নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বিশ্বজোড়া পাঠশালাতে সবাই ছাত্র-ছাত্রী, নিত্য নতুন শিখছি মোরা সদাই দিবা-রাত্রী!

নীল আকাশ

এই ব্লগের সমস্ত লেখা সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। আমার অনুমতি ছাড়া এই ব্লগের লেখা অন্য কোথাও প্রকাশ করা যাবে না।

নীল আকাশ › বিস্তারিত পোস্টঃ

সদ্য প্রেমে পরা বর্হিমূখি প্রেমিকা\'কে বশীকরণের অব্যর্থ কৌশলঃ-

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১০:২৫



নতুন প্রেমে পড়েছেন কিন্তু সদ্য প্রেমে পরা প্রেমিকার মতিগতি ঠিক আন্দাজ করতে পারছেন না?
.
মোবাইলে যখন তখন প্রেমিকা'কে ফোন করলে লাইন বিজি দেখায়, ধরেও না! আবার কারণ জিজ্ঞেস করলে উল্টা পাল্টা উত্তর দেয়?
.
ডেটিং এর সময় চাইলে অনেক পরে টাইম দেয়? আবার ডেটিংয়ে আসলেও উড়ু উড়ু ভাব থাকে সারাক্ষণ?
.
আপনার সামনেই হুট করে অপরিচিত কারো ফোন কল এলে গলার টোন বদলে যায়? চোরা চোখে তাকিয়ে সামনে থেকে উঠে যায়?
.
এইধরণের পরিস্থিতি যদি আপনাকে নিয়মিত সহ্য করতে হয়, তাহলে বুঝতে হবে আপনি সেই প্রেমিকার পছন্দের তালিকায় এখন বেশ পিছনের দিকে খুব বিপদজনক অবস্থানে আছেন। এবং অতি সত্ত্বর ব্যবস্থা না নিলে এই প্রেমিকা চিরতরেই অন্যকারো হয়ে যাবার সমূহ সম্ভবনা আছে!
.
ভয় পেয়ে গেলেন?
টেনশন হচ্ছে?
মাথার চুল চুল্কাচ্ছেন?
কী করবেন এখন?
আচ্ছা আসলেই কি কোন উপায় আছে মেয়েকে একবারে নিজের কাছে নিয়ে আসতে?
.
জী, আছে। তবে সেটা একেবারেই সিস্টেমেটিক এপ্রোচে হতে হবে।
যদি এইধরণের ভয়াবহ সমস্যার মধ্যে দিনাতিপাত করতে থাকেন তাহলে ধরে নিন আপনার জন্যই এই পোস্ট লেখা হয়েছে।
.
নীচের লেখা খুব মনোযোগ দিয়ে পড়ুন এবং কার্যক্ষেত্রে অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন।
.
প্রথমেই আপনার প্রেমিকার মারাত্মক পছন্দের দামী কোন রেস্টুরেন্টের নাম যোগাড় করুন। যত দামী হবে তত বেশি সহজ হয়ে যাবে কাজটা।
.
এবার সময় এবং সুযোগ বুঝে তাকে কোন একটা ট্রীট দেয়ার নাম করে সেখানে দাওয়াত দিন। যদি সত্যই এই রেস্টুরেন্ট তার পছন্দের হয়ে থাকে তাহলে মেয়ে কোনভাবেই ইগনোর করতে পারবে না।
.
এরপরের কাজগুলি অবশ্যই সিরিয়াল ধরে করবেন। আগের কাজ পিছে কিংবা পিছের কাজ আগে হলে কিন্তু ভজঘট পাঁকিয়ে যাবে, সাবধান!
.
প্রেমিকা'কে নিয়ে সেই রেস্টুরেন্টে ঢুকেই আপনার মোবাইল থেকে সেখানে একটা চেক-ইন স্ট্যাটাস দিন ফেসবুকে। প্রথম স্টেপ শেষ!
.
এরপর খাবারের অর্ডারের দায়িত্ব সেই প্রেমিকাকে দিয়ে দিন। বিশাল একটা টাকা পয়সার ধাক্কা লাগার সমূহ সম্ভাবনা আছে। সুতরাং আগে থেকেই ভালোমতো প্রিপারেশন নিয়ে যাবেন। বড় কোন কিছু পেতে চাইলে অনেক ছোট ছোট জিনিসের মায়া ত্যাগ করতে হয়!
.
অর্ডার দেয়া শেষ হলেই, প্রেমিকার পাশে যেয়ে বসুন এবং কিছু বাছাই করা প্রেমের আবেগঘন ডায়ালগ দিন। (ডায়ালগের জন্য গুগল মামার সার্চ অপশন কাজে লাগান)। নিজের প্রেমিকা'কে কী বলতে হবে সেটাও কি আরেকজনের কাছে শিখতে চান?
.
পছন্দের রেস্টুরেন্টে আসা এবং নিজের পছন্দমতো অর্ডার দেয়ার কারণে এই প্রেমিকার মন কিছুটা হলেও এখন সফট থাকবে। এবার তার সাথে বেশ কয়েকটা পাশাপাশি (সুযোগ পেলে আবেগঘন/কাছাকাছি হলে আরো ভালো হয়) ছবি ঝটপট তুলে ফেলুন। পারলে প্রেমিকার মোবাইলেও কয়েকটা তুলে দিন। এই স্টেপ শেষ।
.
এরপর নেক্সট স্টেপ, আপনার প্রেমিকা কত সুন্দর দেখতে সেটা বারবার মনে করিয়ে দিয়ে শেষের দিকে তার দিকে কিছুটা ইতস্ততভাবে তাকিয়ে থাকবেন চুপ করে। সাথে সাথেই জানতে চাইবে ঘটনা কী? উত্তরে যা যা বলবেন তাহলোঃ
