নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ট্রুথ নেভার ডাই্‌জ

নিজের সম্পর্কে লেখার কিছু নেই । সাদামাটা ।

আহমেদ জী এস

পুরোপুরি একজন অতি সাধারন মানুষ । আমি যা আমি তাই ই । শয়তানও নই কিম্বা ফেরেশতা । একজন মানুষ আপনারই মতো দু'টো হাত, চোখ আর নিটোল একটা হৃদয় নিয়ে আপনারই মতো একজন মানুষ । প্রচন্ড রকমের রোমান্টিক আবার একই সাথে জঘন্য রকমের বাস্তববাদী...

আহমেদ জী এস › বিস্তারিত পোস্টঃ

নিলীমা বোঝেনা, বুকের মাঝপুকুরে ঘাঁই মারে পোনামাছ .....

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:০০



নিলীমা বোঝেনা । বোঝেনা ।
বোঝেনা বলেই নিলীমা হুটহাট হারিয়ে যায় এদিক সেদিক । ভ্রমর পাখনা মেলে ঘরের আগল খুলে আলটপকা কই কই যে যায় ! সন্ধ্যেবেলার অপেক্ষা রাতে গড়ায় । নিলীমা ফেরেনা । কোন তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে সে কখন কোথায়, কোনখানে ! এদিকে পূর্ণিমায় যে নোনা গাঙে জোয়ার উথলায় , মাঝ পুকুরে ঘাঁই মারে পোনামাছ তার টুকটাক গল্প অজানা থেকে যায় নিলীমার কাছে । নিলীমার এই না থাকা যে বুকের গাঙে , মনের পুকুরেও কষ্টের ঘাঁই মেরে যায় তার ব্রাত্যসঙ্গীত এক তুড়িতে উড়িয়ে হররোজ তার কিন্নরী পায়ের ঝঙ্কার সরে সরে যায় দূর থেকে আরও দূরে ...... !
নিলীমা বোঝেনা , যে ভাঙা জমিনে তার পরাগায়ণ সে জমিন পড়ে থাকে একা এবং একাকী অনাবাদি । একটুখানি জলে তার গতর যে লাউডগার মতো লকলকিয়ে উঠতে পারে বোঝেনা সে, বোঝেনা ! সে জমিনের ভাঙা শরীরের ভেতরেও কোথায় কাউকে মুগ্ধ করার মতো আস্ত একখানা মন যে বসে থাকতে পারে, খুলে রাখতে পারে উদোম বুক,বইয়ে দিতে পারে উথাল পাথাল ভালোবাসা নিলীমা বোঝেনা তা-ও ! নিলীমা বোঝেনা, সেখানেই আছে তার দু’দন্ড জিরোবার ঠাঁই, বসে থাকা চুপচাপ,সবই । সেখানেই বাঁধা আছে তার ভালোবাসার ময়ুরপঙ্খি নাও, আছে ঘাট ,পারাপারের মাঝি ।

তবুও ফাজিল একটা পাখির মতো টুক করে ডেকে নিলীমা পূবে উড়ে যায় । এ তার নিত্যদিনের চর্চিত কানামাছি -ভো -ভো খেলা । তার নি-আঁচল শরীরের পালে বাউল হাওয়া লাগিয়ে সে তখন দিগ্বিদিক। ভাঙা জমিনের সিক্ত ভালোবাসা সে বাউরি হাওয়ার ঝাপটায় শুকিয়ে যেতে চায় । ভরা চৈত মাসের খরা ভর করে যেন ভাঙা জমিনের আলে, এক অকালে। থোকায় থোকায় ধরে কষ্টের গোটা গোটা বেতফল !

নিলীমা পরিযায়ী হয়ে ওঠে । থিতু হয়না কোথাও । এ যেন তার অনেককালের অর্জিত অভ্যেস ।

নিলীমা বোঝেনা , কোথায় তার সেই জোনাক জ্বলা রাত । অন্ধকারে পিদিম জ্বালা গাঁয়ের মেঠোপথে কি করে হাটতে হয়, হাতে রেখে হাত ! বোঝেনা কোথায় বা সেই ছায়া সুনিবিড় হিজল গাছের তল ! শিশির ভেজা ভোরের দূর্বাঘাসের দল হাতে তুলে দিলেও নিলীমা বোঝেনা, এ যে তার মেখলা কুন্তল । দীর্ঘদিন প্রতীক্ষায় থাকার পরে এ যে তার প্রাপ্তি , সে প্রাপ্তির ধানিস্বাদও বোঝেনা সে ।
অবুঝ নিলীমা ছুটে চলে পথ থেকে পথে, নিশিন্দির ডাক ডেকে যায় । ধরা দেয়না । লুটানো শাড়ীর আঁচলের মতো ভোরের ভ্যাবলা রোদ্দুর তখন লুটিয়ে থাকে জানালায় । ঝুলবারান্দায় বসে থাকে ন্যাতানো বিকেল । বিপুল স্তনের মতো তুলতুলে, কামজর্জর উদ্ধত রাত ফনা তোলে । সে রাত উজিয়ে টেরি কেটে দাঁড়ায় এসে আর এক ভদ্রবেশী ভোর । মালয় সাগর থেকে নীমোর প্রান্তর ঢুঁড়েও দেখা মেলেনা নিলীমার।
নিলীমা বোঝেনা প্রতীক্ষা শুধু কতো কষ্টের ।

