নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

লেখালেখি একটা নেশার মত। বিভিন্ন ঘাট পেরিয়ে কর্পোরেট জগতে থিতু হওয়ার পরও তাই লিখে যাই যা মনে আসে তাই। পদ্মার ওপাড়ের মানুষ হওয়ায় জন্মগতভাবেই স্মৃতিকাতর। এ আমার দুর্বলতা নয়, অহংকার

পদ্ম পুকুর

একজন শভেনিস্ট ও স্মৃতিকাতর মানুষ

পদ্ম পুকুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

মৃত্যু কি তবে শুধু একটি সংখ্যাই হয়ে থাকবে...

২৪ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:৩৮


নিজের কাঁধের দায় সরাতে বাঙালির দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার মত বেকুবি কেউ কোনোদিন করেনি, করবেও না। দেখতে দেখতে আমাদেরও সয়ে গেছে। কে কি করলো বা করলো না, তা নিয়ে কোনো হেলদোলও হয়না আর। তা ছাড়া, কি হবে রে ভাই হ্যাপার মধ্যে যেয়ে, নিজে বাঁচলে বাপের নাম..

এই তো আমাদের দর্শন? তো করোনার বৈশ্বিক মহামারীতে সে দর্শন কি একটুও পাল্টালো?

করোনায় উন্নত বিশ্ব যখন আইঢাঁই করছে, নিজেদের ভুলে জেরবার হয়ে তাবড় তাবড় অর্থনীতির দেশগুলোও যখন নিয়তির কাছে আত্মসমর্পণ করে বসে আছে, আমরা তখন হেসেছি, উপহাস করেছি। কেউই দায়িত্ব পালন করিনি। না সরকার, না রাজনৈতিক দলসমূহ, না ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ, না সিভিল সোসাইটি, না ধর্মীয় ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ অথবা না আমরা এই জনগণ। সেই যে ইটালি ফেরত এক যুবকের গোষ্ঠী উদ্ধার করে আমরা নিজেদের দায়িত্ব পালন করেছিলাম, তারপর এখন অব্দি আর ওমুখো হওয়ার গরজ পড়েনি আমাদের। এদিকে করোনা নিরবে নিভৃতে তার সাম্রাজ্য বিস্তার করে গেছে।

এ দেশে কর্তা ব্যক্তি, বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং তাদের পোষ্যকোটালরা ঈশ্বরের সমান সুবিধা ভোগ করে। বাংলার ধুলো-বালি, রোগবালাই তাদের নাগাল পায় না, ভাঙাচোরা হাসপাতালের ছারপোকাওয়ালা চৌকিগুলো তাদের পিঠের মোলায়েম স্পর্শ পায় না, তাদের বিচরণ থাকে নিয়ন আলোর রোশনাইয়ে, আনন্দময় কলকাকলিতে। মানিক বন্দোপাধ্যায় যেমনটা বলেছিলেন ‘ঈশ্বর থাকেন ঐ গ্রামে, ভদ্র পল্লীতে- এখানে তাহাকে খুঁজিয়া পাওয়া যাইবে না’ অনেকটা এ রকম এক অস্পৃশ্যতা দিয়ে তারা পৃথক করেছে আমাদের, কুবের-কপিলাদের।

আমাদের এই ঈশ্বররা ভেবেছিলো যে সংকটকালে ক্ষমতা বা টাকা দিয়ে সর্বাধুনিক সুবিধাটা তারা পাবেন। সে স্বপ্নেই তারা তেলতেলে মুখে বিভিন্ন বাতেলা ঝাড়ছিলেন আর আমরা সে সব ঐশীবাণী পেয়ে ধন্য হচ্ছিলাম। কিন্তু সে স্বপ্ন খুব দ্রুতই দুঃস্বপ্নের সাপ হয়ে যখন বেহুলার বাসর ঘরে ঢুকে গেলো, তখন তাদের কিছুটা হুশ ফিরে আসলো, মেনে নিলেন যে করোনা সাধারণ সর্দি জ্বরের চেয়ে বেশি কিছু। কিন্তু তদ্দিনে গুবলেট যা পাকানোর, তা পাকিয়ে গেছে।

