নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

www.oputanvir.com

অপু তানভীর

আমার চোখে ঠোঁটে মুখে তুমি লেগে আছো

অপু তানভীর › বিস্তারিত পোস্টঃ

চন্দ্র মানব, মাওলানা এবং বলদের দল

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ৯:০৬



চাঁদের বুকে পা রাখলেন নীল আর্মস্ট্রং । দীর্ঘ যাত্রা করে পৃথিবী থেকে চাঁদে পৌছিয়েছে তারা । প্রচন্ড ক্ষুধা অনুভব করলেন । পকেটেকে ছিল চকলেন । তারা চকলেট খেলেন । তারপর চাঁদে নেমে দেখলেন চাঁদের মাঝখান দিয়ে একটা ফাঁটা । তারপর চাঁদে কিছু সময় হাটা হাটি করার পর তিনি একটা অদ্ভুত মিউজিক শুনতে পেলেন । কিন্তু সেই মিউজিকটা কোথা থেকে আসছে সেটা তিনি বুঝতে পারলেন না ।

পৃথিবীতে ফিরে তিনি আবিস্কার করলেন যে চাঁদের বুকে যে মিউজিক তিনি শুনেছিলেন সেটা আসলে মুসলিম প্রেয়ার হল থেকে ভেসে আসছে । সেটা আসলে আযানের শব্দ । অর্থ্যাৎ চাঁদ থেকে এই আযানের শব্দ তিনি শুনেছিলেন !

একই বছরের অক্টোবর মাসে নীল আর্মস্ট্রং ঢাকা সফরে আসেন । এবং তার এই সব ফাইন্ডিংস সে আমাদের বিখ্যাত মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীকে বলে যান ।


এরপর নীল আর্মস্ট্রং মুসলমান হয়ে যান ।

B-)) B-))


আমরা ছোট বেলা থেকে এই কথা গুলো শুনে আসছি । হুজুরেরা বিভিন্ন বয়ানে গর্ব করেই এই কথা গুলো বলতেন । হুজুরেরা বলতেন চাঁদ থেকে আযান শোনা যায় । নীল আর্মস্ট্রং এই আযান শুনে ইসলাম গ্রহন করেছিল । সে চাঁদের মাঝখান দিয়ে ফাঁটল দেখতে পেয়েছিলো । পৃথিবীতে এসে এই সব তথ্য আবিস্কার করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করে । এই মিথ্যা গুলো মোল্লাদের কাছ থেকে ছোট বেলা থেকেই আমরা শিখে এসেছি । ওয়াজ থেকে শুরু করে শুক্রবারের বয়ানে । যখন একটু বড় হয়ে বুঝতে শিখি তখন বুঝতে পারি যে মোল্লাদের এই এই কথা গুলো ভুল এবং মিথ্যা । বোধকরি সেই সব মোল্লারাও হয়তো ছোট থেকে অন্য কোন মোল্লাদের কাছ থেকে শুনে এসেছে । এই মিথ্যাটাকে তার মনে প্রাণে বিশ্বাস করে এসেছে ।

কিন্তু এই যে মাওলানা সাহেব, আজহারী সাহেব ইনি কিন্তু অশিক্ষিত না । গ্রামের মাওলানাদের মতও না । তিনি একটি বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশুনা করেছেন । তারপরেও এই রকম রকম বক্তব্য দেওয়া মানে কী? এই রকম জলজ্যান্ত মিথ্যাবাদী যখন ইসলাম প্রচারের কান্ডারী হয়ে যায় তখন তার হাতে ইসলাম কতখানী নিরাপদ এটাই হচ্ছে চিন্তার বিষয় ! যে লোক জেনে শুনে এই রকম মিথ্যা বলতে পারে সে অন্য বিষয়েও যে মিথ্যা বলবে না সেই বিষয়ে নিশ্চয়তা কী?

এরপর আসলে বলদের দল । তারা মোল্লাদের এই মিথ্যা কথা মনে প্রাণে বিশ্বাস করে । তাদের কাছে যে কথায় ইসলামকে মহান করা যায় তা সেটা মিথ্যাই হলেও সেই কথা মেনে নিতেই হবে । আর যারা সেটা মিথ্যা বললে সে হয়ে যাবে ইসলামের শত্রু । ঠিক এই বলদদের কারণে মোল্লারা আজও মিথ্যা বলে পার পেয়ে যাচ্ছে । এই বলদ গুলো মোল্লার মিথ্যাকে মিথ্যা বললে ভেবে নেয় ইসলামের বিরুদ্ধে বলা যাচ্ছে ।

