নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ট্রুথ নেভার ডাই্‌জ

নিজের সম্পর্কে লেখার কিছু নেই । সাদামাটা ।

আহমেদ জী এস

পুরোপুরি একজন অতি সাধারন মানুষ । আমি যা আমি তাই ই । শয়তানও নই কিম্বা ফেরেশতা । একজন মানুষ আপনারই মতো দু'টো হাত, চোখ আর নিটোল একটা হৃদয় নিয়ে আপনারই মতো একজন মানুষ । প্রচন্ড রকমের রোমান্টিক আবার একই সাথে জঘন্য রকমের বাস্তববাদী...

আহমেদ জী এস › বিস্তারিত পোস্টঃ

শীত তুমি কি, বড় জানতে ইচ্ছে করে ....... [ ছবি ও লেখা ব্লগ ]

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২২

শীত তুমি কি, বড় জানতে ইচ্ছে করে .... [ ছবি ও লেখা ব্লগ ]


[ চতুর্থ পর্ব ]

“ সুখ তুমি কি বড় জানতে ইচ্ছে করে
আমার জানতে ইচ্ছে করে
কিশোরীর মিষ্টি আশা
নাকি ষোড়শীর ভালোবাসা .....”

রুনা লায়লার এই গানটির মতো আমারও জানতে ইচ্ছে করে ,
শীত তুমি কি ....
কুয়াসার মিষ্টি একটু হাসা
নাকি নকশী কাঁথার উষ্ণ ভালোবাসা ।

হ্যা , শীতকে নিয়ে অনেকের ভাবনাটা হয়তো এমনই ।
শিশিরের আয়নায় নিজের মুখ দেখা কিম্বা কাঁথা মুড়ি দিয়ে উষ্ণতার ছোঁয়ায় নিজেকে শপে দেয়া । কুয়াশায় ভেজা মেঠো পথে, নাঙা পায়ে পায়ে পৃথিবীর ঘ্রান তুলে আনা । মেহগনির মতো সকালের ঐ পারে কুয়াশার ওড়নায় মোড়া সূর্য্যের ওম গায়ে মাখা ।
আসলে শীতকে খেজুর রসে ভেজা পিঠার মতো হরেক ঢঙের সাজে সাজিয়ে মনের পাত্রে তোলা যায় । এ যেন ------নতুন করিয়া লহো আরবার চিরপুরাতন মোরে ।

দূরের আকাশের গায়ে
হয়তো দেখিবে তাহারে এক শীতবিকেলে ।
কোমল কুসুম রঙে, জলে ছায়া ফেলে
ধীরে ধীরে কুমারী সন্ধ্যার আয়োজন নিয়ে আসে
ধরিত্রীর কোলে .......





অন্ধকারের জরায়ু ছিঁড়ে এক সূর্য্য প্রসব
দিগচক্রবালে লালিমা মেখে আসে,
কুয়াসায় ঢেকে মুখ এক সকাল উদ্ভাসে
মাঠের ওপারে শুয়ে থাকা আকাশে... আকাশে ......

উত্তরের বাতাস গায়ে লেগে যৌবনবতী হয়ে ওঠা খেজুরের গাছ , শিশির গায়ে মেখে খড়ের চালে অলস শুয়ে থাকা ডগমগে লাউ , সরষে হলুদ ফুলছাপ ফ্রক গায়ে মাঠের নয়নকাড়া হাসি নিয়ে ধরিত্রী, পরিযায়ী পাখির মতো কুয়াশার সাদা সাদা ডানা মেলে উড়ে আসে এক পৌষ প্রাতে। কুয়াশার জরায়ু ছিঁড়ে সূর্য্য প্রসবে সকাল গড়িয়ে যায় দিনে । পৌষ গড়ায় শীতে মগ্ন এক মাঘে । ভেজা খড়ের গন্ধ মেখে শীতের রিক্ত মাঠ শুয়ে থাকে ....... শুয়ে থাকে ।

এ হলো পালাবদলের ধারা । আকাশের আয়নায় মুখখানি দেখে দেখে এ যেন প্রকৃতির নিজেকে সাজানো ....................






কী করুন বাতাসে ভর করে
আকাশের কান্না ঝরে
মাঠের পরে , চারিদিক ঢাকি -
ধুম পৌষের হীম
কুয়াসার ডানা মেলে আসে --
কবেকার প্রাচীন এক পৃথিবীর পথে......





শৈত্য হাওয়া ঘিরিয়াছে জাল ফেলি
মানুষ আর প্রকৃতি নিদ্রাময় চোখ মেলি
দেখিতেছে -
গাঢ় ধূম্রের কুন্ডলী উদ্বেলিছে হেথা,
শীত নিবারিতে উঠোনে উঠোনে
কাষ্ঠবহ্নি অনিবার উঠিতেছে জ্বলি ।

বাংলার দুঃখি মাঠঘাট ছুঁয়ে , ক্ষীন হয়ে আসা হিজলের বনে হীম মেখে, মরে যাওয়া ধরলার জলে শিরশির কাঁপন তুলে হিমালয় হাওয়া ছায়া ফেলে যায় আমাদের গাঁয়ে । হেমন্তের শেষ বিকেলের আলো ফুরিয়ে গেলে, শীতের সজারু কাঁটা ধীরে ধীরে গেঁথে ফেলে উত্তরের জনপদ । “মাঘের শীত বাঘের গায়” প্রবাদটি যেন হুঙ্কার ছেড়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে লোকালয়ে । হাড় কাঁপনো শীতে বাংলার আদুল শিশুটি গুটিশুটি মেরে উষ্ণতা খোঁজে শীর্ণকায়া মায়ের কোলে । জনপদে এই উষ্ণতার ছোঁয়া চিত্রিত হয়ে উঠে রঙে রঙে ..................







শুধু বয়ে যায় শীতের বাতাস
এমন করে ধরিয়ে কাঁপন
পৌষ যায় , যাবে মাঘ মাস ।
দেখে যেও একদিন পথে এসে
শীতের ঝরা পাতার মতো ভেসে
কি নিদারুন বয়ে চলে,
শ্রমজীবী মানুষের জীবন যাপন .................






খেজুর গাছেরা ইতস্তত , একাকী থামের মতো
দাঁড়ায়ে আছে কতোকাল
ভরা যৌবন শরীরে উথলি ওঠে
মিষ্টি জল , ছলছল ।
কবেকার হৃদয় নিংড়ানো সেই প্রেম ঢালি
ভরে তোলে পেতে রাখা অচুম্বিত অঞ্জলি ।






পাখি আর মানুষে
নিমগ্ন রসে
টেনে আনে স্মৃতির অতল থেকে
দামাল সকাল, হারানো কৈশোরে ।
হীম ধরা রোদ মন্দ্র সপ্তকে
গেয়ে যায় জীবনের ফেলে আসা গান
তবুও বারবার চোখ মেলে দেখি,
মনে হয় চিনি উহারে ......


বাংলার ঘরে ঘরে একসময় রসের মৌ মৌ গন্ধ নিয়ে ফুঁটতো শীত ভোরের আলো । পিঠা পুলির পশরা নিয়ে বসতো গৃহলক্ষীরা । ঋতুকন্যা শীত নেচে নেচে যেত কোনও নরম হাতের চম্পকাঙুলিতে । বাহারী নকশা ফুঁটে উঠতো পিঠার গায়ে একে একে ।
সে গ্রাম আর নেই । নেই বলক ওঠা রসের মহুয়া ঘ্রান । কদাচিৎ দেখা মেলে এখন তার ।
মানুষ এখন আর গ্রামে ছোটেনা রসের আমেজে । পিঠা-পুলির কারুকাজ আজ আর তাকে টানেনা তেমন করে । গ্রাম পড়ে রয় গ্রামের মতো , শীত চলে যায় অনাদরে ।

মান্না দে’র গানের কথাগুলো তাই মনে পড়ে যায় বারে বারে –
পৌষের কাছাকাছি রোদ মাখা সেই দিন
ফিরে আর আসবে কি কখনও ........


