নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

www.shahanur.blogspot.com www.facebook.com/BIHR.BD/ www.facebook.com/MinorityBD/ www.facebook.com/Shahanur.Saikot www.facebook.com/groups/JMBangladesh/ www.facebook.com/JusticeMakersBangladesh/

সৈকত বিআইএইচআর

আধুনিক দাসত্বের জীবন, চিন্তার স্বাধীনতাহীন বাক্সবন্দী বিবেক! মনুসত্ত্বহীন........মনে হয় সব ছেড়ে পালিয়ে যাই- আদিম থেকে আদিমে!পাহাড়, বন, নদী, ঝরনাধা্রা আর পাখির কলতান অথবা.....

সৈকত বিআইএইচআর › বিস্তারিত পোস্টঃ

অনলাইনে যৌন ব্যবসার প্রচারণার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং: প্রশাসন নির্বিকার!

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:১৯

ভাবুন তো এমন একটি অবস্থার কথা! যেখানে নিজের জীবনের উপর আপনার কোন নিয়ন্ত্রণ নেই। যেখানে আপনাকে প্রতিনিয়ত অন্যের সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে হয়। এমনকি আপনাকে দিয়ে যে কাজটি করানো হচ্ছে তা থেকে উপার্জিত আয়ের উপরও আপনার কোন নিয়ন্ত্রণ নেই। কল্পনা করুন আপনার আশে পাশে কেউ নেই, আপনার বাবা-মা-ভাই-বোন-বন্ধু-প্রেমিক কেউ না। সেক্স ট্রাফিকারের খপ্পরে যারা পরে তাদেরকে এই অবস্থার কথা কল্পনা করতে হয় না, কারণ বাস্তবে তাদের অবস্থা এমনই করুণ। এরা আধুনিক যুগের কৃতদাস, এরা প্রতারণার শিকার। এদের প্রলোভিত করে অথবা প্ররোচিত করে অথবা জোড় করে পতিতা বানানো হয়। সেক্স ট্রাফিকিং বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও মাদকের পর সবচেয়ে বড় একটি অপরাধমূলক ব্যবসায়! কিভাবে আপনি অথবা আমি এই সেক্স ট্রাফিকিং এর দুষ্ট চক্রের একটি অংশ হয়ে গেছি অথবা অংশ হতে চলেছি তা আমরা হয়ত বুঝতেই পারি না।

আমরা সবাই স্বপ্ন দেখি, স্বপ্ন দেখি উন্নত জীবনের, নিজের জন্য, পরিবারের জন্য। ঢাকা, চট্রগ্রামের মত বড় বড় শহর এই স্বপ্ন পুরনের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারে। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমাদের কারো কারো জন্য এই স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিনত হয়। নিজেদের জীবনমান উন্নত করার আকাংখায় তাদের দূর্বল করে দিয়েছিল। আর তাদের এই দূর্বলতার সুযোগ নেই ঝুমকা ইয়াসমিন খান, রাজিয়েল ইব্রাহিম, মিঃ মাসুম এর মত সেক্স ট্রাফিকার এবং তাদের দালালরা। তাই বলে ঝুমকা, রাজিয়েল আর মাসুম ই একমাত্র দোষী ব্যক্তি নয়, আপনি বা আপনি চিনেন এরূপ যে কেউ অপরাধী হতে পারে। আমাদের অনেকেরই বন্ধু বা পরিচত রয়েছে যারা অর্থের বিনিময়ে যৌনতা ক্রয় করে, এরা যৌন চাহিদা মেটানোর জন্য যেকোন বয়সের মেয়েদের কাছে যায়।

সেক্স ট্রাফিকিং শুধুমাত্র একটি সামাজিক ক্ষত নয়, এইটা একটা যঘন্য অপরাধ। তাই অন্যান্য যেকোন অপরাধের মত একে সমাজ থেকে নির্মূল করা প্রয়োজন। আমি আজ আপনাদের মুখোমুখি দাঁড়িয়েছি। কারণ আমরা সবাই কোন না কোনভাবে এই চক্রের সাথে জড়িত। আমরা চাই সস্তা শ্রম, সস্তা পন্য, চাই অর্থের বিনিময়ে যৌনতা, আর এ কারনে সমাজের অনেক নারী ও শিশু হয় সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার, হয় শোষিত।

এ সমস্যা সমাধানের জন্য আমাদের সবার আগে জানতে হবে কেন সেক্স ট্রাফিকিং এর ঘটনা ঘটে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এর শুরু হয় দারিদ্র থেকে। দূর্বল ও অসচ্ছল ব্যক্তি ও পরিবারগুলো মূলত সেক্স ট্রাফিকারদের মূল লক্ষ্য। যেমন ঝুমকা, রাজিয়েল আর মাসুম অনলাইনে বিজ্ঞাপন প্রদান ও পরিচিত ব্যক্তিদের মাধ্যমে গ্রাম থেকে উচ্চাকাঙ্ক্ষায় আশা মেয়েদের লক্ষ্য করে লোভনীয় অফারের মাধ্যমে সেক্স ট্রাফিকিং এর জাল বিস্তার করে। আর সে জালে সহজেই ধরা দেই ভিক্টিমরা। যদিও আপাতত দৃষ্টিতে মনে হয় তারা স্বেচ্ছায় যৌন ব্যবসা করছে, কিন্তু সত্য হচ্ছে তারা সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার।

আপডেট (০৫/১১/২০১৬)

ঝুমকা ইয়াসমিন খানের পিছনের খুঁটির জোড় কত বেশি শক্তিশালী যে যৌনব্যবসার আড়ালে শিশু সেক্স ট্রাফিকিং এর মত অপরাধে জড়িত থাকার পরও দেশের রাষ্ট্রপতি কেন, খালেদা জিয়া, শেখ হাসিনা কেউ তার কিছু করতে পারবে না বলে সে অভিযুক্ত অপরাধী চ্যালেঞ্জ করে? এমনকি তার অপরাধমূলক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে ব্লগে লিখার ফলে সে লেখককে ড্রাগ মামলায় ফাঁসানো এবং লিখাটি প্রকাশের কারণে সামু ব্লগের মত জনপ্রিয় বহুল প্রচারিত ব্লগ বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয়!সেক্স ট্রাফিকিং এ অভিযুক্ত ঝুমকা ইয়াসমিন খান কর্তৃক মোবাইলে এই ব্লগের লেখককে ড্রাগ মামলায় ফাঁসানো এবং সামুব্লুগ বন্ধের হুমকি প্রদানের ভয়েস রেকর্ড শুনতে ক্লিক করুন:।

আপডেট ( ০৬/১১/২০১৬)

Escorts Service in Uttara এর আড়ালে সেক্স ট্রাফিং এ জড়িত মিঃ শীতল খান 01703 805270, Email: [email protected] যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং করে চলেছে। http://bd-escorts.com/


বাংলাদেশ-এস্কর্ট ডট কম কম এর নামে +880-193-703-0213, Email: [email protected] থেকেও যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনা করছে কোন প্রকার বাঁধা বিপত্তি ছাড়াই।
http://bangladesh-escorts.com/index.html



আপডেট ( ০৩/১১/২০১৬)

সুমন খান, বিডিএস্কর্টডটকম এবং বিডিএস্কর্টডটক্লাব নামক দুটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিয়মিত যৌনব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং এর মত সংঘবদ্ধ অপরাধ করে চলেছে। Adult Service Escorts Service Provider || 01775-22 64 41।
http://www.bdescorts.com/, http://bdescorts.club/home/


আপডেট (০২/১১/২০১৬)
মিঃ মাসুম, এস্কর্ট সার্ভিস পরিচালনার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনা চক্রের একজন সক্রিয় হোতা যে বিডি কল গার্ল এর মাধ্যমে স্কুল কলেজের মেয়েদের দ্বারা যৌন ব্যবসায় পরিচালনা করে প্রশাসনের নাকের ডগায় দীর্ঘদিন যাবৎ সেক্স ট্রাফিকিং এর মত সংঘবদ্ধ অপরাধ করে আসছে। এই চক্র স্কুল কলেজে পড়ুয়া শিশুদের ওয়েবক্যাম সেক্স, প্লেবয় সেক্স সহ সেক্স পার্টি আয়োজনের মাধ্যমে সেক্স ট্রাফিকিং এর মত যঘন্য অপরাধ করে চলেছে। Mr.MasuM, E-Mail : [email protected], Mobile : 0188 11 88 949, Skype : bdcallgirlservice


আপডেট (০১/১১/২০১৬)
জাহিদ খান এবং বৃষ্টি ইসলাম লিসা, ফেসবুকে বিভিন্ন নামে একাঊন্ট এবং পেইজ খুলে যৌন ব্যবসার প্রচারণার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং চালিয়ে যাচ্ছে। তারা তাদের উত্তরা ফ্লাটে কলেজের মেয়ে (তাদের ভাষায় ১৭/১৮ বছর-ইন্টারমিডিয়েট প্রথম বছরে পড়ুয়া মেয়ের বয়স নিশ্চয় ১৮ বছরের নিচে হবে) দিয়ে তাদের যৌন ব্যবসায় চালায়। এই সেক্স ট্রাফিকার চক্র বৃষ্টি ইসলাম লিসা, অঞ্জলী রহমান, অর্পিতা রহমান আরজুমান, জাহিদ খান ইত্যাদি একাউন্ট এবং ফ্ল্যাট উত্তরা রিয়াল সেক্স, রোমান্টিক কল গার্ল, ২ উত্তরা রিয়াল সেক্স ইত্যাদি নামে পেইজ খুলে তাদের প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। 01776569784 এবং ০১৭৭৬১৬৪০৩৪ এই দুটি আক্টিভ নাম্বার দিয়ে তারা তাদের সকল অপরাধমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে অবলীলায়।

বৃষ্টি ইসলাম লিসাঃ https://web.facebook.com/bristy.islamlisa

অঞ্জলী রহমানঃ https://web.facebook.com/anjely.rahman.35


ফ্ল্যাট উত্তরা রিয়াল সেক্সঃ Click This Link


রোমান্টিক কল গার্লঃ Click This Link


অর্পিতা রহমান আরজুমানঃ Click This Link


২ উত্তরা রিয়াল সেক্সঃ https://web.facebook.com/2-uttara-real-sex-page-214233028988659/?fref=nf&pnref=story


জাহিদ খানঃ Click This Link

আপডেট (২৭/১০/২০১৬)
অনলাইনে যৌন ব্যবসার প্রচারণার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং: প্রশাসন নির্বিকার! শীর্ষক লিখাটি সামুব্লগ, বিডিব্লগ, ইস্টিশন ব্লগ, ব্লগস্পট সহ বিভিন্ন ব্লগে প্রকাশের পর এস্কর্ট সার্ভিসের আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনাকারী চক্রের একজন হোতা ঝুমকা ইয়াসমিন উক্ত ব্লগের লেখককে ড্রাগ মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি প্রদান করেছেন। গতকাল রাতে উক্ত অভিযুক্ত অপরাধী মোবাইল ফোনে লেখককে হুমকি দিয়ে বলেন যে, ভয় দেখানোর জন্য লিখাটি লিখে কোন লাভ হবে না, এরকম শত শত লিখা প্রতিদিন তার নামে লিখা হয়। প্রেসিডেন্ট কেন, শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়াও তার কিছু করতে পারবে না। পাশাপাশি, তিনি অচিরেই সামু ব্লগ বন্ধের ব্যবস্থা করতেছে এবং লেখককে ড্রাগ মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকিও প্রদান করেন।

তাছাড়া, তিনি গতকাল রাতে সামু ব্লগে মন্তব্যের মাধ্যমে উল্লেখ করেছেন যে, এই ব্লগের লেখক ইসলামের কট্টোর পন্থি এক জন আই এস আই এর জংগী যার সপ্ন বাংলাদেশকে আফগানস্থান বা সিরিয়া বানানো। তাইত তিনি সামু এডমিনকে ওই ভয়নকর আইএস আইএস এর এজেন্ট কে সামু থেকে ব্যান করে দিতে আর লেখকের পার্সোনাল তথ্যাদি পুলিশকে দিতে সামু এডমিনের নিকট আহবান জানিয়েছে।


এতোপূর্বে এই লিখাটিতে সংক্ষুব্ধ হয়ে ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস এর পরিচালক রাজিয়েল অ্যালেক্সান্ডার ইব্রাহিম তাঁর দ্বারা পরিচালিত পতিতাবৃত্তি অবৈধ নয় এই মর্মে গত ২১ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখ ভোর: ৬:০৯ মিনিটে সামু ব্লগে মন্তব্যের মাধ্যমে তার কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ প্রদান করে । তাছাড়া, সামু ব্লগে একজন উক্ত ব্লগের লেখককে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে উস্কানী দাতা ও ষড়যন্ত্রকারী হিসাবে চিহ্নিত করে তথ্য প্রযুক্তি আইন এ মামলা করার হুমকি প্রদান করেন।

আপডেট (২৬/১০/২০১৬)
ঝুমকা, ২০ বছর বয়সী সেক্স ট্রাফিকিং চক্রের হোতা এই মেয়েটি শুধুমাত্র যৌন ব্যবসার সাথে জড়িত তা নয়, সে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিশু মেয়েদের যৌন ব্যবসায় নিয়োজিত করে যৌন শোষণের মাধ্যমে সেক্স ট্রাফিকিং করে চলেছে।। ঢাকায় নিজস্ব ফ্ল্যাটে পতিতাবৃত্তি এবং মোবাইল সেক্স, ভিডিও সেক্স এর নামে মানুষের সাথে প্রতারণার ও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার সেথে অ্ধুযদি কেউ যৌন কর্ম করার ইচ্ছে পোষণ করে তবে তাঁকে প্রথমে মোবাইল সেক্স, তারপর ভিডিও সেক্স এবং সর্বশেষে সরাসরি যৌনকর্ম করতে পারবে বলেই তার বিজ্ঞাপনে প্রকাশ। এমন কি এই সেক্স ট্রাফিকার মেয়েদের কাছে লেসবিয়ান মেয়েও সরবরাহ করে থাকে বলে তার বিজ্ঞাপনে প্রকাশ রয়েছে।



ওয়ার্ড প্রেস ব্লগে সেক্স ট্রাফিকার ঝুমকার সরব উপ্সথিতিঃ https://sexyjhumka.wordpress.com/


ফেসবুক গ্রুপ নাচ ঘরে সেক্স ট্রাফিকার ঝুমকার বিজঙাপন:
https://www.facebook.com/nachghor/?fref=nf


সেক্স ট্রাফিকার ঝুমকার প্রতারনামূলক কাজের প্রমান: https://www.facebook.com/nachghor/posts/484077895004466


আপডেট (২৫/১০/২০১৬)

ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস এর পরিচালক রাজিয়েল অ্যালেক্সান্ডার ইব্রাহিম তাঁর দ্বারা পরিচালিত পতিতাবৃত্তি অবৈধ নয় এই মর্মে আজ ২১ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখ ভোর: ৬:০৯ মিনিটে সামু ব্লগে মন্তব্যের মাধ্যমে প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ । এস্কর্ট সার্ভিস প্রদানের নামে যৌন ব্যবসার আড়ালে একজন সংঘবদ্ধ সেক্স ট্রাফিকিং চক্রের হোতা যেভাবে প্রকাশ্যে তাঁর অপরাধমূলক কাজের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছে এবং কেউ তাঁর অপরাধমূলক কাজের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাঁকে প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে তাতে কি বর্তমান পুলিশ প্রশাসনকেই চ্যালেঞ্জ জানানো নয় কি? এ ব্যপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ আইন-শৃংখলা বাহিনীর প্রতি আহবান জানাচ্ছি!



আপডেট (২১/১০/২০১৬, ভোর: ৬:০৯ মিনিট )
ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস এর পরিচালক রাজিয়েল অ্যালেক্সান্ডার ইব্রাহিম ২১/১০/২০১৬ ইং তারিখ বিকেল ৪:২৬ মিনিটে আবারো আইনের উলটা পাল্টা ব্যাখ্যা দিয়ে সেক্স ট্রাফিকিং এর পক্ষে তাঁর কার্যক্রমগুলি চালিয়ে যাওয়ার চ্যালেঞ্জ প্রদান করে।


আপডেট ( ২১/১০/২০১৬, বিকেল ৪ঃ২৬ মিনিট)
"ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস" ফেসবুকে যা "ঢাকা এন্টারটেইনমেন্ট সার্ভিস-লাভ ডেন" একটি বৃহৎ সেক্স ট্রাফিকিং চক্র, যারা শুধু অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেই তাদের ঘৃন্য আর অপরাধমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে না, তারা তাদের প্রচারণার জন্য অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়ার পাশাপাশি http://dhakaescortservice.com/ নামক ওয়েব সাইটও ব্যবহার করছে। বিশেষ বিবেচ্য হল, এ চক্র তাদের ঘৃন্য কৌশলের অংশ হিসাবে তাদের প্রাপ্ত ডোনেশনের ১০০% বৃদ্ধ মহিলাদের স্বাস্থ্যকর বসবাস এবং তাদের সর্বমোট আয়ের ৫% বৃদ্ধ মহিলাদের চ্যারিটির উদ্দেশ্য ব্যয় করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এ চক্রের সাথে যোগাযোগের জন্য Raziel Alexander (CEO) এবং ফেইসবুকে Quazi Rafiul Alam (Raziel Alexander Ibrahim): https://www.facebook.com/quazi.rafiul, Enamul Haque: https://www.facebook.com/enamulhaquedes এবং Click This Link ব্যবহার করেছে।






আপডেট (১৯/১০/২০১৬)

কে এই রন খান?( সেক্স ট্রাফিকার)

রন খান নামক এই ব্যক্তিটির শিকড় কি এত বেশী বিস্তৃত, প্রশাসনের মাঝে তার যোগাযোগ, প্রভাব আর ক্ষমতা এত বেশী শক্তিশালী যে নিয়মিত অনলাইনে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং করে চলেছে অথচ পুলিশ প্রশাসন কোন ব্যবস্থায় গ্রহণ করছে না। সামহোয়ার ইন ব্লগের মত বহুল প্রচারিত ব্লগের ফ্রন্ট ফেইজে সপ্তাহব্যাপী রন খানসহ অন্যান্য যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং করে চলা অপরাধীদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমান উপস্থাপন সত্ত্বেও এসকল অপরাধী কিভাবে এখনো তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে?

রন খান, মোবাইল নং-8801770301090, এই ব্যক্তি একাই অনলাইন যৌনব্যবসার ৯০% দখল করে আছে বলে দেখা যাচ্ছে। বাংলাদেশ এস্কর্ট, বাংলাদেশ এস্কর্ট এজেন্সী, ঢাকা এস্কর্ট, ঢাকা এস্কর্ট এজেন্সী, ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস, বাংলাদেশ এস্কর্ট গার্ল, বাংলাদেশ হাই ক্লাস এসস্কর্ট, ঢাকা কল গার্ল এজেন্সি, বাংলাদেশ টপ এস্কর্ট এজেন্সী ইত্যাদি নামক এক ডজনের বেশী যৌন কর্মী সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা এই রন খান। ফেসবুক, লিঙ্কডিন, টুইটার, ব্লগ, ওয়েবসাইট সহ সামাজিক মিডিয়ার এমন কোন অঙ্গন নেই যেখানে এই ব্যক্তি যৌন ব্যবসার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে না। এই ব্যক্তি কি এত বেশী ক্ষমতাশালি যে প্রশাসনের নাকের ডগায় দিব্বি তার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে?
https://www.linkedin.com/in/bdescortgirls?authType=name&authToken=SKWO&trk=prof-sb-browse_map-name



শুধু ফেসবুক পেইজের মাধ্যমেই নয়, লিংকডিনের মত প্রফেশানাল সাইটের মাধ্যমেও তারা যৌন ব্যবসায় চালিয়ে যাচ্ছে। তেমন একটি প্রফাইল নর্তকী ঝুমকা। ২০ বছর বয়সী মেয়েটি দাহাকায় নিজস্ব ফ্ল্যাটে পতিতাবৃত্তি করছে। শুধু নিজে যে এই পতিতাবৃত্তির সাথে জড়িত তা নয়, বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের দ্বারাও পরিতাবৃত্তি পরিচালনা এবং সেক্স ট্রাফিকিং করে চলেছে।প্রকাশ্যে বিজ্ঞাপন প্রদান করে।
https://www.linkedin.com/in/nortoki-jhumka-96a4a05b?authType=NAME_SEARCH&authToken=0wjp&locale=en_US&srchid=5190965511476690119271&srchindex=1&srchtotal=1&trk=vsrp_people_res_name&trkInfo=VSRPsearchId:5190965511476690119271,VSRPtargetId:213208930,VSRPcmpt:primary,VSRPnm:true,authType:NAME_SEARCH
http://www.facebook.com/groups/252903464793257/



আপডেট (১৭/১০/২০১৬):
“কল গার্ল ঢাকা” অনলাইনে কল গার্ল, বডি ম্যাসেজ ও ফরেনার এস্কর্ট সরবরাহকারের উদ্দেশ্যে পরিচালিত একটি ফেসবুক পেজ। কল গার্ল ক্লাব, ঢাকা, পাওয়ার্ড বাই এস্কর্ট রেইন ঢাকা কর্তৃক পরিচালিত কল গার্ল সাপ্লায়ার-বডি ম্যাসেজ-ফরেনার এস্কর্ট-অনলাইন বেইজ সার্ভিস প্রদানকারী তথাকথিত এজেন্টটির ঠিকানা গুলশান ১, ঢাকা এবং কনটাক্ট পার্সন জনৈক রিগান, যার মোবাইল নাম্বার ০১৮২৫১৩৮৮১২। গত ১৫ জুলাই ২০১৬ ইং তারিখে ফেসবুকে খোলা এই পেইজটি এতোমধ্যে বিভিন্ন চটকদারী পোস্টের মাধ্যমে তাদের কার্যক্রমের প্রচার চালাচ্ছে কোন বাঁধা বিপত্তি ছাড়াই।



১৫ জুলাই ২০১৬ ইং তারিখে প্রদত্ত পোষ্টের মাধ্যমে পেইজটি তাদের নরমাল ক্যাটাগরি এস্কর্ট এর রেট, জায়গা, বুকিং সিস্টেম প্রকাশ করছে এবং এ ক্যাটাগরীর সেবা নিতে আগ্রহী হলে কি করতে হবে তাও বর্ণনা করেছে।




২৭ জুলাই ২০১৬ ইং তারিখে পেইজটি কলাবাগান, ধানমন্ডি, ধানমন্ডি ২৭ এবং মধ্যবাড্ডায় তাদের নরমাল ক্যাটাগরী এস্কর্ট সেবার স্থান, রেট ও যোগাযোগ নাম্বার প্রকাশ করেছে।




এস্কর্ট এজেন্সিটি যে অচিরেই মিরপুর এলাকায় তাদের সেবা নিয়ে হাজির হচ্ছে তা গত ৩ আগস্ট ২০১৬ ইং তারিখের পোষ্টের মাধ্যমে প্রকাশ করেছে।


সর্বশেষ এস্কর্ট সরবরাহকারী পেইজটি গত ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ ইং তারিখে এস্কর্ট রিক্রুইটিং এজেন্ট, নারী এস্কর্ট এবং পুরুষ এস্কর্ট নিয়গের জন্য পেইজটিতে বিজ্ঞাপন দিয়েছে। বিজ্ঞাপনগুলোতে কাজ করতে আগ্রহীদের যোগ্যতা, কাজ সম্পর্কে ধারনা, প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র, পারিশ্রমিক এবং যোগাযোগের ঠিকানা বিস্তারিত ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।







আইন আলোচনাঃ
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সংবিধানের ৪০ নং অনুচ্ছেদে প্রত্যেক নাগরিকের পেশা বা বৃত্তি গ্রহণের স্বাধীনতা প্রদান করা হয়েছে। উক্ত অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, আইনের দ্বারা আরোপিত বাধানিষেধ-সাপেক্ষে কোন পেশা বা বৃত্তি-গ্রহণের কিংবা কারবার বা ব্যবসায়-পরিচালনার জন্য আইনের দ্বারা কোন যোগ্যতা নির্ধারিত হইয়া থাকিলে অনুরূপ যোগ্যতাসম্পন্ন প্রত্যেক নাগরিকের যে কোন আইনসঙ্গত পেশা বা বৃত্তি-গ্রহণের এবং যে কোন আইনসঙ্গত কারবার বা ব্যবসায়-পরিচালনার অধিকার থাকিবে। কিন্তু সংবিধানের ১৮ (২) অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রকে গণিকাবৃত্তি ও জুয়াখেলা নিরোধের জন্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের ম্যান্ডেট প্রদান করা হয়েছে। তারই প্রেক্ষিতে রাষ্ট্র প্রকাশ্যে গনিকাবৃত্তি ও অশ্লীল কর্মকান্ডকে অপরাধ হিসাবে গন্য করে বিভিন্ন আইন প্রণয়ন করেছে।

দণ্ডবিধির ২৯০, ২৯২ ও ২৯৪ ধারায় উপরোল্লিখিত কার্যক্রমসমূহ আইনগতভাবে অপরাধ হিসাবে গন্য করে অপরাধীর জরিমানা ও কারাদণ্ডের বিধান করেছে। তাছাড়া, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ অধ্যাদেশ, ১৯৭৬ এর ৭৪ ধারায় পতিতা বৃত্তির জন্য আহবান করাকে অপরাধ হিসাবে গন্য করে অপরাধীর কারাদণ্ড ও জরিমানার বিধান করেছে।

পাশাপাশি, মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন, ২০১২ এর ১১, ১২ এবং ১৩ নং ধারা কল গার্ল ঢাকা কর্তৃক সম্পাদিত কার্যক্রমসমূহকে শাস্তি যোগ্য অপরাধ হিসাবে ঘোষণা করেছে। উক্ত আইনের ১১ ধারায় বলা হয়েছে, কোন ব্যক্তি জবরদস্তি বা প্রতারণা করিয়া বা প্রলোভন দেখাইয়া কোন ব্যক্তিকে পতিতাবৃত্তি অথবা অন্য কোন প্রকারের যৌন শোষণ বা নিপীড়নমূলক কাজে নিয়োগ করিবার উদ্দেশ্যে বিদেশ হইতে বাংলাদেশে আনয়ন করিলে বা বাংলাদেশের অভ্যন্তরে স্থানান্তরিত করিলে তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৭ (সাত) বৎসর এবং অন্যূন ৫ (পাঁচ) বৎসর সশ্রম কারাদন্ডে এবং অন্যূন ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থ দন্ডে দন্ডিত হইবেন।

১২ নং ধারায় বলা হয়েছে, (১) কোন ব্যক্তি পতিতালয় স্থাপন বা পরিচালনা করিলে অথবা তাহা স্থাপন বা পরিচালনা করিতে সক্রিয়ভাবে সহায়তা বা অংশগ্রহণ করিলে তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ডে এবং ইহার অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ড দন্ডিত হইবেন। (২) কোন ব্যক্তি, যিনি⎯ (ক) ভাড়াটিয়া, ইজারাদার, দখলদার বা কোন স্থান দেখাশোনার দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তি, জানিয়া-শুনিয়া উক্ত স্থান বা এর কোনো অংশবিশেষ পতিতালয় হিসাবে ব্যবহার করিবার অনুমতি প্রদান করিলে; অথবা (খ) কোন বাড়ির মালিক, ইজারা-দাতা অথবা জমির মালিক অথবা উক্ত মালিক বা ইজারা-দাতার কোন প্রতিনিধি উক্ত বাড়ি অথবা উহার কোন অংশবিশেষ পতিতালয় হিসাবে ব্যবহৃত হইবে তাহা জানা সত্ত্বেও উক্ত বাড়ি বা জমি ভাড়া প্রদান করিলে; তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ডে এবং অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত হইবেন। এবং

উক্ত আইনের ১৩ নং ধারায় বলা হয়েছে, কোন ব্যক্তি রাস্তায় বা জনসাধারণের ব্যবহার্য স্থানে অথবা গৃহ অভ্যন্তরে বা গৃহের বাহিরে পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে মুখের ভাষায় বা অংগভঙ্গি করিয়া বা অশালীন ভাব-ভঙ্গি দেখাইয়া অন্য কোন ব্যক্তিকে আহবান করিলে তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড অথবা অনধিক ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে অথবা উভয় দন্ডে হইবেন।

সর্বোপরি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ এর ৫৭ ধারা কল গার্ল ঢাকা পেইজে উল্লেখিত প্রচারণামূলক কার্যক্রমসমূহ আইনগতভাবে অপরাধ এবং অপরাধীর সশ্রম কারাদণ্ড ও জরিমানার বিধান করেছে। উক্ত ধারায় বলা হয়েছে যে, (১) কোন ব্যক্তি যদি ইচ্ছাকৃতভাবে ওয়েব সাইটে বা অন্য কোন ইলেক্ট্রনিক বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা সম্প্রচার করেন, যাহা মিথ্যা ও অশ্লীল বা সংশ্লিষ্ট অবস্থা বিবেচনায় কেহ পড়িলে, দেখিলে বা শুনিলে নীতিভ্রষ্ট বা অসৎ হইতে উদ্বুদ্ধ হইতে পারেন অথবা যাহার দ্বারা মানহানি ঘটে, আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটে বা ঘটার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়, রাষ্ট্র ও ব্যক্তির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয় বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে বা করিতে পারে বা এ ধরনের তথ্যাদির মাধ্যমে কোন ব্যক্তি বা সংগঠনের বিরুদ্ধে উস্কানী প্রদান করা হয়, তাহা ইহলে তাহার এই কার্য হইবে একটি অপরাধ৷ (২) কোন ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন অপরাধ করিলে তিনি ১[ অনধিক চৌদ্দ বৎসর এবং অন্যূন সাত বৎসর কারাদণ্ডে] এবং অনধিক এক কোটি টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হইবেন৷