লাঙল চষে চষে ভাঙা জমিনের অতল থেকে খুঁড়ে তোলা এসব কথারা নিলীমার চেতনবৃক্ষের ডালে ডালে কখনও দোলা দিয়ে গেছে কিনা তা নিলীমার খেড়োখাতায় লেখা হয়নি কস্মিনকালেও । নিলীমা বোঝেনা, হৃদয়ের নিলয় থেকে ঝর্ণার মতো অঝোর বেয়ে বেয়ে সে রঙিন কথারা যে তার ধমনীর হেই সুদূর-সর্পিল পথ পাড়ি দিয়ে দিয়ে ক্লান্ত ।
জীবনবোধের অনভিজ্ঞতা থেকেই নিলীমা বুঝি অপরিতোষণীয়া হয়ে ওঠে । গাছের আপেলটাকে জীবনভর সে যে গাছেই ধরে রাখতে পারবেনা, নিলীমা বোঝেনা তা । মধ্যাকর্ষন যে অমোঘ এক নিয়ম বোঝেনা নিলীমা ।

চোখে চোখ রেখে বোঝাতে হয় । বড় অবুঝ চোখ নিয়ে তাকিয়ে থাকে নিলীমা । যেন রূপকথার এক গল্প শুনে ফেলেছে সে । তার জন্যে তুলে রাখা সব শব্দরা তখন গোসসা করে । সব কিছু যে সব কিছুর মতো হয়না, নিলীমা বোঝেনা । এই মায়াটুকুই যে আমাদের নুন-লঙ্কা ! আর তখনই নিঃসংসার সাধু হয়ে উঠতে ইচ্ছে করে । কাঁধে বোঁচকা-পুটুলী, দু’প্রস্থ জামা, জীর্ণ তোয়ালে আর কিছু টুকিটাকি নিয়ে হাটতে হাটতে সমুদ্রকে দূরাগত করে তুলি । সমুদ্দুরের বিপরীতে জলাভূমি, ঢিবি, এবরো থেবরো কন্টকময় পথ, অনুচ্চ পাহাড় ডিঙোই গৌরিক সাধু বেশে । তবুও সাধু কি হওয়া যায় ? সাধু সাজা যায় , সাধু হওয়া যায় না !

নিলীমাকে বোঝাই , সাধু হতে গিয়েও সাধু হয়ে ওঠা হয়না আমার ! গৃহীমানুষের পিঞ্জরের রোজকার কবাট খুলে ভারী গতরের দেমাগ নিয়ে হুটহাট সেই যে নিলীমা অনায়াস বেড়িয়ে যায় , নিলীমা বোঝেনা লোডশেডিং হয়ে যায় তাবৎ গৃহে গৃহে । হুলুস্থুলু লেগে যায় তামাম পৃথিবীতে ।

নিলীমা কেন যে বোঝেনা !!!!!!!!!!!

মন্তব্য ৬৩ টি রেটিং +২২/-০

মন্তব্য (৬৩) মন্তব্য লিখুন

১| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:৫৬

আলোরিকা বলেছেন: একটি দীর্ঘ গদ্য কবিতা পড়লাম । দীর্ঘ বলছি একারণে যে পড়তে কবিতার মত লেগেছে কিন্তু এজন্য পড়তে খারাপ লাগেনি বা একটুও ছন্দ পতন হয়নি ! +++++

শুভ কামনা :)

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: আলোরিকা ,


ধন্যবাদ এতো দীর্ঘ কবিতা পড়ার জন্যে আর তাতে লাইক দেয়াতে । কিন্তু এটা যে কবিতা নয়, আলোরিকা ! এটা যে মুক্তগদ্য ।
এরকম গদ্যে শব্দের অলংকরনে থাকতে হয় তাতে এবং একটি লুকায়িত বক্তব্যও থাকতে হয় । খুঁজে নিতে হয় তাকে ।
তেমন পাঠকের কাছে এর রস-গন্ধ আলাদা ।
ভালো লাগলো জেনে যে , তেমন রস-গন্ধের স্বাদ পেয়েছেন আপনি ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:২১

এডওয়ার্ড মায়া বলেছেন: আমি নিশ্চিত - নীলিমা এই লেখা পড়ার পর সে বোঝবে =p~ =p~
নীলিমা লিখবে -আমি বোঝেছি ,বোঝেছি =p~

জী এস দা,শব্দের খেলা দারুন ।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: এডওয়ার্ড মায়া ,



হা....হা....হা.... নিলীমারা একথা বুঝবে না কোনদিন । মনে হবে যেন রূপকথার এক গল্প শুনে ফেলেছে সে ।এসব কথারা নিলীমার চেতনবৃক্ষের ডালে ডালে কখনও দোলা দিয়ে গেছে কিনা তা নিলীমার খেড়োখাতায় লেখা হয়নি কস্মিনকালেও ।

হ্যাঁ... শব্দের খেলাই তো খেলতে হয় মুক্তগদ্যে । এরকম গদ্যে শব্দের অলংকরনে থাকতে হয় দারুন ভাবে ।

ধন্যবাদ, মন্তব্যের জন্যে ।

৩| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৫:২৫

মহাশূন্যের শূন্যস্থান বলেছেন: বেশ লাগলো দাদা, যদিও দীর্ঘ

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:৩২

আহমেদ জী এস বলেছেন: মহাশূন্যের শূন্যস্থান ,



আমার ব্লগে স্বাগতম ।
এটা কবিতা নয় যে, সে তুলনায় দীর্ঘ । কবিতার শরীরের ভাজ আলাদা । এমন একটানা নয় । এটা মুক্ত্যগদ্য । এরকম গদ্যে শব্দের অলংকরনে থাকতে হয় তাতে এবং শূন্যস্থান এর মতো একটি লুকায়িত বক্তব্যও থাকতে হয় । খুঁজে নিতে হয় তাকে ।

মন্তব্যে ধন্যবাদ । সাথেই থাকুন ....