আর আমরা আম জনতারা? আমাদের তো আশার কোনো শেষ নেই। 'আশা নিয়ে ঘর করি, আশায় পকেট ভরি'... অবস্থা। কি এক দৈবশক্তিতে আমরা সব সময় আশা করেছি- আর যারই হোক, আমার করোনা হবে না... প্রথমদিকে যখন ফ্লোরা ম্যাডাম তিন এর ঘরের নামতা পড়ছেন, আমরা তখন নিশ্চিন্ত মনে লুডু খেলেছি। এরপর যখন সংখ্যাটা তিন অংকে পৌঁছে গেলো, তখনও আমাদের কোনো হেলদোল হয়নি। তারপর এক সময় ফেসবুকে দেখতে থাকলাম পরিচিতদের আক্রান্ত হওয়ার খবর, তখন আমরা বললাম- এ কি গেরো রে বাবা! এ তো দেখি গায়ের উপর উঠে আসলো!

এই ভাবতে ভাবতে শেষ পর্যন্ত করোনা এখন ঘাড়ের উপরেই এসে গেছে। গতকাল সকালে আমার এক সহকর্মী ফেইসবুকে পোস্ট দিয়েছে ‘না ফেরার দেশে চলে গেলেন আমাদের সহকর্মী তানভীর...।’

বছর চারেক আগে এই তানভীর ছেলেটা আমার ফ্লোরে কয়েকটা ডেস্ক পরে বসতো। পরে ট্রান্সফার হয়ে গিয়েছে। অমিশুক আমার সাথে খুব যে সখ্যতা ছিলো তা নয়, মাঝেমধ্যে কথাবার্তা হতো। কিন্তু ছেলেটা সবার পরিচিত ছিলো। অফিসের প্রোগ্রামে পারফর্ম করতো। সে ছেলেটা নেই। কাব্য করে বলা যায়- না ফেরার দেশে চলে গেছেন...। কিন্তু যে যাচ্ছে তাঁর কাছে, অথবা তার পরিজনের কাছে এই কাব্যের কোনো অর্থই নেই, বিশেষত যখন তাঁর যাওয়াটা শুধুই আইইডিসিআর- এর একটা সংখ্যা!

করোনা এখন ভদ্রপল্লীর সীমানা মুছে দিতে চাচ্ছে। ঈশ্বরেরাও তাই আতংকিত। কিন্তু সেলাইটা যথা সময়ে না দেয়াতে মহামান্যরাসহ এখন আমরা একই লাইনে দাঁড়িয়ে গেছি। শুধু অপেক্ষা কখন ডাক আসবে- ‘নেক্সট’

ছবিসূত্র

মন্তব্য ৪০ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৪০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৪ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:৫১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: যেই বাড়ির প্রধান কর্তা ব্যক্তি ঠিকমতো কিছু করে না, আকাম-কুকাম করে, আকথা-কুকথা বলে; সেই বাড়ির সদস্যদের সেইরকমেরই তো হওয়ার কথা। ভিন্ন কিছু হলে সেটা হবে অস্বাভাবিক......ট্রেন্ডের বাইরে, ব্যতিক্রম! আমাদের একজন মাহাথির মোহাম্মদদের মতো নেতা থাকলে দেখতেন, দেশটার....দেশের জনগনের চেহারা ভিন্নতর হতো।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:৫৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: একজন মাহাথির মোহাম্মদ পাওয়ার জন্য যে জনগণ হওয়ার কথা, আমরা কি তা হচ্ছি বা হয়েছি?

২| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:৩৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
যদিও দিন ‍দিন এই পরিস্থিতিতে অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছি তবুও যার পরিবারের লোক মরে সেই বুঝে হারানোর বেদনা।

একমাত্র উপর্জনশীল কারো মৃত্যু হলে পুরো পরিবারে নেমে আসে বিপর্যয়ের অন্ধকার। লন্ডভন্ড করে দেয় সব কিছু।

এই মহামাড়ি থেকে হেফাজত করুন আল্লাহ।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:৫৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: মনটা খুবই বিষণ্ন হয়ে আছে মাইদুল ভাই।

৩| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:৪৪

নিরীক্ষক৩২৭ বলেছেন: একেকটা সংখ্যা যে কত ভারী সেটা নিজেদের কাছের মানুষরা আক্রান্ত হলে বোঝা যায়।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:৫৯

