নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাধারণ একজন মানুষ। বলার মতো বিশেষ কিছু নেই। মনের ভাবনাগুলো তুলে ধরতে চাই। ভালো লাগে কবিতা, লিখা-লিখি আর ছবি তোলা, এইতো! https://bhuiyan.us/

ইফতেখার ভূইয়া

গণতন্ত্র মুক্তি পাক, পরিবারতন্ত্র নিপাত যাক

ইফতেখার ভূইয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

আপনার পিসির গ্রাফিক্স কার্ড সম্পর্কে জানুন

২০ শে নভেম্বর, ২০২০ ভোর ৪:২২


যদিও গেমার এবং ভিডিও/থ্রিডি সর্ম্পকিত কাজ যারা করেন তারা ছাড়া খুব বেশী লোকজন গ্রাফিক্স কার্ড নিয়ে মাথা ঘামান না তবুও আপনার পিসিতে কি ধরনের গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করা হচ্ছে এবং কার্ডটি কি ধরনের ফিচার সমৃদ্ধ তা জেনে রাখা ভালো। বিশেষ করে যারা পুরোনে কম্পিউটার ব্যবহার করছেন তাদের উচিত অন্তত জানার জন্যে হলেও বিষয়টা একটু ঘেটে দেখা।

খুব ছোট্ট একটা সফট্ওয়্যার ব্যবহার করেই আপনি আপনার কার্ড সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারেন। সে জন্য বিনামূল্যে জিপিও-যি সফট্ওয়্যারটি ডাউনলোড করে তা ইন্সটল করুন। সফটওয়্যারটি ইন্সটল হয়ে গেলে তা ওপেন করুন। বিস্তারিত তথ্য পেয়ে যাবেন।

উপরে প্রদত্ত স্ক্রীনশটটি দেখুন। দেখতে অনেকটাই জিবরিশ মনে হলেও এখানে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল তথ্য দেয়া আছে। কিছু বিষয় উল্লেখ করার প্রয়োজন বোধ করছি।

জিপিওঃ সেকশনটিতে মূলত আপনার গ্রাফিক্স কার্ডে চিপসেট বা প্রসেসর এর নাম উল্লেখ করা হয়। আপনার গ্রাফিক্স কার্ডে চিপসেট এর নাম টাইপ করে গুগলে সার্চ করলেই এই চিপসেট এর বিস্তারিত ফিচার জানা সম্ভব।

টেকনোলজিঃ গ্রাফিক্স কার্ডের চিপসেটটি মূলত কি প্রযুক্তি ব্যবহার করছে সেটা জানা যাবে এখান থেকে। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই এখানে চিপসেটটিতে কত ন্যানোমিটার প্রযুক্তি এবং এর ডাই সাইজ কত স্কয়ার মিলিমিটারের তা জানা যায়। পাশাপাশি এই চিপসেটে কতগুলো ট্রান্সিস্টর ব্যবহার করা হয়ছে সেটাও জানা যাবে। স্ক্রীণশটটিতে ৩৩০০ এম (মিলিয়ন) বা ৩.৩ বি (বিলিয়ন) দেখা যাচ্ছে।

সাবভেন্ডরঃ মূলত যারা কার্ডটি তৈরী করেছে তাদের ব্র্যান্ড নাম দেখাবে এখানে। বিষয়টি একটু জটিল এবং বিভিন্ন বাণিজ্যিক কারনে এখানে বিভিন্ন রকম অমিল মনে হতে পারে। যেমন স্ক্রীনশটটিতে "এনভিদিয়া" দেখালেও আসলে কার্ডটি ম্যানুফ্যাকচার করেছে "পিএনওয়াই" নামের একটা কোম্পানী যারা এনভিদিয়া কোম্পানীর কোয়ার্ড্রো কার্ডের ম্যানুফাকচারার হিসেবে পরিচিত।

ডিভাইস আউডিঃ মূলত আপনার কার্ডটির একটি ইউনিক নাম্বার যা সমগোত্রীয় বা অন্য যে কোন কার্ড থেকে ভিন্ন।

মেমরি টাইপঃ কার্ডটিতে কি ধরনের এবং কোন ব্র্যান্ডের মেমরি ব্যবহার করা হয়েছে তা জানা যাবে। এটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ খুব স্বাভাবিকভাবেই ডিডিআর ৩ এর তুলনায় ডিডিআর ৪/৫/৬ বেশী দ্রুত গতি সম্পন্ন এবং বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই তা বেশী ব্যান্ডউইডথ্ এর হয়ে থাকে। মেমরি যত বেশী হবে তত ভালো।

আরো কিছু জটিল বিষয় আছে যা ব্যাখ্যা করে লিখা সম্ভব নয়, হলেও তা অনেক সময় সাপেক্ষ। গুগল করেই আপনি বাকিগুলো জেনে নিতে পারবেন। সফটওয়্যারটির ওপরে "সেন্সরস" নামে যে ট্যাব আছে তাতে ক্লিক করে আরো বিস্তারিত তথ্য যেমন চিপসেট এর বর্তমান ক্লক স্পিড, যদি কার্ডে ফ্যান ব্যবহার হয়ে থাকে তার বর্তমান গতি, চিপসেটের বর্তমান তাপমাত্রা ইত্যাদি জানা যাবে।

এডভান্সড ট্যাব থেকে গ্রাফিক্স কার্ডের ডাইভার ভার্শন, কি ধরনের ডিসপ্লে মনিটর ব্যবহার হচ্ছে সেটাও জানা যাবে। ড্রাইভার ডেট যদি বেশী পুরোনো হয়ে থাকে তবে কার্ডটির ম্যানুফ্যাকচারারের সাইটে গিয়ে লেটেস্ট ড্রাইভার ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

আজ এ পর্যন্তই থাকছে। ধন্যবাদ।

মন্তব্য ৪ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৪৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




এখন এমন একটি সময় চলছে কম্পিউটার সম্পর্কে টুকটাক জানা খুবই জরুরী। আপনার পোস্টের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

২০ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:০১

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: অবশ্যই জরুরী। ব্যাপারটা এমন হয়ে গেছে যে এখন ভালো না লাগলেও জানার চেষ্টা করতে হবে। সময় নিয়ে পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

২| ২০ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: সত্য কথা বলি- এ বিশয় গুলো এত কম বুঝি। তাই সমস্যা হলো কম্পিউটার এর দোকানে দৌড় দেই। অনেক টাকা খরচ হয়। অবশ্য আমার ছোট ভাই, আবার কম্পিটারের ওস্তাদ লোক। যে কোনো সমস্যা আমার ছোট ভাই মুহুর্তের মধ্যে সমাধান করে ফেলে।

২০ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:০২

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: চেষ্টা করুন, আপনাকে দিয়েও সেটা সম্ভব। পার্থক্য শুধু ইচ্ছে আর প্রচেষ্টার। ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.