নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বিশ্বজোড়া পাঠশালাতে সবাই ছাত্র-ছাত্রী, নিত্য নতুন শিখছি মোরা সদাই দিবা-রাত্রী!

নীল আকাশ

এই ব্লগের সমস্ত লেখা সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। আমার অনুমতি ছাড়া এই ব্লগের লেখা অন্য কোথাও প্রকাশ করা যাবে না।

নীল আকাশ › বিস্তারিত পোস্টঃ

জীবনধারণ খুব ব্যয়বহুল হয়ে যাচ্ছে। নূন্যতম খাবারের দামও ধরা ছোয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে...........

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ২:২৪



যারা কাঁচাবাজারে যান তারা তো জানেনই, তারপরও বলছি। দেশে এখন জীবনধারণ খুব ব্যয়বহুল হয়ে যাচ্ছে।
নূন্যতম খাবারের দামও ধরা ছোয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে।
বাজারের কাঁচা শাক সবজির আগুন মতো দাম।
কোন কিছুর দাম জিজ্ঞেস করতেও ভয় লাগে।
এমন একটা দাম বলে বসবে যে মান সম্মান নিয়ে টানাটানি লেগে যাবে।

কয়েক বছর আগেও একটা পাঁচশ টাকার নোট নিয়ে দিব্যি পছন্দ মতো কাঁচা বাজার করে বড় একটা ব্যাগে ভরে বাসায় নিয়ে আসা যেত। আর এখন পাঁচশ টাকার নোট নিয়ে বাজারে যেতেই ভয় লাগে। কাঁচা বাজারে ঘুরে একটা দামের একটা হালকা লিস্ট পেলাম যেটা দেখেই মাথা ঘুরে যাবার মতো অবস্থা!

চাল ৬৫ টাকা কেজি
সিম ১৬০ টাকা কেজি
কাঁচা মরিচ ২৪০ টাকা কেজি
ধনিয়া পাতা ২৪০ টাকা কেজি
টমেটো ১২০ টাকা কেজি
বেগুন ১০০-১২০টাকা কেজি
ফুলকপি ১৪০ টাকা কেজি
পিঁয়াজ ১২০ টাকা কেজি
আদা ২৫০ টাকা কেজি
আলু ৪৫ টাকা কেজি
পেঁপে ৫০ টাকা কেজি
পটল ৭০ টাকা কেজি
বরবটি ৭০ টাকা কেজি
করলা ৬০ টাকা কেজি!

আমাদের দৈনন্দিন খাবারের মধ্যে আলু প্রায় সবারই পছন্দ। ছোট বাচ্চারা সব তরকারীর মধ্যেই আলু খেতে চায়।
অথচ এই আলু এখন ৪৫ টাকা, অনেক জায়গায় প্রায় ৫০ টাকা।
আমি তো দুরের কথা, আমার চৌদ্দ পুরুষের কেউ কোনদিন শুনেও নি আলুর দাম ৫০ টাকা!

এতদিন সাধারণ মানুষের কেনার সামর্থ্যের মধ্যে ছিল এই শাক সবজি, তাও এখন আগুনের মতো দাম।
যে কোন শাকের আঁটি বিশ ত্রিশ টাকার নীচে কোনটাই নেই।
সব বাদ দিয়ে শুধুই শাক খেয়ে যে বেঁচে থাকবেন তার উপায়ই নেই।

মাছ কিংবা মাংশের দাম তো আকাশে অনেক আগেই উঠে গেছে। খাশির গোশত ৮৫০ টাকা।

মুরগির ডিমের দাম শাক সবজীর সাথে সাথেই বেড়ে এখন আকাশচুম্বীর মতো দাম।

দেশে অসহায় মানুষজন এখন খাবে কী? কী খেয়ে এরা বেঁচে থাকবে?

আমাদের মতো মধ্যবিত্তদেরই যখন ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা, তখন নিন্মবিত্ত এবং গরীব মানুষদের অবস্থা একবার ভালোভাবে চিন্তা করে দেখুন?

আমরা যারা চাকুরি করি, সততার সাথে বেঁচে থাকি, উপরি ইনকাম ঘৃণা করি, তাদের জন্য এই দেশে এখন বেঁচে থাকা এখন দিন দিন দূর্বিসহ হয়ে যাচ্ছে।

দেশ নাকি উন্নয়নের জোয়ারে স্থলপথ থেকে আকাশ পথে উড়াল দিয়েছে!

