নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ › বিস্তারিত পোস্টঃ

ট্রেন মনে হয় কাবুলে চলে এসেছে, যাত্রীরা নেমে পড়ুন-৩

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৩:০৮


দেশে ভাষ্কর্য আর মূর্তি নিয়ে বিতিকিচ্ছিরি অবস্থা। এমন অবস্থা এর আগে আর হয়নি কখনো। এমন না যে মূর্তি, ভাষ্কর্য গুলো এখানে নতুন এসেছে। মূর্তি, ভাষ্কর্য হারাম হওয়ার আগেই এই এলাকায় এগুলো ছিল। এগুলোকে পরে হারাম করা হয়েছে আর এখন উচ্ছেদ করার ঘোষণা আসছে।
আরবে যখন ৩০০ মূর্তি ভাঙ্গা হচ্ছিল তখন এখানে লাখ লাখ মূর্তি বানানো হচ্ছিল, সেটা এই এলাকার মানুষও জানতো না, আরবের মানুষেরাও জানতো না। যাই হোক পরে এসব জানাজানি হওয়ার পরেও এসব এলাকায় এমন কঠিন অবস্থান তৈরি হয়নি মূর্তি আর ভাষ্কর্য নিয়ে।
আজ আমাদের ওলামাগন একটি বৈঠক ডেকেছে আমাদের জাতিকে তারা পরিষ্কার করে জানাবে ভাষ্কর্য স্থাপনের ফতোয়া কি।

সেই যাই হোক, আজকের বৈঠকে তারা কি জানাতে পারে এতদিনের কথাবার্তায় আপনি নিশ্চয়ই আন্দাজ করতে পেরেছেন? এই রকম বৈঠক কি করতে দেওয়া উচিত, নাকি অনুচিত? এমন প্রশ্ন করলে অবশ্য অনেকেই আন্দাজ করতে পারবেন না, কি উত্তর দিবেন। সঠিক কথা হচ্ছে এমন বৈঠক করতে দেওয়া উচিত হবে না শেখ হাসিনার। বাংলাদেশ কি মদীনা সনদ কিংবা শরিয়া আইনের উপরে চলে? এই দেশে কি ফতোয়া দেওয়া বোর্ডের ফতোয়ায় দেশ চলে? দেশে কি সংবিধান নেই, সেখানে কি এর সমাধান নেই? হ্যাঁ, সমাধান আছে, যেটার সমাধান সংবিধানে আছে সেটা নিয়ে আবার কিসের ফতোয়া দিবেন আমাদের আলেমগণ? যাক আলেমরা ফতোয়া দিলে সেটা বিল আকারে সংসদে এনে সেটাকে আইন করার এখনো কোন সম্ভাবনা নেই। আলেমদের এমন কর্মকাণ্ড শেখ হাসিনার হজম হতে নিশ্চয়ই কষ্ট হচ্ছে। উনি হয়তো বুঝতে পারছেন না উনি কি ভুল করেছেন যার জন্য আলেমরা উনাকে বিপদে ফেলছেন।

আসলে এসব ব্যাপারে উনার ভুল অনেক, উনি নিজেই এসব ভুল করেছেন উনার ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে। দেশের মানুষকে উনি বুঝিয়েছেন শফি হুজুর, বাবু নগরী, মামুনুল হক উনাকে সন্মান করেন, উনার কথা শুনেন, উনাকে কওমী জননী বলে ডাকেন। সত্যি বলতে এসব জোঁকের তেল উনার ব্যথার সাময়িক উপশম দিয়েছে। এখন ঐ অস্বাস্থ্যকর তেল ব্যথার জায়গায় ক্ষত করার চেষ্টা করছে! এদের সামলাতে গিয়ে উনি জাতির সম্পদ নষ্ট করবেন, নিজের মূল্যবান সময় অপচয় করবেন এবং শেষমেষ উনি তাদের সাময়িক ভাবে থামিয়ে দিবেন।

স্বাধীনতার পর জাতির এই বিশাল অংশটি সঠিক শিক্ষা না পেয়ে নিজেদের এদের কাছে সঁপে দিয়েছে। তাদের খাওয়া পড়ার দায়িত্ব নেওয়ার পাশাপাশি তাদের মস্তিস্কও নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিয়েছে এরা। এই থেকে মুক্তি পেতে হলে, তাদেরকে জাতির সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে, বাকি জনগনের সাথে প্রতিযোগিতার সক্ষমতা তৈরি করে দিতে হবে। খালি দাওরায়ে হাদীসকে মাস্টার্স সমমানের সার্টিফিকেট দিয়ে বসে থাকলে হবে না। এই সার্টিফিকেটের সাথে কৌশলে কিছু বিষয় জুড়ে দিতে হবে যাতে এদের বের করে আনা যায় অজ্ঞতা থেকে। এখন এসব কিভাবে হবে এটা বের করতে হবে পলিসি মেকারদের। তা নাহলে সামনের দিন গুলোতে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য সাথে শহীদ মিনার, স্মৃতিসৌধ, রাজু ভাষ্কর্য এগুলোও বুড়িগঙ্গাই ফেলে দিতে হবে।

