। পৃথিবীও আপনাকে আপনার প্রযুক্ত বলের সমান ও বিপরীত বল দিয়ে আপনাকে উপরের দিকে ঠেলে স্থির রাখছে। দেখুন, পৃথিবী একই সাথে দুরকম আচরণ করছে। টানছে, আবার ঠেলছে! ব্যাপারটা ইন্টারেস্টিং না?

ছোট থেকে একটা পরিবেশের ভেতর দিয়ে আপনি বেড়ে ওঠেন। এই পরিবেশটা যদি সুন্দর হয়, আপনিও সুন্দর মনের অধিকারী হন। অন্যদিকে, এই পরিবেশ যদি প্রতিকূল হয়, এর প্রভাব আপনার প্রকৃতিতে আপনার স্বত্বায় প্রকাশ পায়। আপনার সাথে কেউ যদি কোন খারাপ ব্যবহার করে থাকে, আপনার মনেও তার প্রতি একটা খারাপ অনুভূতি জন্মায়, হোক সেটা ঘৃণা অথবা জিঘাংসা। আবার আপনাকে কেউ ভালোবাসা দিলে আপনার মনেও তার প্রতি ভালোবাসা জন্ম নেয়। আপনি হয়তো সবাইকে সমান ভালোবাসতে পারবেন না, কিন্তু কমবেশি হলেও ভালোবাসবেন। দেখলেন, এখানেও নিউটনের তৃতীয় সূত্র!

আবার ধরুন, দুদিন বাদে আপনার পরীক্ষা। আপনি আজ বসলেন পড়ালেখা করতে, আগে ভালো করে প্রস্তুতি নেয়া হয়নি। আপনি এই দুদিন যতই রাত জেগে পড়ুন, যে অনেক আগে থেকে পাঠ্য সিলেবাসের ওপর ভালো প্রস্তুতি নিয়েছে, তার মতো ভালো রেজাল্ট আপনি আশা করতে পারেন না। এখানেও নিউটন সাহেব ঠিক আছেন, তাইনা? প্রত্যেক ক্রিয়ার একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে।

তবে, আপনি আমাকে থামিয়ে দিয়ে বলতে পারেন, অনেকেই তো আমাকে ভালোবাসার কথা বলে, কিন্তু আমি তো তাদের সবাইকে ভালোবাসতে পারি না! তাহলে "সমান ও বিপরীত" কথাটার প্রযোজ্যতা থাকলো কোথায়? দেখুন, কে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে আর কে ভালোবাসার অভিনয় করে, এটা আগে বুঝতে হবে। আপনাকেই ঠিক করতে হবে কাকে আপনার ভালোবাসা উচিৎ, কে আপনার হৃদয়পদ্ম পাওয়ার অধিকার রাখে। অতিরিক্ত ভালোবাসা বিপদে কারণ হতে পারে, আবার কমতি হলেও ভেঙ্গে যেতে পারে সম্পর্ক। তাই "সমান" বা ভারসাম্যপূর্ণ ভালোবাসা খুঁজে বের করতে হবে। আহ, সত্যিই যদি অনলাইন অ্যাপগুলোর মতো সত্যিকারের সঠিক Reading দেয়া love meter থাকতো!

কথায় আছে, "Tit for tat" বা "ইট মারলে পাটকেলটি খেতে হয়" । আপনি যার সাথে যেমন ব্যবহার করবেন, আজ হোক কিংবা কাল, তার থেকেও ঠিক তেমন ব্যবহার পেতে প্রস্তুত থাকুন

-দেব দুলাল গুহ

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ২৩ শে জুলাই, ২০১৫ রাত ১১:৪০

লিংকন১১৫ বলেছেন: আসলেই মহা সত্য

২| ২৩ শে জুলাই, ২০১৫ রাত ১১:৪৭

মারুফ আহোমেদ বলেছেন: একাদোশ দ্বাদশ শ্রেণীর পদার্থ বিজ্ঞান ক্লাসের গন্ধ পাচ্ছি ।। :প

২৪ শে জুলাই, ২০১৫ দুপুর ১:৩৪

...নিপুণ কথন... বলেছেন: @মারুফ, পদার্থবিজ্ঞানে অনার্স মাস্টার্স করেছি ঢাবি থেকে। তাই এটুকু নিশ্চয়তা দিতে পারি, এইচএসসির পাঠ্যবইতে এই লেখা পাবেন না। নিজের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখে লেখা।

৩| ২৪ শে জুলাই, ২০১৫ বিকাল ৩:০১

বঙ্গভূমির রঙ্গমেলায় বলেছেন: সত্য ভাষণ। সুন্দর লিখছেন।

৪| ২৫ শে জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:১৩

কাউন্টার নিশাচর বলেছেন: এইসব বালছাল লেখা তাইলে নির্বাচিত পাতাতেও আসে?????? মোডারেটরের কি বাম হাতের অভ্যাস আছে?

৩০ শে জুলাই, ২০১৫ ভোর ৪:১৭

...নিপুণ কথন... বলেছেন: সাকার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন দেখলাম। ক্ষমা পেয়েছেন? আর এই পোস্ট যদি "বালছাল"-ই হবে, তো এসব পড়েন কেন? সংযত আচরণ করুন। কারো লেখা ভালো না লাগলে এড়িয়ে যান।

৫| ২৫ শে জুলাই, ২০১৫ রাত ১১:১৯

উমর আই এস বলেছেন: অসাধারণ!!! কিন্তু কিছুটা ভিন্ন যা হয়ত আমার সাথে অমিল প্রকাশচ্ছন্ন

৬| ২৬ শে জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:০০

সাদিকনাফ বলেছেন: বিগ্গানের লেখায় ফেম আইলো ক্যারে....

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.