নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

চলে যাব- তবু যতক্ষণ দেহে আছে প্রাণ, প্রাণপণে পৃথিবীর সরাব জঞ্জাল।

হাবিব স্যার

বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর, সবার আমি ছাত্র।

হাবিব স্যার › বিস্তারিত পোস্টঃ

বিবাহিত পুরুষ

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:১১



(প্রথম অংশ বনফুলের "গরু" কবিতা অবলম্বনে রচিত প্যারডি কবিতা)

স্ত্রী তোমায় বেজায় খাটায়
টানায় সংসারের গাড়ি,
একটু যদি ভুল করেছ
অমনি মারে কথার ঝারি।

আপন মানুষ বলতে তোমার
নেই কিছু এই বিশ্বেতে,
সাড়াটা দিন কাজ করিয়া
বাসায় আসো কোন মতে।

স্ত্রী তোমার টাকা নিবে
সময় নিবে অবসরে,
অমত হলেই মারবে গুতা
বারন কে তাই করতে পারে।

তোমার উপর এ অত্যাচার
তুমি সাদা মনের মানুষ,
কারন তুমি নও জীবিত
তুমি বিবাহিত পুরুষ।
...................................

এই কবিতা শুনার পর-

বউটা আমার অভিমানে
ফুলিয়েছে গাল,
রাগ করিয়া বাপের বাড়ি
চলে গেছে কাল।

তারপর আমি তার মান ভাঙ্গানোর জন্য-

আহা- একটু কথা শোন
এই-ধরিয়াছি কান,
এমন ছড়া লিখবোনা আর-
ভাঙো তোমার মান।

আমার কথা শুনে বউয়ের আরও অভিমান, বলে---

কান কেন আজ-
যাহাই তুমি ধরো,
সংসার তোমার করবোনা আর
এখান থেকে সরো।

একটু পরে আমার কাছে এসে বলে--

তবে একটা শর্তে আমি-
যাব তোমার বাড়ি
যদি আমার জন্য কিনে আনো
টুকটুকে লাল শাড়ি।


বউয়ের রাগ ভাঙছে দেখে আমি তো মহা খুশি-

আলতো করে গাল দুটো তার টিপে
বললাম আমি রাজি,

বউ বললো-

আসলে তুমি অনেক মিষ্টি
দুষ্টু একটা পাজি।
............................................

Image source: desimediapoint.com

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:০১

নজসু বলেছেন: স্যার, সত্যি বলছি আপনার পোষ্টে এসে আমাকে মুগ্ধ হতে হয়।
শ্রদ্ধা বাড়ে।

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:২২

হাবিব স্যার বলেছেন:



নজসু সত্যি বলছি,
এমন মন্তব্যের জন্য-
আমার মনের সমস্ত অগোছালো কথা,
কবিতা হয়ে; হুড়মুড়িয়ে বেরিয়ে আসে।

একদম সদ্য ভুমিষ্ট হওয়া কথামালা
কোন রকম প্রস্তুতি ছাড়াও-
কেমন যেন ছন্দ রাগে;কল্পনাতে ভাসে।

আমি ছন্দগুলোকে বার বার নিষেধ করার পরেও;
আমার অবাধ্য হয়ে-
খরোস্রোতা নদীর মতো;
সামনে চলে এগিয়ে।

ধন্য আমি আপনার থেকে-
পেলাম সুন্দর কমেন্ট,
এর চেয়ে কি হয় কখনো-
এত নাইস মোমেন্ট?

২| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:০৯

আরোগ্য বলেছেন: ফাটাফাটি।

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:২৮

হাবিব স্যার বলেছেন:



নোটন নোটন পায়রা গুলো
ঝোটন বেঁধেছে,
কে যেন কাব্য লিখে
ফাটাফাটি করেছে।

কে দেখেছে কে দেখেছে
আরোগ্য ভাইয়া দেখেছে,
তাহার হাতে কীবোর্ড ছিল তাই
কমেন্ট করেছে।

আহ বড্ড লেগেছে।

৩| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৩

বাকপ্রবাস বলেছেন: ভাল। সুন্দর।

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৭

হাবিব স্যার বলেছেন: ধন্যবাদ, সাথে থাকবেন.....

৪| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: স্যার আপনি মাত্র কদিনেই কাঁপিয়ে দিয়েছেন। স্বামী - স্ত্রীর তর্জায় বেশ উপভোগ করলাম।
শুভকামনা জানবেন ।

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৭

হাবিব স্যার বলেছেন:



আতা গাছে তোঁতা পাখি
ব্লগে পদাতিক ভাই,
লেখা পড়ে কমেন্ট করলে
অনেক উৎসাহ পাই।

আমার পাড়াতে সুভাস ছড়াতে
এসেছে পদাতিক চৌধুরী-
বললেন- আমি নাকি কাঁপিয়েছি,
অন্য কিছু নাইতো আশা
এর চেয়ে চাইনা কিছু বেশি।

৫| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:৩৪

রাকু হাসান বলেছেন:

ভালো লিখছেন ।
আচ্ছা একটা প্রশ্ন করি ?
নামের সাথে স্যার লাগানোর রহস্য কি ? ;)

০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৩

হাবিব স্যার বলেছেন:




হা হা হা,
অনেক মজা পেলাম আপনার প্রশ্নটা শুনে,
আজ আমি বলবো সবি খুলে-
রহস্যতো আছে অবশ্যই;
এমন প্রশ্নের আশায় আমি ছিলাম মনে মনে।

আমার আছে জলপরি-
যে কেড়েছে আমার মন,
কথায় কথায় তারে আমি
জ্ঞান করি বিতরন।

তাই মজা করে আমায় ডাকে হাবীব স্যার বলিয়া
আমারও ভালো লাগে,
কারন অত ভালোবাসা আমি-
পাইনি এর আগে।

এইতো ছিল আসল রহস্য-
আর কিছু নেই ভাষা,
তবে কি আপনার মিটেছে ভাই
মনের জিজ্ঞাসা?

৬| ০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: বাহ স্বামী-স্ত্রী কথোপকথনে অনেক মজা লাগলো। B-)

০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:০১

হাবিব স্যার বলেছেন:




আপনি তো পেলেন মজা,
যার কেটেছে পকেট সে
বুঝে ইহার সাজা।

কতো যে কষ্ট রাগি বউকে
একটু ম্যানেজ করা,
উল্টা পাল্টা করে যদি-
পড়া যায় একবার ধরা।

এক রাগেতে হাজার বিশেক টাকা খশে যাবে
টেরও পাবে না তার অভাগা স্বামী,
কারন- তখন তাহার রাগ ভাঙ্গানো
সবচেয়ে বেশি দামী।

আবার তরকারি তার পছন্দ না করলে
ভাত কপালে নাই,
কারন রাঁধবে না আর ভাত-
ফলে চুপ করিয়া যায়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.