নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার লেখা কারো ভালো লাগলে ০১৮১৫৩৩৮৩৭৫ নাম্বারে বিকাশ কিংবা লোড নতুবা ডাক বিভাগের সেবা নগদে মজুরি পাঠালে আমি গর্ববোধ করবো ৷ আমার জীবনের বেশীরভাগ সময় আমি লিখে কাটাতে চাই, আমার ফেসবুকের ঠিকানা, www.facebook.com/abdur.sharif

আবদুর রব শরীফ

আমার লেখা কারো ভালো লাগলে ০১৮১৫৩৩৮৩৭৫ নাম্বারে বিকাশ কিংবা লোড নতুবা ডাক বিভাগের সেবা নগদে মজুরি পাঠালে আমি গর্ববোধ করবো ৷ আমার জীবনের বেশীরভাগ সময় আমি লিখে কাটাতে চাই, আমার ফেসবুকের ঠিকানা, www.facebook.com/abdur.sharif অথবা Abdur Rob Sharif

আবদুর রব শরীফ › বিস্তারিত পোস্টঃ

অর্জনের চেয়ে রক্ত বিসর্জন বড়

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৩

রবীন্দ্রনাথ লিখেছিলেন 'তেরো চৌদ্দ বছরের ছেলেদের মতো পৃথিবীতে এমন বালাই আর নেই' কারণ তিনি হয়তো ক্ষুদিরামকে চিনতেন না!
.
কবি বলতে চেয়েছেন, 'তাদের শোভাও নাই, কোনো কাজেও লাগে না!' পাবলিক এখন মারাত্মক, শোভা বললে শোভাকলোণী বুইজ্জা লাইবো!
.
এমনও হতে পারে শের-এ বাংলা এ কে ফজলুল হকের মতো তিনি ক্লিয়ার কাট বলতে পারেননি, 'যে জাতি তার বাচ্চাদের বিড়ালের ভয় দেখিয়ে ঘুম পাড়ায়, তারা সিংহের সাথে লড়াই করা কিভাবে শিখবে?'
.
হয়তো ড্যানিশদের বিখ্যাত প্রবাদ 'নেকড়ের পালের সাথে বসবাস করো, তুমি বিড়াল হলেও একদিন গর্জন করতে শিখবে' এর মতো আমাদের প্রবাদগুলো না!
.
কিন্তু আমাদের ক্ষুদিরাম ছিলো, মাত্র তেরো কিংবা চৌদ্দ বছর বয়সে যখন হেমচন্দ্র কানুনগো মেদিনীপুরের রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন তার পথ আগলে দাঁড়িয়ে একটি ছেলে বলেছিলেন 'আমাকে একটা রিভলবার দিন, ইংরেজ সাহেব মারবো'
.
নাক টিপলে দুধ পড়বে এতো ছোট একটা ছেলে ইংরেজদের হটাতে শরীরচর্চা পাশাপাশি বক্সিং শিখা শুরু করেছিলেন!
.
ব্রিটিশ বিরোধি 'সোনার বাংলা’ লিফলেট বিতরণ করতে গিয়ে ধরা খেলে ঘুষি মেরে ইংরেজদের নাক ফাটিয়ে দেন!
.
ধরা খাওয়ার পর ইংরেজদের প্রথম করা ‘রাজদ্রোহী মামলা’র প্রথম আসামী ছিলেন এই ক্ষুদিরাম!
.
আরেক বিপ্লবী সত্যেন্দ্রনাথের মাধ্যমে কৌশলে পালিয়ে গিয়ে কিছুদিন ফেরারী থেকে আবার আত্মসমর্পণ করেন!
.
এরপর অনেক ঘটনাচক্র! মামলা! হামলা! আন্দোলন!
.
অবশেষে ক্ষুদিরামকে ফাঁসির সাজা শোনানো হলো! হাসিমুখে বিদায় নিয়েছিলেন সব দোষ নিজের কাঁধে নিয়ে যাতে অন্য বিপ্লবীদের সন্দেহ না করা হয়!
.
আজ অনেক বাঙ্গালীকে ইংরেজরা নাইট হুড উপাধি দেয় তারপর থেকে তাকে নাকি স্যার ডাকতে হয়!
.
হ্যালো ব্রিটিশ, স্যার যদি উপাধি দিতে হয় আমাদের ক্ষুদিরামকে দিন্, তার রক্তের উপর দিয়ে হেটে গিয়ে কেউ স্যার উপাধি নিলে আমি তাকে বাঙ্গালীর সব গালি একসাথে দিতে চাই!
.
ম্যাডাম উপাধি যদি দিতে হয় প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারকে দিন! তারপর যদি আপনারা কয়েক কোটি বাঙ্গালীকেও স্যার উপাধি দেন তাতে আমার কোন আপত্তি নেই!
.
আমার কাছে অর্জনের চেয়ে রক্ত বিসর্জন অনেকগুণ বড়!

মন্তব্য ২ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (২) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৩

ঢাকার লোক বলেছেন: সাবাস !

২| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:২৯

রাজীব নুর বলেছেন: খুদিরাম বা প্রীলিলতা ভুল করেছিল।
তারা ভুল ভাবে বিল্পব করতে চেয়েছিল। তারা পারে নি। অকালেই মরতে হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.