-তোমার মেকআপ আজকে কে করিয়ে দিয়েছে বলো তো? কিছু জায়গায় ঠিকমতো মেকআপই হয়নি। যে করে দিয়েছে সে মনে হয় খুব হিংসুটে। আজকে যেন তোমাকে বেশি সুন্দর না দেখায় তাই এইকাজ করেছে।
.
আশা করা যায় এতেই সাময়িক কাজ হয়ে যাবে। নিশ্চিত থাকুন প্রেমিকা নিজে মেকআপ করেছে এটা কিছুতেই স্বীকার করবে না অথবা বলবে আপনার ঠেলায় তাড়াহুড়ার করার জন্যই এই অবস্থা! হাসি মুখে নিজের ঘাড়ে দোষ নিয়ে তাকে এখানেই কিছুটা ঠিক করে ফেলতে বলুন। মেয়েদের ভেনিটি ব্যাগ হচ্ছে ছোটখাট মিনি বিউটি পার্লার। আপনার প্রেমিকা ডেটিংয়ে এসেছে কিন্তু সাথে সাঁজুগুঁজুর কিছুই আনেনি সেটা প্রায় অসম্ভব ব্যাপার!
.
আপনার প্রেমিকা যখন মেকআপ ঠিক করা নিয়ে ব্যতিব্যস্ত থাকবে তখন ল্যাভেটরিতে যাবার কথা বলে উঠে আসুন!
.
বাথরুমে বসেই অতিদ্রুত প্রেমিকা'কে ট্যাগ করে একটা সেই রকম আবেগঘন স্ট্যাটাস সহ ক্লোজ কিছু ছবি দিয়ে একটা পোস্ট দিয়ে দিন। লোকেশন দেবেন সেই রেস্টুরেন্টে। তাড়াতাড়ি বের হয়ে প্রেমিকার কাছে চলে আসুন। মুখের মেকআপের সমস্যা নিয়ে একটার পর একটা খুব ছোট ছোট খুঁত ধরতে থাকুন (খবরদার বড় কোন খুঁত ধরবেন না, ডেটিং করার শখ কিন্তু জনমের মতো ছুটিয়ে দেবে আপনাকে!)। আগামী বেশ কিছুক্ষণ কোনভাবেই আপনার প্রেমিকাকে তার মোবাইল ফোনের ধারে কাছেও যেতে দিবেন না।
.
খাওয়া চলে আসলে তাকে সার্ভ করতে বলুন। খাবার সহ তার একটার পর একটা ছবি তুলতে থাকুন। মেয়েদের একবার ছবি তোলার মুড এসে গেলে সেটা অনেককক্ষণ থাকে। এটাকেই কাজে লাগান।
.
ত্রিশমিনিট তাকে মহাব্যস্ত রাখতে হবে আপনার, সেটা যেভাবেই হোক।
.
আশা করা যাচ্ছে ইতিমধ্যেই যা হবার তাই হয়ে গেছে। আপনার প্রেমিকার সিরিয়ালের উপরের দিকে সব প্রেমিকের ততক্ষণে খবর হয়ে গেছে নিশ্চিত। ফোন দেয়া শুরু করে দেবে কিন্তু এখন আপনার প্রেমিকা ফটো তোলা এবং পছন্দের খাবার নিয়ে ব্যস্ত। এখন এইসব ছেলেদের ফোন এলেও লজ্জা এবং কৃতজ্ঞতাবশত ফোনকল কেটে দেবে, না হয় রিসিভ করেই ব্যস্ত আছি বলে কেটে দেবে। দ্বিতীয়টা হলে আপনার কপাল আরও খুলে যাবে।
.
সামনের রাস্তা এখন ফকফকা পরিষ্কার হতে কেবলই শুরু হয়েছে!
.
খাবার শেষ করে সেই রেস্টুরেন্ট থেকে বের হয়ে আসার কিছুক্ষণ পরে কোন আগাম সর্তকতা ছাড়াই যুদ্ধ বিগ্রহ শুরু হয়ে যাবে।
.
ভুলেও আপনার প্রেমিকা’কে বাসায় পৌছে দিয়ে আসার কোন প্ল্যান করবেন না। রেস্টুরেন্ট থেকে বের হয়েই ভাগবেন, যত দ্রুত সম্ভব। নিজের মোবাইল ফোন বন্ধ করে দিন।
.
আপনার প্রেমিকা শীঘ্রই টের পেয়ে যাবে কী ঘটনা ঘটে গেছে! কিন্তু ততক্ষণে আপনি হওয়া হয়ে গেছেন। মোবাইলে ফোন করেও পাবে না।
.
কমপক্ষে চার ঘন্টা পরে মোবাইল অন করেই প্রেমিকা’কে নিজেই ফোন দিন। মোবাইলে চার্জ শেষ গিয়েছিল দেখে অটোমেটিক বন্ধ হয়ে গিয়েছিল সেটা জানাবেন প্রথমেই! এরপর আপনাকে যা ইচ্ছে বলুক, আপনি শুধুই চুপ করে শুনুন, প্রতিবাদ তো দূরের কথা, মুখই খুলবেন না।
মনে রাখবেন বোবার কোন শত্রু নেই! কোনকালেই ছিল না!
.
পোস্ট ডিলিট করার অনুরোধ আসলে সেই পোস্টের ভালো মতো স্ক্রিনশট তুলে কারা কারা মন্তব্য এবং ইমোজি দিয়েছে সেটারও ছবি তুলে রাখুন।
.
এরপর সেই পোস্ট ডিলিট করে দিয়ে অতিশয় ভদ্র ছেলের মতো ফোন দিয়ে সেটা প্রেমিকা জানিয়ে দিন। তার কাছে অবশ্যই ধন্যবাদ দাবী করুন। গালি গালাজ করলেও এই দাবী ছাড়বেন না। তাকে বলবেন শুধু সে বলেছে দেখেই এই পোস্ট আপনি ডিলিট করেছেন, সারা পৃথিবীর অন্য যে কেউ বললেও আপনি এটা করতেন না। ফোন কল আপনার প্রেমিকা না কাটা পর্যন্ত আপনি অপেক্ষা করুন।
