নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

এমএলজি

এমএলজি › বিস্তারিত পোস্টঃ

টীম ম্যানেজমেন্ট

২২ শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ রাত ১১:৩৬

টীম ম্যানেজমেন্ট =

এবার দেশে গেলে এক ঘনিষ্ঠের দাওয়াতে যেতে হলো। তিনি ব্যবসা করেন। আড্ডার ফাঁকে তাঁর এক ফোন এলো। সামান্যতেই তিনি রেগেমেগে আগুন। তাঁর আবার ব্লাড প্রেসার আছে। তাই, এ অবস্থা দেখে আমি বেশ নার্ভাস হয়ে পড়লাম; পাছে তাঁর আবার কিছু হয়।

ফোনালাপ শেষ হলে ওপাশের ভদ্রলোকের পরিচয় জানতে চাইলাম। বললেন, তিনি তাঁর অফিসের ম্যানেজার।

জানতে চাইলাম, তাঁর অধীনে মোট কতজন স্টাফ আছেন?

তিনিসহ চারজন বলে জানা গেলো। তার মানে, স্টাফ আসলে তিনজন।

মাত্র তিনজন লোক সামলাতেই তিনি যেভাবে হিমশিম খাচ্ছেন, না জানি তিনশ লোক তাঁর অধীনে কাজ করলে তাঁর অবস্থা কি হতো!

দীর্ঘ চাকুরী জীবনে কর্মী, টিম লিডার এবং অবশেষে বিজনেস ওনার হিসেবে আমার যৎসামান্য অভিজ্ঞতা হয়েছে তা থেকে নিচের কথাগুলো বলছি।

কিছু কর্মী একাধিক প্রজেক্ট বা কাজ একসাথে ভালো মেনেজ করতে পারেন। অন্য কিছু কর্মী আছেন যাঁরা একটি কাজ একবারে দিলে বেশ ভালোভাবে কাজটা করতে পারেন। ভালো বলতে, দ্রুততা এবং কাজের কোয়ালিটি বুঝাচ্ছি। অন্য কিছু কর্মী আছেন যাঁরা কাজের প্রায়োরিটি বা অগ্রাধিকার ভালো বুঝেন। অর্থাৎ, পাঁচটি কাজ থাকলে তাদের কোনটি কার আগে করা দরকার এটা ভালো বুঝতে পারেন।

আবার কিছু কর্মী আছেন যারা প্রজেক্টের কাজে হাই পারফর্মার না হলেও ক্লাইয়েন্টের সাথে কম্যুনিকেশন বা যোগাযোগ রক্ষায় বেশ দক্ষ, মানে, কথা বলেন চমৎকার।। কারো সাথে কিছুদিন কাজ করলে একজন ভালো টিম লিডার ঠিক ধরতে পারেন কাকে দিয়ে কোন কাজটি ভালো হবে।

যাকে দিয়ে যা ভালো হয় তাকে সেখানে দায়িত্ব দিলে টিম লিডার বা মালিককে এতো মাথাব্যাথ্যা নিতে হয় না। ভুল জায়গায় ভুল মানুষটিকে দিলে শত চেঁচামেচিতেও সুফল পাওয়া যায় না। অযথা বকাবকিতে বরং কর্মীর কাজে আগ্রহে ভাটা পড়ে এবং যতোদ্রুতসম্ভব তিনি কেটে পড়ার সুযোগ খুঁজতে থাকেন।

অধীনস্থদের সাথে অতিবেশী হৈচৈ বা চেঁচামেচি করার অর্থ টীম ম্যানেজমেন্ট =

এবার দেশে গেলে এক ঘনিষ্ঠের দাওয়াতে যেতে হলো। তিনি ব্যবসা করেন। আড্ডার ফাঁকে তাঁর এক ফোন এলো। সামান্যতেই তিনি রেগেমেগে আগুন। তাঁর আবার ব্লাড প্রেসার আছে। তাই, এ অবস্থা দেখে আমি বেশ নার্ভাস হয়ে পড়লাম; পাছে তাঁর আবার কিছু হয়।

ফোনালাপ শেষ হলে ওপাশের ভদ্রলোকের পরিচয় জানতে চাইলাম। বললেন, তিনি তাঁর অফিসের ম্যানেজার।

জানতে চাইলাম, তাঁর অধীনে মোট কতজন স্টাফ আছেন?

