নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি \'স্মৃতিকাতরতা \' নামক ভীষণ এক রোগগ্রস্ত, সেই সাথে বিষাদগ্রস্থ মানুষ। আমার চিকিৎসার প্রয়োজন।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

এক ফালি মেঘ, এক ফোঁটা জল- রংধনুকের একটি কণায়, একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা ।

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

ক্রিকেট খেলা দেখা ....

১১ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:০১



১.
তখন ক্রিকেটের কোন ম্যাচ ই ছাড়তে ইচ্ছা হতো না। আর পাকিস্তান ভারতের ম্যাচ হলে তো কোথায় নেই। আমাদের পল্লী বিদ্যুতের লাইন ছিল। ঘন ঘন কারেন্ট চলে যেত। আমরা তখন চলে যেতাম পিডিপির অঞ্চলে। খেলা দেখা লাগবেই। আমাদের এলাকায় ডিসের লাইন তখন সহজলভ্য হয়নি। খেলা দেখতে বিপদে পরে যেতাম। শ্রমিক ইউনিয়নের অফিসে ডিশের লাইন ছিল। আমাদের ভরসা ছিল ঐটা।
একদিন ভারত পাকিস্তানের খেলা। আমরা চলে গেলাম মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের অফিসে। ওখানে তারা শ্রীদেবীর নাগীন সিনেমা চলছে জি সিনেমায়। সবাই বুঁদ হয়ে সিনেমা দেখছে। বীনের শব্দে নাগিনের মত মাথা দুলাচ্ছে। আমাদের দেখে মুটামুটি বিরক্ত। আমাদের দল ভারী হচ্ছে। খেলা দেখার মানুষ অনেক। ভারত পাকিস্তানের ম্যাচ বলে কথা।
খেলা শুরু হয়েছে। ভারত ব্যাটিং করছে। নাগিন পাবলিক মহা বিরক্ত। খেলার মাঝে ওভারের ফাঁকে বিজ্ঞাপণ বিরতি।
নাগিন পাবলিকের একজন তো বিরক্ত সহ্য না করতে পেরে বলেই ফেললো ,
ধুউউর ... (ছাপার অযোগ্য ), খেলার ভিতর আবার এডভেটারি দেখানির কি দরকার। তাড়াতাড়ি খেলা শ্যাষ করি দিলিইতো পারে!

২.
আরেকদিন খেলা দেখতে দেখতে কারেন্ট চলে গেলো। পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে। ওপেনিংয়ে সাঈদ আনোয়ার আর শহীদ আফ্রিদি। মিস করার কোনো মানেই হয়না। আমাদের যেতে হবে পিডিপির লাইনে। বাড়ি থেকে বের হয়ে হেঁটে যাচ্ছি। পথের মধ্যে দোকানদার জাহাঙ্গীর ভাই (পাকিস্তানের ভক্ত ) জিজ্ঞেস করলো ,
কারা ব্যাটিং করছে?
পাকিস্তান।
রান কত ?
দুই ওভারে সাত।
কার কত ?

কারো কত সেটা আর বলা হয়নি। সাত রানের মধ্যে আবার কার কত ?

৩.
পাড়ার এক দোকানে ক্রিকেট খেলা দেখছি। এক চাচী এলো তেল কিনতে। টিভির দিকে তাকিয়ে বললো , কি হচ্ছে ?
দোকানদার বললো , খেলা।
চাচী বেশ কিছুক্ষন তাকিয়ে থেকে বললো , 'এতবড় ব্যাটারা এখুনো খেলে ?'

৪.
খেলা দেখছি ঢাকাতে এক দোকানে। পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে। বল যেন চোখেই দেখছে না। মেজাজ খুব খারাপ।
একজন কোথা দিকে এসে বললো , কারা পিটাচ্ছে ? কারা পিটাচ্ছে ?
পাশে বসা আমার ছোট ভাই বিরক্ত হয়ে বলে ফেললো , কেউ পিটাচ্ছে না।
লোকটা বললো , ঐযে পাকিস্তান পিটাচ্ছে !
আমার ছোট ভাইয়ের জবাব , পিটালে কি আর ৫ ওভারে ১৩ রান হয় ?

৫.
বাংলাদেশের খেলা। দুই উইকেট নাই। একজন এসে বললো, কি অবস্থা ? আমি মিথ্যা করে বললাম , আশরাফুল শেষ।
সে বললো , ' ইক ল্যায় কিডা। লিয়্যাই ঠিক না'।
আমি চলে এলাম । পরে গিয়ে দেখি খেলা জমে গেছে , আশরাফুল চার মেরেছে।
ওই লোকটা হাততালি দিচ্ছে আর বলছে , 'আশরাফুল ছাড়া কুনু পিলিয়ারই নাই ! '

৬.
বাংলাদেশ জেতার পর অপেক্ষায় থাকতাম। আব্বা কল দিয়ে কাঁপা কাঁপা গলায় বলতেন , কিরে খেলা দেখেছিস ?

