নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি ভেড়ামারা হাই স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষকের ছেলে। অনেকে আমাকে \'স্বপ্নবাজ সৌরভ\' নামে চেনে।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

এমন যদি হতো , ইচ্ছে হলে আমি হতাম প্রজাপতির মতো!

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

এই শীতে খাই দাই

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৫৭


১.
বাঁটা মসলায় গরুর মাংস রান্না অনেকদিন খাওয়া হয়না।এখন আছে রাধুঁনী মরিচের গুড়া, মাংসের মসলা। আগে মনে আছে বাড়িতে মাংস রান্না হতো শুকনা মরিচ বেঁটে, মাটির হাঁড়িতে। অপূর্ব একটা গন্ধ পেতাম, টকটকে লাল তেল ভাসতো আর ঝোলটা হতো অনেক গাঢ়, আস্ত সিদ্ধ নরম রসুন, কয়েকটা কাঁচা মরিচ!! নাহ্ সেই স্বাদ অনেকদিন পাইনা।
শীতের দিনে রান্না হতো, সাথে গমের আটার গরম তপ্ত রুটি। গরম রুটির গন্ধটায় অন্য রকম। রান্নাঘরে পিঁড়িতে বসে, গরম রুটি ছিঁড়ে লাল লাল তেল যুক্ত ঝোল মাখিয়ে.... আহারে! আহারে!!


২.
অফিস থেকে ফেরার পথে হাঁস বিক্রি করতে দেখলাম। পাঁচশো টাকা জোড়া, দামাদামি করলে সাড়ে চারশো টাকায় দিয়ে দিতো! মনটা তখন থেকেই আনচান করছে। এখন ই তো হাঁসের মাংস খাওয়ার সময়! হাঁস চামড়া সহ রান্না করতে হবে, টুকরা টুকরা করে কেটে মসলা, টক দই আর ভাজা পেঁয়াজের গুড়া দিয়ে কিছুক্ষন মাখিয়ে রাখতে হবে।কাঁচা মরিচ আর পেঁয়াজ বেশী দিয়ে মাখা মাখা করে ঝাল ঝাল রান্না, রান্নার এক পর্যায়ে যখন লাল লাল তেল ভাসবে তখন কয়েক চামচ খাঁটি ঘি ছেড়ে দিতে হবে, মাংস কড়াইয়ে ধরে যাওয়ার আগে একটু পানি দিলে ঝোলটা একটু গাঢ় হবে।
এইবার কি দিয়ে খাবেন সেটা আপনার বিবেচনা। ঘিয়ে ভাজা পরোটা, ভাত নাকি খিচুরী। খিচুরীতে সুবিদা হলো পেঁয়াজ আর সবুজ টসটসে তাজা কাঁচা মরিচে কচ করে কামড় দিয়ে খেতে পারবেন!

এই স্টাটাসটা যখন লিখছি, জানলা দিয়ে দেখলাম পাশের বাড়ির আংকেল দুটো হাঁস নিয়ে বাসায় ঢুকছে.... ঐ বাড়িতে আজ ঈদ!! :(



৩.
বাসায় ঢুকতেই ভাজা ইলিশের গন্ধ! কড়া করে ভাজা। গন্ধেই বোঝা যায় মচমচে হয়েছে, কুড়মুড়িয়ে চিবিয়ে খেয়ে ফেলা যায়। আজ আবার বৃষ্টি বৃষ্টি। শুনলাম খিচুড়ী নামক 'অদ্ভুত' খাবারটা রান্না হচ্ছে। বাড়ির কলাইয়ের ডাল, সেই সাথে মিশিয়ে দেয়া হবে দুমুঠো মসুর আর মুগডাল। 'অদ্ভুত গরম ধোয়া ওঠা খিচুরী'র পাতে এক চামপ ঘি, দুটো কাঁচা মরিচ আর একফালি পেঁয়াজ আর কড়া করে ভাজা চর্বিদার ভাজা ইলিশ দিয়ে খাওয়া শুরু করা যেতে পারে।
খেতে খেতে চলে আসবে একবাটি গরুর মাংস। মাখা মাখা ঝোল, টকটকে ঝোল, তেল তেল ঝোল, ঝাল ঝাল ঝোল। কয়েকটা আলু, উপরে ভাসা আধা সেদ্ধ কাঁচা মরিচ..কাঁচা মরিচের গন্ধ !

