নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মৃত্যুর পরের জীবন নিয়ে বেশি ভাবি

সাফাত আহমদ চৌধুরী

মুক্তমনের মানুষ, তবে স্রষ্টায় বিশ্বাসী

সাফাত আহমদ চৌধুরী › বিস্তারিত পোস্টঃ

জীবনে চলার পথে

১১ ই জুন, ২০২১ রাত ১:২৮

নির্দিষ্ট ঘন্টা (৬-৮ ) ঘুমোতে হবে, এই ধারণা থেকে বের হয়ে আসুন । একদিন পাঁচ ঘন্টা ঘুমিয়ে অন্যেদিন ৭ ঘন্টা ঘুমিয়ে পুষিয়ে দিবেন । ছুটির দিনে সাপ্তাহিক ঘুম দিয়ে দিবেন । খেয়াল রাখিয়েন ৮-৮.৫ ঘন্টার বেশী যেনো না হয় । বায়োলজি ক্লক সেট করে রাখুন । আপনার যখন জাগার প্রয়োজন, ঠিক সেই সময়টাই মাথার মধ্যে সেট করে রাখুন, দেখবেন ওই সময়ে আপনি উঠে গেছেন । একদিন রাত হয়ে গেছে কাজের চাপে, কোন চিন্তা করবেন না, এটা খুবই স্বাভাবিক, ওইদিন যদি পাঁচ ঘন্টা ও ঘুম হয় সেটা ও স্বাভাবিক । এটার জন্যে চাপ নেওয়াটা বরং অস্বাভাবিক ।

আমি অনেককে দেখেছি, আজ রাতে ঘুম কম হয়েছে, এটা নিয়ে সে চিন্তায় শেষ । এক্সপান্ড ইওর থিঙ্কিং । খাওয়া-দাওয়া সময়মতো করা ভালো, তবে রুটিনে তারতম্যে হলে চাপ নিয়েন না । খাওয়ার জন্যে বেঁচে আছি, এই চিন্তা না করে, জীবনে চলতে হলে এটা সহায়ক ভূমিকা পালন করে এমন চিন্তা করুন ।

ভবিষ্যতের জন্যে চিন্তা করবেন না, রিযিক আসমানে আছে। অসুস্থতার জন্যে সেভিংস করবেন না, এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে আসে । সর্বদা আল্লাহর উপর ভরসা করুন, জীবন নিয়ে দুশ্চিন্তা করবেন না ।


সন্তানের জন্যে দুশ্চিন্তা বন্ধ করুন, তাদেরকে দ্বীনের শিক্ষা দিন । তাদেরকে শিখান কিভাবে আল্লাহর কাছে চাইতে হয়, কিভাবে আল্লাহর উপর ভরসা করতে হয় ।

অল্প করে খাবার খান, নিজের কাজে মনোযোগী হোন । সর্বদা আল্লাহর উপর সন্তুষ্ট থাকুন । আল্লাহর অসংখ্যে নিয়ামত ভোগ করে, অসময়ে বৃষ্টি দেখে আল্লাহর উপর অসন্তুষ্ট হইয়েন না । অকৃতজ্ঞ বান্দাদের মতো এটা বলিয়েন না, আল্লাহ তোমার কাছে এতো করে চাইলাম, তবুও তুমি শুনলে না । রাগের মাথায় চুপ থাকুন, তখন মানুষ এমন কথা বলে নিজের অজান্তে সে মুসলিম থেকে খারিজ হয়ে যায় ।যখন যেই অবস্থায় থাকুন, আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করুন, পরনে যদি কাপড় ও না থাকে ।

আপনার কষ্টের সময় কেউ যদি বলে কেমন আছেন ? প্রতিউত্তরে বলেন "আলহামদুলিল্লাহ আলা কুল্লি হাল" "আমি সর্বাবস্থায় আল্লাহর প্রশংসা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করি" ।

আমার যদি শতবার দোয়া করার সৌভাগ্যে হয়, এরপর ও যদি দেখি আমার দোয়া কবুল হয় নাই, তারপর ও আমি অসন্তুষ্ট হবো না, বরং খুশী হবো আল্লাহ আমাকে পছন্দ করেন, তাই শতবার চাওয়ার সৌভাগ্যে হয়েছে, নয়তো প্রথমবারেই দোয়া কবুল করে, আমাকে এতবার চাওয়া থেকে বঞ্চিত করতেন ।


আপনার জীবনে সর্বোচ্ছ ক্রাইসিস মোমেন্টে শুধুমাত্র আল্লাহর উপর
ভরসা করুন । তার মতো আপন কেউ নেই, তিনিই আমাদের
অভিভাবক। দুশ্চিন্তাবিহীন তাওয়াক্কুলময় জীবনই সবচেয়ে সুখপ্রদ ।

মন্তব্য ১ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই জুন, ২০২১ ভোর ৬:৫৫

হাবিব স্যার বলেছেন: এখন বেশীর ভাগ মানুষ আর কাজের চাপে রাত জাগে না। রাত জাগে স্যোসাল মিডিয়ার নিউজফিডে।
পুরো লেখাটা উপদেশ মূলক। মেনে চললে নিশ্চয় উপকার হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.