নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

চলে যাব- তবু যতক্ষণ দেহে আছে প্রাণ, প্রাণপণে পৃথিবীর সরাব জঞ্জাল।

হাবিব স্যার

বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর, সবার আমি ছাত্র।

হাবিব স্যার › বিস্তারিত পোস্টঃ

চির তৈলাক্ত মম শির

২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:২৯




বল বীর-
চির তৈলাক্ত মম শির!
তৈল বিনা আমারি নত নেহি শির, আমি বাংগাল হিমাদ্রীর!
বল বীর-
বল সহমত ভাই,
পাশে আছি ভাই,
মান-সম্মান-ইজ্জত ভেদিয়া,
লজ্জা শরমের মাথা ছেদিয়া,
উঠিয়াছি চির তৈলাক্ত আমি বিশ্ব বিধাত্রীর!
মম ললাটে তৈলে রাজ-রাজটীকা দীপ্ত জয়শ্রীর!
বল বীর-
চির তৈলাক্ত মম শির!
আমি চামচা-ইতর-হংস,
আমি তৈলে বিবেক,মনুষ্যত্ব, ইজ্জত করি ধ্বংস,
আমি মহান নেতা,চুদিরভাই দূর্বার,
আমি ভেঙ্গে করি সব চুরমার!
আমি অনিয়ম উচ্ছৃঙ্খল,
আমি তৈল মর্দনে বন্ধন গড়ি, নিয়ম কানুন শৃঙ্খল!
আমি মানিনা কোন আইন,
আমি ভাইয়ের ডান হাত,বাম হাত,
ভাসমান মাইন!
আমি ভাইয়ের এলোকেশে তৈলের ঝড়
অকাল মরুভূমির,
আমি বেহায়া,আমি নির্লজ্জ বিশ্ব বিধাত্রীর!
বল বীর-
চির তৈলাক্ত মম শির।
আমি তাই করি ভাই যখন চাহে এমনে যা,
করি বন্ধুরে গালাগাল,ধরি শত্রুর সাথে পাঞ্জা,
আমি উন্মাদ,আমি ডান্ডা,
আমি মহামারী, তৈলে ঠান্ডা,
আমি ত্রাস এ ধরিত্রীর!
আমি উষ্ণ তৈলে চির-অধীর।
বল বীর-
চির তৈলাক্ত মম শির!

(সংক্ষেপিত)
.......................................

{জাতীয় কবির "বিদ্রোহী" কবিতা অবলম্বনে }
রচিত প্যারোডি কবিতা।

ছবি: রস+আলো থেকে....

মন্তব্য ২৪ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:৩৪

স্রাঞ্জি সে বলেছেন:
দেশটা নেতাদের তৈলাক্ত আর সহমতে জয়জয়কার।

কাব্যে+++


২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:২৩

হাবিব স্যার বলেছেন:



অবশেষে তাহার দেখা পেয়ে,
চিত্ত মোর গেল ঠান্ডা হয়ে।
বাক্কা পরে আমার ব্লগে এসে,
কমেন্টস করলো অনেক ভালবেসে।
খুশিতে মোর মনটা উঠলো নেচে,
মনে হয় তার মান ভাঙ্গিল শেষে।

এটাকে আবার তেল মনে করোনা প্লীজ
ভালোবাসা থেকে লেখা,
কারন আনেক দিন পরে আমি-
পেলাম তোমার দেখা।

২| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

সাগর শরীফ বলেছেন: হাহাহা! এবার বাঁশ নিয়েও একটা কবিতা দেখতে চাই। দায়িত্ব থাকল আপনার উপর ভাই।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:২৬

হাবিব স্যার বলেছেন:



দাযিত্ব মাথা পেতে নিলাম
পাবেন তারাতারি,
ধন্যবাদ আপনার তরেকোরন-
আসছেন আমার বাড়।

৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

বিজন রয় বলেছেন: এ তো দেখি তেলের বাহার!!

