নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

ভূতের গল্প

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৯



রাত আনুমানিক তিনটা হবে।
কোনো কারন ছাড়াই ডান থেকে বাম পাশ ফিরতেই ঘুম ভেঙ্গে গেল। ঘুম ভেঙ্গে গেলেও আমি চোখ খুললাম না। আমার সমস্যা হলো- চোখে একবার আলো লাগলে আর ঘুম আসবেই না। যদিও চোখে আলো লাগার কোনো কারন নেই। আমি ঘর পুরোপুরি অন্ধকার করে ঘুমাই। যাই হোক, চোখ বন্ধ করে রেখেছি কিন্তু ঘুম পুরোপুরি কেটে গেছে। ঠিক তখন ঝনঝন শব্দ শুনলাম। মনে হলো নূপুরের শব্দ। যেন কেউ পায়ে নূপুর পড়ে হাঁটছে। স্পষ্ট শব্দ। কোনো ভুল নেই। এত রাতে নূপুর পায়ে দিয়ে কে হাটবে? আমি থাকি ছয় তলা বাড়ির ছয় তলায়। আমার জানামতে, আশে পাশে কোনো নাচের শিল্পী নেই। অথচ নূপুরের শব্দ বেড়েই চলেছে। আমার বেশ ভয় লাগছে। কিছুতেই ভয়টা দূর করতে পারছি না।

আমার পাশে আমার স্ত্রী নীলা গভীর ঘুমে।
বুঝতে পারছি না আমি নীলাকে ডাক দিয়ে জিজ্ঞেস করবো কিনা সে-ও নূপুরের শব্দ শুনছে কিনা। আচমকা গভীর ঘুম থেকে ডাক দিলে হয়তো নীলা ভয় পেয়ে যাবে। এদিকে আমি নিজেই ভয়ে কাহিল। আমি নিজেকে চোখ বন্ধ রেখেই বুঝাতে চেষ্টা করছি- নূপুরের শব্দের সাথে ভয়ের কোনো সম্পর্ক নেই। ভয় পেও না শাহেদ। ভয়ের কিচ্ছু নেই শাহেদ জামাল। তুমি চোখ মেলে তাকাও। দেখো আশে পাশে কেউ নেই। কিচ্ছু নেই। কোনো নূপুরের শব্দও নেই। তুমি তো কুসংস্কার মুক্ত মানুষ, তবে তুমি কেন ভয় পাচ্ছো, আবার চোখ বন্ধ করে রেখেছো? মনের মধ্যে নানান প্রশ্ন আসছে একের পর এক। কি করবো কিছুই বুঝতে পারছি না। এর আগেও আমি বেশ কয়েকবার ঠিক এমন সময় নূপুরের শব্দ পেয়ছি। কোথা থেকে আএ এই নূপুরের শব্দ।

কমপক্ষে দশ মিনিট ধরে নূপুরের শব্দ পাচ্ছি।
এখন আমি উঠে কি দেখবো কোথা থেকে আসছে নূপুরের শব্দ? কে এই মধ্য রাত্রে নূপুর পায়ে হাঁটছে? খুব পানির পিপাসা পেয়েছে আবার প্রসাব বেগ আসছে। সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছি। যা আছে কপালে। খুব জোরে জোরে তিন শ্বাস নিলাম। লাফ দিয়ে বিছানা থেকে নামলাম। ওয়াশরুম থেকে বের হয়ে এক মগ পানি খেলাম। মোবাইলে সময় দেখলাম- রাত তিনটা বিশ মিনিট। নূপুরের শব্দ এখনও পাচ্ছি। আস্তে ধীরে রান্না ঘরে গেলাম, পাশের রুমে গেলাম এবং বেলকনিতে গেলাম কিন্তু নূপুরের শব্দ কোথা থেকে আসছে বুঝতে পারলাম না। মনে হচ্ছে ছাদ থেকে আসছে নূপুরের ঝনঝন শব্দ! আমি নীলার কপালে ছোট একটা চুমু দিয়ে ছাদে গেলাম। আজ আমি ভয়কে জয় করবোই।

