নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

কোলকাতা ছবি ব্লগ- ৩

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৪৯



বহু লোক প্রতিদিন কোলকাতা যাচ্ছে।
প্রতিদিন শুধু মাত্র বাংলাদেশ থেকে বহু লোক কোলকাতা যাচ্ছে। কেউ যাচ্ছে বেড়াতে। কেউ যাচ্ছে চিকিৎসার জন্য, কেউ যাচ্ছে শপিং করতে আবার কেউ যাচ্ছে আত্মীয় স্বজনদের সাথে দেখা করতে। পুরো নিউ মার্কেট এলাকা শুধু বাংলাদেশী মানুষজন দিয়ে ভরা। কোলোকাতা সরকারের উচিত মারকুইস স্ট্রীটসহ নিউ মার্কেট এলাকার নাম রাখা বাংলাদেশী পাড়া। কারন বাংলাদেশীরাই এ সমস্ত এলাকা জমজমাট করে রেখেছে। গড়ে প্রতিমাসে বাংলাদেশের লোকজন কোলকাতা গিয়ে কোটি কোটি টাকার কেনাকাটা করে থাকে। হয়তো বাংলাদেশীরা এই এলাকায় না আসলে তাদের ব্যবসা বানিজ্য অনেক কম হতো। হোটেল গুলো খালি পড়ে থাকতো। দোকানপাট গুলোতে বেচা-কেনা খুব কম হতো। আশা করি মমতা দিদি এই এলাকার নাম বদলে নতুন নাম ঘোষনা করবেন- বাংলাদেশী পাড়া নামে। যাই হোক, আর কথা বাড়াবো না। এখন কিছু ছবি দেখুন।

১।
ডালের বড়া। আমি খাই নি। সুরভি খেয়েছে।

২।
পাথর কেটে কেটে বানানো হয়েছে। অর্ডার দিলেও আপনার পছন্দ মতো বানিয়ে দিবে।

৩।
ঢাকা শহরের মতো রাস্তায় খোঁড়াখুঁড়ি চলছে।

৪।
সাইন বোর্ডেই লেখা আছে।

৫।
রবীন্দ্রনাথের গাড়ি। আজও রবীন্দ্রনাথ আধুনিক।

৬।
কলেজ স্ট্রীট। মানে আমাদের বাংলাবাজার বা নীলক্ষেত বলা চলে।

৭।
ফুটপাত দখল। ঢাকা শহরেরও ফুটপাত দখল।

৮।
সরকারী হাসপাতাল। যেমন আমাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

৯।
কি সুন্দর করেই না বানিয়েছে!

১০।
আমার চোখ কিচ্ছু এড়ায় নি। হে হে

১১।
জুতো কালি। অবশ্য আমার জুতো আমি নিজেই কালি করি।

১২।
ব্যস্ত রাস্তায়। আসলে রাস্তাই ব্যস্ত রাস্তা।

১৩।
সংগীত ভবন। শান্তিনিকেতন। শান্তিনিকেতবে আসলেই একটা শান্তি শান্তি ভাব আছে।

১৪।
পুরান ঢাকার মতোন একটি ছোট্র দোকান। এরকম দোকান কোলকাতায় অনেক আছে।

১৫।
এটা কি বুঝলাম না। মসজিদ? পদাতিক দাদা বলতে পারবেন?

১৬।
ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে বহু ছেলে মেয়ে প্রেম করতে যায়। প্রেম করার জন্য আদর্শ জায়গা।

১৭।
কফি হাউজ। এখানে সুরভি আছে।

১৮।
হলুদ ট্যাক্সি অনেক আছে। ভাড়া কম। সাদা ট্যাক্সির ভাড়া বেশি।

১৯।
দূর থেকে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল। আমার খুব পছন্দ হয়েছে।

২০।
এমনি তুললাম। রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাত করে বাইকটা চলে এলো।

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৭/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৫৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ছবিগুলো সুন্দর হয়েছে।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০১

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ তারেক ভাই।
ভালোবাসা নিরন্তর।

২| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:১৬

সাহিনুর বলেছেন: আপনি কি শান্তিনিকেতন এসেছিলেন নাকি? ওটাকে সিংহদোয়ার বলা হয় সম্ভবত । এখানে মাঝে মাঝে বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয়ে থাকে । এখানে সন্ধ্যা হলেই এক আলাদা অনুভূতি হয় চারিদিকে মানুষ তাদের প্রিয়জনের সাথে এখানে সময় কাটাতে আসে , ছাত্র ছাত্রী রা সারাদিন শেষে এখানে আড্ডা দেই কিন্তু ৭.৩০ এর মধ্যে সবাইকে তুলে দেওয়া হয় । এর পাশেই ১১ নভেম্বর আমাদের দেশের প্রেসিডেন্ট রাজনাথ কভিন্দ এসেছিলেন আর এখানেই ২০১৭ সালে আপনাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী এসেছিলেন । এর এর সামনে প্রচন্ড একটা ঘন্টা ঝুলানো আসে ওটাকে ঘন্টা ঘর বলা হয় । আমি এই শান্তিনিকেতন বিগত ৫ বছর ধরে আছি ।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪১

রাজীব নুর বলেছেন: আগে জানলে আপনার সাথে দেখা করা যেত।

৩| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:১৭

রূপম রিজওয়ান বলেছেন: সাদা ট্যাক্সি আর হলুদ ট্যাক্সির তফাতটা কোথায়?সাইজ?এসি?
দাদাদের শহরটাকে এক নজরে দেখানোর জন্য ধন্যবাদ।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: সাদা ট্যাক্সিতে এসি আছে। হলুদ ট্যাক্সিতে নাই।

৪| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৫৮

শায়মা বলেছেন: শান্তি নিকেতনে আসলেই শান্তি শান্তি ভাব আছে।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।

৫| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:০০

ইসিয়াক বলেছেন: হু!