ইদানিং প্রায়শ ফেসবুক এ ব্যক্তির প্রতি অবমাননাকর বা অশ্লীল প্রচারণার জন্য অনেক ব্যক্তিকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের, গ্রেফতার, এমন কি বিচারান্তে শাস্তি প্রদানের কথা শোনা যায়। যার অধিকাংশের বিরুদ্ধে আবার উক্ত ধারার অপপ্রয়োগের অভিযোগ রয়েছে। সরকার সাইবার অপরাধ দমনের জন্য পুলিশের বিশেষ ইউনিট গঠন এবং নিয়মিত ফেসবুকসহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং করছে। তারপরও গত জুলাই মাস থেকে কল গার্ল ঢাকা নামক পেইজটি প্রশাসনের নাকের ডগায় নিয়মিত প্রকাশ্যে তাদের আশ্লীল প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে কোন প্রকার বাঁধা ছাড়াই।

প্রশাসন কি উল্লেখিত বিষয়টির ব্যাপারে অবগত নন। নাকি সব কিছু জেনেও উপরি পেয়ে চোখ বন্ধ রেখেছে। যদি তাই করে থাকে অথবা নাই করে থাকে, তবে প্রশাসনের এখনই উচিত হবে কল গার্ল ঢাকা’র কার্যক্রম আরো ব্যাপকভাবে প্রসারের আগেই উক্ত অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা। অন্যথায় আপনি আমি সবাই তাদের এই হীন্য অপরাধের শিকার হব। তখন আর চাইলেও করার কিছু থাকবে না।

আপডেট (১৩/১০/১৬, রাত: ৯:০০মিনিট)
লিখাটি প্রকাশিত হবার পর কল গার্ল ঢাকা পেইজে ব্যবহৃত যোগাযোগের মোবাইল নাম্বারটি (০১৮২৫১৩৮৮১২) বন্ধ রয়েছে।

আপডেট (১৪/১০/১৬ দুপুর ১:০০ মিনিট)
লিখাটি প্রকাশিত হওয়ার পর "Home sex service in Ctg & Dhaka' নামক পেইজ, যার যোগাযোগের ঠিকানা কক্সবাজার, চট্রগ্রাম ৪৭১০, মোবাইল নং-০১৮৩৯৯৮৪১১১ থেকে আমার ফেসবুকে মেসেজ করে জানায় যে তারা মাসে ২ লাখ টাকা প্রশাসনকে দিয়ে এই ব্যবসায় পরিচালনা করছে। যদিও কাকে কাকে এই টাকা প্রদান করে তা বলতে অস্বীকার করে।



তাছাড়া, তারা হোম সেক্স সার্ভিস বৈধভাবেই পরিচালনা করছে বলেই মনে করে। পাশাপাশি, এই সার্ভিসের আন্ডারে ৩০ জন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়ে কাজ করে মাসে ৩০-৪০ হাজার টাকা ইনকাম করছে। অথচ আমার মত একজন সমাজ সচেতন মানুষ তাদেরকে ১৫ হাজার টাকার চাকুরী দিতে পারব না। তাছাড়া, আমার মত লোকজন নিজের পেট ভড়ানোর জন্য অন্যের দালালী করে বেড়াই বলে উক্ত সার্ভিস পরিচালনাকারী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি হুমকি প্রদান করে।



আপডেট ( ১৫/১০/২০১৬)
Home sex service in Ctg & Dhaka পেইজটি আজ থেকে বন্ধ পাওয়া গেছে।

কল গার্ল ঢাকা পেইজটি থেকে সব কন্টেন্ট রিমুভ করেছে!
https://web.facebook.com/Call-Girl-Dhaka-1063554653725272/

আজ ফেসবুকে খুঁজতে গিয়ে ১ ডজনেরও বেশী পেইজ পেয়েছি যারা ফেসবুক ব্যবহার করে নিয়মিত ঢাকাসহ সারাদেশে এস্কর্ট সার্ভিস এর নামে যৌন ব্যবসার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে! তাদের দু' চারটির নামসহ লিঙ্ক প্রদান করলাম যাতে প্রশাসন খুব সহজে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারে।

Members of Male & Female Escort Agency for girls and ladies
https://www.facebook.com/businessforservice/


Sex in Dhaka
https://www.facebook.com/Sex-in-Dhaka-925133247575680/
Ridoy khan, Spa Escort Service Team, Uttara,Dhaka-1230, mobile number +8801955699149, 01734971408, E-mail :- [email protected] . [email protected]



Bonobithi Kendro
https://www.facebook.com/bonobithi.kendro
Hot line 01631148462


Dhaka Escotrs Limited
https://www.facebook.com/Dhaka-Escotrs-Limited-797918566988901/


Khulna Call Girl Service Khulna R/a
https://www.facebook.com/Khulna-Call-Girl-Service-Khulna-Ra-1635553860089921/
মোবাইল: 01910 126647


Bangladesh Escort agency
https://www.facebook.com/independentcallgirlbd/
+8801770301090 or [email protected]


Dhaka Hot Girls
https://www.facebook.com/dhakahotcallgirls/
Md Ron Khan, Cell +8801770301090, Email: [email protected], Web: http://dhakaescort.my-free.website/


BD Call Girl Escort Service in Dhaka Gulshan, Banani, Baridhara
https://www.facebook.com/BD-Call-Girl-Escort-Service-in-Dhaka-Gulshan-Banani-Baridhara--1102154216506875/


Cute Call girl Dhaka
https://www.facebook.com/Cute-Call-girl-Dhaka-177939875878336/
০১৭৮২৬৬৪৬১৮ এডমিন,রাজ,এবং,লিয়া



Call girl wanted in Dhaka
https://www.facebook.com/callgirlwantedindhaka/


Home call girl provider in dhaka
https://www.facebook.com/Home-call-girl-provider-in-dhaka-476813602522714/


Call Boy in Dhaka City
https://www.facebook.com/Call-Boy-in-Dhaka-City-1543048752669318/


ভাইয়ের মাল সরষ
https://www.facebook.com/ভাইয়ের-মাল-সরষ-1175884115816921/
০১৭৭৬৮৫৪৫৬৯, 0172360451



আপডেট (২৩/১০/২০১৬):
ফেসবুকে শুধু পেইজ বা গুপ খেলেই নয়, অনেকে নিজস্ব নামে আকাউন্ট খুলে প্রকাশ্যে যৌন ব্যবসার আহবান করছে। যদিও এই লিখাটি প্এরকাশের পর কিছু কিছু ফেসবুক পেইজ ও গ্রুপ বন্ধ হয়ে গেছে এবং কিছু কিছু ফোন নাম্বারও বন্ধ দেখা যাচ্ছে তারপরও কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করুন এবং আগামী প্রজন্মকে সুন্দর ও সুস্থভাবে বেড়ে উঠতে সহায়তা করুন:

Nusrat Nowrin Priya
https://www.facebook.com/nusratnowrin.priya


Muskan Mahi
https://www.facebook.com/muskan.mahi.7583


Nila Nimmi
https://www.facebook.com/nila.nimmi.90



Bristy Islam Lisa
https://www.facebook.com/bristy.islamlisa


Maria Hossain
https://www.facebook.com/maria.hossain.5243817


Chayachobi
https://www.facebook.com/profile.php?id=100011681816506


Mona Anylisa
https://www.facebook.com/monalisarima123


Phone Sex 18+
https://www.facebook.com/phonesex18plus/


Tonmoy Khan
https://www.facebook.com/tonmoy.spa.1



Robin Hott
https://www.facebook.com/robin.hott.58


Shahain Khan
https://www.facebook.com/shahin.khan.kk


Allen Dewan
https://www.facebook.com/allen.dewan



Israt Zahan Moni

https://www.facebook.com/profile.php?id=100006202547140
[img|http://s3.amazonaws.com/somewherein/pictures/saiko_tbihr/saiko_tbihr-1477211754-df1f47f_xlarge.jpg


আপডেট (২৪/১০/২০১৬)

আইনের ব্যাখ্যাঃ
অনেক সময় আমদের মনে প্রশ্ন আসে যে জোড় পূর্বক পতিতা বৃত্তিতে বাধ্য না করলে তা অপরাধ হবে কেন? সেক্ষেত্রে ভিক্টিমের সম্মতির পিছনে কি কি ফ্যাক্টর কাজ করে তা অনেক বেশী বিবেচ্য বিষয়।

প্রতারণার মাধ্যম নিয়োগ করায় যে প্রশ্ন সামনে এসে পড়ে তা হলো, ভিকটিম নিজেকে পাচারের জন্য সম্মতি দিয়েছিলেন কি না? এক্ষেত্রে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে:
১। আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে, একজন ভিকটিম নিজেকে নির্যাতিত হতে সম্মতি দিতে পারেন না;
২। আইনে ‘সম্মতি’ শব্দটি যে অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে তা হলো - কারও কোনো প্রস্তাবে সম্পূর্ণরূপে তথ্য পাওয়ার পর একজন প্রাপ্তবয়ষ্ক ব্যক্তির স্বেচ্ছায় এবং ভালোভাবে জেনেশুনে সম্মতি দেয়া;
৩। একজন ভিকটিম যেহেতু প্রতারণার শিকার হয়ে পরিস্থিতি সম্পর্কে পূর্ণ তথ্য পান না তাই তিনি সম্মতি দিতে পারেন বলে ধরে নেয়া যাবে না;
৪। একজন ভিকটিমকে সম্মতি দেয়ার জন্য বাধ্য করা যাবে না বা নির্যাতনে সম্মতি না দিলে তাকে ক্ষতি করার ভয় দেখানো যাবে না;
৫। সুতরাং, এমন কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার সুযোগ নেই যাতে একজন ভিকটিম নিজেকে নির্যাতনের জন্য সম্মতি দিতে পারেন।

আলোচ্য বিষয়গুলির অর্থ হল, প্রতারণার মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া ভিকটিম পাচারের জন্য সম্মতি দিয়েছেন বলে গণ্য করা যাবে না। কারণ:
১। একটি অপরাধমূলক পরিস্থিতিতে নির্যাতিত হওয়ার জন্য সম্মতি দেয়া আইনগতভাবে সম্ভব নয়।
২ পাচারকারীরা কী উদ্দেশ্যে ভিকটিমকে ব্যবহার করবে সে সম্পর্কে সমস্ত তথ্য ভিকটিমকে দেয়া হয় না। সেকারণে, ভিকটিম ভালোভাবে জেনে ও বুঝে সম্মতি দিয়েছেন তা বলা যাবে না।

আবার অনেক সময় আমাদের মনে প্রশ্ন যাগে যে শারীরিকভাবে বাঁধা না দেয়ার পরও আরও বেশী সংখ্যায় ভিকটিম পালিয়ে যাচ্ছেন না কেন?

এই প্রশ্নের উত্তর দিতে হলে পাচারকারীরা নিয়ন্ত্রণের জন্য যেসকল পদ্ধতি ব্যবহার করে তার অনেকগুলোর মধ্যে সেক্স ট্রাফিকিং এর ক্ষেত্রে নিম্নদুটি বিষয় খুব বেশী গুরুত্বপূর্ণঃ

আসক্তি - পাচারকারীরা ভিকটিমকে মাদকাসক্ত করে তোলার মাধ্যমে বর্তমান পরিস্থিতি মেনে নিতে বাধ্য করে। ভিকটিম দৈনন্দিন নির্যাতনের বাস্তবতা ভুলতে মাদক ব্যবহার করতে চাওয়ার কারণে এই কৌশল প্রয়োগ করা হয়। পাচারকারীরা এই প্রবণতাকে উৎসাহিত করে তাদের প্রতি ভিকটিমকে নির্ভরশীল করে তোলে।

বিব্রতকর বাস্তবতা প্রকাশ করে লজ্জা দেয়ার হুমকি - এই কৌশলটি মূলত যৌন পাচারের শিকার ভিকটিমের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়, তবে এর ব্যতিক্রমও লক্ষ্য করা যায়। প্রতারণার মাধ্যমে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা হলেও ‘অধিকাংশ দেশেই পতিতাবৃত্তিকে কলঙ্কজনক মনে করা হয় এবং ভিকটিম একে লজ্জাজনক মনে করে। পাচারকারীরা এই লজ্জার অনুভূতিকে কাজে লাগায় এবং তাদের এই বিব্রতকর বাস্তবতার কথা পরিবার, বন্ধু বা সাধারণ মানুষকে জানিয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ভিকটিমকে তাদের শর্ত মানতে বাধ্য করে।

এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ভিকটিমকে নিয়োগ দেয়ার জন্য অন্যান্য নির্যাতনের ক্ষেত্রেও এই কৌশল প্রয়োগ করা হতে পারে। এই কৌশলটিতে সফল হবার কারণ হল মানুষ সাধারণত অন্যের দৃষ্টিতে বোকা প্রমাণিত হতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে না এবং তাদের যে ধোঁকা দেয়া হয়েছে এই বিষয়টি পরিবার, বন্ধু বা সাধারণ মানুষ জানতে পারলে তারা লজ্জা পায়।

ট্রাফিকিং/সেক্স ট্রাফিকিং সম্পর্কে যদি কেউ আরো বেশি জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তবে সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আমরা সারা বাংলাদেশে পর্যায়ক্রমে পুলিশ, প্রসিকিউটর, জজ ও ম্যাজিষ্টেট, লিগ্যাল এইড অফিসার, আইনজীবী ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের ট্রাফিকিং সম্পর্কে বিস্তারিত প্রশিক্ষণ প্রদান করছি। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুনঃ Click This Link

অনলাইনে যৌনব্যবসার প্রচারনার আড়ালে সেক্সট্রাফিকিং পরিচালনাকারী আরো কিছু লিঙ্ক নিম্নে প্রদত্ত হলোঃ

http://www.bdcallgirlservice.com/
http://www.cityoflove.com/en/bangladesh/dhaka/default.aspx
http://dhakaescortservice.com/sex-in-our-flat-near-mascot-plaza-uttara/
http://www.bangladesh-escorts.com/our-services-and-pricing.html
http://bangladesh.backpage.com/FemaleEscorts/
http://dhakaescort.mywebzz.com/
http://www.bdescorts.com/
http://dhaka-escorts.escortbook.com/
http://bangladesh.escortbook.com/
https://www.linkedin.com/in/bangladeshiescort
http://www.sexyescortads.com/escorts/female/bangladesh/
https://www.youtube.com/watch?v=x7G6UrFdvtA
https://www.youtube.com/watch?v=hcSLIflVufA
http://bangladeshescort.provider-sites.com/home
http://bdescortservice.tumblr.com/
http://dhaka.locanto.com.bd/Escorts/20905/
http://bdescortservice74.blogspot.com/
http://bd-escorts.com/
https://vk.com/id253267691
https://www.facebook.com/BD-Escort-Service-133475636838718/
https://www.facebook.com/pages/Escort-service-All-over-Bangladesh/367725513430207
http://bdescorts.club/
https://www.instagram.com/explore/locations/1016936379/
http://ridoyuttara.blogspot.com/2015/09/dhaka-escort-service-provider-mr.html
http://bangladeshescort.tumblr.com/
http://solutionsbd.blogspot.com/2011/11/escort-service-in-dhaka.html
http://bd.viadeo.com/en/profile/mithun.mahfuz.shan
https://www.gigololist.com/dir/bangladesh/dhaka
http://www.bangladeshigirls.net/bangladeshi-call-girls-services-dhaka.html
http://eventerbee.com/event/bangladesh-escort-service-development-project-2016,482916528563866
https://bdescort.wordpress.com/
https://escort.cybo.com/BD/moghbazar/escort-services/
https://etrigg.com/location/call-boy-service-bangladesh-male-escort-road-44-opposite-wonderland-park-gulshan-avenue-gulshan-2-1212-dhaka-bangladesh/3994703/
http://bangladeshescorts.wixsite.com/dhaka/escort-gallery
http://bangladeshescort.my-free.website/
https://bangladesh.worldplaces.me/view-place/31621956-bd-escort-service--.html
https://massagerepublic.com/male-escorts-in-dhaka
http://escortbd2000.blogspot.com/2015/09/escort-service-bd_89.html
http://ridoyuttra.blogspot.com/2016/07/bd-escort-girls-adult-sex-enjoy-fucking.html
https://twitter.com/dhakasexyescort
http://dhakaescort.dudaone.com/services
https://metavideos.com/facebook/178022529206149
http://bangladeshescort.sitey.me/
http://www.worldescortindex.com/escorts/bangladesh/
http://www.dailymotion.com/Escortservice-Bangladesh
http://bangladeshresult.com/best-10-place-honeymoon-bangladesh/
http://thaiescort.jimdo.com/
http://www.bdcallgirl24.net/
https://www.flickr.com/photos/[email protected]/
https://www.surveymonkey.com/r/XBHW8CM
https://www.pinterest.com/pin/266134659207079241/
http://www.sex-maps.com/bangladeshi-bd-escorts/
http://bd.servicio-x.com/bdx/index.jsp

অনলাইনে যৌন ব্যবসার প্রচারনার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে কিছু প্রবাদ মূলক লিখা পড়তে ভিজিট করুনঃ

কলগার্লদের এসকর্ট সার্ভিস , পতিতাদের ভদ্রতার মুখোশ

ডিজিটাল কলগার্ল দিয়ে রমরমা ব্যাবসা !

জমজমাট সেক্স বিজনেজ এখন ফেসবুকে!

ঢাকায় ৪ ক্যাটাগরির কলগার্ল!

বড় বড় হোটেল ও হোম সার্ভিসে ভিআইপি মেয়েদের যৌন ব্যবসার কথা!

দেশের আইন ভঙ্গ করে সংখ্যা বাড়ছেঃ এস্কর্টদের বিশ্ব জুড়ে এখন এস্কর্ট বিজনেস: পিছিয়ে নেই পুরুষ এস্কর্ট সার্ভিস

অনলাইন যৌন ব্যবসার ৯০ ভাগ দখলদার রন খান!

ফেসবুকে যৌন ব্যবসার রমরমা প্রচারণা: প্রশাসন কোথায়?

এবার ঘন্টা চুক্তিতে ঢাকার তরুণীদের ফোনসেক্স!

[link|http://www.bdsomoy24.com/archives/5795|ফেসবুকে বাংলাদেশি সেক্স’ ব্যবসা!

ঢাকায় অনলাইনে যৌন ব্যবসার ফাঁদ!

অনলাইনে যৌনতা বিক্রির দিকে বেশি ঝুঁকছে যৌনকর্মীরা!

এসকর্ট গার্ল থেকে মাদক... সবই অনলাইনে

রাজধানীতে ডিজিটাল পদ্ধতিতে রমরমা যৌন ব্যবসা (ভিডিওসহ)

হোম সার্ভিসে ভিআইপি যৌন ব্যবসা

ছুটির দিনে রাজধানীতে ইউনিভার্সিটি ও কলেজ মেয়েদের যৌন ব্যবসা নিয়ে একটি প্রতিবেদণ

বৈধ কাগজ দেখিয়ে যৌন ব্যবসা!

বাংলাদেশের যৌনব্যবসা ও যৌনকর্মীরা

[link|http://banglabhumi24.com/?p=4245|ডিজিটাল যৌন ব্যবসার কিছু অজানা কথা

আপডেট (৯/১১/১৬)

এই লিখাটিতে উৎসাহিত হয়ে এবং এই লিখাটিকে রেফেরেন্স হিসাবে ব্যবহার করে দৈনিক যুগান্তর গতকাল ৮/১১/২০১৬ ইন তারিখে তাদের প্রতিমঞ্চ পেজে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাড়ছে অসামাজিক কর্মকাণ্ডশীর্ষক একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

মন্তব্য ২৯৬ টি রেটিং +৩৫/-০

মন্তব্য (২৯৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৩৪

বিজন রয় বলেছেন: পোস্টটা দিয়ে ভাল কাজ করেছেন। আজ পেপারে দেখলাম ফেসবুকে অশ্লীলতার জন্য তিন জন আটক।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৪১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:০১

পথহারা মানব বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই...এ ধরনের একটা পোষ্ট দেওয়ার জন্য। মডুদেরকেও ধন্যবাদ পোষ্টটি স্টিকি করার জন্য।
এখন প্রশাসন যত তাড়াতাড়ি ব্যাবস্থা নেয় ততই মঙ্গল।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:১৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে ভাই, লিখাটি স্বার্থক হবে যদি লিখাটি প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হয় এবং কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:০৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: জনসচেতনতামূলক পোস্ট। ধন্যবাদ এ আঁধার কোণে আলোকপাত করার জন্য।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:১৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও পাশে থাকার জন্য!

৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:১১

রায়হানুল এফ রাজ বলেছেন: অনেক ভাল একটা পোস্ট।
আশা করি সরকার এই দিকে সুদৃষ্টি দেবে।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:২১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ভাল লেগেছে বলে ধন্যবাদ! এখন সরকারের টনক নড়লেই হয়!

৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:২৭

মার্কো পোলো বলেছেন:
খুবই গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট।
প্রশাসনের নজরে আসা দরকার।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:৩১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সবাই মিলে আওয়াজ তুললে প্রশাসন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে আশা রাখি!

৬| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: লিখাটির লিঙ্ক বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার, মহানগর পুলিশসহ আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীর ফেসবুক পেজ ও গ্রুপ এ পাঠিয়েছিলাম। তার মধ্যে "বাংলাদেশ পুলিশ" নামক ফেসবুক পেইজ থেকে রেসপন্স করে" This is not an official page from Bangladesh police . Temporary our all activities are closed . Thank you so much. ____________Admin."
তাহলে কি বাংলাদেশ পুলিশ এর নামেও ফেসবুকে ভুয়া পেইজ পরিচালিত হচ্ছে?

৭| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:২৯

অগ্নিবেশ বলেছেন: রাষ্ট্রই বুঝে না বোঝার ভান করে, আর আপনি কি করবেন?
প্রাপ্ত বয়স্কের তিন বেলা খাওয়া লাগলে, সপ্তাহে অন্তত একবার যৌনকর্ম
করা লাগে। যৌন কাজে অশ্লীলতার কিছু নেই। যারা স্বেচ্ছায় এই পেশাতে
আসে, তারা আমার চোখে সমাজ সেবক, তাদের ঠকানো উচিত না।
আপনি দালাল বা পুলিশের বিরুদ্ধে লিখতে পারেন।
যারা বেশ্যালয়ে যাওয়ার সাহস পায় না, তারা লুকিয়ে লুকিয়ে পর্ন দেখে,
আর পর্নস্টার দের জন সমক্ষে গালি গালাজ করে।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:০২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আসলেই রাষ্ট্র যেখানে বুঝে না সেখানে আমার কি ই বা করার আছে- মাঝে মাঝে ব্লগে দু একটি লিখা লিখে রাষ্ট্রের দৃষ্টি আকর্ষন করার বৃথা চেষ্ঠা করা ছাড়া! তবু হাল ছাড়িনা!
আমাদের দেশে প্রচলিত আইনে জন সম্মুখের আড়ালে প্রাপ্ত বয়স্ক নাগরিকের স্বেচ্ছায় পতিতাবৃত্তি করা কি অপরাধ? সংবিধান যদিও পতিতাবৃত্তি নিরোধে রাষ্ট্রকে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছে তারপরও এখন পর্যন্ত রাষ্ট্র জন সম্মুখের আড়ালে প্রাপ্ত বয়স্ক নাগরিকের স্বেচ্ছায় পতিতাবৃত্তি করাকে সরাসরি অপরাধ বলে ঘোষণা করেনি।
বরং জন সম্মুখে, প্রাকশ্য স্থানে, রাস্তা ঘাটে বা অনলাইনে, প্রকাশনা বা অঙ্গভঙ্গি বা সরাসরি পতিতাবৃত্তির আহবান করা বা কাউকে প্রলোভিত, প্ররোচিত বা বলপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা বা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার জন্য বিজ্ঞাপন প্রচার বা কাউকে বাসা ভাড়া দেয়াকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসাবে ঘোষণা করেছে।
আপনি যদি আমার লিখাটি একটু মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে হয়ত আপনার কনফিউশনগুলো দূর হবে!
আপনাকে অনেক ধন্যবাদ!

৮| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:৩৯

সামিউল ইসলাম বাবু বলেছেন: তারানা হালি চোখ বন্ধ করে অাছে

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:২২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আজ সম্পূর্ন রাষ্ট্রযন্ত্র চোখ বন্ধ করে রয়েছে বলেই মনে হয়!

৯| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:৫৮

সানজিদা আয়েশা শিফা বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এই বিষয়ে আলোকপাত করার জন্য, এভাবেই ত আমাদের দেশটার নতুন প্রজন্মকে ধ্বংস করার চক্রান্ত চলছে । এখন যদি প্রশাসনের কানে পানি ঢোকে ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:২৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে! নতুন প্রজন্মকে রক্ষা করতে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে!

১০| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৫

ব্লগারনির্ভীক বলেছেন: জনকল্যানমুলক পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ। কিন্তু সরকার কি টিনের চশমা খুলে এর বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিবে না দু এক দিন কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেই শেষ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:১৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: হয়ত তাই নয়ত না, তারপরও আশায় থাকি ভাল কিছুর হবার!

১১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:১৮

বঙ্গভূমির রঙ্গমেলায় বলেছেন:
জনসচেতনতামূলক পোস্টটির জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ। :)

পোস্টটি স্টিকি করার জন্য কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানাই।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:২১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও সাথে সাথে সামু কর্তৃপক্ষকেও!

১২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৪৫

আরিফ রুবেল বলেছেন: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অনেক সুবিধা যেমন এনে দিয়েছে তেমনি এনেছে অনেক বিড়ম্বনাও। সংঘবদ্ধ অপরাধ, জঙ্গীবাদী কর্মকাণ্ডের পর প্রকাশ্যে পতিতাবৃত্তির কাজেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার হওয়াটা মোটেও অবাক হবার মত কোন বিষয় নয়। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবে বলে আশা করি।

তবে আসল ব্যবস্থাটা নিতে হবে নিজের ঘরে, পাড়ায়-মহল্লায়। ফ্লাট কালচারের এই শহরে আমরা জানি না, পাশের বাসায় কি হচ্ছে। আর বিচ্ছিন্ন/দ্বীপ সংস্কৃতির সুযোগে নানান ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ঘটে চলেছে আমাদের অগোচরে। এটা প্রতিরোধ করা জরুরী। আবার যে বা যারা এদের সার্ভিস নেয় তারাও আমাদের সমাজের বাসিন্দা। কাজেই তাদের ব্যাপারেও সজা থাকা দরকার।

জঙ্গীবাদ হোক আর সংঘবদ্ধ অপরাধ কিংবা পতিতাবৃত্তি আমরা সজাগ থাকলে কখনই বেশি দূর শেকড় গাড়তে পারবে না।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৪৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার বুদ্ধিদীপ্ত সুন্দর মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ!

১৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৫৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: খুবই গুরুত্বপূর্ণ লেখা। তবে আপসুস এর ব্যাপার হলো আমাদের মত সাধারণ মানুষের দৃষ্টিগোচর হলেও কর্তাব্যক্তিদের হয় না! আর হলেও যথাযথ পদক্ষেপ নিতে গড়িমসি করে। আশাকরি এইটা সহ আরো যত অন্যায় কাজ ও কাজের প্রচারণা আছে তা আমলে নিয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নিবে। লেখককে ধন্যবাদ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৩৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমরা সবাই মিলে যদি বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষের গোচরে আনার চেষ্টা করি, তাহলে হয়ত প্রশাসন ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে!

১৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:০৪

নেক্সাস বলেছেন: ভাই রেসমি এলন নামে একজন লাইভের মাধ্যমে প্রকাশ্য পর্ণ গ্রাফী ছড়িয়ে দিচ্ছে। আমার ধারণা মেয়েটি কোন বড় গ্যাং মেম্বার। যাতে সে মানুষ কে প্রলুব্ধ করে কিডন্যাপ ও হাইজাকিং চালিয়ে আসছে। অথচ প্রশাসন এই ব্যাপারে নীরব।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৩৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: বিস্তারিত জানিয়ে পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট বরাবর লিখলে হয়ত তারা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে!

১৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:০৬

কৃষিসংবাদ বলেছেন: Thanks for your nice post . I think sex business should be stoped immediately.

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পতিতাবৃত্তি হয়ত কখনো বন্ধ হবে না, কিন্তু এইভাবে প্রচারণা বন্ধ হতে হবে অচিরে!

১৬| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:১২

রমজান আহমেদ সিয়াম বলেছেন: খুব ভালো কিছু প্রকাশ করেছেন ৷ ধর্ম নিেয়ও বিদ্বেষ ছড়ানো অনেক পেজ আছে ফেসবুকে ৷
আর এই সব নংরামির পেজ গুলো দৈনিক ছড়াবে নোংরামি ৷ আজকে আইন কোথায় চাপা পরেছে
তারা কি দেখে না!
ধন্যবাদ ভাই সুন্দরভাবে পোষ্ট দিয়েছেন ৷ পোষ্ট স্টিকি হয়েছে আশাকরি প্রশাসন বিষয়টি দেখবে ৷

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: প্রশাসনের উপর এখনো আস্থা রাখতে চাই, যদিও.।.।.।।

১৭| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৩৮

ছাসা ডোনার বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই জান। ভাল করে খোঁজ নিলে দেখা যাবে প্রশাসনের কেউ হয়তো এই ব্যবসার সাথে জড়িত।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পুলিশ প্রশাসনের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ছত্রছায়া ছাড়া আসলেই এভাবে প্রকাশ্যে পতিতাবৃত্তির আহবান করা অসম্ভবই বটে!

১৮| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৩৯

আবিরুজ্জামান মোল্লা বলেছেন: বাংলাদেশ তো উন্নত হয়ে গেল X(

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: কেমনে?

১৯| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪০

কোলড বলেছেন: Sex work should be decriminalized. It should be taxed like regular business and Facebook advert is normal like other business.

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:০৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যৌনকর্ম কি এদেশে কখনো অপরাধ ছিল?

২০| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪৪

আরজু পনি বলেছেন:
বাহ যারা এসব পেশায় যেতে আগ্রহী তাদেরকেও আহবান জানানো হয়েছে।
এখন আর জ্ঞান, বিজ্ঞান, শিল্প, সাহিত্যে নয় ... যৌনতার উন্নয়ন!

সরকার, আইনের লোকরা এসব দেখে না?