পদ্ম পুকুর বলেছেন: একেকটা সংখ্যা যে কত ভারী সেটা নিজেদের কাছের মানুষরা আক্রান্ত হলে বোঝা যায়।
এই টাই মূল কথা। আমরা হয়তো নীতিনির্ধারকদের আপন হতে পারিনি, এ কারণে সংখ্যা হয়েই থেকে গেলাম।

৪| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১:২২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লেখক বলেছেন: একজন মাহাথির মোহাম্মদ পাওয়ার জন্য যে জনগণ হওয়ার কথা, আমরা কি তা হচ্ছি বা হয়েছি? ওকে, আপনি তাইলে বলেন, গৃহকর্তা আগে, নাকি বাড়ির সাধারন সদস্যরা আগে; অর্থাৎ দায়িত্ব আগে পালন করবে কে? দায়িত্ব কার বেশী??

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১:৩২

পদ্ম পুকুর বলেছেন: বলা মুশকিল। পবিত্র কুরআন শরীফে বলা হচ্ছে- “মহান আল্লাহ পাক কোনো জাতির জন্য পরিবর্তন করেন না যতক্ষন পর্যন্ত ওই জাতি নিজেরাই নিজেদের জন্য পরিবর্তনের চেষ্টা করে।” (সূরা আনফাল, আয়াত- ৫৩) আর হাদিসে এসেছে- “যে জাতি যেমন আমল করে মহান আল্লাহ পাক ওই জাতির উপর ওই রকম শাসক চাপিয়ে দেন।”

আসলে বিতর্ক বা মতবিরোধ নয়, হতাশা থেকেই কথাগুলো বলা। মন খারাপ করে বলা। আসলে মাহাথির বা লি কুউয়ান ইউ এর মত একজনের জন্য আমাদের প্রতিক্ষার কোনো শেষ তো দেখছি না, তাই।

৫| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: করোনা নিয়ে চিন্তায় চিন্তায় প্রেসার বেড়ে যায়। রাতে ঘুম হয় না। তাই পত্রিকা ও নিউজ দেখা ছেড়ে দিয়েছি। এখন ভালো আছি।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:০১

পদ্ম পুকুর বলেছেন: না দেখলেই কি আর প্রলয় বন্ধ হবে রাজীব ভাই...

৬| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১:৫৯

ডার্ক ম্যান বলেছেন: ২ দিন আগে আমার অবস্থা বেশ খারাপ হয়ে গিয়েছিল । ভেবেছিলাম সময় ফুরিয়ে এসেছে । গতকাল নাটকীয়ভাবে অনেকখানি সুস্থ হয়ে গেলাম । আমাদের পরিবারের এক সদস্য পেশাগত কারণে হাসপাতালে ডিউটি করে। যতই সতর্ক থাকুক উনার কারণে ঝুঁকি বেশি ।
পরিচিত বেশ কিছু মানুষ মারা গেছেন। ঈশ্বরের দূত আসলেই ভদ্রপল্লীতে থাকেন তাই ঐখানে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি ।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:০৪

পদ্ম পুকুর বলেছেন: যদিও ওয়ালীউল্লাহ বলেছিলেন- 'জান না থাকলে ধান দিয়ে কি হবে', কিন্তু এখন মনে হচ্ছে সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ ভুল বুঝেছিলেন... এখন এখানে প্রাণের চেয়ে পেশার গুরুত্ব বেশি, জীবনের চেয়ে প্রবৃদ্ধি।

৭| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:২১

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ভাল্লাগে আর এসব সংবাদ শুনতে :(

আল্লাহ আমাদের হেফাজত করুন রহম করুন আমাদের উপর

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:২৫

পদ্ম পুকুর বলেছেন: উপায়হীনতার এক চরম গ্যাড়াকলে পড়ে গেছি আমরা...