এক শীতের সকালে দেখি চোখ মেলে
কে যেন যায় কাঁধে হাড়ি ফেলে ।
রসের গন্ধে মৌতাতে চারিধার
কাছে এসে ভালোবাসিবার
এক সুভদ্রা গ্রাম .......







আবার আসিব ফিরে এক সকালে
কুয়াশায় মাখা খেজুর পাতায় পাতায়,
হরিদ্রাভ কুমড়োর ফুলে ।
জড়ায়ে রবো সবুজ মটরশুটির গায়ে
শিশিরবিন্দু হয়ে, আলতো পায়ে
হেটে যাবো ভেজা কলমির মেঠোপথ -
অনেকদূর চলন বিল অবধি
পারিজাত পাখির মতো,
ডানা ঝাঁপটে উড়ে যাবো উৎপলা রোদে ।

জয়তুন বিবির মাটির চুলোয় রস হয়ে উৎলাবো
কারুকাজময় ডানা মেলে পিঠা-পুলি হবো
তবুও তোমায় জড়ায়ে ধরে,
নকশী কাঁথার মতো আদুরে ওমে
টেনে নেবো বুকের উপর নিঃশব্দ ঘুমে
কোন দূর হিমালয় বাতাস যদি
তোমারে উতলা করে !



চলবে ..........

প্রথম পর্ব - Click This Link
দ্বিতীয় পর্ব – Click This Link
তৃতীয় পর্ব - Click This Link

[ এই ছবি ও লেখা ব্লগটি সাজানো হয়েছে কয়েকটি অধ্যায়ে – বর্ষা, শরৎ, হেমন্ত, শীত, বসন্ত আর গ্রীষ্ণ নিয়ে ঋতুচক্র – পালাবদলের দিন, নিঃস্বর্গ, দেশ ও জীবন গাঁথা ; এমন করে। ]

ছবি – ইন্টারনেট থেকে ।
প্রতিটি ছবির জন্যে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করছি তাঁদেরই যারা ছবিগুলোর প্রকৃত দাবীদার ।
আর স্বনামধন্য যে সব কবি-লেখকের দু’একটি চরন তুলে এনেছি, কৃতজ্ঞতা স্বীকার করছি সেই মহাগুনীজনদের ও ।
এদের সকলের কাছেই ঋনী হয়ে রইলুম ।

মন্তব্য ১২৬ টি রেটিং +২২/-০

মন্তব্য (১২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৩৯

প্রামানিক বলেছেন: এক কথায় সব মিলিয়ে চমৎকার। কিন্তু শীতের সকালে চা কই?

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৪৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: প্রামানিক ,


ধন্যবাদ প্রথম মন্তব্যটির জন্যে ।
আর চা কই ? চা তো থাকে চায়ের কাপে !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!! :P

২| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৪৫

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: চমৎকার যতসব ছবি। সুন্দর হয়েছে সবগুলো ছবি।

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫১

আহমেদ জী এস বলেছেন: দেশ প্রেমিক বাঙালী ,



সব সময় সাথে থেকে উৎসাহ দিয়ে যান বলে অনেক ধন্যবাদ । ছবিগুলো আপনার কাছে চমৎকার লেগেছে জেনে ভালো লাগলো ।

৩| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৫১

কান্ডারি অথর্ব বলেছেন:


শীতকাব্য খুব ভাল লাগলো। +++

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩১

আহমেদ জী এস বলেছেন: কান্ডারি অথর্ব ,



শীতকাব্য হয়েছে কি ? এতো রসের ভিয়েন দিয়ে শীতের কুয়াশা আর কাঁথামুড়ির বয়ান !

ভালোলাগা আর প্লাস এর জন্যে ধন্যবাদ । শুভেচ্ছান্তে ।

৪| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৫৪

বৃতি বলেছেন: খুব সুন্দর ছবিগুলো :)

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: বৃতি ,



মন্তব্যের জন্যে অসংখ্য ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৫| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:০২

লেখোয়াড়. বলেছেন:
আপনি কে ভাই??
ও জি এস ভাই!!

না হলে এমন কর্ম কে করবেন!!

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: লেখোয়াড়.



জ্বী ... হ্যা , এমন কর্ম করে শুধু একজনা
জানলেও আমি তার নাম বলবোনা ........... :(

৬| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:০৮

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: চমৎকার সব ছবি অার দুর্দান্ত বাচনভঙ্গি । খুব ভাল্লাগলো, অাহমেদ জি এস ভায়া!

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: রূপক বিধৌত সাধু ,



অসংখ্য ধন্যবাদ এমন সুন্দর মন্তব্যের জন্যে ।
এরকম করে সাথে থাকেন বলেই সাহস হয় কিছু লেখার ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৭| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৩

আরজু পনি বলেছেন:

আপাতত পড়াশুনা নিয়ে ব্যস্ত আছি। আজ সারাদিন হয়তো পড়ার মধ্যেই থাকতে হবে ।
পরে আবার আসছি ।
পড়াগুলো ব্লগে পোস্ট আকারে থাকলে কতোই না ভালো হতো ।
শুভেচ্ছা রইল ।

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫১

আহমেদ জী এস বলেছেন: আরজুপনি ,



হা........হা.........পড়াগুলো ব্লগে পোস্ট আকারে থাকলে কতোই না ভালো হতো ।
টেকি হেল্প চেয়ে দেখতে পারেন । অনেকেই তো গল্প বা কবিতার বই লেখেন । এবার তারা না হয় পড়াগুলোর বই লিখবেন । B-))

তা এখনও এই রাত্তিরে পড়াশুনা নিয়ে ব্যস্ত ?
সময় করে আসুন । তাড়াহুড়ো নেই ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৮| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৫

সাহসী সন্তান বলেছেন: প্রিয় জি এস ভাই,



চমৎকার শীত কাব্য, আর তৎসংশ্লিষ্ট ছবিগুলো অসাধারণ! শুভ কামনা জানবেন!