সচেতনতামূলক পোস্টটির জন্যে অনেক ধন্যবাদ।
সেইসাথে কর্তৃপক্ষকেও ধন্যবাদ পোস্টটি সবার নজড়ে আনার জন্যে।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:১১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: একদম পেশাদারী কারবার। শুধু যারা কলগার্ল হিসাবে কাজ করতে চায় তাদেরই নয়, যদি কেউ কল বয় হিসাবে কাজ করতে চায় অথবা বিভাগীয় শহরে কমিশনভুক্ত এজেন্সী নিতে আগ্রহী হয় তাদেরও আহবান জানানো হয়েছে। পুজিবিহীন রমরমা ব্যবসা!

২১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:১৫

হাকিম৩ বলেছেন: আচ্ছা সে অ্যাডমিন এর ফেসবুক লিংটা দেয়া যাবে ?

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:২১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করুন, গভীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে স্বাগত জানানোর জন্য!

২২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৮

শিপন মোল্লা বলেছেন: ইদানিং প্রায়শ ফেসবুক এ ব্যক্তির প্রতি অবমাননাকর বা অশ্লীল প্রচারণার জন্য অনেক ব্যক্তিকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের, গ্রেফতার, এমন কি বিচারান্তে শাস্তি প্রদানের কথা শোনা যায়। যার অধিকাংশের বিরুদ্ধে আবার উক্ত ধারার অপপ্রয়োগের অভিযোগ রয়েছে। সরকার সাইবার অপরাধ দমনের জন্য পুলিশের বিশেষ ইউনিট গঠন এবং নিয়মিত ফেসবুকসহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং করছে। তারপরও গত জুলাই মাস থেকে কল গার্ল ঢাকা নামক পেইজটি প্রশাসনের নাকের ডগায় নিয়মিত প্রকাশ্যে তাদের আশ্লীল প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে কোন প্রকার বাঁধা ছাড়াই।[/sb

এতে এটাই প্রমানিত হয় এবং ক্ষতিয়ে দেখলে ,জানা যাবে প্রশাসনের লোকজনের হাত আছে এবং সরকারের উপর তলার লোকজনও জড়িত আছে। সাংবিধানিক ভাবে কি আর আমাদের দেশ পরিচালিত হচ্ছে ? বরং কখনো কখনো মনে হয় সরকারেরই নিয়ন্তন নেই দেশ পরিচালনার ক্ষেত্রে। এই বলাই যাবে নীরব প্রতিবাদও করতে পারবেন কিন্ত কোন লাব হবে বলে মনে হয় না। যাইহোক সচেতনতামূলক পোস্টটির জন্যে আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:২৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: প্রতিবাদে কোন লাভ হবে না তা ভেবে যদি প্রতিবাদ ( তা হোক না নিরব) না করি তাহলে ত কোন বিষয়েই প্রতিকার পাব না। তাই অনেক বেশী আশা নিয়ে প্রতিবাদে সামিল হই, আর কিছু না হোক অন্ততপক্ষে আত্বতৃপ্তি পাব!

২৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:১৮

সামিয়া বলেছেন: এটা তো একটা advertise দেয়া হল। বিশেষ করে যারা জানতো না তাদের জন্য, অথবা যাদের ভুল করার বয়স (teen) তাদের জন্য, at least contact no গুলা hide করে দিতেন, সবাই যে ফেরেস্তা এখানে তা তো নয়।।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৩৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: বিজ্ঞাপন দেওয়া হলো কিনা বুঝতে পারছি না, তবে এটুকু বলতে পারি আজকের পর থেকে উল্লেখিত মোবাইল নাম্বার অন্তত কিছুদিনের জন্য হলেও বন্ধ থাকবে! জানি না এখনো নাম্বারটি খোলা আছে কি না?

২৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:২৬

মুসাফির নামা বলেছেন: খুবই প্রয়োজনীয় জনসচেতনতামূলক লেখা। লেখককে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৩৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও। তবে লিখাটি আমার স্বার্থক হবে যদি আপনি বা আপনার মত সকল পাঠক/ব্লগার সচেতনভাবে বিষয়টি অনুধাবন করে তা বিষয়টি প্রতিরোধে এগিয়ে আসে।

২৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৩৯

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: জনকল্যানমুলক পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৪০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

২৬| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৪৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা পিছিয়ে থাকি কেম্নে?

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৪৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আর কোন দিকে না হোক অন্তত পক্ষে ডিজিটালী এগিয়ে যাব, তাই না!

২৭| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৪৮

আবিরুজ্জামান মোল্লা বলেছেন: বাইরের দেশ গুলোতে এমনটা দেখা যাই । তারা পাবলিকলি এগুলো করতে পারে । যদিও বাংলাদেশ এর মত একটি দেশে এমনটা আশা করা যাই না কিন্তু বর্তমান অবস্তা কিছুটা এমন ই আমার মনে হয় । স্যাকুলারিজম এর প্রভাব তো পরবেই ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৪৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ইউরোপের অনেক দেশে পতিতাবৃত্তি বৈধ হলেও পতিতালয়ে খদ্দের হিসাবে যাওয়া কিন্তু শাস্তিযোগ্য অপরাধ!

২৮| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৫২

সোহানী বলেছেন: আরে নাহ্ দেশ এগিয়ে যাচ্ছে রকেট গতিতে.............

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: হুম! যে কোন দিন মঙ্গল ছুঁয়ে ফেলবে!

২৯| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:১০

এমএল গনি বলেছেন: প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের কেউ এদের খদ্দের হয়ে না পড়লেই হল | সেক্ষেত্রে নেপথ্যের কলকাঠি নেড়ে এদের বাঁচানোর চেষ্টা চলতে পারে | মনে হয় না পুলিশকে ম্যানেজ না করে তারা এ বাণিজ্যে নেমেছে |

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা যদি খদ্দের না হয়, তবে তাদের ব্যবসা চলে কেমনে?

৩০| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:২৪

মোহাম্মদ বাসার বলেছেন: আমিতো কোন সমস্যা দেখছিনা। অপ্রদর্শিত পতিতালয়ে সারা দেশ ছেয়ে গেছে। রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী, ছাত্র শিক্ষক অনেকেই এদের খদ্দের। অনেক ক্ষেত্রে ঘরের মধ্যেও চলছে এই ব্যবসা। খদ্দের হিসেবে যারা যায় তাদের শোভরানোর উপায় না খুঁজে পেলে যারা পেটের দায়ে বা কোন কোন ক্ষেত্রে বাধ্য হয়ে যারা এ পথে আসে তাদের আটকানো যাবে না।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এই শ্রেণীর কলগার্ল রা কতটা পেটের দায়ে এ রাস্তায় তা ভেবে দেখা দরকার!

৩১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:১৪

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: বাংলাদেশ ও বাঙালি সমাজকে অস্থিতিশীল করে নাশকতামূলক উদ্দেশ্য (nefarious purposes) হাসিল করার জন্য বাঙালি সমাজ ও এর অন্তর্ভুক্ত রক্ষনশীল ও মুসলিম জনগোষ্ঠীকে টার্গেট করে উস্কানিমূলক প্রচারনা তৈরি করে অস্থিতিশীলতা (insurrection) তৈরির অপচেষ্টার একটি ধাপ এই পোস্টটি এবং সামুর অ্যাডমিনদের দিয়ে এই পোস্টটি হাইলাইট পজিশনে রাখানো।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:০৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: বাংলাদেশ, বাঙালি সমাজ ও সংস্কৃতির সাথে অনলাইন কল গার্ল এস্কর্ট সার্ভিস কতটা মানানসই, তা কি একটু বিস্তারিত বলবেন? তাছাড়া, এই পোষ্টের মধ্যে বাঙালি সমাজ ও এর অন্তর্ভুক্ত রক্ষনশীল ও মুসলিম জনগোষ্ঠীকে টার্গেট করে উস্কানিমূলক প্রচারনা তৈরি করে অস্থিতিশীলতা (insurrection) তৈরির অপচেষ্টা কোন অনুবিক্ষন যন্ত্র দিয়ে খুঁজে পেলেন? আশা করি বিস্তারিত বলবেন। অন্যথায় বাঙ্গালী নাগরিক সমাজ অন্যকিছু ভাবলে তার জন্য লজ্জা পাইয়েন না!

৩২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:০৭

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: এইগুলাইন আছে দেইখা দেশের অনেক মা বোনেরা সম্মান নিয়ে এখনো দেশে ভালোভাবে চলা ফেরা করতে পারে ।যদিও এইসব কাজ ভালো না । পাপ । কিন্তু এইটার জন্যই দুনিয়ার ব্যাপাক পুলা মাইয়ারা পাগল । আপনি সাধারণ তো একটা কথা চিন্তা করে দেখেন,অনেক ইসলামিক রাষ্ট্রে এগুলোর উপরে অনেক কঠিন আইন প্রয়োগ করা,তার পরেও বন্ধ হয় না এইসব যৌন কর্ম। বিশেষ করে পৃথিবীর সকল নারী পুরুষের জন্য এটা খুব প্রয়োজনীয় একটা জিনিছ ।আপনিই কিন্তু সুযোগ পেলে ছাড়বেন না ।কথা হলো
এমন এসব জিনিস বন্ধ হয়ে গেলে এদেশের যুব সমাজের অবস্থা কি হবে ।দেখবেন ঘন্টায় ঘন্টায় রাস্তাঘাটে রেফ আর যৌন হয়রানি হচ্ছেন,অনেক নিরহ মেয়েরা । :(
তার চেয়ে বরং এবিষয়গুলো থেকে কিছু আলাদা করে ভাবা উঁচিৎ ।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:০৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অবশ্য আলাদা করে ভাবতে হবে, তবে তা হতে হবে আইন ও ন্যায় সংগত!

৩৩| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ২:৫৫

সোহাগ সকাল বলেছেন: এসব ওয়েবসাইট আর ফেসবুক পেইজ অনেকদিন ধরেই তাদের কর্মকান্ড চালাচ্ছে। টেলিভিশনেও এদের নিয়ে বারংবার রিপোর্ট এসেছে। ওদের কিছুই হচ্ছে না।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৪৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে!

৩৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৩:০২

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @সৈকত বিআইএইচআর এতক্ষণে insurrection এ জোয়ার উঠে গেছে। ডিএসইউকে ব্যবহার করে শুরু করলো প্রথম আঘাতটা, এখন জ্বালানি সাপ্লাই দিচ্ছেন। বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুসলিম জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসীদের একটি বড় অংশ আন্দোলন শুরু করে দিয়েছে, "অপসংস্কৃতি" "পাপ" "নষ্ট ধ্বংস" এর স্লোগান তুলে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অপসংস্কৃতি" "পাপ" "নষ্ট ধ্বংস" এসব স্লোগান উঠার আগেই প্রশাসনের উচিত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া!

৩৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:৫৬

সোজা সাপটা বলেছেন:
জনসচেতনতামূলক পোস্টটির জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ। :)
পোস্টটি স্টিকি করার জন্য কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানাই

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও, আসুন লিখাটি বেশী বেশী শেয়ার করে কর্তৃপক্ষের নজরে আনতে সহযোগিতা করি!

৩৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:২৪

অগ্নিঝরা আগন্তুক বলেছেন: ফেইসবুক বন্ধ করে দেয়া হোক বাংলাদেশে। এর মাধ্যমে কত রকম অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে তা সবারই জানা , আস্তে আস্তে সবই লোকচক্ষুর সামনে আসছে। তাছাড়াও ফেইসবুক তরুণ সমাজের মধ্যে ক্ষতিকর প্রভাব বেশি ফেলছে। পড়াশুনা ছেড়ে সারাদিন ফেসিবুকেই সময় দিচ্ছে। ফেইসবুক বন্ধ হলে , এদের কর্মতৎপরতা বাড়বে যার প্রমান পেয়েছিলাম মাঝে কিছুদিন ফেইসবুক বাংলাদেশে বন্ধ থাকার সময়। ফেইসবুক ছাড়াও অন্যান্য সামাজিক মাধ্যম রয়েছে , যেগুলো alternative হতে পারে। বিভিন্ন দেশেই ফেইসবুক নিষিদ্ধ রয়েছে। তাই বলে , তারা কি সোশ্যাল সাইট ব্যবহার করছে না ?

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ফেসবুক বন্ধ করাটা কোন সমাধান নয়, বরং ফেসবুকের মাধ্যমে যেন কেউ অপরাধ না করতে পারে সে ব্যপারে প্রশাসনের কার্কর ব্যবস্থা গ্রহণ করা!

৩৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৮

উদ্ভট নোমান বলেছেন: ভাই প্রশাসনতো ভালো জিনিস বন্ধ করার জন্য ব্যস্ত। তারা কিভাবে এসব বন্ধ করবে। এটাতো তাদের ইনকাম সোর্স। তারাই তো এসব কাজকে লালন-পালন করে থাকে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমরা যদি সবাই সচেতন হই তাহলে প্রশাসন চোখ খুলতে বাধ্য!

৩৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৯

এস,এম,মনিরুজ্জামান মিন্টু বলেছেন: পৃথিবীতে দুই ধরনের পুরুষ মানুষ রয়েছে। একদল সেক্সটাকে স্বাভাবিক ভাবে দেখে। ধৈর্য ধরে বিয়ে করা পর্যন্ত অপেক্ষা করে এবং নিজের স্ত্রীর উপর সন্তষ্ট থাকে।
আর একদল সেক্সটাকে নেয় অস্বাভাবিক ভাবে। এরা তিনবেলা খাওয়ার মত সেক্সটাকেও একান্ত অপরিহার্য মনে করে। এতটাই জরুরী মনে করে যে, ছলে-বলে-কলে-কৌশলে সেক্স করতেই হবে। একনাগাড়ে সাত/আট দিন সেক্স বিহীন থাকলে এরা হয়তো মরেই যাবে। অথবা পতিতালয়গুলো না থাকলে এরা রাস্তা-ঘাটে মেয়েরা নিরাপদ থাকবেনা বলে হুমকি দেয়। এই শ্রেনীর পুরুষরা এক স্ত্রীর প্রতি সন্তষ্ট না। এরা মনে করে পৃথিবীতে মানুষ আসে শুধু সেক্স করার জন্য। এদের দ্বারাই সমাজে ধর্ষনের মত জঘন্য ঘটনাগুলো ঘটে। এরাই নারীকে শুধু ভোগ্য পন্য মনে করে। এরাই পতিতালয়ের বৈধতা চায়। পতিতাবৃত্তিকে এরা সমাজসেবাও বলে। কতটা স্বার্থপর হলে এভাবে ভাবা যায়?
যেই মেয়েটা এমন সমাজ সেবায় নেমেছে, সেটা কতটা তার ইচ্ছায়? কেউ কি ভেবেছে? সেই মেয়েটার জীবনের সাধ-আহ্লাদ, চাওয়া-পাওয়া নিয়ে কারো ভাবনা আছে কি? অনেক মেয়েই কিছু নরপশুর প্রতারনার ফাঁদে পা দিয়ে এই জঘন্য পেশায় নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছে। পতিতালয়ের এই সব মেয়েরা তো আকাশ থেকে পড়েনা। এই সব নরখাদকের কারনে আপনার আমার ছোট্ট বোনটি অথবা শিশু কন্যাটি অপহরনের শিকার হয়।
সর্বপরি পতিতাদের কারনে সংসার ও সামাজিক জীবনেও অশান্তি হয়। পুরুষরা যদি বাহিরেই সব কিছু পায়, তাহলে ঘরের নারীর প্রতি তার আকর্ষন লোপ পাবে। বাহিরে নিত্য নতুন নারীর ব্যবস্থা থাকলে ঘরের স্ত্রীর প্রতি অবহেলা, অবজ্ঞা বেড়ে যাবে। বিয়ে না করেই যদি সব পাওয়া যায়, তাহলে বিয়ে, সংসার এগুলোতো ছেলেখেলায় পরিনত হবে।
তাই পতিতাবৃত্তির মত এই জঘন্য পেশার ‍বিরুদ্ধে প্রতিটি বিজ্ঞজনের সচেতন ও সোচ্চার হওয়া উচিৎ।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৩২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার সুচিন্তিত মতামতের জন্য ধন্যবাদ!

৩৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০১

মিজানুর রহমান হৃদয় বলেছেন: কাজ কমপ্লিট ভাই। দু লাখ যসি দেয় তাহলে আর এই পোষ্ট কোনো কাজে আসবেনা। এখন দেখার পালা প্রশাসন কি করে।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: জনসচেতনতা বাড়লে ২ লাখেও কোন কাজ হবে না!

৪০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৫৫

মোহাম্মদ শফিউল্লাহ বলেছেন: ঘরের খেয়ে বনের মোষ চরানোর অভ্যাস আমাদের অনেকেরই আছে। এই পোস্টটি তারই পরিচয় বহন করে। কেউ স্বেচ্ছায় এ কাজ করলে তাতে অন্যের মাথা ব্যাথা হয় কেন? দেশ এ যে সত্যিকার অপরাধ আছে, সে দিকে খেয়াল হয় না? ধর্ষণ, ঘুষ, চুরি, ডাকাতি, খুন, দুর্নীতি -- এগুলো বুঝি তেমন সমস্যা না?

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: স্বেচ্ছায় অপ্রকাশ্যে কেউ পতিতাবৃত্তি করলে যদিও প্রচলিত আইনে তা অপরাধ নয়, কিন্তু কেউ যদি প্রকাশ্যে পতিতা বৃত্তির আহবান করে তবে তা অপরাধ। কেউ যদি অপরাধ করে তবে তার প্রতিবাদ করা আপনার আমার সবার নাগরিক দায়িত্ব। নিজে যদি কোন অপরাধের প্রতিবাদ করতে না পারেন তবুও কি অন্য কেউ কোন অপরাধের প্রতিবাদ করলে তাঁকে কি নিরুৎসাহিত করা উচিত?

৪১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:২৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পারিবারিক সম্পর্ক , সামাজিক মূল্যবোধ , লাজ লজ্জা মানুষের জীবন থেকে বিদায় নিচ্ছে , এমতাবস্থায় শুধু আইনের দ্বারা এর প্রতিকার সম্ভব হবেনা । আর সম্ভব যদি নাইই হয় , এ ধরনের কাজ অচিরেই ওপেন হয়ে যাবে ।
আমারা চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার থাকবেনা ।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: তাইত আমদের সবারই পরিবার, সমাজ থেকেই বিষয়টি সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টিতে এগিয়ে আসতে হবে!

৪২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:৫৭

থিওরি বলেছেন: আপনি ওদের মতো ইন্টিলিজেন্ট না!!
কি আর বলব।
আপনার পোস্টের পর হয়তো একটু নড়াচড়া হবে, তারপর সব আগের মতোই!
আপনার পোস্টটা পড়ে আরো তথ্য নিতে গুগলে গিয়ে এই সাইটটা পেলাম। আশা করি প্রশাসন ব্যবস্থা নিবে। http://dhakaescortservice.com/

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আসলেই আমি তাদের মত বুদ্ধিমান না, তা না হলে কি নিজের খেয়ে বোনের মোষ তাড়াই!

৪৩| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ ভোর ৪:১২

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @সৈকত বিআইএইচআর প্রশাসন ও জনগনের সম্মিলিত প্রচেষ্টা দরকার আপনাদের মত নীতিবাদি ও অস্থিতিশীল অবস্থার উস্কানিদাতা নাশকতাকারিদের এই জগত থেকে নিশ্চিহ্ন করতে। কমিউনিজম ও তৎসংশ্লিষ্ট নীতিবাদি মুক্ত পশ্চিমা বিশ্ব/free world এ সেটা হয়েছে, এখনকার জন্য। এখন বাকি থাকে লাল, দাড়িটুপি, গেরুয়া অধ্যুষিত মধ্য ও পূর্ব গোলার্ধ।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সত্যি এখন আপনাকে নিয়ে ভাবার সময় হয়ে গেছে.।।।

৪৪| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:২৬

মিখু বলেছেন: আমিও টিভিতে এমন একটা খবর দেখেছি,
তবে কেন এটা বন্ধ হচ্ছে না!!
তবে কি এটার মধ্যেও কারো হাত রয়েছে.?
নাকি প্রশাসন টাকার কাছে বিক্রি???

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অবশ্যই এ ব্যবসার পিছনে শক্তিশালী মহল জড়িত!

৪৫| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:২৯

কাজী শীপু বলেছেন: সৈকত, খুব ভাল লিখেছো। তথ্য আর আইন দুটোই আছে। আরো দেখলাম অসংখ্য পাঠকের নানা মতামত। একটা পথ বেরিয়ে আসবেই। কোন্ টা খারাপ, আর কোন্ টা ভাল-- তা সময়ই বলে দেয়। তবে এজন্য এভাবেই আলোচনার দরকার হয়; সহমত কিংবা ভিন্নমত কিংবা তৃতীয় মত থেকেই প্রকৃত সমাধানটা পেয়ে যেতে পারে ভবিষ্যতের প্রজন্ম। ভাল থেকো; আর লিখে যাও।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ শিপু ভাই!

৪৬| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:০০

রাফিন জয় বলেছেন: হায়রে প্রশাসন!

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৪৭| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:০৪

ক্লে ডল বলেছেন: খুব ভাল লাগল যে তাদের একটা নাম্বার অন্তত বন্ধ হয়েছে জেনে!
আমরা সাধারণ মানুষ এগিয়ে না আসলে প্রশাসনের টনক নড়বে না! প্রশাসন নিজ উদ্যোগে এসব ঘৃণ্য সমস্যা সমাধান করবে, বাঙালী অত ভাগ্যবান জাতি নয়।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: হয়ত তা খুব সামান্য তারপরও কিছু একটা ত হয়েছে!

৪৮| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:২৬

আহলান বলেছেন: এসব সমাজে সব সময়েই আছে ... প্রতিকার কি? যার যার প্রতিকার তার তার কাছে .... তবে এসব থেকে যে শারীরিক ও মানসিক রোগের বিস্তার ছড়াবে, তাতে কে যে কখন ফেসে যাবে, কে জানে?

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এখনই যার যার অবস্থান থেকে সচেতন হতে হবে তা না হলে কেউ রেহাই পাব না!

৪৯| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৬

গোফরান চ.বি বলেছেন: আরজু পনি বলেছেন:
বাহ যারা এসব পেশায় যেতে আগ্রহী তাদেরকেও আহবান জানানো হয়েছে।
এখন আর জ্ঞান, বিজ্ঞান, শিল্প, সাহিত্যে নয় ... যৌনতার উন্নয়ন!

সরকার, আইনের লোকরা এসব দেখে না?

সচেতনতামূলক পোস্টটির জন্যে অনেক ধন্যবাদ।
সেইসাথে কর্তৃপক্ষকেও ধন্যবাদ পোস্টটি সবার নজড়ে আনার জন্যে।

সহমত ।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৫০| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ ভোর ৬:৪৪

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: প্রতিটি বিবেকবান মানুষের মধ্যে লঘু পাপ আর গুরু পাপের মধ্যে পার্থক্য বোঝার বোধশক্তি থাকা উচিত ! পতিতাবৃত্ত্বী আর ছিচকা চুরির মধ্যে পার্থক্য খুব একটা নেই! তাই পতিতাবৃত্ত্বীর অপরাধে কখনো কেপিটাল পানিশমেন্ট হয় না, যেটা হয়ে কাউকে কুপিয়ে হত্যা করার জন্য ! বাংলাদেশে মানুষকে নিস্রংশভাবে হত্যা করা, অমানুষিক নির্য্যাতন করা, গুম করা, চরমভাবে প্রতারণা করে নিঃশ্বেষ করে দেয়ার মতো অসংখ্য মারাত্বক অপরাধের বিরুদ্ধে লেখক লেখালেখি করলে মনে হয় মানবিকতা বা ন্যায় নীতির বিষয়ে তার আন্তরিকতা নিয়ে কোনো প্রশ্নের উদ্রেক হতো না ! কিন্তু তিনি সেই সকল মারাত্মক অপরাধের সাথে তুলনীয় নয় এমন একটি অপরাধের বিষয়ে লালনের সেই চরণের মতো "জাত গেল জাত গেল বলে একি আজব কারখানা.." চেঁচামেচি শুরু করেছেন বা অবস্থান নিয়েছেন যা একটু স্টান্টবাজি বলেই আমার কাছে মনে হচ্ছে !

আপনি যদি সত্যিই ন্যায়/নীতি, সামাজিক মূল্যবোধের পক্ষের যোদ্ধা হয়ে থাকেন তবে সমাজের গুরুপাপীদের পাপ উন্মোচনের জন্য এরকম শক্ত অবস্থান নিন - যে অবস্থান আপনি নিয়েছেন ছিচকা চুরির মতো তুলনীয় পতিতাবৃত্ত্বীর মতো একটি আদি পেশার বিরুদ্ধে ! আর সরকার এদের বিরুদ্ধে যেকোনো ব্যবস্থা নেয়ার আগে সমাজের কিছু সংখ্যক মানুষ শখ করে না পেটের দায়ে এই পেশা বেঁচে নিচ্ছে সেটা অনুসন্ধান করার দায়িত্ব সমাজবিজ্ঞানীদের প্রদান করে সিদ্ধান্ত নিতে পারে !

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৫২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সকল অপরাধই অপরাধ! কোন অপরাধকেই ছোট করে দেখার নেই! তাছাড়া, ছোট ছোট অপরাধ থেকেই বড় অপরাধের সৃষ্টি। আর হ্যাঁ পতিতাবৃত্তি পরিচালনার মত সংঘবদ্ধ অপরাধকে যে ছিচকা চুরির সাথে তুলনা করে তার সাথে আর যা হোক বিতর্ক করা যায় না! পরিশেষে, অন্যের উপর সব দায়িত্ব চাপিয়ে না দিয়ে নিজে কিছু করার চেষ্টা করুন!

৫১| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৩৩

আধাঁরি অপ্সরা বলেছেন: যারা পতিতাবৃত্তিকে ছিচকে পেশা বলছেন ধিক তাদের প্রতি। সামাজিক অবক্ষয়গুলো একদিনে আসে না। স্টেপ বাই স্টেপ আসে। পতিতাবৃত্তি যদি পয়সার বিনিময়ে চাইলেই এত সহজলভ্য হয়ে যায় তাহলে পয়সা সহজে উপার্জন করে এধরনের ফ্যান্ট্যাসিগুলোকে উপভোগ্য করতে মরিয়া হয়ে উঠবে তরুণ ও যুব সমাজ। সমাজে সেই অর্থে খুন, ছিন্তাই, রাহাজানি, হানাহানি, পারিবারিক অশান্তিও বাড়তে থাকবে। পরিবার আর পরিবার থাকবে না কিংবা সমাজের জায়গায় সমাজ। কী বলছেন সেটা দয়া করে বুঝে বলবেন।


পোস্টের সাথে সংস্লিস্ট ফোন নাম্বারগুলো এভাবে শো করার প্রয়োজন আছে কি???? মনে হয় না! ব্লার করে দিতে পারতেন। বরং এতে করে পোস্টের মূল উদ্দেশ্য ব্যহত হচ্ছে। বিষয়টা ভেবে দেখবেন।

ধন্যবাদ।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৫৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: নাম্বারগুলো হয়ত না দিলেও পারতাম! তারপরও দিয়েছি, যেন খুব সহজে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহীনির নজরে পরে। ধন্যবাদ আপানকে!

৫২| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৫

ধ্রুবক আলো বলেছেন: লেখককে ধন্যবাদ জানাই অনেক,,
আর প্রশাসন কোথায় এর উত্তর, উনারা টাকার পিছনে ছুটছেন, উনাদের কাজ শুধু ভিআইপি কমান্ড অনুসরন করা এগুলো বিষয়ে উনাদের মাথা ব্যাথা নাই কমিশন তো আছেই

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৫৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় হয়ত প্রশাসন একটু হলেও ভাববে!

৫৩| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৫

নায়না নাসরিন বলেছেন: সরকারের এদিকে নজর পরুক তারাতারি ।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৫৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৫৪| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:৪০

সৈয়দ মুসফেকুস সালেহিন সিয়ান বলেছেন: Thanks for this kind of post,..

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৫৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৫৫| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:২৯

মোঃ মঈনুদ্দিন বলেছেন: অনেক অনেক দিন পর ব্লগে ফিরলাম। ফিরে আপনার লেখাটা স্টিকি অবস্থায় পেলাম। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ লেখা। এ বিষয়ে বিভিন্ন জনের বিভিন্ন মতামত দেখলাম। স্বাভাবিক ভাবেই সকলের মতামত লেখার পক্ষেই, লেখকের পক্ষেই। শুধু বোবা কালা সরকার আর তারচেয়ে কালা প্রশাসন চোখে দেখে না। বা দেখে, বুঝে, শুনে এ অপরাধ জগতকে নিয়ন্ত্রণ ও পৃষ্টপোষকতা দিয়ে যাচ্ছে। আফসোস! জানি এ দেশে সবই সম্ভব। এ সময়োপযোগী সুন্দর পোস্টের জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:০০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার সুন্দর মতামতের জন্য ধন্যবাদ!

৫৬| ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:৩৪

জিল্লুর রহমান রিফাত বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:০০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: স্বাগতম!

৫৭| ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৪৯

অরন্যে রোদন - ২ বলেছেন: তবে পোস্টে যেভাবে সবকিছু ডিটেইলস লিংক ও ফোন নম্বরসহ তুলে দিয়েছেন এতে করে অনেকেই এর প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়বে ও যোগাযোগ করবে তাদের সাথে। পরে দেখা যাবে আপনার সচেতনতামুলক পোস্টটি এক ধরনের ওদের পক্ষে এ্যাম্বুস মার্কেটিং হয়ে যাবে।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:০৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: প্রকাশের পর অনেকগুলো নাম্বার বন্ধ আছে!