ফেসবুকের বিজ্ঞানের এক গ্রুপে চাঁদের এই আযান শোনা কিংবা নীল সাহেবের ইসলাম গ্রহন বিষয়ের সকল ব্যাখ্যা দিয়ে একটা ভিডিও দেওয়া হয়েছিলো । সেখানে এই বলদ গুলো যেন হামলে পরলো এটা প্রমান করতে যে চাঁদে আসলেই আযান শোনা যায় । এতোই দৃঢ় ভাবে যেন তারা নিজ কানে সেই আযান শুনেছে । অথচ সামান্য একটু জ্ঞান থাকলেই একটু পড়াশুনা করলেই বুঝতে পারার কথা যে কোন ভাবেই পৃথিবী থেকে দেওয়া আযান চাঁদ থেকে শোনা সম্ভব না । নীল সাহেব ইসলাম গ্রহন করেন নি ।

শেষে একটা প্রশ্ন করি । আপনাদের মাঝে কেউ আছেন নাকি যে এই কথা বিশ্বাস করেন?
থাকলে জানান দিয়েন তো । বলদের চেহারা একটু দেখি ।

সংযুক্তিঃ এই ছবিটা আগেই যুক্ত করা দরকার ছিল । তবে এখন যুক্ত করে দিলাম







Biography of Neil Armstrong
Neil Armstrong converted to Islam ?
Did Neil have a religious experience on moon?

মন্তব্য ৫৫ টি রেটিং +৭/-০

মন্তব্য (৫৫) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ৯:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



ব্লগে এদের সংখ্যা আগের থেকে কমেছে

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ৯:৪৬

অপু তানভীর বলেছেন: ব্লগে এদের সংখ্যা সব সময় কমই ছিল কিন্তু বাস্তবে কিংবা ফেসবুকে এই বলদদের সংখ্যা অসংখ্য ।

২| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ৯:৪২

সত্যপীরবাবা বলেছেন: ধর্ম নি্য়ে মাঝে মাঝে লেখেন এবং ভালই লেখেন, লেখা পড়ে অন্তত পড়াশোনা করেন নিয়মিত বলে মনে হয় এমন এক ব্লগারের কাছে বর্তমানের কয়েকজন আলেমের নাম জানতে চেয়েছিলাম। তাঁর লেখা লিস্টের প্রথমেই দেখি "আহাজারি"র নাম। বুদ্ধিমান, উচ্চশিক্ষিত লোকেদের কাছেই আহাজারি যখন "আলেম" হিসেবে গ্রহনযোগ্য,তখন আর বলদদের দোষ কি?

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১০:১৬

অপু তানভীর বলেছেন: এই বলদগুলো ভেবেই নিয়েছে যে দাড়ি টুপি পরে কেউ সুন্দর করে কিছু বললেই সেটা সত্য হিসাবে ধরে নিতে হবে । নিজের বুদ্ধি বিবেচনা দিয়ে এরা কিছু ভাববে না, ভাবতে পারেও না হয়তো ! উপরওয়ালা এদের জ্ঞান দিক । এই দোয়া করি কেবল !

৩| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১০:২৮

বোবাকান্না বলেছেন: সাঈদীকেও দেখা গেছিলো, নতুন করে কাউকে দেখা গেলে খুশি হতাম

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:০৪

অপু তানভীর বলেছেন: অনেক বলদ এটাও বিশ্বাস করে যে সাইদীকে চাঁদে দেখা গেছিলো !

৪| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:০৪

মা.হাসান বলেছেন: আম্রিকার চাঁদে অভিযান একটা ভুয়া কথা। আম্রিকাতেই অনেক লোক আছে বিশ্বাস করে না মাইনষে চান্দে গেছে। মুন কন্সপিরেসি থিওরি লিখে সার্চ কর্লেই সব পাইবেন।

তবে চান্দে কেউ যায় নাই এই কথাটা ঠিক না। চন্দ্র জয়ের কৃতিত্ব পিথিবীতে এক মাত্র পাকিস্তানের। বিশিষ্ট ওলামা, কোকিলকন্ঠি ওয়ায়েজ, আল্লামা হযরত দেলোয়ার হোসেন সাইদি হুজুর প্রথম মানব হিসেব চাঁদে পা রাখেন এবং পাকিস্তানের পতাকা গাড়ে দেন। মগবাজারের কোনো কোনো বাসা থেকে ঐ পতাকা এখনো দেখা যায়।

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:৩১

অপু তানভীর বলেছেন: কোন রাশিয়ান পাব্লিক বিশ্বাস করে না যে আম্রিকানরা চাঁদে গেছিলো । তারা একমনে বিশ্বাস করে যে আম্রিকানটা ঢোকা দিছে ।

চাঁদে সাইদির দেখা যাওয়ার ব্যাপারটা এমন সব লোকজন বিশ্বাস করে যে দেখলে অবাক হতে হয় । ভাবি যে এদের কমনসেন্স নেই কেন? এই সামান্য পরিমান কমনসেন্স মানুষের কেন থাকবে না !