.
এইবার আপনার অপেক্ষার পালা।
.
আপনার প্রেমিকা একের পর এক ভিসুভিয়াস, কিলিমাঞ্জারো ইত্যাদির সমান আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাত থামাতে রীতিমতো ক্লান্ত হয়ে যাবে। তখন আপনিই হবেন তার একান্তই পাশে থাকার মানুষ।
.
সিরিয়ালে উপরের দিকে যারা ছিল তারা ভালোমতোই খোঁজ নেবে আপনার প্রোফাইলে। এই জন্যই প্রথমেই রেস্টুরেন্টে চেক-ইন দিতে বলেছিলাম। এখন ইনভেস্টমেন্টের সময়। গুগল মামার সার্চ অপশন দিয়ে যেইসব আবেগঘন ডায়ালগ যোগাড় করেছিলেন সেইগুলি দিয়ে একটার পর একটা পোস্ট দিতে থাকুন।
.
লাস্ট স্টেপঃ-
দুর্দান্ত প্রেমের কবিতা ছাপা হয় এইরকম কোন সাইট ইন্টারনেটে আগেই খুঁজে বের করে রাখবেন। কমপক্ষে একশোর কবিতা দরকার আপনার (খবরদার কোন অশ্লীল বা নোংরা কিছু না, পিউর প্ল্যাটনিক লাভ টাইপের!)। কবিতার ভাষা যত বেশি আবেগঘন হবে, তত বেশি কাজ হবে।
.
এইবার শুরু হবে নন-স্টপ ম্যাসেঞ্জারে প্রেমের কবিতা পাঠানোর প্রসেস। ধরে নিন আপনার প্রথমদিকে পনের থেকে বিশটা দেখা মাত্রই রাগের চোটে ডিলিট করে দেয়া হবে। সুতরাং ভাল ভাল কবিতা আগে দিবেন না।
.
দিনে আট বা দশটা করে কবিতা পাঠাতে থাকুন। এবং প্রতিটা কবিতার নীচে কবির নাম ভালোভাবে দিয়ে দিবেন।
.
কমপক্ষে ত্রিশটা কবিতা পার হলে এবার দুর্দান্ত বাছাই করা একটা কবিতা ভুল করে নিজের নাম বসিয়ে তাকে পাঠিয়ে দিন। এবং অপেক্ষা করুন। কোন রেসপনস না আসলে আবার পনের’টা কবিতার পর একই কাজ করুন।
.
রেসপন্স আসবে। কবিতা মেয়ে পড়বেই। যত পড়বে, রাগ ততই কমবে। কমতে কমতে যখন শূন্যের কোটায় নেমে আসবে তখনই ফোন দেবে আপনাকে। কবিতা আপনি সত্যই আপনি লিখেছেন নাকি জানতে চাইবে!
Remember everything is fair in love and war!
.
জীবনে যে কোনদিন এর আগে কবিতা লেখেন নি! তার প্রেমে পড়েই এবং রেস্টুরেন্টে তার সাথে এত ভালো একটা ডেটিংয়ে এসেই এই প্রথম কবিতা লেখা শুরু করেছেন এটা সুন্দরভাবে তাকে বুঝিয়ে দিন।
.
এরপরও যদি আপনার প্রেমিকার কোন রেসপন্স না আসে তাহলে বুঝতে হবে এই মেয়ে অনেক আগেই অন্যের হয়ে গেছে। শুধু শুধু এখানে বৃথা চেষ্টা করে কোন লাভ নেই। বৃথা অরন্য রোদন করে কোন লাভ নেই!
.
নতুবা কেল্লা ফতে হয়ে যাবার কথা সাথে সাথেই! খবরদার ভুলেও তাকে পাবার জন্য যা যা করেছেন সেটা আগ বাড়িয়ে জানাবেন না, পারলে এই ঘটনা বেমালুম ভুলে যান। মেয়ে আপনার লেখা নিয়মিত কবিতা চাইবে। আগে বাড়িয়ে আবার প্রতিদিন পাঠানো শুরু করবেন না। প্রতি সপ্তাহে একটার বেশি কোনভাবেই পাঠাবেন না। নব্য কবিদের সপ্তাহে একটার বেশি কবিতা লেখাটা শোভনীয় নয়!
.
আশা করা যাচ্ছে এভাবে কবিতা পড়া এবং পাঠাতে পাঠাতে আপনিও শীঘ্রই কবি হয়ে উঠবেন। কি আছে জীবনে? সাহস করে লিখে ফেলুন!
.
তারপর সেইগুলি কবিতাগুলি সামু ব্লগ সহ বিভিন্ন সাহিত্য কেন্দ্রেও পোস্ট দিয়ে দিন! অচিরেই নামকরা কবি হিসেবে আপনি প্রসিদ্ধ হয়ে উঠবেন।
.
কি চমকে উঠলেন?
আরে, এটা তো রম্যলেখা। আপনারা এত সিরিয়াস হয়ে পড়ছিলেন কেন?
অবশ্য যারা বেশি সিরিয়াস ছিলেন তাদের জন্য সমবেদনা এবং উৎকন্ঠা রইলো।
.
আপনি কিন্তু আপনার প্রেমিক/প্রেমিকা কিংবা …… নিয়ে আসলেও চিন্তিত!
.
এর আগে আমি ব্লগে কবিতা লেখার সহজ পাঠ দিয়েছিলাম, কেউ কেউ বলেছে তাতে নাকি কাজও হয়েছে। সুতরাং…….
.
উৎসর্গঃ লেখাটা উৎসর্গ করা হলো শ্রদ্ধেয় রম্য লেখকদের গুরু গিয়াস উদ্দিন লিটন ভাইকে।
.
.
সবাইকে ধন্যবাদ ও শুভ কামনা রইল।
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত @ নীল আকাশ, অগাস্ট ২০২০