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৩৭

হাবিব স্যার বলেছেন:




বেঁচে থাকতে চাইলে
তেল বিনা ইমপসিবল
গাড়ির চাকা না ঘুরিবে
না চলিবে কল

মচমচে চাইলে খেতে
লাগে বেশি তেল,
তেল ছাড়া অফিস করে
পাবেনা তো বেল

তেল পেলে মামাও খুশি
ভাগ্নে পায়ের কাছে,
বড় ভাইয়ের নজর পেতে
তেলের কদর আছে

আপনার নজর পেতে আমি
তেল দিবনা ভাই,
অনকে বেশি নাইতো চাওয়া
যেন কাছে পাই

৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:২১

আবু তালেব শেখ বলেছেন: তেলা মাথায় তেল দিয়ে ফায়দা লোটা বাংগালীদের ঐতিহ্য। বর্তমানে দেখছি চির জাতশত্রু ও তেল দিতে দিতে মহাভক্তে রুপান্তরিত হয়েছে। সাবাস ভেজাল তেলের।

কবিতাটা সুন্দর মিল হয়েছে। তবে হাজার হোক আমার প্রিয় কবির রচনা। তাই মনে হল কবির লেখাগুলো কে বিকৃতি করবেন না।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৪৪

হাবিব স্যার বলেছেন:




আপনার মন্তব্যে
কোন ভুল নাই,
কবিতার সুরে তাই
সালামও জানাই

জাতীয় কবি আমারও তো
অনেক প্রিয় মনে,
বেখেয়ালে চাইনা দিতে
বিকৃতি কোনক্ষনে

৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:৫৭

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বাহ! খুব সুন্দর হয়েছে ।

শুভকামনা রইল।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৫১

হাবিব স্যার বলেছেন:



প্রিয় পদাতিক ভাই,
আপনাকে সালামও জানাই।
মন্তব্যে বলে গেলেন বাহ,
মনটা আমার ছুঁয়ে গেল তা।

৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১:০৭

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



তৈল আর নেতা/নেত্রী আমাদের দেশে সমার্থক শব্দ। এদেশে যার যত তৈল আছে, তার তত নেতা আছে, ধাপট আছে, টাকা আছে। এটা একটি স্পেশাল গুণ। তৈল দেওয়ার যোগ্যতা যার যত বেশি পাওয়ার অধিকার তার তত বেশি।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:১২

হাবিব স্যার বলেছেন:




কি কথা শুনাইলো মোরে কাউসার ভাই,
নেতা তেল, তেল নেতা একাকার তাই।

যতই লাগাই ততই লাগে তেলের এমন গুন
তেল ছাড়া কি পাবো বলো বড় ভাইয়ের মুন?

তেল মারিলে সবই সচল তেলের এই দেশে,
সবখানেতে তেলের খনি আছি তেলে ভেসে।

৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: স্বয়ং প্রভুও তেল পছন্দ করেন।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:২০

হাবিব স্যার বলেছেন:




প্রভুর বাড়ি যাইয়ো তুমি
নিয়ে খাঁটি তেল,
তাইলে তুমি কদর পাবে
আরো পাবে ভেল।

তেল ছাড়া সে তোমার দিকে
নজর দিবে না,
যতই তুমি নেতা ধরো
যতই কাঁদো না।

রাজীব ভাইকে তেল মারিলাম
মনে করবেন না,
ভালোবাসার উত্তর এটা
ভেজাল থাকে না।

৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:২৬

স্রাঞ্জি সে বলেছেন:
বাহ দারুণ ছন্দময় প্রতিমন্তব্য। পোস্ট দিয়ে কোথায় লুকিয়ে ছিলে.....

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:০৫

হাবিব স্যার বলেছেন:




বাহ.............
এতো দেখি মেঘ না চাইতেই জল,
এতো খুশি কোথায় রাখি
আমাকে একটু বল।

একই লেখায় একই দিনে
দুইবার মন্তব্যে,
মনে হয় আছি যেন
খুশির গন্তব্যে।

পোস্ট দিয়ে ঘুমাইছিলাম
ঠান্ডা জ্বর ভাই,
সকাল বেলা একটু ভালো
ব্লগে আসলাম তাই।

৯| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৪৭

এস এম ইসমাঈল বলেছেন: আহারে একটুখানি তেলের জন্য এত ছটফটানি। ভাবছি এবার তেল মারার ব্যবসাটা আবার শুরু করে দেব। চমৎকার প্যারোডি হয়েছে। +++++
ও ভাই তেল ছাড়া বাঁচা যায় না,
কোন কিছু পাওয়া যায় না,
তেল মারলে বউ খুশি
তেল লাগালে নেতা খুশী।

