নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কি বলা যায়! কিছু কথায় নিজেকে ব্যক্ত করা সম্ভব না আমার পক্ষে। তাই একটা সিরিজে কিছু কিছু করে সবই বলছি।

সামু পাগলা০০৭

আমি অতিআবেগী, আগে ব্যাপারটা লুকানোর চেষ্টা করতাম। এখন আর করিনা।

সামু পাগলা০০৭ › বিস্তারিত পোস্টঃ

সহায়তামূলক পোষ্ট; সামুতে স্ট্র্যাগলিং নতুন ব্লগারদের কমন পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর । নতুন ব্লগারদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি। (পর্ব ২)

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৪৬

আবারো নতুন ব্লগারদের সহায়তায় হাজির হলাম। সামু ব্লগে নতুন এসে ব্লগারদের মনে নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খায়। আশেপাশে অবাক হয়ে তাকান, আর কিছু কিছু হিসেব মেলাতে পারেন না। সবার সাথে তাল মিলিয়ে আনন্দের সাথে ব্লগিং করতে পারেন না। অসহায়ের মতো এককোণে পরে থাকেন। স্ট্রাগল করেন। তাদের দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিলাম এ পোস্টের মাধ্যমে।

দয়া করে প্রথম পর্বটিও পড়ে নেবেন, আশা রাখছি আপনার সাহায্য হবেই! সহায়তামূলক পোষ্ট; সামুতে স্ট্র্যাগলিং নতুন ব্লগারদের কমন পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর। নতুন ব্লগারদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

১) প্রথম পাতায় জায়গা পাচ্ছিনা কেন? কিভাবে পাব?: অনেক শখ করে সামুতে একাউন্ট খুললাম। নানা প্রিয় লেখকের ভীরে নিজেও একটু জায়গা করে নিতে চাই। অথবা ফেসবুকে বা অন্যকোথাও ভালো লেখক হিসেবে পরিচিত, সামুতেও নিজেকে বাজিয়ে দেখতে চাই। কিন্তু আমার লেখা তো প্রথম পাতায় আসছেই না, কারো নজরেই পরছে না। কবে মডারেশন স্ট্যাটাসে সবুজ বাতি জ্বলবে? সেইফ কেন হচ্ছিনা? আমার ভুলটা কোথায়? কি করলে প্রথম পাতায় নিজের লেখা দেখতে পাব? তিন দিন তো কিছুই না তিনমাস কেটে গেল! ধুর ব্লগে আর থাকবই না! ইত্যাদি ইত্যাদি। প্রত্যেক নতুন ব্লগারের মনে এসব প্রশ্ন গিজগিজ করতেই থাকে। নতুনদের মনে আসা সবচেয়ে বড় প্রশ্ন বোধ করি এটাই।

প্রথম কথা প্রতিদিন ব্লগে এতো নতুন সদস্যের আগমন ঘটছে যে মডারেশনের পক্ষে সবাইকে একটি নির্দিষ্ট টাইমে জেনারাল বা সেইফ করা কঠিন। আর প্রথম পাতায় সুযোগ দেবার আগে প্রত্যেক ব্লগারকে পর্যবেক্ষণ করা খুবই জরুরি। ব্লগের সুস্থ ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতেই এ নিয়মটি রয়েছে। এ নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধা হারাবেন না কখনোই।



প্রথম পাতার শোক করলেই প্রথম পাতায় জায়গা পাবেন না। তারচেয়ে বড় কথা ব্লগে আনন্দময় সময় কাটাতে পারবেন না। এজন্যে প্রথম পাতার চিন্তা ছেড়ে মন খুলে ব্লগিং করুন। আর প্রথম পাতায় আসা সব লেখাই কি মানুষ পড়েন? একদমই না! মেধা, গুণ এমন একটি জিনিস যা লাখ ঢেকে রাখলেও সুবাস ছড়ায় চারিদিকে। আপনার লেখনী মানুষের মন ছুঁয়ে যাবার মতো হলে, প্রথম পাতায় জায়গা পান বা না পান, পাঠকের মনে ঠিকই পাবেন। প্রথম পাতায় লেখা না আসলে কেউ আপনাকে নোটিশ করবেনা সেটা ভাববেন না। একদমই ভুল ধারণা। তবুও প্রথম পাতায় জায়গা কিভাবে পেতে হয় এবং ব্লগজীবনে সবুজ বাতি জ্বালাতে কি করতে হবে তা বলছি।

