নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

পুরোনো লেখা নতুন করে

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:১৯



আজ অফিস থেকে বাসায় ফিরতে অনেক দেরী হয়ে গেল।
ক্লান্ত বিধ্বস্ত অবস্থায় ঘরে ঢুকে দেখি সুরভি নেই। মনে পড়ল, সুরভি গিয়েছে তার বাবার বাড়ি। মনটা খুব খারাপ হয়ে গেল। মন ভাল করতে গেলাম মাছের বাজারে। মাছের বাজারে ঘোরাঘুরি করতে আমার খুব ভালো লাগে। একসময় প্রতিদিন কোন না কোনো মাছের বাজারে না গেলে ভাল লাগত না।

সন্ধ্যার পর খিলগাও রেললাইনের পাশে বিশাল মাছের বাজার বসে। সেখানে কত রকমের যে মাছ !! বাজারে কোনো মাছের অভাব নেই। মাছ দেখেই মনটা খুশিতে ভরে উঠল। সুরভির কথা একেবারেই ভুলে গেলাম। কুচিকুচি করে কাটা বরফের উপরে কি সুন্দর করেই না ইলিশ মাছ গুলো সাজিয়ে রেখেছে। সাদা লাইটের আলোতে ইলিশ গুলো ঝকমক করছে। মনে হচ্ছে এই মাত্র নদী থেকে তুলে আনা হয়েছে। ইলিশ মাছের খুব বেশী দাম। নিজের দেশের মাছ তারপরও এত দাম কেন?

আমি লক্ষ্য করে দেখেছি, ইলিশ মাছ বিক্রেতারা সব সময় খুব হাসিখুশি হয়। মাছের মতোন তাদের চেহারাও ঝকমক করে। একলোক দেখলাম কোনো দরদাম না করে চারটা ইলিশ কিনে নিল চার হাজার টাকা দিয়ে। আমি লোকটার পেছনে অনেকক্ষন ঘুরলাম, দেখার জন্য সে আর কি কি মাছ কিনে। আজ অন্যান্য মাছের বিক্রীও খুব ভাল। ঘুরে-ঘুরে আমি মাছ দেখছি, মাছের বেচাকেনা দেখছি। খুব ভাল লাগছে। সবার মধ্যে একধরনের ব্যস্ততা।

আমার সবচেয়ে ভাল লাগে মাছ কাটা দেখতে।
রেললাইনের পাশে যে ছেলেটা মাছ কাটে তার নাম মকবুল। মকবুল আমার পূর্ব পরিচিত। কোনো কারন ছাড়াই সে আমাকে খুব পছন্দ করে। আমি এক হাজার টাকা বাজি ধরে বলতে পারি সারা ঢাকা শহরে মকবুলের মতোন আর কেউ মাছ কাটতে পারবে না। মকবুল মাছের দিকে না তাকিয়ে খুব দ্রুত বড় বড় মাছ মুহূর্তের মধ্যে কেটে ফেলে। বিশাল এক রুই মাছ পাঁচ মিনিটের মধ্যে কেটে ফেলে!

মকবুল আমাকে দেখে ইশারায় বসতে বলল। সে আমার উপর খুব রাগ। কারন অনেকদিন তার সাথে দেখা করিনি। মাছ কাটতে কাটতে মুকবুল আমার সাথে টুকটাক কথা বলব। মকবুলের এসিস্ট্যান্ট আমাকে চা-টা এনে দিল। এসিস্ট্যান্টের কাজ হলো- জ্যান্ত মাছের মাথায় একটা বাড়ি দেয়া। পানিতে লাফানো মাছ মুহূর্তের মধ্যে মরে যায়, তারপর সে আঁশ ফেলে ওস্তাদের (মকবুল) কাছে দেয়। এক ঘন্টা মকবুলের মাছ কাটা দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে বাসায় ফিরলাম।

অনেকদিন আগে একটা বই পড়েছিলাম, আর্নেস্ট হেমিংওয়ের 'দ্যা ওল্ড ম্যান এন্ড দ্যা সি'। অত্যন্ত চমৎকার একটি উক্তি বুড়ো সান্তিয়াগোর মুখ দিয়ে হেমিংওয়ে আমাদের বলেনঃ ‘Man is not made for defeat. Man can be destroyed, but not defeated!' আসলেই, মানুষের জন্ম তো হার স্বীকারের জন্য নয়। মানুষ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে, কিন্তু কখনো পরাজিত হয় না। শত প্রতিকূলতা, কুৎসিতের মুহূর্মুহু আক্রমণ, একে অপরের থেকে ক্রমাগত বিচ্ছিনতা, - এই চরম হতাশার মাঝেও তবু আমাদেরকে বেঁচে থাকতে হয়।