৮| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪০

নেওয়াজ আলি বলেছেন: জুতসই লেখনী ।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: লেখনী দিয়ে আর কি হয়, ব্লগ লিখে সমাজ বদলানোর ফ্যান্টাসি আর নেই।

৯| ২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪৫

কল্পদ্রুম বলেছেন: করোনা একসময় এদেশ থেকে চলে যাবে।ভ্যাক্সিন আবিষ্কারের ফলে না হয় প্রাকৃতিক নিয়মেই।কিন্তু করোনা চলে যাওয়ার পরও যদি এদেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কোন পরিবর্তন না আসে।সেটা হবে আমাদের সবচেয়ে বড় আফসোসের ব্যাপার।ইতোমধ্যে করোনা মাস খানেক হলো আছে।এর মাঝেও সিন্ডিকেটগুলো ঠিকই সচল আছে।

২৪ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৫১

পদ্ম পুকুর বলেছেন: গতকাল পলাশী নিয়ে অনল চৌধুরীর একটা পোস্টে দেখলাম লিখেছেন বাঙালির অনেক গুণাবলীর কথা লিখেছেন, যা আজও বিদ্যমান। ভবিষ্যতেও আমরা সে গুণাবলী (!) বর্জন করতে পারবো বলে কোনো আশা দেখি না।

১০| ২৪ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৫০

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: ভিআইপিরা এখন দেখবেন দেশ ছাড়া শুরু করেছে। আওয়ামীলীগের একজন বড় নেতা দেশ ছেড়েছেন। আগে বাইরের দেশ বন্ধ ছিল তাই যেতে পারে নি। এখন যাওয়া শুরু হবে।

সময়ের এক ফোঁড় অসময়ের দশ ফোঁড়। তারপরও আমরা বুঝছি না। আমরা একটা বেকুব জাতি নাকি বুঝছি না।

২৪ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৫২

পদ্ম পুকুর বলেছেন: বেকুব না, মেরুদণ্ডহীন প্রজাতি। আগেকার বাংলা সিনেমায় দেখা যেতো যে চৌধুরী সাহেব যেনো পালাতে না পারেন সে জন্য গ্রামের মানুষ রাত জেগে কাস্তে শাবল হাতে পাহারা দেয়.... এখন নিজের অধিকার আদায়ের সে সক্ষমতাটুকুও হারিয়েছি আমরা।

১১| ২৪ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৫৫

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আশ্চর্য লাগে এই জাতি ৭১ কি না করেছিল। ভালো বংশীবাদক ছাড়া আমরা দিক চিনি না।

২৪ শে জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৪

পদ্ম পুকুর বলেছেন: এইটা ঠিকই বলেছেন, বংশীবাদক ছাড়া আমরা খুব একটা কিছু করতে পারি না।

১২| ২৪ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৫:০৭

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: এক এক দু:খজনক আঁধারের পথযাত্রী সবাই....
অনিশ্চত নিশ্চয়তায় দৃঢ়তা বুকে
জানিনা কাল কি হবে? অথচ থামছেনা দূর্ণীতি! থামছে না অন্যায়!

হ্যামিলনের কোন এক বংশীবাদকের অপেক্ষায় সবাই!
কোরআনের কথা বলেছেন, হায় তার ধ্বজাধারীরাতো আরো অন্ধকারে!
নবাব সিরাজউদ্দৌলা নাটকের সেই ডায়ালগ যেন বাস্তবিক সত্যতা কানে বাজে
গোলাম হোসেন, বাংলার আকাশে আজ দুর্যোগের ঘনঘটা! কে দেবে আশা? কে দেবে ভরসা?

২৪ শে জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: যদিও সবকিছুতে আশা খুঁজতে চাই তবুও আশংকারা এসে জাপটে ধরে যে কাল আরও খারাপ হবে।

১৩| ২৪ শে জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: ঈদের পর থেকে করোনার প্রকোপ কমতে শুরু করবে।

২৪ শে জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪১

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আল্লাহর রহমতে আপনার আশাবাদ পূর্ণ হোক।

১৪| ২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:০৫

মোহাম্মদ গোফরান বলেছেন: অসাধারণ পোস্ট।

২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:১৪

পদ্ম পুকুর বলেছেন: তাই নাকি!

১৫| ২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:১৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: পদ্ম পুকুর ,




যে তেলমর্দন আর পদলেহনের সংস্কৃতিতে আমরা আটকে আছি তাতে দেশ ও দেশের কর্মকান্ড নিয়ে আক্ষেপ চলতেই থাকবে।
যে যাই-ই বলুক, এজন্যে আমরা নির্বোধ জনগণই মূল অপরাধী।
আক্ষেপের এই লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আমাদের তাই অপেক্ষা - হোয়াট আক্ষেপ ইজ নেক্সট ?

