নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

যে কোনো ভূমিকায় সমানে লড়ে যাই, আপনি যেমন চান আমি ঠিক তাই।

নান্দনিক নন্দিনী

লেখালেখি হচ্ছে প্রেমে পড়ার মতন একটা ব্যাপার, কোনো ধরনের কর্তৃত্ব জাহির করা নয়।

নান্দনিক নন্দিনী › বিস্তারিত পোস্টঃ

\'হয়ে একটা রঙিন বোতাম যদি থাকতে পারতাম বুকের আরো কাছে...\'

০১ লা জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:১৫



ভাবাবেগ জিনিসটা গত যুগের বিলাসিতা - এই যুগে অত্যন্ত ব্যয়বহুল। ভাবাবেগ আর বোকামি, এর যে কোনো একটা যদি আপনার উপর ভর করে, ধ'রে নিতে পারেন আপনি শেষ! কিছু মানুষ আমাদের জীবনে এসে আমাদেরকে দ্বিধায় ফেলে দেয়। তাদের হারিয়ে ফেলার ভয়, ধরে রাখার তৃষ্ণাকে আরো বাড়িয়ে দেয়। ইমরান ঠিক তেমন একজন মানুষ। তবুও তার সাথে একবিন্দুতে মিলনাকানংক্্ষা, অভিন্ন বিন্দুতে পৌঁছে দেয়নি বরং আরো দূরে ঠেলে দিয়েছে, পৃথক সত্ত্বায় প্রকট করে তুলেছে।

ইমরানের ভাবনা একইসাথে মধুর, জোড়ালো,এবং ভয়ংকর। এর মধ্যে কোনটা প্রধান, সেটা বলা অসম্ভব। ঘটনাটা সরল রেখায় বলি... হঠাৎ মাথায় একটা আইডিয়া কুটকুট করতে শুরু করলো। আর্কিটেকচারাল কমিউনিকেশন নিয়ে কাজ করবো। কমিউনিকেশনে আমার মেজর করা। কিন্তু আর্কিটেকচার এর উপর আমার জানা শোনা ভাসাভাসা। একাডেমিক কাজ। তাত্ত্বিকভাবে দাড় করাতে হবে। আমার আবার উঠলো বাই তো কটক যাই টাইপের অবস্থা। বুয়েটের ফ্যান ফলোয়ারদের একজনকে কল দিলাম। যাসির আমার তো একজন আর্কিটেক্ট এর সাথে কিছু তাত্ত্বিক বিষয় ডিসকাস করতে হবে। তোমার দূরবর্তী পরিচিত কেউ আছেন? দেখতেছি আপু। সপ্তাহখানিক বাদে যাসির একটা নম্বর এবং অফিস এড্রেস দিলো। সাথে ফুট নোট- ইমরান ভাই একটু ব্যস্ত আছেন। আপনি সপ্তাহ দুয়েক বাদে কল দিয়েন।

সবমিলিয়ে তিনবার দেখা হয়েছে আমাদের। ইমরান খুব যত্ন নিয়ে আমার আগ্রহের বিষয়বস্তু ব্যখ্যা করেছে। নিজে থেকে আরো প্রাসপেক্টিভ যুক্ত করে দিয়েছে। অতঃপর আমার বিরাট ক্ষতি করেছে। কারণ দিনের পর দিন কাজ থেকে এসে ঘুমের পর আবার সকালে উঠে কাজে যাওয়াকে যদি 'জীবন কাটানো' বলে, তবে সেটাই করছি। অনুভব করছি আমার বাসাটা যতবেশি অগোছালো তারচেয়ে বেশী নিস্বংগ। ইমরানের কথা লিখতে গিয়ে নিজের ভেতর বিষন্নতার গভীরতা উপলব্ধি করছি। ইমরান: আপনাকে আমার আশ্চর্য ভালো লাগে- এই ব্যকুলতাকে স্বীকৃতি দেবার কোন পথ জানা নাই আমার।

প্রেম ব্যাখ্যা করা কঠিন কারণ তা বোঝা সহজ। প্রেম একটি ভাষা সেজন্য আমাদের সুন্দর গল্প বলতে পারে ব্যাপারটা তা নয় বরং প্রেমানুভূতি চমৎকার গল্প বলতে পারে বলেই এটি ভাষার রূপ পেয়েছে। ইমরানের সাথে পরিচিত হওয়ার পর বেশ ভালো ভাবে বুঝতে পারলাম আমার জীবনটা পালটে গেলো আজ থেকে। আরো একবার প্রেমে পড়েছি আমি...জীবনে সময়ের সাথে সাথে ভালোবাসার মানে বদলে যায়। এই তো সেদিনও মনে হতো, যাকে ভালোবাসি তাকে না পেলে জীবন বৃথা। আর আজ! ইমরানের সাথে পরিচয়ের পর; জীবনে পাওয়া না-পাওয়ার সীমাবদ্ধতাকে পেরিয়ে এসেছি। কারণ এখন আমার কাছে ভালোবাসার জন্য সবকিছু করার চেয়েও, ভালোবাসার জন্য আরও কিছুদিন বেঁচে থাকার ইচ্ছাটাকে প্রবল মনে হয়।