মন্তব্য ৬৭ টি রেটিং +১৩/-০

মন্তব্য (৬৭) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১০:৪১

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: হাহাহাহা এসব কী ভাইয়া, এত পঁচা বুদ্ধি দিতাছো নতুন প্রেমিদের হাহাহা

এসবে এখন কাজ হবে না
মানুষ চালাক হয়ে গেছে

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১১

নীল আকাশ বলেছেন: মজা করে লিখলাম আপু। অনেকদিন ধরে রম্য লিখি না। ভাবলাম একবার টেরাই করে দেখি।
প্রথম মন্তব্যের জন্য আলাদা ভাল লাগা।
ধন্যবাদ।

২| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:১৭

ইসিয়াক বলেছেন:


ওয়াও! দারুণ বুদ্ধি পাইলাম। কাজে লাগবে নিশ্চয়।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১২

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই। একবার চেষ্টা করে দেখতেও পারেন ।
কাজ হয়ে গেলে কিন্তু মিষ্টি খাওয়াতে হবে।

৩| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:১৯

মোঃমোস্তাফিজুর রহমান তমাল বলেছেন: এই কৌশল কামরূপ-কামাখ্যাতেও পাওয়া যাবে না।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১২

নীল আকাশ বলেছেন: জী ভাই। এটা একেবারে নীল আকাশ স্পেশাল রেসেপি।
ধন্যবাদ পড়ার এবং সুন্দর একটা মন্তব্য করার জন্য।

৪| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৪১

কাজী আবু ইউসুফ (রিফাত) বলেছেন: আপনার বুদ্ধি / কৌশলের চেয়েও মেয়েদের ষষ্ঠ ইন্দ্রিয় খুব প্রখর!

----আপনি কি এভাবেই ভাবীকে পেয়েছিলেন!

---কবিতা-ই আমার কাল হয়েছিল!

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১৪

নীল আকাশ বলেছেন: আমার এত কষ্ট করতে হয় নি। বুদ্ধি বেশি তো মাথায় সেজন্য।
যাদের লাগবে তাদের জন্য দিলাম।
মেয়েদের ষষ্ঠ ইন্দ্রিয় এর ক থা মাথায় রেখে এই ব্যাকডোর বুদ্ধি তৈরি করা হয়েছে।
ধন্যবাদ পড়ার এবং সুন্দর একটা মন্তব্য করার জন্য।
শুভ কামনা রইলো।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১৫

নীল আকাশ বলেছেন: কবিতা মেয়ে পটানোর জন্য ধন্যান্তরী ঔষুধ। এই জিনিস ফেল করে না প্রায় নিশ্চিত।

৫| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৪৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: পড়ে না হেসে পারলাম না। তয় একখান কথা বুড়োদের কোন ব্যবস্থাপত্র কি আপনার কাছে আছে?

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১৬

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই। হাসার এবং পড়ার জন্য।
বুড়োদের জন্য ব্যবস্থাপত্র লেখার অনুরোধ আরো এসেছে। লিখতে হবে দেখছি!
ভালো থাকুন সব সময়।

৬| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৫৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: হাহাহাহা দেশ প্রেমিক হাহাহাহাহ

ভাইয়া বুড়োদের জন্যও একটা ব্যবস্থাপত্র দিন হাহাহাহহা

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১৭

নীল আকাশ বলেছেন: ভাইয়া বুড়োদের জন্যও একটা ব্যবস্থাপত্র দিন হাহাহাহহা
ঠিক আছে আপু। আরেকবার টেরাই করে দেখি কি করা যায় বুড়োদের জন্য।
শুভ কামনা রইলো।