৫| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:০৬

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: আরো অনেক অনেক বছর আগে (সম্ভবতো তখন আমি কলেজে পড়ি)। কোনো কারণে এয়ারপোর্টে গিয়েছিলাম। অপেক্ষা কালে দেখতে পাই একজন সুফি চেহারার আলেম বয়ান করছেন চাঁদের সেই ফাঁটল আর নীলের ইসলাম গ্রহণের। এগুলি ছাড়াও উনি মহাকাশ বিজ্ঞানের কিছু তথ্য ইসলামের মাহাত্যে ব্যবহার করছিলেন। উপস্থিত শিক্ষিত-অর্ধশিক্ষিত-অশিক্ষিত শ্রোতারা সেগুলি ঠিক মতো বুঝতে না পারলেও হৃদয়ে(!) উপলদ্ধি করছিলো। অ্যাস্ট্রোনমি নিয়ে কিছুটা আগ্রহ থাকায় সেই তথ্য গুলির সঠিক উৎস ও তার ভুল ব্যাখ্যা ধরতে পেরে আমি বেশ পুলকিত হয়ে ছিলাম।
এখনকার হুজুররা সেই একই কাজ করে যাচ্ছে। তবে এখন পুলকিতো হওয়অর বদলে বিরক্তি এসে গেছে।

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:৩৩

অপু তানভীর বলেছেন: বলা যায় প্রায় হুজুরেরাই এই সব কথা বার্তা বলে । তাদের সামনে যারা বসে থাকে তারা কেন এই সবের প্রতিবাদ করে না আমি আজও বুঝতে পারি নি । হয়তো কিছু বলে না এই ভয়ে যে হুজুরের বিরুদ্ধে বললেই ইসলামের বিরুদ্ধে বলা হবে । এই যে একটা ভুল ধারণা, হুজুরের ভুল ধরলে ইসলামের ভুল ধরা হবে এটার কারণেই এই সব হুজুরেরা যা ইচ্ছে তাই বলে পার পেয়ে যায়, যাচ্ছে !

৬| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:০৬

মা.হাসান বলেছেন: আমার এক সহকর্মি আমাকে একদিন বল্লেন, ইউটিউবে কোনো ওয়াজে পাইসেন, আম্রিকাতে বড় বড় কোনো কোনো ব্রিজ নাকি মাইনসে বানায় নাই, জিন দ্বারা বানানো হইসে।
আর বিনুদনের জন্য আমি কি না ইউটিউবে শিলাকি জওয়ানি দেখি :(
সময় ভুল জায়গায় নষ্ট কর্তেসি। :(

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:৩৪

অপু তানভীর বলেছেন: ইউটিউব থেকে আমি আরও কত কিছু শিখছি । সেদিন শিখলাম দাজ্জাল পৃথিবীতে চলে এসেছে এবং খুব জলদিই ইমাম মাহদীও চলে আসবে । :D

৭| ০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:২০

কামাল১৮ বলেছেন: আহাজারির অনেক ওয়াজই ভুলভাল তথ্যে ভরপুর।এই আহাম্মকরা জানে না সমস্ত তথ্যই এখন হাতের মুঠায়।

০৩ রা মে, ২০২১ রাত ১১:৩৫

অপু তানভীর বলেছেন: হাতের মুঠোও আসলেও বা কি ! বলদের দল কি সেই তথ্য নিজে একটু খুজে দেখবে? দেখবে না । হুজুর বলেছে, যা বলেছে তাই তাদের কাছে সত্য !

৮| ০৪ ঠা মে, ২০২১ রাত ১২:০৩

বিদ্রোহী সিপাহী বলেছেন: অশিক্ষা এবং কুশিক্ষাই এসব অন্ধ বিশ্বাসীদের ভেড়া বানিয়ে রেখেছে।

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:১৬

অপু তানভীর বলেছেন: আমি বলবো কুশিক্ষা । এরা হয়তো কাগজে কলমে শিক্ষিত হয়েছে কিন্তু সেই জ্ঞানকে এরা কাজে লাগাতে পারে নি ।

