নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মানুষের চেয়ে বড় কিছু নেই।

মুজিব রহমান

মুক্তচিন্তা ও বিজ্ঞানমনষ্ক মানুষ

মুজিব রহমান › বিস্তারিত পোস্টঃ

আবিরনদের মৃত্যু থামবে না! বিষয়টি ওআইসি ও জাতিসংঘে উত্থাপন করুন।

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:১৮


এক নিরন্তর মৃত্যুর স্রোতধারায় সৌদিআরবে কর্মরত আমাদের গৃহকর্মীরা৷ আমরা কোন চাপই তৈরি করতে পারছি না৷ কোন মৃত্যুরই বিচার শেষ পর্যন্ত হয় নি৷ এ এক অবিশ্বাস্য ক্রনিক হত্যাকাণ্ড যা যৌন হয়রাণির পরবর্তীতে সংঘটিত হয়৷ সৌদি মুসলিমদের কিছু ভাবাদর্শ গঠিত হয়েছে৷ তারা দক্ষিণ এশিয়ার মুসলিমদের এমনিতেই মিসকিন জ্ঞান করে, সহি মুসলিম নয় বলে মনোভাব পোষণ করে৷ তারা দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার গৃহকর্মীদের আজো দাসী মনে করে যৌনসম্ভোগ করে৷ তারা দাসীদের ভোগ করাকে ধর্মীয় অধিকার মনে করে৷ আবার অন্য ধর্মের নারীদের পেলে গণিমতের মাল হিসেবেও ভোগ করে৷ এমন নষ্ট, ভয়ানক ও অসভ্য-বর্বর মানসিকতার মানুষদের যতদিন এমন ভুল ভাবাদর্শ থাকবে ততদিন আমাদের মেয়েরা-মায়েরা ধর্ষিতা ও খুন হতেই থাকবে৷ তাদের বিরুদ্ধে বিপুল আন্দোলন গড়ে তুলে বিশ্ববাসীর দৃষ্টিতে আনতে পারলে এবং সৌদি নাগরিকদের দেশের বাইরে পেলেই বিচারের আওতায় আনা গেলেই হয়তো আবিরনরা বাঁচতে পারতো৷ আমাদের রাষ্ট্র আমাদের মায়েদের রক্ষায় সচেতন নয়৷ কোন সতর্কতা অবলম্বন করছে না৷ দায়িত্বহীন ও অপেশাদার আচরণের কারণেই শয়ে শয়ে মা-বোন লাশ হয়ে দেশে ফিরে আসে৷ চাপের মুখে সৌদি আদালত দুঃখপ্রকাশ করলেও তাদের ন্যায় বিচার করার কোন নজির নেই৷ আবিরনকে এ বছরই হত্যা করা হয় নির্মম নির্যাতন করে। আট জন বর্ববর পুরুষ তাকে যৌন হয়রাণি করতো, খেতে দিতো না ও মারধর করতো।

দারিদ্রতা থেকে মুক্তির জন্য আমাদের মা-বোনেরা আল্লাহর উপর ভরসা করে পাড়ি জমায় নবীর দেশে। তারা ধর্মপ্রাণ হিসেবেই গভীর আস্থা রাখে আল্লাহ ও তার বন্ধু নবীর উপর। ভেবে নেয় নবীর দেশে গেলে আল্লাহ তাকে রক্ষা করবেই। দরিদ্র মানুষদের কাছে অনেক খবর থাকে না। তাদের প্রতারকগণ বুঝিয়ে বলে, নবীর দেশে যাচ্ছো- ওখানে পা রাখাও ভাগ্যের ব্যাপার। হজ্ব করতে পারলে সব গুণাহ মাফ। দরিদ্র নারীরা কোথাও কবে কোন ভুল ত্রুটি করেছে তার জন্য মুক্তি পেতে হজ্বের বাসনাও তৈরি হয়। হায়! সেতো জানে না, এখন পৃথিবীর সবচেয়ে বর্বরদের বাস কোথায়? পৃথিবীর সবচেয়ে নারীলোভী কারা? কারা শিক্ষাবিহনী, জ্ঞানচর্চাবিহীন দানব? কারা কর্মবিমুখ ও যৌন তাড়িত অমানুষ? আল্লাহর ভরসার, নবীর দেশে গিয়েই টের পায়- তারা এসে পড়েছে সাক্ষাৎ দোজখে। দোজখের দানবরা কিলবিল করে তাকে খেতে চায়, ঠকাতে চায়, নিরন্ন রাখতে চায়।