মন্তব্য ৩৪ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৩৪) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৩:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



শেখ হাসিনার বাবার ভাস্কর্য যারা ফেলতে বলতে, তারা শেখ হাসিনাকে পছন্দ করে?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:১৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: এই দলটি শেখ হাসিনা, শেখ মুজিব, আওমীলীগকে কখনো পছন্দ করেনি। তাদের প্রয়োজনীয় সুবিধা আদায় করতে পছন্দের ভান করছে শুধুমাত্র।

২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৩:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:


শেখ সাহেব মুক্তিযোদ্ধাদের ও মুক্তিযুদ্ধের এতিমদের খাওয়া-পরা ও শিক্ষার জন্য কিছু করেছিলেন?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:১৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: শেখ মুজিব এতটা প্রজ্ঞাবান ছিলেন না, এসব ব্যাপারে।

৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৩:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:



শেখ হাসিনা টোকাইদের জন্য কিছু করছেন? কিছু এতিম মক্তবে যাওয়ায় টোকাইতে পরিণত হয়নি।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: সেটাই, শফি হুজুর, বাবুনগরী এইদিক ঐদিক হাত পেতে তাদের খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে। রাষ্ট্রের দায়িত্ব বলতে যা ছিল সেটা রাষ্ট্র সঠিকভাবে পালন করেনি।

৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ভোর ৬:৩১

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: রুশ বাহিনীকে ঠেকাতে একসময় মার্কিনিরা লাদেন ও তালেবানকে দুধ কলা দিয়ে পুষেছিল - পরবর্তীতে সেই তালেবানই গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়ায় যুক্তরাষ্ট্রের।

শেখ হাসিনা জামাত-বিএনপি ঠেকাতে হেফাজতকে দুধ-কলা দিয়ে পুষছেন। এখন মনে হয়ে গলার কাঁটা বের করা সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ক্ষমতায় থাকতে হলে অনেক কিছুই করতে হয়, তবে জাতির জন্য দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি হবে এমন পদক্ষেপ নেওয়া উচিত না।

৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৮:০৫

মুজিব রহমান বলেছেন: ট্রেনের গতিপথ আবারো বাংলার দিকেই ফেরাতে হবে। আমার পূর্বপুরুষ ভাষার জন্য ও দেশের জন্য সংগ্রাম করে বিজয়ী হয়েছে। আমরা কি সেটা ধরে রাখতে পারবো না? পারতেই হবে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৩

নূর আলম হিরণ বলেছেন: বাংগালীর কোন কাজই টেকসই নয়, এটার সাময়িক সমাধান বের করবেন শেখ হাসিনা।

৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:০৮

শাহ আজিজ বলেছেন: এটা ডিসেম্বর মাস । ৭১ সালের এইদিনে আমরা খুব ব্যস্ত পাকসেনা আর তাদের দোসর রাজাকার আলবদরদের স্তব্দ করে দিতে । ২০২০ সালে ঠিক ৪৯ বছর বাদে সেই ডিসেম্বরে আমরা রাজাকারদের মুখোমুখি আবারো । এদের রুখতে হবে যে কোন মুল্যে । দ্বিধা এবং দন্ধ এসে থামিয়ে দিয়ে বলছে ওরাও চলতি সরকারের অংশ , তাইত দাবি করেছে । কেউ বাদ সাধছেনা ওদের দাবিকে তো তুই কে হে কোথাকার লাট সাহেব ??

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৭

নূর আলম হিরণ বলেছেন: এরা নিজ জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে পারার মত দক্ষ নয়। একাত্তরে যখন ওদের থামিয়ে দেওয়া হয়েছে তখন থেকে তাদের নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করা উচিত ছিল।

৭| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:১১

জিকোব্লগ বলেছেন:



জঙ্গিদের দমন করা খুব সহজ। এই জন্য লাগবে পীর ফতোয়া।
শেখ হাসিনা ইহা খুবই ভালো মতন জানেন, ঠিক যেমনটি জিয়া
আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পরিবর্তিত হয়ে হযরত শাহ্‌জালাল
আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়েছে। এতে কাজ না হলে, জঙ্গীদের
উৎপাত অতি বেশি বেড়ে গেলে অপারেশন সিকিউর শাপলার
মতন অপারেশন সিকিউর স্কালপচারও আপা চালাতে জানেন।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৯