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: সাহসী সন্তান ,



শীত কাব্যে মন্তব্যের উষ্ণতা দিয়ে গেলেন ।
শুভকামনা আপনার জন্যেও রইলো ।
ভালো থাকুন এই শীতে ।

৯| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৬

অপর্ণা মম্ময় বলেছেন: ডিসেম্বর চলছে শীতের দেখা পাচ্ছি না এখনো! গ্রামে কবে যাবো তাও জানি না। ছবি ব্লগ দেখতে ভালো লাগলো।

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: অপর্ণা মম্ময় ,


এই ছবি ব্লগ দেখতে দেখতে দেখবেন শীত চলে এলো বলে ।
শীত দেখতে গ্রামে যেতে হবে ? বলেন কি ! :(

মন্তব্যের জন্যে ধন্যবাদ । শুভেচ্ছান্তে ।

১০| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৯

জুন বলেছেন: চমৎকার ছবি আর বর্ননায় শীতকে চোখের সামনে তুলে এনেছেন আহমেদ জী এস ।
প্রচন্ড ধুলোয় অতিষ্ঠ শীতকে স্বাগতম জানাই আপনার লেখায় ।
+

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: জুন ,



শীতকে চোখের সামনে না তুলে যদি সবার গায়ে তুলে দিতে পারতুম তবে শীত শীত মনে হতে পারতো সবার । লেখাটি সার্থক হতো ! অপেক্ষা করুন , এই তো দেখতে দেখতে চোখ থেকে নেমে শীত গায়ে চড়ে বসবে ! :P

সব সময় এমন করে সাথে থাকেন বলে ভালো লাগলো । যথারীতি ঐ একটি মাত্র প্লাস । এবারে মেনে নিলুম । একটি ধন্যবাদ ।

রাতের শুভেচ্ছা ।

১১| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪৫

শামছুল ইসলাম বলেছেন: চমৎকার সব ছবি আর বর্ণনায় শীতের আগমনী বাজে।

কবিতায় সে হয়ে ওঠে আরও মধুরঃ

//আবার আসিব ফিরে এক সকালে
কুয়াশায় মাখা খেজুর পাতায় পাতায়,
হরিদ্রাভ কুমড়োর ফুলে ।
জড়ায়ে রবো সবুজ মটরশুটির গায়ে
শিশিরবিন্দু হয়ে, আলতো পায়ে
হেটে যাবো ভেজা কলমির মেঠোপথ -
অনেকদূর চলন বিল অবধি
পারিজাত পাখির মতো,
ডানা ঝাঁপটে উড়ে যাবো উৎপলা রোদে । //


বিজয়ের শুভেচ্ছা।

ভাল থাকুন। সবসময়।

০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: শামছুল ইসলাম ,



মধুর এই মন্তব্যে ভালো লাগা জানাই ।
এরকম সাথে থাকেন বলে এই শীতটাও এই সাহচর্য্যের উষ্ণতায় কেটে যাবে ।
ভালো থাকুন আপনিও ।
বিজয় শুভেচ্ছান্তে ।

১২| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪৬

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন: আপনার লেখা পড়ে শীত শীত ভাব যেন একটু বেড়ে গেলো । কম্বলটা যেন কই !!! হাহা

লোভ হচ্ছে খুব গ্রাম্য ব্যপারস্যাপারগুলোই । রস, পিঠা, ঘুরে বেড়ানো ....

দারুণ ছবিয়ানা পোস্টে অনেক ধন্যবাদ ।

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: কথাকথিকেথিকথন ,



হায় ... হায় কম্বল এখনও নামান নি ? ওটা তো ইন্দুরে কেঁটে ফেলেছে মনে হয় । :(
আমি তো কম্বল নামিয়েই পোষ্টখানা দিলুম । পোষ্ট করতে গিয়ে যা শীত শীত লাগছিলো ।

হুমমমমমমমমমমমমম রস, পিঠা, ঘুরে বেড়ানো , আসলেই এ রকম ভাবনারা নকশী কাঁথার মতো ওম দিয়ে যায় মনে ।

ধন্যবাদ আপনাকেও সব সময় সাথে থাকার জন্যে । শুভেচ্ছান্তে ।

১৩| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪৮

গেম চেঞ্জার বলেছেন: প্লাস না দিয়ে পারলাম না। শীতের কোনকিছু বাকি রেখেছেন মনে হচ্ছে না কিন্তু..... কিছু কিছু আসেনি মনে হলো। ঠিক কি কি আসেনি তাও মনের সচেতন অংশে আসছে না।

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪০

আহমেদ জী এস বলেছেন: গেম চেঞ্জার ,


বাদ তো অনেক কিছুই দিতে হয়েছে পাছে আপনাদের বিরক্তি ধরে যায় , এই ভয়ে ।

সব সময় সাথে থাকেন বলেই শীতের রসের মতো মধুর মনে হয় এই ব্লগখানাতে পা রাখতে ।
মন্তব্য আর প্লাস দেয়ার জন্যে অজস্র ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

১৪| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৫০

রিকি বলেছেন: দূরের আকাশের গায়ে
হয়তো দেখিবে তাহারে এক শীতবিকেলে ।
কোমল কুসুম রঙে, জলে ছায়া ফেলে
ধীরে ধীরে কুমারী সন্ধ্যার আয়োজন নিয়ে আসে
ধরিত্রীর কোলে .......



আমার প্রিয় ঋতু, শীত। আহা মাফলার পরা হাসির ইমো হবে এখানে.... !!!! B-))
) !!!! B-))

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০১

আহমেদ জী এস বলেছেন: রিকি ,



আমি মোটেও গরম সইতে পারিনে । তাই শীতকেই ভালোবাসতে হয় , আপনার মতো । তাই এক শীত সকালে এই পোষ্টটি দিয়েছি কোমল কুসুম রঙে রাঙিয়ে ।

আজ আর "ইমো" নিয়ে ইমোশনাল হচ্ছিনে । মাফলার পরা হাসির ইমোকে তাই স্বাগতম । তবে মুখটা চুলকোচ্ছে তাই না জিজ্ঞেস করে পারছিনে , " মাফলারটা কি আপনি বুনেছেন ?" ;)

১৫| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৫৭

রাতুল_শাহ বলেছেন: ভাই অনেক বছর হয়ে গেল খেজুর রস খাওয়ার হয় না। খেজুর রসের পিঠাও খাওয়া হয় না। খুব মিস করি।

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: রাতুল_শাহ ,



খুব দুঃখ হচ্ছে আপনার জন্যে ।
আশা করি এ "মিস" করাটা আপনি নিজেই কাটিয়ে উঠতে পারবেন এই শীতেই ।
মন্তব্যে ধন্যবাদ ।

১৬| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৩৬

কেউ নেই বলে নয় বলেছেন: শীত একটা জবুথবু ব্যাপার, কাঁপাকাপি আলস্যের আনন্দময়। বর্ননা, ছবি আর কাব্যিকতায় ভালোলাগা রইলো আহমেদ ভাই। :)

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:১৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: কেউ নেই বলে নয় ,



আমার ব্লগে এই শীত দুপুরে আপনাকে স্বাগতম ।
মন্তব্য আর ভালোলাগার জন্যে প্রীত হলুম । সাথে থাকবেন এ প্রত্যাশা রইলো ।
শুভেচ্ছান্তে ।

( আপনার নিকটা বেশ অর্থময় । )

১৭| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৪

রাবার বলেছেন: কতদিন খেজুরের রস খাওয়া হয়না :(
আহমেদ ভাই চমৎকার ছবি ব্লগ +++

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: রাবার ,



আমি নিজেই কি খেজুর রস খাচ্ছি রোজ রোজ ? পাবো কই ? :((
তাই তো দুধের স্বাদ ঘোলে মিটিয়ে নিলুম , রসের ছবি দিয়ে ।
মন্তব্য আর প্লাসের জন্যে চমৎকার একটি ধন্যবাদ ।
সাথেই থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

১৮| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শীত তুমি কি, বড় জানতে ইচ্ছে করে .

ভাবীরে কন রাত পৌনে দুইটার সময় কম্বল উলটিয়ে আপনার দেহে এক বালতি পানি ডেলে দিতে :P

তবে পোস্ট ভালা হইছে ।

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন ,



এইত্তো ভুল কইলেন । কোম্বল উডাইয়া গায়ে পানি ঢাললে তো ফের গামছা দিয়া মুইচ্ছা আবার কম্বল টাইন্না দিমু । হের চে ভালো অইতো না, আফনের ভাবীসাবেরে যদি কই কোম্বলে পানি ঢালো । হেউডা ভালো অয় না ??????? B-) :-P

আরো ভালা অইতো যদি কইতে পারতাম , খেজুর রস ঢাইল্লা দাও কোম্বলে । কন দেহি , কইতে পারমুনা ক্যান ?
এই রাইতে খেজুর রস পামু কই ??? :((

১৯| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৭

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন:
চমৎকার ছবি আর বর্ণনায় শীত বন্দনা!!!
কিন্তু আমার জন্য একটু কষ্ট রয়েই গেল!
শীতের ফুলগুলোর কথা বেমালুম ভুলে গেলেন ?!!!!