আহারে একটুখানি তেলের জন্য এত ছটফটানি। ভাবছি এবার তেল মারার ব্যবসাটা আবার শুরু করে দেব। চমৎকার প্যারোডি হয়েছে। +++++
ও ভাই তেল ছাড়া বাঁচা যায় না,
কোন কিছু পাওয়া যায় না,
তেল মারলে বউ খুশি
তেল লাগালে নেতা খুশী।


তবে আজকাল যুগ পাল্টেছে, শুধু তেল নয়, ঘি, মাখন এসবও লাগাতে হয়। ধন্যবাদ।
তবে আজকাল যুগ পাল্টেছে, শুধু তেল নয়, ঘি, মাখন এসবও লাগাতে হয়। ধন্যবাদ।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:২৯

হাবিব স্যার বলেছেন:




শ্রদ্ধেয় ইসমাইল ভাই,
তেল ঘি মধু নিয়ে
কাছে এলেন তাই।

কোনটা রেখে কোনটা মাখি
কোনটা খাঁটি দেশি?
কোন বোতলে কাজ হবে ভাই
কিসে নেতা খুশি?

একটা প্রশ্ন রেখে গেলাম
মন্তব্যের শেষে,
আশা করি উত্তর দিবেন
কমেন্টে এসে।

বউ কিভাবে তেলে খুশি?
কেমনে করবো সেথায় আমি তেলের ব্যবহার
কেমন করে মন পাইবো ভালোবাসা তার?
এই প্রশ্নের জবাব চাই জলদি দরকার।

১০| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:১৬

নতুন নকিব বলেছেন:



বাহ! শ্রদ্ধেয় ইসমাঈল ভাই তেল, ঘি নিয়ে স্বয়ং হাজির হয়েছেন দেখছি।

তেলময় প্যারোডি উপভোগ্য। ধন্যবাদ।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:৩২

হাবিব স্যার বলেছেন:




তেলের রাজ্যে পৃথিবী তেলময়
নেতা নেত্রী সব যেন তেল চিকচিকে।

১১| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:২১

নজসু বলেছেন: স্যার আপনার লেখা যতো পাঠ করি
আপনার মাঝে নতুন কিছু ততো খুঁজে পাই।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:৩৭

হাবিব স্যার বলেছেন:




সুজন ভাই সকাল বেলা কি যেন কি খোঁজে পেলেন,
কমেন্টে ভালবেসে চুপিচুপি বলে গেলেন।
....................................
কে দেখেছে কে দেখেছে
সকাল বেলার ব্লগে,
নজসু ভাইয়া বলে গেলেন
যখন দশটা ক্লকে।

১২| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:০৪

এস এম ইসমাঈল বলেছেন: প্রিয় হাবীব স্যার এর জন্য বউ পটানোর টিপস,
সদা আমি সঙ্গে রাখি তেল এক কৌটা
ফ্রিতে তেল সাপ্লাই দেই,
যখন ক্ষেপে যায় বৌটা।
তেল মারা মোর বাঁ হাতের খেল
সন্দেহ কি তায়,
বিপদ কালে তেল ছাড়া
বাঁচার উপায় নাই।
হা হা হা হি হি হি

২২ শে অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০১

হাবিব স্যার বলেছেন:




কোন প্রকারের তেল লাগিবে কি বা তাহার নাম,
ফ্রিতে আমি নিব নাকো বলেন তেলের দাম।
তেল মারিলে পিচলে যাবে কেমনে রাখবো ধরে,
বৌটা ছাড়া আমি যে ভাই যেতেই পারি মরে।
বা'হাত দিয়ে তেল মারিলে ডান হাতের কি কাজ,
তাই ভাবিয়া আমার নাকে খেলা করে লাজ।
বিপদ কালে তেল লাগাবো সবই বুঝলাম ভাই,
কখন বিপদ আসতে পারে বুঝতে আমি চাই।

হা হা হি হি হেসে গেলেন বড় কাব্য করে,
জলদি বলেন বৌটা কেমনে রাখতে পারি ধরে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.