৭| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৫৮

মোহামমদ কামরুজজামান বলেছেন: ভাই,
এক বহুচারিনী মানুষরুপী কুকুরীকে পাওয়ার জন্য এত প্রচেষ্টা ?
মানুষ হিসাবে নিজেকে ভাবতে লজ্জা লাগছে।প্রেমিক - প্রেমিকা যেই হোকনা কেন, সেই মানুষ যদি আপনার -আমার স্বাভাবিক অবস্থায় আপনাকে-আমাকে ভালবেসে, আপনার - আমার প্রতি বিশ্বস্ত না থেকে, এক সম্পর্কে থেকে অন্য সম্পর্কে থাকে অর্থ্যাৎ গাছের টা খাওয়ার ও তলেরটাও কুড়াবার মতলবে থাকে তা সে যত ই সুন্দরী প্রেমিকা অথবা পয়সা ওয়ালা সুপারম্যান প্রেমিকই হোক না কেন তাকে যত তাড়াতাড়ি ভুলে যাওয়া যাবে ততই মংগল।

অবিশ্বস্ত প্রেমিক-প্রেমিকা থাকার চেয়ে না থাকাই মংগল ।কারন,অবিশ্বস্ত মানুষ কুকুরের চেয়ে নিকৃষ্ঠ ,সাপের চেয়ে খল আর হায়েনার চেয়ে হিংস্র।
তাদের কে যত তাড়াতাড়ি ভূলে যাওয়া যাবে ততই মানবজীবনের জন্য মংগল।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:২০

নীল আকাশ বলেছেন: দূর ভাই। এত সিরিয়াস হয়ে গেছেন কেন?
এটা রম্য লেখা। রম্য হিসেবেই নিন।
অবিশ্বস্ত মানুষ কুকুরের চেয়ে নিকৃষ্ঠ ,সাপের চেয়ে খল আর হায়েনার চেয়ে হিংস্র। তাদের কে যত তাড়াতাড়ি ভূলে যাওয়া যাবে ততই মানবজীবনের জন্য মংগল। ১০০ স হ ম ত।
অন্যের জিনিস টানাটানি করা আমি নিজেও পছন্দ করি না।
শুভ কামনা রইলো।

৮| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:০২

ইসিয়াক বলেছেন: দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: পড়ে না হেসে পারলাম না। তয় একখান কথা বুড়োদের কোন ব্যবস্থাপত্র কি আপনার কাছে আছে?

হা হা হা সত্যি দারুণ মজা পাইলাম।।অর্ডার পত্র তো ভালোই হইতাছে দেখতাছি ;)

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:১৮

নীল আকাশ বলেছেন: জী ভাই। দুইজন অলরেডি জানিয়েছে।
লিখতেই হবে দেখছি!

৯| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমি একটা প্রেম করতে চাই।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০২

নীল আকাশ বলেছেন: ভাবীর সাথেরটা কি হলো?
নতুন কিছু করতে চাইলে পোস্টের পদ্ধতি ফলো করতে পারেন!
তবে, ভাই বৌয়ের সাথে প্রেমের মজাই আলাদা।

১০| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১:১৯

নেওয়াজ আলি বলেছেন: চুল পাকিলে লোকে হয় বুড়ো । চল্লিশ গেল ........ বুড়োর যৌবন এলো।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৫

নীল আকাশ বলেছেন: আজকাল কেউ বুড়া হয় না ভাই।
ষাট বছরের বুড়োর চুলও কুচকুচে কালো।
আর অরিজিনাল থিওরি তো আছেই, প্রেম করার কোন বয়স নেই!

১১| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:০৯

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: এই পদ্ধতি কি কেবল একটা তত্ত্ব নাকি বাস্তবে প্রয়োগ করে এটার কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে এটা জানার আগ্রহ হচ্ছে। এটার সফল প্রয়োগ কে বা কারা করেছিলেন একটু বিস্তারিত লিখলে ভালো হত। রাশিয়ার করোনার টিকা নিয়ে অনেক সন্দেহ কাজ করছে। সব সন্দেহ ঘুচে যাবে যখন দেখা যাবে যে টিকা গ্রহণকারীরা করোনা থেকে নিরাপদ এটা প্রমাণিত হবে।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ২:০৭

নীল আকাশ বলেছেন: এটা এখনও তাত্ত্বিক পর্যায়ে আছে। ব্লগে দিলাম এইজন্যই।
সবাই টেরাই করে সফলতার পারছেন্টেজ জানাক। তারপর নিজের নামে
রেজিস্ট্রেশন করে ফেলবো।

১২| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



হালাল প্রেম কি এই রকম?

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৮

নীল আকাশ বলেছেন: বৌ আর ঐশ্বরিক প্রেম ছাড়া বাকি সব হারাম।
আমি তো জানতাম হালাল জিনিস নিয়ে আপনার অরূচি আছে।
এই হারাম জিনিস টেরাই করে দেখবেন নাকি!

১৩| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৫৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
দিন যত যাবে পোলাপান তত নতুন নতুন কৌশল বের করবে।+++

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১:৫৭

নীল আকাশ বলেছেন: দুনিয়া এগিয়ে যাচ্ছে। নতুন নতুন বুদ্ধি তো বের করতে হবেই....

১৪| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৫৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: সবচেয়ে ভাল হবে এমন চৌদ্দ নাম্বারি মেয়েকে খানা পিনার পর দামী রেস্টুরেন্টে বসিয়ে বাথরুমে যাবার নাম করে সটকে পড়া । আমার স্টুডেন্ট লাইফে এমনটা করতে শুনেছি =p~

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১:৫৯

নীল আকাশ বলেছেন: ভাই বুদ্ধি একেবারে খারাপ দেন নাই।
তবে এটা করলে খাওয়া দাওয়া শেষে একদম বিল দেয়ার আগে ভাগতে হবে।
কত ধানে কত চাল বের হয় মেয়ে একবারে টের পেয়ে যাবে!