অনেকেই বলে মেয়েরা সৌদী আরব যায় কেন? যায় তো দারিদ্রতা থেকে মুক্তির জন্যই। তাদের রক্ষা করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। রাষ্ট্র যেহেতু দরিদ্র নারীদের সকলের জন্য ভূমিকা রাখতে পারে না তাই সুযোগ করে দেয় সৌদি আরব যেতে। একারণেই তাদের রক্ষা করার দায়িত্বও রাষ্ট্রেরই। রাষ্ট্রকেই প্রতিবাদ জানাতে হবে। বিষয়টি তুলে ধরতে হবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে। ওআইসি ও জাতিসংঘকে জানাতে হবে। বিশ্বের মানবাধিকার সংগঠনগুলোকেও সোচ্চার হতে হবে। সৌদির নারগরিদের বর্বরতার বিচার করতে হবে। হাজার হাজার নারীকে তারা অনবরত ধর্ষণ করবে তা মেনে নেয়া যায় না। আবিরনের জন্য সৌদি বিচার বিভাগ ক্ষমা চেয়েছে। হাজার হাজার আবিরনরা ধর্ষিতা হয়ে খুন হয়েছেন। তাদের জন্যও ক্ষমা চাইতে হবে- বিচার বিভাগকে, সৌদি সরকারকে ও সৌদির গ্রান্ড মুফতিকে। একই সাথে ধর্ষক-খুনিদের আনতে হবে বিচারের আওতায়।

মন্তব্য ২৩ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (২৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:২৭

শাহ আজিজ বলেছেন: সে আশায় গুড়ে বালি

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৪৬

মুজিব রহমান বলেছেন: নির্ভর করবে দাবির উপর। ঢাকায় বড় একটি মিছিল হলে, সৌদি দূতাবাসের সামনে অবস্থান ধর্মঘট হলে, মানবাধিকার সংগঠনগুলো সৌদী সরকারের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিতে থাকলে- মামলা করলে ওরা থামতে বাধ্য হবে। ওরা দাবি করে, কোরআন নাকি তাদের নারীদের ভোগ করার অধিকার দিয়েছে। ওদের থামাতে তো হবে।

২| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:০৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: খুবই দুর্ভাগ্যজনক হৃদয়বিদারক ঘটনা। এক বিংশ শতকেও বরবরতার নামান্তর সৌদি আরব এখন মানব সভ্যতার বড় কলঙ্ক।এই অন্ধকার দেশের কোন সভ্যদেশের মানুষের না যাওয়াই ভালো।আর গেলে জল্লাদ জাতির কাছে মৃত্যু নিশ্চিত। ওদের সম্পর্কে বলাই যায়, আকাশে বসত মরা ঈশ্বর।" বাস্তবিকই ঈশ্বর যেন ওই দেশে মরে আছেন..

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০০

মুজিব রহমান বলেছেন: ওরা প্রিন্স ও জনগণ সমভাবেই অপরাধপ্রবণ। উপরের নিচের কেউই চোখে দেখছে না।

৩| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:১৭

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: সৌদিরা ১৪০০ বছর আগেও অসভ্য ছিল এখনো তারা অসভ্য।তাদের সভ্যহতে এখনো অনেক সময় লাগবে।

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০২

মুজিব রহমান বলেছেন: তেল বিক্রির কাটা ওরা আমোদফূর্তিতেই ব্যয় করছে। শিক্ষা-দিক্ষা ছাড়া সভ্য হবে কি করে।

৪| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:০৮

শাহ আজিজ বলেছেন: নির্ভর করবে দাবির উপর। ঢাকায় বড় একটি মিছিল হলে

ব্লাক মেইলইংএ আরবরা অনন্য । আমাদের ২২লাখ শ্রমিক কে নিয়ে তারা খেলছে । ক'দিন আগেই ৭৭ এ যাওয়া রাষ্ট্রহীন রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের পাসপোর্ট দিতে বলেছিল সউদরা । না দিলে ২২ লাখ শ্রমিক ফেরত পাঠানোর হুমকি ----। মনে আছে তো ? গরীবের কোন স্বপ্ন থাকতে নেই । আমরা অসহায় । ওদের জন্য ইরান উপযুক্ত রাষ্ট্র ।

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৩

মুজিব রহমান বলেছেন: ওদের উপরই চাপ তৈরি করতে হবে। ওরাও আমাদের শ্রমিকদের উপর নির্ভরশীল। একটি সম্মানজনক অবস্থা থাকা দরকার।

৫| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:২৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



আরব দেশে মেয়ে পাঠালে কি ঘটে, ইহা জাতির কাছে পরিচিত ব্যাপার, নাকি নতুন ব্যাপার?