তিনিসহ চারজন বলে জানা গেলো। তার মানে, স্টাফ আসলে তিনজন।

মাত্র তিনজন লোক সামলাতেই তিনি যেভাবে হিমশিম খাচ্ছেন, না জানি তিনশ লোক তাঁর অধীনে কাজ করলে তাঁর অবস্থা কি হতো!

দীর্ঘ চাকুরী জীবনে কর্মী, টিম লিডার এবং অবশেষে বিজনেস ওনার হিসেবে আমার যৎসামান্য অভিজ্ঞতা হয়েছে তা থেকে নিচের কথাগুলো বলছি।

কিছু কর্মী একাধিক প্রজেক্ট বা কাজ একসাথে ভালো মেনেজ করতে পারেন। অন্য কিছু কর্মী আছেন যাঁরা একটি কাজ একবারে দিলে বেশ ভালোভাবে কাজটা করতে পারেন। ভালো বলতে, দ্রুততা এবং কাজের কোয়ালিটি বুঝাচ্ছি। অন্য কিছু কর্মী আছেন যাঁরা কাজের প্রায়োরিটি বা অগ্রাধিকার ভালো বুঝেন। অর্থাৎ, পাঁচটি কাজ থাকলে তাদের কোনটি কার আগে করা দরকার এটা ভালো বুঝতে পারেন।

আবার কিছু কর্মী আছেন যারা প্রজেক্টের কাজে হাই পারফর্মার না হলেও ক্লাইয়েন্টের সাথে কম্যুনিকেশন বা যোগাযোগ রক্ষায় বেশ দক্ষ, মানে, কথা বলেন চমৎকার।। কারো সাথে কিছুদিন কাজ করলে একজন ভালো টিম লিডার ঠিক ধরতে পারেন কাকে দিয়ে কোন কাজটি ভালো হবে।

আরেকটি কথা, কোন কর্মী কাজে দক্ষতা দেখালে তা তাঁকে বুঝার সুযোগ দিতে হবে। অর্থাৎ, ভালো কাজের জন্য তাঁকে ইনসেনটিভ দিতে হবে। কিছু টীম লীডার মনে করেন, কেউ ভালো কাজ করছে বলে স্বীকার করে নিলে তাঁর কাজের গতি কমে যেতে পারে। এটা সেকেলে ধারণা। ভালো কাজের জন্য ওই কর্মী পুরস্কৃত হচ্ছেন দেখে অন্যরা বরং তাঁদের পারফর্মেন্স বা কর্মদক্ষতা বাড়াতে উদ্যোগী হবেন। এতে প্রতিষ্ঠানেরই লাভ।

যাকে দিয়ে যা ভালো হয় তাকে সেখানে দায়িত্ব দিলে টিম লিডার বা মালিককে এতো মাথাব্যাথ্যা নিতে হয় না। ভুল জায়গায় ভুল মানুষটিকে দিলে শত চেঁচামেচিতেও সুফল পাওয়া যায় না। অযথা বকাবকিতে বরং কর্মীর কাজে আগ্রহে ভাটা পড়ে এবং যতোদ্রুতসম্ভব তিনি কেটে পড়ার সুযোগ খুঁজতে থাকেন।

অধীনস্থদের সাথে অতিবেশী হৈচৈ বা চেঁচামেচি করার অর্থ ভালো টীম লীডার বা ম্যানেজার হতে আপনাকে আরো কাঠখড় পোড়াতে হবে।

[email protected]

মন্তব্য ৪ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ সকাল ৮:৩৩

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: কাজের অগ্রাধিকার বুঝতে পারেটা খুব জরুরী।

মাল্টি টাস্কিং সবাই পারে না।

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ রাত ৯:৫৯

এমএলজি বলেছেন: যথার্থ। ধন্যবাদ।

২| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ বিকাল ৪:১৪

ঋণাত্মক শূণ্য বলেছেন: দুঃখিত, পোষ্ট রিলেটেড মন্তব্য করছি না। এক ভাই কানাডায় যাওয়ার বিষয়ে কিছু তথ্য জানতে চাচ্ছিলেন (আমি এ বিষয়ে একেবারেই অজ্ঞ)। তাকে কি কোনভাবে সাহায্য করা যায়? আপনার ফোন নম্বর বা কথা বলার কোন সিষ্টেম আছে? জানাবেন প্লিজ....

গত কয়েকদিন আমি এসএমজি, একে ৪৭ ইত্যাদি ইত্যাদি দিয়ে খুঁজতেছিলাম!

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ রাত ৯:৫৭

এমএলজি বলেছেন: ধন্যবাদ। পোস্টে ইমেইল এড্রেস আছে। ইমেইল করতে বলুন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.