৪| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৫৬

ক্লে ডল বলেছেন: শব্দের কারুকাজ বড়ই গর্জিয়াছ হয়েছে!! :)

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:০৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: ক্লে ডল ,



অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে ।
শব্দের কারুকাজ গর্জিয়াছ হয়েছে, তাতেও যদি নিলীমা বুঝে উঠতে পারে !!!!!!!!!!!

৫| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৪১

সুমন কর বলেছেন: কেন যে নিলীমা'রা বোঝেনা !!! মুক্ত গদ্য পড়তে বেশ লাগল। যদিও এ বিষয়টি আমার কাছে কঠিনই লাগে তবুও আপনি সুন্দর করে লিখেছেন।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:৩৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: সুমন কর ,



মুক্তগদ্য তেমন কঠিন কিছু নয় আপনার মতো সাহিত্যমনষ্ক কারো কাছে । মুক্তগদ্যে শব্দের অলংকরন থাকতে হয় এবং একটি লুকায়িত বক্তব্যও থাকে তাতে । খুঁজে নিতে হয়, এই আর কি !

ভালো লাগলো আপনার উপস্থিতি । শুভেচ্ছান্তে ।

৬| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:০৫

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: কাব্যিক গল্প ভাল লেগেছে । বেশী ভাল লাগল শেষের কথা কয়টি নিলীমাকে বোঝাই , সাধু হতে গিয়েও সাধু হয়ে ওঠা হয়না আমার ! গৃহীমানুষের পিঞ্জরের রোজকার কবাট খুলে ভারী গতরের দেমাগ নিয়ে হুটহাট সেই যে নিলীমা অনায়াস বেড়িয়ে যায় , নিলীমা বোঝেনা লোডশেডিং হয়ে যায় তাবৎ গৃহে গৃহে । হুলুস্থুলু লেগে যায় তামাম পৃথিবীতে ।
ধন্যবাদ সাথে শুভেচ্ছা রইল ।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ডঃ এম এ আলী ,



এ ও তো এক যক্ষের হা-হুতাশ ! কিন্তু আমার সেই ক্ষমতা নেই যে নিলীমার জন্যে মেঘদল পাঠাতে পারি ! তাই এভাবে শব্দের মেঘ সাজাই ।

অনেক ভালো লাগলো মন্তব্য । শুভেচ্ছান্তে ।

৭| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:০৭

প্রামানিক বলেছেন: কাব্য কথায় ভরপুর। খুব ভালো লাগল। ধন্যবাদ

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৩৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: প্রামানিক ,



আপনাকে দেখে ভালো লাগলো । ভালো লাগলো মন্তব্যটুকুও ।
সব সময় সাথে থেকে উৎসাহ দেয়ার জন্যে ধন্যবাদ ।

৮| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১১:৫৩

ভ্রমরের ডানা বলেছেন:

নীলিমারা আসলেই বোঝে না! আলগা বাঁধন খোঁপায় যে ফুল ফোটে, এলোকেশী মনের কদরে কি সে? নীলিমারা জানে, কবিতার কবি, রাতের রূপোলি চাঁদেরহাটে জোছনা বিকিয়েছে সের দর দামে যা চেয়েছিল একা। শুধু একা, একান্ত করে। যে ফুল ফোটে সুভাষিত হয়ে, ঝিলম বাদাড়ে খেলে জলকেলি জল, সে ফুল নীলিমার বেনুনীগাঁথন! দুর্বার ঘাসে যার কুন্তল প্রেম, ম্যাগনোলিয়ায় তার কিবা যায় আসে! আধুনা ফুলের গলিজ নীলিমারা বোঝে না।

বিশ্বাস করুন আর নাই করুন আমি নীলিমার প্রেমে পড়ে গেলাম! অসম্ভব মিষ্টি মিষ্টি উপমায় মন মাতানো লেখা। প্রতিটি লাইনে লাইনে মমতার চাদর। নীলিমার নির্লপ্ততা মুক্ত ডানায় মেলে পাঠকের মনে এক ধিঙ্গী দিগন্তবৃত্ত! ঠিক যেন ফাজিল পাখির মত!


সোজা প্রিয়তে! লেখায় চার তারকা প্লাস ++++

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:১৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: ভ্রমরের ডানা ,




এইত্তো সাইচ্চে... মাইচ্চে !!!!!!! :(

এতো সুন্দর করে করা মন্তব্যটি যদি নিলীমা দেখেই ফেলে তবে আমার কি হবে , একবার ভেবেছেন ?
বিনুনী দুলিয়ে, ফুল গন্ধে সুবাসিত হয়ে নিলীমা তো একদৌড়ে আপনার বুকের মাঝগাঙে ঝাঁপ দিয়ে পড়বে ।
আমার জন্যে তো কপাল চাপড়ানো ছাড়া কোনও রাস্তা খোলা রাখলেন না আপনি !!!!!!!!!!!!!! :((
এতো নিষ্ঠুর হতে হয় ?