৯| ০৪ ঠা মে, ২০২১ রাত ১২:২২

মোঃমোস্তাফিজুর রহমান তমাল বলেছেন: একবার এক হুজুরকে বলতে শুনছিলাম প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা ট্রেঞ্চে বিজ্ঞানীরা গিয়ে দেখে মাটির নিচে লোহা। সেখানে আওয়াজ হচ্ছে জ্বলে গেলাম, পুড়ে গেলাম। সেই ভয়ঙকর আওয়াজ শুনে দুই বিজ্ঞানী সাথে সাথে হার্ট অ্যাটাক করে মারা গেছে। হুজুর বুঝাতে চাইলো যে এটা জাহান্নাম ছিলো। সেটা শুনে লোকে কানতে কানতে শেষ। এখন কথা হচ্ছে লোকেরা বুঝতে পেরেও এদের ব্যাপারে প্রতিবাদ করে না কেন? এদের কথা যারা শোনে এরা বেয়াহির ভাগই অন্ধ ভক্ত। আর হুজুরেরাও খুব চালাক।তারা তাদের মুরিদদের নাড়ি-নক্ষত্র জানে। তাই এদের বিরুদ্ধে কেউ বললেই তাকে নাস্তিক -মুর্তাদ ট্যাগ দিয়ে দেয়। আর হুজুর কিছু বলার আগেই হুজুরের মুরিদরা আর তৌহিদী জনতা কিছু না বুঝেশুনেই মারতে থাকে। এই মাইরের ভয়েই অনেকেই কিছু বলে না। আর ফেইসবুক তো আছেই ঘটনা ম্যানিপুলেশনের জন্য। ইসলামের অপমান করেছে বলে মাইর দিলে তারা সবার সহানুভূতি পাবে। কেউ দেখতে যায় না আসলে লোকটা কী বলেছে।

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:১৭

অপু তানভীর বলেছেন: এটাই হচ্ছে । মোল্লাদের মিথ্যা বুজরুকি ধরিয়ে দিলেই অনেকে ধরে বসে যে সে বুঝি ইসলামের বিপক্ষে বলছে । কোনটা সঠিক আর কোন বেঠিক এই বোধ টুকু এই বলদদের ভেতরে নেই ।

১০| ০৪ ঠা মে, ২০২১ রাত ১২:২৬

নেওয়াজ আলি বলেছেন: আচ্ছা এত বড় ডাহা মিথ্যা কোন মৌলভীটা প্রথম প্রচার করছে

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:১৯

অপু তানভীর বলেছেন: শোনা যায় যে আশির দশকে কোন একটা দল এই মিথ্যা গুলো প্রচার করা শুরু করে । কিন্তু কথা হচ্ছে কেউ মিথ্যা প্রচার করলেই একজন শিক্ষিত মানুষ কেন সেটা না বুঝে না শুনে অন্ধ ভাবে বিশ্বাস করবে?

১১| ০৪ ঠা মে, ২০২১ রাত ১:১২

নতুন বলেছেন: আত্নবিশ্বাসের সাথে মিথ্যা কথা কইলে বলদের বিশ্বাস করানো কোন সমস্যাই না।

আর যারা কিভাবে জ্ঞান বিজ্ঞান শিক্ষা করা যায়, জানা যায় তারা এই সব ওয়াজ শুনতে যায় না।

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২০

অপু তানভীর বলেছেন: এই কথাটা অবশ্য সত্য । আত্মবিশ্বাসের সাথে মিথ্যা বললে বলদদের বিশ্বাস করানো কোন সমস্যাই না । আর আমাদের দেশের বলদদের একটা চিরন্তন বিশ্বাস তো আছেই যে হুজুর মিথ্যা কইতে পারে না । সে যা বলবে সেটাই সঠিক !

১২| ০৪ ঠা মে, ২০২১ ভোর ৪:২৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: হলিউডের প্রযুক্তি দিয়ে স্ট্যানলি কুবরিক চাদে যাওয়ার ছবিটা বানিয়েছিলেন বলে অভিযোগ।
১৯৭৯ সালে বানানো মুন রেকার ছবিটা দেখে কি মনে হয়না, জেমস বন্ড চাদে গেছে ?Moonraker

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২৩

অপু তানভীর বলেছেন: এই অভিযোগ সেই শুরু থেকেই আছে । বিশেষ করে রাশান সিটিজেনরা এখনও বিশ্বাস করে না যে নীল আর্মস্ট্রংরা কখনও চাঁদে গেছে ।

১৩| ০৪ ঠা মে, ২০২১ ভোর ৬:১৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

এই হুজুর মালয়েশিয়ার আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখনো নাকি পড়াশোনা করছেন।
এখানে প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকরা তার নিদারুণ ভক্ত।

অফটপিকঃ অনেক মডার্ন মাইয়াও নাকি তার ভক্ত!

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২৪

অপু তানভীর বলেছেন: হুজুরের ভক্ত কারণ হুজুর চমৎকার ভাবে কথা বলেন । সেই সাথে উচ্চ শিক্ষিত দেখতেও চমৎকার । তাদের কাছে হুজুরের অন্য কিছু ধরাই পড়বে না ।

হ্যা অনেক কন্যাই তার ভক্ত খুব !

১৪| ০৪ ঠা মে, ২০২১ ভোর ৬:১৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

আজাহারি হুজুর যখন ওয়াজ করেন তখন তিনি বেশীর ভাগ বিষয়ই শ্রোতাদের জিজ্ঞাসা করে উত্তর আদায় করার চেষ্টা করেন।
প্রচুর হিন্দী গানের প্যারোডি করেন।

আর বলেনঃ চিল্লাইয়া বলেন ঠিক কিনা?