বাসার প্রস্তুতি তাই দেখলাম। আপাতত আমি দুটো রুটি আর আধা সিদ্ধ করেলা ভাজি খেয়ে ঘুমাবো!
ভাজা ইলিশ, খিচুরী আর গরুর মাংসের জন্য শুভকামনা রইলো।



৪.

শীত মানেই পিঠা / পুলি , ভাজা পোড়া । আর এগুলো রাতেই খেতে মজা তাই এগুলো রাতেই ভাজতে হয়। তবে গ্রাম বাংলায় রাতে মাছ কেনা বা মাছ ভাজা যাবেনা একথা মেনে চলা হয়। মাছের গন্ধে তেঁনারা বেড়ালের মত ঘুরঘুর করে। শুধু মাছ নয় ভাজা পোড়া ( পিঠা /পুলি / বড়া ) ভাজলেও সমস্যা আছে। রান্নাঘরের জানলার পাশে বসে থাকে। নাকি গলায় গান গায়। আঁমাঁকেঁ দিঁ বিঁ নাঁ ----।

মাঝে মাঝে চাটাইয়ের বেড়া ভেদ করে হাত ঢুকিয়ে দেয় ! লিকলিকে লোমশ হাত। কি ভয়ংকর। চিকন আঙ্গুল গুলো নাড়তে থাকে। বড় বড় নখ। গরম খুন্তি দিয়ে বাড়ি দিলে একছুটে বাঁশঝাড়ের কাছে গিয়ে বিড়ালের মতো ম্যাও ম্যাও করে ডাকতে থাকে। তারপর একসময় গাছ বেয়ে উঠে যায় , আর দেখা যায় না। আমার ধারণা , মেছো ভূত গুলো খুব সহজেই বেড়ালের রূপ নিতে পারে , তাছাড়া বেড়ালও খুব মাছ পছন্দ করে।
আমাদের বাড়িতে রান্না ঘরে যখন পুলি/ পাকান ভাজা হতো তখন রান্নাঘরের বাইরে অস্বাভাবিক শব্দ হত। আমাদের কালো বেড়ালটার অস্বাভাবিক গতিবিধি লক্ষ্য করতাম আর অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতাম আমরা। বাঁশ ঝাড়ে কেমন জানি শব্দ হতো।


ভূতের আনাগোনা গ্রাম বাংলাতেই বেশি। তবে এখন আর আগের মত লক্ষ্য করা যায় না। ভর দুপুরে তাল গাছে পা ঝুলিয়ে কাউকে বসে থাকতে দেখা যায়না।বাবলা গাছেও কেউ চুল শুকায় না। তবে রাতে রান্না ঘরে যতবার আপনি মাছ ভাজবেন , তেল পিঠা ভাজবেন। আশপাশের পরিবেশ একটু খেয়াল করে দেখবেন। আপনার পোষা বেড়ালটা পিঠ টানটান করবে , ঘুরঘুর করবে। রান্নাঘরের বাইরে কেউনা কেউ পায়চারি করবে , অপেক্ষা করবে। আপনি তার উপস্থিতি টের পাবেন।

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:২২

ইসিয়াক বলেছেন: ঘুমানোর আগে এত খাবারের আয়োজন দেখে তো মাথা পুরাই নষ্ট ।........

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:২৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: তবে পিঠা পুলি থেকে সাবধান । ☺

২| ৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৪২

বলেছেন: স্বপ্নবাজ কবি,

"""গ্রাম হোক কিংবা শহর- নগর
অট্টালিকা থেকে অজপাড়াগাঁ
ইউরোপ থেকে আফ্রিকা
হোক সেটা মাংস কিংবা শুটকি
খিচুড়ি কিংবা পিটা পুলি
ভাজা পোড়ার মাদক গন্ধ নাকে লাগলেই বুঝে নেই আমরাই তো"" ভোজন প্রিয় বাঙালি ""
বিশালও জেনে গেছে এখন কোন ভূত নেই কারণ মানুষগুলো মস্ত বড় পাকনা ভুতপ্রেত হয়ে গেছে ।।