তারপরে আবার নিয়েছেন প্রিয়তে ! পড়েছেন নিলীমার প্রেমে । আমার আমও গেলো , ছালাও গেলো বোধহয় । B-))

অমন মন্তব্যে এর চেয়ে আর অন্যকোনও ভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা খুঁজে পাইনি ।

মন্তব্যে +++++

৯| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১২:০১

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: আশা করি,নীলিমা লেখাটা পড়বে
অতঃপর অবশ্যই আপনাকে খুঁজবে।

মুক্ত্যগদ্য সুন্দর লিখেছেন।

ভালো থাকুন।

++++

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:৫৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: শাহরিয়ার কবীর ,




নিলীমা কোনদিন এ লেখাটি পড়বেন কিনা জানিনে তবে আপনি যে পড়েছেন তাতেই খুশি ।
লেখকের এটুকুই তো প্রেরনার যখন পাঠক তাকে বলেন , সুন্দর ।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা । আর ভালো থাকুন আপনিও ।

১০| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১:২৩

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ সুন্দর প্রতিমন্তব্যের জন্য । অাজকালকার যুগে মেঘদুতের প্রয়োজন কি আছে !! , দুরালাপন, ফেবু , স্কাইপ , টাংগু কত কিইতো আছে এখনকার যক্ষদের জন্য :)
শুভেচ্ছা রইল ।

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:৩০

আহমেদ জী এস বলেছেন: ডঃ এম এ আলী ,



আপনার এই ধরনটি সুন্দর, প্রতিমন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে যাওয়া ।

হা........হা............হা............. আজকাল আর মেঘদুতের প্রয়োজন নেই বলেই দ্রুতগতির দুরালাপন, ফেবু , স্কাইপ এ এখনকার যক্ষদের ( যক্ষ নয় ভক্ষ ) দ্রুত ভাবেই ওটা হয়ে যায় আবার ততোধিক দ্রুততার সাথে হারিয়েও যায় । ;)

ভালো থাকুন দিনভর ।

১১| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১:৪১

দিশেহারা রাজপুত্র বলেছেন: শুরু থেকে শেষোবধি ছন্দের ছড়ি ঘুরতে দেখলাম। কিছু লাইন দীর্ঘ হলে শব্দসজ্জা আর ছন্দিত হওয়ায় পড়তে কোন সমস্যাই হয় নি। +

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: দিশেহারা রাজপুত্র ,




আপনি তো ছন্দের ছড়ি ঘুরতে দেখলেন ! আর আমরা যে পেজ লোড হবার চরকী ঘুরতে দেখছি ... দেখছি তো দেখছিই ............
কি যে দীর্ঘসূত্রিতা । দিশেহারা হয়ে গেলেও পোস্ট পড়তে , মন্তব্য করতে জটিল সমস্যায় পড়তে হচ্ছেনা । ;)

মন্তব্য ভালো লাগলো । সাথে থেকে আগলে রাখার জন্যে ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

১২| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৩:৪৮

রক্তিম দিগন্ত বলেছেন:
এটা কি গল্প নাকি কবিতা?

আমার তো মনে হল কাব্যিক ধারায় একটা গল্প পড়লাম। বেশ আবেশিত ভাব, শব্দের ব্যবহারে মুগ্ধ। ভাল লাগলো বেশ।

নিলীমা বুঝবে কীভাবে - তার তো খেয়াল উড়ে চলায়।


+

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৩:২২

আহমেদ জী এস বলেছেন: রক্তিম দিগন্ত ,



এটা একটি মুক্তগদ্য । উপরের প্রথম মন্তব্যের জবাবে একথা বলেছি । তবুও আপনার জন্যে বলি ---
মুক্তগদ্যে শব্দের অলংকরন থাকতে হয় । তাতে একটি লুকায়িত বক্তব্যও থাকে । একটি বক্তব্যকে ঘিরে শব্দের ফেনিয়ে ওঠা । যাকে খুঁজে নিতে হয় ।
তেমন পাঠকের কাছে এর রস-গন্ধ আলাদা ।

হা...হা... নিলীমার বোঝার উপায় নেই । যার খেয়াল উড়ে চলায়, সে তো রক্তিম দিগন্তের পানেই ধায় ।
সে কি আর মাটির কাছাকাছি হয় ?

ধন্যবাদ সুন্দর একটি মন্তব্যের জন্যে ।

১৩| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ ভোর ৬:১৬

সোহানী বলেছেন: সত্যিই তো নিলীমা কেন যে বোঝেনা !!!!!!!!!!!........

আরে দারুনতো গদ্যের কবিতা +++++++++++++++

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: সোহানী ,



নিলীমারা বোঝেনা তা হয়তো নয় । আসলে নিলীমারা বুঝেও না বোঝার ভান করে এই আর কি !!!!!!