দেশ নাকি কয়েকদিন পরে সিঙ্গাপুর, ইউরোপের মতো হয়ে যাবে বলে জোর গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে!

দেশ এত উন্নত হয়ে কি হবে, যখন দেশের মানুষ খেতেই পারবে না কোন কিছু?

সরকার এবং সরকারী মদদপুস্ট লোকজন লুটপাট দূর্নীতি করে কাড়ি কাড়ি টাকা কামিয়েছে ।
তাদের জন্য এইসব দাম কোন ব্যাপার না হলেও আমাদের জন্য অনেক অনেক বেশি।

সরকারের কারো কোন টনক নড়ে না কেন সবকিছুর এত দাম বেড়ে যাবার পরেও?

নাকে ঘাণি ভাঙ্গা তেল ঢেলে নিয়ে আর কত দিন পুরাতন সারিন্দা বাজিয়ে যাবে?

কবে এই দেশে জনগনের ভালোমন্দ দেখার মতো কোন সরকার ক্ষমতায় আসবে?

সবাইকে ধন্যবাদ ও শুভ কামনা রইল।
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত @ নীল আকাশ, অক্টোবর ২০২০

মন্তব্য ৫৪ টি রেটিং +১৫/-০

মন্তব্য (৫৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ২:২৭

জাহিদ হাসান বলেছেন: :( :(

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ২:৩০

নীল আকাশ বলেছেন: ভাই রে, বাজারে গেলে মাথা খারাপ হয়ে যাবার অবস্থা হয়। মেজাজ ঠিক রাখা খুব কঠিন হয়ে যায়।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৮:৩৮

নীল আকাশ বলেছেন: জাহিদ ভাই,
এখন যা যা বলবো মনোযোগ দিয়ে শুনুন। ব্লগে অনেক কিছুই হতে পারে।
হয়তো কোন কিছু নিয়ে আপনার এবং মডারেশন টীমের ভুল বুঝাবুঝিও হতে পারে।
কিন্তু সব ফেলে ব্লগ থেকে একবারে চলে যাওয়া সম্ভব না। আপনি সুদীর্ঘ ৮ বছর ধরে এখানে অভ্যস্ত।
চলে গেলেও কয়েকদিন পরে ব্লগের জন্য আপনার খারাপ লাগবে। যেভাবে আপনি যাচ্ছেন তাতে ফিরে আসার রাস্তাও বন্ধ করে দিয়ে যাচ্ছেন।
এটা ভুল। ব্লগে এখন ভালো লাগছে না। ব্লগে আসা বন্ধ রাখুন।
একমাস টানা বন্ধ রাখুন। ব্লগেই আসবেন না।
এরপর দেখুন কেমন লাগে?
ট্রাস্ট মী, আপনি ব্লগ মিস করবেন।

যদি মিস না করেন ব্লগ'কে ফাইনাল টা টা দিয়ে চলে যান।
হটকারী কোন সিদ্ধান্ত নেবেন না।
দীর্ঘ ৮ বছরের কতগুলি সময় এখানে দিয়েছেন আপনি চিন্তা করে দেখুন!

২| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ২:৪৫

জাহিদ হাসান বলেছেন: আপনি সাহস করে অনেক কিছু লিখেছেন। আমরা তো মুখ বুঝেই সহ্য করে যাচ্ছি। মাস শেষে সবারই এখন ধার দেনা হচ্ছে।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:০৫

নীল আকাশ বলেছেন: আমি যথেষ্ঠ ভালো একটা চাকুরী করি। তারপরও এই অবস্থা।
সারা দেশের মানুষের কি অবস্থা ভাবুন তাহলে?

৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:০৯

সম্রাট ইজ বেস্ট বলেছেন: অবস্থা সত্যিই ভয়াবহ। সামনে কী যে হবে আল্লাহ মালুম।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৪৯

নীল আকাশ বলেছেন: বেঁচে থাকা খুব কঠিন হয়ে যাচ্ছে। সামনে আরো ভয়াবহ দিন আসছে ।

৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:১২

শাহ আজিজ বলেছেন: জাহাঙ্গীর কবিরকে জিজ্ঞাসা করা দরকার কিটো ডায়েটে গোয়া মারা সারা এখন জীবন নাশ মানে আত্তহত্যার কি ডায়েট আছে বইলা ফালা জলদি নাইলে রাস্তায় পাইলে ইটামু , হু

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৫১

নীল আকাশ বলেছেন: কিটো ডায়েট খেয়ে কয়েক দিন আগে কে যেন মারা গেল না?
নূন্যতম খাবার কিনতেই পারছেন না, সেখানে কিটো ডায়েট!

৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:১৩

জাহিদ হাসান বলেছেন: তবে দেশের উন্নয়নকে অস্বীকার করে আপনি ভুল করেছেন। উন্নয়ন হচ্ছে। জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে আমরা ভারতকে পেছনে ফেলেছি।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৪৯

নীল আকাশ বলেছেন: রাগ করে করেছি। জিডিপি প্রবৃদ্ধি দিয়ে কি হবে? এটা ধুয়ে খাবো, বলেন?

৬| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৫০

নেওয়াজ আলি বলেছেন: বেশী করে হাওয়া খান ভাত তরকারির উপর চাপ কমান :D

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৫২

নীল আকাশ বলেছেন: একদম পারফেক্ট কথা বলেছেন। এখন থেকে মন হয় শুধু হাওয়া খেয়েই বেঁচে থাকতে হবে।

৭| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৫৬

রামিসা রোজা বলেছেন:
সরকারি অব্যবস্থাপনা ও বাজারের পাইকারদের হাতেই
এখন সবকিছু তাই যত দাম-ই হোক না কেন আমরাও
খাওয়া বন্ধ করি না এবং বেড়েই যাচ্ছে । আর শেষ
পর্যন্ত আলুর দাম এই পর্যায়ে যাবে কখনো কল্পনাও
করতে পারিনাই ।
সমসাময়িক পোস্টের জন্য ধন্যবাদ।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৩৮

নীল আকাশ বলেছেন: যত ধরণের লুটপাট এবং দূর্নীতি সব সরকারী দলের লোকজন করে বেড়াচ্ছে।
এই জন্য সরকার ইচ্ছে থাকলেও কোন কিছু করতে পারছে না।
কেন? আলুর দাম দেখে অবাক হয়েছেন?
পিয়াজ জীবনে কোন দিন ২৫০ টাকা করে কিনেছেন আগে?

৮| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: খুবই দুঃখজনক। শীতকালে যে সময়টাতে সবজির দাম কমার কথা সেই সময়ে এত চড়া দাম!! বাজারে আগুন লাগা বৈকি। প্রসঙ্গত যে আমি প্রায় দু'সপ্তাহ বাজার মুখো হইনি। এখানে সবজির কেমন দাম আমার ঠিক জানা নেই। বাজার নিয়ন্ত্রণের জন্য গঠিত টাস্কফোর্স তাদের কি করনীয় বুঝিনা।
নিরন্তর শুভেচ্ছা প্রিয় নীল আকাশ ভাইকে।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৩৮

নীল আকাশ বলেছেন: ভাই,
মধ্যসত্ত্বভোগীরাই এইসব লাভের টাকা রাজনৈতিক মদদে লুটপাট করে। কোনদিনও কোন কৃষক বাড়তি একটাকাও পায় না।
এখন শীত কালীন সবজীর সময় অথচ জিনিস পত্রের দাম লাগাম ছাড়া।
কেন এই বছর এত দাম? কোন উত্তর নেই। কারণ লাভ একহাত না, বারো হাতে যায়।
শুভ রাত্রী!

৯| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১২

একাল-সেকাল বলেছেন: ২০০৮ সালের ভোটাররা এর জন্য দায়ী।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৪১

নীল আকাশ বলেছেন: ঠিক জায়গায় ভোট না দিলে কি হয় সেটা এই দেশের মানূষ এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে।
আর কোন দিন ভোট দেয়ার সু্যোগ পাবে কিনা কে জানে?

১০| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১৫

আমি সাজিদ বলেছেন: সরকার তার সেরা চেষ্টা করে যাচ্ছে। অন্য কোন সমাধান তো দেখি না। বিকল্প সমাধান দেখেন দাম কমানোর ?

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৪০

নীল আকাশ বলেছেন: আমি কেন বিকল্প সমাধান দেবো?
এটা তো আমার দায়িত্ব না।
আমি যদি এই কাজ করি তাহলে সরকারের লোকজন ক্ষমতায় বসে বসে কি দূর্বা ঘাস খাচ্ছে নাকি?