ক) সুন্দর পোস্ট: আপনি নিজের ব্লগে ভালো লেখা দিন। দায়সারা গোছের "আমি তো প্রথম পাতায় জায়গা পাইনি, আমার লেখা কে পড়বে?" টাইপ লেখা নয়। একদমই যত্ন নিয়ে সুন্দর করে লিখুন। এতে কর্তৃপক্ষের নজরে পরার সুযোগ বাড়বে। আর লেখাটি তাৎক্ষণাত মারাত্মক হিট না হোক, প্রাপ্য সম্মান না পাক। সমস্যা নেই। প্রথম পাতায় জায়গা পেলে রিপোস্ট তো করতে পারবেনই। সুন্দর কিছু সৃষ্টিতে কোন ক্ষতি নেই।

খ) মন্তব্য: অন্যদের ব্লগে ভীষন সুন্দর সব কমেন্ট করুন। বেশিরভাগ ব্লগারই তার পোস্টে সুন্দর বা ইন্টারেস্টিং কোন কমেন্ট দেখলে সেই পাঠকের ব্লগবাড়িতে ঘুরে আসেনই! এতে করে সবার সাথে আপনার পরিচয় ও বন্ধুত্ব বাড়বে। তবে হ্যাঁ নিজের লেখার লিংক সবার পোস্টে দিয়ে আসবেন না। জোর করে পাঠক পাওয়া যায় না। যদি কারো লেখার বিষয়বস্তুর সাথে আপনার লেখার মিল থাকে, তখন শেয়ার করতে পারেন। সেটা এক জিনিস। তবে সব ব্লগে ঘুরে ঘুরে আমার লেখা পড়ুন এমন মন্তব্য করবেন না। এতে সবাই বিরক্ত হবেন।

গ) সময়: একটা লম্বা সময় ব্লগে কাটান। এটা ভীষনই সাহায্য করে প্রথম পাতায়ই শুধু নয় ব্লগে জায়গা করে নিতেও। যারা ব্লগে নিয়মিত, তাদের লেখা মানুষ বেশি পড়েন। ব্লগে বেশি সময় দিচ্ছেন বলে তারা অনেক সম্মানও পান। ব্যস্ততা ভরা সময়েও কিভাবে ব্লগে থাকবেন? লগড ইন থাকুন। বেশ কিছুক্ষন পরে পরে মন্তব্য করতে থাকুন। নানাকিছুর ফাঁকে ফাঁকে চোখ রাখুন ব্লগে। ব্লগে জায়গা করতে হলে সময় তো দিতে হবে বন্ধু!

এসব করলে মডারেশনের চোখ আপনার দিকে পরবেই। যেকোন নতুন জায়গায় পরিচিতি তৈরি করা কঠিন। জীবনের প্রথম স্কুল যাওয়ার কথা মনে পড়ে? বা প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌকাঠে পা রাখা? অথবা প্রথম চাকরির প্রথম দিনটি? কেন একটা নার্ভাসনেস ঘিরতে থাকত সবসময়! প্রথম প্রথম একটুও ভালো লাগত না! যেকোন কাজ কঠিন মনে হতো! কিন্তু আস্তে আস্তে সেই জায়গাগুলোই আমাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ও আপন জায়গা হয়ে যায়। সেভাবেই সামুকেও সময় দিন। দেখবেন ব্লগটাকে ভীষনই আপন মনে হবে! দিনে অন্তত একবার লগইন না করে থাকতেই পারবেন না! আর হুট করে একদিন আপনার স্ট্যাটাস চেইন্জ হয়ে সেইফ হয়ে যাবে!

