নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

হার না মানা হা‌রেই অা‌মি পরা‌জিত

ANIKAT KAMAL

ANIKAT KAMAL › বিস্তারিত পোস্টঃ

যদি মন চাই

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:২১

অাসুন, সুস্থ্য থাকার জন্য চেষ্টা ক‌রি~

"Health is the root of all happiness" স্বাস্থ্যই সকল সু‌খের মুল। ধ্রুব সত্য কথাটির তাৎপর্য তখনই অামরা উপল‌দ্ধি ক‌রি যখন অামরা অসুস্থ হ‌য়ে প‌ড়ি। "Blessings are not valued till they are gone". অর্থাৎ দাঁত থাক‌তে দাঁ‌তের মর্যদা বুঝা যায় না । বে‌শির ভাগ অসুখ বিসুখ অসাবধানতা ও অসতর্কতার কার‌ণে হ‌য়ে থা‌কে। অামরা জা‌নি "prevention is better than cure" চি‌কিৎসার চে‌য়ে প্র‌তিকার ভা‌লো। ‌রো‌গের কার‌ণে শরী‌রের অঙ্গপ্রতঙ্গগু‌লো দুর্বল হ‌য়ে প‌ড়ে এবং ক্ষেত্র বি‌শে‌ষে ক্ষ‌তিগ্রস্থ অংগগু‌লো স্বাভা‌বিক অবস্থায় ফি‌রি‌য়ে অানা ক‌ঠিন হ‌য়ে প‌ড়ে।

মানুষ তার জীবন‌কে সব‌চে‌য়ে বে‌শি ভা‌লোবা‌সে। অার এত বে‌শি ভা‌লোবা‌সে ব‌লেই বেঁ‌চে থাকার জন্য প্রাণান্তকর সংগ্রাম ক‌রে। সকল সুস্থতা বেঁ‌চে থাকা কিন্তু সকল বেঁচে থাকা সুস্থতা নয়। অর্থাৎ বাঁচা= সংগ্রাম, অার সুস্থতা= সংগ্রাম+বাঁচা।

বয়‌সের ঘেরা‌টো‌পে যু‌ক্তি, ব্যায়াম, সুষম খাদ্য, ঔষধ সবই যেন ব্যর্থতার নিদর্শন। তবু ও সুষম খাদ্য, নিয়‌মিত ব্যায়াম, প‌রি‌মিত ভোজন, নিয়মমত স‌ঠিক সম‌য়ে অাহার - বিহার ও সতর্কতা -স‌চেতনতা অামা‌দের অায়ুস্কাল পর্যন্ত ভা‌লো থাক‌তে সহায়তা ক‌রে।
মানব‌দে‌হ প্র‌তি‌নিয়তই অসুখ বিসু‌খের সা‌থে যুদ্ধ ক‌রে টি‌কে থাক‌তে হয়। যখন অসুখ বিসু‌খের কার‌ণে ভোগা‌ন্তি অার বিড়ম্বনার সৃ‌ষ্টি হয় তখন সুস্থতার কি গুরুত্ব তা উপল‌দ্ধি যায়। তাই অাসুন, সুস্থ থাকার বি‌ধি নি‌ষেধ ম‌ে‌নে চ‌লি± (দিনচর্চা ও রা‌ত্রিচর্চা)

১। রা‌তের খাবার ১০ টা হ‌তে ১১ টার ম‌ধ্যে শেষ কর‌তে হ‌বে।

২। রা‌তের খাবার পর ধর্ম ম‌তে কমপ‌ক্ষে ৪০ কদম হাঁট‌তে হ‌বে।

৩। দন্ত ‌চি‌কিৎস‌কের মরামর্শ ম‌তে ব্রাশ কর‌তে হ‌বে।

৪। স্রষ্টার প্র‌তি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন কর‌তে হ‌বে।

৫। সকাল ৫টা হ‌তে ৬ টার ম‌ধ্যে ঘুম থে‌কে উঠ‌তে হ‌বে।

প্রবাদ বা‌ক্যে বলা হ‌য়ে থা‌কে Early to bed and early to rise makes a man healthy, wealthy & wise. (অর্থাৎ সকাল সকাল ঘুমো‌তে যাওয়া ও সকাল সকাল ঘুম থে‌কে উঠা ব্য‌ক্তি স্বাস্থ্যবান, সম্পদশালী ও জ্ঞানী হয়।