১১| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: জিনিসপত্রের দাম আসলেই অনেক বেশি। আমি নিয়মিত বাজার করি আমি তা ভালৈ জানি। শুধু শাক সবজি না- প্রতিটা জিনিসের দামই বেশি।

আজ থেকে দশ, বিশ বা ত্রিশ বছর আগেও মানুষ বলতো বাজারে আগুন। সব কিছুর দাম বেশি।
আজ থেকে দশ, বিশ বা ত্রিশ বছর পরও মানুষ বলবে জিনিসপত্রের দাম বেশি। এটা কেয়ামত পর্যন্ত চলতেই থাকবে। তবে গত নয় মাসে জিনিসের দাম হু হু করে বেড়েছে। এত দ্রুত দাম আগে কখনও বাড়ে নাই।

দেশে যে জিনিসপত্রের এত দাম, তবু কিন্তু কোনো মানুষ না খেয়ে নেই। এরকম শোণা যায় নি- খাবারের অভাবে মৃত্যু হয়েছে।

দেখুন, গত ৯ মাসে প্রচুর বাইক বিক্রি হয়েছে। ফ্লাট বিক্রি হয়েছে, জমি বিক্রি হয়েছে, গাড়ি বিক্রি হয়েছে। এগুলো কারা কিনছে? কিভাবে কিনছে?

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০২

নীল আকাশ বলেছেন: আমাকে এখনও ভিপিএন দিয়ে ঢুকতে হয় ব্লগে। কইয়েক দিন আগে একটা বড় প্রতি মন্তব্য করেছিলাম। পোস্ট দেবার সময় লাইন হুট করে কেটে গিয়েছিল দেখে পোস্ট হয় নি।

বাজারে সব কিছুর দাম এখন হাতের নাগালের বাইরে। মানুষ জনকে নিজের চাহিদার উপর নির্ভর করে সব কিছুই কম কম করে এখন কিনতে হচ্ছে।

অবৈধ পথে মানুষের হাতে এখন প্রচুর টাকা এসেছে। যারা অবৈধ পথে টাকা ইনকাম করে এইসব উচ্চ মূল্য তাদের কাছে কোন ব্যাপার না ভাই। এরা এখন ইচ্ছে মতো মৌজ ফুর্তি করে বেড়াচ্ছে। কষ্ট হচ্ছে শুধু আমাদের। কিন্তু সরকারের সেটা নিয়ে কোন ম্যাথাব্যাথা নেই। দূঃখ হচ্ছে এখানেই।

১২| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:২৭

করুণাধারা বলেছেন: সিঙ্গাপুর আমেরিকার মত দেশে থাকেন আপনি। সেসব দেশের তুলনায় এখনও সবকিছু অনেক সস্তা। সেজন্য কেউ কোন প্রতিবাদ করে না, সবাই কত সুখী। আপনি কেন আলুর দাম নিয়ে ভাবছেন!! পদ্মা সেতু, কর্ণফুলী টানেলের কথা ভাবেন, পেট এমনিতেই ভরে যাবে।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৩৫

নীল আকাশ বলেছেন: করুণাধারা বলেছেন: সিঙ্গাপুর আমেরিকার মত দেশে থাকেন আপনি। সেসব দেশের তুলনায় এখনও সবকিছু অনেক সস্তা। সেজন্য কেউ কোন প্রতিবাদ করে না, সবাই কত সুখী। আপনি কেন আলুর দাম নিয়ে ভাবছেন!! পদ্মা সেতু, কর্ণফুলী টানেলের কথা ভাবেন, পেট এমনিতেই ভরে যাবে।
ফিজিক্যাল পেট ভরার জায়গায় ভার্চুয়াল পেট ভরার প্রসেস শুরু করতে হবে। এছাড়া আর কোন উপায় নেই এখন।

১৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



রিজিকের মালিক আল্লাহ, উনি বাংগালীদের পরীক্ষা করছেন!

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৪০

নীল আকাশ বলেছেন: ভূতের মুখে রাম নাম!

১৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৪৫

আমি সাজিদ বলেছেন: দূর্বা ঘাসের কথা যখন উঠলোই, এর গুনাগুন নিশ্চয়ই মাননীয় কৃষি মন্ত্রী করবেন। রাজিব নূরের কমেন্টের রিপ্লাই দেখতে ইচ্ছে হচ্ছে।

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৪২

নীল আকাশ বলেছেন: দেশে আর কোন মন্ত্রী নেই। একজনই আছেন, তিনি হলেন মহামান্য প্রধানমন্ত্রী।
কারণ সব সিদ্ধান্ত উনি একাই দেন আর বাকিরা বসে বসে ফিডারে মিনারেল ওয়াটার খায় কোন দায়িত্ব নেই দেখে!

১৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৫:৩৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: নীল আকাশ,



উপায় নেই গোলাম হেসেন .............
সবখানেই সিন্ডিকেট।
কি ব্যবসা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, পরিবহন, টেন্ডারবাজী সহ যা কিছু আছে সবখানেই এই সিন্ডিকেট্। রাজউক, তিতাস, সিটি করপোরেশনের মতো জায়গাগুলোও সিন্ডিকেটের দখলে। সরকারি অফিস-আদালতের সব কাজই নিয়ন্ত্রণ করে বিভিন্ন ধরনের সিন্ডিকেট। শহর-নগর-বন্দর-গ্রাম সবই সিন্ডিকেটের আওতায়। এমনকি সিন্ডিকেট থেকে রাজনীতিও বাদ নয়।

তাই যা হবার তাই-ই হচ্ছে। এরপর বাতাস খাবেন ? দেখবেন সেখানেও সিন্ডিকেট বসে গেছে ।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:৩৩

নীল আকাশ বলেছেন: গুরুজী,
দেশেটাকে এই সিন্ডিকেট লুটপাট করে খেয়ে ফেললো। সারাদেশে সব কিছুর মাঝে এই সিন্ডিকেট।
রাজনৈতিক লোকজন এই সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত থাকার কারণে সরকার এদের বিরুদ্ধে কোন কিছুই করে না।
মাঝখানে ভুক্তভোগী হয় সাধারণ লোকজন।
দেশের সরকারের মন্ত্রীদের কারো কোন কাজ নেই। সবাই বসে বসে ফিডারে মিনারেল ওয়াটার খায়।
দেশে যে এখন আমাদের থাকতে দিয়েছে সেটাই বেশি!

১৬| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৫:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



বাংলাদেশে খাদ্যের দাম কেন বাড়ে, হঠাৎ করে চাউল, আলু, পেয়াঁজের মুল্য কেন বাড়ে, এগুলো আপনি ব্যাখ্যা করতে পারবেন বলে, আপনার মনে হয়?

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৪৮

নীল আকাশ বলেছেন: এইসব প্রশ্ন আমার কাছে না করে সরকার এবং এর সাঙ্গপাঙ্গদের যেয়ে জিজ্ঞেস করুন।
দেশের মানুষ যে এদের ট্যাক্স, ভ্যাট দেয় সেগুলি কোন কাজ না করে যারা বেমালুম হজম করে
দেয় তাদের জিজ্ঞেস করুন, যদি সেই হ্যাডম আপনার থাকে।
অবশ্য ব্লগে আপনার হ্যাডম কোন সময়ই ছিল না।
পারেন শুধু ব্লগে এসে বিভিন্ন জনের পোস্টে মিউ মিউ করতে!

১৭| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২২

ঢাবিয়ান বলেছেন: সমসাময়িক বিষয়ের ওপড় পোস্টে হাবিজাবি কমেন্ট মুছে দিলে ভাল হয়। পোস্টের মান অনেক কমে যায় অপ্রাসঙ্গিক ও বিরক্তিকর কমেন্টের কারনে।

আপনি যে দর দিলেন নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষের, সেসব প্রতিটি আইটেমের দাম দেখছি সিঙ্গাপুরের তুলনায় বেশি। অথচ এখানে মানুষের ইংকাম ডলারে। একজন ক্লিনারেরও সর্বনিম্ন বেতন এখানে ১০০০ ডলার, দেশীয় টাকায় যা ষাট হাজারের কাছাকাছি। গরীব মানুষ বিলাশিতা না করতে পারুক, খেয়ে পড়ে অন্তত সুন্দরভাবে বাচঁতে যেন পারে সেটা নিশিচত করার জন্যই সরকার, মন্ত্রীপরিষদ গঠন করা হয়। এছাড়া তাদের কাজটা কি? বিল্ডিং , ফ্লাই ওভার , প্রশ্নবোধক জিডিপি প্রবৃদ্ধি দেখে কি পেটের ক্ষুধা কমবে ?