আব্বা অনেকদিন খেলা দেখতে পারেন না।আমারো আর আগের মত খেলা দেখা হয় না।

ছবিঃ ইন্টারনেট


মন্তব্য ২২ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (২২) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:২৯

শূন্য সারমর্ম বলেছেন:


পাক-ভারত হাইপ আগেরমত আর নেই ; ক্রিকেটের প্রতি আমার একেবারেই মন উঠে গেছে যেদিন বাংলাদেশ ৩ বলে ২ রান নিতে পারলো না/ নিদহাস ট্রফিতে কার্তিকের ব্যাটে ভারতের সাথে হেরে যায় সেদিন থেকে। তারপর আর কোনো ক্রিকেট দেখি না, ইচ্ছে করে না। অপেক্ষায়আছি নভেম্বরের ফুটবল বিশ্বকাপ।

ফুটবলে আপনি কোন দেশ সার্পোট করেন?

১১ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৩:০৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
ব্রাজিল ।

২| ১১ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:৫৮

ককচক বলেছেন: কারেন্টের সমস্যা আমাদের এলাকায়ও ছিলো। বাংলাদেশের ম্যাচ মিস করতে চাইতাম না। কারেন্ট চলে গেলে আমরা রেডিওতে স্কোর শুনতাম।

অনেকদিন ক্রিকেট দেখি না। নিউজে শুনলাম, বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ে গিয়ে টি টুয়েন্টি ও ওয়ান ডে সিরিজ হেরেছে।

১১ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৩:০৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

টি টুয়েন্টি আমার পছন্দ না। আমিও এবার একটা ম্যাচও দেখিনি। লিটন দাসের ব্যাটিং দেখতে ইচ্ছা হয় শুধু।

৩| ১১ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৩:৫১

সৈয়দ মশিউর রহমান বলেছেন: পাক-ভারত খেলা মানেই উত্তেজনা আর উত্তেজনা।

১১ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১০:১০

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
আগে পাকিস্তান ভারত খেলার দিন জ্বর আসতো টেনশনে।

৪| ১১ ই আগস্ট, ২০২২ সন্ধ্যা ৬:৫৮

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: আপনার শেষ লাইনে এসে ধাক্কা খেলাম, মনটা গেল খারাপ হয়ে।

ক্রিকেট খেলা চলছে, পৃথিবীর কোনো না কোনো চ্যানেল সেই খেলা দেখাচ্ছে, তা আমি দেখি নি এমন হয়েছে কদাচিৎ। আগে শারজাহ গ্রাউন্ড ছিল অনেক উত্তেজনাকর ক্রিকেটের সফল ভেনু। তখনো বাংলাদেশ খেলায় আসে নি, আমার ক্রিকেট টিম ছিল শ্রীলংকা। শ্রীলংকার জন্য আমি জান দিয়ে দিব, এমন অবস্থ ছিল। ভাবতাম, এই শ্রীলংকার অবস্থা একদিন বাংলাদেশের মতোই ছিল। ওরা যদি চ্যাম্পিয়ন হতে পারে, তবে বাংলাদেশও একদিন এমন সফল হবে। দেখতে পারেন - বাংলাদেশ ক্রিকেট - আইসিসি ট্রফি ১৯৭৯ থেকে ১৯৯৭, ও বিশ্বকাপ ক্রিকেট ১৯৯৯-এ খেলার যোগ্যতা অর্জন - পর্ব-১

পোস্ট ভালো লেগেছে। ক্রিকেটে আপনার ক্রেজ আমাকে আনন্দ দিল অনেক।

১১ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১০:০৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
ক্রিকেট নিয়ে খেলা দেখে নিয়ে মজার কথা শেয়ার করতে চেয়েছিলাম। সব সময় বিষন্ন বিষন্ন পোষ্ট দেয়া হয়। তারপরেও দেখেন শেষটাই মন খারাপ থেকেই গেল।
আমি ক্রিকেট নিয়ে সারাদিন আড্ডা দিতে পারি, সমস্যা নেই। আমাদের টিভি এসেছে অনেক পরে। ছোটবেলায় রেডিওতে রেডিও অস্ট্রেলিয়াতে টেস্ট খেলা শুনতাম আব্বার সাথে। ভোরে উঠতে হতো।
একসময় ক্রিকেট খেলতাম। ক্রিকেট নিয়ে অন্য কিছু লিখবো একদিন।

ভালো থাকবেন। পোষ্ট ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো।

৫| ১১ ই আগস্ট, ২০২২ সন্ধ্যা ৭:০৮

জগতারন বলেছেন:
ক্রিকেট খেলা দেখা দেখি না।

ক্রিকেট খেলার ব্যাটটি দেখা যায় ঠিক যেন নাওয়ের বৈঠার মতো ! =p~

ক্রিকেট খেলা দেখাহয় না, ইচ্দেছা করে দেখিও না।

ফুটবল খেলা একটি আদর্শ খেলা ও প্রকৃত একটি আন্তর্জাতিক খেলা।
এই খেলার আন্তর্জাতিকভাবে প্রতি চারবছর পর পর প্রতিযোগিতার আসর বসে।
এ বছরের শেষের দিকে এ খেলার প্রতিযোগিতার আসর বসবে কাতারে।
আশা করি আমার সেখানে এ খালা দেখতে যাওয়া হবে এবার।
আপনি গেলে আমি আপনার জন্য একটি টিকিট-এর ব্যাবস্থা করে দিতে পারি।
যাবেন কিনা আমাকে জানাইয়েন।
এ খেলা দেখি ও প্রচুর আনন্দ পাই।