এতকিছু করে কাজ না হয়ে পারে না। তবুও দূর্ভাগ্যবসত কাজ না হলে, সব নিয়ম মানার পরেও প্রথম পাতায় অনেকদিনেও জায়গা না পেলে কর্তৃপক্ষকে জানান মেইল করে।
কর্তৃপক্ষও এদিকে একটু নজর দেবেন এবং দ্রুতগতিতে কাজ করে নতুনদের উৎসাহিত করবেন সে আশাও রাখছি।


২) আমার লেখাটি তো অনেক ভালো! তবুও কেউ কেন আমার লেখা পরল না? অন্যের নিম্নমানের লেখা কেন পড়া হলো?
কষ্ট করে একটা লেখা লিখলেন। কিন্তু তেমন পাঠকপ্রিয়তা পেলেন না। আর কোন পুরোন ব্লগারের একটি লেখা পোস্ট হবার সাথে সাথেই হিট! হয়ত আপনি ফেইসবুকে বা অন্যকোন সাইটে ভীষনভাবে হিট। ভেবে বসলেন সামুতেই মানসম্মত পাঠক নেই। পূর্বের পর্বে ব্লগ ও ফেইসবুকের পার্থক্য বলেছি। সেটা পড়ে নেবেন। আর বাকি কথা নিচে:



ক) পুরোনদের লেখা হিট হয়ে কেন? আপনি নতুন, আপনাকে সেটা মাথায় রাখতে হবে। যে মানুষটি ৭/৮ বছর ধরে নিষ্ঠার সাথে ব্লগিং করছেন, ব্লগে হাজারো ভালো লেখা লিখেছেন তার লেখা মানুষ হুমড়ি খেয়ে পরবে। চোখে না পরলেও ঘুরে আসবে তার ব্লগবাড়ি নতুন কোন লেখার জন্যে। আপনার সেই সুবিধাটি নেই। সেই মানুষটিও কষ্ট করে নিজের জায়গা তৈরি করেছেন। প্রথমদিন থেকেই তিনি ভিআইপি ট্রিটমেন্ট পান নি। আপনাকেও করতে হবে। ধৈর্য্য ধরে মানসম্মত লেখা লিখুন। অন্যদের লেখা বেশি পড়া হলো, ৭০০ পার হলো, আমারটা ৭ বার ও না! এমন পরশ্রীকাতরতা কোন সৃষ্টিশীল মানুষকে মানায় না।

খ) ইরেগুলার: ব্লগে ইরেগুলার হলে আপনি ভালো লিখলেও অনেকসময় কেউ পড়বে না। যদি প্রতি ছয় মাস বা এক বছরে একটি/দুটি পোস্ট করেন তবে কারো আপনার কথা সেভাবে মনে থাকবে না। আবারো বলব ব্লগে জায়গা করার সবচেয়ে কার্যকরী পন্থা হচ্ছে ব্লগে সময় দেওয়া। নিয়মিত পোস্ট করুন। তখন ব্লগারগন আপনাকে পরিবারের সদস্য মনে করবেন, অতিথি না। আর তখন খারাপ লিখলেও মন্তব্য এবং সমালোচনা পাবেন। সমালোচনা পাওয়াও ভাগ্যের ব্যাপার। মানে কেউ আপনার মধ্যে সম্ভাবনা দেখেছেন। এজন্যে আপনাকে উপদেশ দিচ্ছেন।

গ) বিনয় ও সমালোচনা: কোন লেখা ভালো, এবং কোনটি ভালো না সেটা ভীষনই আপেক্ষিক ব্যাপার। আপনি অনেক কষ্ট করে লিখেছেন, আপনার সন্তানের মতো লেখাটি। তাই পরম মমতায় কোন ত্রুটি দেখছেন না। তার মানে এই নয় যে ত্রুটি নেই। নিরপেক্ষ পাঠক হয়ে নিজের লেখা পড়ুন এবং বোঝার চেষ্টা করুন সমস্যাগুলো। সমালোচনা কানে না তুলে একই ভুল বারবার করলে পাঠক বিরক্ত হবেনই। সবার সমালোচনা মাথা পেতে নিন এবং সে অনুযায়ী লেখনী উন্নত করুন।

ঘ) কন্সিস্টেন্সি: এটা এমন এক জিনিস যার অভাব কোন কাজে থাকলে, সাফল্যের অভাবও হবে। আপনি একটি পোস্ট ভালো লিখে অপরটি খারাপ লিখলে পাঠকের কাছে আপনার দু একটি পোস্ট জনপ্রিয়তা পেলেও, ব্লগার আপনি জনপ্রিয় হবেন না। তাই প্রতিটি পোস্টই যত্ন নিয়ে করুন। মনে রাখবেন আপনার ব্লগিং এ কন্সিস্টেন্সি থাকলে, পাঠকের আপনার ব্লগে আসার কন্সিস্টেন্সি থাকবে।