১৫| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:১১

নিঃশব্দ অভিযাত্রী বলেছেন: ট্রাকটর ভাইজানের জন্য একখান বুইড়া মানুষের হালাল থেরাপির রেসেপি বানাইয়া দিন।
লেখায় ব্যাপক বিনুদোন।

১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৯

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ পড়ার জন্য।
লাভ হবে না ভাই। উনার হালাল জিনিসে অরূচি আছে।

১৬| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



লেখক বলেছেন, " বৌ আর ঐশ্বরিক প্রেম ছাড়া বাকি সব হারাম। আমি তো জানতাম হালাল জিনিস নিয়ে আপনার অরূচি আছে।
এই হারাম জিনিস টেরাই করে দেখবেন নাকি! "

-আপনার লেখাগুলোকে আমার হারাম মনে হয়।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১:৫৫

নীল আকাশ বলেছেন: আপনি তো দেখি প্রশ্ন ফাঁস জেনারেশনের ফতোয়াবাজদের মতো করে ফতোয়া দেয়া শুরু করে দিলেন। এই লাইনে নতুন আসলে ভাত নেই। পুরানো ফতোয়াবাজদেরই খাই খাই অবস্থা।
নীচে দেখুন আপনার মতো প্রশ্ন ফাঁস জেনারেশনরা কি করে-

১৭| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪৩

মুক্তা নীল বলেছেন:
নীল আকাশ ভাই ,
অনেকদিন পর মজার পোস্টে অনেকেই হাসালেন এবং সাথে আমিও হাসলাম। যে দুনিয়া পড়ছে ভাই , এখনকার যুগের
ছেলেই বলেন আর মেয়েই বলেন সত্যিকারের প্রেম নাই।
এরপরও আমাদের যুগের প্রেমটা ছিল সম্পূর্ণ হালাল।
সেই যুগ আর সেইদিন এখন আর নাই , তাই বলি
সময়পযোগী হয়েছে পোস্টখানা‌।
ভাইয়ের জন্য শুভকামনা ও ধন্যবাদ রইলো ।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ২:১২

নীল আকাশ বলেছেন: অনেকদিন হলো রম্য কিছু লিখি না। হাত নিশপিশ করছিল। প্লট মাথায় আসতেই সু্যোগের সদব্যবহার করে ফেললাম।
পোলাপাইন এখন প্রেম করে ফেবুতে, ডেটিং করে ভার্চুয়াল, আর ছাড়াছাড়ি হলে ডিজিটাল ব্লক মেরে দেয়। কেস ফিনিস!
পড়ার এবং খুব সুন্দর একটা মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ।
শুভ রাত্রী।

১৮| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৮:৪৬

মনিরা সুলতানা বলেছেন: ট্রাই করে পিটুনির ভাগ দিতে আসবে সেই ভয়ে রম্য নাম দিলেন বুঝি :P

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ২:০৪

নীল আকাশ বলেছেন: দেখুন, নিউটনের তৃতীয় সূত্র মতে প্রতিটা কাজের বিপরীত মূখী প্রতিক্রিয়া থাকতেই হবে।
তবে মনে রাখতে হবে পরাজয়ে ডরায় না বীর পুরুষ।
আর বড় কিছু পেতে হলে ছোটখাট কিছু জিনিস আপোষেই হজম করে নিতে হয়!

১৯| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৮:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: নীল আকাশ,




শিরোনামেই বুঝেছি যে রম্য টাইপ হবে। হয়েছেও।

মিলিয়ে দেখলুম, আমাদের কালে এসবের বালাই ছিলোনা। ছিলো নির্মল ভালোলাগা থেকে - ভালোবাসা। ছিনিয়ে নেয়ার প্রয়োজন হতোনা ।
এখনকার যুগ হলো সবকিছু ছিনতাই এর যুগ। তাই ভালোবাসা(?)কেও আজকাল ছিনিয়ে নিতে হয় ! তবে সে ছিনতাইয়ে অস্ত্র মনে হয় "কবিতা" নয় , "টাকা" এবং "টাকা"।

তবুও এ যুগের ছেলেমেয়েরা না হয় এভাবেই "কবিতা" দিয়ে ভালোবাসা ছিনিয়ে নেয়ায় মেতে থাকুক , "মাদক" ব্যবহারের নেশা ধরিয়ে নয়............................

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৪৮

নীল আকাশ বলেছেন: গুরুজী,
রম্য লেখক লিটন ভাইয়ের উৎসর্গে লিখেছি, রম্য লেখা না হলে চলে?
আজকালের যুগে পোলাপাইনের প্রেম পীড়িতির কোন স্টেশন নাই।
একেকজনের একাধিক ডিজিটাল আইডি, একেক জায়গায় ডিজিটাল প্রেম করে বেড়ায়।
উনিশ থেকে বিশ হলেই ডিজিটাল ব্লক।
প্ল্যাটনিকলাভ বলে এখন আর কিছুই নাই। জানুরে ঠিকমতো দামী দামী গিফট দিতে না পারলে, ভালো ভালো জায়গায় শপিং করে না দিতে পারলে ছ্যাকামাইসিন কনফার্ম।
সমস্ত পৃথিবীর সবকিছুই এখন টাকা পয়সা নির্ভর হয়ে গেছে।
ভালো থাকুন গুরু, সুস্থ এবং নিরাপদে।
শুভ কামনা রইলো।

২০| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১১:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: দুনিয়াতে সবচেয়ে মজা প্রেমে। এর চেয়ে শান্তি আর কিছুতে নেই।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ২:০০

নীল আকাশ বলেছেন: আপনার সাথে শতভাগ সহমত ভাই। প্রেম ছাড়া এই দুনিয়ায় আর কিছুই নাই!