আমার বাগানে এখন কত্ত ফুল ফুটেছে!!!! দেব? নাকি দেব না????
নাহ্‌ দিয়েই দিলাম!!!!









১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: কামরুন নাহার বীথি ,



কি করবো বলুন ? পোষ্টটি লম্বা হয়ে যাবে বলে শীতের কাঁথা মুড়ি দিয়ে গুটিশুটি মারতে হলো যে !
তাই ফুল গেলো বাদ হয়ে ।
যাক আপনি ছিলেন বলে রক্ষে । কষ্ট করে এতো ফুল তুলে এনে আমার পোষ্টে লাগিয়ে দিলেন । আপনার দেয়া এই ফুলসম্ভার নিঃসন্দেহে আমার পোষ্টের অপূর্ণতাকে ভরিয়ে দেবে ।

অনেক ধন্যবাদ আপনাকে সব সময় সাথে থাকার জন্যে । শুভেচ্ছান্তে ।

২০| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:১৭

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন: আরো আরো দিলাম ।





১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: কামরুন নাহার বীথি ,



ধন্যবাদের ভাষা খুঁজে পাচ্ছিনে ।
পেলে তা হয়তো এই ফুলের মতোই রঙিন আর সীমের মতোই সতেজ হতো ।

২১| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৩৬

সুলতানা রহমান বলেছেন: লিখা, ছবি মিলিয়ে খুব সুন্দর! পুরো ঋতু নিয়ে সাজানো সত্যিই অনেক কঠিন ছিল।
ভাল লাগা রইলো। +

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:১১

আহমেদ জী এস বলেছেন: sultana rahman ,



আসলেই এক একটা ঋতু নিয়ে পুরো একটি পোষ্ট সীমিত অবয়বে সাজানো কঠিন তো বটেই । সে কঠিন কাজের কষ্টটুকু পুষিয়ে গেলো আপনাদের ভালো লাগায় । প্লাস দেয়াতে ধন্যবাদ ।
আগামীতেও এই সিরিজের সাথে থাকুন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২২| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৪৪

মিলন হোসেন১৫৮ বলেছেন: দারুন এবং জটিল পোষ্ট

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: মিলন হোসেন১৫৮ ,



ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্যে ।
তবে পোষ্টটি জটিল নয় মোটেও । লেখা ও ছবি ব্লগ , জটিল হবে কি করে ? এ তো শীতের শিশিরবিন্দুর মতোই স্বচ্ছ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৩| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৫৬

রক্তিম দিগন্ত বলেছেন: চমৎকার সব ছবি। সাথে লেখাও চমৎকার। পারফেক্ট ব্লগ পোষ্ট। :)

+ না দিলে অন্যায় হবে।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: রক্তিম দিগন্ত ,



সুন্দর একগুচ্ছ কমপ্লিমেন্টের জন্যে ধন্যবাদ ।
ভালো থাকুন । সাথেই থাকুন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৪| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৪:০০

হাসান মাহবুব বলেছেন: শীতে মানুষ আর প্রকৃতির মাঝে ঘনিষ্ঠতা বেড়ে যায়। কুয়াশা ভেদ করে শিশিরসিক্ত ক্ষেত থেকে সবুজ-লাল সবজি তোলার আনন্দে হাস্যরত কৃষকের আনন্দটা যেন গুপ্তধন খুঁজে পাওয়ার মতো! তবুও বৃক্ষের পাতা ঝরে, চুলে খুশকি গজায় আর চামড়ায় খসখসে ভাব, যদি কুয়াশাক্রিম দিয়ে মুছে দেয়া যেতো!

ভালো লাগা রইলো পোস্টে।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৪২

আহমেদ জী এস বলেছেন: হাসান মাহবুব ,



হা , শীতের সবজির মাঠে কৃষকের হাসি যেমন শিশিরবিন্দুর মতো চকমকে আলো ছড়ায় তেমনি সবজি ভক্ষকদের মুখেও ছড়ায় তৃপ্তির হাসি ।
কুয়াশাক্রিম দিয়ে কিছুই মুছে দেয়া যাবেনা শুধু নীল কাগজের প্রেমপত্রে কলমের কালি শেষ করে লেখা - লেখাগুলো ছাড়া । চুলের খুশকি আর চামড়ায় খসখসে ভাব দুর করতে "ইন্ডিয়ান হরবাল" এর কাছে যেতে হবে । একটা ঠিকানা দেখেছিলুম এই ব্লগের একটি পোষ্টে । সেখানে একবার ট্রাই মারা উচিৎ ।

ভালো লাগা রইলো টক-ঝাল-মিষ্টি মন্তব্যে ।

২৫| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৪:৪৩

সুমন কর বলেছেন: পুরো শীতকালটি ফুঁটে উঠেছে--আপনার এ চমৎকার পোস্টে।

ভালো লাগা রইলো।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৪৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: সুমন কর ,



পুরো শীতকালটা মনে হয় ফুঁটিয়ে তুলতে পারিনি । পোষ্টটি লম্বা হয়ে যাবে বলে শীতের কাঁথা মুড়ি দিয়ে গুটিয়ে থাকতে হয়েছে ।
অসংখ্য ধন্যবাদ মন্তব্য এবং সাথে থেকে উৎসাহ যুগিয়ে যাবার জন্যে ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৬| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৮

সোহানী বলেছেন: আহ্ অসাধারন ছবি সহ চলমান কবিতা। ..... এক হাজারটা প্লাস +++++............

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৫৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: সোহানী ,



হাজার একটা ধন্যবাদ আপনাকে শুধু এই একটি লাইনের জন্যে ---- আহ্ অসাধারন ছবি সহ চলমান কবিতা।

সব সময় সাথে থাকার জন্যে আবারো ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৭| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৪

দর্পণ বলেছেন: আহা দারুন।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: দর্পণ ,



দারুন একটা ধন্যবাদ আপনাকে মন্তব্যের জন্যে ।

২৮| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৬

লালপরী বলেছেন: শীতকে জানা হলো আপনার লেখা আর ছবিতে জিএস ভাইয়া । বরাবরের মতই চমৎকার পোস্ট ++++++্

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:২৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: লালপরী ,



বরাবরের মতোই সাথে থেকে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছেন বলে কৃতজ্ঞ ।

মন্তব্য আর প্লাস দেয়াতে ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৯| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:০৩

তুষার কাব্য বলেছেন: আহা !যেমন শীতবন্দনা, সাথে তেমনি ছবি। ছবি গুলো যেন ডাকছে আমায় :)

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৩৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: তুষার কাব্য ,



অনেকদিন পরে মনে হয় আপনার এমন সুন্দর মন্তব্য পেলুম ! ধন্যবাদ জানিয়ে রাখছি ।
ভালো থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

৩০| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১:২৭

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: কুয়াসার মিষ্টি একটু হাসা
নাকি নকশী কাঁথার উষ্ণ ভালোবাসা ।
এদুটোকে ছাড়া তো শীতকে কল্পনাতেও ভাবা যায় না।।