৫৮| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:৪৮

আমি নশ্বর বলেছেন: অনেক তথ্যবহুল লেখা । দেখেই বুঝা যায় লেখক প্রচুর কষ্ট করেছেন। শুধু ফেসবুকের বিরম্বনা ত মানুষ এর সচেতনাতায় অনেকটা যাওয়া সম্ভব ,কিন্তু এই সেন্সেটিভ নষ্টামি গুলা নিয়েই রিয়েল লাইফে অনেক বিরম্ববনা জরিয়ে আছে । সেক্ষেত্রে জরিয়ে আছে সমাজের রাঘোব বোয়ালরাও। তাদের সরাসরি হস্তক্ষেপেই এই ধরনের ঘটনা গুলো কিচ্ছু সমাধান আসছে না । একটা নিবিড় সত্য কথা হল যে, এ নিয়ে যতই লেখালেখি হোক ,হচ্ছে ,হয়েছে তাতে তেমন কোন ফল আসছেইনা ।কারন সভ্যতার আধুনিকায়ন নামে যেভাবে উলংগতা সহজলভ্য ভাবে কে সামনে আনা হচ্ছে তাতে কোন কিছুই বাধ সাধতে পারছেনা । পারবে বলেও কোন লক্ষন্ নাই । আর এসব দেখেই মানুষের আরো বেশি মনে হচ্ছে যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যুম গুলো ই সবচেয়ে বেশি উপযোগী ।এবং সেটা আপনার লেখায় ই পরিক্ষিত সত্য ।
তাই এই সমস্ত ধরনের প্রব্লেম গুলোর একটাই সমাধান হতে পারে ,সেটা হল ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলা । আপনি এর সমুহ বিপদের কথা বলে কোন ভাবেই রোধ করতে পারবেন না ,কারন এর জন্য অনেক পদ্ধতি বের হয়ে গিয়েছে ।
শুধু মাত্র একটা উপায় ই তা রোধ করতে পারে ,সেটা হল ধর্মীয় অনুষাসন মেনে চলা ।এছাড়া উপায় নাই ।

১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:০৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমরা সবাই মিলে যদি প্রশাসনের নিকট বিষয়টি তুলে ধরতে পারি তাহলে হয়ত প্রশাসন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

৫৯| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:২৯

কানিজ রিনা বলেছেন: খুব ভাল একটা সচেতন মুলক কাজে
এসেছেন, আসলে সবাই মিলে এগিয়ে
আসলে। প্রোসানে যারা এর সাথে জড়িত
তারাও সচেতন হবে। প্রোসাশনে অনেক সৎ
ব্যাক্তি বিশিষ্ট পারসন আছে যাদের সহায়তা
করলে, প্রোশাসনে কিছু দুর্নীতি গ্রোস্তরাও
বেড়িয়ে আসবে।

১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:১১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পুলিশ হেড কোয়ার্টার, সিআইডি, ডিবি, ট্রান্স ন্যাশ্নাল ক্রাইম ইউনিট, সংশ্লিষ্ট থানা সহ যার যেখানে পরিচয় আছে সেখানে এই লিখাটির লিঙ্ক পাঠান এবং ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অনুরোধ করুন।

৬০| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৫৩

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: আগে সৈকত বিআইএইচআর এর মতো নীতিবাদি উস্কানিদাতা ও আন্দোলনসৃষ্টিকারীদের থামাতে হবে।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: তাতে কি আপনার সেক্স ট্রাফিকিং করতে সুবিধা হত!

৬১| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:০৪

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: সৈকত বিআইএইচআর নীতিবাদি প্রচারনার পাশাপাশি সমকামিদের সমকামিতাকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য প্রচারনা ও কাজ চালাচ্ছে। এই রসুনের কোয়া বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল ও পঙ্গু করার লক্ষ্যে গঠিত আন্তর্জাতিক গ্যাং Click This Link
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30159743
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30158876
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30140186
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30129838
সামুব্লগের সাইটমাস্টার গুলশানা জানা এবং অরিল্ড ক্লকারহেগ এই লেখাকে এতদিন পিন করে ফোকাসে আনার মাধ্যমে কি করতে চাচ্ছে, তা স্পষ্ট।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এই লিখা প্রকাশের পর কি এস্কর্ট বা কল গার্ল সরবহারের মত যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং কোন ভাবে ব্যবহত হচ্ছে?

৬২| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫০

বেঙ্গল রিপন বলেছেন: এই সেই রন খান ওরফে Ariyan Khan Ron



এই লিংকে ক্লিক করে দেখুন তার ফেসবুক আইডি
এই রন খানের আরএকটি কাজ হলো ফেসবুকে মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করা, তারপর প্রেমের ফাঁদে ফেলে সেই মেয়ের কাছ থেকে কলাকৌশলে তার আপত্তিকর ছবি সংগহ করা। ছবি সংগ্রহের পর সেই তাকে হুমকি দেয় যে, তুমি যদি আমার কথা মত না চলো তাহলে তোমার আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে প্রচার করে দেবো।
তার সেই ফাঁদে থেকে বেঁচে আসা আমার মেয়ের সমবয়সি একটি মেয়ে আমার কাছে প্রকাশ করেছে এইসব তথ্য!
তাকে ধরার জন্য বিভিন্ন ফাঁদ পেতে আমি ব্যার্থ হয়েছি।
আমাদের সন্তান, আমাদের বোনদের এই ধরনের ফাঁদ থেকে বাঁচাতে এগিয়ে আসতে হবে সমাজের সচেতন সবাইকে সম্মিলিত ভাবে। আপনার এই পোষ্টের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ শেয়ারিং এর জন্য! যদি মেয়েটি সত্যি এই রন খানের মাধ্যমে সাইবার ক্রাইম/যৌন হয়রানীর শিকার হয়ে থাকে তাহলে আর দেরী না করে এখনই সংশ্লিষ্ট থানায় রিপোর্ট করতে বলুন। প্রয়োজনে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব হিউম্যান রাইটস, জাস্টিসমেকার্স বাংলাদেশ, আইন ও শালিশ কেন্দ্র, বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতি, মহিলা পরিষদ, ব্লাস্ট এর মত আইন ও মানবাধিকার সহায়তা সংস্থার সাহায্য গ্রহণ করতে পারেন!

৬৩| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:৪০

জুনাইদ আহেম্মদ বলেছেন: ভাল লিখেছেন

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৬৪| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১:১৬

রোদেলা বলেছেন: এ কী অবস্থা !!!

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: নৈতিকতার চরম অবনতি!

৬৫| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ২:৩৬

মুঃ ফাহিম রহমান বলেছেন: সাহসী পদক্ষেপ,ভাল লাগল একই সাথে খারাপ লাগাটা রয়ে গেল,এত এত মানুষের মানষিকতা এত নোংরা পর্যায়ের,আমরা কি তবে মানুষ নেই আর।স্বাভাবিকভাবেই প্রতিটি সমাজে বিশ ফোড়া জন্ম নেয় ও বেড়ে ওঠে,এই ধরনের বিষয়গুলো প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে গেলে ও প্রশাশন ও ক্ষমতাবানদের সহযোগীতায় মুক্তভাবে বিচরন করলে এর বিষবাস্প থেকে বেঁচে থাকাটা মুসকিল হয়ে যায়।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এই জন্য আমাদের সবাইকে প্রতিবাদ করতে হবে, তবেই না যদি প্রশাসনের টনক নড়ে!

৬৬| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ২:৪৬

অতঃপর হৃদয় বলেছেন: প্রশাসন অন্ধ! অনেক সুন্দর করে উপস্থাপন করার জন্য ধন্যবাদ। আমাদের সচেতন হতে হবে এবং আইনের সঠিক ব্যাবহার চালু করতে হবে।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সহমত!

৬৭| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৩:০৫

সত্যের ফেরীওয়ালা বলেছেন: নাহ, আসলেই কন্টাক্ট নাম্বার গুলো মুছে দেয়া উচিত ছিল। ধন্যবাদ সচেতনতার জন্য।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সহজেই প্রশাসনের নজড়ে আনার জন্য নাম্বারগুলো প্রদত্ত হয়েছে।

৬৮| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ ভোর ৫:১৪

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: আগে সৈকত বিআইএইচআর এর মতো নীতিবাদি উস্কানিদাতা ও আন্দোলনসৃষ্টিকারীদের থামাতে হবে। সৈকত বিআইএইচআর নীতিবাদি প্রচারনার পাশাপাশি সমকামিদের সমকামিতাকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য প্রচারনা ও কাজ চালাচ্ছে। এই রসুনের কোয়া বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল ও পঙ্গু করার লক্ষ্যে গঠিত আন্তর্জাতিক গ্যাং Click This Link
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30159743
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30158876
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30140186
http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30129838
সামুব্লগের সাইটমাস্টার গুলশানা জানা এবং অরিল্ড ক্লকারহেগ এই লেখাকে এতদিন পিন করে ফোকাসে আনার মাধ্যমে কি করতে চাচ্ছে, তা স্পষ্ট।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:১৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: লিখাটি প্রকাশের পর সেক্স ট্রাফিং এ যদি আপনার সমস্যা হয় তাহলে স্বীকার করুন! সামু ব্লগের হাজার হাজার পাঠক রয়েছে তারা যদি মনে করে এস্কর্ট সার্ভিসের নামে সেক্স ট্রাফিকিং চলতে দেয়া যায় তাহলে না হয় কর্তৃপক্ষ ভেবে দেখবে লিখাটি স্টিকি থাকবে নাকি রিমোভ করা হবে। এত লুকোচুরি না করে বেড়িয়ে পড়ুন!

৬৯| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:১৫

পুলক ঢালী বলেছেন: একটা কথা বলুন তো, এক সময় বিভিন্ন জেলায় পতিতালয় ছিলোএবং একটা নির্দিষ্ট জায়গায় সীমাবদ্ধ ছিলো, ওগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে কেন? এর ফলে এখন তো সারা শহরজুড়ে পতিতালয় ছড়িয়ে পড়েছে। আপনি, আমি, ভাবি কথা বলি চলি ফিরি এগুলো আমরা করিনা করে হরমোন (বায়োলজিক্যাল) এগুলো দমন করা সম্ভব নয়, মানসিক ব্যাধি হবে। তাই, নীতি জ্ঞান, নৈতিক শিক্ষা দেওয়া হয় এসব থেকে দুরে থাকার জন্য, কিন্তু আপনি (সমাজ,রাষ্ট্র) নিষেধ করার কে? আপনার ভাত, পানি বন্ধ করে দেওয়া হল, একই সাথে শিখানো হলো চুরি করে ভাত, পানি খাওয়া অন্যায়, তাহলে আপনার বাঁচার বিকল্প কি হবে? আইন, নিয়ম, নৈতিকতার সাথে বায়োলজিক্যাল চাহিদার কথাও মাথায় রাখা উচিৎ, নির্দিষ্ট জায়গায় পতিতালয় রাখা উচিৎ না হলে এরকম ব্যবসায় দেশ ছেয়ে যাবে কেউ ঠেকাতে পারবেনা।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:৫৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনে একটু মনযোগ দিয়ে লিখাটি পড়ুন তাহলে দেখবেন কোথাও কিন্তু পতিতাবৃত্তিকে অপরাধ বলা হয়নি। অপরাধ যারা এই পতিতাবৃত্তির জন্য প্রকাশ্যে আহবান করছে এবং এস্কর্ট সেবা পরিচালনার নামে সেক্স ট্রাফিকিং চালিয়ে যাচ্ছে! এই সেক্স ট্রাফিকার চক্র এত বেশী স্মার্ট আর কৌশলী যে তারা মেয়েদের পুশ ফ্যাক্টর এবং গ্রহকদের পুল ফ্যাক্টররে সুযোগ নিয়ে সেক্স ট্রাফিং চালিয়ে যাচ্ছে। যা সাধারণ চোখে হয়ত পতিতাবৃত্তি বা এস্কর্ট সেবা মনে হচ্ছে।

৭০| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৪৫

বুন ওল-বাঘা তেতু বলেছেন: আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর একটা আলাদা ইউনিট করার দরকার যারা সোসাল মিডিয়া মনিটরিং করবে এবং যথাযথ দপক্ষেপ নেবে। কারণ মানুষের আচার আচরণ কতটা ভাল হবে, মানুষ হিসেবে একজন কতটা ভাল হবে তা নির্ভর করে তার পরিবেশ কত ভাল। তার বেড়ে ‍ওঠার জায়গাটা কত ভাল সেটির উপর। এভাবে সাইবার অপরাধ বৃদ্ধি পেলে আগামী প্রজন্ম ধ্বংশ হবে, তাদের মানবিক মূল্যবোধ ধ্বংশ হবে। সচেতনাতমূলক পোষ্টটির জন্য ধন্যবাদ। সমালোচনা থাকবে, পিছপা হবেন না।

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:২৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: কিছুদিন হল সোশ্যাল মিডিয়াসহ সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে সিআইডি কাজ শুরু করেছে। আশা করি তাদের আন্তরিকতায় ভাল কিছু ফলাফল পাব!

৭১| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:০৬

শরতের ছবি বলেছেন:



এই গুলি হইল গিয়া ব্যবসা । ব্যবসা না করলে উন্নতি হইব কেম্নে ? দেশের মানু রে ব্যবসার সুযোগ দিয়া প্রশাসন নাখে (নাকে)..........তেল দিয়া খুমায় ..........! ;)

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার আমার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রশাসনের ঘুম ভাঙ্গাতে হবে।

৭২| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৩৫

মিম মন বলেছেন: জনকল্যানমুলক পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:০৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: স্বাগতোম!

৭৩| ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪১

আনু মোল্লাহ বলেছেন: আপনাকে অজস্র ধন্যবাদ জানাই এই বিষয়টি সামনে নিয়ে আসার জন্য। সামু কেও ধন্যবাদ আপনার পোস্টটি সবার জন্য ঝুলিয়ে রাখার জন্য। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হল তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়া।

সবচেয়ে বেশি আশ্চর্য হয়ে কিছু কিছু ব্লগার (সংখ্যায় যদিও কম) তাদের মন্তব্যের মাধ্যমে প্রকারান্তরে এদেরকে সাপোর্ট করে গেলেন।

সেক্স ট্রাফিকিং প্রতিরোধে সবার সোচ্চার হওয়া উচিত।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৩২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পাঠকদের মধ্যে হয়বা কেউ কেউ সেক্স ট্রাফিকিং এর বিষয়টি না বুঝেই যৌন ব্যবসাকে সাপোর্ট দিয়ে গেছে।

৭৪| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১:৪৬

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @আনু মোল্লাহ, বাঙালি ইন্টারনেট জগতে সামুব্লগের কমিউনিটিকে "নাস্তিক" "কুলাঙ্গার" "পাগল" হিসাবে দেখা হয়। ফেসবুকে আসেন, বাঙালি যত ব্যক্তি আছে, সবার জরিপ নির্বাচন নেন, দেখেন যৌনব্যবসা ও পর্নের পক্ষে কতজন দাড়ায়।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৩৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: নাস্তিকতা বা আস্তিকতা এখানে বিবেচ্য বিষয় না, বিবেচ্য হল এস্কর্ট সার্ভিসের নামে সেক্স ট্রাফিকারদের আমরা সাপোর্ট করব নাকি প্রতিরোধ করব? আপনার কাছে যেহেতু সেক্স ট্রাফিকিং মহান কাজ ( হয়ত আপনে সেক্স ট্রাফিকিং এ জড়িত থাকতেও পারেন আর জড়িত না থাকলেও ট্রাফিকিং ভিক্টিম এর নিকট থেকে যে আপনে যে যৌন সেবা গ্রহণের নামে তাদের শোষণ করেন তা অবশ্য আপনার মন্তব্য থেকে নিশ্চিত) মনে হয় তাইত যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং এর বিরুদ্ধে প্রকাশিত এই লিখায় আপনার যত গা জ্বালা।

৭৫| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১:৫১

কবি এবং হিমু বলেছেন: প্রতিদিনই তথ্য অাপডেট হচ্ছে মনে হয়।কয়েকদিন ধরে অল্প অল্প পড়ে আজ শেষ করলাম।প্রথমেই ধন্যবাদ এরকম একটি লেখার জন্য।প্রশাসনের উপর আমার ভরসা খুব একটা নাই।আপনার লেখাতেই পড়লাম ২ লক্ষ টাকা দেয় তারা।আমি আমার মতামত তুলে ধরলাম।
১।এ লেখাটা তাদের এক রকম ফ্রি ফ্রি প্রচারনার কাজ করলো।
২।অনেকগুলো হয়তো প্রশাসন জানতো না বা চিনতো না,এখন তারা সেগুলো জানলো এবং চিনলো।তার মানে তাদের আয় এখন ২ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষে যাবে।
৩।আপনি কি কোনদিন এই সব নাম্বারে চেষ্টা করেছেন,বা গিয়েছেন?আমি ধরে নিলাম সেখানে আপনার পদচারনা পরে নাই।এই বিষয়টা আসে পরিবার থেকে।আপনি যদি আপনার পরিবার থেকে ভাল শিক্ষাটা পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি কোনদিন ও যাবেন না।
ভূল বুঝবেন না বা ধরে নিবেন না আমি তাদের সমর্থন করছি।আমি বলতে চাই কেবল প্রশাসন কিছু করতে পারবে না।আর যাই করবে তা খুবই সামান্য।তাই আমাদের উচিত পারিবারিক,সামাজিক আর যার যার ধর্মের ধর্মীয় শিক্ষা।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: লিখাটি প্রকাশের আগে যে আপনার যুক্তিগুলো মাথায় আসে নি তা নয়। কিন্তু বেশী প্রচার পাবে এই চিন্তায় যদি লিখাটি প্রকাশ না করতাম তাহলে হয় জনগণের মাঝে এতটা সচেতনতা বৃদ্ধি পেত না। এই প্রচারণা আর সচেতনতার মাধ্যমেই হয়ত একসময় প্রশাসন কার্যকর ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।

৭৬| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:১৫

আরজেসালমান বলেছেন: এই লেখাটা স্বরাষ্টমন্ত্রণালয়ে ফ্যাক্স কইরা পাঠান বা পুলিশের আইজিরে জানানির ব্যাবস্হা করেন। এইখানে এমনে থাকলে আসলেই আরও বেশি প্রচার হইতাছে হিডেন পার্ভার্টদের কাছে। একটা পেডোফাইলের তো পুরাই হোগায় আগুন লাইগা গেসে, ল্যাদায়া ভাসায়া ফালাইতাসে।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:১৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অন্যে কেউ করবে সেজন্য অপেক্ষা না করে নিজেদের অবস্থান থেকে যদি কাউকে জানানোর সুযোগ থাকে তবে করলে মনে হয় এই চক্রের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া সহজ হবে!

৭৭| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:০৩

এম এ মুক্তাদির বলেছেন: একটা দেশের রাজধানী সবার চেয়ে বেশী ইম্পর্টেন্ট, আর সেখানে সবার চেয়ে বেশী ইম্পর্টেন্ট যাতায়াত । সেই শহরে যে যাতায়াতের সুষ্ঠু ব্যবস্থা করতে পারে না তাকে কি কোন সরকার বলা যায় ?
ঢাকা শহরে সি এন জি চালিত অটো রিক্সায় সরকার মিটারে ভাড়া নেবার নিয়ম করেছে । অটো রিক্সা চালকেরা যার কথা গ্রাহ্য করে না তাকে কি সরকার বলা যায় ?
নিজেদের লাভের উদ্দেশশে পাব্লিক প্রতিষ্ঠানে সিট না বাড়িয়ে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার ব্যবস্থা করে যে বা যারা কলেজ থেকে পাশ করা গরীব আর সৎ পিতামাতার সন্তানদের উচ্চ শিক্ষার পথ বন্ধ করে দেয়, যার ফলে তারা নিরুপায় হয়ে জায়গা জমি বেচে বিদেশে যায়, আর শেষে "পানি-কবর" আর "বন-কবর" এর শিকার হয় তাকে কি সরকার বলা যায় ?
৩০০ এর ১৫৩ সিটে নির্বাচন হয় না, আর যে গুলিতে নির্বাচন হয়েছে তা পত্রিকা টেলিভিশনের কল্যানে আমরা সবাই দেখেছি। একে কি কোন দেশের নির্বাচিত সরকার বলা যায়?

২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:২১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ???????????

৭৮| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৬

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৩৮
"১
লেখক বলেছেন: নাস্তিকতা বা আস্তিকতা এখানে বিবেচ্য বিষয় না, বিবেচ্য হল এস্কর্ট সার্ভিসের নামে সেক্স ট্রাফিকারদের আমরা সাপোর্ট করব নাকি প্রতিরোধ করব? আপনার কাছে যেহেতু সেক্স ট্রাফিকিং মহান কাজ ( হয়ত আপনে সেক্স ট্রাফিকিং এ জড়িত থাকতেও পারেন আর জড়িত না থাকলেও ট্রাফিকিং ভিক্টিম এর নিকট থেকে যে আপনে যে যৌন সেবা গ্রহণের নামে তাদের শোষণ করেন তা অবশ্য আপনার মন্তব্য থেকে নিশ্চিত) মনে হয় তাইত যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং এর বিরুদ্ধে প্রকাশিত এই লিখায় আপনার যত গা জ্বালা। "
আপনি আসলে যদি আইনের লোক হয়ে থাকেন, তাহলে নেটে কারো নামে প্রমান ব্যতীত অভিযোগ তোলার শাস্তি সম্পর্কে জানা থাকবার কথা। ব্যাপারটা সাইবারক্রাইম বিভাগের উপরে ছেড়ে দেওয়া হলো, আপনার উস্কানিমূলক প্রচারনার ব্যাপারটি।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:০৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এস্কর্ট সার্ভিস বলুন আর যৌন ব্যবসায় বলুন এসবের আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনা ও প্রচারণার পক্ষে দালালী করে আপনি নিজেই নিজেকে সেক্স ট্রাফিকিং এ জড়িত বলে প্রমান করেছেন!

৭৯| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:১৬

raselabe বলেছেন: আমাদের দেশের আনাচেকানাচে অনেক পতিতালয় গড়ে উঠেছে যেগুলো আমরা চাইলেও বন্ধ করতে পারবো না । কারন এগুলো ঠিক পতিতালয় নয়। এগুলো আমাদের চারপাশের পরবেশ।। এরা (ছেলেমেয়ে প্রাপ্ত-অপ্রাপ্ত বয়স্ক) প্রেম নামের বন্ধনে জড়ায়ে আছে । এই প্রেমিক প্রেমিকা নামের জুটি নিজেদের ইচ্ছাতেই যৌন কাজ করছে। এটা কি পতিতা বৃত্তি নয়। এই সব পতিতালয় কিভাবে আমরা বন্ধ করবো?? তাই আগে আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন করা দরকার।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:০৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পতিতালয় বা পতিতাবৃত্তি একেবারে বন্ধ করা হয়ত সম্ভব নয়, কিন্তু পতিতাবৃত্তির আড়ালে যারা সেক্স ট্রাফিকিং করে চলেছে তাদের অবশ্য অবশ্য নির্মূল করতে হবে।

৮০| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫০

সৈয়দ আনোয়ারুল হক বলেছেন: এ পোস্টের বিরুদ্ধে যারা লিখেছেন তারা সমাজ সচেতন লোক নন, যারা এ ব্যবসা করে তাদের মতোই। এমন একটা জঘন্য ব্যবসার বিরুদ্ধে সুন্দর লেখা আর সচরাচর দেখিনা। আমরা সবাই আসা করবো আইনের সঠিক প্রয়োগ করে এসব বন্ধ করা হোক।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:০৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে, আশা করি আপনার আমার সবার সচেতনতায় একদিন না একদিন এসব বন্ধ হবে। বিশেষ করে যারা সেক্স ট্রাফিকিং এ জড়িত তারা নির্মূল হবে।

৮১| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ ভোর ৬:০৯

রাজিয়াল আলেকসযেনডার বলেছেন: শাহানুর সাহেব এর বাস্তব জীবন জীবিকা সম্পর্কে কোন ও মনে হয় ধারনাই নাই । আপনাকে আমার ওয়েব সাইট জোর করে দেখতে বাধ্য করে নাই ? কিভাবে আমার ওয়েব সাইটের সন্ধান পাইলেন ? গুগল এ কি সারাদিন পর্ণ দেখেন ?
আপনি কি জানেন সেক্স ট্রাফিকইং কি জিনিস ? জোর পূর্বক সেক্স করানো ইচ্ছার বিরুদ্ধে । সব কিছু একটু সূক্ষ্ম ভাবে বিশ্লেষণ করবেন ।
আমার নাম এ এরকম কোনও কমপ্লেন ই পাবেন না আপনি । একটা মেয়ে কে বলতে দেখান আমার ব্যাপার এ তাইলে আমি কান কাইটটা কুত্তার কানে ঝুলাই দিমু ।
আপনি কেন ও এইগুলা করতাসেন আমি কিছুই বুঝলাম না ?
আপনি মনে হয় জানেন না কোনটা পাপ কাজ আর কোনটা অপরাধ মূলক কাজ ?
তবুও আপনাকে ভাইঙ্গা বলি টাকা এর বিনিময় সেক্স কোন ও অপরাধ মূলক কাজ না এইটা হচ্ছে ধর্ম অনুযায়ী পাপ কাজ । এইটা ২৯০ দন্দবিধি অনুযায়ী তখন ই অপরাধ যখন জোর পূর্বক করানো হবে ।
জানেন আপনি আপনার মতো লোকেরা বউ পেটানো সাপোর্ট করেন , মেরিসিয়াল রেপ সাপোর্ট করেন , মেয়েদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করেন , সম্পত্তি আইনে সমতা দিতে চান না , ইচ্ছা করে নিজের মা বোন কে ঠকান , অর্থনৈতিক ভাবে পুরুষের উপর ডিপেনডেনট বানান , মেয়ে রা বাধ্য হয়ে এই পেশাতে আসে , পরকিয়া করে ।
যৌতুক যেমন অন্যায় ,
আবার বিয়া এর নামে কাবিন করে টাকা নেওয়া টাও কিন্তু এক ধরণের পতিতা বৃত্তি ,
আবার নিজের সুবিধার জন্য মেয়ে কে আপনারা পতিতা বানাই দেন কেস জিতার জন্য ।
তাদের পোশাক আশাক এর উপর তখন আপনাদের নজর পড়ে ।
সমকামিতাও কোন ও অপরাধ মুলক কাজ না এটা ধর্মীয় দৃষ্টি কোন থেকে পাপ কাজ । তবে জোর পূর্বক করা হলে অপরাধ মুলক কাজ ।
আমি জানি আপনি আমার কোন জিনিষ আপনার কানে ঢুকবেনা , তবুও বুঝাই দিলাম ।
আমার ওয়েবসাইট কে নেগেটিভ ভাবে কেনও আপনি প্রকাশ করলেন ?
আমার নাম এ কি আপনাকে কেউ কমপ্লেন করসে ?
আপনি জেন্ডার ইকুয়ালিটি মনে হয় সাপোর্ট করেন না ।
আপনাকে কেউ মেয়েদের কাছে জাইতে বাধ্য করতাসে না ।
একটা ছোট্ট উপদেশ আপনার জন্য পারলে যারা ফ্রড করে তাদের কে ধরার চেষ্টা করেন ।
মিথ্যা অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে না বানাইয়া , আরেক টু হিউমানিটি সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেন কাজে দিবে ।
বাল্য বিবাহ বন্ধের ট্রাই করেন , সমতা নিয়া কাজ করেন, লিঙ্গ বৈষম্য দূর করার চেষ্টা করবেন না , তাতো করবেন না ?
টাকা দিলে আপনার ও মুখ বন্ধ , জঙ্গি দের জন্য আপনার দরদ উতলাই উতলাই পরে ।
সেক্স টারে আপনারা টাবু বানাই ফেলসেন এইসব উল্টা পাল্টা পোস্ট কইরা । যেইটা বেসিক হিউমান নিডস । টাকা এর বিনিময় সেক্স বিষয় টা আমার ও পছন্দ না । অর্থনৈতিক ভাবে মেয়ে রা স্বাবলম্বী হতে পারলে এই কাজ মনে হয় না কেউ করবে ।
দরকার হইলে আমার সাথে আইসা বইসা কথা বলেন ভালো ভাবে ইনকোয়ারী করেন । উত্তরা এর যেকোনো ভালো জায়গায় । আর ফুড বিল আপনি দিবেন আমার সাথে দেখা করতে চাইলে । প্রায় এই কমেন্ট টা করতে চার ঘণ্টা সময় নষ্ট হয়ে গেলো :/ ।





২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: একজন সেক্স ট্রাফিকার হয়েও সামু ব্লগে প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ জানানো এবং এখন পর্যন্ত গ্রেফতার না হওয়ায় দেশের প্রশাসন ব্যবস্থার করুণ চিত্র ফুটে উঠলেও আপনাকে ধন্যবাদ! একজন অপরাধী হিসাবে আপনার অপরাধের জন্য অনুতপ্ত না হয়ে অপরাধের পক্ষে খোঁড়া যুক্তি দেখানো এবং অন্যের দিকে আঙ্গুল তোলার মত আপনার দৃষ্টতা দেখে আমি শুধু অবাকই হয়নি, ভাবছি আপনার লেজুর কতদুর পর্যন্ত বিস্তৃত।

আপনি যেসব কাজ করছেন সেসব যে নীতি নৈতিকতাকে বাদই দিলাম, আমাদের দেশের প্রচতিত আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ তা ত আমার লিখায় স্পষ্টভাবে বর্ণনা করছি। তারপরও যেহেতু আপনি বুঝেন নি তাই আবারো লিখছি আপনে কি কি অপরাধ করছেন।

পাচার/যৌন পাচার/সেক্স ট্রাফিকিংঃ মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন, ২০১২ এর ৩ ধারা অনুযায়ী- যদি কোন ব্যক্তি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা বাহিরে যৌন শোষণ বা নিপীড়ন বা শ্রম শোষণ বা অন্য কোনো শোষণ বা নিপীড়নের উদ্দেশ্যে কোন নারী-পুরুষ বা মানুষকে ক) ভয়ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করিয়া; বা (খ) প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া; বা (গ) অর্থ বা অন্য কোন সুবিধা (kind) লেনদেন-পূর্বক উক্ত ব্যক্তির উপর নিয়ন্ত্রণ রহিয়াছে এমন ব্যক্তির সম্মতি গ্রহণ করিয়া নিয়োগ, বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকাইয়া রাখা বা আশ্রয় প্রদান করিলে তা ট্রাফিকিং বলে গন্য হবে।

তবে শিশুদের ক্ষেত্রে শুধু মাত্র যৌন শোষণ বা নিপীড়ন বা শ্রম শোষণ বা অন্য কোনো শোষণ বা নিপীড়নের উদ্দেশ্যে নিয়োগ, বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকাইয়া রাখা বা আশ্রয় প্রদান করিলে তা ট্রাফিকিং বলে গন্য হবে। এখানে মাধ্যমগুলি অর্থাৎ ক) ভয়ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করিয়া; বা (খ) প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া ব্যবহারের কোন প্রয়োজন নেই।

তাছাড়া, সকল প্রতিষ্ঠিত আইনী স্টান্ডার্ড অনুযায়ী কোন ব্যক্তি নিজেকে শোষণ, নিপীড়ন বা নির্যাতন করার জন্য আইনি সম্মতি দিতে পারে না। যদি কেউ সে সম্মতি দেই তবে তা আইনে গ্রহণযোগ্য নয়।

আপনি যেহেতু (খ) প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া যৌন শোষণ বা নিপীড়নের উদ্দেশ্যে নারীদের/পুরুষ/ব্যক্তিদের নিয়োগ, বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকাইয়া রাখা বা আশ্রয় প্রদান করেন বলে আপনি একজন মানব পাচারকারী/ সেক্স ট্রাফিকার। তাছাড়া, যেহেতু আপনে স্কুল কলেজের ছাত্রী অর্থাত শিশু (যাদের বয়স এখনো ১৮ বছর পূর্ণ হয়নি) তাদের দিয়ে যৌন ব্যবসায় করাচ্ছেন বলেও আপনে একজন ট্রাফিকার। এখানে আর কোন দ্বিমত থাকার উপায় নেই।

আপনে যেহেতু ট্রাফিকিং এর সাথে যুক্ত আছেন এবং এই অপরাধমূলক কার্যক্রম আপনি সংঘবদ্ধভাবে করছেন তাই উক্ত আইনের ৭ ধারা অনুযায়ী আপনিসহ যারা জড়িত আছেন সবাই সর্বোচ্চ মৃত্যুদন্ড বা যাবজ্জীবন কারাদন্ড বা অন্যূন ৭(সাত) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ৫(পাঁচ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে দণ্ডিত হবেন।

আবার উক্ত আইনের ধারা ৮ অনুযায়ী অপরাধ সংঘটনে প্ররোচনা, ষড়যন্ত্র বা প্রচেষ্টা চালানোর জন্য অনধিক ৭ (সাত) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত হবেন।

আবার উক্ত আইনের ১১ ধারা অনুযায়ী আপনি পতিতাবৃত্তি বা অন্য কোনো প্রকারের যৌন শোষণ বা নিপীড়নের জন্য কোন ব্যক্তিকে স্থানান্তরের জন্য অনধিক ৭ (সাত) বৎসর এবং অন্যূন ৫ (পাঁচ) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দণ্ডিত হবে।

আবার উক্ত আইনের ১২ ধারা অনুযায়ী পতিতালয় পরিচালনা বা কোন স্থানকে পতিতালয় হিসাবে ব্যবহারের অনুমতি প্রদানের জন্য অ্ধিআপনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং ইহার অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দণ্ডিত হবেন।

সর্বোপরি, উক্ত আইনের ১৩ ধারা অনুযায়ী পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে যেকোনভাবে (ব্যক্তিগতভাবে অথবা অনলাইনে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ) আহবান জানানোর জন্য আপনি অনধিক ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড অথবা অনধিক ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দণ্ডিত হবেন।

পাশাপাশি দণ্ডবিধির ২৯০ ও ২৯২ ধারা অনুযায়ী আপনে অনলাইন মাধ্যমে যৌনব্যবসার আহবান করে গণউপদ্রপ এবং অশ্লীলতা বিস্তার করছেন বলেও অপরাধী।

সর্বশেষ, আপনি অনলাইন মাধ্যমে যৌনব্যবসার আহবান করে অশ্লীলতা বিস্তার করছেন করছেন তাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ এর ৫৭ ধারা অনুযায়ী আপনি অপরাধমুকল কর্মকান্ড সম্পাদনে অভিযুক্ত! এজন্য আপনি অনধিক চৌদ্দ বৎসর এবং অন্যূন সাত বৎসর কারাদণ্ডে] এবং অনধিক এক কোটি টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হইবেন

এরপরও কি আপনি আপনার অপরাধমূলক কর্মকান্ড চালিয়ে যাবেন? আশা করি আজকেই আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিকট আত্বসমর্পন করে আপনার কৃত অপরাধের জন্য অনুশোচনা করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন।

৮২| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪১

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: আপনি যার বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন , তিনি কি যৌন ব্যবসা করেন নাকি যৌন কর্মী / খদ্দের দের জিম্মি করে টাকা আদায় করেন ? সেক্স ট্রাফিকিং দারা কি বলতে চাচ্ছেন?