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আপা অনেক কিছুই জানেন। কিন্তু জাতির এই অংশটিকে কিভাবে জাতির জন্য সম্পদ বানানো যায় সেটা উনি জানেন না। উনি অল্পতেই সন্তুষ্ট হয়ে যান, যার কারণে কোনো সমস্যা স্থায়ীভাবে সমাধান হয় না।

৮| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:১১

মরুর ধুলি বলেছেন: আপনাকে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বানোনো উচিত!
ফতোয়া কাকে বলে জানেন?
কে দেয়? কেন দেয়? কে বা কারা দেয়ার যোগ্যতা রখেন এ সম্পর্কে জ্ঞান আছে আপনার?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৩১

নূর আলম হিরণ বলেছেন: বাংলাদেশের ফতোয়া দেওয়ার মতো অনেক যোগ্য আলেম আছে। ফতোয়া দেওয়ার জন্য ছয়টি শর্ত পূরণ করতে হয়। এরকম শর্ত পূরণ করার মত আলেম শফি হুজুর, বাবুনগরী অনেক তৈরি করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর অনেক উপদেষ্টা আছে তারাও জানে ফতোয়া দিয়ে দেশ চলে না।

৯| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৬

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: দানব হওয়ার চেয়ে টোকাই হওয়া অনেক ভাল।ঢাকায় হাজার হাজার টোকাই বাসে টেম্পুতে হেলপারী করে অসহায় মা বাবাকে সাহায্য করে।মাদ্রাসায় পড়ে এক একটা দানবে পরিনত হয়,নয়তো কাম কাজ না করে পরজীবী হয়।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৩৩

নূর আলম হিরণ বলেছেন: স্বাধীনতার পর সরকারগুলো এসব শিশুদের যত্ন না করার কারণে এদের মুখে খাবার তুলে না দিতে পারার কারণে শফি হুজুর দের দায়িত্ব নিয়েছেন। এখনো শেখ হাসিনাও এদের নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করছে না। মাদ্রাসাগুলো না থাকলে রাস্তার টোকাই পরিমাণ আরো অনেক বেড়ে যেত।

১০| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৫০

মরুর ধুলি বলেছেন: ফতোয়া দিয়ে দেশ চলে না সেটা নয় বরং ফতোয়ার উৎস (কোরআন-হাদিস-ইজমা-কিয়াস) অনুযায়ী দেশ চালাতে বেশীরভাগ রাজনৈতিক দল ইচ্ছুক নয়। কেন ইচ্ছুক নয় সেটা সবাই জানে। তারা বরং নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্তে ফতোয়া চর্চাকারীদের ইসলামের পক্ষে থাকার আশ্বাস দিয়ে সমর্থন ও দোয়া আশা করেন। যাকে এক কথায় ধর্মকে পুঁজি করে স্বার্থ হাসিল বলা হয়ে থাকে। এটা করে সমস্ত রাজনৈকিত দল।
প্রকৃতপক্ষে যারা ফতোয়া দেয়ার যোগ্যতা রাখেন সেই আলেম সমাজ এদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে কখনোই ক্ষমতায় ছিলেন না- তারা ক্ষমতা নিয়ে চিন্তাও করেন না। ধর্মীয় বিভিন্ন জাতীয় ইস্যু নিয়ে বিভিন্ন সময় তারা কথা বলেন সরলমনা মুসলমানদের ইমান-আক্বিদা হেফাজতের জন্য। আর এটা তাদের দায়িত্বও বটে। এটা না করলে কিয়ামতের ময়দানে চুপ থাকার কারণে মহান আল্লাহর দরবারে জবাবদিহির ভয় থাকে। এসব নিয়ে বেশী চিন্তিত হওয়ার দরকার নেই।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:০১

নূর আলম হিরণ বলেছেন: কোরআন, হাদীস, ইজমা, কিয়াস দিয়ে দেশ চালালে দেশের অবস্থান ১০ বছর পর কোথায় থাকবে বলে আপনি মনে করেন?

১১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: হেফাজতকে তাদের ভুল গুলো ধরিয়ে দিতে হবে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:০২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: হেফাজত যে ধরনের ভুল করে সেটা তাদের জন্য ভুল নয়, তাই তাদের ভুল ধরিয়ে দেওয়া খুব সহজ কাজ নয়।

১২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৩৭

মরুর ধুলি বলেছেন: কোরআন, হাদীস, ইজমা, কিয়াস দিয়ে দেশ চালালে দেশের অবস্থান ১০ বছর পর কোথায় থাকবে বলে আপনি মনে করেন?
[/sb

সেরকম কোন সম্ভবনা দেখছি না। তবে ক্ষেত্র তৈরী হচ্ছে। মানুষ এখন গণতন্ত্রের ফেরিওয়ালাদের কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে, তাদের ধোঁকাবাজি বুঝতে সক্ষম হচ্ছে।