কোথা থেকে আসছে নূপুরের শব্দ?
আমাকে বের করতেই হবে। ছাদ বেশ অন্ধকার। তবে ঠান্ডা বাতাস আছে। ছাদের চারিপাশে নানান রকম গাছটাছ দিয়ে ভরা। নীলা গাছপালা ভালোবাসে। বাতাসে গাছের পাতা গুলো নড়ছে। কোথাও কাউকে দেখা যাচ্ছে না। অথচ এখনও থেমে থেমে নূপুরের শব্দ শুনতে পাচ্ছি। ছাদের কোনায় এসে নিচের দিকে তাকালাম। বেশ কয়েকটা কুকুর আলসেমি ভঙ্গিতে কুন্ডুলি পাকিয়ে শুয়ে আছে। হঠাত মনে হলো ছাদে আমি ছাড়া অন্য কেউ একজন আছে। অবশ্যই আছে। সে আমার সাথে কোনো একটা রহস্য খেলা খেলছে। প্রশ্ন হলো কার ইশারায় এই রহস্যময় খেলা হচ্ছে? আমি কি কোনো পাপ করেছি? নূপুর পায়ে আমাকে মারতে এসেছে? আমি ঘামতে শুরু করেছি। আমার আবার পানির পিপাসা পেল।

কেউ একজন আমার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে।
চারিদিকে বেশ মিষ্টি একটা গন্ধ পেলাম! গন্ধটা বেশ পরিচিত। তার নিঃশ্বাস আমার গায়ে লাগছে। আমি কি চিৎকার দিবো? না পেছন ফিরে তাকিয়ে দেখবো কে আমার পাশে? ঠিক এমন সময় পেছন থেকে কেউ একজন আমাকে এক আকাশ ভালোবাসা নিয়ে জড়িয়ে ধরলো। স্পর্শেই বুঝতে পারলাম আমার স্ত্রী নীলা। নীলা বলল, হঠাত ছাদে এলে কেন? সিগারেট খেতে? আমি ঘরে সিগারেট খেতে মানা করেছি, তাই ছাদে এসেছো সিগারেট খেতে? আমি বললাম, চলো নীলা ঘরে যাই। নীলা বলল, আর কিছুক্ষন পর আকাশ ফর্সা হতে শুরু করবে। চলো আজ ভোর হওয়া দেখি। ভোরের আকাশ দেখা দারুন আনন্দয় একটা ব্যাপার!

(গল্পটা গতকাল রাতে লিখেছি। কিন্তু রাতে পোষ্ট করতে পারি নি। কারন তখন প্রথম পাতায় আমার একটা পোষ্ট ছিল। তাই সকালে পোষ্ট করলাম। যদিও ভূতের গল্প রাতের বেলাই পোষ্ট করার নিয়ম। যে ভূতের গল্প রাতে পড়লে ভয় লাগে। সেই গল্প দিনের বেলা পড়লে হাসি পায়। সব লেখা সব রকম পরিবেশে পড়া যায় না। যেমন কবিতা পড়তে হয় ভোরে অথবা মধ্যরাত্রে। গোয়েন্দা গল্প পড়তে হয় ভ্রমনের সময়। প্রবন্ধ পড়তে হয় দুপুরবেলা। প্রেম ভালোবাসার গল্প উপন্যাস পড়তে হয় চেংড়া বয়সে।)

মন্তব্য ৫৬ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (৫৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:০২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: প্রেমের গল্প পড়ার আবার বয়স লাগে নাকি !! কি অদ্ভুত কথা ! :)

ভূতের গল্পে ভালো লাগা। ভালো লিখছেন।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: প্রেমের গল্প সব সময়ই পড়া যায় কিন্তু প্রেমে করার সময় প্রেমের গল্প পড়তে সেই রকম লাগে।

২| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:২৬

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: অনেক শুভেচ্ছা নিবেন দাদা

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: শুধু শুভেচ্ছা? কোক বার্গার হবে না?

৩| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৪১

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: গোগ্রাসে পুরোটাই পড়েছি, হয়তো আরো একটু বড় হলে ভালো হতো। তবুও বলবো ভালো লাগলো আপনার লিখা।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ইফিতেখার ভাই।

৪| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৫৩

কনফুসিয়াস বলেছেন: ভয় থেকে ভাল কিছু হলে খারাপ কি! ভূত আপনাকে সকালের ভোর হওয়া দেখানোর আমন্ত্রন দিয়েছিল। ভূত এইজন্য একটি ধন্যবাদ প্রাপ্য।

ভয় থেকে ভালবাসার অধ্যায়ে চলে গিয়ে গল্পটি ভালই লাগল। ছোটবেলা থেকে এমন ভুতের গল্পই বেশি পড়েছি এবং দেখেছি। কিন্তু সবাই ভুতের দৃশের পরে বৌকে বা প্রেমিকাকেই কেন দেখায় বলুনতো? কেন মা, বাবা, ভাই বা বোন নয়?