আরে গাধা, ঠিক কিনা তারা যদি জানতো তাহলে কি আর তোর ওয়াজ শুনতে আসে!

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২৭

অপু তানভীর বলেছেন: এটাও তার একটা টেকনিক ওয়াজের ।

জোড়ে বললেন ঠিক কিনা ! :D

১৫| ০৪ ঠা মে, ২০২১ সকাল ৭:৩৬

সোহানী বলেছেন: এইসব বাটপারদের কথা বিশ্বাস করে বলেইতো আজ তারা কোটিপতি। বাকিরা ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্চার মতো লাফায় কারন মাথার ঘিলুতো সব প্যাকেট কইরা ফ্রিজে রাখা.............

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২৮

অপু তানভীর বলেছেন: ধর্ম ব্যবসা হচ্ছে জগতের সব থেকে বড় ব্যবসা । যারা নাম করতে পারে তাদের কত টেকাটুকা যে আছে কেউ বলতে পারে না !

১৬| ০৪ ঠা মে, ২০২১ দুপুর ১২:৩৬

রানার ব্লগ বলেছেন: সমাজে কিছু গোত্র আছে এদের নিজেদের অবদান বা প্রয়াস করার মত ঘটনা কিছুই নাই, তখন এরা নিজেদের কে প্রকাশ করার জন্য অন্যের সাফল্যকে নিজেদের রঙে সাজানর চেষ্টা করে নিজেকে জাতে তোলার প্রচেষ্টা, ঠিক তেমনি এই সব মাতাল মোল্লা যাদের নিজেদের পরিচয় দেয়ার কিছুই নাই তারাই বিশ্বের সকল কৃতিত্বের মধ্যে নিজেদের বা পা ঢুকিয়ে দিবেই । অভাগার দল এরা।

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:২৯

অপু তানভীর বলেছেন: এবং দুঃখের ব্যাপার হচ্ছে মানুষ যেগুলো গিলছেও গো গ্রাসে .... এই গিলছে বলেই আজও তারা টিকে আছে ....

১৭| ০৪ ঠা মে, ২০২১ দুপুর ১:১৬

ইনদোজ বলেছেন: মাওলানা আজহারীর মত শিক্ষিত লোক কিভাবে এরকম ওয়াজ করে - এটা একটা আশ্চর্য হবার মত বিষয়। কিভাবে সম্ভব?

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:৩১

অপু তানভীর বলেছেন: এখন প্রশ্ন হচ্ছে এমন শিক্ষিত হয়ে যখন কেউ এমন গাজাখুড়ি ভাবে কথা বলে তখন তার কাছ থেকে ইসলামী জ্ঞান নেওয়াটা কতখানি যুক্তিসংগত? এই ব্যাপারে তিনি মিথ্যা বলেছেন অন্য ব্যাপারেও যে মিথ্যা বলবেন না সেটার গ্যারান্টি কি?

১৮| ০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৩:১২

স্থিতধী বলেছেন: এনাদের গুরু চন্দ্রাভিজানকারী সাইদী এর একটা ওয়াজের লাইন এখনো আমার কানে ভাসে, বাসের মধ্যেও চালানো হইতো এর ওয়াজ। আমাদের বিজ্ঞানী ডক্টর কুদরাত-ই- খুদার পরামর্শে বানানো শিক্ষা কমিশনের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে গালি দিয়ে সে বলে; "ঐটা একটা গজব ই খুদা!"

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:৩৩

অপু তানভীর বলেছেন: ধর্মকে কিভাবে নিজ স্বার্থের জন্য ব্যবহার করতে হবে সেটা এই লোক ছিল সিদ্ধহস্ত । তার হাত ধরেই তার সাগরেদরা নিজেদের মত করে নিজেদের জন্য ধর্মকে ব্যবহার করা শুরু করেছে । আজও করে চলেছে ....

১৯| ০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: মাওলানারা যা খুশি তা বলে যায়। তাদের কথার কোনো লজিক থাকে না। এদের কথার বিশ্বাস করার প্রশ্নই আসে না।

০৪ ঠা মে, ২০২১ বিকাল ৪:৩৫

অপু তানভীর বলেছেন: এটা আপনি জানেন আপনি বুঝতে পারেন হয়তো কিন্তু এদের কথা পাবলিক বিশ্বাস করে সব থেকে বেশি ।

২০| ০৫ ই মে, ২০২১ রাত ১:০২

নতুন বলেছেন: লেখক বলেছেন: এই অভিযোগ সেই শুরু থেকেই আছে । বিশেষ করে রাশান সিটিজেনরা এখনও বিশ্বাস করে না যে নীল আর্মস্ট্রংরা কখনও চাঁদে গেছে ।