ভাপা,মালপোয়া,চিতৈ,পাটিসাপটার সাথে যদি কুলি,ভিজাপিঠা,সেউই ও থাকতো তাহলে আরো ভাল লাগতো।। শেষের নকসী কাজ করা পিঠা আমি নরসংদীতে দেখেছি এবং প্রথম খেয়েছি সেই ৪০বছর আগে।। পরবর্তীতে কুমিল্লায়।।
যাই খেয়েছি মা বেচে থাকতে।। ৮৬র পর আর পাই নি।। গিন্নী পাটিসাপটা ছাড়া আর কিছু জানে না।। শ্বশুরবাড়ীতে বৌয়া বা বৌভাত খেতে চাইলে পোলাওর মত কষিয়ে রাঁধে( আমার ভাষায় ODC মানে অরিজিনাল ঢাকাইয়া কুট্টি বলে।। আমিও যদি ঢাকাইয়া তবু বৃহত্তর)।।
এবার দেশে যাচ্ছি আপনার শীতকে বরন করতে।। দোয়া করবেন।।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: সচেতনহ্যাপী ,


মনের নকশী কাঁথার নীচ থেকে হৃদয়ের উষ্ণতা ঝরিয়ে গেলেন মন্তব্যের মাঝে ।

আসুন সহি-সালামতে । বাঙলার শীতকে দেখুন হাতে ধরে ধরে । আর মনের তেষ্টা মিটিয়ে খেয়ে যান শীতের পিঠে ।
ভালো থাকুন ।

৩১| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৩:৩৯

উল্টা দূরবীন বলেছেন: অসাধারণ পোস্ট। পুরো শীতকালটাই তুলে ধরেছেন। ধন্যবাদ এবং আমার ব্লগে আমন্ত্রণ।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৩১

আহমেদ জী এস বলেছেন: উল্টা দূরবীন ,



আমার ব্লগে আপনাকে স্বাগতম ।
মন্তব্যের জন্যে অশেষ কৃতজ্ঞতা ।
আমন্ত্রনের জন্যে ধন্যবাদ । রক্ষা করবো নিঃশ্চয়ই ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৩২| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৩:৫৮

রুদ্র জাহেদ বলেছেন: আরজুপনি বলেছেন:
আপাতত পড়াশুনা নিয়ে ব্যস্ত
আছি। আজ সারাদিন হয়তো
পড়ার মধ্যেই থাকতে হবে ।
পরে আবার আসছি ।
পড়াগুলো ব্লগে পোস্ট আকারে থাকলে কতোই
না ভালো হতো ।
আমার মনের কথাগুলো!

অসাধারন ছবি এবং কাব্য মিলিয়ে অসাধারন পোস্ট।খুব ভালো লেগেছে প্রিয় লেখক-ব্লগার...

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৪৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: রুদ্র জাহেদ ,



আরজুপনির উদ্বৃতি দিলেন । আমি তাকে টেকি হেল্প চাইতে বলেছি । আপনিও তাই করতে পারেন । :(

সুন্দর মন্তব্যে কৃতজ্ঞ করে রাখলেন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৩৩| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ ভোর ৪:০০

রুদ্র জাহেদ বলেছেন: কামরুন নাহার বীথি...আপুর ফুলে ফুলে কমেন্টও প্রস্ফুটিত!

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: রুদ্র জাহেদ ,



হুমমমমমম ........ সহব্লগার কামরুন নাহার বীথির ফুলগুলো এই পোষ্টে শীতের ফুলের অভাবটা কাটিয়ে দিয়েছে ।
আপনি ফিরে এসে সেটা আবার জানিয়ে গেলেন বলে আপনাকে ফুলেল শুভেচ্ছা ।

৩৪| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ ভোর ৫:৩৬

শাহাদাত হোসেন বলেছেন: অসাধারণ সব ছবি

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৪৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: shahadath hossain ,




আমার ব্লগে আপনার এই প্রথম ( সম্ভবত ) মন্তব্যখানিকে স্বাগতম ।
সাথেই থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

৩৫| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:১৫

নেক্সাস বলেছেন: দারুন শীত কথন। এই যান্ত্রিক ধোঁয়ায় মলিন ঠাস বুনটের নগরের বুকে বসে এই লিখাটি পড়লাম আর চোখ বুঝে যেন ছুঁয়ে এলাম শীতের গ্রাম বাংলা।

দূরের আকাশের গায়ে
হয়তো দেখিবে তাহারে এক শীতবিকেলে ।
কোমল কুসুম রঙে, জলে ছায়া ফেলে
ধীরে ধীরে কুমারী সন্ধ্যার আয়োজন নিয়ে আসে
ধরিত্রীর কোলে .......

দারুন ভাবে অস্তগামী সূর্যের দৃশ্যকল্প রচনা করলেন।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: নেক্সাস ,



চমৎকার মন্তব্য ।
লেখাটি আপনাকে যান্ত্রিক ধোঁয়ায় মলিন ঠাস বুনটের এই নগর থেকে দূরের এক শীতের গ্রাম বাংলায় নিয়ে যেতে পেরেছে জেনে নিজেকে সার্থক মনে হচ্ছে । পাঠকের এমন প্রতিক্রিয়া একজন ব্লগ লিখিয়ের পাথেয় হয়ে থাকুক ।

শুভেচ্ছা সহকারে ..............


৩৬| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৪৮

সজিবুল ইসলাম বলেছেন: খুব ভাল লাগল ।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: সজিবুল ইসলাম ,



আমার ব্লগে স্বাগতম ।

মন্তব্যের জন্যে অসংখ্য ধন্যবাদ ।
সাথেই থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

৩৭| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:০৯

রেজওয়ানা আলী তনিমা বলেছেন: এক টুকরো শীত! প্রকৃতিতে এখনও তেমন না পেলেও লেখায় পেয়ে গেলাম। :)

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: রেজওয়ানা আলী তনিমা ,



ভালো লাগলো একটুকরো মন্তব্য ।

কেন ? প্রকৃতিতে এখনও তেমন পেলেন না কেন ? শীতবস্ত্র বিতরন এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে আর আপনি টের পাননি মোটেও ?? :( তা হলে শীতবস্ত্র তো আপনাকে দেয়া যাবেনা !!!!!!!! :P

ভালো থাকুন । আর এরকম উষ্ণতায় থাকুন ।

৩৮| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০৩

আবু শাকিল বলেছেন: আপনার লেখার মাধ্যমে শীতকালকে ভাল পেলাম।
জানতে ইচ্ছে করছে-আপনার প্রিয় ঋতু কি শীতকাল!!

