নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আজকের ডায়েরী- ৫১

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৫



ইদানিং আমার খাই খাই স্বভাব হয়েছে।
খালি ক্ষুধা লাগে। শুধু ভালো মন্দ খেতে ইচ্ছা করে। এই দুর্যোগে এত খিদা কেন লাগে? কিছু দিন ধরে ইচ্ছা মতো খাচ্ছি। একদম পেটুক হয়ে গেছি। আগে খাওয়াটা বিরক্তকর লাগতো, এখন খাওয়াটা বড় আনন্দময় লাগে। মাঝে দিয়ে একদিন বের হয়ে দুনিয়ার বাজার করে নিয়ে আসছি। সুরভি রান্না করছে, আমি খেয়ে যাচ্ছি। এদিকে কোনো কাম কাজ নাই। সারাদিন বাসায় আজাইরা শুয়ে বসে আছি। টিভি দেখছি, বই পড়ছি, মুভি দেখছি। গেমস খেলছি। ছাদে যাই গাছে পানি দেই। সারারাত ঘুম আসে না। ফযরের আযান দিয়ে দেয় তবু ঘুম আসে না। অবশ্য আমি সময় অপচয় করি না। বই পড়ি। জানি পরিশ্রম না করলে তো ঘুম আসে না। খিলগাও থেকে উত্তরা পর্যন্ত হাটা দিতাম। শরীর ক্লান্ত থাকতে, এমনিতেই ঘুম এসে যেত। বন্দী জীবন যাপন মোটেও আনন্দময় কিছু না। জেলখানায় আসামীরা কিভাবে থাকে কে জানে!

গতকাল সুরভিকে বললাম, আজ তেহারী রান্না করো।
গোস্ত বেশি দিবা। সুরভি তেহারী রান্না করলো। দুপুরে ইচ্ছা মতো খেলাম। খুব স্বাদ হয়েছে। সাথে সালাদ ছিলো, কোক ছিলো। সেদিন বিকেলেই সুরভিকে বললাম, সেমাই খেতে ইচ্ছা করছে। দুধ সেমাই। সুরভি সেমাই রান্না করলো। খেতে অসাধারন হয়েছে। প্রতি রোজায় ঢাকার বংশাল এলাকায় আল রাজ্জাক হোটেলে দুধ সেমাই করে। খেতে বেশ ভালো। কিন্তু আমি কসম খেয়ে বলতে পারি আল রাজ্জাক হোটেলের চেয়ে সুরভির সেমাই রান্না বেশি ভালো হয়েছে। বড় বাটির এক বাটি খেয়ে ফেললাম। আমি আরাম করে বসে খাচ্ছি- এটা দেখতে সুরভির খুব ভালো লাগে। এরপরের দিন বললাম, সুরভি আজ শুকনা সেমাই রান্না করো। সেটাও বেশ হয়েছে। হাম হাম করে খেলাম। বন্ধী জীবন খেয়ে খেয়ে পার করছি। গতকাল রাতে দুইটা মুভি দেখলাম। অতি সস্তা মুভি। তবু খুব আগ্রহ নিয়ে দেখলাম। মুভিতে নায়ক ট্রেনের ভিআইপি বগিতে খাবার দিয়ে আসে। পরের মুভিতে দেখলাম নায়ক থাকে দালাল। জমি বিক্রির দালাল। দু'টা ফালতু মুভিই খুব মন দিয়ে দেখলাম। মুভি শেষ হতে হতে আমি দুই পেকেট বিস্কুট আর এক পেকেট চানাচূর শেষ করে ফেলেছি।