সামান্য, তবুও তো প্রলোভন! আজকাল বেঁচে বর্তে আছি ঠিকই কিন্তু এই ঘটনার আগের মানুষটার ছায়া হয়ে। পৃথিবীর সমস্ত হতে চাওয়া প্রেমিকার পক্ষ ওটা আমিই। ওটা অন্য কেউ নয়। যা হোক হৃদয়ের অসুখ হৃদয়েই বাড়ুক।  আমার যখন খুব 'ভাবাবেগ' বেড়ে যায় সোজা এক বালতি কাপড় কেঁচে ফেলি। বাস্তবতায় ফিরে আসার অব্যর্থ ওষুধ!

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ০১ লা জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:০৫

কামাল১৮ বলেছেন: ভালোবাসা মানুষকে বাঁচতে শেখায়,কাজ মানুষকে ভুলে থাকতে সাহায্য করে।

০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৪৬

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: তেমনটা হলেই ভালো

২| ০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ৯:০১

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: ন হন্যতে এমন একটা বিষয় মনে হলো।

০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৪৮

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে থাকতে পড়েছিলাম। তখন যে বাক্যটি মনে উদয় হয়েছিল 'হায় যুক্তিহীন মানবহৃদয়!'

৩| ০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ১০:০১

সন্ধ্যা রাতের ঝিঁঝিঁ বলেছেন: নেক্সট টাইম থেকে অব্যর্থ ওষুধ ট্রাই করে দেখতে হবে :P

০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ১১:০০

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: হা হা হা...

৪| ০১ লা জুলাই, ২০২১ রাত ১১:৩৯

কল্পদ্রুম বলেছেন: যতই সাবধান করা হোক না কেন, সব যুগেই কিছু অমিতব্যয়ী মানুষ থাকে। যাদের ঝোঁক কেবলই ব্যয়বহুল জিনিসের প্রতি। কাপড় কাঁচার অব্যর্থ ঔষধ নিয়ে ভাবছিলাম ভাবাবেগ আক্রান্ত মানুষদের কোথায় পাওয়া যায়। কিছু কাপড় জমা আছে যে। :)
সুন্দর শিরোনামে মুগ্ধ হয়েই পুরো লেখা পড়ে ফেললাম। কিছু টাইপো চোখে পড়েছে। যেমন দ্বিতীয় অনুচ্ছেদের তৃতীয় বাক্য। এসব বাদে আপনার অন্যান্য পরিশীলিত লেখার মতো এবারের লেখা পড়েও ভালো লাগলো।

০২ রা জুলাই, ২০২১ রাত ১২:৩৫

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: কাপড় জমিয়ে রাখবেন না কল্প, নিজে নিজে ধুয়ে নিবেন। কেমন?

ভাবাবেগে আক্রান্ত মানুষদেরকে হৃদয়দিয়ে খুঁজলে পৃথিবীর সবখানেই পাওয়া যায়।

৫| ০২ রা জুলাই, ২০২১ ভোর ৪:০৪

মোবারক বলেছেন: ভালো লাগলো ।

০২ রা জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:২২

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ!

৬| ০২ রা জুলাই, ২০২১ বিকাল ৩:০২

রানার ব্লগ বলেছেন: আয় হায় আপনি প্রেমে পরে গেলেন??

০২ রা জুলাই, ২০২১ বিকাল ৪:২০

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: তাই তো মনে হচ্ছে!
এখন আপনি আমাকে অভিনন্দন জানতে পারেন।

৭| ০২ রা জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৪১

রানার ব্লগ বলেছেন: অভিনন্দন!!

০২ রা জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১১

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ!

৮| ০২ রা জুলাই, ২০২১ রাত ৮:২৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: প্রেমে পরার মত বিলাসিতা সবাই করতে পারে না, এ সময় টা উপভোগ্য!!
অভিনন্দন নন্দিনী।

০২ রা জুলাই, ২০২১ রাত ৯:২৭

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ মনিরা আপা!
প্রেম আর কি উপভোগ করবো বলেন, প্লেটোর মতে 'প্রেম একধরনের অসুখ'। চিন্তায় আছি...

৯| ০৪ ঠা জুলাই, ২০২১ রাত ২:১১

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: যা হোক হৃদয়ের অসুখ হৃদয়েই বাড়ুক।
..........................................................................
সাবধান!!! করোনা কালীন প্রেম , কতবার র্ং পাল্টাবে বুঝতে পারেন ?
তারপরও স্বাগতম প্রেম ভালবাসা,
কঠিন হৃদয়কে প্রশমিত করে ।।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২১ বিকাল ৪:২৭

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: প্রেমের রঙ বদলালেও প্রেমিককে চিনতে অসুবিধা হবে না আশাকরি। সুবাস দিয়ে চিনে নিতে পারবো।
চমৎকার ফুলেল শুভেচছার জন্য ধন্যবাদ!