এ তো গদ্য কবিতা নয় , মুক্তগদ্য এর নাম । একটি বক্তব্যকে ঘিরে শব্দের ফেনিয়ে ওঠা । গদ্যের মতো আটপৌরে নয় । জামদানী শাড়ীর বনেদীয়ানায় ঢাকা ।

মন্তব্য ও প্লাস দেয়াতে অনেক ধন্যবাদ ।
ভালো থাকুন আর সাথেই থাকুন ।

১৪| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ ভোর ৬:২৬

অরুনি মায়া অনু বলেছেন: নিলীমা দেখছি বড্ড অবুঝ। বোঝেনা সে বোঝেনা। নাহ তাকেতো এবার বুঝাতেই হবে।

০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:২৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: অরুনি মায়া অনু ,



কি করে বোঝাবো নিলীমাকে ? সে তো ফাজিল একটা পাখির মতো টুক করে ডেকে উড়ে যায় এদিক থেকে ওদিক । না দেয় ধরা , না থিতু হয় কোথাও । পিঞ্জরের কবাট খুলে ভারী গতরের দেমাগ নিয়ে হুটহাট শুধু এ ডাল থেকে ও ডালে ঘুরে ঘুরে মরে !

ধন্যবাদ সাথে থাকার জন্যে ।

১৫| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ৯:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:


শিরোনাম ভালো লাগেনি, তাই পড়ে দেখলাম

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:২২

আহমেদ জী এস বলেছেন: চাঁদগাজী ,




শিরোনাম ভালো লাগেনি , তারপরেও পড়ে দেখলেন ! কি বলা যাবে আপনাকে ? ধন্যবাদ ? প্রীত হলুম ? কৃতজ্ঞ ?
আপনাকে সবটাই বললুম ।

তবে পড়ে কি মনে হলো ?
লেখকের মতোই ট্রাম্প আর হিলারী ও কি সাধু সাজতে চায় ? সাধু সাজা যায় , সাধু হওয়া যায় না !
তারাও কি নিলীমার মতো কিছু বোঝেনা ? :(

১৬| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৬

জুন বলেছেন: মুক্তগদ্য লেখায় আপনি যে দারুন সিদ্ধহস্ত তা আরেকবার প্রমানিত হলো নীলিমার জন্য আপনার আকুল করা এই লেখাটিতে আহমেদ জী এস। নিলিমা হয়তো অবুঝ, আর নাহয় এমন স্বভাবেরই যে কিনা ভাংগা জমিনে অপেক্ষায় পরে থাকা মানুষের কথা ধর্তব্যেই ধরে না। পোনা মাছের মত আপনার নীল দীঘিটিতে শুধু ঘাই দিয়েই যেন হারিয়ে না যায় এই প্রার্থনা রইলো। অচিরেই নিলীমা শিকলি কাটা পাখির মত একরাশ চঞ্চলতা ঝেরে ফেলে ফেলে আপনার খুব কাছের পাখি হয়ে থাকুক।
অনেক অনেক ভালোলাগা রইলো।
+
অনেক

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:১৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: জুন ,




প্রথমেই একটু সংশোধনী দিতে হচ্ছে । নীলিমা নয় আমার নায়িকার ব্রান্ডেড নেম হলো - নিলীমা

নুরজাহানের প্রেমে শাহজাহান একখানা তাজমহল গড়েছে । আর আমি নিলীমার জন্যে একখানা আকুল করা মুক্তগদ্য ও লিখতে পারবোনা ? তাই মনের মাধুরী মিশিয়ে লিখতে হয়েছে । কেন হয়েছে , তা তাজমহল দেখতে আসা এক প্রেমিক-প্রেমিকার কথোপকথনের আকারে এই শের ( শায়র) টিতে দেয়া আছে ---
" এক শাহেন'শা নে দওলৎ কি সাহারা লে কর
হম গরীবো-কো মুহব্বৎ কা উড়ায়া হায় মজাক ।
মেরা মেহবুব কাঁহি , কাঁহা আউর মিলা করো মুঝছে .."

তাই আমি না হয় নিলীমার জন্যে কাব্যের আলাদা এক তাজমহল গড়ে দিলুম ।

কিন্তু নিলীমা যে এসবের কিছুই বোঝেনা ! চোখে চোখ রেখে বোঝাতে গেলে বড় অবুঝ চোখ নিয়ে তাকিয়ে থাকে নিলীমা !
হায়....যদি নিলীমা আপনার এই লেখাটি দেখতো !!!! হয়তো সুউচ্চ আকাশের মিনার থেকে পাখা ঝাঁপটে শিকলি কাটা পাখির মতো নেমে আসতো বুকের মাঝপুকুরে ।

এমন প্রশংসার অকপট কথা নিয়ে করা আপনার এই মন্তব্যটি ভালো লাগলো অনেক ।
ভালো থাকুন আর বরাবরের মতোই সাথে থাকুন ।
শুভেচ্ছান্তে ।

১৭| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৫৭

সাহসী সন্তান বলেছেন: মুক্ত গদ্য? খুব ভাল লাগলো! লেখাটা গতকালই পড়ছিলাম, একটা লাইকও দিয়ে গিয়েছিলাম; খেয়াল করছিলেন কিনা জানি না। আসলে পরপর কয়েকবার মন্তব্য দিতে ট্রাই করার পরেও কৃতকার্য না হতে পেরে বিরক্তিতে হাল ছেড়ে দিয়েছিলাম! :(

এই ধরনের লেখা গুলো আপনি আসলেই খুব সুন্দর ভাবে ফুঁটিয়ে তুলতে পারেন জীএস ভাই! কিন্তু পাঠ শেষে দীর্ঘশ্বাস ছাড়া যে আর কিছুই বেরিয়ে আসে না! আসলেই যে নীলিমারা কেন বোঝে না? :(

চমৎকার লেখায় অনেক অনেক ভাল লাগা! শুভ কামনা জানবেন!

