নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

এই সমাজ- ১৭

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৫৮



দেশভাগ হওয়ার পরও আমাদের দেশটা ভালো ছিলো।
মানুষ ভালো ছিলো। মানুষের মধ্যে মানবতা ছিলো। ৭১ এ যুদ্ধের পরও দেশটা ভালো ছিলো। মানুষ ভালো ছিলো। ৭৫ এর পরে দেশ অধপতনে যেতে শুরু করে। আজও তা অব্যাহত আছে। এখন তো দেশ তলানিতে এসে ঠেকেছে। এখন এই যুগের মানুষ, বর্তমান সমাজের মানুষ গুলো হৃদয়হীন। প্রচন্ড মানবতাহীন। এই সমাজের মানুষ গুলোর মধ্যে কোনো মায়ামমতা নেই। এরা প্রত্যেকে যার যার জায়গা থেকে ভয়াবহ রকমের নিষ্ঠুর। এই সমাজের মানুষ এখন শুধু নিজেদের নিয়ে ভাবে। নিজের পরিবারের বাইরের কাউকে নিয়ে ভাবে না। ভাবটা এরকম দুনিয়া জাহান্নামে যাক, আমি ভালো থাকলেই হলো। সবাই শুধু আমার আমার করছে। দেশ, সমাজ, রাষ্ট্র নিয়ে কেউ ভাবে না। আমরা যা চিন্তা করি, সমাজও তাই চিন্তা করে। আমরা যা ভাবি, সমাজও তাই ভাবে। প্রকৃতপক্ষে সমাজ কিছু ভাবে না, আমরাই ভাবি।

দেশ এবং সমাজের এই অবস্থার জন্য দায়ী কে?
দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এই কথাটা আমি মোটেও বিশ্বাস করি না। যারা বলে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে তারা কেন এই কথা বলে আমি বুঝি না। উন্নয়ন হলে শুধু তাদের হয়েছে। এবং তাদের ছত্রছায়ায় থাকা লোকজনের হয়েছে। মেট্রোরেল, পদ্মাসেতু, ফ্লাইওভার ইত্যাদি দিয়ে ভরে ফেললেও দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে বলা ঠিক হবে না। আজও মানুষ রাস্তায় ঘুমায়। রাস্তায় বের হলেই হাজার হাজার ভিক্ষুক দেখা যায়। দেশে বেকারের অভাব নেই। চিকিৎসার মান ভালো না। সরকারী হাসপাতাল গুলোতে দালাল। সরকারী প্রতিষ্ঠান গুলোতে ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না বললেই চলে। এদিকে দেশে দূর্নীতি অব্যাহত আছে। নব্য ধনীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সরকার দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা করেছিলো। দু'চারজনকে গ্রেফতার করে এখন সেই বিষয়ে আর কোনো খোঁজ খবর পাওয়া যায় না। সব কিছু বদলে যায়, এটাই নিয়ম। সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি বদলেছে।

ভালো চাকরি না করলে, ধনী না হলে সমাজ দাম দেবে না, যে করেই হোক, কারি কারি টাকা করতে হবে। গাড়ি, বাড়ি করতে হবে। কারনে অকারনে দেশ বিদেশ ঘুরতে হবে। এমন চিন্তাই আমাদের মাথায় সবসময় ঘুরপাক খায়। সাধারণত একটা পরিবারে শান্তি বজায় থাকে ততক্ষণ পর্যন্তই যতক্ষণ সব সদস্যের মানসিকতা মোটামুটি একই থাকে। পরিবেশ এবং পরিস্থিতি অনুযায়ী মানুষের মানসিকতাও বদলায়। আজ আমরাও বদলে গেছি। অনেকই বদলে গেছে। বদলে গেছে আমাদের মূল্যবোধ আর মনুষ্যত্ব। প্রাইভেট টিউটর ছাড়া পরীক্ষায় ছেলেমেয়েরা পাস করতে পারে না! ভালো স্কুল-কলেজে পড়তে গেলে ডোনেশন ছাড়া প্রবেশাধিকার পাওয়া যায় না। খাদ্যে ভেজাল, দূর্নীতি, রাস্তাঘাটে আইন না মানা, লোক দেখানো কাজকর্ম করা ইত্যাদি বিষয় গুলো আশ্চর্য হলেও সত্যি যে, মনে-প্রাণে না হলেও এসবই কিন্তু আমরা মেনে নিচ্ছি। মেনে নিতে বাধ্য হচ্ছি। কারণ না মেনে কোনো উপায় নেই। প্রতিকারের কোনো পথ নেই। কে প্রতিকার করবে? যোগ্য ও দক্ষ লোকের আমাদের বড় অভাব।