২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৫৮

নীল আকাশ বলেছেন: ভাই, কেমন আছেন?
না এইসব পোস্টের সাথে কোন রকম সর্ম্পকহীন অর্বাচীন মন্তব্যগুলি থাকবে। ব্লগার এইসব মন্তব্য দেখে এর জ্ঞানে বহর এবং ইন্টেশন কোন ধরণের সেটা বুঝবে।

ভাই আমি বাজারে যেয়ে দাম দেখে দেখে এই পোস্ট লিখেছি। সামান্য কিছু কম বেশি হতে পারে তবে গড়পড়তা এই রকমই দাম।
এই এদের প্রধান এজেন্ডা হচ্ছে লুটপাট, তা না হলে ১০টাকা আলু যেদিন ১৫টাকা হলো সেদিনই সরকারের টনক নড়া উচিৎ ছিল। কিন্তু তা কি তারা করেছে?
এর আগে জীবনে কোন দিন ৫০ টাকা দরে আলু কিনে খেয়েছেন?
এরাই না দশ টাকা দরে চাল কেনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল দেশের লোকজন'কে?

১৮| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৮:২০

জোছনাস্নাত রাত্রি বলেছেন: সম সাময়িক বিষয় এর উপর সুন্দর পোস্ট।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০৩

নীল আকাশ বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে পড়ার জন্য এবং সুন্দর একটা মন্তব্যের জন্য।

১৯| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৮:২৪

নিঃশব্দ অভিযাত্রী বলেছেন: দেশ উন্নত হচ্ছে আর আপনি সরকারের দোষ ধরছেন!
দেশের উন্নয়নের জন্য দরকার পরলে না খেয়ে থাকুন।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১১

নীল আকাশ বলেছেন: যা দিনকাল আসছে কিছুদিন পরে দেশের উল্লেখযোগ্য মানুষের না খেয়েই থাকতে হবে।
ধন্যবাদ আপনাকে পড়ার জন্য এবং সুন্দর একটা মন্তব্যের জন্য।

২০| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৮:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনি কি সমস্যা সমাধানের জন্য আল্লাহের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চান, নাকি শেখ হাসিনাকে দায়ী করতে চান?

২১| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৯:৪৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: @ চাঁদগাজী, বহুবার জেনারেল হয়েছেন বাজে কমেন্টের কারনে। তারপরেও কেন নিজেকে শোধ্রানোর চেষ্টা করেন না।
@ নীল আকাশ, দয়া করে চাঁদগাজীর কমেন্ট মুছে দিন। বেহুদা তর্কে জড়ানোর কোন দরকার নাই। সমসাময়িক অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন বিষয়ের উপড়ে লিখেছেন। সেই বিষয়ের উপড়েই মন্তব্য প্রতিমন্তব্য স্থির থাকুক।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:২৫

নীল আকাশ বলেছেন: সুন্দর সাজেশনের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।
এই ব্লগারের চরিত্র অনেকতাইন সারমেয়ের লেজের মতো। কোন দিন ঠিক হবে না। এর শোধরানো আশা আমি অনেক আগেই ছেড়ে দিয়েছি। কোন পোস্ট না পরে আন্দাজে মন্তব্য করা এর অনেক পুরাতন দিনের অভ্যাস।

২২| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



@ঢাবিয়ান ,

আমি কমেন্ট করি, বিপদে পড়ি; আপনারগুলো কমেন্ট হিসেবে গণ্য হয়?

২৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৪৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: দৃশ্যমান উন্নয়নের দৃশ্য না তুলে এসব কি তুলে এনেছেন ?
রাস্তাঘাট ঠিক থাকলে, উন্নয়ন হলে পেট ভরে না ?

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১৬

নীল আকাশ বলেছেন: দেশের এত এত উন্নয়নে দেখেও তো পেট ভরছে না। আকাশে বাতাসে সব জায়গায় উন্নয়নের জোয়ার ভেসে বেড়াচ্ছে।
শুধু উন্নয়ন হয় না দেশে মানুষের জীবন যাত্রার। নূন্যতম খেয়ে বেঁচে থাকার জিনিসপত্রের দাম দেখলেও ভয় লাগে ।
নিন্ম বিত্তের লোকজন কিভাবে যে বেঁচে আছে শুধু সেটা আল্লাহই জানেন!