এসব কিছু মেনে চললে আপনি ব্লগে আশানূরুপ সাফল্য পাবেন।

৩) ব্লগিং তো বেশ অনেক মাসই করে ফেললাম। তেমন কোন জায়গা করতে পারিনি। আমি কি ব্লগিং এর যোগ্য? না ব্লগ ছাড়া উচিৎ?
এটা বিশেষভাবে তাদের জন্যে যারা বেশ কমাস ধরে ব্লগিং করে ফেলেছেন। কিন্তু নতুনের মতোই অপরিচিত। প্রথম পাতায় জায়গা পেলেও, সহব্লগারদের মনে জায়গা পাননি! এ নিয়ে হতাশায় ব্লগিং বা লেখালেখি ছেড়েছেন। অথবা শুধু মন্তব্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রেখেছেন ব্লগিং! তারা ধরেই নিয়েছেন ব্লগিং তাদের জন্যে না।



ব্লগিং শুরু করতে আপনাকে লেখালেখি জানতে হবেনা। অনেককে দেখেছি বাংলা টাইপিং ও ঠিকমতো পারতেন না, সেখান থেকে সিরিজ লেখা শুরু করেছেন! ব্লগে থাকতে কিছু জানা না লাগলেও টিকতে জানা লাগে। চিন্তা করবেন না, ব্লগই আপনাকে সব শিখিয়ে পড়িয়ে নেবে। আপনার যেসব যোগ্যতা থাকা উচিৎ তা হলো:

ক) গুরুত্ব: সবচেয়ে বড় যোগ্যতা ব্লগ ও ব্লগিংকে গুরুত্ব দেওয়া। আসলাম, ঘুরলাম মনোভাব থাকলে আপনাকে কেউ চিনবে না। ব্লগিং মন দিয়ে করতে হবে। ধৈর্য্য ও অধ্যবসায় থাকতে হবে। লেখালেখি এমন একটি জিনিস যে যতো লিখবেন ততই উন্নত হবে। বেশি বেশি লিখুন। পাঠক সমালোচনা করবেন, শুধরাবেন, আবার লিখবেন।

খ) শেখার আগ্রহ: এই গুণটি জীবনের যেকোন ক্ষেত্রেই সাফল্য লাভে জরুরি। ব্লগে হিটের জন্যে আসলে হিট পাবেন না, শেখার জন্যে আসলে হিট পাবেন! প্রচুর পরিমাণে জনপ্রিয় ব্লগারদের লেখা পড়ুন। আর তুলনা করুন আপনি কোথায় আছেন? তারা কি করছে যা আপনি করছেন না? একটু ভাবুন। নিজের স্টাইল ধরে রাখুন। কখনোই কাউকে কপি করবনে না। কিন্তু অন্যান্য গুণী মানুষদের কাছ থেকে শিখুন। নিজের লেখার মান বাড়ান। যত্ন বাড়ান।

গ) ব্যবহার: ভালো ব্যবহার জরুরি একটি জরুরি যোগ্যতা ব্লগিং এ। কারো লেখা ভালো না লাগলে বা কোন ব্লগারকে ভালো না লাগলে দূর্ব্যবহার করবেন না। পরিচ্ছন্ন ভাষায় সমালোচনা করুন। অথবা কেউ আপনাকে সমালোচনা করলেই যদি গালাগালি শুরু করেন বা বেশি কঠোর ভাষায় সবার সাথে কথা বলেন তবে একঘরে হয়ে যাবেন। কেউ আর আপনার ব্লগবাড়ির মুখ দেখতে চাইবে না!