সরকারী প্রতিষ্ঠান গুলো কেমন আছে?
ন্যাশনাল টিউব, এটলাস হোন্ডা, সোর্ড ব্লেড, মিল্কভিটা, বাংলাদেশ চা বোর্ড, আমার বাড়ি আমার খামার, সাধারণ বীমা কর্পোরেশন, বিস্ফোরক পরিদপ্তর, পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন, নিরাপদ খাদ্য, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, বাংলা একাডেমী, পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশন ইত্যাদি এইসব প্রতিষ্ঠান গুলো সারা বছর কি কি কাজ করে? কত টাকা সরকারের লাভ হয়? এইসব প্রতিষ্ঠান থেকে কারা লাভবান হচ্ছে? মানুষের জীবনের সমস্যাগুলো এই সমাজ থেকে, বর্তমান সামাজিক ব্যবস্থা থেকে জন্ম নিচ্ছে। মানুষের মধ্যে মুক্তির যে অদম্য আকাঙক্ষা ও প্রবণতা, সেটাই মার্কসবাদ–লেনের দিকে টেনে নিয়ে যায়। ধর্মের নামে মিথ্যা, অনাচার, হত্যা, ধর্ষন- গণতন্ত্রের নামে মিথ্যা ও অনাচার, ইতিহাস নিয়ে মিথ্যা ও অনাচার বাংলাদেশে আমাদের জীবনকে বিপর্যস্ত ও বিকৃত করে রেখেছে। কার্যকর কোনো আদর্শ নেই, নীতি নেই, পরিকল্পনা নেই, কর্মসূচি নেই।

একই কথা আমি বারবার বলি।
আমাকে বার বার বলতে হয়। যে পর্যন্ত অনিয়ম গুলো ঠিক না হবে, সে পর্যন্ত আমাকে বলেই যেতে হবে। আমরা ভালো থাকলেই সমাজ ভালো থাকবে। আমরা ভালো কিছু করলেই সমাজ থেকে ভালো কিছু বেরিয়ে আসবে। আমরা নিজেদের পরিবর্তন করলেই সমাজের পরিবর্তন হবে, সমাজ বদলাবে। আমাদের এই সমাজ আমাদেরই সারিয়ে তুলতে হবে। ইউরোপ থেকে লোকজন এসে আমাদের সমাজ বদলে দিবে না। স্বাধীন বাংলাদেশে গত ৪৯ বছর ধরে আমরা অসুস্থ, রুগ্ন, বিকারপ্রাপ্ত অবস্থার মধ্য দিয়ে চলেছি। অবস্থাকে আমাদের উন্নত করতে হবে। অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভশক্তির পরিচালনা নীতি বাধ্য করতে হবে। তার জন্য যা যা করা দরকার সবই করতে হবে। কর্তব্য পালন না করলে আমরা উন্নতি করতে পারব না। আসুন আমরা সবাই দেশকে ভালোবেসে সমাজকে পাল্টাই!