১০| ০৫ ই জুলাই, ২০২১ দুপুর ১:৪২

ফড়িং-অনু বলেছেন: সামুতে আসলেই ”নান্দনিক নন্দিনী “ সার্চ করি। সামুতে একাউন্ট খোলার পর সর্বপ্রথম আপনার লিখা পড়ে যাত্রা শুরু আমার। বিশেষ করে আপনার কয়েকটা লিখা আজও মাথার ভিতর ঘুরপাক খায়। মনে কইরেন না তেল মারছি। তিন সত্যি। ভাল থাকবেন।

০৬ ই জুলাই, ২০২১ রাত ৮:৩২

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ।
আপনিও ভালো থাকবেন।

১১| ০৬ ই জুলাই, ২০২১ রাত ২:১৪

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন:
......................................................................................................................
এই চমৎকার ফুলের সুবাস ,ভালবাসার পরও কি আর কিছু প্রয়োজন ???

০৬ ই জুলাই, ২০২১ রাত ৮:৫৫

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: টিউলিপ ফুল এখনো স্বচোক্ষে দেখার সুযোগ হয়নি। তাই জানিনা এই ফুলের সুবাস আছে কিনা।
ধন্যবাদ।

১২| ০৬ ই জুলাই, ২০২১ রাত ২:৪২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: প্রেম হৃদয়ের অসুখ হলেও সেটা সুখের অসুখ। প্রেমে বিড়ম্বনা ও সুখের হয়।

০৬ ই জুলাই, ২০২১ রাত ৯:২১

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: বাহ্!
জীবন হয়ে উঠুক প্রেমময়।

১৩| ০৭ ই জুলাই, ২০২১ রাত ৮:২২

মিরোরডডল বলেছেন:




অভিন্ন বিন্দুতে পৌঁছে দেয়নি বরং আরো দূরে ঠেলে দিয়েছে, পৃথক সত্ত্বায় প্রকট করে তুলেছে।

যেদিন দূরত্ব ঘুচে যাবে, সেদিন আকর্ষণের মৃত্যু হবে ।
কিছুটা দূরত্ব আকর্ষণটা ধরে রাখে । তাই সেই ভালো ।

বরং প্রেমানুভূতি চমৎকার গল্প বলতে পারে বলেই এটি ভাষার রূপ পেয়েছে।

প্রেমানুভূতি জীবনের সবচেয়ে সুন্দর অনুভুতি ।
মানুষ শত চেষ্টা করেও এ অনুভব সৃষ্টি করতে পারেনা আনলেস ইট হেপেন্স ।
তাই এ অনুভুতিটা এতো দুর্লভ ।

ভালোবাসার জন্য আরও কিছুদিন বেঁচে থাকার ইচ্ছাটাকে প্রবল মনে হয়।

কখন কিসের টানে মানুষ
পায় খুঁজে বাঁচার মানে


এই টানটাই ভালোবাসা ।

বেঁচে থাকুক নন্দিনীর প্রেম ।

০৮ ই জুলাই, ২০২১ রাত ১০:২১

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: খুব সুন্দর মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ মিরোরডডল আপু।
অনেক অনেক ভালো থাকবেন।

১৪| ১১ ই জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫৮

শহুরে আগন্তুক বলেছেন: এই তো গতকালও মনে হতো যাকে ভালোবাসি তাকে না পেলে জীবন বৃথা! .... আজ জানা গেলো জীবনে আসলে কেউই অপরিহার্য নয়, জীবন দিব্যি দুর্দান্ত চলে যায়।

আপাতত আগামীকাল কী জানায় সে অপেক্ষায় ।

( " কুটকুট " শব্দটার উপস্থিতি লেখাটার স্নিগ্ধতাকে কিছুটা ম্লান করেছে )

১২ ই জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৩৬

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: তারপরও মাঝরাতে, হঠাৎ মুঠোফোন বার্তাতে, একসাথে চলা রাস্তাতে চোখের পাতা কেঁপে ওঠে...
সেই গানটার মতো - 'কার ছবি নাই, কেউ কি ছিল; সেই ভেবে ডুবে গেছে চাঁদ...'

আগামীকালের তো ভেন্যু আর মেন্যু জানানো উচিত, কী বলো?

১৫| ১৭ ই জুলাই, ২০২১ বিকাল ৪:৫৩

রানার ব্লগ বলেছেন: সেই যে কবে কার যেন প্রেমে পরলেন এর পর হারিয়ে গেলেন, প্রেম এবং দুঃখবোধ দুইটাই মানুষ কে আড়াল করে দেয়।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:৫৭

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: না রে ভাই, তেমন কিছু না।
এই ব্যস্ততা খানিকটা বেড়েছে।
ডিজাইনার লেহেঙ্গা নিয়ে হয়রান হয়ে আছি।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.