রাশিয়ান বিজ্ঞানীরা কিন্তু তখন এটা ভুয়া প্রমানে পেছনে লাগেনাই।

আর এই ছবি বানাতে যেই খরচা এবং যত মানুষের মুখ বন্ধ করা দরকার তার চেয়ে কম ঝামেলা এবং খরচে চাদে মানুষ পাঠানো সম্ভব ছিলো।

অল্প মানুষের মুখ বন্ধ করা যায় হাজার মানুষের মাঝে কোন গোপন তথ্য গোপন রাখা যায় না।

০৫ ই মে, ২০২১ দুপুর ২:৫৮

অপু তানভীর বলেছেন: আসলে কে কী বিশ্বাস করবে সেটা বোঝা মুশকিল । এখানে যুক্তি তর্ক সত্য মিথ্যা খুবই কম কাজ করে । যেমন এখনও আমাদের দেশের অনেকেই বিশ্বাস করে যে চাঁদে সাইদীকে দেখা গেছিলো । তাদের সামনে যতই যুক্তি দেখানো হোক না কেন তাল গাছ সব সময় তাদেরই থাকে । এই ব্যাপারটাও সেই রকমই !

২১| ০৫ ই মে, ২০২১ ভোর ৪:২২

অনল চৌধুরী বলেছেন: এ্যামেরিকার একজন বিজ্ঞানী ২০১৮ সালে বলেছেন, আমরা এখনো চাদেই মানুষ পাঠাতে পারিনি, মঙ্গলে কিভাবে পাঠাবো?
রাশিয়ার বিজ্ঞানরা তাদের চাদে যাওয়ার মূল ভিডিওটা দেখাতে বলেছিলেন । নাসা শিশুসুলভ উত্তর দিয়েছিলো, সেটা আমরা হারিয়ে ফেলেছি !
ধোকাবাজি প্রমাণের জন্য এটাই যথেস্ট। Science Did the moon landing actually happen?
৫০-৬০ এর দশকে সোভিয়েত ইউনিয়ন মহাকাশ প্রযুক্তিতে উন্নয়নের যে পর্যায়ে পৌচেছিলো, সেটা ধামাচাপা দেয়ার জন্য মিথ্যাচার ছাড়া এ্যামেরিকার আর কিছু করার ছিলো না।

০৫ ই মে, ২০২১ বিকাল ৩:০১

অপু তানভীর বলেছেন: এমন অনেকেই আছে যারা এইটা বিশ্বাস করে যে চাঁদে কখনও মানুষ যায় নি । ঠিক তেমন ভাবে এমন অনেকেই আছে যে যারা বিশ্বাস করে চাঁদে সাইদীকে দেখা গেছে । এই দুই শ্রেণীর মানুষই কোন যুক্তিতর্ক ফ্যাক্ট বিশ্বাস করে না । তারা তাই বিশ্বাস করে যা তারা বিশ্বাস করতে চায় ।

২২| ০৮ ই মে, ২০২১ রাত ২:৫৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: যারা এ্যামেরিকার মতো সন্ত্রাসী, খুনী আর মিথ্যাবাদী দেশের দেয়া তথ্যে কোনো প্রমাণ ছাড়া বিশ্বাস করে যে চাদে তাদের লোক গেছে, তারাও ওই শ্রেণীর মধ্যেই পড়ে যারা বিশ্বাস করে চাদে সাইদীকে দেখা গেছে।

০৮ ই মে, ২০২১ বিকাল ৫:০৪

অপু তানভীর বলেছেন: হাহাহাহহাহা ! ভাল থাকুন । আপনার মানসিক সুস্থতা কামনা করি ।

২৩| ০৮ ই মে, ২০২১ রাত ৮:৪২

সোনালি কাবিন বলেছেন: @ অনল চৌধুরী, ২১ নং এ আপনার কমেন্টে আপনি যে লিংক দিয়েছেন, তা কি পুরোটাই পড়েছেন?
:`> :``>>

@ লেখক, আপনি অনল সাহেবের ২২ নং কমেন্টের উত্তরে হা হা রিয়েক্ট দিয়েছেন। অনল সাহেব ২১ নং যে লিংক দিয়েছেন, তা পুরোটা পড়ার অনুরোধ করছি। কিছু কি শিফট বা রিপিট হবে? :`> :``>>

০৮ ই মে, ২০২১ রাত ৯:০৯

অপু তানভীর বলেছেন: তার কমেন্টের উত্তরেই তো আমি বলেছি মানুষ যা বিশ্বাস করতে চায় তাই বিশ্বাস করে । তথ্য প্রমানের ধার ধারে না । এমন অনেক আহম্মক আছে যারা নিজে কিছু পড়বে না কিছু জানার চেষ্টা করবে না, কেবল শুনে শুনে যা নিজের মনে বিশ্বাস করতে চায় তাই বিশ্বাস করে ।