সর্বোপরি, আন্তরিকতা এবং নতুন কিছু শেখায় আগ্রহ নিয়ে ব্লগের সাথে মিশে যেতে হবে। তবেই আপনি কোণায় পরে থাকা এক ব্লগার থেকে সবার পরিচিত, প্রিয় ব্লগারে রূপান্তরিত হতে পারবেন।


৪) পোস্ট করার পরেই দায়িত্ব কি শেষ? আর কি করতে পারি?
এটা নতুন ব্লগারদের প্রশ্ন হয়ত নয়। আমারই প্রশ্ন নতুনদের কাছে। কিছু কিছু নতুন সদস্য পোস্ট লিখেই ঝাড়া হাত পা হন কেন? পোস্ট লেখার পরের দায়িত্ব হচ্ছে প্রতিমন্তব্য। এর ওপরেও আপনার ব্লগ পরিচিতি এবং পাঠক ভীষনভাবে নির্ভর করে। কতগুলো মন্তব্য পাবেন, সহব্লগারদের সাথে কতটা ভালো সম্পর্ক হবে তাও নির্ভব করে।



অনেক ব্লগারই মন্তব্যের উত্তর দেন না। এটা তো ক্রাইম। কেউ আপনার লেখা পড়ল সময় ব্যায় করে, আর মন্তব্য করল, আপনি ভাব নিয়ে বসে রইলেন। তাহলে তো সেই মানুষটি আবার আসবে না। যদি না মন্তব্যের জবাব পাই তবে আবারো মন্তব্য কেন করব? এতে আপনার পাঠক বিরক্ত ও অপমানিত বোধ করবেন। প্রতিমন্তব্য করতেই হবে এবং কিভাবে করতে হয় তা শিখতে হবে। নিচে কিছু জরুরি পয়েন্ট তুলে ধরলাম এ বিষয়ে:

ক) সব পাঠক সমান: সবাইকে প্রতিমন্তব্য করুন। অনেকেই দেখি কারোটা করেন তো কারোটা বাদ দেন। যারটা করছেন না তাকে অপমান করার অধিকার আপনাকে কে দিল? আর পারলে সিরিয়ালি সব মন্তব্যের জবাব দিন। কারোটা আগে কারোটা পরে জবাব দেবেন না। ব্লগে কেউ কেউ আপনার বেশি পছন্দের ব্লগার আছেন, কেউ কম পছন্দের। কারো প্রতিটি লেখা পড়েন, কারো কোনটাই না। ঠিক আছে। তবে পাঠক হিসেবে যখন তারা আপনাকে ব্লগে আসবেন, সবাই সমান। এ বিষয়টি খেয়াল রাখবেন।

খ) বৈচিত্র: সবাইকে যদি একই মন্তব্য করেন যেমন "ধন্যবাদ, ভালো থাকুন!" তাহলে কাজ হবেনা। একঘেয়ে প্রতিউত্তরে সবাই ইন্টারেস্ট হারিয়ে ফেলবে আপনাকে কিছু বলতে। কেননা আপনি কি জবাব দেবেন তা তো আগে থেকেই তার জানা। তাই কোন মানুষ যদি আপনার লেখা নিয়ে অনেক বিচার বিশ্লেষন করে কমেন্ট করেন, তবে সময় নিয়ে আপনিও তার কথাগুলোতে মতামত জানাবেন নিজের। কেউ আপনার লেখার পেছনে সময় দিলে, আপনার দায়িত্ব অনেক বেড়ে যায়।

গ) আন্তরিকতা: প্রত্যেক ব্লগারের মন্তব্য তার জন্যেই বিশেষ ভাবে করবেন। যেন তাদের মনে হয়, আপনি প্রতিমন্তব্যটি তার জন্যেই করেছেন। যেমন ব্লগারটির নাম নিয়ে, অথবা আপু/ভাই/বন্ধু এভাবে ডাকতে পারেন। যাতে তিনি আবারো আপনার ব্লগে ফেরার আগ্রহ পান। আপনাকে তার আপন মনে হয়।

ঘ) গতি: খুব বেশি দেরী করবেন না প্রতিমন্তব্যে। একদম সাথে সাথেই জবাব দেবার মতো সময় না থাকতেই পারে। তবে দু সপ্তাহ বা এক মাস পার করে ফেলবেন না। ততদিনে পাঠক আপনার লেখার কথা ভুলেই যাবেন। খুব বিপদে বা এমার্জেন্সি সিচুয়েশন আলাদা কথা। তবে চেষ্টা করবেন দ্রুতগতিতে প্রতিমন্তব্য করার। এটা আপনার ব্লগিং এর একটি বিরাট অংশ!