১১ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১০:০৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
আপনি জার্মানীর সাপোর্টার?
ফুটবল পছন্দ তবে সেভাবে আর দেখা হয়না। অনেক আগে ক্লাব ফুটবল দেখতাম এখন কিছুই দেখা হয় না। দেখবো বিশ্বকাপ । মনে হচ্ছে আর্জেন্টিনা কাপ নেবে।

৬| ১২ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ২:১১

ককচক বলেছেন: নিউজে দেখলাম, এনামুল বিজয় ভালো করেছে। ছেলেটা ২০১৫ পর সম্ভবত এবারই সম্ভবত একটা সিরিজ খেললো। তার ওয়ানডে এভারেজ ভালো। তারে নিয়মিত খেলানো উচিত। কিন্তু টিম ম্যানেজমেন্ট বা কোচ ডান বাম হাতের কম্বিনেশন, ট্যালেন্ট ইত্যাদি ইত্যাদি বলে ব্যর্থদের বারবার সুযোগ দিচ্ছে।
এনামুল বিজয়, কয়েস এদের বঞ্চিত করছে।

১২ ই আগস্ট, ২০২২ সকাল ১০:০৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ডান হাত বাম হাতের কম্বিনেশন ধ্যান ধারণা আমার পছন্দ না। শচীন শেবাগ কে ওপেনিং করতে দেখেছি। টিমে আফিফকে একটু আগে খেলানো উচিত বলে মনে করি। সৌম্য ফর্মে ফিরলে ভালো হয়। তবে আগের মত যেহেতু খেলা দেখিনা তাই ঠিক ভালো বলতে পারবো না। লিটনের ব্যাটিং আমাকে চোখের শান্তি দেয়। মিস করতে ইচ্ছা হয় না।

৭| ১২ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ১:৫৪

ককচক বলেছেন: লিটন যেদিন রান করে সেদিন বাংলাদেশ জিতে। লিটন, সম্য, আফিফ, মোসাদ্দেক, মিরাজ এরা দুর্দান্ত প্লেয়ার। তারা প্রচন্ড ভালো করবে একটা সময়।

১৩ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:৫৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
সৌম্য আমার ভালো লাগে। ফিরে আসুক। শুভ কামনা

৮| ১২ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৩:৩৪

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: চাচি মজার কথা বলেছে।

১৩ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:৫৭

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: হমম। মজা করেই পোষ্টটা লেখা ।
তাই মজা পেয়েছেন জেনে ভালো লাগলো।

৯| ১২ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১১:৩৬

আমি তুমি আমরা বলেছেন: ৪,৫ পড়ে বেশ মজা পেয়েছি।
৬-এ এসে মন্টা খারাপ হয়ে গেল।

১৩ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:৫৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
আমার পোষ্টে আসলে কোন মজা থাকে না। সব পোষ্ট ই ৬ নং এর মত।
তারপরও বাকি গুলোতে মজা পেয়েছেন জেনে ভালো লাগছে।
ভাল থাকবেন।

১০| ১৩ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ৮:৪৫

কিশোর মাইনু বলেছেন: নিদাহাসের পর থেকে খেলা দেখতে ভয় লাগত। তবু ও দেখতাম। কিন্তু যখন সাকিব কে ব্যান করা হয়েছিল তখন খেলা দেখা বয়কট করেছিলাম। এখন আর খেলা দেখা শুরু করা হয়ে উটেনি। এমনকি খবর ও রাখি না আর ক্রিকেটের। অথচ এক সময় ক্রিকেট বলতে পাগল ছিলাম।

একদম ছোট থাকতে পাক-ভারতের খেলায় পাকিস্তান সাপোর্ট করতাম। আরেক্টূ বড় হয়ে শুরু করলাম ভারতকে সাপোর্ট করা। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল কাহিনীর পর আবার পাকিস্তানের সাপোর্টার। আর এখন খেলাই দেখি না, আবার সাপোর্ট।

১৩ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ৯:২২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: এই পোষ্টটা দিয়েছিলাম মজার ঘটনা শেয়ার করতে। ক্রিকেট নিয়ে আমার অসংখ্য স্মৃতি আছে। নিজে খেলতাম।
২০০৪ সালের ভারত-পাকিস্তান ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তান হারে ৫ রানে। ঐ ম্যাচে কেঁদেছিলাম।

১১| ১৪ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১২:০২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:



খেলা দেখা কখনো কখনো নেশায় পরিণত হয়। তখন নাওয়া খাওয়া ঘুম সব বন্ধ। খেলা মিস করা যাবে না। +++

১৪ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১:১৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
খেলা দেখতে দেখতে অনেক মজার মজার ঘটনা ঘটে। আগে খেলা মিস করতাম না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.