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আশা করি উপরের উত্তরের মাধ্যমে আপনার নিকট বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে।

৮৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৪৪

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: অপরাধীর বিরুদ্ধে আপনি সেক্স ট্রাফিকিং এর অভিযোগ আনছেন কি কি প্রমানের ভিত্তিতে ? যৌন কর্মী / খদ্দের দের বিরুদ্ধে সে অপরাধ করছে এই মর্মে আপনার কাছে কি কি প্রমান আছে?

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অনলাইনে সেসকল প্রকাশনা রয়েছে সেগুলোর সাথে উক্ত ব্যক্তির প্রকাশ্য মন্তব্যগুলোই তাঁর বিরুদ্ধে আনীত মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে সেক্স ট্রাফিকিং, পতিতাবৃত্তি পরিচালনা, পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে আহবান জানানো ও পতিতাবৃত্তির জন্য স্থান সরবহাহ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ এর ৫৭ ধারা অনুযায়ী অপরাধ প্রমানের জন্য যতেষ্ঠ!

৮৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৪৮

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @রাজিয়াল আলেকসযেনডার কে বলছি, আপনি হয়তো জানেন না যে সামুব্লগ ও এর হোতাদের সাথে বাঙালি সমাজ ও রাষ্ট্রকে অস্থিতিশীল করে নাশকতামূলক বিভিন্ন এজেন্ডা পূরণের একটি নির্দিষ্ট গ্রুপ আছে এবং একাজে তারা বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও নীতিবাদের উস্কানি ঘটানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, সাথে কমিউনিস্ট পার্টিগুলোরও জড়িত থাকার ঘটনা আছে। ২০১১ সালের কনোকো ফিলিপস ঘটনা, ২০১২ সালের বাম হরতাল, ২০১৩ সালের শাহবাগ অবস্থান কর্মসূচী, এগুলোর কিছু ভেতরের তথ্য এবং অধিকাংশ তথ্য যা সামুব্লগে আছে, তা আপনি ঘাটলে বুঝবেন যে হঠাৎ করে যেই সামুব্লগে বাংলাদেশের প্রথম ও সর্ববৃহৎ বাংলাভাষী পর্নসাইট যৌবনজ্বালা এর সাইট ফাউন্ডার অ্যাডমিন অমি রহমান পিয়ালকে ব্যাকিং দেওয়া হতো, সেই সামুতে কেনো আজ পর্ন ও পতিতাবৃত্তির বিপক্ষে এইভাবে আন্দোলন তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সেক্স ট্রাফিকিং, পতিতাবৃত্তি পরিচালনা, পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে আহবান জানানো, পতিতাবৃত্তির জন্য স্থান সরবরাহ এবং আশ্লীলতা বিস্তারের বিরুদ্ধে আজ যখন সমগ্র ব্লগের পাঠকরা উচ্চকন্ঠ, তখন আপনার মত গুটিকয়েক সেক্স ট্রাফিকিং, পতিতাবৃত্তি পরিচালনা, পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে আহবান জানানো, পতিতাবৃত্তির জন্য স্থান সরবরাহ এবং আশ্লীলতা বিস্তারকারীর সাপোর্টার অথবা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যুক্ত ব্যক্তির ফাটবে সেইটত খুব সহজেই অনুমেনীয়!

৮৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:০১

কানিজ রিনা বলেছেন: আমি এদেশের সন্তাদের মা, ঘরে বসে দেখছি
আমাদের ছেলে মেয়েরা, প্রচন্ড জলচ্ছাসে
ভেসে যাচ্ছে। আমাদের ক্ষমতা নাই ঠেকান
আপনি কি মনে করেন সরকারের ডিফেন্স
গোয়েন্দা প্রশাসন কিছুই জানেনা? জানে
কিন্তু আকাশের ভারী মেঘ বিদ্যুৎ চমকানীর
ভয়ে মাছ ধরতে নামেনা। আমাদের প্রশাসন
এসব বাঙালি মাফিয়ার কাছে দুর্বল।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এখন ত দেখছি আসলেই আমাদের প্রশাসন এসব বাঙালি মাফিয়ার কাছে দুর্বল।

৮৬| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:২৬

রাজিয়াল আলেকসযেনডার বলেছেন: কি অদ্ভুত পাবলিক [email protected]####[email protected]!!! সে পোস্ট এ ২৯০ দণ্ড বিধি দেখাইল । এবং সেক্স ট্রাফিকইং কি সেই টাই জানেনা । কি রিলিযিয়ায বায়াসড পাবলিক আপনি ? এই সব পাবলিক এর সাথে কথা বলা সময় নষ্ট । আইন পুরা টা না পরে নিজের ইচ্ছা মতো বানাই প্রকাশ করে ।
ঢাকা শহরের লাখ লাখ ছেলে মেয়ে এই পেশায় জরিত । আপনি কেন ও আমার পিছে লাগলেন ?
আমার বিরুদ্ধে স্পিসিফিক অভিযোগ টা কি ?
আর সামু তে এইটা পিনড পোস্ট হলো কেন বুজলাম না ।
পোস্ট টা ডিলিট করার জন্য যথাযথ কতর্ৃপক্ষ এর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ।
@মুশাররফ ভাই আপনার কমেন্ট আমার বুঝতে একটু অসুবিধা হচ্ছে একটু সহজ ভাবে লিখলে ভালো হইতো , পর্ন ও পতিতাবৃত্তি তখন ই অপরাধ যখন এইটা জোর পূর্বক করানো হয় ,অথবা অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়ে দিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে করানো হয় , আমি এতটুকু বুঝি , আইনেও তাই আছে ।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:১০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আগের মন্তব্যে আপনাকে আইনের নির্দিষ্ট ধারাসহ বিস্তারিত ব্যাখ্যা প্রদানের ফলেও কি সেক্স ট্রাফিকিং কি তা আপনার বুঝে আসছে না? যে ধারাগুলো উল্লেখ করেছি সেগুলো ভাল্ভাবে পড়ুন, যদি নিজে না পারেন আপনাকে ব্যাকআপ দেয়া পুলিশ কর্মকর্তা, আইনজীবীর কাছে যান তারপর চুপচাপ এ পথ থেকে সরে দাঁড়ান। তা না হলে প্রশাসনের ব্যাকআপে খুব বেশী দিন টিকতে পারবেন না। জনগনের প্রতিবাদে অচিরেই নির্মূল হয়ে যাবেন।

৮৭| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:২৭

আমি ইহতিব বলেছেন: এই রন লোকটার মনে হচ্ছে বেশ বড় একটা ব্যাকআপ আছে, নইলে সে প্রকাশ্যে এভাবে তার ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারতোনা আর এভাবে পোস্টে এসে প্রতিবাদ জানিয়ে যেতে পারতোনা।
সাহসী ও দায়িত্বপূর্ণ পোস্টের জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:১১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

৮৮| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:২৭

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @রাজিয়াল আলেকসযেনডার, আমি এই বিএইচ সৈকত যে ষড়যন্ত্রের অংশ, সেটার একটা বড় অংশ সংকেত আকারে আপনাকে জানিয়ে দিলাম। বিস্তারিত জানতে চাইলে কোনো চ্যাটিং সিস্টেম যেমন IRC/skype এ টাইপ করে চ্যাটের মাধ্যমে জানাতে পারি।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:১৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এইত আপনার আসল রূপ বেড়িয়ে আসল!

৮৯| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৫

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @সৈকত বিএইচআইআর, যাকেতাকে অভিযোগে দোষী করার আগে মনে রাখবেন, আইসিটি ৫৭ ধারা আপনার জন্যও প্রযোজ্য। বারবার "আমার আসল রূপ" বলে কি বোঝাতে চাচ্ছেন, সরাসরি বলেন। এই ব্লগটি প্রতিনিয়ত archive.is দিয়ে এর স্ন্যাপশট সেভ করা হচ্ছে, যা মামলার প্রয়োজনে ব্যবহার করা হবে, যদি দরকার পড়ে।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৪২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনি নিত্য নতুন যে রূপ প্রকাশ করছেন সে রুপের কথায় বলছি! নিশ্চয় আপনার তা বুঝতে বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে না! আর হ্যাঁ, আপনার মন্তব্যগুলো যা প্রমান করছে তাতে মামলা করেও যে খুব বেশী বেনিফিটেড হবেন তা কিন্তু নয়। অবশ্য যদি সেক্স ট্রাফিকারদের মত প্রশাসনকে ম্যানেজ করে কিছু করেন তাতে অবশ্য অন্য কথা!

৯০| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:১৮

বিডি আইডল বলেছেন: পৃথিবীর আদিমতম একটি পেশা পতিতাবৃত্তি বাংলাদেশে নতুন কিছু নয়। সমাজের সব ধরণের লোকের জন্যই এর এক্সেস আছে। সাইট একটি বন্ধ হলে আর একটি খুলবে...এক রন খান গ্রেফতার হলে আরেক রণ খান আসবে। এক ফেবু পেজ গেলে অন্যটি আসবে।

তবে বিষয়টি নিয়ে সচেতনতায় তৈরিতে সাহায্য করায় আপনাকে ধন্যবাদ।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:১১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: শুধু যৌনব্যবসার নামে সেক্স ট্রাফিকিং ই নয়, পৃথিবীর কোন অপরাধই সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করা সম্ভবপর নায়। নাই বলে কি প্রশাসন কোন অপরাধীর বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা গ্রহণ না করে চুপচাপ বসে থাকবে?

৯১| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:১০

ফজলে মাহ্‌বুব জয় বলেছেন: পতিতাবৃত্তি আদিমতম পেশার একটি। এখন পর্যন্ত কোন নজির নেই ইতিহাসে যে কোন রাজা, মহারাজা, প্রশাসন এই পেশা পুরোপুরি দূর করতে পেরেছে। সভ্য ও শিক্ষিত মানুষেরাই কিন্তু এ পেশার ভিত্তি। কনসিউমার না থাকলে প্রোডাক্টও থাকবে না। নিজেদের মাঝে নৈতিকতা জাগিয়ে তুলতে হবে। প্রশাসন কিছুই করতে পারবে না। কিছু টাকা খেয়ে চুপ থাকবে, আর কিছু তাদের নিয়মিত খদ্দের। তাছাড়া, ওভার পপুলেটেড এই দেশে যখন চাকরি বাকরি নেই, এই পেশা সাছন্দে বেছে নেয় অনেক মেয়েই। লেখক সাহেব অনেক রিসার্চ করে লিখাটি লিখেছেন। তাকে সাধুবাদ। কিন্তু দুঃখ হলেও ব্যপারটি সত্য যে, সিইও অ্যালেক্সান্ডার বুঝেই চ্যালেঞ্জ ছুড়েছে। কমফরমিটির এই যুগে, তার ব্যাবসা দিনকে দিন বরং রমরমাই হবে। স্যাড বাট ট্রুথ।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:১৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যৌন ব্যবসা অতীতে ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে সে ব্যপারে কোন সন্দেহ নেই। তবে যৌন ব্যবসার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং কোনভাবে মেনে নেয়া যায় না। তাইত যেসব মেয়ে সরাসরি পতিতাবৃত্তি করছে তাদের অপরাধী না করে যারা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার নামে সেক্স ট্রাফিকিং করছে, অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনা করছে, অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার জন্য স্থান বরাদ্দ করছে অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার জন্য মেয়ে সরাবরাহ করছে অথবা পতিতাবৃত্তির জন্য প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আহবান করছে তাদের অপরাধী হিসেবে গন্য করেছে।

৯২| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:৩৯

দ্যা বান্দর বলেছেন: বস, আপনাকে ধন্যবাদ কষ্ট করে তথ্যগুলো খুঁজে বের করার জন্য। স্ক্রিনশটগুলো দেখে পতিতা ব্যবসার স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু সেক্স ট্রাফিকিং অর্থাৎ যৌন ব্যবসার উদ্দেশ্যে মানব পাচারের কোন প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। জোর করে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করারও কোন প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। আপনি ওসব প্রমাণ যোগাড় করলে প্রতিবেদনটা কংক্রিট হত।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৩০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আমাদের মধ্যে সেক্স ট্রাফিকিং নিয়ে একটু কনফিউশন আছে। আমরা মনে করি যে শুধু মাত্র জোড়পূর্বক যৌন ব্যবসায় বাধ্য করলেই তা সেক্স ট্রাফিকিং হতে পারে। কিন্তু ধারণাটি ভুল। সারাবিশ্বে যতগুলো সেক্স ট্রাফিকিং এর ঘটনা ঘটে তাঁর মধ্যে মাত্র ৫% ট্ঘরাফিকিং এর ঘটনা ঘটে জোড়পূর্বক। বাকী ৯৫% ঘটে সম্মতিতে। তা হতে পারে পূর্ন সম্মতি অথবা আংশিক সম্মতি। আর ৯৫% সম্মতি গ্রহন করা হয় উক্ত ব্যক্তির সাথে প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া প্রলোভিত করিয়া আর বাকী ৫% ভয়ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করিয়া। যেহেতু ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস নারীদের প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া প্রলোভিত করিয়া মেয়েদের যৌন ব্যবসায় লিপ্ত করে, সুতরাং এইখানে সেক্স ট্রাফিকিং হচ্ছে তা স্মষ্টভাবে প্রমানিত হচ্ছে। তাছাড়া, আইন অনুযায়ী ১৮ বছরের নিচে কোন মেয়েকে যেকোণভাবেই তা তাঁর সম্মতিসহ বা সম্মতি ছাড়া হোক না কেন যৌন ব্যবসায় নিয়োগ করলেই তা সেক্স ট্রাফিকিং। যেহেতু ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস তাদের বিজ্ঞাপনে স্কুল ও কলেজের মেয়েদের সরব্রাহ করার কথা উল্লেখ করছে আর স্কুল ও কলেজের মেয়েদের বয়স যেহেতু ১৮ বছরের কম হয়ে থাকে তাই এখানেও সেক্স ট্রাফিকিং এর বিষয়টি স্পষ্টভাবে প্রমানিত।

৯৩| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১:৪০

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: বাঙালি অনলাইন কমিউনিটির ইসলামপন্থীদের গডফাদারদের একজন বিডি আইডল এখনো দেখছি একটিভ।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৩৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনি ত দেখছি একের পর এক ব্লগারদের বিভিন্ন পন্থায় ট্যাগ করে যাচ্ছেন। আসলে আপনি কোন পন্থি তা কি বলবেন? আর যদি পারেন যৌন ব্যবসার নামে সেক্স ট্রাফিকিং এর পক্ষে আপনার মতামত তুলে ধরে পৃথক একটা লিখা লিখুন, আশা করি আপনার মতামতের সমর্থকদের নিকট থেকে ব্যপক সারা পাবেন!

৯৪| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:৪৬

জাগরিত নিদ্রা বলেছেন: পতিতা, পতিতালয়, পতিতাবৃত্তি- শব্দ গুলো গালি বাজে ধরে নিজের মস্তিস্ক খরচ করার আগে আমরা কি পারি না সমাজে পুরুষের যৌন চাহিদার সাথে পতিতা শব্দটার যে রসায়ন সেটার কোন সমাধান খুজে বের করতে।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৩৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পতিতা, পতিতালয়, পতিতাবৃত্তি- শব্দ গুলোকে কখনো কিন্তু বাজে গালি হিসেবে প্রকাশ করেছি বলে মনে হয় না। তাইত পতিতা অর্থাৎ যৌণকর্মীদের তাদের যৌনকর্মের জন্য কোথাও অপরাধী সিসাবে বিবেচনা করা হয়নি। বরং যারা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার নামে সেক্স ট্রাফিকিং করছে, অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনা করছে, অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার জন্য স্থান বরাদ্দ করছে অথবা পতিতাবৃত্তি পরিচালনার জন্য মেয়ে সরাবরাহ করছে অথবা পতিতাবৃত্তির জন্য প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আহবান করছে তাদের অপরাধী হিসেবে গন্য করেছে।

৯৫| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:০৪

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: সেক্স ট্রাফিকিং অর্থাৎ যৌন ব্যবসার উদ্দেশ্যে মানব পাচারের কোন প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। জোর করে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করারও কোন প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। আপনার পোষ্ট টীর গুরুত্ব কি হাল্কা হয়ে যাচ্ছে না ? যারা আসলেই নারী পাচারের সাথে জড়িত , তাদের বিরুদ্ধে আপনার পোষ্ট হলে সেটি বরং বেশী গুরুত্বপুর্ন হতো । তাই না ?

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সেক্স ট্রাফিকিং কি সে ব্যাপারে আপনার ধারণা খুব কম বলেই আপনার মনে হচ্ছে যে তাদের কার্যক্রমে কোন সেক্স ট্রাফিকিং এর প্রমান পাচ্ছেন না। সেক্স ট্রাফিকিং সম্পর্কে একটু পড়াশোনা করুণ তারপর মন্তব্য করুন। আর অনেকগুলো মন্তব্যের উত্তরেই ত্রা যে সেক্স ট্রাফিকিং এর সাথে জড়িত তাঁর আইনগত প্রমান দিয়েছি। সেগুলো দেখুন, আশা করি ক্লিয়ার ধারণা পাবেন!

৯৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:১৪

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর ব্যাপারে আপনার অভিমত কি?

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যদি সেখানে সেক্স ট্রাফিকিং এর কোন ঘটনা ঘটে তবে তার বিরুদ্ধে অবশ্য ব্যবস্থা নিতে হবে!

৯৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:১৮

হাতুড়ে লেখক বলেছেন: কয়েকদিন ধরেই দেখছি পোষ্টটি দৃষ্টি আকর্ষণে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এতদিনেও কি প্রশাসনের নজরে পড়ে নাই?
আর এইভাবে আপনি পোষ্টটা ঝুলিয়ে রেখে ঐসব দালালদের বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন নয় কি? আপনার কি মনে হয় এটা ঝুলিয়ে রাখলেই সরকার টপটপ করে ওইসব দালালদের ধরে কটমট জেলে ভরবে? তাহলে বলবো আপনি বোকার রাজ্যে বাস করছেন।

পোস্টটি দৃষ্টি আকর্ষণ থেকে সরানোর দাবি জানাচ্ছি। ভাল থাকুন।


২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:২৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: শুধু ঝুলিয়ে রেখেই যে বসে আছি তা কেন ভাবছেন?

৯৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:২৩

জেগে ওঠো বাংলাদেশ বলেছেন: আমি কি আপনার সাথে একটু কথা বলতে পরি parsonal ভাবে?????সংশয় রাখার প্রয়োজন কোন নেই। কেন যোগাযোগ করতে বলছি তা কথা বললেই বুজতে পারবেন।
plz কথাটা negative ভাবে নিবেন না । আমার fb id :: facebook.com/jygyotobd71

২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ২:৫৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অবশ্যই কথা বলতে পারেন। যোগাযোগ করুন: https://shahanur.blogspot.com/p/donate-us.html

৯৯| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৫৩

কালীদাস বলেছেন: সাবাশ বাংলাদেশ
এ পৃথিবী অবাক তাকিয়ে রয়
জ্বলে পুড়ে মরে ছারখার
তবু মাথা নোয়াবার নয়।।

-ফেসবুক সায়েন্সে সারা পৃথিবীতে নেতৃত্বস্হানীয় পর্যায়ে চলে যাওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশের অনলাইন এক্টিভিটির অগ্রগতির নতুন মাইলফলক দেখে এরচেয়ে বেশি কিছু লিখার যোগ্যতা এই অধমের নেই।

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: তারপরও কাউকে না কাউকে ভয়েস রেইজ করতেই হবে.।

১০০| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৩:৩২

মুক্ত মঞ্চ বলেছেন: কি বলবেন ভাই যাকে বলবেন সেই টাকার নেশায় অন্ধ।।
আর প্রশাসন তারাতো আপনাকে গ্রেপ্তার করবে আপনি কেন তাদের মাসিক ইনকামের উপর হাঙ্গামা করছেন?
এখন আর এই দেশে আমাদের মত প্রকাশ বা দেশের যেই নিয়ন শৃঙ্খলা তা আমাদের জন্য না।

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ঠিক বলেছেন ভাই, যারা অপরাধ করছে তারা তাদের নয়, যারা অপরাধের প্রতিবাদ করে তাদের বিরুদ্ধেই পুলিশ প্রশাসন খড়্গহস্ত!

১০১| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:০৯

ইমরুল হাসান উড্য় বলেছেন: confirm('Check!';)

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ????????

১০২| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:১৮

রাকিব হোসেন (রকি) বলেছেন: ভাই যেভাবে বিস্তারিত দিলেন আমারত মনে হয় অনেকেই এখন ট্রাই করবে যা তারা কখনোই জানতনা কিন্তু খুজছিল । এ জাতীয় পোস্ট করার আগে খুব ভালভাবেই ভাবা উচিৎ যে কোন সাইড ইফেক্ট হবে কিনা? এত বিস্তরভাবে না করেও বিষয়টা সুন্দরভাবে তুলে ধরা যাইত, আমার এমনটাই মনে হচ্ছে আরকি, তবে খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরেছেন, ধন্যবাদ ।

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৪৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার সুন্দর পরামর্শের জন্য। আমিও বিষয়টি ভেবেছিলাম। কিন্তু প্রশাসনের সুবিধার জন্য বিস্তারিতভাবে দিয়েছি। এবং সেগুলো বিস্তারিতভাবে প্রকাশের পর।কিছু কিছু পেইজ এবং নাম্বার ইতিমধ্যে বন্ধ হয়েছে

১০৩| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪০

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর সর্দানি , যারা যৌনব্যবসা করে প্রশাসনের সামনে প্রকাশ্যে , তাদের বিরুদ্ধে লিখছেন না কেন? আরেকটি বিষয় বলি যৌন অবদমন কিন্তু মানুষকে যৌন বিকৃতি - ধর্ষনের দিকে ধাবিত করে । যৌনতাকে সহজভাবে নিলে এবং প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্যে যৌন সম্পর্ক সহজ করলে , সেটি কিন্তু রাষ্ট্রকে উন্নতির দিকেই নিয়ে যায় , উন্নত বিশ্বকে দেখুন ,ঠিক না?

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৫৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনে কি মনে করছেন একজনের পক্ষে সব বিষয়ে প্রতিপাদ করা সম্ভব? একজন ব্লগার/ সচেতন নাগরিক হিসাবে আপনেও ত বিষয়টির প্রতিবাদে লিখতে পারেন। আর হ্যাঁ, আমি যৌনতাকে কখনো আওব্দমন করতে বলিনি বা যৌনতাকে কখনো অস্বাভাবিক ব্যাপার বলছি না। আমি শুধু যৌনতার নামে প্রকাশেয় ব্যবসা এবং তার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং এর প্রতিবাদে লিখছি। যৌনকর্মীর বিরুদ্ধে আমি কখনোই বলিনি, আমি বলেছি যারা যৌনকর্মীদের দিয়ে ব্যবসা করছে তাদের বিরুদ্ধে। সেক্স ট্রাফিকিং এর ফ্যাক্টরগুলো যদি আপনি খুঁজে দেখেন তাহলে দেখবেন এখন যারা যৌনকর্মি তারা অধিকাংশ ক্ষেত্রে সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার (সেক্স ট্রাফিকিং বিষয়টি এর আগে বিষদ্ভাবে লিখেছি)। তাইত যখন কোথাও যৌন ব্যবসা চলছে এমন যায়গার অপারেশন চালানোর সময় বিষয়টি খুব সুক্ষভাবে বিবেচনে করতে হয়। সেখানে কতোগুলো যৌন কর্মী আছে, তাদের মধ্যে কারা কারা সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার হয়ে যৌন কর্মী হিসাবে কাজ করছে। তাছাড়া, উন্নত বিশ্বের কথা বলছেন? সুইডেন এর দিকে তাকান। সুইডেন এ যৌন কর্ম বৈধ কিন্তু যে খদ্দের এর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবসাথা নেয়া সম্ভব। সুইডেন এর আইন অনুযায়ী যদি কোন ব্যক্তিকে যৌনকর্মীর সাথে যৌন কর্ম করছে সে মর্মে অপরাধ প্রমানিত হয় তবে যৌন কর্মীক্র বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না, বরং খদ্দেরএর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবসাথা নেয়া হয়। এক্ষেত্রে খদ্দের এর জরিমানা করা হয় এবং তার ছবি মিডিয়ায় প্রকাশ করা হয় তাঁকে সামাজিকভাবে শাস্তি প্রদান করতে।

১০৪| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:২৯

পেপার রাইম বলেছেন: ধন্যবাদ লেখককে

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৪০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও!

১০৫| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:২৪

অনিন্দ্য অবনী বলেছেন: সমাজ ব্যবস্থার চূড়ান্ত অবক্ষয়,,,,

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:৪১

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: হুম!