আমি নির্লজ্জ হয়ে গেছে।
দেশের এই পরিস্থিতে, থুক্কু দেশের না বিশ্বের এই পরিস্থিতিতে আমি শুধু খেয়ে যাচ্ছি। দেশে কত মানুষ না খেয়ে আছে। এদিকে অফিস আদালত সব বন্ধ। দরিদ্র লোকজনরা ত্রানের আশায় সারাদিন বাইরে রোদের মধ্যে বসে থাকছে। আর আমি কোলকাতার ঘটি-বাটিদের মতো সুরভিকে বলছি- 'আজ একটু তেহারী রান্না করো দিকিনি।' ছিঃ রাজীব ছিঃ! যাই হোক, গতকাল দুপুরের কথা। সুরভি মূরগীর ঝাল ফ্রাই রান্না করেছে। আলু দিয়ে করলা ভাজি করেছে। ডাল রান্না করেছে আর ইলিশ মাছ ভাজা। আমি সুরভিকে বললাম, আজ আমি এসব কিছুই খাবো না। আজ পান্তা ভাত খাবো লেবু পাতা দিয়ে। সুরভি বলল পান্তা ভাত নেই। আমি বললাম, গরম ভাতের মধ্যে পানি দিয়ে দাও, পান্তা ভাত হয়ে যাবে। ছাদে লেবু গাছ আছে। লেবু পাতা এনে দিলো সুরভি। লবন আর লেবু পাতা দিয়ে পান্তা ভাত খেলাম। বেশ আরা্ম পেলাম। ফ্লোরে বসে, খালি গা, কাধে একটা গামছা। বাইররে ঝা ঝা রোদ। বেশ আরাম করে খেলাম। লেবু পাতা দিয়ে আমাকে ভাত খেতে দেখে পরী অবাক চোখে কিছুক্ষন তাকিয়ে থাকলো। এর মধ্যে সুরভি একটা ডিম ভেজে নিয়ে আসছে। আমি দিলাম ধমক। নো ডিম ভাজা। বিলাসিতা আমার পছন্দ না। বুঝতে হবে আমাদের দেশটা দরিদ্র।

গত দুই দিন ধরে ডিম চপ খেতে ইচ্ছা করছে।
সুরভিকে বললাম- সুরভি এখন ডিম চপ বানাচ্ছে। সুরভির হাতের ডিমচপ টা অসাধারন হয়। নিজের স্ত্রী বলে বলছি না। আসলেই খেতে অসাধারন হয়। আজ সন্ধ্যায় নাস্তা করবো ডিমচপ। শেষে এক মগ চা। কাপে চা খেয়ে আমার পোষায় না। গতকাল সন্ধ্যায় ছোট ভাই লুডু খেলায় হেরেছে এক হাজার টাকা। সেই টাকা দিয়ে সে সবাইকে বার্গার খাওয়াবে। দোকান পাট সব বন্ধ বার্গার কোথায় পাবে? শেষে কোথা থেকে বনরুটি যোগাড় করে নিয়ে এলো। ঘরেই সে নিজে বার্গার বানালো। খেতে বেশ হয়েছে। আমিই দুটা বার্গার মুহুর্তের মধ্যে শেষ করে দিলাম। এর আগের দিন আরিশের মা পিয়াজু বানালো। সেই রকম হয়েছে খেতে। আমি একা ১১ পিস খেয়ে ফেলেছি। সুরভি বানালো নুডুলসের পাকোরা। পাকোরার ভিতরে আবার একটা করে চিংড়ি মাছ দিয়ে দিলো খোসা ছাড়িয়ে। সেই রকম টেস্ট হয়েছে। আগামীকাল ভাবী বানাবেন চাপটি। চাপটি আমার ভালো লাগে। চালের গুড়া বেটে, তাতে লবন, পেয়াজ আর মরিচ দিয়ে পাতলা করে বানানো হয়। গরম গরম খেতে বেশ লাগে।

মন্তব্য ৪২ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (৪২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩১

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: ডিম চপের রেপি দিলে আমিও কয়েকটা খাব। আমিতো প্রায় এক মাস ধরে গৃহবন্দি হয়েছি। খালি ভুখ লাগে এবং সব কিছু মজা লাগে। কারণ হলো বাইরে করনা আছেতো বেরোতে ভয় হয়। :(

