নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আজকের ডায়েরী- ৪০

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:১৩



ভীষন ব্যস্ততার মধ্যে আছি।
আসলেই আমি কোনো ব্যস্ত না। আজাইরা কাজে ব্যস্ত। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে রাত বারোটায় ছাদে গেলাম। আশেপাশের সমস্ত বাড়ির ছাদে ফটকা, আতশবাজি ফুটাচ্ছে। ধুম-ধাম শব্দ। মানুষের কত রস! আমাদের এলাকার সমস্ত লোকজন ঘর ছেড়ে ছাদে এসে উপস্থিত হয়েছে। টানা দেড় ঘন্টা ফটকা আতশবাজি ফুটানো দেখলাম। ঢাকা শহরের ঠান্ডাটা আচমকা খুব কমে গেছে। গতকাল রাতে তো আমি ফ্যান ছেড়ে ঘুমিয়েছি। পুরাতন বছরকে বিদায় জানানোর জন্য আমার কোনো আয়োজন ছিলো না। তবে সন্ধ্যায় বের হয়েছিলাম আমি আর সুরভি। রাতে বাইরে খেলাম। খাওয়ার বিল সুরভি দিলো। অকারনে রিকশা দিয়ে অনেকক্ষন ঘুরলাম এলোমেলো। বাসায় ফিরলাম ১১ টায়। পরী বাসায় ছিলো। সে ছবি আঁকায় ব্যস্ত।

আজ বছরের প্রথম দিন।
সকালেই বাজারে গেলাম। বাসায় আজ অনেক মেহমান আসবে। মেহমান বলতে সুরভির বান্ধবীরা। বড় একটা রুই মাছ কিনলাম। বাজার থেকেই মাছটা কাটিয়ে নিলাম। পাবদা মাছ কিনলাম। চাষের না, দেশী। এক হাজার টাকা কেজি। পাবদা মাছও কাটিয়ে নিলাম। এক কেজি বড়-বড় চিংড়ি মাছ কিনলাম। মূরগী, গরু আছে ফ্রিজে। একমুদি দোকান থেকে আরো কিছু জিনিসপত্র কিনলাম। বাসায় সুরভিকে বাজার দিয়ে আমি বাইরে গেলাম। একটু পরেই সুরভির ফোন। বাজারের ব্যাগে কোনো মাছ নেই। মাছের বদলে দু'টা নারকেল এবং এক কেজি খেজুরের গুড়। ঘটনা হলো মুদি দোকান থেকে কেনাকাটা করার সময় আমি ভুলে অন্য কারো ব্যাগ নিয়ে চলে আসছি। পরে আবার বাজারে গেলাম। আমার মাছের ব্যাগ পেলাম না। নতুন করে আবার বাজার করতে হলো। এরকম ভুল আমার খুব হয়। সদাইপাতি কিনেও বাজারে রেখে আসি। পরে সেই জিনিস আর পাই না।



বিকেল থেকেই মেহমান আসতে শুরু করলো।
সব মিলিয়ে তের জন। সবাই সুরভির বান্ধবী। দুইজন বান্ধবীর জামাইও এসেছে। খুব হইচই আর আড্ডা চলছে। ব্যাপক হাসাহাসি। আমি ওদের আনন্দ আর হাসাহাসিতে অংশ গ্রহন করতে পারছি না। ওদের চিন্তা ভাবনা কথার সাথে আমার মিলে না। ওরা আধুনিক। আমি আধুনিক হতে পারিনি। তাই আলাপ জমাতে পারি না। বেশ কিছুক্ষন চুপ করে বসে থেকে আমি আস্তে করে বের হয়ে গেলাম। তালতলা মার্কেটের কাছে একটা চায়ের দোকানে আমি প্রায়ই যাই আড্ডা দিতে। সেখানে গেলাম। খুব জমিয়ে আড্ডা দিচ্ছি। এমন সময় সুরভির ফোন। সুরভি বলল, তুমি না বলে চলে গেলে কেন? বাসায় গেস্ট। তুমি এত অসামজিক কেন? আমি বললাম, বাইরে যাইনি। কোক স্প্রাইট আনতে দোকানে এসেছি। সুরভি বলল, এক্ষন আসো। আমি বললাম, জ্বী আসতেছি।