২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:৫০

পদ্ম পুকুর বলেছেন: কথা আপনি ঠিকই বলেছেন। উপরে বিদ্রোহী ভাইয়ের প্রতিমন্তব্যে সেটাই বলেছি জনগণ না চাইলে ভালো শাসক পাওয়া যায় না। দেখুন কিভাবে সমাজের খারাপ দিকগুলো সবার মধ্যে ট্রান্সমিট করে- আজ অফিসে গিয়ে জানলাম, ওই ছেলে যে অসুস্থ ছিলো সে সংবাদটাই হেড অফিসে আসেনি ব্র্যাঞ্চ অফিসের প্রধানের কাছ থেকে। তিনি হয়তো নিজের ক্রেডিট অক্ষূণ্ন রাখতে এই তথ্য লুকিয়েছেন। আক্রান্তের পরিবারের সাথে কোনো যোগাযোগ রাখেননি। এখনও আমরা জানিনা যে তাঁর দাফন কোথায় হয়েছে.....

এই যখন সাধারণের কাতারে থাকাদের অবস্থা, তখন আলোর রোশনায় যার উপরে বেশি, সে তো নিজের ছায়ার দিকেও তাকানোর প্রয়োজন বোধ করবে না...

হচ্ছেও তাই।

১৬| ২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:২১

ঢাবিয়ান বলেছেন: সিঙ্গাপুরে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত 42,432 এবং মৃত্যূ 26। যাদের মৃত্যূ হয়েছে তারা সবাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যূবরন করেছে। এই সফলতার ১০০% ক্রেডিট সরকারের। জনগনের কোন ক্রেডিটও নাই। শিক্ষিত জনগন হলে কি হবে , বাহিরের কাজ কর্ম, বিনোদন বাদ দিয়ে কেউই ঘরে বন্দী থাকতে রাজী নয়। কিন্ত সরকার কঠোরভাবে দুই মাসব্যপী লকডাউন পিরিয়ডে জনগনকে ঘরে থাকতে বাধ্য করেছে আইন প্রয়োগের মাধ্যমে । জনগনের জন্য কি কি প্রনোদনা প্যকেজের ব্যবস্থা করেছে তা নাহয় নাই উল্ল্যেখ করলাম।

বাংলাদেশে কার্যকরী লকডাউন বাস্তবায়ন করা সম্ভব ছিল যদি এই দ্বায়িত্বটা সেনাবাহিনীর হাতে দেয়া হত। কিন্ত সেটা কি কারনে করা হয়নি বোধগম্য নয়। জনগনের টাকায় এত বড় সেনাবাহিনী পুষে লাভ কি যদি তারা দেশের দুর্দিনে কোন দ্বায়িত্বই পালন না করে? এখন সং্ক্রমন যে পর্যায়ে পৌছেছে তাতে ভিয়াইপিরা দেশ ছাড়বে , দেশের জনগন হয় করোনায় নাহয় ক্ষুধায় মরবে।

২৪ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:৫৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: এ সব শুনলে আমাদের কাছে যেমন রূপকথা মনে হয়, তেমনি আমাদের এই হ্যাপাজার্ড অবস্থার কথা শুনে নিশ্চয় ওখানকার ব্লগাররাও রূপকথা মনে করে পোস্ট দেয়....

আকাশপথ উম্মুক্ত হয়ে যাওয়াটা অনেকের জন্য সুসংবাদ বয়ে আনবে নিশ্চয়।

লম্বা মন্তবব্যর জন্য ধন্যবাদ।

১৭| ২৫ শে জুন, ২০২০ রাত ২:৫৫

শের শায়রী বলেছেন: সার্কেল টা খুব দ্রুত ছোট হয়ে আসছে, আমার এক মাত্র ছোট ভাই, তার পজিটিভ হয়েছিল কিন্তু আল্লাহর রহমতে সুস্থ্য এখন, কিন্তু সবাই যে সুস্থ্য হবে তার নিশ্চয়তা কি?