৬। অাবার সকা‌লে ব্রাশ কর‌তে হ‌বে।

৭। ব্যায়াম কর‌তে হ‌বে।

৮। গোসল কর‌তে হ‌বে।

৯। যার যার ধর্মের বিধান ম‌তে প্রার্থনা কর‌তে হ‌বে।

১০। ঘুম থে‌কে উ‌ঠেই প্র‌তি‌দিন সকা‌লে কমপ‌ক্ষে দু'গ্লাস বিশুদ্ধ পা‌নি পান কর‌তে হ‌বে। এ‌তে শরী‌রে স‌তেজতা ও সজীবতা ফি‌রে অাস‌বে। অামরা জা‌নি পা‌নির অপর নাম জীবন। এই পা‌নি অাপনা‌কে সুস্থ্য রাখার টনিক হি‌সে‌বে কাজ কর‌বে। সারা‌দি‌নে ৬/৮ লিটার পা‌নির প্র‌য়োজন হয় পূর্ণবয়স্ক একজন মানু‌ষের জন্য।

১১। দুপু‌রে খাবার পর কমপ‌ক্ষে ১৫ হ‌তে ২০ মি‌নিট বিশ্রাম নি‌তে হ‌বে।

১২। "An apple a day keeps the doctor away"
অর্থাৎ চ‌ব্বিশ ঘন্টার ম‌ধ্যে কমপ‌ক্ষে এক‌টি অা‌পেল খে‌লে চি‌কিৎস‌কের কাছ‌ে ধর্না দি‌তে হয় না।

১৩। " Sound mind is a sound body" মনটা‌কে সব সময় স‌তেজ রাখার প্র‌চেষ্টা অাপনা‌কে অ‌নেকাং‌শে সুস্থ্য রাখ‌তে সহায়তা কর‌বে।

১৪। এক টুক‌রো বিশুদ্ধ হা‌সির পরশ অাপনা‌কে সুস্থ্য রাখ‌তে ও অায়ু বৃ‌দ্ধি কর‌তে সহায়তা কর‌বে।

১৫। "man can do everything" মানু‌ষের অসাধ্য কিছুই নেই। সত্য সততা অার হালাল জী‌বিকা মানু‌ষের অায়ু বৃ‌দ্ধি ক‌রে।

১৬। ধুমপান প‌রিহার কর‌তে হ‌বে, মাদক মুক্ত জীবন গ‌ড়‌তে হ‌বে। ( smoking is harmful to health. This is the cause of canser.)

১৭। প্রচুর প‌রিমাণ অাঁশযুক্ত খাবা‌রের অভ্যাস করা উ‌চিত।

১৮। প‌রিস্কার প‌রিচ্ছন্নতা ইমা‌নের অঙ্গ । "cleanliness is next to Godliness" ইহা স্রষ্টা ভ‌ক্তিরও লক্ষন। প‌রিস্কার প‌রিচ্ছন্নতা অাপনা‌কে রোগ-ব্যা‌ধির বিরু‌দ্ধে প্র‌তি‌রোধ ব্যবস্থা গ‌ড়ে তো‌লতে সাহায্য করবে।

১৯। চি‌কিৎসা বিজ্ঞা‌নের ম‌তে, বায়ু পিত্ত কফ তিন‌টি প্র‌কো‌পিত হ‌লেই মানু‌ষের অসুখ বিসুখ হ‌য়ে থা‌কে সেজন্য স‌চেতন থাক‌তে হ‌বে অনুক্ষণ।

২০। Too much of everything is very bad/ excess is very bad অ‌তি‌রিক্ত কোন কিছুই ভা‌লো না তাই অ‌তি‌রিক্ত ব্যায়াম অ‌তি‌রিক্ত প‌রিশ্রম অ‌তি‌রিক্ত‌ ভোজন সব‌কিছুর দি‌কে সজাগ স‌চেতন থাক‌তে হ‌বে।

২১। মল মুত্র হাঁ‌চি শুক্র অধোবায়ু ব‌মি উদগার হাই‌তোলা ক্ষুধা পিপাসা নিদ্রা শ্রমজ‌নি নিশ্বাস কাশির বেগ অা‌বেগ অনভূ‌তি কান্না বী‌র্যের বেগ অানন্দ উচ্চাসের বেগ এক কথায় প্রাকৃ‌তিক কোন স্বাভা‌বিক বেগ‌কে ধারণ করা যা‌বে না ।

২২। নখ কাট‌তে হ‌বে নিয়‌মিত অনন্ত সপ্তা‌হে এক‌দিন কোন অবস্থায় ন‌খের ম‌ধ্যে ময়লা জম‌তে দেওয়া যা‌বে না। অাপনার দৃ‌স্টির ভিতর ও ব‌া‌হির সব খা‌নেই থা‌কে জীবানু।

২৩ । কিছু পরামর্শ বা উপ‌দেশঃ~(‌শিফা ও শেফা)

দৈ‌নিক ১টি অাপেল খান। ডাক্তার লাগবে না!

দৈনিক ৫টি বাদাম খান কোন ক্যান্সারের অাশঙ্কা থাকবে না!