সুরভির রান্নার সুনাম বেশ ছড়িয়ে পড়েছে।
আমারও মনে হয় সুরভি রান্নাটা ভালো করে। কাচ্চি রান্না করেছে। আমি কসম খেয়ে বলতে পারি, স্টার বা ফখরুদ্দিনের কাচ্চির চেয়ে সুরভির কাচ্চি বেশি ভালো হয়েছে। সবাই খেয়ে বেশ মজা পেয়েছে। মেহমান বিদায় নিয়েছে রাত বারটায়। পুরো ঘর এলোমেলো হয়ে আছে। সুরভিও বেশ ক্লান্ত। ঘরে যখন কাজ বেশি থাকে তখন আমাদের বুয়া আসে না। বুয়াকে হাজারবার করে বললে বুয়া আসে না। গত চার দিন ধরে বুয়া আসে না। অবশ্য আমাদের বুয়া মাসে পনের দিন আসে না। গত একবছর ধরেই দেখছি। ফোন দিলে ফোন ধরবে না। তিন-চার দিন পর এসে হাসি মুখে বলবে কোমরে বেধনা (ব্যাথা)। তাই শুয়ে শুয়ে বাংলা সিনেমা দেখছি। বুয়ার এই আচরনে আমরা অভ্যস্ত হয়ে গেছি। বুয়া-বুয়া বলাটা ঠিক হচ্ছে না। নাম হলো নাছিমা বেগম। নাছিমাকে আজ পর্যন্ত না আসার জন্য সুরভি কখনও ধমক দেয়নি। ধমক না দেওয়ার কারনে নাছিমা মনে হয় নিজেও বেশ অবাক।



আমি আছি বিরাট ঝামেলায়।
আগামীকাল আমার এক বন্ধু আসেবে। মিজান। দুই দিন থাকবে আমার বাসায়। বউ বাচ্চা নিয়ে আসবে। ঢাকায় ডাক্তার দেখাতে আসবে। মিজান থাকে বাগেরহাট। সে বিয়ে করেছে। দু'টা ছেলে হয়েছে। অথচ তার বিয়েতে আমি যাই নি। দু'টা ছেলে হয়েছে। তাদেরকেও আজ পর্যন্ত দেখিনি। অবশ্য মিজানের সাথে বেশ কয়েকবার দেখা হয়েছে। ফোনে কথা তো প্রায়ই হয়। এমাসে ছয়টা দাওয়াত আছে। তিনটা বিয়ের। দুইটা জন্মদিনের এবং একটা মুসলমানির। মুসলমানির দাওয়াত নারায়নগঞ্জে। এদিকে আমার ল্যাপটপে সমস্যা দেখা দিয়েছে। হুটহাট ল্যাপটপ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। ক্যামেরাটা তো দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। সুরভি ডাক্তার দেখিয়েছে। নানান রকম টেস্ট ফেস্ট দিয়েছে। দুনিয়ার ওষুধ দিয়েছে। সুরভির বান্ধবীরা সেন্টমার্টিন যাচ্ছে। তারা ধরেছে আমি আর সুরভি যেন যাই। যেতেই হবে।

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২৯

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: রাজীব ভাই আপনি কি হতাশাগ্রস্ত?

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: মোটেও না।

২| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:৩৭

বিজন রয় বলেছেন: আমিও ভীষণ ব্যস্ত সময় পার করছি।

এ বছর আপনার প্লান কি ব্লগিং নিয়ে?