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৫

রাজীব নুর বলেছেন: আমিও ঘরে বন্ধী।
আমারও মজা লাগে। রুচি বেরে গেছে।

২| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩১

বিভ্রান্ত পাঠক বলেছেন: অন্তত ডিমচপের ছবি সংযুক্ত করুন দিকিনি

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: ওকে। দিবো।

৩| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩৭

আমি রানা বলেছেন: এই সময়ে আপনার লিখা পড়বো না। ব্যাচেলর থাকি, তার উপর বাড়িও যেতে পারবো না।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: শুকনো খাবার তো খেতে পারেন।
প্রচুর চানাচূর দিয়ে মুড়ি মাখান। সাথে সরিষার তেল, পেয়াজ মরিচ দেন।

৪| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫১

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: নাইঘরে খালি খাই খাই! আমিতো বেলকনিতেও যাইনি।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: বুদ্ধি করে ঘরে আগেই অনেক অনেক খাবার কিনে রাখা দরকার ছিলো।

৫| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


দিনে ১ বার আপনি রান্না করার শুরু করেন, ১ বার সুরভী, ১ বার আপনি

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: আমি রান্না করতে পারি না। একেবারেই পারি না।

৬| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২৬

অনিকেত বৈরাগী তূর্য্য বলেছেন: সুরভির ওপর চাপটা বেশি হয়ে যাচ্ছে না?

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৪০

রাজীব নুর বলেছেন: সুরভি রান্না করতে ভালোবাসে।
সে বলছে কত কিছুই রান্না করছি কিন্তু কেক আর পিজাটা বানাতে পারলাম না।

৭| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২৭

সোহানী বলেছেন: ভাইরে, আপনি তো দেখি মহা জমিদার। আমার আরেক জীবনে এ রকমন জমিদার হবার খুব ইচ্ছে। কারন এ জীবনে আর সম্ভাবনা নেই। বুড়ো হয়ে গেছি, নতুন করে কিছু করার সম্ভাবনা নেই।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: সত্য কথা বলি, আমার শরীরে জমিদারের রক্ত।
আমার দাদা সারা জীবন জমিদারঘিরি করেছেন। উনি তো সাত পদ ছাড়া ভাত খেতেই বসতেন না।
আমার বাপও সারা জীবন বিলাসিতা করেছেন। এখনও করেন।

সেই তুলনায় আমি বাও দাদার মতো কিছুই করতে পারলাম না।

৮| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




আপনার জন্য একটি সুসংবাদ।
আপনার শরীর স্বাস্থ্য খুব ভালো আছে। আর শরীর স্বাস্থ্য ভালো থাকলে ক্ষুধা লাগবেই। অসুস্থ্ মানুষের ক্ষুধা থাকে না। আল রাজ্জাকের খাবার খুবই ভালো, এক সময় কোর্টে গেলেই আল রাজ্জাকের খাবার খেতাম (সিএমএম কোর্টের সামনে তখন ষ্টার ছিলো না) পান্তাভাত আমার প্রিয় খাবার। বদলির চাকরির কারণে বাংলাদেশের নানান আঞ্চলিক পিঠা খাওয়ার ভাগ্য হয়েছে।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৪৫

রাজীব নুর বলেছেন: আমি সহজে অসুস্থ হই না।
এজন্য আমি অনেক খুশি। আ্ল রাজ্জাকের খাবার আমি প্রায়ই খাই। মানে হাতে ্টাকা থাকলে।
পান্তা আমি খাই না। মনে হয় সেদিন ২৫ বছর পর পান্তা খেলাম।

ভালো থাকবেন।

৯| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:০৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
যত পারেন খেয়ে নিন ।
একটা নির্দিষ্ট বয়সের পরে আর খাবার-দাবার খেতে পারবেন না।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: দামী একটা কথা বলেছেন।

১০| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৫০

রানা আমান বলেছেন: খেতে থাকুন তবে ওজন যাতে না বাড়ে সেদিকে ও খেয়াল রাখুন ।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:০০

রাজীব নুর বলেছেন: করোণা ঝামেলা মিটূক এমন হাটা দিবো। তাছাড়া করোণ গেলে খাওয়া এমনিতেই কমে যাবে। তখন আবার খেতে ইচ্ছা করবে না।