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৫

মুজিব রহমান বলেছেন: যতদিন বিহিত না হচ্ছে ততদিন বলতেই হবে।
ভোটের অধিকারের জন্য একবার চেয়ে না পেলে বুঝি আর চাওয়া যাবে না?

৬| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৫৩

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: সৌদিদের বিচার সিস্টেম ঠিক করা বা অপরাধী সৌদিদের বিচারের আওতায় আনার চাইতে দেশের যে সকল রাজনৈতিক নেতা ও আমলাচক্রের সঠিক নেতৃত্ব ও পরিকল্পনার অভাবে হতভাগা আবিরণ ও আরো অনেককে মধ্যপ্রাচ্যে অদক্ষ দাস-দাসী হিসাবে হিসাবে কামলা দিতে যেতে হচ্ছে তাদের বিচারের আওতায় আনার জন্য সোচ্চার হন। আরেকটি দেশের সিস্টেম বদলানোর চাইতে নিজের দেশের সিস্টেম বদলানো অনেক সহজ ও বাস্তবসম্মত। দেশের জনগণ যদি দুই পরিবারকে ভগবান মেনে দুই পরিবারকে বসিয়ে লুটপাট ও দুর্নীতিতে লিপ্ত থাকে তবে আর যাই হোক দেশের মধ্যে ন্যায় বিচার ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা কখনোই সম্ভব নয়। আর মধ্যপ্রাচ্যে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা ! দিল্লি হনুজ দূর আস্ত .....।

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৬

মুজিব রহমান বলেছেন: ধন্যবাদ।
সেটা চাওয়া আরো কঠিন। এখানে মৃত্যুর ঝুঁকি অনেক বেশি।

৭| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:১১

চাঁদগাজী বলেছেন:


সরকার নিজ দেশে ধর্ষণ বন্ধ করতে পারছে না, সৌদী ধর্ষকদের বিচার চাইতে পারবে? আপনার ভাত কে রান্না করেন?

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৮

মুজিব রহমান বলেছেন: যার কাছে একটি ভোটই চাইতে পারি না মানে একটি ভোটের অধিকারই এতো বছরে নিশ্চিত করতে পারি না- এটা কেবল তাদের কাছেই চাওয়া নয়। এটা মানুষের ভাবাদর্শ পরিবর্তনে কাজে লাগবে। ভাবাদর্শ বদলানো খুব দরকার।

৮| ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:০৯

রাজীব নুর বলেছেন: আমার কিছু পরিচিত সৌদি থাকে।
সেখানে বাংগালী মেয়েরা কেমন আছে তা আমি তাদের কাছে শুনেছি। সৌদির শেখ রা ভয়াবহ অত্যাচার করে। সম্ভবত এসব আমাদের দেশের সরকার জানে না। সরকার আছে রেমিটেন্স নিয়ে।

২৫ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৯

মুজিব রহমান বলেছেন: না জানার কিছু নেই।
চাপ তৈরি করতে পারলেই কেবল তারা এসব নিয়ে কাজ করবে।

৯| ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ ভোর ৬:৫০

জিকোব্লগ বলেছেন:



দেশে পাকি প্রেমীরা যেমনি আছে , তেমনি সৌদি
প্রেমীরাও আছে। ব্লগেই দেখেন কত বিদেশী প্রেমী
আমেরিকা প্রেমী চোখে পরে। এরা কথায় সুশীল
হলেও আমেরিকার মেয়ে দরকার পড়লে এরাই
তলে তলে সবার আগে মেয়ে সাপ্লাই মারবে।

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৩৮

মুজিব রহমান বলেছেন: আপনার কাছে কি কোন তথ্য-প্রমাণ আছে?

১০| ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: না জানার কিছু নেই।
চাপ তৈরি করতে পারলেই কেবল তারা এসব নিয়ে কাজ করবে।

এই আধুনিক যুগে এসে সৌদি এতটা বর্বর কেন?

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৩৮

মুজিব রহমান বলেছেন: ওরা এখনো আধুনিক হয়নি বলেই।
ওরা শিক্ষা ও জ্ঞানচর্চায় বহু পেছনে।

১১| ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:০৫

রানার ব্লগ বলেছেন: আসুন সৌদি আরব কে বর্জন করি !!! কি করবেন ?? না কি আমাদের দেশের মেয়ের ইজ্জত হরন হলে ধর্মের ক্ষতি হয় না।

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৩৯

মুজিব রহমান বলেছেন: এই বোধ মৌলবাদীদের নেই।

১২| ২৭ শে ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০১

জিকোব্লগ বলেছেন: তথ্য-প্রমাণ সেখানেই দেওয়া যায়, যেখানে দিয়ে কাজ হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.