১০৬| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:২৫

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: আপনার অন্যান্য ব্লগ গুলো পরে আমি আপনার সাইকোলোজি বিষয়টা মনে হয় ধরতে পেরেছি । আপনি আসলে সমকামীদের অধীকার আদায়ের একজন এক্টিভিষ্ট , যা আপনার ব্লগ গুলো পরলেই পরিষ্কার বোঝা যায়। নারী-পুরুষের স্বাভাবিক যৌনতা বিষয়টি নিয়ে আপনি সম্ভবত দ্বান্দিক অবস্থায় আছেন , আপনার দ্বান্দিকতা কিন্তু সমাজে আপনি ছড়িয়ে দিতে পারেন না , তাহলে সবাই হিজড়া হয়ে যাবে আর মানব সন্তান উৎপাদন হবে না , ফলাফল- মানব সভ্যতা ধ্বংস হয়ে যাবে। হ্যা সমকামীতা বিষয়টা আপনার কাছে সঠিক কিন্তু এই রাষ্ট্র এবং ধর্মের কাছে সেটি অপরাধ এবং একটি অপরাধি কর্মকান্ডের স্বপক্ষে আপনি এক্টিভিজম অন্তত এই দেশে করতে পারেন না , তাহলে আপনিও ফৌজধারী অপরাধ করছেন । অথচ মজার ব্যাপার হচ্ছে একজন অনলাইনে (সমকামী যৌনতা নয়) নারী-পুরুষের যৌনতার প্রচার চালালে আপনি তার বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছেন । এর থেকে গুরুতর বিষয়- ধর্ষন , নারী পাচার , নারী নির্যাতন বিষয় গুলো আপনার কাছে তেমন গুরুত্ব পাচ্ছে না , যৌন শিক্ষা - গরীব দেশ হিসেবে গুরুত্বপুর্ন ইস্যু গুলোর ওপর আমাদের জোর দিতে হবে ।
“প্রকৃতির ডাক” বলে একটা কথা আছে , যেটি সব সময় সামনে আনতে নেই , যেমন ধরুন – জংগলে মল ত্যাগ করা ঠিক না , কিন্তু একজনের মলত্যাগ আসলে সে কি করবে ? যদি আশেপাশে টয়লেট না থাকে ।প্রাকৃতিক ডাকের বিরুদ্ধে মানুষ যেতে পারে না , অবদমন যৌনতা থেকে মুক্তি পেতে মানুষ তৃতীয় পক্ষের সাহায্য চায় , এই তৃতীয় পক্ষকে আপনি সেক্স ট্রাফিকার বলছেন তো ? কিন্তু আমি জানতাম- জোর পূর্বক যৌনকাজে বাধ্য করা এবং নারী পাচার সেক্স ট্রাফিকার , আর এ বিষয়ের ওপর আপনি তার বিরুদ্ধে কোন নারী যৌণকর্মী বা খদ্দেরের অভিযোগ আনতে পারছেন না ।
বিশ্বায়নের এ যুগে আপনি জানালা বন্ধ করে থাকতে পারবেন না , আরেক দেশের কালচার এই দেশে আসবে , এই দেশের কালচার আরেক দেশে যাবে , এটাই স্বাভাবিক , এখানে শুধু ধর্ম দিয়ে সব কিছু নিয়ন্ত্রন করা যাবে না , বাংলাদেশ মুসলীম প্রধান দেশ অথচ এই দেশে মদের লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করা যায় , দৌলতিয়া পতিতা পল্লী লাইসেন্সড । এখন এখানে যদি আইনের বেশী করা করি করে- সব ধরনের মদ এবং যৌন পল্লী নিষীদ্ধ করে দেয়া হয় , সেক্ষেত্রে মানুষের কাউন্টার রিয়াকশন হবে , মানে ধর্ষন বেড়ে যাবে , নারী নির্যাতন আরো বেড়ে যাবে । বিদেশী বিনিয়োগকারীরা এই দেশে আসলো আর এসে যদি সে দেখে তার মনোঞ্জনের দরজা জানালা সব বন্ধ, সেও ২য় বার এই দেশে আসার চিন্তা করবে না , তারমানে দেখা যাচ্ছে যৌনতার সহজ প্রাপ্ততা অর্থনিতি এবং মানোসিক সুস্থতার জন্যে জুরূরী , যদি আপনি আমার সাথে একমত হয়ে থাকেন , তাহলে আমায় বলুন- যৌনতা সহজপ্রাপ্যতায় আপনার কাছে কি সমাধান আছে? একজন পুরুষ তার অবদমিত যৌনতার ক্ষুধা নিবারনের জন্যে একটি মেয়েকে ধর্ষনের জন্যে ঝাপিয়ে পরবে , নাকি নারীর সম্মতি আদায়কল্পে নারী সঙ্গের জন্যে তৃতীয় কারো সাহায্যের কামনা করবে? আরেকটি কথা , সমকামী যৌনতার স্বপক্ষে আপনি লড়ছেন , আপনার কর্মকান্ড এই দেশের প্রেক্ষাপটে কি অবৈধ নয়?

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:২৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: কিছু কিছু মানুষ আছে যাদের কোনপ্রকার অন্যায়-অবিচার- অপরাধের প্রতিবাদ করার মুরোদ নেই, কিন্তু অন্যরা তা করতে চাইলে তাতে বাগড়া দেয়া তাদের স্বাভাব। আর এইসব লোক যুক্তি প্রমানের ধারে কাছে নেই, সবকিছুতেই অসামঞ্জস্যপূর্ন বিষয় টেনে আনা যাদের স্বাভাব। সমকামিতা সম্পর্কে আমার অবস্থান পরিষ্কার করে লিখা আছে। তার জন্য দ্বিধা দ্বন্দে থাকার কিছু নেই। আর সমকামিতার বিষয়ে অযথা এই পোষ্টে টেনে না এনে যদি কিছু বলার থাকে সেই পোষ্টে যুক্তি দিয়ে বলুন অথবা নতুন কোন পোস্ট লিখুন। আর যে বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা রাখেন না সে বিষয়ে গোয়ারের মত মন্তব্য করতে না এসে ভাল করে পড়াশোনা করে তারপর আসুন।

যেখানে সারা বিশ্ব সেক্স ট্রাফিকিং এ সংঘবদ্ধ অপরাধ বলে খুওবই বেশি উদবিগ্ন) সেখানে আপনার কাছে সেক্স ট্রাফিকিং কোন গুরুত্বর অপরাধ নয়, কারণ আপনি এখনো জানেন না সেক্স ট্রাফিকিং কি? সেক্স ট্রাফিকিং কাকে বলে, এর পর্যায়গুলো কি, কিকি উপাদান থাকলে সেক্স ট্রাফিকিং হয়, সেক্স ট্রাফিকিং আর যৌন ব্যবসার মধ্যে পার্থ্যক্য ও এদের মাঝে সম্পর্ক কি ইত্যাদি বিষয়গুলো ভাল্ভাবে জানুন আর পর এই পোষ্টে মন্তব্য করতে আসুন।

আপনার কাছে যখন ধর্ষন , নারী পাচার , নারী নির্যাতন এত বেশি গুরুত্বর তাহলে কেন এখন পর্যন্ত আপনার নিকট থেকে কোন প্রতিবাদ দেখতে পাচ্ছি না। অন্যান্য অপরাধের দোয়াই দিয়ে সেক্স ট্রাফিকিং এর মত গুরুত্বর অপরাধকে আপনে কেন হালকা করতে চাচ্ছেন তা আমার বোধগম্য হচ্ছে না। তাতে কি আপনার বিশেষ কোন স্বার্থ জড়িত আছে?

আবার দেখি আপনার লাইসেন্সের অভিজ্ঞতাও আছে দেখছি! দৌলতদিয়া পতিতালয় কি আপনার নামে লাইসেন্সকৃত যে আপনি বললেন সে পতিতালয় লাইসেন্সকৃত। এবিষয়ে ভালভাবে জেনে তারপর ব্লগে লিখতে আইসেন। কার নামে দৌলতদিয়া পতিতালয়ের লাইসেন্স আছে? কোন কর্তৃপক্ষ লাইসেন্স দিয়েছে, কি ব্যবসা করার জন্য লাইসেন্স দিয়েছে? কতদিনের জন্য লাইসেন্স দিয়েছে আসা করি সবকিছু ভালভাবে জেনে তারপর রেফারেন্সসহ সামু'র পাঠকদের জানাবেন।

আমি যেমন সমকামী অধিকারের প্রতি সমর্থন করি, ঠিক একইভাবে যৌনকর্মীদের অধিকারকেও সাপোর্ট করি। তাইত আমার লিখার কোথাও পাবেন না যেখানে যৌনকর্মীদের শাস্তির কথা বলেছি। বরন যারা যৌনকর্মীদের ব্যবহার করে তাদের শোষণ করে এবং যেসব ব্যক্তি যৌনব্যবসার নামে সেক্স ট্রাফিকিং করে তাদের শাস্তির কথা বলেছি। আমাদের দেশের আইনও কিন্তু যৌনকর্মীদের লোকসমাজের আড়ালে তাদের যৌনকর্মের জন্য শাস্তির বিধান করেনি। বরং যারা যৌন ব্যবসায়ের জন্য আহবান করে অথবা যারা যৌন ব্যবসার জন্য বাসা ভাড়া দেই অথবা যারা যারা যৌন ব্যবসার জন্য মেয়ে/ছেলে হস্তান্তর বা আমদানী করে তাদের জন্য শাস্তির ব্যবস্থা করছে।

এরপরও যদি আপনার কিছু বলার থাকে তাহলে আসা করি যাবতীয় তথ্য উপাত্ত নিয়ে নতুন একটা ব্লগ লিখেবেন!

১০৭| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৫৯

প্রজ্জলিত মেশকাত বলেছেন: স্ক্যান্ডানেভিয়ান দেশগুলোতে পতিতাবৃত্তিই অবৈধ। সুইডেনের আইনটা একটু অন্যরকম। আর ইতালীও সুইডেনের মত একই আইন করেছে।।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:১৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: হুম!

১০৮| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:১৩

রিমন সাঁই বলেছেন: সমাজের দুষ্ট লোকগুলো এতই সঙ্গবদ্ধ, যে কারনে আমরা তাদের শরীরের একটা লোমও ছিঁড়তে পারিনা। প্রসাশন তাদের মিত্র, ঘুষের টাকা না হলে তো আবার বউ-বাচ্চার বিলাসের সামগ্রী কিনতে পারবে না(কিছু ব্যাতিক্রমও আছে)।
আর প্রতিবাদ....!!! প্রতিবাদ তো এখন মরিচীকা। :(
সার্বিক বিবেচনায় আমার মতামত হচ্ছে, শুধু আইন দিয়ে কাজ হবে না; এর সাথে সাথে আমাদের নিজেদেরকেও সচেতন হতে হবে। প্রেম/বন্ধুত্বের ব্যাপারে কোন বিধি-নিষেধ নাই, তবে অতি স্পর্শকাতর কোন ছবি/তথ্য/ভিডিও আদান-প্রদান না করাই শ্রেয়।
প্রযুক্তিগত বিষয়ে সরকারের মনিটরিং/হস্থক্ষেপ কামনা করছি।......ইনশাল্লাহ্ আমরা অন্যায়ের সুস্ঠ বিচার পাবো।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার প্রতিবাদী কন্ঠের জন্য!

১০৯| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:৪৮

মুক্তকামি জনতা বলেছেন: হালারে মার http://www.bdbarta24.net

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ?????

১১০| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২১

ইকবাল আসাদ বলেছেন: ভাল লিখাটার জন্য ধন্যবাদ।কিছু মানুষ এখনো পশুর কাছাকাছি মানের রয়েছে,যাদের বুঝানো সত্যি অসাধ্য। নিররভয়ে এগিয়ে যান।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আসলেই তাই, এইসব পশুদের বুঝিয়ে কাজ হবে না, ডান্ডা মেরে ঠান্ডা করতে হবে।

১১১| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:৩৭

াজার বলেছেন: ভাল লিখাটার জন্য ধন্যবাদ।

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: স্বাগতম!

১১২| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৮:৫৪

সুদিন বলেছেন:

প্রথমত অাপনাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি এত বড় ও বিশ্লেষণমূলক লেখাটা লেখার জন্য।

সরকার আন্তরিক ও সমাজ সচেতন হলে আপনার লেখাটা কাজে লাগবে অর্থাৎ এই ধরনের অপতৎপরতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
কিন্তু
আমাদের দেশে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় দুর্নীতিবাজরাই প্রভাবশালী হয় বা প্রভাবশালীরাই দুর্নীতিবাজ হয়।
আর অভিযুক্ত ব্যক্তির পক্ষে দাড়ানোর ঐ ধরনের বিশেষ ব্যক্তিদের অভাব হবে না কারণ তদন্ত করতে গেলে আমাদের সমাজের যাদের ভালো মুখ বলে চিনি তাদের হয়তো অনেকেরই মুখোশ খুলে যেতে পারে!!!

তবে সৎ লোকের সংখ্যাও নেহায়েত কম নয় কিন্তু তাদের সাহস কম হয় জনগণের প্রকাশ্য সমর্থন থাকে না, মৌন সমর্থন থাকে। কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বা দলবদ্ধ প্রচেষ্টায় এই অপরাধীদের দমন করা অবশ্যই সম্ভব।

আপনওি তাদের মধ্যে একজন!! আপনার সাহসিকতা ও আন্তরিকতাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পাশে থাকার জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ!

১১৩| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:৫০

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" কে বলছি, আপনি এই পোস্টে আমার প্রত্যেকটা কমেন্ট সার্চ করে পড়ে দেখুন, ঘাপলার ব্যাপারটা ভালোমতো হয়তো বুঝবেন।

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৪৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যাদের নিজেদের ভিতর ঘাপলা থাকে তারা ত সবখানেই ঘাপলা খুঁজে পাবে তাতে ত আর অবাক হওয়ার কিছু নেই!

১১৪| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৫৩

অগ্নি সারথি বলেছেন: ওমেন চ্যাপ্টার থেকে ধার করা একটা গল্প দিয়ে শুরু করি- যদিও এটা সত্য ঘটনা- রাশিয়ায় সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরে রুশ সরকার এক কাজ করেছিলেন—সেখানকার পতিতাপল্লীতে যারা যারা যেতেন, তাদের সবার নাম ছবি সহ বাসার ঠিকানা লেখা বাধ্যতামূলক ছিল এবং নির্দিষ্ট সময় পরপর সেইসব নামের তালিকা ঠিকানা ও ছবি প্রকাশ করা হতো জনসমক্ষে। এর কিছুদিন পরে দেখা গেল যে, ঐ সব পল্লীতে আর খদ্দের পাওয়া যাচ্ছে না। এক সময় খদ্দেরের অভাবে পল্লীর মেয়েরা এই পেশা ছেড়ে দিতে বাধ্য হলো—এবং রাষ্ট্রীয় ব্যবস্তায় তাদের বিকল্প কর্মসংস্থান এর সুযোগ দেওয়া হলো। আমরা তথাকথিত সুধীজনেরা সবসময়ই অন্যের দিকে আঙুল তুলে বেড়াই, কখনই কোন ক্ষেত্রে নিজেদের দিকে তাকিয়ে দেখিনা। এবং সবচে বড় বিষয় হলো ব্যাধির উৎস নিয়ে আমাদের কোন মাথা-ব্যথা নেই এবং ব্যাধিমুক্ত হওয়ারও কোন ইচ্ছা নেই। তাই একটি নির্দিষ্ট জায়গার ব্যাধি ছড়িয়ে পড়ে সবজায়গায়, সবখানে।
প্রিয় সহব্লগার আমি কোনভাবেই এই পেশার পক্ষে নই তবে আমি আপনার সংবিধানের নানান অনুচ্ছেদ টেনে এই পেশাকে একটি অপরাধ মূলক পেশা হিসেবে সাব্যস্ত করবার বিপক্ষে। আপনার কি মনে হয়না যে রাষ্ট্র এই পতিতাবৃত্তিকে না বৈধ ঘোষনা করছে আবার না করছে অবৈধ ঘোষনা। এক ধরনের অন্ধকারের মধ্যে রেখে দিয়েছে। যদি তা না হবে। তাহলে, টানবাজার-নিমতলী যৌনপল্লী উচ্ছেদের ব্যাপারে কি বলবেন?
আপনার হয়তোবা জানা থাকবার কথা, ২০০০ সালে টানবাজার-নিমতলী যৌনপল্লী উচ্ছেদের প্রতিবাদে বাংলাদেশ সোসাইটি ফর এনফোর্সমেন্ট অফ হিউম্যান রাইটস (BSEHR) ও অন্যান্য এনজিও হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দাখিল করে। পিটিশনে কারন হিসেবে উল্লেখ করা হয় যে, পুলিশ ও প্রশাসন কর্তৃক যৌনকর্মীদের অবৈধ ভাবে, জোরপূর্বক তাদের বাসস্থান থেকে উৎখাত করা এবং এর প্রেক্ষিতে যৌন বৃত্তিতে নিযুক্ত নারীদের নাগরিক হিসেবে সমান সুযোগ প্রদান ও আইনের আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করা হয়। আদালত তার রায়ে তথা বিস্তৃত ব্যাখ্যায় বলেন যে, যৌনপল্লীতে থাকা নারীরা সমাজের কম সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠী এবং বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দূর্ঘটনার ফলাফল হিসেবে তারা এই পেশায় জড়িত। পুলিশ ও স্থানীয় দ্বারা যৌনকর্মীদের তাদের আবাস থেকে উৎখাত সংবিধান পরিপন্থী ও অবৈধ। আদালত টানবাজার ও নিমতলী যৌনপল্লীর বাসিন্দাদের ভবঘুরে আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া ও আটকে রাখাকেও অবৈধ ঘোষনা করেন। এই ল্যান্ডমার্ক পিটিশনের রায়ে নারী যৌনকর্মী অনুর্ধ ১৮ বছরের হলে এবং যৌন ব্যবসাই তার আয়ের একমাত্র উৎস প্রমান করতে পারলে তিনি বৈধভাবে যৌনব্যবসায় অংশগ্রহন করতে পারেন। যৌনকর্মী নোটারী পাবলিকের সাহায্যে প্রথম শ্রেনীর ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে এফিডেবিট দিয়ে বৈধভাবে কাজ করবার জন্য নিবন্ধিত হন। হলফনামা কিংবা এফিডেবিটে তিনি ঘোষনা করেন তার বয়স অনুর্ধ ১৮ এবং জীবন ধারনের কোন উপায় না থাকায় কোন মহলের বল প্রয়োগ ছাড়াই স্বেচ্ছাই এই পেশা বেছে নিয়েছেন।
বলবেন এটা ভিন্ন বিষয়। রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" নামক ব্লগারকে আপনি বলেছেন, আবার দেখি আপনার লাইসেন্সের অভিজ্ঞতাও আছে দেখছি! দৌলতদিয়া পতিতালয় কি আপনার নামে লাইসেন্সকৃত যে আপনি বললেন সে পতিতালয় লাইসেন্সকৃত। এবিষয়ে ভালভাবে জেনে তারপর ব্লগে লিখতে আইসেন। কার নামে দৌলতদিয়া পতিতালয়ের লাইসেন্স আছে? কোন কর্তৃপক্ষ লাইসেন্স দিয়েছে, কি ব্যবসা করার জন্য লাইসেন্স দিয়েছে? কতদিনের জন্য লাইসেন্স দিয়েছে আসা করি সবকিছু ভালভাবে জেনে তারপর রেফারেন্সসহ সামু'র পাঠকদের জানাবেন।- এটা আপনার মত একজন বিচক্ষন ব্লগারের নিকট হতে আসা সত্যি দুঃখজনক। আপনার জ্ঞাতার্থে আমি জানাতে চাই যে দৌলতদিয়ার বেশির ভাগ যৌনকর্মী রেজিস্টার্ড এবং নিরাপত্তার স্বার্থে সেখানে পুলিশ প্রোটেকশন পর্যন্ত রয়েছে।
আপনি বারংবার আপনার লেখায় সেক্স ট্রাফিকিং কথাটা নিয়ে আসছেন। আমি জানিনা আপনি সেক্স ট্রাফিকিং বলতে কি বুঝেছে আর আমি কি বুঝি। যাই হোক নিচের লেখা গুলো হতে হয়তোবা সেক্স ট্রাফিকিং বিষয়টা ক্লিয়ার হবে।
hey forced me to sleep with as many as 50 customers a day. I had to give [the pimp] all my money. If I did not [earn a set amount] they punished me by removing my clothes and beating me with a stick until I fainted, electrocuting me, cutting me. উক্তিটি কোলাব নামক একজন নারীর যিনি কিনা সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার হয়েছিলেন এবং সেখান থেকে পত্রিকায় এক সাক্ষ্যাতকারে উপরোক্ত মন্তব্যটি করেন। আপনার প্রদেয় পোস্টটার পক্ষে কিংবা বিপক্ষে কোনভাবেই

উইকিপিডিয়া বলছেঃ Sex trafficking is composed of two aspects: sexual slavery and human trafficking.[1] The two represent the supply and demand side of the sex trafficking industry, respectively. This exploitation is based on the interaction between the trafficker selling a victim (the individual being trafficked and sexually exploited) to customers to perform sexual services.[2] These sex trafficking crimes are defined by three steps: acquisition, movement, and exploitation.

পোলারিস নামক একটা উন্নয়ন এজেন্সি বলছেঃ Sex trafficking is a form of modern slavery. Sex traffickers use violence, threats, lies, debt bondage, and other forms of coercion to compel adults and children to engage in commercial sex acts against their will. The situations that sex trafficking victims face vary dramatically. Many victims become romantically involved with someone who then forces or manipulates them into prostitution. Others are lured in with false promises of a job, such as modeling or dancing. Some are forced to sell sex by their parents or other family members. They may be involved in a trafficking situation for a few days or weeks, or may remain in the same trafficking situation for years.

নারীর সাম্যতা নিয়ে কথা বলা ইকুয়ালিটি নাউ নামে একটি প্রতিষ্ঠান Sex trafficking নিয়ে বলছেঃ whether within a country or across national borders – violates basic human rights, including the rights to bodily integrity, equality, dignity, health, security, and freedom from violence and torture. Key international human rights treaties, including the Convention on the Elimination of All Forms of Discrimination against Women (CEDAW), consider sex trafficking a form of sex discrimination and a human rights violation. Survivors of sex trafficking tell stories of daily degradation of mind and body.7 They are often isolated, intimidated, sold into debt bondage and subject to physical and sexual assault by their traffickers. Most live under constant mental and physical threat. Many suffer severe emotional trauma, including symptoms of post-traumatic stress disorder and disassociation. They are at greater risk of contracting sexually transmissible infections, including HIV/AIDS. Many become pregnant and are forced to undergo often unsafe abortions.
আপাতত সময় স্বল্প তাই বেশি কিছু বলতে পারছিনা। চাইলে আলোচনা চলতে পারে তবে সেটা অবশ্যই যৌক্তিক। আক্রমন করে নয়। শুভ কামনা।

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৪৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য! যাহোক, দৌলতদিয়া পতিতালয় সম্পর্কে আপনি যা বলেছেন তা সত্য ধরে নিয়েই এবার আপনার কাছে আমার প্রশ্ন, আশা করি সঠিক উত্তর প্রদান করে আমাদে ধন্য করবেন।
(১) দৌলতদিয়া পতিতালয় যদি লাইসেন্সকৃত হয় তবে বাংলাদেশের কোন আইনের বলে কোন কর্তৃপক্ষ কাকে কতদিনের জন্য সে লাইসেন্স প্রদান করছে? ( প্রতিটি বৈধ ব্যবসায় বা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য লাইসেন্স নিতে হয় এবং তা নির্দিষ্ট আইনের আওতায় নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষ নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য ন্যাচারাল পার্সন্স বা লিগ্যাল পার্সন্সকে প্রদান করে থাকে, যেমন মদ বিক্রয়, মজুদ, পরিবহণ, তথা বার পরিচালনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়য়ের অধিনস্ত মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের আওতায় লাইসেন্স প্রদান করে। একইভাবে বৈধভাবে মদ খাওয়ার জন্য ও লাইসেন্স প্রদান করে)।
(২) যৌলতদিয়া পতিতালয়ের যৌন কর্মীরা বাংলাদেশের কোন আইনের বলে কোন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক লাইসেন্স প্রাপ্ত?
(৩) এভিডেভিট করে ঘোষণা দেওয়া আর লাইসেন্স প্রাপ্ত হওয়া এক কি না?

আপনার জাতার্থে-দৌলতদিয়া যৌন পল্লী থেকে প্রতিবছর অনেক সংখ্যক সেক্স ট্রাফিকিং এর ভিক্টিম উদ্দ্বার করা হয়।

আপনি সেক্স ট্রাফিকিং এর যেসব সংঞ্জা দিয়েছেন সেসব আইনগতভাবে আন্তর্জাতিকভাবে এবং বাংলাদেশের আইনে কতটা সামঞ্জস্যপূর্ণ ও কতটা অসামঞ্জস্যপূর্ণ? আপনি যেসব সংঘা দিয়েছেন সবই শাব্দিক সংঘা এবং সেসব সংঘাওকে ব্যবহার করেই ২০০০ সালে ইতালীর সিসিলিতে সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত জাতিসংঘ পালেরলো প্রটোকল গৃহীত হয়। পালেরমো প্রটকলের ৩ নং অনুচ্ছেদে সুন্দরভাবে ট্রাফিকিং এর সংঘা দেয়া আছে।
যেখানে বলা হয়েছে:

For the purposes of this Protocol:

(a) "Trafficking in persons" shall mean the recruitment, transportation, transfer, harbouring or receipt of persons, by means of the threat or use of force or other forms of coercion, of abduction, of fraud, of deception, of the abuse of power or of a position of vulnerability or of the giving or receiving of payments or benefits to achieve the consent of a person having control over another person, for the purpose of exploitation. Exploitation shall include, at a minimum, the exploitation of the prostitution of others or other forms of sexual exploitation, forced labour or services, slavery or practices similar to slavery, servitude or the removal of organs;

(b) The consent of a victim of trafficking in persons to the intended exploitation set forth in subparagraph (a) of this article shall be irrelevant where any of the means set forth in subparagraph (a) have been used;

(c) The recruitment, transportation, transfer, harbouring or receipt of a child for the purpose of exploitation shall be considered "trafficking in persons" even if this does not involve any of the means set forth in subparagraph (a) of this article;

(d) "Child" shall mean any person under eighteen years of age.

এই পালেরমো প্রটোকলের আলোকে ২০১২ সালে বাংলাদেশে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন প্রনীত হয়েছে। এই আইনের ৩ নং ধারাতে স্পষ্টভাবে ট্রাফিকিং এর সংজ্ঞা প্রদান করে ছে। সেখানে বলা হয়েছে-
১) “মানব পাচার” অর্থ কোন ব্যক্তিকে⎯
(ক) ভয়ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করিয়া; বা
(খ) প্রতারণা করিয়া বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে (vulnerability) কাজে লাগাইয়া; বা
(গ) অর্থ বা অন্য কোন সুবিধা (kind) লেনদেন-পূর্বক উক্ত ব্যক্তির উপর নিয়ন্ত্রণ রহিয়াছে এমন ব্যক্তির সম্মতি গ্রহণ করিয়া;

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা বাহিরে যৌন শোষণ বা নিপীড়ন বা শ্রম শোষণ বা অন্য কোনো শোষণ বা নিপীড়নের (exploitation) উদ্দেশ্যে বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকাইয়া রাখা বা আশ্রয় দেওয়া (harbour)।

(২) যেইক্ষেত্রে কোন শিশু পাচারের শিকার হয়, সেইক্ষেত্রে উপ-ধারা (১) এর দফা (ক) হইতে (গ) তে বর্ণিত মানব পাচার অপরাধ সংঘটনের মাধ্যমসমূহ (means) অনুসৃত হইয়াছে কিনা তাহা বিবেচিত হইবেনা।

ব্যাখ্যা: এই ধারার উদ্দেশ্য পূরণকল্পে, যদি কোন ব্যক্তি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা বাহিরে প্রতারণার মাধ্যমে, অসৎ উদ্দেশ্যে এবং বাধ্যতামূলক শ্রম বা ‘সার্ভিচিউড’ বা ধারা-২ এর উপ-ধারা (১৫) এ বর্ণিত কোনো শোষণ বা নিপীড়নমূলক পরিস্থিতির শিকার হইতে পারে মর্মে জানা থাকা সত্বেও অন্য কোন ব্যক্তিকে কাজ বা চাকুরীর উদ্দেশ্যে গমন, অভিবাসন বা বহির্গমন করিতে প্রলুব্ধ বা সহায়তা করে, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির উক্ত কর্ম উপ-ধারা (১) এ সংজ্ঞায়িত “মানব পাচার” এর অন্তর্ভুক্ত হইবে।

এখন আমাদের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এইটাত মানব পাচারের সংজ্ঞা, সেক্স ট্রাফিকিং এর বর্ণনা কোথায়? সহজ ব্যাখ্যা হল যদি কোন মানব পাচারের উদ্দেশ্য যৌন শোষণ বা যৌন নিপীড়ন তবে তা যৌন শোষণ বা যৌন নিপীড়নের উদ্দ্যেশে মানব পাচার বা সেক্স ট্রাফিকিং

এখান আপনার নিকট আমার প্রশ্ন: একজন ১৯ বছরের গরীব মেয়েকে বলা হল তুমি দিনে ১ বার করে খদ্দের এর সাথে যৌণ মিলন করবে তার জন্য তুমি মাসে ৩০ হাজার টাকা পাবে এবং এই প্রতিশ্রিরুতিতে একজন দালাল তাঁকে যৌন ব্যবসায় নিয়োগ করল। প্রথমদিন মেয়েটির ন্যুড কিছু ছবি ঊঠিয়ে রাখা হল। কিছু দিন পর থেকে মেয়েটিকে দিনে ২ জন খদ্দেরের সাথে যৌনকর্ম করতে হত। মাস শেষে তাঁকে ২৫ হাজার টাকা প্রদান করা হল। বাঁকি পাঁচ হাজার টাকা চাইলে তাঁকে বলা হল তুমি ঠিকমত খদ্দেরদেরদের তৃপ্ত করতে পার না তাই তুমি বাকী পাঁচ হাজার টাকা পাবে না। যদি বেশি বাড়াবাড়ি কর তবে তোমার নূড ছবি ইন্টারনেট এ ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

এখুন বলুন ত ঘটনাটি ট্রাফিকিং নাকি ট্রাফিকিং নয়? যদি তা সেক্স ট্রাফিকিং হয় তবে কেন? এবং যদি তা সেক্স ট্রাফিকিং না হয় তবে তা কেন নয়?

একজন দালাল ১ জন ১৭ বছরের কলেজের মেয়ের দ্বারা পতিতাবৃত্তি চালু করল। প্রতিদিন মেয়েটি দুজন খদ্দেররের সাথে সেক্স করে, বিনিময়ে সে ভাল টাকা উপার্জন করে, যা দিয়ে সে তার পড়াশূনা চালনোর পরও ফুর্তি করতে পারে। ওই দালাল গোপনে তার কিছু ন্যুড ছবি তুলে রেখেছে, যেন শিশু মেয়েটিকে দিয়ে দীর্ঘদিন যৌন ব্যবসায় চালিয়ে যেতে পারে। আর যদি মেয়েটি কখনো তার কথা না শোনে তবে দালাল ছবিগুলো ফেসবুকে ছড়িয়ে দিবে। এখন বলুন ত - ঘটনাটি কি সেক্স ট্রাফিকিং? যদি সেক্স ট্রাফিকিং হয় তবে তার পক্ষে যুক্তি দিন, আর যদি সেক্স ট্রাফিকিং না হয় তবে কেন তা সেক্স ট্রাফিকিং নয় তা ব্যখ্যা করুন?

