নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

তোমার আর আমার দূরত্ব রাস্তার এপার ওপার।তুমি দাড়িয়ে আছো আমার আশায়আমি অপেক্ষায় আছি যাবো কখন!waiting for a loyal heart!

মেঘ প্রিয় বালক

একটা কৃষ্ণচূড়া গাছ। শুষ্ক অঞ্চলে গ্রীষ্মকালে কৃষ্ণচূড়ার পাতা ঝরে গেলেও, নাতিষীতোষ্ণ অঞ্চলে এটি চিরসবুজ।

মেঘ প্রিয় বালক › বিস্তারিত পোস্টঃ

প্রিয় নির্ঝরিণী।

২৭ শে এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:১১


চিরকুট:১০
তারিখ:- ১৪ বৈশাখ ১৪২৬ বাংলা
প্রিয় নির্ঝরিনী
পত্রের শুরুতে জানাই কুয়াশাচ্ছন্ন রোদ্দুরে অষ্ট পাপড়ি মেলে ফোটা উর্ধ্বমুভি রক্তবর্ণী কসমস ফুলের মাতাল করা সদ্য ঘ্রান বিলানো শুভেচ্ছা।ব্যস্তময় দিবার দিন ও রাত্রির সন্ধিক্ষণে সমুদ্রের তলদেশে ডুবে যাওয়া সূর্যকে সাক্ষী রেখে তোমায় স্বরণ করছি।কেমন আছো আমার আকাশের ধ্রুবতারা? আমি খুব ক্লান্ত ও মনমরা।আমি আর আগের মত নেই,হয়ত অনেকটা বদলেছি। বদলে যাওয়ার কারণটা বুঝি কারো দেওয়া অভিমান।পথহারা বিষন্নতায় প্রাগুক্ত ম্মৃতিগুলো শার্টের পেছন থেকে টেনে ধরছে আমায়। আমার বৃদ্ধা আঙুলের মন্হর স্পর্শ তোমার অধরে ছড়াবে হাসির প্লাবণ,সে ইচ্ছে ভেঙে গেছে কাঁচের দন্ডে। গল্পের শেষে সবাই ফাঁকিতে মত্ত,কেউ দাড়াবেনা গল্পের শেষে।তাই তো গানটা ভীষণ গায়তে ইচ্ছে করছে,
পৃথিবীতে কেউ ভালো তো বাসেনা
এ পৃথিবী ভালবাসিতে জানেনা!''.....
নিঃস্বার্থে ভালবাসা ছড়াতে জানে কেবলি ফুল,তাদের কোন অহংকার নেই বা কাউকে অবহেলা করার ইচ্ছে নেই।
বরং কখনো কখনো এই পুষ্প কারো জন্য অবহেলায় শুকিয়ে যায় কখনো ধূলোয় লুটিয়ে পড়ে।
আমার ভালবাসার গগণ খুঁড়ে দেখি তুমি নামক অনুভূতি ছাড়া কিছুই নেই। তবুও তুমি ভাবছো এ আমার মিথ্যেমুখ।
তুমি জানোনা,কতটা ভালবাসলে তোমাকে হারানোর শংকায় কাটে বিনিদ্র রাত হিম তটিনী।হয়ত হৃদয় ভাঙার শব্দ দূষণে আমি দূষিত তোমার শহরে,তুমি ম্মৃতির অনলে করে যাও দগ্ধ।।তুমি বুঝবে সেদিন যেদিন আমার জন্য ভিজবে তোমার উৎসুক অক্ষি।শেষ সন্ধ্যাদীপের হিম বাতাসে আমার জলে ভেজা চোখ খোঁজে তোমার অমলিন হাসি,জানো কি ভাল লাগে ওই সলাজ হাসির তুফান।তুমি কার আকাশে উড়াও ঘুড়ি আমার অগোচরে?
ওহে আমার ছায়ামানবী! তোমার নীল কথনের মাত্রারিক্ত দহনে আমি হয়েছি বড্ড নীল বিষাক্ত।
পত্রের জবাবের আশায় অপেক্ষা করেছি বহুদিবস।তুমি না ধরা দিলেও তোমার মুখ ভাসে আমার ধূসর পান্ডুলিপির পাতায় পাতায়।তোমার নামে লিখা হয় অসংখ্য চিরকুট। আমি তোমাকে নিয়ে লিখা কাগজের চিরকুটের শব্দগুলো যেন চুপিসারে গান গায় আমার কর্ণকুহরে।ছদ্মবেশী পাগল তোমাকে ভালবাসে বলেই আজও কাউকে ভালবাসেনি।শেষ প্রহরের ক্লান্ত প্রহরী আমি তোমার অপেক্ষায় এখনো থাকি,শুধু তোমাকে একটাবার দেখার জন্য।ম্মৃতির উষ্ণ দ্বীপে তোমার হাতের আঙুলের ছাপ লেগে আছে আমার গালে।আজও খুঁজি সে স্পর্শ তোমার শূন্যতার আড়ালে।কুয়াশার ভীড়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম অনেকক্ষণ হৃদয় নামের মহাসাগরের তীরে, সে সাগরের জলোচ্ছ্বাসের আঘাতে আমি লন্ডভন্ড তোমার ঠুনকো আঘাতে।নীল গল্পের ছেড়া পাতাতে তোমার আঁচড়ে গল্পটা রঙিন হয়েছিল,গল্পটা শুধু তোমার আমার। দাপিয়ে বেড়ানো প্রজাপতির মত তোমার কাছে বারংবার ছুটে আসি রোদ্দুরে তোমার শহর ছুতে।মনের গোপন বার্তা তোমার ঠিকানায় পৌছে ঠিক,তবে মনের ঠিকানায় তার বুঝি আজও কোন দিশে মিলেনি। নিরাশায় চলছে জীবনের নৌকা মাঝ সমুদ্রে,নৌকাটি আমার দিকশূন্য,সে তার ঠিকানা খুজে পেতে চায়,সে তোমাকে নিয়ে জয় করতে চায় বিশ্ব অহংকারকে।লিখতে লিখতে পত্রের শেষ প্রান্তে আমি উপনীত,মাগরিবের আযান আমায় ডাকছে,সে আযানের ডাকে প্রার্থনারত অবস্হায় চোখের শীতল অশ্রু ঝরিয়ে মনিবের কাছে তোমাকে চাইবো। মনের অনেক কথাই এখনো বাকি,সেগুলো অন্য কোন দিন তোমায় শোনাবো।
ভালো থেকো ওহে আমার জীবনের চিরকুটের বিপরীত চরিত্র।
ইতি:-
ভিনদেশী তারাদের বন্ধু।

মন্তব্য ৬ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:৩২

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: চিরকুটটি পাঠে ভাল লাগল।
বাক্য বিন্যাসে তাড়াহুড়া না করলে আরো সুন্দর হওয়ার দাবী রাখে।

২৭ শে এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৪:৪০

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ মাহমুদ ভাই,চেষ্টা করবো আরো ভালো করার।

২| ২৭ শে এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: খুব সুন্দর। দারুন আবেগময়।

২৭ শে এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:১৬

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ নূর ভাই।

৩| ০৬ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:৩৮

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ভালো লাগল

০৬ ই মে, ২০১৯ বিকাল ৪:০২

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ ও রমযানের শুভেচ্ছা নিবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.