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:৪১

গায়েন রইসউদ্দিন বলেছেন: আপনার পুরনো লেখা পড়া হয়নি, তবে এই লেখাতে আছে চির নতুনের আভাস।... 'মানুষের জন্ম তো হার স্বীকারের জন্য নয়। মানুষ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে, কিন্তু পরাজিত হয় না।'...এই অসাধারণ কথাগুলি তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ!

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্য করার জন্য।

২| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১১

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আগেও পড়েছি মকবুলের মাছ কাটার কাহিনি। আসলেই অবাক লাগে কি করে এত তাড়াতাড়ি মাছ কেটে ফেলে ।

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: তারেক ভাই কেমন আছেন?
গ্রামে গিয়েছেন তো?

৩| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক সুন্দর

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৪| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৫৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: শুক্রবার অফিসে কেন?

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: লেখাটা যেদিন লিখে ছিলাম। সেদিন শুক্রবার ছিল না।

৫| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি নিজের ফেলে আসা সময়কে আবার অনুভব করার চেষ্টা করছেন, ভালো।

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: অতীত আমাকে শক্তি দেয়, সাহস দেয়।

৬| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: আজকে শুক্রবারের সবচেয়ে বেষ্ট পোষ্ট। খুব ভালো লাগলো পড়ে।

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪০

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় ব্লগার।

৭| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৬

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: আজও কি মাছ বাজারে গিয়েছিলেন?!

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: অবশ্যই।
কিন্তু আজ মাছ বাজারে অনেকক্ষন ঘুরাঘুরি করেও একটা মাছ কিনতে পারি নি।
বেশ কয়েকদিন ধরে খুব ইলিশ মাছ খেতে ইচ্ছা করছিল।
ভাবলাম একটা ইলিশ মাছ কিনি। কিন্তু ইলিশের অনেক দাম। এক পিছ দুই হাজার টাকা চাইলো। আমার পকেটে ছিল এক হাজার টাকা। মাছ না কিনেই বাসায় চলে এসেছি।

৮| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৭

ঢাকার লোক বলেছেন: "Being defeated is only a temporary condition, giving up is what makes it permanent." হেরে যাওয়া একটা সাময়িক অবস্থা মাত্র, হাল ছেড়ে দেয়াই তাকে স্থায়ী বানায় !

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৯| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:০৮

আপেক্ষিক মানুষ বলেছেন: আমিও মন খারাপে অতিত নিয়ে ঘাটাঘাটি করি, মন ভাল হয়ে যায়।

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:২২

রাজীব নুর বলেছেন: গ্রেট।

১০| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:১৫

ইসিয়াক বলেছেন: রাজীব ভাই আপনার মনে হয় সাদা রঙ খুব প্রিয় । তাই না?

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: সাতটি রঙের মাঝে আমি মিল খুঁজে না পাই,
জানি না তো কেমন করে কি দিয়ে সাজাই।
সাদা রঙের জামা, সে তো ভালো নয়,
হলুদ না হয় নীলে কেমন জানি হয়!

১১| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:২৯

ইসিয়াক বলেছেন: ছবি তোলার সময় তো দেখি সাদা রঙের জামাতে বেশ জাকালো পোজ দেন। হি হি

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা---

১২| ০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:৫৮

মাহের ইসলাম বলেছেন: ভাই, আপনার পাঞ্জাবিটা পছন্দ হয়েছে।
তা, ঐ চার হাজার টাকার ইলিশ কেনা লোকটি আর কী কী মাছ কিনেছিল?

ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা এবং শুভ কামনা রইল।

০৯ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: ঈদ মোবারক।

১৩| ১০ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



রাজিব ভাই;
ইলিশ মাছ বিক্রেতা আর বিয়ের ঘটকের মুখে সব সময় রুপালি হাসি লেগেই থাকে। এই হাসি তাদের ব্যবসার মূল পূঁজি। চারহাজার টাকার ইলিশ বেচে তিন হাজার লাভ! একটু রূপালি হাসির বদৌলতে।

১০ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: ইলিশ মাছ খেতে কিন্তু খুব স্বাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.