২১| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১১:০৬

জোছনাস্নাত রাত্রি বলেছেন: এইটা কেমন কথা? শুধু ছেলেদের জন্য টিপস দিলেন? মেয়েদের জন্য কিছু দিলেন না?
মেয়েদের জন্য টিপস নিয়ে এটার দ্বিতীয় পর্ব লিখে ফেলুন!
লেখা মজা লেগেছে।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৫৮

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ পড়ার এবং সুন্দর মন্তব্যের জন্য।
বুদ্ধি খুব একটা খারাপ দেন নি। সময় পেলে একবার টেরাই করে দেখাই যায়!

২২| ১৩ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১১:৪৫

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

সারমর্ম এই দাড়ালো যে
প্রেমে পড়েছেনতো ধরা খেয়েছেন !!
সুতরাং নো গার্ল ফ্রেন্ড নো টেনশন!!
গুরুর বাক্য মানুন, প্রেমে পড়া ছাড়ুন।
উপকার না পেলে পয়সা ফেরৎ।
অর্থাৎ মানিব্যাক গ্রান্টি !!

১৬ ই আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:৪০

নীল আকাশ বলেছেন: ধরা যে খাবে সেটা জেনেই সবাই প্রেমে পড়ে।
কিন্তু ঐ যে, দিলিকা লাড্ডূ। না খেলেও কষ্ট, খেলেও কষ্ট!
ধন্যবাদ পড়ার জন্য।

২৩| ১৪ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ৮:০২

রাােসল বলেছেন: Writtings and comments, all are nice nice & nice. Specially attacking to self thinking intecllectual & suffering from patriotism person. Pray to write more & make such comment. Thanks.

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:৫৬

নীল আকাশ বলেছেন: প্রথমবারের মতো আমার ব্লগ বাড়িতে আসার জন্য শুভেচ্ছা এবং শুভ কামনা রইলো।
আপনার মন্তব্য খুব সুন্দর হয়েছে। আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।
নিয়মিত আমার লেখা পড়ার আমন্ত্রণ রইলো।

২৪| ১৪ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:১০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হেহেহে.... একেবারে রিসার্চ পেপার দেখছি। তবে নিজের বাস্তব অভিজ্ঞতা ছাড়া এমন লেখা সম্ভব নয়। চেনা হলেও দারুন উপভোগ করলাম।
শুভেচ্ছা প্রিয় নীল আকাশ ভাইকে।

১৪ ই আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৫২

নীল আকাশ বলেছেন: একদম মন্দ বলেন নি!
লেখার জন্য কিছুটা হলে রিসার্চ তো করতেই হয়েছে।
বাস্তব অভিজ্ঞতার তেমন দরকার পরেনি। আমাদের সময় জীবন যাত্রা এতটা জটিল ছিল না।
আপনাকে নক করেছিলাম। দরকার ছিল কিছু জিনিস নিয়ে আলোচনা করার জন্য।
ধন্যবাদ।

২৫| ১৪ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১১:১১

করুণাধারা বলেছেন: এই রকম সময়ে এমন পোস্ট লেখা খুব কঠিন কাজ; করতে পেরেছেন এজন্য আপনাকে সাধুবাদ।

খুব দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে। এই পোস্ট কিছুক্ষণের জন্য দুশ্চিন্তা ভুলিয়ে দিয়েছে! অনেক ধন্যবাদ।

১৬ ই আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:৪১

নীল আকাশ বলেছেন: কিছু ভালো লাগে না আপু। খুব বাজে সময় যাচ্ছে।
লেখালিখিও কমে গেছে। অনেক দিন পরে একটা রম্য লিখলাম।
পড়ার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

২৬| ১৫ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ৯:১৫

বিপ্লব06 বলেছেন: ব্যাপারটা রিস্কি! ব্যাক-ফায়ার করতে পারে।

তার চেয়ে নেক্সট টাইমে ডেটে যাবার সময় নাঙ্গু-বাবার কাছ থেইকা একটা বশীকরণ তাবিজ লইয়া যাইবেন। সুন্দরি একটু অন্যমনস্ক হইলেই সুন্দরির পানির গিলাসে তাবিজটা টুপ কইরা চুবাইয়া দিবেন। ওই তাবিজ ধোয়া পানি সুন্দরিরে খাওয়াইতে পারলেই কেল্লা-ফতে!!!

