নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

মনের কথা শুনতে হয়, মন\'ই তো ঈশ্বর

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৬



ঢাকা শহরের অবস্থা ভালো না।
আসলে সারা বাংলাদেশের অবস্থাই ভালো না। অল্প কিছু নোংরা মানুষ মিলে দেশের অবস্থা খারাপ করে রেখেছে। খবরের কাগজ পড়া বাদ দিয়ে দিয়েছি। টিভি দেখা বাদ দিয়েছি। পত্রিকা এবং টিভি- মন মেজাজ আরও বেশী বিক্ষিপ্ত করে দেয়। আমি থাকতে চাই- সহজ সরল শান্ত হয়ে। টিভির খবর আর পত্রিকার খবর পড়লে- মুহূর্তেই মেজাজ চরম বিক্ষিপ্ত হয়ে যায়। কারো সঙ্গ ভালো লাগে না। ওই...মেজাজ বিক্ষিপ্ত হয়ে যায়।

কাজেই ঠিক করেছি গ্রামে চলে যাব।
যদিও সারা জীবন ঢাকায় থেকেছি। গ্রামে যাবো, চাষবাস করবো। মূরগী পালব, পুকুরে মাছ চাষ করবো। টাটকা শাক সবজি খাবো। অলরেডী আমি কৃষিকাজ নিয়ে ব্যাপক পড়াশোনা শুরু করেছি। আমার নিজের কোনো জমিজমা নেই। অন্যের জমি বর্গা নিবো। যদি আমার সাথে সুরভি গ্রামে যেতে রাজী না হয়- তাহলে আমি একাই যাবো। আমার ধারনা সুরভি রাজী হবে। সে আমাকে প্রচন্ড ভালোবাসা।

ফজরের আযানের পর-পর ঘুম থেকে উঠেই, পানি ভাত লবন আর মরিচ দিয়ে খেয়ে- গলায় গামছা বেঁধে নেমে যাবো জমিতে। আমন ধান লাগাবো। ধানক্ষেতের খুব যত্ন নিবো। অনেক ফসল হবে। নিজের জন্য রেখে বাকিটা বাজারে বিক্রি করে দেব। একটু একটু করে টাকা জমিয়ে- দুইটা গরু কিনব। প্রতিদিন সকালে গরুর দুধ বাজারে বিক্রি করবো। অন্যের পুকুর লিজ নিয়ে বিসমিল্লাহ বলে মাছ চাষ শুরু করবো। আমার বিশ্বাস আমি কৃ্ষি কাজে অনেক ভালো করবো। আমি একজন সফল কৃষক হবো ইনশাল্লাহ।

জমিতে কাজ করতে-করতে দুপুর হয়ে যাবে।
দুপুরবেলা সুরভি খাবার নিয়ে আসবে। একটা গাছের নীচে বসে খাবো। মেন্যু সামান্য গরম ভাত, আলু ভর্তা অথবা কোনো শাক ভাজি। সাথে থাকবে কাচা মরিচ এবং এক টুকরো পেঁয়াজ। গাপ গাপ করে করে হাসি মুখে খেয়ে নিবো। বৌ ছোট ধমক দিয়ে বলবে- এই আস্তে খাও তো। আমি বলব- আরে...না, জমিতে সেচ দিতে হবে। অনেক কাজ বাকি। খাওয়া শেষ করে বউ এর ছেঁড়া শাড়ির আঁচলে মুখ মুছতে মুছতে বলল- বউ সামনের বৈশাখে তোমাকে দু'টা চুন্ডী শাড়ি কিনে দেব।

সারাদিন কাজ শেষ করে বারান্দায় বসবো।
বউ চা বানিয়ে হাতে দিবে। টুকটাক কথা বার্তা বলব। নিজের পুকুরের মাছ এনে বউ কে বলব- আজ এই তেলাপিয়া মাছ ভালো করে ভেজে রান্না করো তো। বউ রান্না করবে, আমি বউ এর পাশে চুপ করে বসে থাকব। রান্না হবে মাটির চুলায়। রাতে দুইজন মিলে খুব আরাম করে খাবো। ঘুমানোর আগে বউ সুন্দর করে সাজবে। চোখে মোটা করে কাজল দিবে। কপালে টিপ পড়বে। আমি বউকে মন ভরে দেখব। তারপর ফু দিয়ে কুপি নিভিয়ে বউকে জড়িয়ে ধরব।