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: ভালো কিছু লেখা লিখব।

৩| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:৫৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




হিমু (রাজীব নুর) ভাই,
আপনি যেভাবে ঢাকা দেখেছেন-দেখছেন তার একটি ছোট গল্প তাদের শুনিয়ে দিলে তারা হতভম্ব হয়ে যেতো ! আপনি একটি গল্প শুনিয়ে দিতে পারতেন। কাজটি দরকার ছিলো।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: তারা এই গল্প শুনে মজা পাবে না।

৪| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:০২

জাহিদুল ইসলাম ২৭ বলেছেন: শীতের ভয়ে,বারান্দা থেকেই আতশবাজি আর পটকা ফোটানো দেখলাম।ভাতিজি সেই রকম সুন্দর হয়েছে--কিউটের ডিব্বা।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: শীত কমে গেছে।
পরীর জন্য দোয়া করবেন।

৫| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:০৮

আকতার আর হোসাইন বলেছেন: "একটু পরেই সুরভির ফোন। বাজারের ব্যাগে কোনো মাছ নেই। মাছের বদলে দু'টা নারকেল এবং এক কেজি খেজুরের গুড়।"
হাহাহক.... আপনি মনভোলা লোক। আমি যে কত বকা খায় মায়ের , এই মনভোলা রোগের জন্য!!!

"সুরভি বলল, তুমি না বলে চলে গেলে কেন? বাসায় গেস্ট। তুমি এত অসামজিক কেন? আমি বললাম, বাইরে যাইনি। কোক স্প্রাইট আনতে দোকানে এসেছি। সুরভি বলল, এক্ষন আসো। আমি বললাম, জ্বী আসতেছি।"

আবারো হাসলাম।। উপস্থিত জ্ঞান ভালো আপনার।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:০৯

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য।

৬| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:১০

বাকপ্রবাস বলেছেন: আপনার লেখা পড়তে মজা লাগে।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:১০

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।

৭| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:৩৩

জুল ভার্ন বলেছেন: আপনার দিনপঞ্জীর সাথে দিনমান জড়িয়ে যাচ্ছি!
ভালো লেগেছে।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:১১

রাজীব নুর বলেছেন: ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন।

৮| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৪৩

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: সুন্দর লেখা

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ বোন।

৯| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৪৯

ইসিয়াক বলেছেন: বন্ধু আমিও খুব ব্যস্ত । স্কুলে ভর্তি সংক্রান্ত ঝামেলা। প্রচুর কাজ। তারপর এই বছর আমার দুটো ক্লাস বেশি । কোন অফ পিরিয়ড নাই্ । আমার নাকি খুব এনার্জি তাই আমাকে এই দায়িত্বটা নিতেই হবে।মেজাজ খারাপ হয়ে আছে। ভাবছি চাকরি ছেড়ে দেবো । এই চাকরি করলে আমি কবিতা লিখতে পারবো না। রিজাইন লেটার লিখছি.......

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: পাকনামি কম করেন।
সবার আগে কাজ। চাকরি।

১০| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৫৬

ইসিয়াক বলেছেন: আজ মাথাটাই খারাপ হয়ে গেছে । বন্ধু পোষ্ট ভালো লেগেছে। উপরের মন্তব্যটা মুছে ফেলার অনুরোধ রইলো ।
শুভকামনা জানবেন।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: ওকে।

১১| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২০

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি বলেন চাকুরী নেই, এত টাকা কিভাবে খরচ করছেন?

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: জমানো টাকা ছিলো কিছু।

১২| ০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:৪৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সেন্টমার্টিন থেকে ঘুরে আসেন, ভাল লাগবে।

০২ রা জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: না যাবো না।
সুরভি যাক।

১৩| ০৩ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:১৩

বিষাদ সময় বলেছেন: মেয়েকে বাসায় রেখে দুজনে ঘুরা ফিরা করে বাসায় ফিরলেন রাত ১১ টায়? ভাল!!

০৩ রা জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:১৪

রাজীব নুর বলেছেন: মেয়ে ওর দাদীর কাছে ছিলো।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.