অনল সাহেব শুরু থেকেই বিশ্বাস করেই আছে যে চাঁদে মানুষ যায় নি । তাই সে যে লিংক দিয়েছে কেবল শিরোনাম দেখেই দিয়েছে অথচ সে যদি ভেতরে মন দিয়ে পড়তো তাহলে দেখতে পেতো ভেতরে কী লেখা আছে । এই জন্যই তার সাথে আমি তর্কে যাই নি । এই কারণে তার মানসিক সুস্থতা কামনা করেছি ।

২৪| ০৮ ই মে, ২০২১ রাত ৯:১৫

সোনালি কাবিন বলেছেন: বিষয়টা তার জন্য বুমেরাং হয়ে গেল। আফসুস। B-))

০৮ ই মে, ২০২১ রাত ৯:২৬

অপু তানভীর বলেছেন: তার মানসিক সুস্থতা কামনা করা ছাড়া আমার কি আর কিছু করার ছিল বলুন ?
:D

২৫| ০৮ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৫১

সোনালি কাবিন বলেছেন: খুব ছোট্ট একটা জিনিস করলেও করতে পারতেন অবশ্য। একটাতে হা হা রিয়েক্ট দিয়েছেন, সেই অনুপাতে লিংকু মন্তব্যে অট্ট হাহা-র রিয়েক্ট দিলে মন্দ হত না। এইটারই রিপিটের কথা বলেছিলাম। আপনি অবশ্য প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে গিয়েছেন বলতেই হবে :P :P

০৮ ই মে, ২০২১ রাত ১০:৪৮

অপু তানভীর বলেছেন: সামুতে চাইলেও অনেক কিছু বলা যায় না । সামলে বলতে হয় । তার প্রথম নির্বুদ্ধিতা দেখে তাই খানিকটা সংযত ভাবেই উত্তর দিয়েছিলাম যাতে নিজের ভুল বুঝতে পারে । অথচ পরের কমেন্টে তিনি আরও প্রবল বিক্রমে ফিরে এলেন । কী আর করা বলুন !

২৬| ০৯ ই মে, ২০২১ ভোর ৪:৪৪

অনল চৌধুরী বলেছেন: যুক্তি আর তথ্য-প্রমাণ বাদ দিয়ে বড়দের ব্যাক্তিগত আক্রমণ করাকে অভদ্রতা বলা হয়।
আর যে মুহুর্তে কেউ অভদ্রতা করে, তার সাথে আমি আর বিতর্ক করিনা ।
বড়দের সাথে কিভাবে কথা বলতে হয়, পরিবার থেকে সেই শিষ্টাচার না শিখলে তাকে এই বয়সে আর সেটা শেখানো যায় না।
পৃথিবীর বড় বড় বিজ্ঞানীও এ্যামেরিকার চাদে যাওয়ার চাপাবাজি বিশ্বাস করে না।
যারা অন্ধবিশ্বাসী, তাদের কোনো যুক্তি দিলেই তারা নিজেদের বিশ্বাস পরিবর্তন করবে না। তাহলে আর কেউ গোমূত্র খেয়ে করোনা মুক্ত হওয়ার কথা বলতো না, যেমন বলছে ভারতের কোটি কোটি জঙ্গী।
যখন কোনো বিষয়ে যথেষ্ট কারণ থাকে ,তখনই সন্দেহ করা হয়।
সোভিয়েত ইউনিয়নের মহাশূণ্যে কুকুর, নারী, পুরুষ পাঠানো নিয়ে কেউ কোনো সন্দেহ করেনি, কারণ এসব সত্যিই ঘটেছিলো।
তাহলে এ্যামেরিকার দাবী নিয়ে সবাই সন্দেহ করছে কেনো?
টুইন টাওয়ার এ্যামেরিকার হামলা যে লাদেন করেনি, করেছিলো এ্যামেরিকানরাই, সেটাও এখন প্রমাণিত সত্য।
*** নিজেকে মাসুদ রানার লেখক দাবীকারী কাজী যে একটা জোচ্চোর, এই কথা আমিই সবার আগে বলেছি।
তখনও কিছু ইচড়ে পাকা অন্ধবিশ্বাসী কাজী ভক্ত গন্ড-মূর্খ লোকজন আমাকে বিভিন্ন নোংরা ভাষা ব্যাবহার করেছিলো। শেষ পর্যন্ত তার জোচ্চুরী প্রমাণিত হয়েছে।
এটাও একদিন হবে।
চিকিৎসক না হয়েও যে নিজেকে চিকিৎসক দাবী করে এবং অন্যের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে কুৎসিত মন্তব্য করে রায় দেয়, সে নিজে সুস্থ কিনা, সেটা এই ব্লগের চিকিৎসকরাই বলুক।