পোস্টে সুগন্ধি ছড়ায় দিলো।।। +++

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৩৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: বুঝতে হবে তেঁনারাও যে বাঙালী । মাছ গোশত পিঠা খাওয়া বাঙালি । তাই মনটা আনচান করে।
মন্তব্যে খেজুরর গুড়ের পায়েস রইলো ।

৩| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:০৬

আখেনাটেন বলেছেন: আপনি ভোজনরসিক আছেন মাইরি। :D


পাঁচশ টাকায় দুটি হাঁস। ছেড়ে আসা উচিত হয় নি। ঢাকায় সুপার শপে একটার দামই তো পাঁচশ টাকা।


এখন গ্রাম থেকেও ভূতেরা পালিয়েছে। B-)

লেখা ভাল্লাগছে।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৫৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: এইরে ঐটা তো হাড় জিরজিরে হাঁস। মন্তব্য আর ভালোলাগায় ইলিশ ভাজা ।

৪| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:১৮

ডি মুন বলেছেন: হাঁসের মাংস ভীষণ প্রিয়।

পিঠা ভালো লাগে না। তবে গ্রামে এই পিঠা ভাজা আর ভূতের গল্প খুব শোনা যায়।
একদিন একটু ভূতটুত দেখতে পারলে হতো, নতুন একটা অভিজ্ঞতা লাভ করতাম :)

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:১১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ভাগ্য ভালো থাকলে দেখতে পারবেন কিন্তু । ধন্যবাদ সমেত হাঁস ভুনা নিন।

৫| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:২০

মা.হাসান বলেছেন: এমন করতে আছে? ভুতে আপনার কিবোর্ড ভাইঙা ফালাক। এত সব খাবার কথা কইলেন, অথচ আজ রাতে আমার হরিমটর।

সে সময় গমের আটার রুটি সুস্বাদু ছিল। লাল আটার রুটি মিষ্টি লাগতো। এখন গমের আটার সাথে ভুট্টা আর কি সব মিশায়, রুটি চামড়ার মতো লাগে।
পিঠা পুলি কই পাবো ভাই যে সাবধান থাকবো:(

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৩৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: গমের আটার রুটির কথা মনে হলে মনটা কেমন হয়ে যায়। একবার ২৬ টা রুটি খেয়ে ছিলাম গরুর ভূড়ি দিয়ে । সেই সব ইতিহাস । ভালো থাকবেন। একবাটি ভুনা মাংস আর রুটি সমেত ধন্যবাদ ।

৬| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১:৫১

জুলিয়ান সিদ্দিকী বলেছেন: ইলিশের গন্ধে আমার নোলা ঝরে না। মানুষ ইলিশের জন্য পাগল আর আমি ইলিশের ভয়ে দূরে থাকি। এই মাছটা ভালো না লাগলেও এর ডিম্ভাজা অসাধার।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: সত্যি কথা হলো ইলিশ আমার অপছন্দ ।কিন্তু ডিমের লোভ ছাড়তে পারিনা। খুব ভাল্লাগে। দুই থালা ভাত খেতে পারি। মন্তব্যে ধন্যবাদ আর ইলিশের ডিম ।

৭| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:০৮

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: দেশের এই জিনিসগুলোই শুধু মিস করি- সত্যিই!

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৩৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমরা দেশে থেকেও মিস করি। তালের বড়া খাইনা কতদিন। ভালো থাকবেন।

৮| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:১৮

কিরমানী লিটন বলেছেন: বিজ্ঞান দিয়েছে বেগ - কেড়ে নিয়েছে আবেগ। পিঠা পার্বন আমরা ভুলতেই চলছি। আধুনিক ফাস্ট ফুডে অভ্যস্ত আমাদের সন্তানরা পাটগাছকে শাক হিসাবে চিনে। কোথায় হারালো সেই মধুর স্বাদ- সুমধুর দিনের হাতছানী......

সুন্দর পোষ্টের জন্য আপনাকে অভিবাদন প্রিয় স্বপ্নবাজ। ভালোবাসা জানবেন.....