এক বছর পর হাতে বেশ কিছু টাকা জমবে।
অবশ্য ততদিনে সংসারে এক-দুইটা বাচ্চা এসে যাবে। ততদিনে একটা নিজের পুকুর হয়ে যাবে। দুইটা গরু হয়ে যাবে। অল্প পরিমান জমির মালিক হয়ে যাবো। সংসারে কোনো অভাব থাকবে না। তাছাড়া আমি বুদ্ধি করে বাড়ির চারপাশে- ভালো জাতের নানান ফলের গাছ লাগিয়ে দেব। কোনো কিছুই আর বাজার থেকে কিনতে হবে না। একদম ফরমালিন মুক্ত- মাছ দুধ ফল। আহ ! ভুলেও আর শহরে যাবো না। নো নেভার। কাউকে শহরে পাঠিয়ে প্রিয় বই গুলো কিনে আনব। অবসর সময়ে পড়বো।

ধানক্ষেত, পুকুর, গরু বাছুর আর নিজের বউ বাচ্চা নিয়ে খুব ব্যস্ত হয়ে পড়ব।
পত্রিকা পড়ব না, টিভিতে খবর দেখব না। মন-মেজাজও বিক্ষিপ্ত হবে না। শান্তি আর শান্তি। যখন কোনো কাজ থাকবে না, উঠানে পাটি বিছিয়ে বউ বাচ্চা নিয়ে গল্প করব। আমি অনেক গল্প জানি। বউ বাচ্চারা অবাক বিস্ময়ে আমার গল্প শুনবে- অনেকদিন আগে একটা গাছ ছিল। একটা ছোট ছেলে প্রতিদিন সেই গাছের কাছে আসত। আর গাছতলায় পরে থাকা পাতা কুড়িয়ে সে নানান ধরনের খেলনা বানাত। কখনো বানাত চশমা, কখনো ঘড়ি, কখনো মুকুট। ছেলেটা সেই পাতার মুকুট মাথায় দিয়ে রাজা সাজতো। যেন সে মাঠের রাজা, আর গাছটা তার রাজপ্রাসাদ। কখনো কখনো ছেলেটা গাছ বেয়ে উপরে উঠত, খেলত, আবার কখনো গাছের ডাল ধরে দোল খেত। আর ক্লান্ত হয়ে পড়লে সে গাছের ছায়ায় ঘুমাত...।

মন্তব্য ৪৬ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৪৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২০

ইসিয়াক বলেছেন: ভাবতে ভালো কিন্তু ..............।কঠিন জীবন।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: মোটেও কঠিন না। আনন্দময় জীবন।

২| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২০

ইসিয়াক বলেছেন: +++

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।

৩| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার বিশ বিঘা জমি থাকলে আমি কখনোই চাকরি করতাম না। তার উপর আমার একটি BAg degree আছে.।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: খুব ভালো।

৪| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩১

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: আমি আপনাদের বাড়ীতে পরিবার পরিজন নিয়ে মাঝে মাঝে বেড়াতে আসবো। আপনার চিন্তা আর স্বপ্নের প্রতি যদি ভালোবাসা থাকে তা বাস্তবায়ন করা কঠিন কিছু না। মসলা চাষের ব্যাপারে আমি আপনাকে সহযোগিতা করতে পারবো।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: অবশ্যই বেড়াতে আসবেন।
মসলা চাষ সুযোগ থাকলে অবশ্যই করবো আপনাকে সাথে নিয়ে।

৫| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩৬

সাইন বোর্ড বলেছেন: ছবিতে ধান ক্ষেতের মাঝখানে গাছগুলো দারুণ আকর্ষনীয় হয়ে উঠেছে, আপনার ভাবনার মতই । কিন্তু গাছগুলো কিছু জমিও নষ্ট করছে, আশেপাশে কোন ফসল ফলানো যাচ্ছে না ।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৬| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্রশান্তি

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: দোয়া করবেন।

৭| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৮

ইসিয়াক বলেছেন: ১ আমন ধান লাগাবেন । সেচের ব্যবস্থা থাকবে তো ।কারণ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কেরণে সঠিক সময়ে পানি না ও হতে পারে । পানির অভাবে ধান ছোপ খেয়ে যাবে । জৈব সারের বযবস্থা করতে হবে তা না হলে শুধু রাসায়নিক সার দিয়ে হবে না । তার উপরে রাসায়নিক সারে ভেজাল। পরিমান মতো না দিলে পুরো ধান ই নষ্ট হয়ে যাবে। কি জাতের ধান লাগাবেন । দেশি না হাইব্রিড । হাইব্রিড চালে স্বাদ কম ।ফলন বেশি । আর দেশি ধানে ফলন কম স্বাদ বেশি । তবে দেশি বিজের সহজলভ্যতা কম। কীটনাশক ও সার ছিটাবে কে অভিজ্ঞ লোক ছাড়া পারবেন না । সব এলমেলো হয়ে যাবে। এর মধ্যে ধানের পচন রোগ আসতে পারে ।ধানের মঞ্জুরী বের হবার সময় প্রাৃতিক দূযোগ দেখা দায় । বিশেষ করে আশ্বিন মাসে তখন ধানের মঞ্জুরি বাতাসের বাড়ি খেলে ফলন কম হয় । জমিটা কি উচু ভূমি না বিলের মধ্যে ......নিম্নচাপ হলে খবর আছে ধান বাড়ি নিয়ে আসতে হবে না ওখানেই পঁচবে .......।
২ঞং এ পরে আসছি........গ্রাম যত সুখের ভাবছেন রাজীব ভাই তত সুখের নয় কষ্টের জীবন। দুর থেকে দেখতে ছবির মতো লাগে।
কিন্তু এখানকার লোকেদের খুব পরিশ্রম করতে হয় ।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: চিন্তায় ফেলে দিলেন।