১১৫| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১১:২৫

ই্য়াসমিন খান বলেছেন: সামু ব্লগে আমাদের মতো ইস্কোর্টদের নিয়ে যে ব্যাক্তি লিখেছেন এবং উনি যতগুলো ইস্কোর্ট সার্ভিসের ফেসবুক,টুইটার লিংক তুলে ধরেছেন তাতে বুঝতে বাকি নেই উনিও কোন মেয়ের সাথে সেক্সের সন্ধানে ছিলেন তাই তার এতো গুলো পেজ ঘাটা হয়েগেছে কিন্তু টাকার অভাবে কিছুই করতে পারেন নাই।
আর তা ছাড়া উনি যে ভাবে তার লেখা উপস্থাপন করেছেন তাতে বোঝাই যাচ্ছে উনি ইসলামের কট্টোর পন্থি এক জন আই এস আই এস জংগী যার সপ্ন বাংলাদেশ কে আফগানস্থান বা সিরিয়া বানানো।
হতাশাগ্রস্থ মানুষ আমাদের কাছে আসে আমরা তার সেবা করি এতে কারও কি কোন ক্ষতি হচ্ছে?
আর হিউম্যান ট্রাফিকিং এর যে বানোয়াট কথাটা বলেছেম ওই আই এস আই এস এর জিহাদি মানুষ টা, সেটা তো সম্পুর্ণ মিথ্যা।
এই দেশ সাধীন দেশ।
আমাদের দেশে আমরা কার সাথে বিছানায় ঘুমাবো না ঘুমাবো সেটা আমাদের ব্যাক্তিগত ব্যপার।
এটা আইএস নিয়ন্ত্রিত দেশ না যে ব্যাক্তিগত জীবনে বাধা আসবে।
সামু এডমিন কে আমরা আবেদন করছি ওই ভয়নকর আইএস আইএস এর এজেন্ট কে সামু থেকে ব্যান করে দিতে আর তার পার্সোনাল তথ্যাদি পুলিশ কে দিতে।
কারন যা বুঝতে পারছি ব্লগার,মুক্তমনা লেখক আর গীর্জার ফাদারদের পর আইএসের নজর এখন আমাদের দিকে।
সব ইস্কোর্ট দের কে আমি সাবধান থাকার পরামর্শ দিব।
আশা করি সামু এডমিন আমার কথার যৌক্তিকতা বুঝতে পেরেছেন এবং অবিলম্বেই ওই আইএসের এজেন্ট এর আইডি ব্যান করবেন।
শুভেচ্ছান্তে,
ইয়াসমিন খান।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনি বেডরুমে কার সাথে ঘুমাবেন তা নিয়ে কি কেউ প্রশ্ন তুলেছে? কারণ আপনার সে অধিকার সংবিধান কর্তৃক স্বীকৃত। কিন্তু প্রশ্ন হল আপনি পতিতাবৃত্তির জন্য প্রকাশ্যে আহবান করতে পারেন কি না এবং পতিতালয় স্থাপন বা পরিচালনা অথবা তাহা স্থাপন বা পরিচালনা করিতে সক্রিয়ভাবে সহায়তা বা অংশগ্রহণ করিতে পারেন কি না? উত্তর হল না, আপনি তা করতে পারেন না। কারণ ২০১২ সালের মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনের ১২ এবং ১৩ ধারা উল্লেখিত কর্মগুলোকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসাবে গন্য করেছে। যা ক্রমান্বয়ে আপনি করে চলেছেন।

মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন ২০১২ এর ১২ নং ধারায় বলা হয়েছে, (১) কোন ব্যক্তি পতিতালয় স্থাপন বা পরিচালনা করিলে অথবা তাহা স্থাপন বা পরিচালনা করিতে সক্রিয়ভাবে সহায়তা বা অংশগ্রহণ করিলে তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ডে এবং ইহার অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ড দন্ডিত হইবেন। (২) কোন ব্যক্তি, যিনি⎯ (ক) ভাড়াটিয়া, ইজারাদার, দখলদার বা কোন স্থান দেখাশোনার দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তি, জানিয়া-শুনিয়া উক্ত স্থান বা এর কোনো অংশবিশেষ পতিতালয় হিসাবে ব্যবহার করিবার অনুমতি প্রদান করিলে; অথবা (খ) কোন বাড়ির মালিক, ইজারা-দাতা অথবা জমির মালিক অথবা উক্ত মালিক বা ইজারা-দাতার কোন প্রতিনিধি উক্ত বাড়ি অথবা উহার কোন অংশবিশেষ পতিতালয় হিসাবে ব্যবহৃত হইবে তাহা জানা সত্ত্বেও উক্ত বাড়ি বা জমি ভাড়া প্রদান করিলে; তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ডে এবং অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত হইবেন। এবং

উক্ত আইনের ১৩ নং ধারায় বলা হয়েছে, কোন ব্যক্তি রাস্তায় বা জনসাধারণের ব্যবহার্য স্থানে অথবা গৃহ অভ্যন্তরে বা গৃহের বাহিরে পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে মুখের ভাষায় বা অংগভঙ্গি করিয়া বা অশালীন ভাব-ভঙ্গি দেখাইয়া অন্য কোন ব্যক্তিকে আহবান করিলে তিনি অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া গণ্য হইবেন এবং উক্তরূপ অপরাধের জন্য তিনি অনধিক ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড অথবা অনধিক ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদন্ডে অথবা উভয় দন্ডে হইবেন।।

দ্বিতীয়ত আপনি স্কুল ও কলেজের শিশু মেয়েদের দ্বারা পতিতাবৃত্তি পরিচালনা করে মানব পাচার আরো সুনির্দিষ্টভাবে বললে সেক্স ট্রাফিকিং এর অপরাধ করেছেন। আর উক্ত আইনের ধারা ৬ : মানব পাচার নিষিদ্ধকরণ ও দন্ড: অনধিক যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং অন্যূন ৫(পাঁচ) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ৫০(পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদন্ড;

ধারা ৭ : সংঘবদ্ধ মানব পাচার অপরাধের দন্ড: গোষ্ঠীর প্রত্যেক সদস্য উক্ত অপরাধ সংঘটনের দায়ে অভিযুক্ত হইবে এবং অপরাধ সংঘটনকারী ব্যক্তি মৃত্যুদন্ড বা যাবজ্জীবন কারাদন্ড বা অন্যূন ৭(সাত) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ৫(পাঁচ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ড;

ধারা ৮ : অপরাধ সংঘটনে প্ররোচনা, ষড়যন্ত্র বা প্রচেষ্টা চালানোর দন্ড: অনধিক ৭ (সাত) বৎসর এবং অন্যূন ৩ (তিন) বৎসর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্যূন ২০ (বিশ) হাজার টাকা অর্থদনন্ডে দন্ডিত হবেন।

আপনার মন্তব্যটি পড়ে খুবই হাসি পায়-যখন আপনি আমাকে আইএসের এজেন্ট এর এজেন্ট বলে আমার বিরুদ্ধে আইন শৃংখলা বাহিনীকে ব্যবস্থা নিতে বলেন। আপনার দৃষ্টিতে আমি আইএস এজেন্ট, আবার এই পোষ্টে মন্তব্যকারি আর একজন ব্লগারের দৃষ্টিতে আমি নাস্তিক। পড়েছি মাইনকা চিপাই. সমকামী অধিকার নিয়ে লিখি বলে একদিকে ইসলামি জঙ্গি গোষ্টির টার্গেট, আবার সেক্স ট্রাফিঙ্কিং এর বিরুদ্ধে লিখি বলে অন্যদিকে আপনার মত সেক্স ট্রাফিকারের টার্গেট। এস্কর্ট সার্ভিস প্রদানের আড়ালে একজন সেক্স ট্রাফিকার কোন খুটির বলে প্রকাশ্যে গলাবাজি করতে পারে?

পরিশেষে, স্কর্ট সার্ভিস প্রদানের আড়ালে একজন সেক্স ট্রাফিকিং এর মত অপধমূলক কার্যক্রম থেকে বিরত থেকে আইনশৃংখলা বাহিনীর নিকট আত্ব সমর্পন করুন।

১১৬| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:১৬

অগ্নি সারথি বলেছেন: আবার আইন টানেন ভাইজান! আপনার দেশের সংবিধান তো পুরোপুরি ভাবে পতিতাবৃত্তিকে অবৈধ ঘোষনা করে না তাহলে আপনি অবৈধ বলছেন কেন? ঢাকা ট্রিবিউনের অক্টোবর ২৩, ২০১৪ সংখ্যার Talking taboo শিরোনামের কলামটিও। তারাও আপনার মত করে দেশে পতিতাবৃত্তি বন্ধের নানান সংবিধানীয় ধারা দেখালেও শেষে এসে বলছেন, বস্তুত বাংলাদেশে এমন কোন কনক্রিট আইনের উপস্থিতি নেই যেটা দিয়ে পতিতাবৃত্তিকে অবৈধ ঘোষনা করা যাবে। তারা আরো বলছে মুসলিম বিশ্বের মধ্যে পতিতাবৃত্তিকে নিষিদ্ধ না করা দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। তারা একই সাথে Human Rights Watch এর রেফারেন্স টানছেন যেখানে Human Rights Watch তাদেরর Ravaging the Vulnerable নামক রিপোর্টে বাংলাদেশে ১৮ টা রেজিস্টার্ড পতিতালয় এবং ২০০,০০০ যৌনকর্মীর সংখ্যা জানাচ্ছেন। Inquisitr নামের একটি আন্তর্জাতিক পত্রিকা তাদের জুন ১৩, ২০১৬ সংখ্যায় An inside story from one of bangladeshs oldest brothels শিরোনামে একই কথা বলছে। এছাড়াও Carol Jenkins এবং Habibur Rahman তাদের Rapidly Changing Conditions in the Brothels of Bangladesh: Impact on HIV/STD নামক HIV/STD গবেষণা রিপোর্টেও ১৮ টি রেজিস্টার্ড পতিতালয়ের কথা উল্লেখ করেছেন। আর কত বলব। যাই হোক, চাইলে রিপোর্ট গুলো খুঁজে নিয়ে পড়তে পারেন।

‘সমঝদারকে লিয়ে ইশারা হি কফি’
এভিডেভিট করে ঘোষণা দেওয়া আর লাইসেন্স প্রাপ্ত হওয়া এক কি না?- আমি দুঃখিত। আপনি হয়তো বা পিটিশনের রায়টা সম্পর্কে সেভাবে জ্ঞান রাখেন না। শোনেন, এটা বলা হয়েছে ১৮ বছরের কম যৌন কর্মীদের বেলায় যাদের অন্য কোন পেশা নেই। আর ১৮ বছর বা তদুর্ধদের কিংবা সকলের বেলায় বলা হয়েছে, পুলিশ ও প্রশাসন কর্তৃক যৌনকর্মীদের অবৈধ ভাবে, জোরপূর্বক তাদের বাসস্থান থেকে উৎখাত করা এবং এর প্রেক্ষিতে যৌন বৃত্তিতে নিযুক্ত নারীদের নাগরিক হিসেবে সমান সুযোগ প্রদান ও আইনের আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করা হয়। আদালত তার রায়ে তথা বিস্তৃত ব্যাখ্যায় বলেন যে, যৌনপল্লীতে থাকা নারীরা সমাজের কম সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠী এবং বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দূর্ঘটনার ফলাফল হিসেবে তারা এই পেশায় জড়িত। পুলিশ ও স্থানীয় দ্বারা যৌনকর্মীদের তাদের আবাস থেকে উৎখাত সংবিধান পরিপন্থী ও অবৈধ। একই কথা বারবার লিখতে তো ভাল লাগে না।

কই আমি সেক্স ট্রাফিকিং এর সব শাব্দিক সংজ্ঞা দিলাম? আর তত্ত্ব কি প্রায়োগিকতার উপর ভিত্তি করেই গড়ে ওঠে না। আমি সেক্স ট্রাফিকিং এর শিকার কোলাব নামক একজন নারীর, কম্বোডিয়ান একটা পত্রিকায় সাক্ষ্যাতকারের বাস্তব অভিজ্ঞতা তুলে দিয়েছিলাম। যেটা হয়তোবা শাব্দিক নয়। বাস্তব অভিজ্ঞতার বয়ান। আপনি হয়তোবা সেটা মিস করেছেন। জনস্বার্থে আবার দিলামঃ
“They forced me to sleep with as many as 50 customers a day. I had to give [the pimp] all my money. If I did not [earn a set amount] they punished me by removing my clothes and beating me with a stick until I fainted, electrocuting me, cutting me.”

যেহেতু বাংলাদেশের আইনে সেক্স ট্রাফিকিং এর জন্য আলাদা কোন ধারা রাখা হয় নাই সেহেতু আপনি ২০১২ সালে বাংলাদেশে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন টেনে আনছেন। ওকে ঠিক আছে। যৌক্তিক। আপনি তবে প্রমান হাজির করুন যে উপরোক্ত এজেন্সিগুলোঃ
১। ভয়ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করে কোন পুরুষ বা নারীকে পতিতাবৃত্তি নামক পেশায় নিয়ে আসছে।
২। প্রতারণা করে অথবা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোন অসহায়ত্বকে কাজে লাগিয়ে কোন পুরুষ বা নারীকে পতিতাবৃত্তি নামক পেশায় নিয়ে আসছে।
৩। অর্থ বা অন্য কোন সুবিধা লেনদেন-পূর্বক উক্ত ব্যক্তির উপর নিয়ন্ত্রণ রহিয়াছে এমন ব্যক্তির সম্মতি গ্রহণ করিয়া কোন পুরুষ বা নারীকে পতিতাবৃত্তি নামক পেশায় নিয়ে আসছে।
৪। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা বাহিরে যৌন শোষণ বা নিপীড়ন বা শ্রম শোষণ বা অন্য কোনো শোষণ বা নিপীড়নের উদ্দেশ্যে বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকাইয়া রাখছে বা আশ্রয় প্রদান করছে।

যদি তা করে থাকে তবে তারা অবশ্যই শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে। এবং তাদের কঠোর থেকে কঠোরতর শাস্তি নিশ্চিত করা জরুরী। আর যদি তারা তা না করে থাকে তবে আমি এই পেশা নিয়ে ততক্ষন পর্যন্ত কোন কথা বলব না যতক্ষন পর্যন্ত তারা কোন শিশুকে এর মধ্যে সংযুক্ত করছে। বরং পক্ষেই থাকব।

আমি আবারো বলছি, আমি কোনভাবেই কোন ধরনের পতিতাবৃত্তিকে সমর্থন করছিনা।

“একজন ১৯ বছরের গরীব মেয়েকে বলা হল তুমি দিনে ১ বার করে খদ্দের এর সাথে যৌণ মিলন করবে তার জন্য তুমি মাসে ৩০ হাজার টাকা পাবে এবং এই প্রতিশ্রিরুতিতে একজন দালাল তাঁকে যৌন ব্যবসায় নিয়োগ করল। প্রথমদিন মেয়েটির ন্যুড কিছু ছবি ঊঠিয়ে রাখা হল। কিছু দিন পর থেকে মেয়েটিকে দিনে ২ জন খদ্দেরের সাথে যৌনকর্ম করতে হত। মাস শেষে তাঁকে ২৫ হাজার টাকা প্রদান করা হল। বাঁকি পাঁচ হাজার টাকা চাইলে তাঁকে বলা হল তুমি ঠিকমত খদ্দেরদেরদের তৃপ্ত করতে পার না তাই তুমি বাকী পাঁচ হাজার টাকা পাবে না। যদি বেশি বাড়াবাড়ি কর তবে তোমার নূড ছবি ইন্টারনেট এ ছড়িয়ে দেওয়া হবে”।– এই ঘটনার জিকির উপরে আপনার পোস্টে কোথাও পেলাম না। এজেন্সিগুলো এমন করেছে নাকি? করলে অবশ্যই আপনার সাথে আমি আছি। তথ্য প্রমান নিয়ে আসুন, মামলাটা আমিই দিব।

একজন দালালের ১৭ বছরের কলেজের মেয়ের দ্বারা পতিতাবৃত্তি চালু করার কথা বলেছেন। কথায় কথায় এত সম্ভাব্যতা খোজেন কেন? যদি এমন হয়, যদি তেমন হয়?

শোনেন ভাই, আপনি হাইকোর্টে একটা রিট করেন সেক্স ট্রাফিকিং নিয়ন্ত্রনে কড়া একটা আইন করবার জন্য এবং একই সাথে এইসব এসকর্ট এজেন্সি বন্ধ করবার জন্যেও। কথা দিলাম সাথে থাকব।
শেষ করছি আবারো সেই গল্পটা দিয়ে। আশা করি এবার বুঝবেনঃ

রাশিয়ায় সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরে রুশ সরকার এক কাজ করেছিলেন—সেখানকার পতিতাপল্লীতে যারা যারা যেতেন, তাদের সবার নাম ছবি সহ বাসার ঠিকানা লেখা বাধ্যতামূলক ছিল এবং নির্দিষ্ট সময় পরপর সেইসব নামের তালিকা ঠিকানা ও ছবি প্রকাশ করা হতো জনসমক্ষে। এর কিছুদিন পরে দেখা গেল যে, ঐ সব পল্লীতে আর খদ্দের পাওয়া যাচ্ছে না। এক সময় খদ্দেরের অভাবে পল্লীর মেয়েরা এই পেশা ছেড়ে দিতে বাধ্য হলো—এবং রাষ্ট্রীয় ব্যবস্তায় তাদের বিকল্প কর্মসংস্থান এর সুযোগ দেওয়া হলো। আমরা তথাকথিত সুধীজনেরা সবসময়ই অন্যের দিকে আঙুল তুলে বেড়াই, কখনই কোন ক্ষেত্রে নিজেদের দিকে তাকিয়ে দেখিনা। এবং সবচে বড় বিষয় হলো ব্যাধির উৎস নিয়ে আমাদের কোন মাথা-ব্যথা নেই এবং ব্যাধিমুক্ত হওয়ারও কোন ইচ্ছা নেই। তাই একটি নির্দিষ্ট জায়গার ব্যাধি ছড়িয়ে পড়ে সবজায়গায়, সবখানে।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:২২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: জনাব, আপনি কি আমার পুরা লিখাটি এবং সবগুলো মন্তব্য পড়েছেন? মনে হয় পড়েন নাই। তাইত আপনার মনে হয়েছে আমি পতিতাবৃত্তিকে অবৈধ বলেছি। দয়া করে করে বলবেন কি আমার লিকা এবং মন্তব্যের কোথায় আমি পতিতাবৃত্তি বন্ধের নানান সংবিধানীয় ধারা উল্লেখ করেছি?

আর হ্যাঁ আমি আপনার কাছে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রশ্ন রেখেছিলাম যেমনঃ (১) দৌলতদিয়া পতিতালয় যদি লাইসেন্সকৃত হয় তবে বাংলাদেশের কোন আইনের বলে কোন কর্তৃপক্ষ কাকে কতদিনের জন্য সে লাইসেন্স প্রদান করছে? ( প্রতিটি বৈধ ব্যবসায় বা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য লাইসেন্স নিতে হয় এবং তা নির্দিষ্ট আইনের আওতায় নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষ নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য ন্যাচারাল পার্সন্স বা লিগ্যাল পার্সন্সকে প্রদান করে থাকে, যেমন মদ বিক্রয়, মজুদ, পরিবহণ, তথা বার পরিচালনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়য়ের অধিনস্ত মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের আওতায় লাইসেন্স প্রদান করে। একইভাবে বৈধভাবে মদ খাওয়ার জন্য ও লাইসেন্স প্রদান করে)।
(২) যৌলতদিয়া পতিতালয়ের যৌন কর্মীরা বাংলাদেশের কোন আইনের বলে কোন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক লাইসেন্স প্রাপ্ত?
(৩) এভিডেভিট করে ঘোষণা দেওয়া আর লাইসেন্স প্রাপ্ত হওয়া এক কি না?

আপনি কিন্তু সেসব প্রশ্নের উত্তর সুকৌশলে এড়িয়ে গেছেন। আশা করি এবার সেসব তথ্য প্রদান করে আমাকে কৃতজ্ঞ করবেন।

আর সেক্স ট্রাফিকিং.।যৌন ব্যবসার আড়ালে এইসব অপরাধীগণ সেসব কাজ করছেন তার স্কিনশর্টগুলো একটু ভালভাবে দেখেন তাহলে আপনার কাছে স্পষ্ট হবে যে তারা সেক্স ট্রাফিকিং এর সাথে জড়িত। কারণ তারা প্রকাশ্যে স্কুল কলেজের মেয়েদের ( নিশ্চয় স্কুল কলেজের মেয়েদের ময়স ১৮ বছরের বেশি হবে না) যৌন কর্মের জন্য সরাবরাহের বিজ্ঞাপন দিয়েছে।

পরিশেষে, বিষয়টি যখন অপরাধ সংক্রান্ত তখন আইনী বিষয়গুলোই সর্বপ্রথম বিবেচ্য বিষয় হবে তাই নয় কি? তাইত কোনটি ট্রাফিকিং আর কোনটি ট্রাফিকিং নয় তা ত আইনের আলোকেই নির্ধারিত হবে, তাই নয় কি।?

আর হ্যাঁ আপনাকে পালেরমো প্রটোকল আর মানব পাচার প্রতিরোধ আইন ২০১২ আর একটু বিস্তারিতভাবে পরতে হবে। শুধু পড়লেই চলবে না সে আইনের ধারাগুলোর ব্যখ্যা বিশ্লেষণ আইনের/জুডিশিয়াল দৃষ্টিতে করতে করতে জানতে হবে। তাহলে আর নতুন করে সেক্স ট্রাফিকিং সম্পর্কে কনফিউশন জন্মগ্রহণ করবে না। একই সাথে সেক্স ট্রাফিকিং দমন ও প্রতিরোধে নতুন আইনের চিন্তা করতে হবে না। আপনার জানা থাকা প্রয়োজন যে ২০১২ সালের মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন এত সুন্দর ও পরিপূর্ণ একটি আইন যেখানে মানব পাচারের অধিকাংশ বিষয়গুলো সন্নিবেশিত হয়েছে। লেবার ট্রাফিকিং, ডোমেস্টিক সার্ভিচুড, ডেবড বন্ডেজ এর মত সেক্স ট্রাফিকিং মানব পাচারের একটি টাইপ। সুতরাং সেক্স ট্রাফিকিং প্রতিরোধ ও দমনে মানব পাচার প্রতিরোধ আইন ২০১২ ই যতেষ্ট পরিপূর্ন একটি আইন।

আর হ্যাঁ কেস স্টাডি গুলো দিয়েছিলাম সেক্স ট্রাফিকিং সম্পর্কে আপনার ধারনাকে স্পষ্ট করার জন্য!

১১৭| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ ভোর ৬:৩২

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: নারায়ণগঞ্জে চাকুরীর পোস্টিং হওয়ার সুবাধে প্রতিদিন ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ যাতায়াতে আমার পছন্দের বাহন ছিল বিআরটিসির বাস | কিন্তু নারায়ণগঞ্জের চরম প্রভাবশালী রাজনৈতিক পরিবারের মাস্তানবাহিনী পরিবহন শ্রমিকদের ইচ্ছাকৃতভাবে মিনিবাস দিয়ে বিআরটিসির বাসকে প্রতিবন্ধকতা করার কারণে বিআরটিসি যাত্রীরা প্রতিদিন এক অসহনীয় যন্ত্রণার মধ্যে প্রতিটি দিন পার করতো !

বছরটি মনে নেই, সেই প্রভাবশালী রাজনৈতিক পরিবারের সদস্যের ইচ্ছা হলো নারায়ণগঞ্জের পতিতালয়কে উচ্ছেদ করে ফেলবে | মাস্তান বাহিনীর লালনকারী সেই মাফিয়া প্রধানের কাফেলায় যোগ দিলো প্রচুর পাবলিক এমনকি ধর্মভীরু মুছুল্লিগণও | উপড়ে ফেললো পতিতালয়গুলো, ঘর ছাড়া করলো সেই অসহায় যৌনকর্মীদের - যাদের সত্যিকার অর্থে কোথাও যাওয়ার জায়গা ছিল না, ছিলোনা কোথাও মাথা গোঁজবার |

এর পরিনাম কি হলো ?

এই সকল যৌনকর্মীরা ছড়িয়ে পড়লো সমাজের সর্বত্র, বিভিন্ন এলাকায় |

হটকারী কোনো কাজই ভালো নয় | এই ব্লগে সেক্স ট্রাফিকিংয়ের দোহাই দিয়ে পতিতাবৃত্তি বন্ধের নামে যে ঝড় তোলা হয়েছে তা কতটুকু বিচারবুদ্ধি দিয়ে করা হচ্ছ তা প্রশ্নের অপেক্ষা রাখে | পতিতাবৃত্তির মূল যে সকল কারণ তা নিয়ে অনেক গবেষণা এবং সেই গবেষক/সমাজবিজ্ঞানীদের সুপারিশ অনুযায়ী পদ্ধক্ষেপ নেয়ার সুযোগ রয়েছে | কোনো হটকারী পদক্ষেপ নয় | সাংস্কৃতিক বিপ্লবের নামে বা কম্বোডিয়াতে লক্ষ লক্ষ লোককে হত্যা করার সময় কিন্তু কেউ ঠান্ডা মাথায় এর ভালো মন্দ বিবেচনা করে নি | এখন ওই সকল দেশের জনগণ সেই সময়কার নেতৃত্বের চরম হটকারী সিদ্ধান্তকে গালমন্দ করছে |

আমাদের হটকারী বন্ধুদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক |

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার কাছে সেক্স ট্রাফিকিং বিষয়টি কি খুব বেশী নগন্য মনে হয়?
আর আমার লিখায় কোথাও কি পতিতাবৃত্তি বন্ধের বিষয়টি এসেছে?
আমি পতিতাবৃত্তিকে অন্যান্য কর্মের মতই সম্মান করি। তাই বলেত সেক্স ট্রাফিকিং এর মত সংঘবদ্ধ অপরাধকে ত মেনে নিতে পারি না?
ধন্যবাদ আপনাকে!

১১৮| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:১৭

ই্য়াসমিন খান বলেছেন: Its my own flat and ami amar iccha moto j kau k amar basai guest kore anta pari. and online e ami mukto vabe sex kano amar moner ja iccha ase tai prokash korte pari,its a sadhin country.
and I am sure u r a mukhosh dhari Jamat or ISIS member .akhun apnader target social media celebraty der upor porse......r manob pachar human trafiking kotha theke aslo?I am highly educated and adult girl........so ki korbo na korbo seta nia apnar moto manush jobai kora isis er kuttar kase jante hobe na..........and ami apnak khub valo vabei chinsi...apni amar sathe 1 bar phone sex korsilen.then real sex er offer korsilen.ami amar real sexer price bolate apni bolsilen price komate, ami bolilam eta macher bazar na, ability na thakle korben na. tar por theke apni amak roj baje baje sms korten r akhun SAMU te asob likhe nije valo sajchen.apni joto gula sexual fb page er link disen oto gula to sadharon valo kono manush kokhunoi janbe na.apni sudhu isis naa,apni 1 ta luccha manush.
doya kore isis chere din,desher upokar korun and hijra der moto meyeder pisone lagben na, parle kono purusher mokabela korun jara drug mafia, naki sei joggota nai? naturally thakbei na , bcoz isis der main income e to oil and drug. shala desh ta k afganstan bananor jonno uthe pore lagse isis er dalal kothakar

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৩:০২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনি যা করেন তা যে বাংলাদেশী আইনে অপরাধ সে বিষয়ে আইনের নির্দিষ্ট ধারাসহ স্পষ্টভাবে আগের মন্তব্যে উল্লেখ করেছি। তাই আর এইবার সেসব বলছি না। আমি আইএসএর মেম্বার কিনা তা আমার লিখাগুলো ভাবভাবে পড়ুন তাহলে জানতে পারবেন। আর হ্যাঁ, দয়া করে আপনার সাথে কবে, কোন সময় আর কোন নাম্বার থেকে ফোন সেক্স করেছিলাম এবং কবে, কোন সময়ে কোন নাম্বার থেকে আপনাকে কি বাজে বাজে এসএমএস করি তা বললে পাঠকরা জানতে পারত এবং আমিও বুঝতে পারতাম। এস্কর্ট সার্ভিসের নামে স্কুল কলেজের মেয়েদের যৌন নীপিড়নে ব্যবহারকারী এত স্পষ্টভাবে ব্লগে এসে স্বীকারোক্তি দেয়ার পরও এখনো কিভাবে গ্রেফতার হয় না, তা আমার বোধগম্য নয়। তাহলে কি এই সেক্স ট্রাফিকার দেশে প্রচলিত আইন কানুনের উর্দ্ধে?