১১| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৫৬

ক্ষুদ্র খাদেম বলেছেন: B-) B-)

খাওয়া চলতে থাকুক। কিছু ছবি দিলে তো আমরাও ভাগ নিতে পারতাম। থাক ব্যাপারনা করোনা শেষে দাওয়াত দিলেও মাইন্ড করব না :-B

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:০১

রাজীব নুর বলেছেন: সব ছবি গুলো দিয়ে একটা ছবি ব্লগ পোষ্ট দিব।

১২| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:১৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: খাওয়ার সময় একটু দিনে এনে দিনে খাওয়া লোকদের স্বরণ করবেন

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: আমি নিজেই তো দিন আনি দিন খাই টাইপ মানুষ।

১৩| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১২:৪০

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

মহা খাদক !!
কথায় আছেনা !
কারো সর্বনাশ
কারো পৌষমাস

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: না খাওয়া কমিয়ে দিয়েছি আজ থেকে।

১৪| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১:২২

রাফা বলেছেন: এখন কিছু করোনা খাওয়া যায় কিনা দেখেন।এতে মানুষ মুক্তি পাবে আর আপনার রসনা বিলাসে নতুন আইটেম যুক্ত হবে।

এই উপদেশ দেওয়া ছাড়া আর কিছু খুজে পাইলামনা আপনার জন্য।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ২:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: অবশেষে বন্ধের ঘোষনা! আরো কিছুদিন বাড়ীতে থাকার সুযোগ দেয়ায় সরকার ও মালিকপক্ষকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

১৫| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সকাল ১০:৫০

মোঃমোজাম হক বলেছেন: সত্যি বলতে কি করোনার জন্য ক্ষুদাই কমে গিয়েছে।

পোষ্টে প্লাস

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:২১

রাজীব নুর বলেছেন: আমার ক্ষুধা বেড়েছে।

১৬| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১২:৫৭

দীপঙ্কর বেরা বলেছেন: সত্যি বা বা!!

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:২২

রাজীব নুর বলেছেন: হে হে

১৭| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:০৫

এইচ তালুকদার বলেছেন: বেচে থাকতে হলে তো খেতে হবে।আর খাওয়া দাওয়ার ব্যাপার গুলো তেহারী ডিমচপ বা দুধসেমাই এর আকারে এলে তো কোন কথাই নেই।যাই হোক আপনি তো আর কারও ভাগের খাবার খাচ্ছেন না আপনি আপনার অর্থায়নে খাচ্ছেন এটা নিয়ে হীনমন্যতার কিছুই দেখি না,খাওয়া দাও্য়া চালিয়ে যান।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ তালুকদার সাহেব।

১৮| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:০৮

এইচ তালুকদার বলেছেন: আমি হাতে কিছু টাকা জমলেই ক্যাফে রিও তে ঢূ মারি,অনেকদিন হয়ে গেল সেখানে যাওয়া যাচ্ছে না মনটা আকুপাকু করছে।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: খুব ভালো।

১৯| ০৮ ই এপ্রিল, ২০২০ সকাল ৯:০৯

ইসিয়াক বলেছেন: হিমু ভাই ক্ষুধা কি বেশি লাগছে ?


হাতে ভালো করে চল্লিশ সেকেন্ড ধরে সাবান মেখে ,তারপর পরিষ্কার পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ,টিস্যু দিয়ে মুছে কোক বার্গার খেয়ে নিন ।

০৮ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:৩২

রাজীব নুর বলেছেন: খাবো না।

২০| ০৮ ই এপ্রিল, ২০২০ বিকাল ৪:৪৭

ইসিয়াক বলেছেন: লেখক বলেছেন: খাবো না।
কেন খাবেন না? আপনার কি ধারনা আমি খাবারে অন্য কিছু মিশিয়ে দিয়েছি।

০৮ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: বন্ধুর টা খাওয়া যায়। এখন তো আপনি আমার বন্ধু না।

২১| ০৯ ই এপ্রিল, ২০২০ ভোর ৬:২৩

ইসিয়াক বলেছেন: স্যরি বন্ধু.......
ভালো থাকুন।

০৯ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.