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪০

আহমেদ জী এস বলেছেন: আবু শাকিল ,



শীতকাল কার না ভালো লাগে বলুন ? বর্ষাও আমার কাছে সমান প্রিয় । বসন্তকালকেও কি বাদ দেয়া যায় ? তবে গরম কালটাকে একদম যাচ্ছেতাই লাগে ।
মন্তব্যের জন্যে ধন্যবাদ । আশা করি বরাবরের মতোই সাথে থাকবেন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৩৯| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:১২

চ্যাং বলেছেন: ফাটাফাটি পোস্ট। আমাদের এখানে ৮ মাসইতুষার বরফ। বড়ো বড়ো দুস্ক দুস্ক :( :( :(

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫২

আহমেদ জী এস বলেছেন: চ্যাং ,


দুস্ক দুস্ক কেন ? তুষার বরফ দিয়ে কাদা (তুষার ) ছোঁড়াছুঁড়ি খেলবেন । চ্যাং দোলা করে একটা পিচ্চিরে বরফে ছুঁড়ে দেবেন মজাই মজা । ফাটাফাটি খেলা জমবে । :D #:-S
হ্যা.......... হয়তো সেখানে খেজুরের রস পাবেন না । পিঠা পুলি কেউ বানিয়ে খাওয়াবেনা । এটাই যা দুস্ক......... :((

৪০| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১৫

মাহমুদ০০৭ বলেছেন: বাহ , শীতের এ টু জেড , এক পোষ্টে ! ভাবছি নাম্বার কোনটা বেশী পাবে ?
আপনার হেমন্তের পোস্ট নাকি এইটা ?
শীত আনন্দের , উপভোগের , কারো কার জন্য কষ্টের ।
ভাল তাহকুন প্রিয় জিএস ভাই
শুভকামনা রইল

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: মাহমুদ০০৭ ,



নম্বর দিয়ে কি করবো ? আপনাদের ভালো লাগলেই তো পাশ ।
এ পৃথিবীতে আনন্দ-কষ্ট, সুখ- দুঃখ তো হাত ধরাধরি করেই চলে । এর নাম-ই তো জীবন ।

শুভকামনা আপনার জন্যেও । ভালো থাকুন আর সুখে .............

৪১| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৫

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন:

শীতের চিত্রে উষ্ণতার কাব্য....
ছবিগুলোও যেন কবিতা হয়ে ওঠেছে...
কবিতাগুলো ছবি!!!

এরচে' জুতসই শীতবন্দনা আর কে করতে পারে!

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:০২

আহমেদ জী এস বলেছেন: মাঈনউদ্দিন মইনুল ,



এমনধারা মন্তব্য পেলে বারেবারে যে এরকম লেখা নিয়ে আসতে হবে । এতো কঠিন দায়িত্ব দেয়া কি ঠিক হলো ?
তবুও মাথা পেতে নিলুম এমন মন্তব্যের বোঝা ।

কৃতজ্ঞতা রইলো ।
ভালো থাকুন আর সাথেই থাকুন ।

৪২| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৪৯

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন: ধন্যবাদের ভাষা খুঁজে পাচ্ছিনে ।
পেলে তা হয়তো এই ফুলের মতোই রঙিন আর সীমের মতোই সতেজ হতো ।
-----

শীতের সব্জিও আপনি দেন নাই, তাই আমার গাছের শীম দিলাম!! :)

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:৪৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: কামরুন নাহার বীথি ,



শাক -সবজি - মাছ, ফুল-ফল , লেপ-তোষক এর কথা লিখলে তো মহাভারত হয়ে যেত । তখন বলতেন , এতো কি পড়া যায় ? যাগগে , আপনি ঘাটতি পুষিয়ে দিলেন বলে এবার ধইন্নাপাতাটা দিলুম । :P এবার বাকী রইলো কিছু আর ? ;)

অনিবার্য্য কারনে দেরীতে প্রতিমন্তব্য করতে হচ্ছে বলে দুঃখিত ।

৪৩| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১:১৭

নিমগ্ন বলেছেন: পাখি আর মানুষে
নিমগ্ন রসে
টেনে আনে স্মৃতির অতল থেকে
দামাল সকাল, হারানো কৈশোরে ।
হীম ধরা রোদ মন্দ্র সপ্তকে
গেয়ে যায় জীবনের ফেলে আসা গান
তবুও বারবার চোখ মেলে দেখি,
মনে হয় চিনি উহারে ......


আমার নিকটিও আপনার লেখায় ঢুকে পড়ছে। হাহ হাঃ হাঃ হাঃ

এত বড়ো লিখছেন ভাউ! শেষ হইবার চায় না।

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:০৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: নিমগ্ন ,


শীত তো সবে শুরু । শেষ হইবার চাইবেনা কেন ? অপেক্ষা করুন শেষ হবেই । :)


অনিবার্য্য কারনে দেরীতে প্রতিমন্তব্য করতে হচ্ছে বলে দুঃখিত ।

৪৪| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২৭

রিকি বলেছেন: হ্যা ভাইয়া, মাফলার আমিই বুনেছি, দুই ঘর বুনে, চার ঘর খোলার ফর্মুলা প্রয়োগ করে (বুঝে নেন আমি কত ভালো পারি উলের বুনন) !!!! B-)) আসলে ভাই চাদর বানানোর অভিপ্রায়ে উল নিয়েছিলাম হাতে, কিন্তু ঐ ফর্মুলাতে চাদর মাফলার হয়ে গেছে !!!!! ;) ;) ;)

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৩৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: রিকি ,



আপনি তো সেই অংকের বানরের তৈলাক্ত বাঁশ বেয়ে ওঠার কথা মনে করিয়ে দিলেন আবার। :D

আপনি এতো এতো ভুল কেন করেন ? ইমোতে ভুল , এই মাফলার বোনাতেও ভুল । :(
চাদর বানানোর অভিপ্রায়ে উল না নিয়ে যদি একটা ফুটবল মাঠ ঢাকার অভিপ্রায়ে উল হাতে নিতেন তবে ঐ ফর্মুলাতে মাঠের বদলে একখানা খাপে খাপ চাদর হয়ে যেতো !!!!! ;) ;) ;)
ঠিক বলেছি কিনা ??????????

অনিবার্য্য কারনে দেরীতে প্রতিমন্তব্য করতে হলো বলে দুঃখিত ।

৪৫| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০০

তিমিরবিলাসী বলেছেন: উপস্থাপন টা ছিল অসম্ভব ভাল।++

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: তিমিরবিলাসী ,



ভালো লাগার কথাটি জানতে পেরে খুশি হলুম । প্লাস দেয়াতেও ।

ভালো থাকুন আর সাথেই থাকুন ।
বিশেষ কারনে দেরীতে প্রতিমন্তব্য করতে হলো বলে দুঃখিত ।

৪৬| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:২৫

প্রামানিক বলেছেন: চায়ের কাপে চা না দিলে চা থাকবে কি করে?

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: প্রামানিক ,



তবে এখন চায়ের কাপে দিলাম চা
এবারও কি বলবেন , নাহ
পাই নাই চায়ের দেখা ?
কি করবো আপনার কপালটা যে ফাঁকা .......... :(( :P

৪৭| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৩৯

এস কাজী বলেছেন: কেমন শীত শীত লেগে গেল পোস্ট খানা পড়ে।

ছবিতায় (ছবি+কবিতা) ভাল লাগা রইল আহমেদ জী এস ভাইয়া :)

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪০

আহমেদ জী এস বলেছেন: এস কাজী ,



শীত শীত লেগে গেল কি ? শীত তো বেশ জম্পেশ করেই লেগে গেছে , তাইনা ?