২৫ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:২৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: গতকাল রাতে আমার এক কাছের বড়ভায়র আক্রান্ত হওয়ার সংবাদ পেলাম। হিন্দোল ভাই একটা বড় প্রতিষ্ঠানের এইচআর হেড, পর্যাপ্ত প্রতিরোধব্যবস্থা নিয়েও তিনি যখন আক্রান্ত, রুমী তখন হতাশ হয়ে বললো- মনটা ছোট হয়ে যাচ্ছে....

১৮| ২৫ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:০১

পারভীন শীলা বলেছেন: করোনার টেষ্ট না করালেইতো হ্যাপা চুকে যায় ।এতো কষ্ট করে টেষ্ট করানোর পর যদি রিপোর্ট পজিটিভ আসে তা হলে দরকার কি ভাই এই ঝামেলার ।দাদা বলত, এসেছে কাতি মাস, বুঝবি যা থাকে যা মরে । আমরা এখন দাদার কাতি মাসে পড়ে আছি ।

২৫ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:২৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: ভালো বলেছেন। নো টেস্ট, নো পজেটিভ!!! আপনার আগে মার্কিন দেশের প্রেসিডেন্টও এই কথাই বলেছেন। সমস্যা হলো, যে দেশগুলো এখন পর্যন্ত করোনা নিয়ন্ত্রণে সফলতার মুখ দেখেছে, তাদের সবার প্রতিপাদ্য ছিলো বেশি টেস্ট, বেশি ফাইন্ডিংস, দ্রুত ব্যবস্থা....

১৯| ২৫ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:৪৯

পারভীন শীলা বলেছেন: এ দেশের টেষ্ট এর উপরইতো ভরসা নেই । আপাদমস্তক দুর্নীতিতে ভরা ।

২৫ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:৫৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: হু, সে কারণেই তো লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। ভাবছি কখন ডাক আসবে- নেক্সট...

মন্তব্যর জন্য ধন্যবাদ।

২০| ২৬ শে জুন, ২০২০ রাত ১১:২৪

পুলক ঢালী বলেছেন: চরম সত্য কথা দিয়ে বাঙ্গালী চরিত্র তুলে ধরেছেন। আমার কাছের কয়েকজন আত্মীয় মারা গেছেন সম্ভব ছিলনা দেখা।
তবে এত দুশ্চিন্তার তো কোন কারন দেখছিনা। আমাদের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেওয়া আছে, আমাদের উন্নতির ব্যারোমিটার তো সিঙ্গাপুরের কাছাকাছি। অতএব নো চিন্তা, খাও দাও ফূর্তি করো আর গান গাও তাইরে নাইরে না। X((

কোথাও ভরসা করার মত কোন যায়গা নেই। দুই নম্বরী পিপিই দিয়ে আমরা ফ্রন্ট লাইনারদের মেরে ফেলছি।
উচিৎ ছিল ঐ দুর্নীতিবাজ গুলোকে গুলি করে মেরে ফেলা কিন্তু তা হবার নয়।
সিরিয়াল দিয়ে দাড়িয়ে আছি নেক্সট ডাকলো বলে !
ভাল থাকুন এই প্রত্যাশা রইলো।

২৬ শে জুন, ২০২০ রাত ১১:৪২

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আমাদের উন্নতির ব্যারোমিটার তো সিঙ্গাপুরের কাছাকাছি....। সমস্যা তো ওখানেই স্যার! এক ঘর মে দো পীর যেমন থাকতে পারে না, তেমনি এক বিশ্বে দুই সিংগাপুর কেউ মেনে নিচ্ছে না। এজন্য সিংগাপুর আর কানাডা এক হয়ে আমাদের পেছনে কাটি করা শুরু করেছে। এ কারণেই সাময়িকভাবে আমরা একটু অপ্রীতিকর পরিস্থিতিতে পড়েছি।

অতএব নো চিন্তা.... চিন্তার আসলেই কিছু নেই, এই ড্যামেজ কন্ট্রোলের জন্য আমাদের দুজন বিশেষ প্রতিনিধিকে সম্প্রতি থাইল্যান্ড এবং একজনকে কানাডায় পাঠানো হয়েছে। অচিরেই সব কিলিয়ার হয়ে যাবে।

ভালো থাকবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.