২৪| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১:১১

নতুন নকিব বলেছেন:



বাজার করতে গিয়ে এখন হিসেব কষে ভেবেচিন্তে তবেই তরিতরকারি কিনতে হয়। সামান্য কাঁচা মরিচের কথাই যদি বলি, প্রতি কেজির দাম দু'শো টাকার উপরে ওঠার পরে এই জিনিষ কেনা আমি বন্ধ করেছি।

আমরা যারা নিতান্ত সাধারণ মানুষ, সত্যিকারার্থে কষ্টে আছি।

সরকারিভাবে বিভিন্ন উদ্যোগের কথা শুনি, কিন্তু কাজ হচ্ছে না কেন, বুঝতে পারছি না। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির এ অস্বাভাবিক অবস্থার আশু পরিবর্তন প্রয়োজন।

২৫| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:৪৫

সোহানী বলেছেন: কি যে অবস্থা। ফেব্রুয়ারীতে দেশে যেয়ে রীতিমত অবাক হয়েছি। কি ভয়াবহ দাম সবকিছুর!! কম্পেয়ার করলে দেখছি আমেরিকা কানাডা থেকেও অনেক অনেক বেশী। আর খাবারতো চিন্তাই করা যায় না।

পশ্চিমা দেশের সরকার অনেক ভূতর্কী দেয় অথচ আমরা কৃষকদের পেটে লাত্থি দেই।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:২২

নীল আকাশ বলেছেন: আমার বেশ কিছু ফ্রেন্ড অস্ট্রেলিয়ায় থাকে। এরা দেশে আসলে আমার সাথে এদের দেখা সাক্ষাত হয়। গতবছরের প্রথম দিকে এরা আমাকে খাবার দাবারের অস্ট্রেলিয়ায় যেই দাম বললো তাতে আমার কাছে মনে হলো বাংলাদেশে ঠিক তার ডাবল বা আরো বেশি।

দেশের সরকার অনেক ভূতর্কী দেয়, বিশেষ করে সারের দামে। কিন্তু দেশে মধ্যসত্ত্বভোগীরা লুটপাট করে সব মুনাফা নিয়ে যায়।
কোন কালেই এই দেশের কৃষকরা উতপাদিত জিনিসের নায্য মূল্য পায় নি। কোন দিন পাবেও না।
ধন্যবাদ আপনাকে।

২৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৩০

রাজীব নুর বলেছেন: আমার মন্তব্যের উত্তর দিলেন না!!!
কারনটা কি?

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১৮

নীল আকাশ বলেছেন: আগের মন্তব্যে লিখে দিয়েছি। আমি সবার মন্তব্যের উত্তর দেই।
আগে কখনই দেখেছে আমাকে প্রতি উত্তর না দিতে?

২৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৪৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: খুবই যন্ত্রণাদায়ক অবস্থায় আছি। হোম মিনিস্ট্রি গত পর্শু গিভ আপ করেছে যে এই টাকায় সে আর সংসার চালাতে পারবে না, কিয়েক্টাবস্থা!!

দেশের একটা অংশের কাছে যেকোনো বস্তু যেকোনো দামে কেনাটা কোনো বিষয় না। পণ্যের দাম বা রিকশা ভাড়া বাড়ার ক্ষেত্রে এই শ্রেণীর একটা ভালো ভূমিকা আছে।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০৯

নীল আকাশ বলেছেন: ভাই,
সবার বাসায় একই অবস্থা। ভাবীর আর দোষ দিয়ে কি হবে? স্বল্প বাজেটে এখন আর জীবনধারণ করা এইদেশে সম্ভব না।
লুটপাট আর দূর্নীতি করে প্রচুর টাকা পয়সা মানুষ ইনকাম করে ফেলেছে। সরকার এখন আর জনগনের ভালোমন্দের কথা চিন্তাও করে না।

দেশের একটা অংশের কাছে যেকোনো বস্তু যেকোনো দামে কেনাটা কোনো বিষয় না এদেরসংখ্যা দিন দিন উল্লেখ যোগ্য হারে বেড়ে যাচ্ছে। এটাই ভয়।

শুভ কামনা রইলো।

২৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১:৫৯

একাল-সেকাল বলেছেন:
জনগণকে এবার উন্নয়নের ফ্লাইওভারে উঠে সিসাযুক্ত বাতাস খেয়ে মরতে হবে।

২৪ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০৫

নীল আকাশ বলেছেন: খুব সুন্দর একতা মন্তব্য করেছেন।
সব কিছু দেখে এখন আপনি যা বলেছেন সেটা করতে হবে মনে হচ্ছে।
দেশের মানুষের জন্য সরকারের কোন চিন্তাভাবনাই নাই।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.