১১৯| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:১১

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @র‍্যাজিয়েল আলেকজান্ডার ভাই, @ইয়াসমিন খান আপুদেরকে জানিয়ে দিচ্ছি, এই ব্লগটিকে সামুর সাইটমাস্টাররা এতদিন ধরে ফিচার করে রেখেছে বাঙালি সমাজের মধ্যকার বিদ্যমান ধর্মীয়, জাতীয়তাবাদি ও রক্ষনশীল চেতনাতে উস্কানি দিয়ে নাশকতামূলক উদ্দেশ্য পূরণের জন্য, যা অতীতেও করার জন্য এই ব্লগ ও তার মডারেটরদের প্রতি অনেকেরই চোখ আছে। ২০১২ সালে দাড়িপাল্লা ধমাধমের তৈরিকৃত ধর্মব্যঙ্গমূলক সিরিজ কার্টুনকে এভাবে অনেকদিন পিন করে রাখা হয়েছিলো। আরেকটা ঘটনা আছে, সেটা হচ্ছে বাংলাদেশের সম্ভবত প্রথম বাংলাভাষী পর্নসাইট ও পর্নফোরাম যৌবনজ্বালার সাইটমাস্টার অ্যাডমিন অমি রহমান পিয়ালকে এই ব্লগে ব্যাকিং দেওয়া হতো। নেটে "যৌবনজ্বালা" সার্চ করে আপনারা রেজাল্টগুলো দেখুন। সেইসাথে আমার অতীত কমেন্টগুলো দেখুন এই পোস্টে। সাথে বিদ্যমান ঘটনাগুলো নেটে সার্চ করে দেখুন কোনগুলো কিরকম হয়েছিলো। Click This Link এখানে দেখুন প্রথম কবে লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে এবং কতদিন হয়েছে, কত ইস্যুর পরেও এটা ফিচার করে রাখা হয়েছে। এমনকি আমার করা "পূজা ধর্ষণ" নিয়ে পোস্টটি, যে পূজা ধর্ষণ এখন টিভি মিডিয়ায়, সেটিও ফিচার হয়নি সাইটে।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:৫২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এত দিনে বুঝিতে পারিলাম আপনার গাত্রদাহ কোথায়?

১২০| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:১৭

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @ইয়াসমিন খান আপু, এই ব্লগটি ব্যবহার করে উস্কানিমূলক পোস্ট, কমেন্টে আমাকে সহ বিভিন্নজনকে সেক্স ট্র্যাফিকার কিংবা তার দালাল বলে মিথ্যা অভিযোগ ও কাদা ছোড়ার জন্য সাইবারক্রাইম আইনে উনার বিরুদ্ধে মামলা করা যায়। আমি উস্কানি দিবো এই বিআইএইচআর সৈকতের বিরুদ্ধে মামলা দিবার জন্য, সাইবারক্রাইম আইনে। উনি পতিতাবৃত্তির বিরুদ্ধে শেষ পর্যন্ত লড়তে চায়, তো বিরুদ্ধপক্ষ কেনো বসে থাকবে?

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৩৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: নিজে মামলা না করে অন্যকে মামলা করার জন্য প্ররোচিত করছেন কেন? অন্যের ঘারে বন্দুক রেখে শিকার করতে অভ্যস্ত নাকি? চেষ্টা করতে থাকুন!

১২১| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০১

ই্য়াসমিন খান বলেছেন: Mr.Saikat,
ai mitthabadi protarok ta maybe amader naam e mittha rotona rotia amon uskani mulok post dia 2 ta uddessho hashil korte chacche. number 1 amader theke kisu taka khaua ans number 2 is oi kutta ta chacche amra amon vabe comments kortei thaki.
ami sex kori eta sotti but sex traffiking ki jinish ami tai jani na.amar gulshan 1 er nijer flat ase amar jokhun jake valo lage tar sathe kori and obossoi takar binimoye kori but choto baccha meyeder dhore ene jor kore sex korai asob kotha suorer baccha ta kivabe bollo?
Mr.Saikat contact with me immideatly, amra sobai mila oi kuttar kase jabo and oke proman kore dita hobe j o ja ja bolse tar sob ta sotti, r ta jodi na pare tobe oke jutar mala poria mukhe kali makhia picture tule ai samu blog ei amra post korbo.
and one thing er por theke ai mitthabadir ushkani mulok post e kono comments kau korben na, Mr.Shaikat apnio na. kono comments korle or benefit ta bere jacche.amra sobai ekta din fixed kore hotel westen e meeting kori and then we will go his home or work place and after that he has to prove all of his dirty false blam to us infront media.r ta jodi na pare tobe or golai jutar mala r mukhe kali makha lagbe.amra police o nia jabo for security not arrest him bcoz ai dhoroner batpar ra sob pare.dhakar high society te thaka 1st class citizen amra r amader naam e ato boro dirty blam?he has to prove it face 2 face. with in 7 days we get all together in westen and then go his house or office with security police.
email me for contact Mr.Shaikat at - [email protected]

and finally last time I say no more comments here.

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৫০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আপনার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছি তার সবগুলো কিন্তু আপনার প্রচারণার কাজে ব্যবহৃত বিজ্ঞাপন থেকেই পেয়েছি এবং তার সবগুলোর ক্রিনশর্ট দিয়েছি। তারপরও কিভাবে আপনি সেসব অস্বীকার করেন। আপনে টাকা নিয়ে ক্লায়েন্টদের সাথে প্রতরনা করেন তার স্ক্রিনশর্টও দিয়েছি। আবার লিঙ্ক দেখুন: Click This Link আপনি শিশুদের যৌনব্যবসায় ব্যবহার করেন তার লিঙ্ক ও স্ক্রিনশর্টও দিয়েছি। আপনি আপনার বিজগাপনে বলেছেন যে, "I have collection of sexy school and college girls from Dhaka as desired".https://sexyjhumka.wordpress.com/
আপনার কি বিভিন্ন যায়গার টাকা দিয়ে মূখ বন্ধ করে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনা করতে হয়? যদি তা করতে হয় তবে কাকে কাকে কত টাকা প্রদান করেন তা প্রমানসহ হাজির করুন, পাঠকরা জানুক!

১২২| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:০৮

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @ইয়াসমিন আপু, আইন তো শুধু এই এক বিআই সৈকতই জানেনা, অন্য অনেকেও জানে। আমি আবার এই বিআই সৈকত না কিনতু, আমি মুশশাররাফ সৈকত। আর এখানে মন্তব্যগুলো এখন পর্যন্ত আইনবিরুদ্ধ হয়নি, বিআই সৈকতেরগুলো ছাড়া। উনি যারতার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনছে, সেগুলো রেকর্ড হচ্ছে। আমাকে স্কাইপ ছাড়া অন্যকোথাও পাওয়া সাধারনত যাবেনা। আপনাদের রাজিয়েল ভাইকে অ্যাড পাঠিয়েছিলাম।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৫৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ভুলে যাবেন না যে অপরাধীকে সহযোগিতা ও সমর্থন করাও কিন্তু অপরাধ!

১২৩| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:২২

কানিজ রিনা বলেছেন: দেখুন মোশারফ হোসেন আপনি নিশ্চয়
কোনও মায়ের পুত্র সন্তান, কোনও বোনের
ভাই, আপনারও স্ত্রী আছে বা কন্যা সন্তানের
জনক যদি হন, ততো দিন বুঝবেন না
আপনার মা বোন স্ত্রী কন্যা এই পতিতা
ব্যবসাহীদের ট্রাফে যতক্ষন না পরে। আপনি
ভাল করেই জানেন বেশির ভাগ অসহায়
অভাবী মেয়েরা এই ট্রাফিকিংদের শিকার।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৮:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সহমত!

১২৪| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৪২

কানিজ রিনা বলেছেন: আসলে সত্য আমরা যদি রুখে না দাড়াই
এত বড় চক্রের হাত থেকে দেশকে বাঁচান
সরকারের একার পক্ষে কখনও সম্ভব না।
তাই আসুন, দশে মিলে করি কাজ হাড়ি
জীতি নাহি লাজ। আসলে এসব চক্রের হাত
থেকে দেশকে বাঁচাতে হলে, সরকারের উচিৎ
মার্শাল ল, আইন প্রোয়গ করা। অন্তত ১২
বছর বলবৎ রাখা অতি প্রোয়জন।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:০০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: মার্শাল ল' প্রয়োগের প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না। শুধু সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টা আর সাধারণ জনগণের সহযোগিতা প্রয়োজন!

১২৫| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৯

রবিনের প্রান "বাংলাদেশ" বলেছেন: সৈকত বিআইএইচআর er somokani bisoye post:

http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30158876

http://www.somewhereinblog.net/blog/saiko_tbihr/30161301

সমগ্র বিশ্বের ৭৫টি রাষ্ট্রের মধ্যে বাংলাদেশ একটি অন্যতম রাষ্ট্র যেখানে এই একাবিংশ শতাব্দিতেও সমকামিতাকে ফৌজদারী আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসাবে গন্য করা হয়েছে। বাংলাদেশের দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারায় প্রকৃতির বিরুদ্ধে যৌনতার নামে সমকামীতার অপরাধে সর্বোচ্চ মৃর্ত্যুদন্ড এবং সর্বনিম্ন ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং আর্থিক জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

বিশ্বের যে ৭৫ টি রাষ্ট্রে এখনো সমকামিতা ফৌজদারি অপরাধ হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে তার অধিকাংশ রাষ্ট্রই এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশে অবস্থিত। যাদের মধ্যে অর্ধেক এর বেশি আবার কমন ওয়েলথভুক্ত রাষ্ট্র। অন্যদিকে বিশ্বের যে নয়টি রাষ্ট্রে সমলিঙ্গীয় বিবাহ বৈধ এবং সমকামী ব্যক্তির অধিকার অনেক বেশী নিশ্চিত তার অধিকাংশ উত্তর ও দক্ষিন আমেরিকা এবং পশ্চিম ইউরোপে অবস্থিত।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:০৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: শেয়ারের জন্য ধন্যবাদ!

১২৬| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:০২

কানিজ রিনা বলেছেন: আমাদের দেশে মাদক ব্যবসাহী যেভাবে
সরকারী আইন ভঙ্গ করে রাঘবলরা ধরা
ছোয়ার বাইরে থাকে এক্ষেত্রেও তেমনই।
দেশে হেরইন থেকে শুরু করে ভায়াগ্রা ইয়াবা
গাঁজা কোকেন প্রতিনিয়ত দেশের বর্ডার গুল
পার হয়ে চলে আসছে। যখন যে সরকার
ক্ষমতায় থাকে দুর্নীতিনাজ আমলাদের হাত
হয়েই আসে। ছোট খাটোরা ধরা পড়লেও

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:০৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সহমত!

১২৭| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১০:৩৭

কানিজ রিনা বলেছেন: রাঘব বোয়াল ধরাছয়ার বাইরে। আন্তরজাতিক
কুচক্রমহল অত্যান্ত ক্ষমতাধর। আমাদের
সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছারা সরকারের একার পক্ষে
কখনই সম্ভব না। আমরা দুর্বল তাই সরকারের
কাঁধে দোশ চাপিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করি।
যেমন আন্তর্জাতীক জঙ্গি,কুচক্র মাদক ব্যবসায়ী সেক্স ট্রাফিকিং যত দুর্নীতিবাজ একই
চাকায় ঘুরছে।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:০৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সহমত!

১২৮| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৪:২০

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: আপনি আর কতকাল পিনে আটকে থাকবেন। দেখলে গায়ে কেমন যেন খোঁচা খোঁচা লাগে।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:১০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যতক্ষন না ওইসব সেক্স ত্রাফিকার আর তাদের দোসরদের গায়ে খোঁচা না লাগে!

১২৯| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ৯:০৯

কৃষিসংবাদ বলেছেন: প্রকাশ্যে যৌন প্রচারণা চালানো আর অই দিকে মানুষদের টেনে নেওয়ার অধিকার যৌন দাসীদের নেই। তাই এর একটা বিহিত এখনই হওয়া উচিত। ধ্যবাদ লেখককে। স্বাগত জানাচ্ছিঃ http://www.krishisongbad.com

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:১৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও!

১৩০| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১২:১৫

আদর্শ সৈনিক বলেছেন: ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। ৬ মাস আগে গার্লফ্রেন্ডের সাথে রিলেশন ব্রেকাপ হয়। কি করব কিছুই বুঝে উঠতে পারছিলাম না। তখন গিয়েছিলাম এদের একটা ফ্ল্যাটে। ভিতরে ঢুকে দেখি ৫-৭ জন মেয়ে বসে আছে। সবারই বয়স ২৫- ২৮ এর মধ্যে। কথা বলেছিলাম একজনের সাথে। নাম জানালো পারুল ( অবশ্যই ছদ্মনাম বলেছে ) । কথার ফাঁকে ফাঁকে জানালো প্রতিমাসে সে ৩০-৪০ হাজার উপার্জন করে। স্বেচ্ছায় এসেছে এ পেশায়, কেউ বাধ্য করে নি তাকে। কাজ শেষ হলে চলে আসি।

আপনার পুরো পোস্ট দেখলাম। তথ্যবহুল পোস্ট। কিন্তু কথা হচ্ছে, এই ব্যবসায় কারো লাভ ব্যতীত ক্ষতি তো কিছু হচ্ছে না। যারা সেক্সুয়াল কাজে জড়িত তারা স্বেচ্ছায় এটা করছে। তারা প্রাপ্ত বয়স্কও বটে। এটা কিভাবে হিউম্যান ট্র্যফিকিং হয়? মেয়ে গুলো টাকা পাচ্ছে, ছেলেরা পাচ্ছে মেন্টাল-ফিজিক্যাল পিস হ্যাপিনেস। হাঁসপাতালে নার্সের সেবা নিতে কি আপনার বিবেকে বাধে? গায়িকার কণ্ঠস্বর শোনা বা নায়িকার উন্মুক্ত দেহ প্রদর্শনী দেখার সময় কি একবারও মনে আসে যে এটা পাপ কাজ? পর্ণগ্রাফিতে উজার হয়ে যাওয়া এই বিশ্বে নারীর কোমল দেহ লাভে লালায়িত যুবকেরা শিশু ধর্ষণের মত নোংরা কাজেও নামে। এর চেয়ে কি এটাই ভালো না যে তাদের পতিতা গমনে কঠোরতা হ্রাস করা? প্রস্টিটিউশনে এত আপত্তি কেন? দিনে তিন বেলা খাবার খাওয়া যেমন জরুরি কাজ, সপ্তাহে একবার যৌনকর্ম করাটাও তাই। ধর্মের দোহাই দেবেন? সমকাম সমর্থন করা মানুষের মুখে ধর্মের দোহাই শোভা পায় না।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ১১:০৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার বাস্তব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন বিষয় শেয়ার করার জন্য! তবে শুধু মাত্র একদিনে ও এক জায়গায় যা দেখেছেন তাতেই চরম সিদ্ধান্তে আসার আগে বিষয়গুলো নিয়ে আরো তথ্য প্রমান সংগ্রহ করুন, আশা করি আমার মতামতের সাথে কোন একসময় একমত হবেন। আর হ্যাঁ, আমার লিখায় অনেকগুলো ক্রিনশট দেয়া আছে যেখানে স্পস্টভাবে স্কুল-কলেজের মেয়েদের যৌনকর্মের জন্য সরবরাহ করার কথা বলা হয়েছে। আপনি নিশ্চয় বলবেন যে স্কুল পড়ুয়া মেয়ের বয়স ১৮ বছরের বেশী? আর যখন কেউ শিশুদের দিয়ে পতিতাবৃত্তি পরিচালনা করে তখন তা সেক্স ট্রাফিকিং এর অপরাধ হয়। পরিশেষে, আমার লিখায় কোথায় দেখলেন যে আমি পতিতাবৃত্তিকে বন্ধ করার কথা বলেছি? আমি যেমন সমকামীদের সম্মান করি, ঠিক তেমনি পতিতাবৃত্তিকেও সম্মান করি।

১৩১| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:২৫

ক্ষনিকের ছায়াবাজি বলেছেন: যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। না হয় আমাদের যুবক সমাজ আরো ধংশের পথে যাবে।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:১৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

১৩২| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৯

মুশশাররাফ হোসেন সৈকত বলেছেন: @কানিজ রিনা tu quoque ঘরানার হেত্বাভাস/যুক্তিত্রুটি (logical fallacy) এর সাথে বাঙালি জাতীয়তাবাদি ও নারীতান্ত্রিক নীতিবাদি প্রচারনার চেষ্টা চালাচ্ছে। হাস্যকর কারন উনি যৌন ও যৌনতার পিছনের বৈজ্ঞানিক তথ্যগুলো জানেনা। জানলে সাধারনত এরকম প্রচারনা চালাতো না।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:২৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: অন্যের দিকে আঙ্গুল না তুলে নিজের চরকায় তেল দিন! তাতে অন্তত আখেরে কাজে দিবে!

১৩৩| ৩০ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:০৩

বর্ণিল হিমু বলেছেন: এতো পাওয়ার কই পায়.....

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:২৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: সেটা গবেষণার বিষয়!

১৩৪| ৩০ শে অক্টোবর, ২০১৬ রাত ১০:০০

কানিজ রিনা বলেছেন: বাজিরে আন্নে দেহি জ্ঞান বিজ্ঞানের অগ্রজাত্রা
দারুন গিয়ানি আন্নেরে সরকার আজও নুফেল
না দিয়ে বইসা রইচে।
তয় এক্কান খতা কন চাই আন্নের মা বোইন
স্ত্রী ব্যকেই এই খাজে নিচ্চয় গিয়ানী?
বাজি আরা কিল্লায় গিয়ানি ওইত না ফারি।
ভাল ভাল আশা গরির ব্যাকে আন্নেরা নুফেল
ফাইবেন।

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৬ সকাল ৯:২৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: উনারে নুফেল দেয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি!

১৩৫| ৩১ শে অক্টোবর, ২০১৬ দুপুর ১:১৬

সাইফুল মনোয়ার নিশাদ বলেছেন: সবচেয়ে অবাক করা বিষয় এটাই যে, অপরাধ স্বীকার করেও একের পর এক স্বপক্ষীয় আলোচনায় অংশ নেয়া মানুষটা কি অকপটে বলে গেলেন আমার ঘরে আপনি কাকে নিয়ে শোব এটা অন্যের জানার বিষয় নয়। সবচেয়ে বড় বিষয় চোরের মার বড় গলা ব্যাপারটা সম্পর্কে কমবেশি সবাই জানি, কিন্তু ভাই অপরাধ তো অপরাধই আজ না হোক কাল অপরাধীকে বিচারের কাঠগড়ায় দাড়াতে হবেই, এখনো সময় আছে বদলানোর, আর হ্যা অপরাধীর দালালী জিনিসটাও কম খারাপ না। ট্যানারি শিল্প যেমন পরিবেশের জন্য হুমকিসরুপ, অবাধ যৌনতাও তেমনি, পল্লিতো খোলা থাকলোই তাদের জন্য, শুধু সরিয়ে নিয়ে আবর্জনা কমাবেন আরকি।

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৬ বিকাল ৫:৩২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ধন্যবাদ!

১৩৬| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:১৭

*কুনোব্যাঙ* বলেছেন: খাইছে দেশ যে এত অপ্রতিরোধ্য গতিতে ডিজিটাল হইছে সেইটা তো জানতাম না। তবে এই শিল্পের যে প্রসার দেখতেছি তাতে এটি রপ্তানি আয়ের একটা বড় মাধ্যম হওয়া এখন সময়ের আর যথাযথ পৃষ্টপোষকতার প্রয়োজন।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৫:২৪

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পৃষ্টপোষকতার জন্য ব্লগে অনেককেই দেখছি প্রস্তুত!

১৩৭| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:১০

প্রন্তিক বাঙ্গালী বলেছেন: প্রতিবাদের মশাল হাতে নিয়েছেন, সমাজ তাদের হাত থেকে প্রতিকার একদিন পাবেই। ধন্যবাদ লেখক কে।

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৪:১৩

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: পাশে থাকুন এ প্রতিবাদের!

১৩৮| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৫

মহসিন ৩১ বলেছেন: এটা স্বাধীন দেশ তাই ভাবতে হবে এর চেয়ে বেশি স্বাধীনতা অন্য কোথায় পাওয়া যায় কিনা-- অন্য কোন দেশে; তাহলেই চোরের মার বড় গলা না হয়ে সুপ্রতিবেসি হয়ে মাথা খাটান সম্ভব; অতঃপর--- আইন কানুন জ্ঞান-দানের বিষয় নয়, সচতেনতাই prevention। সমাজের দেহ শুকন কিন্তু মাথা ভারি হবে তা কোন প্রাকৃতিক নয়। এটা ভেবে দেখা উচিৎ।

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৫০

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ?????

১৩৯| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ২:৫১

নাসির উদ্দীন বলেছেন: এই পোষ্ট টি দয়া করে ফ্রন্ট পেইজ থেকে সরানো হোক। এই টাইপের পোষ্ট ফ্রন্ট পেইজে পিন করে দেওয়া আমাদে তরুন সমাজের জন্য কারাপি হবে ভালো হওয়ার চেয়ে।
:)

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৫২

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: ইতিবাচক কিছু পাওয়ার জন্য অনেক সময় রিক্স নিতে হয়!

১৪০| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:৪০

ব্লগারনির্ভীক বলেছেন: হায়রে মানবতা! মনুষত্ব আজ কোথায়? বেহায়াপনা আর অশ্লীলতা কি স্বাধীনতা? শুধু ধর্মীয় বিষয় সামনে এনে এ জাতীয় কুলাঙ্গারেরা সবসময় পার পেতে চায়। এরা বিবেকহীন, আরে নর্দমার কীটেরা কোন ধর্ম তোকে এ অপকর্ম করতে বলেছে, পৃথিবিতে কোন ধর্ম এর অনুমতি দিয়েছে শুধু্ ইসলাম নিয়ে টানাটানি। এরা মানসিক বিকারগ্রস্থ এদের সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার সঠিক চিকিৎসা প্রয়োজন। এজন্য এ রোগের ক্ষতিগ্রস্থ লোকদের জন্য পুনর্বাসন কেন্দ্র স্থাপন এখন সময়ের দাবি। লেখককে স্যালুট গুরুত্বপুর্ণ সামাজিক ব্যাধি তুলে ধরার জন্য।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৫৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এখানে বেহায়াপনা ও আশ্লীলতার চেয়েও বড় বিষয় হচ্ছে অপরাধ প্রবণতা!

১৪১| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:০৭

হাবিবরাসেল বলেছেন: সুন্দর একটি পোস্ট এর জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ,সত্যি অসাধারণ লিখেছেন।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৫৮

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এগিয়ে আসুন, প্রতিবাদ করুণ!

১৪২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৩৮

গ্যাব্রিয়ল বলেছেন: পুরানো বিষয় নতুন মোড়কে বাজারে এসেছে... এটা বেশির ভাগ মানুষই সমর্থন করে না কিন্তু এদের মধ্যের মানুষ (পুরুষ) দ্বারাই এই ব্যাবসাটা টিকে আছে। তাই বলে চুপ থাকার তো কোন কারন নাই, লেখককে ধন্যবাদ, অন্তত তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা তুলেছে।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৫৯

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: আসুন আমরা সবাই মিলে এই যঘন্য অপরাধের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই!

১৪৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:২৩

মুক্তকামি জনতা বলেছেন: অই দিকে মানুষদের টেনে নেওয়ার অধিকার যৌন দাসীদের নেই। তাই এর একটা বিহিত এখনই হওয়া উচিত।স্বাগত জানাচ্ছিঃ

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:১৬

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: যৌনদাসী নয়, যৌনকর্মী! আর যারা যৌন ব্যবসার আড়ালে যৌনকর্মীদের শোষণ করছে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের এখনই সময়!

১৪৪| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:৩৬

নাঈম রেজা বলেছেন: অনেক লিংক দিয়েছেন ভাল। কিন্তু এত লিংক আপনি কি ভাবে সংগ্রহ করলেন? সাদা মনে বলছি এই সব পেইজ গুলো প্রচার করা থেকে বিরাত থাকুন। আপনি উপরে বলেছেন প্রসাসনের জানার সুবিধার্থে এ গুলো করেছি। কিন্তু ডকুমেন্টগুলি আপনার কাছে রেখে আপনি বিস্তারিত জানাতে পারতেন। প্রসাসন যদি প্রয়োজন বোধ করে তবে আপনার কাছে যোগাযোগ করে নিত। এই লিংক গুলি দেওয়াতে অনেকেই এগুলো দেখার সুযোগ পেল আর সম্পূর্ণ দায়ী আপনি। তাই বলি ভেবে ভেবে লিখুন।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:২৭

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: শুধুমাত্র এই পোষ্টে প্রকাশিত হওয়ার কারণে ইতোমধ্যে কিছু কিছু পেইজ/লিঙ্ক বন্ধ রাখা হয়েছে। যাহোক, এই লিকাটির লিঙ্ক "[email protected]" এই ইমেইলএ সেন্ড করে আমাদের এ প্রতিবাদে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করুণ!

১৪৫| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৫:১১

গোফরান ডাকু বলেছেন: যেভাবে লিংক আর ইনফরমেশান ঝুলিয়ে দিয়েছেন তাতে আরো বিজ্ঞাপনের কাজ করছে ।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:৫৫

সৈকত বিআইএইচআর বলেছেন: এত ফ্রি ফ্রি বিজ্ঞাপন করার পরও ঐসব সেক্স ট্রাফিকাররা হুমকি দেয় কেন?

১৪৬| ২০ শে নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:০৬

কবি সুবর্ণ আদিত্য বলেছেন: আপনি দয়া কোরে কি একটু মেইলে আসবেন? তাহলে আপনার সাথে এই বিষয়ে কাজ করতে পারি। খুব আর্জেন্ট। [email protected]

১৪৭| ২০ শে নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:০৯

কবি সুবর্ণ আদিত্য বলেছেন: অথবা এফবিতেও আসতে পারেন, পরে ফোনে আমরা যোগাযোগ করে কাজ করবো।

১৪৮| ২১ শে নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:৩১

কবি সুবর্ণ আদিত্য বলেছেন: সৈকত ভাই...আমি একুশে টেলিভিশন থেকে বলছি। আপনার এই লেখাটি নিয়ে আমরা "একুশের চোখ" নামক একটি প্রতিবেদন করতে চাইছি। আপনি চাইলে জাহাঙ্গীর টাওয়ার, ১০ কারওয়ান বাজার-ঢাকা, একুশে টেলিভিশনের কার্যালয়ে আসতে পারেন। অথবা আপনি যেখানে যেতে বলবেন আমরা সেখানে আসতে পারি। বিষয়টি নিয়ে আপনি যেহেতু অনেক লিখেছেন তাই আমরা আপনার সাথে সহমত পোষণ করে এইটিকে এগিয়ে নিতে চাই। এখানে ফোন নাম্বারটা দেয়া গেলনা। আপনি [email protected]/ [email protected] যোগাযোগ করতে পারেন। আশা করছি বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এগিয়ে আসবেন। যত কম সময়ের মধ্যে আপনি যোগাযোগ করবেন ততই দ্রুত কাজ এগিয়ে যাবে। প্লিজ...হেল্প আস।

১৪৯| ২৩ শে জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১১

ন্‌াতাস্রা বলেছেন: Hi Gentleman Hyderabad escorts I am NatashaRoy I am from Hyderabad I am extremely hot and hot on the off chance that you are searching for an escorts who will give you full fulfillment and expansion so you can call me whenever I generally give full regard to my significant customers I am exceptionally all around prepared and capable so I realize how to fulfill my customers my eyes are so alluring and lips are exceptionally vigorous so I am continually hanging tight for you, I am constantly accessible for you to like 24*7 I am exceptionally liberal young lady and my interests is that I appreciate the organization of each man. Call Girls in Hyderabad In 2017 I turn into the young lady of the city in displaying line and after this, my life will be change and is enhancing step by step I am moving well ordered towards an incredible accomplishment.
More details Visit my Website : http://natasharoy.in

১৫০| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৪০

মাসুম আহাম্মেদ বলেছেন: ভালো না লাগলে ইগনোর করবেন , মানুষ যেহেতু সার্ভিস নিতে চায় , তাতে আপনার কি সমস্যা ?
https://www.bdcallgirls.com/

১৫১| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৪২

মাসুম আহাম্মেদ বলেছেন: বিডি কল গার্ল সার্ভিস

১৫২| ২৯ শে মে, ২০২০ রাত ১২:৫০

দদহৃ ্যডস বলেছেন: Hello Friends, I am Allia a High Profile Hot Pune Escorts. I am only 23 and living in Pune. If you are looking Hot Pune Escorts in your bed then visit my website today and booking.I am availbale 24/7.

Pune Escorts
Pune Escort
Escorts Pune
Pune Escorts Service
Escorts in Pune
Escort Services in Pune
Call Girls in Pune
Independent Escorts in Pune
Russian Escorts in pune
High Profile Escorts in Pune
Housewife Escorts in pune
Celebrity Escorts in pune
College girl Escorts in pune
VIP Escorts Pune
Party Escorts Pune
Hinjewadi Escorts
Baner Escorts
Aundh Escorts
Hadapsar Escorts
Kalyani Escorts
Katraj Escorts
kharadi Escorts
Kondhwa Escorts
Koregaon Park Escorts
Lonavala Escorts
Magarpatta Escorts
Camp Pune Escorts
Shivaji-Nagar Escorts
Viman Nagar Escorts
Wakad Escorts
Raipur Escorts

১৫৩| ০২ রা জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:২০

isa jain বলেছেন: Hello I am Isajain Pune Escorts you have shared magnificent article. I truly like and value your work. The focuses you have referenced in this article are useful,Excellent perused, Positive site, where did u thought of the data on this posting? I have perused a couple of the articles on your site now, and I truly like your style. Thank you so much obliged and please keep up the compelling work
Visit my Website just click :

Chennai Escorts
Kolkata Escorts
Indore Escorts
Surat Escorts
Morbi Escorts
Hyderabad Escorts
Ahmedabad Escorts
Vadodara Escorts
Rajkot Escorts
Nagpur Escorts
Nashik Escorts
Pune Call Girls
Kochi Escorts
Daman Escorts
Anand Escorts
Vapi Escorts
Pune Independent Escorts
Pune Escorts Agency
Pune Collegegirl Escorts
Pune Celebrity Escorts
Pune Airhostess Escorts
Pune Model Escorts
Pune Russian Escorts
Pune Escorts Service
Pune Hotel Escorts
Pune Housewife Escorts
Shivaji Nagar Escorts
Deccan Escorts
Pimpri Escorts
Hinjewadi Escorts
Kalyani Nagar Escorts
Swargate Escorts
Katraj Escorts
Kharadi Escorts
Koregaon Park Escorts
Kondhwa Escorts
Magarpatta Escorts
Viman Nagar Escorts
Hadapsar Escorts
Pimple Saudagar Escorts
Mahabaleshwar Escorts
Navi Mumbai Escorts
Khandala Escorts
Lonavala Escorts
Nagpur Escorts
Nashik Escorts
Gandhinagar Escorts
Mount Abu Escorts
Palanpur Escorts
Jamnagar Escorts
Mehsana Escorts
Bharuch Escorts
Hyderabad Escorts
Hyderabad Escorts
Pune Escorts

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.