নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আজকের ডায়েরী- ১৬

০৫ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:৫৩



ছোটবেলা থেকেই আমি হতে চেয়েছিলাম ফায়ারম্যান।
সবাই ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, পাইলট ইত্যাদি হতে চাইতো। আমি এসব কিছুই হতে চাইনি। আমি চেয়েছিলাম ফায়ার সার্ভিসে কাজ করবো। অসহায় মানূষের সেবা করবো। কোথাও আগুন লাগলে নিজের জান-জীবন দিয়ে মানুষদের বাঁচাবো। অসংখ্য বার আমি স্বপ্নে দেখেছি, আগুন লেগেছে। দাউ দাউ আগুন। আমি আগুনের মধ্যে ঝাঁপিয়ে পড়ে মানুষদের বাঁচাচ্ছি। কিন্তু আমি ফায়ার সার্ভিসে চাকরী পাইনি। আপনারা ভাবছেন, আমি চেষ্টা করিনি। খুব চেষ্টা করেছি। খুব। যাই হোক, এখন কোথাও আগুন লাগলে, টিভিতে দেখি। আর আফসোস করি। আমার খুব ইচ্ছা করে ছুটে যেতে ওই আগুনের মধ্যে।

গতকাল অনেক রাতে ঘুমিয়েছি।
একটা মুভি দেখলাম। হিন্দি মুভি। নাম- রোড। ফালতু মুভি। ফালতু মুভি শেষ করে তারপর পড়তে বসলাম। হুমায়ূন আহমেদের ছোট গল্প সমগ্র থেকে বেছে বেছে দশটা ছোট গল্প পড়লাম। যদিও এ গল্প গুলো আগে অসংখ্যবার পড়েছি। হঠাত ঘড়ির দিকে তাকিয়ে দেখি রাত তিনটা বেজে গেছে। সুরভি বাসায় নেই। সে তার বাবার বাড়ি গিয়েছে। আমি গিয়ে তাকে নিয়ে আসবো- এমনটাই কথা হয়ে রয়েছে। সকালে শ্বশুরের ফোনে ঘুম ভাঙল। উনি জানতে চাইলেন আমি কখন আসবো? আর কি কি খাবো? আমি বললাম, দেশী মাছ। আর সাদা ভাত। উনার বাসায় যাওয়ার কথা থাকলে- প্রতিবারই উনি জিজ্ঞেস করেন আমি কি খাবো?

আমি ঘুম থেকে উঠে গেলাম খিলগাও বাজারে।
সেখানে গতকাল আগুন লেগেছে। আমি সব সময় খিলগাও বাজার থেকেই বাজার করি। এই বাজারের সব কিছু আমার চেনা জানা। বিশাল বাজার। এখানে সব রকমের দোকান আছে। কাপড়ের দোকান থেকে শুরু করে, কামার-কুমারের দোকান পর্যন্ত। আমি বাজারে গেলেই পুরো বাজার ঘুরে ঘুরে দেখি। আজও দেখলাম। বাজারের এক অংশ পুড়ে শেষ। পুড়ে যাওয়া অংশটুকু খুব মন দিয়ে দেখলাম। বুঝতে চেষ্টা করলাম- আগুন কিভাবে লেগেছে। বেশ কয়েকজনের সাথে কথা বললাম। আমার পর্যবেক্ষনে মনে হলো এই আগুন রাতের অন্ধকারে কেউ লাগিয়েছে। পোড়া অংশ দেখলেই মনে হয় পরিকল্পিত।