বিঃ দ্রঃ সাবধান থাকবেন সেই তাবিজ ধোয়া গিলাসের পানি যেন ভুল কইরা কুনো পুলা না খাইতে পারে। যদি খায়, তাইলে স্বয়ং নাঙ্গু বাবাও আপনারে আর বাঁচাইতে পারবে নাহ B-)) B-)) B-))

১৬ ই আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:৪৬

নীল আকাশ বলেছেন: নিউটনের তৃতীয় সূত্র মতে প্রতিটা কাজের বিপরীত মূখী প্রতিক্রিয়া থাকতেই পারে।
তবে প্রেমে পরলে ছেলেপেলেরা ডেস্পারেট হয়ে যায়।
তাবিজের বুধি অবশ্য খারাপ হয় নি। পরের বার লিখলে এই অপশনের কথাও মাথায় রেখে লিখবো।
ব্লগে ব্যক্তিগত কারণে খুব ব্যস্ত, সময় একেবারেই দিতে পারছি না।
ভালো থাকুন ভাই, সুস্থ এবং নিরাপদে।

২৭| ১৮ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ২:৩৩

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: এই প্রেমিকা চিরতরেই অন্যকারো হয়ে যাবার সমূহ সম্ভবনা আছে!
................................................................................................
এমন ভয় থাকলে প্রেমে ট্রাই না করা ভালো ।
আজকাল ছেলেরা নয় মেয়েরা অনেক প্লান করে ,
প্রেম করার জন্য, যে রকম মিথ্যা কথা শিখতে বলছেন
ভালো প্রেমিকা হলে ১০০ হাতের মধ্যে ও আর আসতে দিবেনা ।

................................................................................................
জীবনে এমনটাও ঘটেছে প্রথম দিন রেষ্টুরেন্টে খেতে গিয়ে,
বিয়ের প্রস্তাব, বউ কবে হবে তা জানতে চাওয়া !!!
হা হা হা হা হা !!!


২২ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৪:৩৭

নীল আকাশ বলেছেন: এটা ভাই রম্য লেখা। তবে বাস্তব জীবনে প্রেমে পরলে সাহসী না হয়ে উপায় আছে?
যে যাবার সে যাবেই তবে চেষ্টা না করলে পরে মনের ভিতরে পস্তাবার সমূহ সম্ভবনা থেকে যায়।
সুন্দর একটা ছবির জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।
শুভ কামনা রইলো।

২৮| ২০ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৪:৩৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মোবাইল থেকে ব্লগে ঢুকতে পারিনা। অনেক দিন ল্যাপটপে বসাও হয়নি, তাই পোস্টটি দেরিতে দেখলাম।
উৎসর্গের জন্য আনন্দিত ।
অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানবেন নীল আকাশ ।

২২ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:৩৫

নীল আকাশ বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ। আপনার মতো আমারো একই অবস্থা। ব্লগে প্রায় আসাই হয় না এখন।
শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।

২৯| ২২ শে আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:০৪

জুন বলেছেন: হাসতে হাসতে শেষ নীল আকাশ :) তবে বড় দীর্ঘ এবং জটিল প্রক্রিয়া। অতক্ষন উভয়ের ধৈর্য থাকবে কি না সন্দেহ। উৎসর্গ ভালো হয়েছে।
+

২২ শে আগস্ট, ২০২০ দুপুর ২:৩৫

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ আপু। হাসি পাবার জন্যই তো এটা লেখা।
ব্লগের রম্যরাজের জন্য উৎসর্গ সাধারণ পোস্ট হলে হয়?
প্রেমে পরলে একেক জনের ধৈর্য্য কোন পর্যায়ের হয় সেটা আর আমি না বললাম। এইগুলি কোন ব্যাপারই না। প্রেমিকা বললে হিমালয় তুলে নিয়ে আসে অবস্থা!
ভাল থাকুন আপু।

৩০| ২৪ শে আগস্ট, ২০২০ দুপুর ১২:২০

সাহাদাত উদরাজী বলেছেন: আহারে প্রেম! প্রেমের কয়ালে হিছা মারি!

২৭ শে আগস্ট, ২০২০ সকাল ৮:৩১

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল প্রিয় ভাই,
প্রেমে মরা জলেই তো ডুবে না। হিছা মেরে লাভ কি? পানিতে তো আর ডুববে না!
ভালো থাকুন

৩১| ২৪ শে আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১৭

জাওয়াত আররাজ বলেছেন: হাহাহা, এমন প্রেমিকা রেখেই বা কি লাভ ভাই?
যদিও শেষটা দারুণ, মজা পেয়েছি।

২৭ শে আগস্ট, ২০২০ সকাল ৮:৩৩

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল ভাই,
প্রথমবারের মতো আমার ব্লগ বাড়িতে আসার জন্য শুভেচ্ছা, শুভ কামনা এবং সুস্বাগতম রইলো।
আপনার মন্তব্য খুব সুন্দর হয়েছে। আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।
এইধরণের বেশ কিছু লেখা আমার ব্লগ বাড়ীতে দেয়া আছে, আগেই পোশট করেছিলাম। দেখে আসতে পারে।
নিয়মিত আমার লেখা পড়ার আমন্ত্রণ রইলো।
ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন এবং নিরাপদে থাকুন।

৩২| ২৪ শে আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৩

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: অত্যন্ত দরকারি পোস্ট । কাজের পোস্ট ।

২৭ শে আগস্ট, ২০২০ সকাল ৮:২৩

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল আমার প্রিয় কবি ভাই,
কাজের জিনিস তো অবশ্যই।
যারা এই ভয়াবহ সমস্যায় আছে তারাই বুঝে ডৌড়ের উপর থাকা কাকে বলে?
মনে শান্তি নাই তো কিছুই নাই।
ভালো থাকুন।

৩৩| ২৫ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:৪৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: ভয়াবহ নিঞ্জা টেকনিক!!! B-)

২৭ শে আগস্ট, ২০২০ সকাল ৮:২১

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল প্রিয় কবি ভাই,
নিঞ্জা হোক আর মার্শাল আর্ট হোক কাজে লাগলেই হলো!
Everything is fair in love and war.
শুভ কামনা রইলো।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.