শীতের উষ্ণ শুভেচ্ছা আপনাকে মন্তব্যের জন্যে তবে বিশেষ কারনে দেরীতে প্রতিমন্তব্য করছি বলে দুঃখিত ।

৪৮| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:৫৪

অন্ধবিন্দু বলেছেন:
দূরের আকাশের গায়ে
হয়তো দেখিবে তাহারে এক শীতবিকেলে

কুয়াসায় ঢেকে মুখ এক সকাল উদ্ভাসে
মাঠের ওপারে শুয়ে থাকা আকাশে আকাশে

আকাশের কান্না ঝরে
মাঠের পরে , চারিদিক ঢেকে
ধুম পৌষের হীম
কুয়াসার ডানা মেলে আসে
কবেকার প্রাচীন এক পৃথিবীর পথ

শীত নিবারিতে উঠোনে উঠোনে
কাষ্ঠবহ্নি অনিবার উঠিতেছে জ্বলি

শীতের ঝরা পাতার মতো ভেসে
কি নিদারুন বয়ে চলে,
শ্রমজীবী মানুষের জীবন যাপন

টেনে আনে স্মৃতির অতল থেকে
দামাল সকাল, হারানো কৈশোর

আবৃত্তি করতে করতে ভালোলাগা এখানে লিখছিলেম। ধরিত্রীর নয়নকাড়া হাসি, কুয়াশার জরায়ু, শিরশির কাঁপন, অনাদরের শীত, ভেজা কলমির মেঠোপথ ... মনের পাত্রে তোলার চেষ্টা করলেম। আপনি আমাদের জন্য কষ্ট করে লিখেন। আর আমরা কী পারিনে এইটুকো করতে ? শ্রমজীবী মানুষের কৃতজ্ঞতা জানবেন।

১৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: অন্ধবিন্দু ,



আমার নিজের লেখা কবিতা থেকে কতকাংশ তুলে ধরে যে সম্মানটুকু দেখালেন মন্তব্যের ঘরে তাতে কৃতজ্ঞ হয়ে থাকতেই হয় ।
ভালো থাকুন আর রসে টৈ-টুম্বুর ....

শুভেচ্ছান্তে ।

৪৯| ১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:১১

গুলশান কিবরীয়া বলেছেন: অসাধারণ সুন্দর একটি পোস্ট । ব্রিলিয়ান্ট ছবি কালেকশন আর শীতের বর্ণনাসহ আবৃতি - অনেক ভালো লাগলো । প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য আমাকে ভীষণ টানে , তারপর এত সুন্দর বর্ণনা হলে তো পাগল হয়ে যাই ।

অনেক অনেক শুভকামনা রইল আপনার জন্য । ভালো থাকুন ।

১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৩৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: গুলশান কিবরীয়া ,



এমন অসাধারন একটি মন্তব্যের জন্যে কৃতজ্ঞতা জানালুম ।
আপনার নাম যেহেতু "গুলশান" সেহেতু প্রকৃতির সৌন্দর্য আপনাকে ভীষণ টানবেই । টানবে সকল সুন্দর কিছুই ।

আপনার জন্যেও শুভকামনা । সাথেই থাকুন বসন্তের আমেজটুকু পেতে ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৫০| ১৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০৫

আমি নাহিয়ান বলছি বলেছেন: দারুন লাগলো।।

১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৪২

আহমেদ জী এস বলেছেন: আমি নাহিয়ান বলছি ,



আমার ব্লগে স্বাগতম ।
ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্যে । সাথেই থাকুন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৫১| ১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১০

কিরমানী লিটন বলেছেন: চমৎকার সব ছবি আর নান্দনিক বর্বণায় অসাধারনভাবে শীতকে তুলে ধরেছে, অনেক অভিবাদন প্রিয় আহমেদ জী এস ভাইয়াকে, নিরন্তর শুভকামনা আপনার জন্য, সাথেই থাকতে চাই-সুন্দরের ...

১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: কিরমানী লিটন ,



সাথেই থাকতে চাই-সুন্দরের ... এ কথাটি বলে আপনার সুকুমার মনোবৃত্তির ছবিই তুলে ধরলেন ।
সুন্দরের সাথেই থাকুন , সুন্দর হয়েই বাঁচুন , সুন্দর হয়ে ফুঁটে উঠুন ।

সব সময়ের শুভকামনা আপনার জন্যেও রইলো ।

৫২| ২১ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:১৫

অভ্রনীল হৃদয় বলেছেন: চমৎকার সব ছবি আর বর্ণনা। ভালো লাগা রইলো। :)

২২ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: অভ্রনীল হৃদয় ,


সম্ভবত আমার এখানে প্রথম এলেন । স্বাগতম ।
আপনার ভালো লেগেছে জেনে আমারও ভালো লাগলো ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৫৩| ২২ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৯

ফাহমিদা আফরোজ নিপু বলেছেন: এবং আরো একবার আহমেদ জী এস এর মন রাঙানো শীতের গায়ে লেখার চাঁদর মোড়ানোর সুনিপুণ দক্ষতা প্রমাণিত হলো অন্ধকারের জরায়ু ছিঁড়ে যেমন করে সূর্য প্রসূত হয়!!

কেমন করে পারেন ভাই?! মাথায় আঁটতেই চায় না এত এত কথা, আর আপনি কিনা ঝুঁড়ি সাজিয়ে বিতরণে বসেছেন!! চমৎকার লাগলো... সত্যিই!

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:৪০

আহমেদ জী এস বলেছেন: ফাহমিদা আফরোজ নিপু ,



চমৎকার লাগলো আপনার মন্তব্যখানি ।
আমি না হয় ঝুঁড়ি সাজিয়ে এত এত কথা বিতরন করছি আর আপনি তো চুড়ির রিনিঠিনি দিয়ে সুন্দর এই মন্তব্যটি করে গেলেন ।
সকালের শুভেচ্ছা ।

৫৪| ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৪৯

লেখোয়াড়. বলেছেন:
চারিদিকে বড্ড শীত যে!!
এই পোস্ট সরিয়ে একখানি উষ্ণতামাখা পোস্টের অভাববোধ করছি।
আর তাছাড়া এই পোস্টের বয়স তো আর কম হলো না!!

বৎসরের শেষ আর শুরুতে একখানি "অলঙ্কারিক" পোস্ট আপনার নিকট থেকে পেতেই পারি।
নাকি???????

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: লেখোয়াড়. ,



শীত তো লাগবেই । এই পোষ্টখানি দিয়েই তো শীত নামিয়ে দিলুম ।
আর একখানা পোষ্ট পেতেই পারেন তবে এই পোস্টখানি সরিয়ে নয় , এর গায়ের উপর দিয়ে বাসন্তী চাদরের উষ্ণতা জড়িয়ে । সেই পোষ্টটি দিলেই ঘুমচোখ মেলেই দেখবেন - বসন্ত জাগ্রত দ্বারে ।
আর সে বসন্তের ছোঁয়া লাগবে আপনার প্রানেও.................

৫৫| ০৩ রা জানুয়ারি, ২০১৬ সকাল ১১:৪২

নীল-দর্পণ বলেছেন: পোষ্টটা দেখটে দেখতে মনে হচ্ছিল যেনো আমার ছোট্টবেলায় ফিয়ে গেছি।

খুবই চমৎকার একটা পোষ্ট ++

০৩ রা জানুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: নীল-দর্পণ ,



আমার "পালাবদলের দিন" সিরিজ থেকে ঘুরে এসেছেন জেনে কৃতজ্ঞ ।
প্লাস দেয়াতে অসংখ্য ধন্যবাদ ।
সাথেই থাকুন আগামীতেও ।

শুভেচ্ছান্তে ।

৫৬| ১০ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪৩

বিদ্যুৎ বলেছেন: কি বলব বুঝতে পারছিনা। অসম্ভব সুন্দর ও মন মুগ্ধকর। যেমন ছবি তেমনি সাথে বর্ণনা। ধন্যবাদ সুন্দর লেখার জন্য। সব সময় শুভ কামনা।

১২ ই জানুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: বিদ্যুৎ ,



সু-স্বাগতম আমার ব্লগে ।
মন্তব্যের জন্যে কৃতজ্ঞ ।
আপনার জন্যেও রইলো নিরন্তর শুভকামনা ।
সাথে থাকুন , ভালো থাকুন ।