ধন্যবাদ এত কষ্ট করে আমাদের জন্য প্রতিদিন লিখার জন্য।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: আসলে লেখা কোথা থেকে কোথায় চলে যায়! বড় অদ্ভুত।

৫| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:০২

নীল আকাশ বলেছেন: প্রেমের গল্প পড়ার এবং লেখার কোন বয়স থাকতে পারে না। প্রেম শ্বাশত।
শেষদিকে আরেকটু ভয় দেখাতেন, ভয়ের গল্প যেহেতু!

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: এই গল্প মধ্যরাত্রে পড়লে কিছুটা ভয়-ভয় লাগবে।

৬| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০৯

সাইফ নাদির বলেছেন: বেঁচে গেছেন ভাই, পিছন থেকে ভাবি জড়িয়ে ধরেছিলো। পেত্নী ধরলে কী হতো একবার ভেবে দেখুন।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: পেত্নী আমাকে মেরে ফেলতো। আবার পরী ধরলে- পরী তাদের দেশে নিয়ে যেত।

৭| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:১৩

জুন বলেছেন: ভুত আমিও অনেক ভয় পাই রাজীব নুর। গল্পে ভালোলাগা রইলো।
+

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভালো থাকুন।

৮| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪০

বিএম বরকতউল্লাহ বলেছেন: ভাই, ভূত কি দেখে লিখেছেন নাকি না দেখেই।
আমি অবশ্য ভূতের গল্পগুলো দেখে দেখেই লিখি।
সুন্দর গল্প। ধনবাদ।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা---
আমি তো জানি আপনি ছড়া লিখেন। ব্লগে কি ভূতের গল্প দিয়েছেন?

৯| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:২৭

ইসিয়াক বলেছেন: ভুতততততততততততততততততততততততততত।
ভয় পাই নাই। হিঁ হিঁ হিঁ

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি হয়তো সাহসী।

১০| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৩৮

শাহিদা খানম তানিয়া বলেছেন: দিনের বেলায় গল্প পড়েও গা ছম ছম করল।

ভুতের গল্প ভাল্লাগসে++

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: হে হে---

১১| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৪৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: The ghost story!

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।

১২| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৪৭

সেজুতি_শিপু বলেছেন: অনেক ভয়ের গল্প। জট খুললে ভালই হত। নুপূর পরে কে হাটছিলো?

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: থাক কিছু রহস্য।

১৩| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৩

খাঁজা বাবা বলেছেন: শেষ হল না তো :(

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: ২য় পর্ব হবে।

১৪| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৫

ওমেরা বলেছেন: ভয়-টয় পাইনি তবে গল্প খারাপ লাগেনি ।

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০০

রাজীব নুর বলেছেন: তাহলেই সার্থক।

১৫| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:০৩

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: রহস্যটা রহস্যই রয়ে গেল :)

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: কিছু রহস্য থাক।

১৬| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৩৩

সম্রাট ইজ বেস্ট বলেছেন: শাহেদের কোন পুরনো প্রেমিকা ছিল কি, যে রাতে এসে শাহেদকে ওভাবে ভয় দেখাতে পারে?

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: না।
তবে মানুষের দুই একটা ব্যাক্তিগত ভয় থাকে। থাকেই।

১৭| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৪৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




সম্রাট ইজ বেস্ট বলেছেন: শাহেদের কোন পুরনো প্রেমিকা ছিল কি, যে রাতে এসে শাহেদকে ওভাবে ভয় দেখাতে পারে? আমিও তাই ভাবছি - - - -


০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা---

১৮| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৮

ইসিয়াক বলেছেন: লেখক বলেছেন: আপনি হয়তো সাহসী।
ইয়েস ! আমি সাহসী। চলেন কবরখানায় গিয়ে বসে জ্যোস্ননা দেখি ,বাতাসে গছের পাতার শব্দ ,বাঁশ ঝাড়ের ক্যাচক্যোচ আওয়াজ।
ভুতুম পেঁচার ডাক । হঠাৎ অচেনা পাখীর চিলচিৎকার .......।গাঁ ছমছম করবে । যাবেন? ......না থাক রাত বাড়ছে ভয় পাবেন । হে হে হে......।শো যাও বাচ্চে আভি শো যাও .......।বাদ মে ফির আউঙ্গি।