৮| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:০৪

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: আহা!

স্বপ্নের মতো স্বপ্ন
সেদিন কি আর আছে ভায়া?
এখন স্যােটলাটের ভীরে গ্রামও যে ডিজিটাল ;)

একেবারে অজ পাড়া গা যােক বলে খুঁজে পেতে সেখানে যেতে পারলে
আপনার ইউটোপিয়ান ড্রিম সত্যি করা যেতে পারে :)

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪১

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি মাঝে মাঝে বেড়াতে আসবেন।

৯| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: সুন্দর স্বপ্ন, সুন্দর ছবি এবং শিরোনামটা ততোধিক সুন্দর!
তবে স্বপ্ন্বর বাস্তবায়ন সহজ হবে বলে মনে হয় না।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: তীব্র ইচ্ছা থাকলে স্বপ্ন সত্যি হয়।

১০| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১৮

ইসিয়াক বলেছেন: ঢাকা শহরে বই পাওয়া গেলেও পাঠ্য বই ও গাইড বাদে জেলা শহরে প্রয়োজনীয় বই দূর্লভ ই বটে। আগে বিভিন্ন ক্যাটাগরীর বই এর সহজলভ্যতা থাকলেও এখন প্রয়োজনীয় বই পাওয়া খড়ের গাদায় সুই খোজার মতো।
কজন ই বা এখন বইে মুখ ডুবিয়ে রাখে । সবাইতো স্যোশাল মিডিয়া নিয়েই ব্যস্ত । ফান চাই ফান। গুজব চাই গুজব।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: কাউকে ঢাকা পাঠিয়ে এক বছরের খোরাক (বই) একসাথে আনিয়ে নিবো।

১১| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৫১

অনিকেত বৈরাগী তূর্য্য বলেছেন: তালগাছগুলো কি আপনার?

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: একটা কাজে ফরিদপুর গিয়েছিলাম। তখন তুলেছি।

১২| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৪৪

আরোগ্য বলেছেন: মন কিভাবে ঈশ্বর হয়?

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: বড় কঠিন প্রশ্ন করেছেন। তবে উত্তর টা কিন্তু অতি সহজ।

১৩| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:১৪

কবি হাফেজ আহমেদ বলেছেন: গ্রামে শান্তি আছে। ইতিবাচক চিন্তা মাথায় নিয়ে সঠিক পরিকল্পনায় এভাবে শুরু করলে সফলতা আসবে। কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। সম্ভব! মানুষ সুখের জন্যই সবকিছু করে। এখন আমারও ইচ্ছে করে প্রবাস ছেড়ে গ্রামেে চলে যেতে। এমন করে সবকিছু শুরু করতে। দেখা যাক। একদিন হয়তো আমিও....

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: তবে সত্য কথা কি- দেশেও শান্তি নেই। দেশেও অনেক দুষ্টলোক।

১৪| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১:১১

আনমোনা বলেছেন: স্বপন যদি মধুর এমন হোক সে মিছে কল্পনা
জাগিওনা আমায় জাগিওনা।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

১৫| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১:৫৩

জগতারন বলেছেন:
এ চিন্ত গুলি শুধুই সপ্ন।
বাংলাদেশে কৃষি কাজ মোটেও লাভ জনকনা।
আমি কৃষি পড়িবারের ছেলে।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৮

রাজীব নুর বলেছেন: কিন্তু টিভিতে যে দেখি, সফল কৃষক। শস্য উৎপাদন করে তিন গুন চার গুন লাভ করেছে।

১৬| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ২:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


টেষ্ট কমেন্ট

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪৮

রাজীব নুর বলেছেন: ওকে।

১৭| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫২

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: যুদ্ধে নামার পুর্বে ট্রেনিং লাগে কিন্তু, সেটা নেয়া আছে তো :)

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: বই পড়ে পড়ে সব শিখে নিবো।