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

৬| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৩

মা.হাসান বলেছেন: ১৫ নম্বর ছবিটা বোলপুর শান্তি নিকেতনের, মসজিদ না। কোলকাতা- বোলপুর গুলায়ে ফেললেন যে।

গল্প দিলেন সুরভী আপার সাথে শপিং করতেই সব টাকস-সময় শেষ, এখন তো দেখা যায় সব জায়গাই ঘুরছেন। , শুধু শুধু বদনামের কারন কি? X((

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৯

রাজীব নুর বলেছেন: হুম মনে পড়েছে, বোলপুর, শান্তিনিকেতন।
অনেক জায়গায় গিয়েছি, আবার অনেক জাগায়'ই যাই নি।

৭| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ভালো লাগলো

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৯

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৮| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৩

খোলা মনের কথা বলেছেন: দেখে ঢাকার মতই মনে হলো। কলকাতায় জনজট কেমন?? ওখানকার জীবনযাত্রা কি বাংলাদেশের থেকে উন্নত??

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: ঝামেলায় ফেলে দিলেন।
আপনি নিজে গিয়েই দেখুন।

৯| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০২

আরোগ্য বলেছেন: ঘরে বসে ঘুরে নিলাম। ধন্যবাদ।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৪৫

রাজীব নুর বলেছেন: এটার মজাই অন্য রকম।

১০| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:১৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: চমৎকার ছবিব্লগ।
ভাইয়ের এই পোস্টে মারকুইস স্ট্রিট ও নিউমার্কেট প্রসঙ্গে একটা কথা বলি,
সুনীল গাঙ্গুলীর নেতৃত্বে একবার ধর্মতলার দোকানগুলোর সাইন বোর্ড বাংলা করার আন্দোলন শুরু হয়েছিল কিন্তু সে আন্দোলন সাফল্য পায়নি।টুকটাক ভারতবর্ষের বিভিন্ন শহরে ঘুরে দেখেছি প্রত্যেকটা শহরে আঞ্চলিক ভাষার যতটা প্রাধান্য থাকে কলকাতা শহর তাদের মধ্যে ব্যতিক্রমধর্মী। এই শহরে বাঙালি ও বাংলা ভাষার কদর একেবারে নেই বললেই চলে। গণতন্ত্রের স্তম্ভ নির্বাচন ভিত্তিক রাজনৈতিক স্বার্থে শাসক দল দেশীয় রাজনীতি বাদ দিয়ে প্রতিবেশী দেশকে তুষ্ট করতে রাস্তার নামকরণে বাঙালিয়ানা(যা মূলত বাংলাদেশী কেন্দ্রিক) আনতে কতটা আগ্রহী হবে তা নিয়ে সহস্রাব্দ বছরের সংশয় আছে। একথা হলফ করেই বলা যায়, বাংলা ভাষার উন্নতি যদি পশ্চিমবঙ্গের উপর নির্ভর করত, তাহলে শীঘ্রই তা একটি ডেড ল্যাঙ্গুয়েজে পরিণত হতো। বাংলাদেশ ছিল বলেই ভাষাটা এখনও বিশ্বে সমাদৃত। একটু খোঁজ নিলে জানতে পারবেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ 2019 সালের বিশ্বের শ্রেষ্ঠতম জোকার বিভাগের স্বীকৃতি পেয়েছে।

আর যে ছবিটা নিয়ে ভায়ের মনে সংশয় দেখা দিয়েছে সেটা নিয়ে কিছু বলতে পারলাম না। মা হাসান ভাইয়ের অনুমান সঠিক হতে পারে।


১৯ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:১১

রাজীব নুর বলেছেন: কোলকাতায় আমার সবচেয়ে খারাপ লেগেছে বাঙ্গালীরা পর্যন্ত বাংলায় কথা না বলে হিন্দিতে কথা বলে।

১১| ২০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:২০

কিরমানী লিটন বলেছেন: অনেক ভালো লাগলো প্রিয় রাজীব নুর ভাই। শুভকামনা রই.....

২০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: যাক আপনাকে দেখে ভালো লাগলো।

১২| ২০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:৪৯

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন:


ছবিতে কলকাতা দেখালেন। আমি গিয়েছিলাম ২০১৪ সালে। ঠিকই বলেছেন, ওরা বাঙালি হয়েও বাংলা বলে না। আফসোস!
এবং রবীন্দ্রনাথ। আজও আধুনিক।

২০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য।

১৩| ২১ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৩১

মোঃমোজাম হক বলেছেন: চমতকার লিখেছেন। তবে ঢাকার সঙ্গে তুলনা না করলে ভাল।
ওটা আমরা পাঠকরাই বুঝে নেবো।
আর রাস্তায় খুড়াখুড়ি আমেরিকাতেও হয় =p~

২১ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০২

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ। মন্তব্য করার জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.