দৈনিক ১ টি লেবু খান কোন ফ্যাট হবে না!

দৈনিক ১ গ্লাস দুধ খান কোনও হাড়ের সমস্যা হবে না!

দৈনিক ১২ গ্লাস পানি পান করুন কোন ত্বকের সমস্যা থাকবে না!

দৈনিক ৪ টি খেজুর খান কোন দুর্বলতা থাকবে না!

** ঘুমাতে যাওয়ার আগে পানি খেলে তা হার্ট এটাক এর ঝুঁকি অনেকাংশে কমিয়ে দেয় এবং আপনার হজমে সাহায্য করবে।
ঘুমা‌নোর সময় ডান কাত হ‌য়ে ঘুমান হার্ট এটা‌কের অাশংকা থাক‌বে না।

** প্রতিদিন একটি তুলসী পাতা আপনাকে ক্যান্সার থেকে দূরে রাখবে।

** প্রতিদিন তিন / পাঁচ লিটার পানি আপনাকে সকল রোগ থেকে দূরে রাখবে।

**নবীজি বলেন,,"যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালে ৭ টি আজওয়া খেজুর খায়,তার ওপর বিষ ও জাদু কোন প্রভাব ফেলতে পারেনা!(বুখারী ৭:৬৫:৩৫৬)

দৈনিক ৫ বার প্রার্থনা ও যোগ-ব্যায়াম করুন কোন টেনশন, উত্তেজনা থাকবে না!

দৈনিক ৮ ঘন্টা ঘুমান খুশি মনে সতেজ অার অানন্দে থাকুন!

মন্তব্য ১৪ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: এই সব নিয়ম প্রতিদিন মানা সম্ভব না।

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৪৭

ANIKAT KAMAL বলেছেন:
ব্লগার বন্ধু মানু‌ষের ই‌চ্ছে শ‌ক্তিটাই য‌থেষ্ঠ। চেষ্টর অসাধ্য কিছুই নেই। মা‌টির কল‌সের অাঘাতে টিউব‌য়ে‌লের শক্ত সান ও ক্ষ‌য়ে যায়। ধন্যবাদ বন্ধু অাল্লাহ অাপনা‌কে ভা‌লো রাখুন

২| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: সুস্থ্য থাকতে ইচ্ছে হয়, কিন্তু এতোটা নিয়ম কানুন মেনে চলাটা সত্যিই কঠিন

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫০

ANIKAT KAMAL বলেছেন:
বন্ধ‌ু অাপ‌নি যত নিয়‌মের চর্চা কর‌তে পার‌বেন ততই সাফল্য অর্জন কর‌বেন। ব্লগার বন্ধু মানু‌ষের ই‌চ্ছে শ‌ক্তিটাই য‌থেষ্ঠ। চেষ্টর অসাধ্য কিছুই নেই।

৩| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:১০

নূর-ই-হাফসা বলেছেন: এতো নিয়ম মেনে চলা কঠিন বটে ।

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫২

ANIKAT KAMAL বলেছেন:
বন্ধু নিয়ম মানাটা ক‌ঠিন কিন্তু অসম্ভব নয় । ভা‌লো থাক‌বেন। ধন্যবাদ

৪| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৪

সৌরভসরকারমেটালহেড বলেছেন: I am not agree with no 5

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৪

ANIKAT KAMAL বলেছেন: ধন্যবাদ বন্ধু সেটা অাপনার বিষয়

৫| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৯:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


রাতের খাবার সন্ধা ৭/৮ টার মাঝে খাওয়া উচিত

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

ANIKAT KAMAL বলেছেন:
ধন্যবাদ বন্ধু অাপনা‌কে অার একটু বি‌শেষ ভা‌বে অভিবাদন

৬| ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৯:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনি কি কোন সমস্যার মাঝ দিয়ে যাচ্ছেন? আগের পোষ্টটা কি এক ধরণের সমস্যার ইন্গিত দিচ্ছে!

২০ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৯

ANIKAT KAMAL বলেছেন: না বন্ধু অা‌মি খুব ভালো অা‌ছি।
অাল্লাহর ই‌চ্ছেয় য‌থেষ্ঠ। শুভচ্ছা শুভকামনা অাপনার জন্য।

৭| ২২ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৪

লিংকন১১৫ বলেছেন: চাকরী বাকরি করে এতো নিয়ম মানা শুধু কঠিনী না এক প্রকার অসম্ভব ।
তারপরও নিয়মের ভিতর থাকা ভালো ।
আপনাকে শুভেচ্ছা জানাই ।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:১৬

ANIKAT KAMAL বলেছেন: নিয়ম মানা ক‌ঠিন হ‌লেও অসম্ভব নয় ত‌বে নিয়ম মান‌তে মান‌তে নিয়ম অাপনারকে মান‌তে থাক‌বে

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.