৫৭| ১০ ই জানুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:১৪

দিশেহারা রাজপুত্র বলেছেন: ছবিগুলোর ভারসাম্য অসাধারণ। কিছু শীতেও উষ্ণতা দিল তেমন কিছু শীতের অনুভব বাড়িয়ে দিল শতগুণ। কিছু ছেলেবেলা মনে করিয়ে দিল তো কিছু ছেলেবেলার কষ্ট তুলে ধরল। তবে সবমিলিয়ে জায়গা করে নিল প্রিয়তে।

বর্ণনার অসাধারণত্ব পোস্টি দীর্ঘ না হওয়ায় আক্ষেপের জন্ম দিল।

ভালো থাকবেন ভাইয়া। সতত।

৫৮| ১০ ই জানুয়ারি, ২০১৬ রাত ১০:৪৬

এহসান সাবির বলেছেন: কয়েক দিনের মধ্যে শীত উদযাপন করতে গ্রামে যাব। নীপা ভাইরাস ভয়ে তো এখন সবাই খেজুরের রস খাওয়া ছেড়েই দিয়েছে।


পোস্টে +++++++++++++

৫৯| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সকাল ৯:১০

আহমেদ জী এস বলেছেন: দিশেহারা রাজপুত্র ,




প্রচন্ড দুঃখিত , সম্ভবত আমার ডেক্সটপেরই সমস্যার কারনে কোন মন্তব্য করতে পারছিলুম না । আপনার মন্তব্যের ঠিক নীচেই জবাবটি দিতে পারছিনে কিছুতেই । "মন্তব্যটিতে উত্তর দিন" এই বাঁকা তীর চিহ্ণটিতে ক্লিক করলে কিছুই আসছেনা । তিন - চার দিন যাবৎ গুতোগুতি করেও ফল না পেয়ে তাই এভাবেই মন্তব্যের জবাব দিতে হচ্ছে ।
পোষ্টটি বড় করিনি একারনে যে , ছবি সহ বেশ লম্বা হয়ে যাবে আর আপনাদের অনেকেই সেটা ছুঁয়ে দেখবেন না । এই ভয়ে ।
আপনার অতৃপ্তি থেকে গেলো বলে কুন্ঠিত হলুম ।

শুভেচ্ছান্তে । ভালো থাকুন ।

৬০| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সকাল ৯:২৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: এহসান সাবির ,




প্রচন্ড দুঃখিত , সম্ভবত আমার ডেক্সটপেরই সমস্যার কারনে কোন মন্তব্য করতে পারছিলুম না । আপনার মন্তব্যের ঠিক নীচেই জবাবটি দিতে পারছিনে কিছুতেই । "মন্তব্যটিতে উত্তর দিন" এই বাঁকা তীর চিহ্ণটিতে ক্লিক করলে কিছুই আসছেনা । একটি স্পেস নীচে নেমে যাচ্ছে শুধু কোনও বক্স আসছেনা । (ভাইরাস ?) তিন - চার দিন যাবৎ গুতোগুতি করেও ফল না পেয়ে তাই এভাবেই মন্তব্যের জবাব দিতে হচ্ছে ।


পোষ্টে প্লাস দেয়ার জন্যে ধন্যবাদ ।

সাবধানে থাকুন দেশের মাটিতে গিয়ে । মঙ্গল কামনায় ।

৬১| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সকাল ৯:৫২

লেডি বার্ড বলেছেন: ছবি কালেকশটা দারুন হইছে। একটা ছবি তোলার দুনালা বন্দুক কিনে, পোকারও এমন ছবি তোলার ইচ্ছা জাগে। B-)

পোষ্টে লাইক দিলাম।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সকাল ১০:৩২

আহমেদ জী এস বলেছেন: লেডি বার্ড ,



স্বাগতম ।
আজকাল দোনালা বন্দুকে কাজ হয় কি ? এখন তো একে ৪৭ .....ঠ্যা..ট্যারররররররররর ! :P
পোকারও এমন ছবি তোলার ইচ্ছা জাগার কথা নয় , বরং ছবি কেটে ফেলার ইচ্ছা জাগার কথা । :(
সাথে থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

৬২| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৫৫

টয়ম্যান বলেছেন: ছবিগুলান দারুন B-) জিএস ভাই আইজ কিন্ত ৩০শে পৌষ ;) +++++++++++

১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:২৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: টয়ম্যান ,



আপনাকে স্বাগতম আমার ব্লগে ।
হ্যা হ্যা জানি । মাঘ শুরু হবে । গোছাচ্ছি ।
অসংখ্য ধন্যবাদ প্লাস দিয়েছেন বলে ।

সাথে থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

৬৩| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৬ রাত ৮:৪৮

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: আর মনের তেষ্টা মিটিয়ে খেয়ে যান শীতের পিঠে । আপনার কথামত প্রথম ক'য়েকদিন পিঠার দাওয়াত খেতে খেতে ব্লাড সুগার ১১র নিচে নামছে না আবার লোভও সামলাতে পারছি না =p~ ।। তাড়াতাড়ি উপায় বাৎলে দিন।।
তবে সেই পুরাতন ঢাকার জ্যাম,খানা-খন্দ,হর্নের বিকট সুরে বিরক্তি লাগলেও একধরনের আনন্দ খুজে পাচ্ছি।।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ২:৪১

আহমেদ জী এস বলেছেন: সচেতনহ্যাপী ,



হা..হা....হা... লেভে পাপ আর পাপে ব্লাড সুগার আপ ! :-B
সাম্‌হালকে ....
উপায় একটা-ই, আমাদের সাথে নিয়ে শীতের পিঠে খাওয়া । তাতে আপনার ভাগে কম পড়বে আর আপনার ব্লাড সুগার তেল পিছল বাঁশ বেয়ে তরতর করে নীচে নেমে যাবে । :P

ইনহাস্ত ওয়াতানাম ....
দেশের দিনগুলো নিরাপদে কাটুক আপনার ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৬৪| ১৫ ই মার্চ, ২০১৬ রাত ১২:৩১

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: পুরো শীতকালটাই কাটিয়ে এলাম কিন্তু সত্যি বলতে ছোটবেলার সেই আমেজটা পেলাম না।। পিঠা-চিঠা যথারীতি চলেছে তবুও।।
আমদের সাথে সাথে কি ভৌগলিক পরিবেশও বদলাচ্ছে বোধহয়।।[/sb
তবে ছবিগুলি দারূন লেগেছে।।

১৫ ই মার্চ, ২০১৬ রাত ১১:২৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: সচেতনহ্যাপী ,



আবারো এলেন । বোধহয় কিসের একটা টানে ।
হ্যা............... কোথায় হারিয়ে গেছে সোনালী বিকেলগুলো সেই..........................!

৬৫| ২৭ শে মে, ২০১৬ রাত ৯:৪১

কালনী নদী বলেছেন: “ সুখ তুমি কি বড় জানতে ইচ্ছে করে
আমার জানতে ইচ্ছে করে
্কো একা অন্ধকারে খোজি তোমারে . . .

আমার অনেক প্রিয় একটি গানের কলি ভাইয়া্।

০৪ ঠা জুন, ২০১৬ দুপুর ১২:০৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: কালনী নদী ,




সামুর টেকনিক্যাল কারনে মন্তব্যটি দেখতে দেরী হয়ে গেলো ।
উত্তর ও দেরীতে তাই ।

সুখকে অন্ধকারে একা একা খুঁজে পাবেন না যদি না কেউ সঙ্গী থাকে ..............

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.