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:৩৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: সাহসী সন্তান ,



আপনার দেয়া লাইকটি প্রথমেই খেয়াল করেছি । অবাক হয়েছিলুম মন্তব্য নেই দেখে ।
অমন বিরক্তিতে ভুগছি আমিও । পেজ লোড হতে দেরী , মন্তব্য প্রকাশ হতে দেরী , চরকিটা শুধু ঘোরে আর ঘোরে ...
কি আর করা ! ব্লগটাকে তো আর ছেড়ে যেতে পারিনে , ঐখানে্‌ই তো আটকা পড়ে গেছি !

সুন্দর ভাবে ফুঁটিয়ে না তুললে আপনারা পড়বেন কেন তা ? তাই চেষ্টা করি আপনাদের মনের মতো, ভালো লাগার মতো লেখার । এ রকম করে সব সময় সাথে থাকেন বলে ধন্যবাদ ।
ধন্যবাদ মন্তব্যেও । ভালো থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

১৮| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ ভোর ৬:৪৮

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: "সব কিছু যে সব কিছুর মতো হয়না, নিলীমা বোঝেনা । এই মায়াটুকুই যে আমাদের নুন-লঙ্কা ! আর তখনই নিঃসংসার সাধু হয়ে উঠতে ইচ্ছে করে । কাঁধে বোঁচকা-পুটুলী, দু’প্রস্থ জামা, জীর্ণ তোয়ালে আর কিছু টুকিটাকি নিয়ে হাটতে হাটতে সমুদ্রকে দূরাগত করে তুলি । সমুদ্দুরের বিপরীতে জলাভূমি, ঢিবি, এবরো থেবরো কন্টকময় পথ, অনুচ্চ পাহাড় ডিঙোই গৌরিক সাধু বেশে । তবুও সাধু কি হওয়া যায় ? সাধু সাজা যায় , সাধু হওয়া যায় না !
নিলীমাকে বোঝাই , সাধু হতে গিয়েও সাধু হয়ে ওঠা হয়না আমার ! গৃহীমানুষের পিঞ্জরের রোজকার কবাট খুলে ভারী গতরের দেমাগ নিয়ে হুটহাট সেই যে নিলীমা অনায়াস বেড়িয়ে যায় , নিলীমা বোঝেনা লোডশেডিং হয়ে যায় তাবৎ গৃহে গৃহে । হুলুস্থুলু লেগে যায় তামাম পৃথিবীতে ।
নিলীমা কেন যে বোঝেনা!" বোঝেনা সে বোঝেনা!

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:৩৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: রূপক বিধৌত সাধু ,



হা..............হা.............ঠিক জায়গাটুকু তুলে এনেছেন ---সমুদ্দুরের বিপরীতে জলাভূমি, ঢিবি, এবরো থেবরো কন্টকময় পথ, অনুচ্চ পাহাড় ডিঙোই গৌরিক সাধু বেশে । তবুও সাধু কি হওয়া যায় ? সাধু সাজা যায় , সাধু হওয়া যায় না !

মন্তব্যের জন্যে ধন্যবাদ তবে, এখন আপনি বুঝেছেন কিনা সেটা বলেন ।

১৯| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ৯:৫৬

হাসান মাহবুব বলেছেন: দীর্ঘ লেখায় অলংকরনের সাথে আপোষ না করেও কীভাবে টিউন ধরে রেখে পাঠককে আবিষ্ট করতে হয় তার একটি সার্থক উদাহরণ এই লেখাটি /:)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: হাসান মাহবুব ,



বেশ ঋদ্ধ একটি মন্তব্য । অশেষ ধন্যবাদ এমন একটি মন্তব্যের জন্যে ।
ভালো থাকুন ।

২০| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ১১:২৮

সম্রাট৯০ বলেছেন: নিলীমারা সব বুঝে দাদা, নিলীমারা নিজেরাই পোনা মাছ হয়ে ঘাঁই মারে হাজার বুকের মাঝপুকুরে, ঘাঁই মেরে যাওয়ার জন্যই নিলীমাদের জন্ম, তবে আপনার নিলীমা যেন খুব তাড়াতাড়ি বুঝে যায়,দোয়া করি,


লেখায় ভালো লাগা

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: সম্রাট৯০ ,



বুঝেছি , পোনা মাছের ঘাঁই খাওয়া সম্রাট । :P
সম্রাটের রাজ্যে এমন অনাচার , তা ঐসব অনাচারীদের কেন রাজ্য ছাড়ার নোটিশ দেয়া হবেনা ? :(

নিলীমা তো বুঝেছে কিন্তু ঐ যে , এ তার নিত্যদিনের চর্চিত কানামাছি -ভো -ভো খেলা ।

ভালো লাগলো সুন্দর মন্তব্যখানি ও আপনার দোয়া ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২১| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:১৬

নীলপরি বলেছেন: ছবি আর লেখা দুটোই অসাধারণ লাগলো । ++

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:৪৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: নীলপরি ,




সাথে থাকার জন্যে ধন্যবাদ ।
মন্তব্যে প্লাস দেয়া আর লেখটিকে অসাধারন বলায় কৃতজ্ঞ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২২| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৪

জেন রসি বলেছেন: মুক্তগদ্যের ভেতরের গল্পটা বুঝার চেষ্টা করছি। ঠিক মত বুঝতে না পারলে পরে আমাকেও নীলিমার মত না বুঝার দলে যোগ দিতে হবে! :P

জীবনবোধের অনভিজ্ঞতা থেকেই নিলীমা বুঝি অপরিতোষণীয়া হয়ে ওঠে । গাছের আপেলটাকে জীবনভর সে যে গাছেই ধরে রাখতে পারবেনা, নিলীমা বোঝেনা তা । মধ্যাকর্ষন যে অমোঘ এক নিয়ম বোঝেনা নিলীমা ।

এটা বুঝে বলেই মনে হয় বাকি সব কিছু না বুঝার ভান করে!