দুপুরে গেলাম সুরভিদের বাসায়।
সেখানে গিয়ে দেখি বিরাট আয়োজন। নানান পদের মাছ। সব দেশী। শাক সবজি, বাজি ভর্তা। মাংস টাংস হাবিজাবি আরও অনেক কিছু ছিল। এদিকে সুরভিদের বাসায় কেউ নেই। তারা সবাই ইন্ডিয়া গিয়েছে। রান্না করেছে সুরভি। সুরভি খাবে না। সে ডায়াট করছে। খেতে বসলাম আমি আর শ্বশুর মশাই। উনি প্রচন্ড জ্ঞানী মানুষ, সৎ মানুষ, ভালো মানুষ, পড়ুয়া মানুষ। অনেক জানেন। কিছু দিন আগে উনি উনার কর্ম জীবনের অভিজ্ঞতা গুলো লিখেছেন। আমাকে পড়তে দিয়েছেন। দারুন লেখার হাত। চমৎকার ভাষার ব্যবহার। শ্বশুর মশাইয়ের সাথে গল্প করে আরাম পাই। কোনো অহংকার নেই। মিথ্যা নেই। সহজ সরল জীবন যাপন করেন।

সন্ধ্যায় সুরভিকে নিয়ে বাসায় ফিরলাম।
রাস্তা ঘাট মোটামোটি ফাঁকাই ছিল। দেড় ঘন্টা সময় লাগলো। রাতে দোতলায় দাওয়াত। লেখাটা শেষ করেই দোতলায় যাবো। ভাবী দাওয়াত দিয়েছেন। কোনো উপলক্ষ্য না। এমনি। এভাবেই আজকের দিনটি পার করে দিলাম। আগামীকাল আবার যাবো খিলগাও বাজারে। কিভাবে আগুন লেগেছে সেটা বুঝতে হবে। জানতে হবে আমাকে। আমি প্রায়ই গুনগুন করে আমাদের জাতীয় সংগীতটা গাই। কী শোভা, কী ছায়া গো, কী স্নেহ, কী মায়া গো—/কী আঁচল বিছায়েছ বটের মূলে, নদীর কূলে কূলে।/ মা, তোর বদনখানি মলিন হলে, ও মা, আমি নয়নজলে ভাসি॥ জাতীয় সংগীতটা খুব অদ্ভুত। বুকের মধ্যে কেমন হাহাকার করে উঠে।

মন্তব্য ২৮ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (২৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১১:১৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বাহ্ আজ সারাদিন তাহলে বাইরে খেয়েই কেটে গেল। হিন্দি বা বাংলা মুভি দেখার সময় আমিও পাই না। তবে পেপারে রিভিউ গুলো দেখি। আর এক জায়গায় বসে দশটা গল্প? এতগুলো গল্প এক জায়গায় বসে পড়তে পারি না।
শুভকামনা ও ভালোবাসা প্রিয় ছোট ভাইকে।

০৫ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১১:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ দাদা।
সকালে হোটেলে নাস্তা খেয়েছি।
রিভিউ পড়ে মুভি দেখতে বেশী ভালো লাগে আমার।
ছোট ছোট গল্প। একটা গল্প পড়তে দশ মিনিটও লাগে না।

২| ০৫ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১১:৫৫

বলেছেন: কি মজা কি ফূর্তি গো একা একা তুমি ছাড়া রাত জাগা।

মডেল হিসেবে আপনি তো পারফেক্ট হতে পারেন!

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৭:৫৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: পড়লাম আপনার জীবন কাহিনী, কিন্তু ব্লগের শোচনীয় অবস্থার জন্য মনটা খারাপ।

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:১০

রাজীব নুর বলেছেন: ইনশাল্লাহ ঠিক হয়ে যাবে।

৪| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


উপরের ছবিতে আপনাকে হোমলেস ব্লগারের মতো মনে হচ্ছে।

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:১০

রাজীব নুর বলেছেন: আমার অবস্থা ঠিক এমনই চলছে।

৫| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:৫৪

বাংলার মেলা বলেছেন: আপনি এত সময় পান কোথায়? আমার তো ৯টা - ৭টা। ৯ টায় বাসায় গিয়ে খাওয়া আর ঘুম ছাড়া কিছু ভাবতে পারিনা

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:১১

রাজীব নুর বলেছেন: সময় বের করে নিতে হয় ভায়া।

৬| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:৫৭

নতুন নকিব বলেছেন:



দিনলিপি সুন্দর লিখেছেন।

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:১১

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া জনাব।

৭| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:৪৮

নীলপরি বলেছেন: ফালতু লাগা সত্ত্বেও মুভিটা শেষ করলেন ?