২৭| ০৯ ই মে, ২০২১ ভোর ৫:৪৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: প্রথম লিংকটা দিয়েছিলাম পক্ষের যুক্তিগুলির তুলনায় বিপক্ষের গুলি যে কতো দূর্বল ,সেটা প্রমাণের জন্য।
কেউ না বুঝলে সেটা তার ব্যার্থতা।
আর এবার এ্যামেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজ্ঞান-প্রযুক্তি উপদেষ্টা বিশিষ্ট বিজ্ঞানী এবং ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞানের ডাকসাইটে অধ্যাপক ডেভিড গেলার্নটার-এর মন্তব্য দিলাম, যেখানে তিনি ২০১৭ সালেই বলেছিলেন, আমরা এখনো চাদেই যেতে পারিনি, মঙ্গলে কিভাবে পাঠাবো? চাঁদে পা-ই রাখেননি আর্মস্ট্রং, বলছে এবার আমেরিকাই
নাসার কেউ তার এই বক্তব্যের প্রতিবাদ না করে সেটা মেনে নিয়েছে।
পোপের চেয়ে বড় ক্যাথলিক আর খৃষ্টান থাকতে পারেনা
আর এ্যামেরিকান বিজ্ঞানীর চেয়েও কোনো বাংলাদেশী যদি নিজেকে বড় বিজ্ঞানী মনে করে, তাহলে তার স্থান কোথায় হওয়া উচিত, সেটা সে নিজেই ঠিক করুক।

০৯ ই মে, ২০২১ বিকাল ৩:০০

অপু তানভীর বলেছেন: ঘুম থেকে উঠে আপনার মন্তব্য পড়ে খুব হাসলাম । ভাবলাম যে প্রতিটি লাইনের উত্তর লিখবো । ওয়াশরুম থেকে পেট ক্লিয়ার করে এসে আমার এক স্যারের কথা মনে হল । তিনি বলেছিলেন, বলদের তাদের তর্ক করা, তার কথার জবাব দেওয়ার অর্থ হচ্ছে নিজেকে তার পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া ।

তবুও যে কথা না বললেই নয় সেটা হচ্ছে আপনি কেবল বয়সেই বড় হয়েছেন মানসিক ভাবে বড় হন নি । আপনার কথাবার্তার ধরন অহংকারী মন্তব্য সেটার পরিচয় বহন করে । আপনি কী করেছেন না করেছেন, কোথায় প্রতিবাদ করেছেন সেটা কেউ শুনতে চায় নি । এর আগেই দেখেছি আপনি হুদাই এই কথা বার্তা অযাচিত ভাবে কোন মন্তব্যে নিজের দাম বাড়ানোর চেষ্টা করেন । এই ধরনের দাম বাড়ানোর কথা বলা হচ্ছে আবলামী ।

পরিশেষে আপনার মানসিক সুস্থতা কামনা করি । ভাল থাকুন ।

২৮| ০৯ ই মে, ২০২১ রাত ৮:০০

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনি একটা চরম মাত্রার বেয়াদব এবং জঙ্গী মানসিকতার লোক, যারা নিজেদের মতের বিরোধী সবকিছুকেই ভুল মনে করে।
বয়স শিক্ষা, সামাজিক মর্যাদা অভিজ্ঞতা-সবদিক দিয়ে বড়দের সাথে কিভাবে কথা বলতে হয়, সেই শিক্ষাও পরিবার দেয়নি।
এখানে সবাই দেখছে ভাষা আর আচরণের নমুনা। নিজের মতের পক্ষে কোনো যুক্তি নাই শুধু নোংরা ব্যাক্তিগত আক্রমণ ছা্ড়া, যেটা অশিক্ষিত জামাতি- হেফাজতিরা করে।।
ব্লগে এধরণের রুচিহীন কথাবর্তা বলার সাহস পাওয়ার একমাত্র কারণ দূরে অবস্থান করা, যেটা সামনে থাকলে কোনো দিনও সাহস হতো না।
সারাজীবন চেষ্টা করে আমি যা করেছি, তার লক্ষ্যভাগের একভাগ কিছু করে দেখান, তারপর কথা বলেন।
আমি অহংকারী হবো না কি হবো , সেটা সম্পূর্ণ আমার ব্যাক্তিগত সিদ্ধান্ত।

০৯ ই মে, ২০২১ রাত ৮:২০

অপু তানভীর বলেছেন: আমি আগেই আমার স্যারের সেই কথা বলেছি । স্যার আমাকে বলদের সাথে আমি তর্ক করতে মানা করেছেন । তিনি এও বলেছিলেন যে অহংকারী ট্যাগবাজ বলদের সাথে তো তর্ক করার প্রশ্নই আসে না ।

আমি কেবল আপনার মানসিক সুস্থতা কামনা করছি । আপনি ভাল থাকুন, সুস্থ হোন !

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.