১৯| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: না ভয় পাবো না। সরাসরি অজ্ঞান হয়ে যাবো।

২০| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:১৯

বাকপ্রবাস বলেছেন: ভূত তুমি এসো প্রতি রাতে
আমরা ও গল্প পাবো তাতে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১০

রাজীব নুর বলেছেন: হে হে

২১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:২৩

শের শায়রী বলেছেন: আমি এই মাঝ রাতে পড়ছি। আমার আবার মারাত্মক ভুতের ভয়। আসলেই ভাই। তবে সমস্যা নাই এক দিকে গিন্নী আর এক দিকে বড় ছেলে মাঝে আমি ঘুমাব। মাঝে ঘুমালে আর ভয় লাগে না B-))

আর একটু ভয় যদি দিয়ে দিতেন আরো ভালো লাগত। :D

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১১

রাজীব নুর বলেছেন: না থাক। অল্প ভয়ই ভালো।

২২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:৩০

রুমী ইয়াসমীন বলেছেন: ভূতের গল্প পড়ে তো ভয় টয় কিছুই পেলাম না ভাইয়া। :P
যা একটু ভেবেছিলাম পেছন থেকে এই বুঝি কোনো ভূত-পেত্নী বা পরী জড়িয়ে ধরে ভয় টয় দেখাবে কিন্তু তাও হলো না... :(
যাই অনেক সুন্দর লিখেছেন ভাইয়া, পড়ে ভালো লেগেছে।
আর হ্যাঁ প্রেম ভালোবাসার গল্প উপন্যাস কবিতা পড়ার ও লিখার কোনো নির্ধারণ বয়স আছে বলে তা মানতে পারছিনা।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১২

রাজীব নুর বলেছেন: তা ঠিক।
তবে অল্প বয়সে প্রেম ভালোবাসার গল্প উপন্যাসের আবেদন বেশি থাকে।

২৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ ভোর ৬:২৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ভুতের গল্প ভাল লাগল ।
ভুতকে ভয় পাওয়ার কিছু নেই
ভুতকে দেখে বলুন ইয়া আলী মুশকিল কুশা
বাপ বাপ ডেকে ভুত পালাবার পথ পাবেনা ।

শুভেচ্ছা রইল

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১২

রাজীব নুর বলেছেন: শিখে রাখলাম।

২৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০৭

তারেক ফাহিম বলেছেন: ভুউ্উউউউউউতততততত ভয় পাই না।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: যে দিন ধরবে সেদিন বুঝবে।

২৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১০

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: ভূতের গপ্প্য শুনলে বেশ ভয় লাগে আমার গুরু ভাই ।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১১

রাজীব নুর বলেছেন: ভয়ের কিছু নেই। একটা মন্তব্য শিখিয়ে দবো।

২৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:২৫

ঠ্যঠা মফিজ বলেছেন: লগ আউট হয়ে যাওয়ায় মন্তব্য করা হয়নি,রাতেই পড়েছিলাম,বেশ ভালোই লাগছিল ।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ।

২৭| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
জীবনে ভূত দেখার খুব শখ ছিল।
কিন্তু আজ পর্যন্ত ভুতের দেখা পেলাম না।
আফসোস!

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: দেখা পাবেন।
অপেক্ষা করুন। ভূত আছে।

২৮| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: ভূতের ভয় টয় পাইনি। তবে ভূত দেখার অসিলায় ভোর দেখা হয়ে গেল, এ আইডিয়াটা ভাল লেগেছে।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: অনেকে ভোর বেলা ঘুম থেকে উঠে। ফযরের নামাজ পড়ে ঘুমিয়ে যায়। ভোর হওয়া দেখে না। আফসোস।

২৯| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
লেখক বলেছেন: দেখা পাবেন।
অপেক্ষা করুন। ভূত আছে।

ছোট বেলায় হুমায়ূন আহমেদের বোতল ভূত ধারাবাহিকটি পত্রিকাতে পড়ে যথেষ্ট আরাম পেতাম।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২৭

রাজীব নুর বলেছেন: বোতল ভূত আমি পড়েছি।
আসলে আমি হুমায়ূন আহমেদের সব বইই পড়েছি। একেকটা বই অনেকবার করে পড়েছি।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.