নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

পাঠক।

জুনায়েদ বি রাহমান

মৌসুমি রোদ্দুর মেঘ হলে, আমি বৃষ্টির জলে খুঁজবো তোমাকে; নীল খামে কাব্য করে বর্ষার ঠিকানায় লিখবো প্রেমপত্র।

জুনায়েদ বি রাহমান › বিস্তারিত পোস্টঃ

\'আমি মিডিয়া তথা সুশীলদের কাতরানো দেখতে চাই।\'

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:০১




ভোট কারচুপি করে আওয়ামী নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার আবারো ক্ষমতায় গেছে। ঐক্যফ্রন্ট সহ বাম ডান সব জোট, দলগুলোর সামনে এখন মাত্র দুটো পথ খোলা।
১) দেশের স্বার্থে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্বেচ্ছায় নিজেদের সংগঠন বিলুপ্ত ঘোষণা করা।
২) গণতান্ত্রিকভাবে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন অব্যাহত রাখা।

'২নং ওয়ে অর্থাৎ শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলন অব্যাহত রাখা' নিয়েই শুরু করি। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মূল্য এদেশে কোনকালেই ছিলো না। আওয়ামীলীগের ডিজিটাল শাসন আমলে তা অকল্পনীয়। ছাত্রছাত্রীদের কোটাসংস্কার আন্দোলন, নিরাপদ সড়ক আন্দোলনই তার উৎকৃষ্ট প্রমাণ। সরকার যেকোনো শান্তিপূর্ণ আন্দোলনই আগুনের মতো জ্বলে উঠতে অক্সিজেনের ভূমিকা পালন করে। এমতাবস্থায় বিরোধীদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া মানে স্বেচ্ছায় আগুনে নিজেদের পোড়ানো। দেশ-মানুষ পুড়ানো।
এবং দোষ না করেও দোষের বুজা ঘাড়ে নেওয়া। সুতরাং, শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের চিন্তা না করে ১নং পথে হাটাই('দল, জোট অনির্দিষ্টকালের জন্য বিলুপ্ত ঘোষণা করে চুপ থাকা) তাদের জন্য ভালো। ভালো দেশের জন্যও।


বিরোধীদল চুপ থাকলে বা মাঠে না-থাকলে মিডিয়া তথা সুশীলশ্রেণীর একটা যথোপযুক্ত শিক্ষা হবে। ভোট ডাকাত, সন্ত্রাস, দুর্নীতিবাজদের প্রশ্রয় দেওয়ার পাপ আস্তে আস্তে তাদেরও স্পর্শ করবে। তারা এসবের বিরুদ্ধে কথা বলতে চাইবে। আওয়াজ তুলতে চাইবে। মুক্তি চাইবে। কিন্তু পারবে না। দম আটকে আসা পরিবেশে কাতরাবে।

'আমি তাদের সেই কাতরানো'টা দেখতে চাই।'


মন্তব্য ১৮ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (১৮) মন্তব্য লিখুন

১| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:০৯

হাবিব স্যার বলেছেন: 'আমি মিডিয়া তথা সুশীলদের কাতরানো দেখতে চাই।'

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:১৪

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: আওয়ামী নিজদের সংস্কার না করলে, সুশীলদের কাতরানো দেখতে দেরী হওয়ার কথা নয়। বিরোধী দলগুলো এমন পরিস্তিতি তৈরি হতে দেবে কি না সন্দেহ।

২| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:২৭

সম্রাট ইজ বেস্ট বলেছেন: শুধু ক্ষমতাসীনদের দোষ দেয়া ঠিক হচ্ছে না। বিরোধীরা ঠুঁটো জগন্নাথ সেজে নিজেদের বাড়িতে বসে বসে আঙুল চুষলে এর চেয়ে ভালো ফলাফল আর কী আশা করতে পারে? তাদের কোন সাংগঠনিক কার্যক্রম ছিল না। মামলা বা হয়রানির ভয়ে অনেকেই নিজের ভোটটাও দিতে যায়নি। আর সুশীলদের কথা বলছেন? তারা সবসময় স্রোতের সাথেই গা ভাসিয়ে অভ্যস্ত, স্রোতের বিপরীতে নয়। তাই তাদের কাছ থেকে অনুশোচনা বা কাতরানোর আশা না করাই ভালো।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০২