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আপনিও ভালো থাকবেন প্রিয়। সাবওয়ে সেন্ডুইচ খাওয়া ছেলে গুলো জানবে না পুলি/ কুশলী পিঠার পুরে কত গল্প জমা থাকে।

৯| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:২৭

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:





রাজ হাঁসের ঝাল ঝাল কারি। তারাতারি খেয়ে নিন।


০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: এখন তো দেখি পরোটার ব্যবস্থা করতে হবে। মোলায়েম খাস্তা পরোটা। ধন্যবাদ আপনাকে ।

১০| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:





শুধু মাংস খাওয়ার আলাদা একটা স্বাদ আছে। পরোটাও রইলো।



০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:০৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: হে হে হে এতো কিছুর কি দরকার ছিল ।

১১| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২১

আহমেদ জী এস বলেছেন: স্বপ্নবাজ সৌরভ,





প্রথমটাতো রীতিমত স্বপ্নময় খাবার।
এখন হয়তো তাল বা বাবলা গাছে পা ঝুলিয়ে কেউ বসেনা, বসে চেয়ারে পা ঝুলিয়ে কী-বোর্ডে আঙুল রেখে আর তখনি ভুত-পেত্নীরা ঝপাঝপ লাফ দিয়ে আমাদের কম্পিউটারে চলে আসে।

সুন্দর লেখা, কবিতার মতোই ঝরঝরে, হাসের মাংশের মতোই তেল চকচকে...............

০২ রা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: হাঁসের মাংসের মতো তেল চকচকে...............!!
কি যে এক উপমা দিলেন স্যার। দেখি আজ কালকের মধ্যেই হাঁস কিনতে হবে।
ধন্যবাদ জানবেন। আজ দুপুরে ধোঁয়া ওঠা সাদা গরম ভাতে কড়া করে আলু ভাজি আর এক চাপচ ঘি.... আপনার জন্য।

১২| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:৫৬

কাতিআশা বলেছেন: আহারে এত খিদা লাগছে!!!!!!!!!!!!!!!!

০২ রা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৪০

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: এই দিন এটা দিয়ে আপাতত শুরু করুন।

১৩| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: আহা রসনার স্বাদ নিলেই তো মুঠো হয়ে যাই :(

মজাদার সব খাওয়ার আয়োজন

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৩৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: হা হা হা কি খাবেন বেছে নিন।শুধু পিঠা পুলি থেকে একটু সাবধান। পিঠার বাটিতে রসুন রাখবেন। :)

১৪| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:১৯

জুন বলেছেন: ইশ হাসের মাংসের কথা মনে হলে জিভে জল আসে /:)
রাতের বেলা পিঠা পুলি ভাজলে তেনারা আসেন এটাও আমি শুনেছি তবে দেখা হয়নি সৌরভ :-&
লুলীয় পোস্ট :`>

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৩৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: তেনারা আসেন আসেন। ভাগ্য সুপ্রসন্ন থাকলে দেখতে পারবেন। :)

ধন্যবাদ আপনাকে।

১৫| ১৯ শে মার্চ, ২০২০ ভোর ৫:১৯

ইমরান আশফাক বলেছেন: আহ্ হারে, শুনেই অর্ধভোজন (পড়ুন পড়েই অর্ধভোজন)। আক্ষেপ যে শীতকালটা যাওয়ার পর পোষ্ট টা নজরে এলো। কি আর করা, আগামী শীতের জন্যে অপেক্ষা ছাড়া। তখন দেখা যাবে। তবে গরুর গোসটা চলতে পারে কাঁচা আটার রুটি বা ভূনা নরম খিচুরীর সাথে, সাথে অবশ্যই কাঁচা মরিচ ও শির্কায় ভেজা পেয়াজের টুকরা। গরুর রান্না করা ভূড়ি পরেরদিন আবার কড়াইতে চড়িয়ে ভাজা ভাজা করে খেতেও তো দরুন লাগে, হোক সেটা আতোপ চালের ভাত বা লাল আটার রুটির সাথে। খাওয়া-দাওয়া বিষয়ক আমার একটি পোষ্ট আছে, নীচে লিন্ক দিলাম:

https://www.somewhereinblog.net/blog/difi/30001893

১৯ শে মার্চ, ২০২০ দুপুর ২:৪৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
গরুর রান্না করা ভূড়ি পরেরদিন আবার কড়াইতে চড়িয়ে ভাজা ভাজা করে খেতেও তো দরুন লাগে, হোক সেটা আতোপ চালের ভাত বা লাল আটার রুটির সাথে। ++

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.