লেখা ভালো লাগলো ।

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৮:২২

রাজীব নুর বলেছেন: আমার জীবনে আমি ফালতু মুভিই বেশী দেখেছি।

৮| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:১৫

স্বপ্নীল ফিরোজ বলেছেন: তালই সা‌হেব এ‌তো এ‌তো বাংলা‌দেশী মাছ কোথায় পে‌লেন? উনা‌কে আমার সালাম বল‌বেন। জ্ঞানী আর বিনয়ী মানুষ আমার খুব পছন্দ। আ‌মি নি‌জে একটা বিরাট গাধা!

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৮:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: উনি গত ৩৫ বছর ধরে এক বাজার থেকেই নিয়মিত বাজার করছেন।
বাজারের সমস্ত লোক তার পরিচিত।
ভালো মাছ পেলে মাছওয়ালারা তগাকে ফোণ দেয়। অথবা শ্বশুর মশাই তাদের আগে জানিয়ে রাখেন।

৯| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ফালতু মুভি? আমার সাথে মিলে গেল।
আমি গত রাতে দেখেছি ফারুকির মেড ইন বাংলাদেশ। এর চেয়ে ফালতু মুভি আমি জীবনে দেখিনি।

০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৮:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: মুভিটা আমিও দেখেছি। দুঃখের বিষয় মুভিটা দুইবার দেখেছি।

১০| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৮:৩৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: আপনার চাওয়াটা আমাদের দেশের সাথে খুব একটা মেলেনা ।আমাদের দেশে ছোটবেলায় সবাই ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার বা পাইলট হতে চায়। উন্নত বিশ্বের বাচ্চারা ভুলেও এসব হতে চায় না। তারা ফায়ারফাইটার, ফ্লোরিস্ট ( ফুল বিক্রিতা ), পুলিশ, ড্রিংক স্টলের বিক্রেতা, আইসক্রীম অলা, হতে চায়। কারন তাদের সামনে এই উদাহরনগুলো খুব সুন্দররুপে হাজির হয়। ডাক্তার,ইঞ্জিনয়ার তাদের কাছে বড় ভীতিকর ও পানসে বলে মনে হয়।

০৭ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর বলেছেন।

১১| ০৬ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:৪৫

হাবিব স্যার বলেছেন: প্রথম ছবিতে আপনাকে বখাটে বখাটে লাগছে। ২য় ছবিতে একদমই কিউট।

০৭ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: আমি কোনো দিনই বখাটে ছিলাম না।

১২| ১২ ই এপ্রিল, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৮

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: আজকে ঢাকায় ফিরেছি।আসতে আসতে ১০ ঘন্টা লেগেছে।

১২ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১১:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: আমি মনেমনে আপনার কথা ভাবছিলাম। অনেক দিন দেখি না ব্লগে তাই।

১৩| ১৩ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৬

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: লেখক বলেছেন: আমি মনেমনে আপনার কথা ভাবছিলাম। অনেক দিন দেখি না ব্লগে তাই।


আর দেখুন,সবার আগে আমি আপনার পোষ্টেই মন্তব্য করি। জেনে ভালো লাগলো অন্তত আপনি আমাকে স্মরণ করেছিলেন।
সদা ভালো থাকবেন।

১৪| ১৩ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৮

রাজীব নুর বলেছেন: মাহমুদুর রহমান বলেছেন: লেখক বলেছেন: আমি মনেমনে আপনার কথা ভাবছিলাম। অনেক দিন দেখি না ব্লগে তাই।


আর দেখুন,সবার আগে আমি আপনার পোষ্টেই মন্তব্য করি। জেনে ভালো লাগলো অন্তত আপনি আমাকে স্মরণ করেছিলেন।
সদা ভালো থাকবেন

আপনি একজন ভালো ব্লগার। তাই আপনার খোজ করেছি। এরপর কোথাও গেলে জানিয়ে যাবেন।

১৫| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৪

তাজেরুল ইসলাম স্বাধীন বলেছেন: জাতীয় সংগীতের এই লাইন গুলো গ্রামের চিরচেনা রূপের সাথে মিলে যায়।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.