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বিরোধীদলগুলোর রাজনীতি ভুলে ভরা। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের পথ বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দল বন্ধ করে দিয়েছে সাংসদ বয়কট করে।
তারপরের আন্দোলনগুলো জনগণের হয়রানি আর অশান্তি ছাড়া কিছুই নয়।
আওয়ামীলীগের লগি বৈঠার আন্দোলন থেকে তারা শিক্ষা নেয়নি। এখন গর্তে ঢুকে পড়া ছাড়া তাদের করার কিচ্ছু নেই। গনতন্ত্রের কান্নাকাটি করলে, বা আন্দোলন করলে নিজেরা বিপদে পড়বে। কর্মী সমর্থকদেরও বিপদে ফেলবে।

সুশীলদের টকশো করতে হবে, আলোচনা সমালোচনা করতে হবে। বিরোধীদল না থাকলে আলোচনা সমালোচনার উপাদান সরকারদলের ভেতর থেকে বের করবে। আর সেটা করতে গেলেই মজা বুঝবে।
সরকারদলের নেতাকর্মীরা সমালোচনা নেওয়ার পর্যায়ে নেই। তারা আকাশে উড়ছে৷

৩| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৩

খাঁজা বাবা বলেছেন: আজ যে সুশীল ও মিডিয়া জয়োল্লাস করছে, আমি তাদের কাতরানো দেখতে চাই।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০৮

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সেটাই। পাপ বাপকেও ছাড়ে না।

৪| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৪

মোঃ মঈনুদ্দিন বলেছেন: একদম হক্ব কথা! এই হোক, এভাবেই হোক! ধন্যবাদ।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০৯

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকেও

৫| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৯

রাজীব নুর বলেছেন: সিস্টেমে অভ্যস্ত মানুষ অসিস্টেমে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে না।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৪

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সিস্টেম ভেঙ্গে গেলে নতুন সিস্টেম তৈরি হয়। সিস্টেমহীন বেশি থাকেনা।

বিরোধীদল চুপ বা নিস্ক্রিয় থাকলে সিস্টেম ব্রেক করার সম্ভাবনা নেই। কারণ আম্লীগের পকেট বিরোধীদল আছে।

৬| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৮

শরীফ আতরাফ বলেছেন: জাতশত্রু শেষ হয়ে গেলে কি আর করার।তখন নিজেদের মধ্যেই তৈরী করতে হবে।

আর রাজীব ভাই সবার পোস্টেই কিসব উচ্চমার্গীয় কথা বলেন আমার মাথায় খেলে না। :)

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৭

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সেটাই।

রাজীব ভাইয়ের মন্তব্যগুলো মন্দ না, ভালোই। তবে মাঝেমধ্যে পোস্টের সাথে মন্তব্যের কোনপ্রকার মিল খুজে পাই না।

৭| ০১ লা জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:১৭

বলেছেন: আমি দুটি নাম্বার আরেকটি এড করে দিলাম।


৩) বাংলাদেশ রাজতন্ত্র মেনে সবাইকে জয় বাংলা শ্লোগান দিতে হবে।

৪) গজবের অপেক্ষা করতে হবে ---



সব সুশীল রা তো দূর্জন!!!


শুভ নববর্ষ ভাই।

০১ লা জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৩:১৫

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: এটাও পারবে না। যতদিন ভারত, চীন থেকে ভাঙ্গাচুরা- অনুন্নত পণ্য ক্রয় করবে। তাদের স্বার্থ রক্ষা করে চলবে ততোদিনই ক্ষমতায় থাকবে।

বিরোধীদলগুলো এখন আন্তর্জাতিক চাপ প্রয়োগ করাতে পারলে দেশের ক্ষতি। সহিংস আন্দোলন করলে দেশের ক্ষতি। অতএব, চুপ করে দ্যাখাই ভালো 'চোর ডাকাতদের নিয়ে কতদিন আওয়ামী থাকতে পারে।'


৮| ০১ লা জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:০৫

নজসু বলেছেন:

০১ লা জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৬

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: ধন্যবাদ। হ্যাপী নিউ ইয়ার

৯| ০২ রা জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:১৪

বিজন রয় বলেছেন: নতুন বছরের শুভেচ্ছা।

নতুন কিছু বলুন, না হয় কবিতা লিখুন।

০২ রা জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৩১

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: হ্যাপি নিউ ইয়ার।
চেস্টা থাকবে দাদা৷

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.