১৮| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৩৫

আবু রায়হান ইফাত বলেছেন: স্বপ্নটা সুন্দর, কিন্তু বাস্তবটা ভিন্ন

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।

১৯| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০২

ইসিয়াক বলেছেন: লেখক বলেছেন: কাউকে ঢাকা পাঠিয়ে এক বছরের খোরাক (বই) একসাথে আনিয়ে নিবো।
আমার জানা মতে এবং বিশ্বাস থেকে বলছি বই জিনিষটা নিজে নেড়ে চেড়ে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দেখে কেনার মধ্যে একটা আলাদা আনন্দ আছে । সেটা আপনি আরো ভালো জানেন । অন্যকে বললাম এক বই সে আনলো অন্য বই তারপর সারাদিন মন খারাপ।
অথবা বই এর ফর্মায় গন্ডোগোল বা পুরানো সংস্করণ । আর নতুন কি কি বই বাজারে এলো সেটাতো খোঁজ নেয়াই হলো না ।
সেই ব্যাঙের কুয়োতে থাকা গল্পের মতো হয়ে গেল । হি হি হি .......হো হো...।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: ঠিক আছে।
ঠিকই বলেছেন।
তাহলে বই গুলো আপনিই এনে দিবেন। আশা করি আপনি ভুল করবেন না।

২০| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩৭

ইসিয়াক বলেছেন: লেখক বলেছেন: ঠিক আছে।
ঠিকই বলেছেন।
তাহলে বই গুলো আপনিই এনে দিবেন। আশা করি আপনি ভুল করবেন না।

আরে আমিই তো ঢাকায় ই থাকিনা । সেই তো কবে মনের কষ্টে ঢাকা ছেড়ে চলে এসেছি । এখন আর কিছু মনেও পড়েনা। ছিলাম গ্রামে ।আপনার স্বপনের মতো স্বপ্ন দেখে ই গ্রামে গিয়েছিলাম। পুকুরে মাছ চাষ করেছি। ধানের জমি তৈরি করেছি । আগাছা বেছে জমিতে ধান লাগিয়েছি ।ধান নিড়ানি দিয়েছি ।আইল বেঁধেছি । জমিতে সার ছিটিয়েছি । পোকা লাগলে কীটনাশক ছিটিয়েছি । সারা শরীরে বিশ্রি ঔষধের দূর্গন্ধ মাখা হাতে ভাত মেখে খেয়েছি
।সারা শরীরের ব্যাথায় রাতে ঠিক মতো ঘুমাতে পারিনি। ধান কেটেছি। হাতে ফোস্কা পড়ে গেছে। ধান জালি দিয়েছি। ধান গরুর গাড়িতে সাজিয়ে অমানুষিক কষ্ট করে [যদি বৃষ্টি হয়ে থাকে তো কথাই নেই] গাড়ির চাকা গরুর সাথে পাক ঘুরিয়ে পিচ রাস্তায় তুলেছি । আরো শুনবেন আরো অনেক .......।গ্রামের কাজে অনেক পরিশ্রম । শহরে থেকে দুর থেকে ছবির মতো মনে হয় । অনেক কঠিন জীবন। আমি পড়তাম ঢাকার
Maple Leaf International School এ।তারপর Mohammadpur Preparatory School আমি ছিলাম এই স্কুলের ১ম ব্যাচের ছাত্র তখন এখানে ছেলে মেয়ে সবাই পড়তো দ্বিতীয় শ্রেনিতে গিয়ে ভর্তি হইmohammadpur government boys' high school এ পড়েছিলাম এস এস সি পর্যন্ত ........তারপর থাক ভালো লাগছে না ....আপনি গ্রামে যেতে চাইছেন তাই এতটা বললাম । অনেক বকবক হলো .....
বিদায় ।

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: ওরে বাবা-----
খাইছে আমারে----
আপনি তো ওস্তাদ লোক!!!

গ্রাম জীবনের সে সব কথা গুলো ব্লগে নিয়মিত লিখুন।
পড়তে চাই।

২১| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪০

ইসিয়াক বলেছেন: রাজীব ভাই তাড়াতাড়ি ২০ নং পোষ্টটা মুছে ফেলুন । মনের আবেগে লিখে ফেলেছি ।
please

১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: ঠিকই লিখেছেন।
মুছার প্রশ্নই আসে না।

২২| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:০৬

ইসিয়াক বলেছেন: কি আর করা । লিখছি তো .........।আপনি পড়েন নি ?

২০ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: আজ শুক্রবার। জুম্মা বার।
যান, নামাজের প্রস্তুতি নিন।

২৩| ২০ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৪৯

ইসিয়াক বলেছেন: তথাস্তু

২০ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: অশেষ শুকরিয়া বন্ধু।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.