মন্তব্য ২০ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২০) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:১৭

মেটালক্সাইড বলেছেন: প্রতিটি বাক্য মহাসত্য। শুধু প্রতিকারের পদ্ধতিতে আপত্তি। নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাদের দেশে এত নিয়ম-নীতি বানানো হয়েছে যেঁ, প্রয়োগের ক্ষেত্রে বুমেরাং। এখন আর ফেরার সময় নেই, শুধু একটি উপায় থামিয়ে দেয়া এ অনিয়ন্ত্রিত পদ্ধতিকে। কঠোর, মারাত্নক,তীব্র ভয়ের ক্ষেত্র তৈরি করা। যে ভয় মানুষকে পরিণত করবে নিয়ম মানার,স্বাভাবিক জীবনে চলার, পরিবার তথা সমাজ তথা রাষ্ট্রকে সঠিক পথে চলার। স্যালুট সত্যকে উপস্থাপনের জন্য্‌, সত্যকে ধারণ করে রাখার জন্য, সত্যকে বিবেচনার জন্য!!!!!!

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২০

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

২| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৩২

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: সত্যই বিশাল একটা কবিতা হয়ে গেছে- রাজীব দা
অনেক শুভেচ্ছা রইল-------------

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২১

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ লিটন ভাই।

৩| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৩৫

ching বলেছেন: জগতে সকল প্রাণী সুখী হউক।

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২১

রাজীব নুর বলেছেন: এর মধ্যে কি পশু পাখিও আছে?

৪| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

অসাধারণ একটি পোস্ট।

সাহসী সত্য।

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া জনাব।

৫| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৪৬

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: এগুলো বলে আর লাভ নেই। ঘুষ, দুর্নীতির জন্য যতদিন কঠোর শাস্তি না হবে ততদিন শান্তি আসবে না। চোখের সামনে দেখেছি - কত ভদ্র চেহারার লোকজন, কত অবলীলায় ঘুষ নিচ্ছে...

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: এটাই তো।
অনিয়ম টাই আজ নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে।

৬| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫০

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: চরম সত্য কথা। এখন মানুষের মধ্যে মানবতার "ম" অবশিষ্ট নেই।

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: আমরা ব্লগার আমরা মানবতা দেখাবো। মানবতার কথা বলব।

৭| ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই অরাজকতার বীজ বুনেছে ১৯৭৫ সালের হত্যাকান্ড; ইহাকে থামানোর দায়িত্ব চলে গেছে শেখ হাসিনার উপর, উনি ব্যর্থ হয়েছেন

১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: উনি তো উনার বাপের হত্যাকারীর বিচার করেছেন। এমন কি যুদ্ধাপরাধীদেরও বিচার করেছেন।

৮| ১২ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১:২৮

অজ্ঞ বালক বলেছেন: কোন লাভ নাই। এইসব কথা অক্ষমের আস্ফালন ছাড়া কিছুই না। দেশ পালটাইবো না৷ উল্টা দেখবেন ভালা মানুষ আর নাই৷ সব পাল্টাইয়া গেছে।

১২ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:০১

রাজীব নুর বলেছেন: অন্তত আপনি বদলাম।

৯| ১২ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:১২

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আমাদের সমাজের মানুষগুলো মুখে যত মধুর কথা বলে কাজগুলো এত মধুর হয়না তাই এ অবস্থা।

১২ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনারও কি এই অবস্থা??

১০| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৭:২৯

আমি সাজিদ বলেছেন: এই দেশের মানুষ কর্মফল ভোগ করছে কি ?

আজকে ধরেন আমি আপনি কেজরীওয়ালের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ করতে রাস্তায় নামি, অসৎ রাজনীতিবিদের আগেই আমাদের সাধারণ জনগন আমাদের রাস্তায় আছাড়ে মারবে।

কেমনে কি আমার মাথায় আসে না।

ইউএনও ৯৪ লাখ টাকার গাড়ি পায়, সরকারী মেডিকেল কলেজগুলোতে যন্ত্র,নষ্ট

অভাগা দেশ আমার !

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:১৪

রাজীব নুর বলেছেন: দীর্ঘ দিন ধরে তো এভাবেই চলছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.