তবে ইসলাম অনুসারে দেশ চালালে কেমন হতে পারে তার ইতিহাস স্টাডি করে দেখুন। আমি বললে হয়তো আপনি মানতে কষ্ট হতে পারে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৩৭

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ইয়েমেন, সৌদি, পাকিস্তান, ইরান, এরা কিছুটা চেষ্টা করছে ফলাফল ভালো কিছু হয়নি।

১৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:১৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: মূর্তি বা Statue : মাটি বা অন্য পদার্থ নির্মিত দেব, দেবীর আকৃতি যাকে মানুষ একমাত্র উপাসনা করে।

ভাস্কর্য বা sculpture : কাঠ বা প্রস্তরে খোদাই শিল্প। শিল্পীর শৈল্পীক নিদর্শন যা সমা‌জে হ্যাঁ বোধক বার্তা বহন কর‌বে। মানুষসহ অন্য প্রাণী বা অন্য কিছুর মূর্তি যা মানুষ রাখে শ্রদ্ধা দেখাতে বা সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করতে, কিন্তু যার উপাসনা করে না।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৪০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: লুত সম্প্রদায়ে সমকামিতার কারনে যখন লুত নবী তার কওমকে ছেড়ে যাচ্ছিল তখন উনার স্ত্রী পিছনে তাকানোর কারনে তাকে পাথরের ভাস্কর্য/মূর্তি বানিয়ে নিদর্শন সরূপ আল্লাহ এখনো নাকি রেখে দিয়েছেন! তো এটা হারাম না হালাল ভাষ্কর্য?

১৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ বিকাল ৫:৩৬

জিকোব্লগ বলেছেন:

ছবিঃ প্রথম আলোতে পুলিশের লাঠিপেটায় ছত্রভঙ্গ ভাস্কর্যবিরোধী মিছিল

সীমা লংঘনকারীদের সম্পদে পরিণত করা যায় না। ছবিতে আজকের
অপারেশন দেখুন। কাজেই, ট্রেন কোনো কারণে কাবুলে চলে আসলেও,
আপা না চাইলে নেমে পড়া হবে না।আল্লার ইচ্ছায় জঙ্গিবাদ নিপাত যাক

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৩২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আপা না চাইলে অনেক কিছুই হয়না, আপা না চাইলে দেশের জিডিপিও বাড়বে না, সম্পদও বাড়বে না।

১৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: হেফাজত যে ধরনের ভুল করে সেটা তাদের জন্য ভুল নয়, তাই তাদের ভুল ধরিয়ে দেওয়া খুব সহজ কাজ নয়।

তাহলে তাদের প্যাদানি দিতে হবে। একবার মতিঝিলে প্যাদানি খেয়েছিলো। তা কি তারা ভুলে গেছে?

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৩৫

নূর আলম হিরণ বলেছেন: এটা তাদের ভুলে যাওয়ার কথা না, তবে ভুল থেকে শিক্ষা নেওয়ার সম্ভবনা এদের নেই। এদের শিক্ষিত করতে হবে, এদের দায়িত্ব নিতে হবে সরকারের। শফি,মফি, বাবু, মাবুর উপর এদের ছেড়ে দেওয়া ভুল পদক্ষেপ।

১৬| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ ভোর ৪:৫৫

কামরুল ইসলাম রুবেল বলেছেন: আজকের আলেমদের ফতোয়া বিএনপির আন্দোলনের চেয়েও আওয়ামী লীগের কাছে হাজারগুণ বেশী কঠিন বিষয়। হয় বাঁচবে নয় মরবে।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৩৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: এসব আওমীলীগের জন্য কঠিন না এখন আর, আওমীলীগের জন্য কঠিন হচ্ছে দেশের মানুষকে শিক্ষিত করা, দেশের মেগা প্রজেক্ট গুলো দেশের ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে করা, হাসপাতালে সঠিক চিকিৎসা নিশ্চত করা, দুর্নীতি বন্ধ করা।

১৭| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:০৭

এমেরিকা বলেছেন: হেফাজত কি দেশ অচল করে দেবার মত কোন শক্তি? এদেরকে এত গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে কেন?

হাফিজুর রহমান কুয়াকাটাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, আপনি ভাস্কর্য নিয়ে কিছু বলেন না কেন? উনি বলেছিলেন, এইটা রাজায় রাজায় যুদ্ধ - আমার মত উলু খাগরার সেখানে বলার কিছু নাই।

উনি বোধ হয় জানেনা, যুদ্ধ যদিও রজায় রাজায় হয়, প্রাণ কিন্তু উলু খাগড়ারই যায়।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৪০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: হেফাজত দেশকে অচল করতে পারবে না, তবে দেশকে, শেখ হাসিনাকে সমস্যায় ফেলতে পারবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.