আপনার লেখাকে সাহিত্যের আলোকে মূল্যায়ন করার যোগ্যতা আমার নেই । শুধু এটা জানি আমার পড়তে ভালো লাগে। :)

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:১৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: জেন রসি ,



মুক্তগদ্যের ভেতরে গল্প নেই , আছে একটি বক্তব্য । তা নিলীমার অবুঝপনা ।
আপনি তো আর নিলীমা নন ! আপনার না বুঝলেও চলবে । B-))

মন্তব্যের শেষের কথাটুকুর বিনিময়ে কি বলে যে ধন্যবাদ দেবো , বুঝে উঠতে পারছিনে ।
শুভেচ্ছা রাতের ।

২৩| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ৭:৪১

সম্রাট৯০ বলেছেন: হাহাহাহা জী এস বরাবরের মতই খুব ভালো বলেছেন।

তা ঐসব অনাচারীদের কেন রাজ্য ছাড়ার নোটিশ দেয়া হবেনা ? :(

সম্রাটের রাজ্য প্রবেশ করে যারা অনাচার করবে তাদের রাজ্য ছাড়া না করলে আমি সম্রাট হলাম কিভাবে? সম্রাটের রাজ্য অনাচার আর মিথ্যাবাদি নটাংকির কোন জায়গা নেই জী এস ভাই। :)

ভালো থাকবেন

১০ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: সম্রাট৯০ ,



প্রতিমন্তব্যের জন্যে ধন্যবাদ ।
ভালোই বলেছেন , আপনার রাজ্যে নওটংকির কোনও জায়গা নেই । একথা নিলীমাকে বলতে হবে, নওটংকি ছাড়ো , সম্রাটের হুকুম, নইলে ব্লগ মঞ্চে নওটংকি করলে ব্লগ ছাড়া করবে । :D

ভালো থাকুন আপনিও । শুভেচ্ছান্তে ।

২৪| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১:৫১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: নীলিমা , বোঝেনা সে বোঝেনা। =p~

১০ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১১:০০

আহমেদ জী এস বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন ,




নিলীমার বোঝার কথাও নয় । জীবনবোধের অনভিজ্ঞতাই এর জন্যে দায়ী ।
কি আর করা !!!!!!!!!! B:-)

ভালো থাকুন । শুভেচ্ছান্তে ।

২৫| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৬:৩৭

পুলহ বলেছেন: মুক্তগদ্য সবসময়েই কিছুটা কঠিন লাগে আমার কাছে; তাছাড়া তেমন জানিও না সাহিত্যের এ ধারা সম্পর্কে। 'মুক্তগদ্যে শব্দের অলংকরন থাকতে হয় এবং একটি লুকায়িত বক্তব্যও থাকে তাতে ।" -- জেনে ভালো লাগলো।
আরো কয়েকবার পড়তে হবে লেখাটা...
শুভকামনা ভাই।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:০৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: পুলহ ,



মনে হয় এর মধ্যে পড়ে ফেলেছেন ।
গদ্যটাকে মুক্ত করে দিতে হবে যাতে ভেসে ভেসে সুদূর পানে ধাঁইতে পারে ....

মন্তব্যে ভালোলাগা জানাচ্ছি ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৬| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৬

শরতের ছবি বলেছেন:



আমার মনে হয় নীলিমা বুঝে কিন্তু বোঝায় না । পড়তে পড়তে কখন যেন শেষ হয়ে গেল ,বুঝিনি । সবটুকু ভাল লাগা মিশে ছিল ।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:৩১

আহমেদ জী এস বলেছেন: শরতের ছবি ,



ঠিক ধরেছেন । বোঝে কিন্তু বোঝায় না , ঐ যে লিখেছি ------এ তার নিত্যদিনের চর্চিত কানামাছি -ভো -ভো খেলা ।

অদ্ভুত ভালো লাগলো আপনার এই মন্তব্য ।
শুভেচ্ছান্তে ।

২৭| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:১৮

জুন বলেছেন: এত্ত কইরা বুঝায় কইলেন মানে লেখলেন তাও সে কিচ্ছু বুঝে না :|| আমার মনে হয় আপনার নিলীমা একটা ছাগল ,
অট: সে কি ব্লগ পড়ে B:-) B:-/

১৮ ই নভেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:৩০

আহমেদ জী এস বলেছেন: জুন ,



সে ব্লগ পড়েনা মানে !!!!!!!!! :( বসে থাকে সারাক্ষন । এক জুন মাস থেকে শুরু করে পরের বছরের জুন মাস পর্য্যন্ত আর্থিক বচ্ছরের সব লেখা পড়ে । জুলাই মাস থেকে ব্লগে কি লেখা হবে তাও তার মুখস্ত । B-)
ব্লগ পড়ে পড়েই তো তার মাথাটি গেছে । সে জন্যেই তো এতো বোঝানোর পরেও বোঝেনা কিছু । :-<

কিন্তু আপনি তাকে ছাগল কইলেন !!!! বড় দুঃখ পাইলাম । :((

২৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৬ রাত ৮:০৭

গেম চেঞ্জার বলেছেন: আজ সন্ধার সময়টা দারুণ মনে হলো নিলীমার মুক্তগদ্য পড়তে পড়তে। আচ্ছা এই নিলীমা সে--ই নীলিমা নয় তো? যার হরিণীর মতো দুটো চোখে মাদকতা জড়িয়ে থাকে, একরাশ কেশ সামনে বেরিয়ে পড়লে আরব্য রজনীর শাহজাদীর মতো রুপকথার রাণীর কথা মনে হয়! যার মেদহীন অবয়ব সারাটা জীবন মনে রাখার মতো! সে নয়তো?? যে কি-না ..

থাক আর বলব না। আপাতত এটুকুই.. ম্যাচ করলে না হয় আরো বলা যাবে। ;)

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:৪৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: গেম চেঞ্জার ,



আপনে হেতেরে চিন্লেন কেম্বায় ? :|| শইলের মাপজাপ কর্তাছেন ! বুচছি , হেতেরে অহন হেজাব পড়াইতে হইবো । :P নাইলে পোলাপানগো জ্বালায় হেতি তো বাইরে বাইড়াইতে হাত্তো ন .... B-)

আমিও আর বলবোনা । আপাতত এটুকুই................ পরেরবার দেখা হলে বলবো !

২৯| ০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:২১

খায়রুল আহসান বলেছেন: পদ্যের মত মুক্তগদ্য, খাঁটি অলংকরণে সুশোভিত।
ভাল লাগা কিছু কথাঃ
নিলীমা পরিযায়ী হয়ে ওঠে । থিতু হয়না কোথাও।
মধ্যাকর্ষন যে অমোঘ এক নিয়ম বোঝেনা নিলীমা।
এই মায়াটুকুই যে আমাদের নুন-লঙ্কা!
সাধু সাজা যায় , সাধু হওয়া যায় না!
নিলীমা বোঝেনা লোডশেডিং হয়ে যায় তাবৎ গৃহে গৃহে। হুলুস্থুলু লেগে যায় তামাম পৃথিবীতে।
আপনার পুরনো পোস্ট কি কথা তাহার সাথে ..., এবং এর আগেরটাতেও, দুটো মন্তব্য রেখে এসেছিলাম।

০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ৯:৫৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: খায়রুল আহসান ,



বরাবরের মতোই আপনার মন্তব্য ঋদ্ধতায় সুগঠিত ।

পুরোনো পোস্টে আপনি মন্তব্য করেছেন জেনে প্রীত তবে আপনার জানান দেয়ার আগেভাগে কোনও নোটিফিকেশান পাইনি । এখন সরজমিনে ঐ দু জায়গাতে গিয়ে দেখি কোথাও কোনও মন্তব্য নেই । দুঃখিত । ব্লগের টেকনিক্যাল দিকটি দীর্ঘদিন থেকে অপুষ্টিতে ভুগছে বলেই মনে হয় অমনটা ঘটেছে ।
তবুও ঐ মন্তব্যদু'টির জন্যে কৃতজ্ঞ ।

সাথে থাকার জন্যে ধন্যবাদ ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৩০| ০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ সকাল ১০:৪১

খায়রুল আহসান বলেছেন: ৮,১১ ও ২৮ নং মন্তব্যের উত্তরগুলো ভাল লেগেছে। কিছু কিছু মন্তব্যও। সেগুলোতে 'লাইক'।
সুন্দর পোস্ট। + +

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ দুপুর ২:০২

আহমেদ জী এস বলেছেন: খায়রুল আহসান ,



কৃতজ্ঞ আবারও এসে ভালোলাগাগুলো জানিয়ে গেলেন বলে ।
জ্বী, অনেক মন্তব্যই সুন্দর ।
প্লাস দেয়াতে ধন্যবাদ ।

শুভেচ্ছান্তে ।

৩১| ২৩ শে এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:১৫

মিথী_মারজান বলেছেন: ওয়াও!
অ-নে-ক সুন্দর মুক্তগদ্য।
লেখার স্টাইল, শব্দ ঝংকার আর বর্ণনা, কোনটাকে রেখে যে কোনটাকে বেশি সুন্দর বলবো বেছে নেয়া মুশকিল!
শুধু বলবো সমান মুগ্ধতায় শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়লাম।
সেইসাথে মুক্তগদ্য টার্মটিও ক্লিয়ার হলাম।
অসাধারণ সুন্দর করে লিখতে পারেন আপনি।:)

২৪ শে এপ্রিল, ২০১৮ রাত ৮:১৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: মিথী_মারজান ,



আপনার মন্তব্যের ভেতরের ঝংকারে আমিও মুগ্ধ ।

আশা করি মুক্তগদ্যের ছাঁচটি এবার আপনার কাছে অনায়াস হয়েছে । মুক্তগদ্য হবে অনেকটা, একটি বক্তব্যকে ঘিরে শব্দের ফেনিয়ে ওঠা । গদ্যের মতো আটপৌরে নয় । জামদানী শাড়ীর বনেদীয়ানায় ঢাকা ।
অদূর ভবিষ্যতে আপনার এমন একটি লেখা দেখার অপেক্ষায় রইলুম ।
শুভেচ্ছান্তে ।

৩২| ২৪ শে এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৩৪

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: লেখাটি অনেক ভাল লাগল ভাইয়া।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.