একটি লেখার পড়ার পরে, ব্লগারগণ পোস্টের নিচের মন্তব্য, প্রতিমন্তব্যও কিন্তু বেশ যত্ন নিয়ে পড়েন। আপনার রুচি, মেধা, মতাদর্শ তারা সেখান থেকেও বোঝার চেষ্টা করবেন। বন্ধুর মতো আন্তরিকতা বজায় রাখুন প্রতিটি প্রতিমন্তব্যে। কেউ যদি দেখেন আপনি সবাইকে এক কথাই বলে যাচ্ছেন বা উত্তরই দিচ্ছেন না। তখন তিনি মন্তব্য করুন বাটনটিতে টিপ দেবেন না। তাই এ বিষয়টি খেয়াল রাখবেন।


৫) নির্বাচিত ও আলোচিত পোষ্টে কিভাবে জায়গা পাব? নিজের লেখনীকে আরো সমৃদ্ধ কিভাবে করব?
একেকটি পোস্ট লিখি আর আশা করে থাকি আলোচিত ও নির্বাচিত পোস্টে নিজের লেখা দেখতে পারব। কিন্তু এমন হচ্ছে না! কেন?

প্রথমত আলোচিত পোস্টের কথা বলি। এটা নিয়ে ভাবার কিছুই নেই। নিজের পোস্ট বারবার রিফ্রেশ করেই যেখানে জায়গা পাওয়া যায় সেখানে নজর দেবার দরকার নেই। এসব প্রতিযোগিতা ব্লগ ও ব্লগারদের কোন লাভ বয়ে আনবেনা।

নির্বাচিত পাতায় মডারেশন একটি লেখা কতটা উন্নত সেটার ওপরে ভিত্তি করে জায়গা দেন। সেখানে জায়গা পাওয়া অবশ্যই সম্মানের। লেখায় কেমন উন্নতি আনতে হবে সেখানে জায়গা পাবার জন্যে? কিছু টিপস:



১) শিরোনাম: এটি ভীষনই জরুরি। মনে রাখবেন, আপনাকে যেমন মানুষ আপনার নামে চেনে, আপনার লেখাকে চেনে তার শিরোনামে। শিরোনামটি এমন হতে হবে যেন পাঠককে কাছে টানে। আর আপনার লেখার মূল বক্তব্যটা তারা বুঝতে পারেন। শিরোনাম হচ্ছে আপনার পুরো লেখাকে এক লাইনের মধ্যে আনা! শিরোনাম দেখেই পাঠক সিদ্ধান্ত নেবেন আপনার লেখা পড়বেন কি পড়বেন না? এই কাজটি ভালোভাবে করতে পারলে আপনার পোস্টের মান একলাফে বেড়ে যাবে কয়েক গুন! তবে হ্যাঁ, শিরোনাম আকর্ষনীয়, ভেতরে কিছুই নেই, তাহলে হবেনা। পাবলিকের মার মাটিতে পরবে না তবে। ভেতরের লেখাও যত্ন নিয়ে লিখবেন। আর লেখাটির শিরোনাম ভাবতে লম্বা একটি সময় নেবেন।

২) টাইপিং ও বানান: সামুতে এমন অনেকেই আসেন যারা বাংলা টাইপিং পারেন না। তাদের টাইপোর তোরে লেখা বোঝাই যায় না। এক্ষেত্রে প্রুফরিড সাহায্য করবে। টাইপো গুলো চোখে পরবে, এবং ঠিক করে নেবেন। আর কোন অক্ষর লিখতে না জানলে সামুর এই লিংকটি টাইপিং সাহায্য করবে।
আর অনেকের বানান জ্ঞান স্বল্প। কোন বানান নিয়ে সন্দেহ থাকলে গুগলে সার্চ করে দেখবেন। গুগল ট্রান্সলেটরও সাহায্য করতে পারে এ বিষয়ে। ব্লগে আসাই লেখা উন্নত করার জন্যে, জ্ঞানের পরিধি বাড়ানোর জন্যে। তাই আন্দাজে কিছু লিখবেন না, শিখতে কার্পণ্য করবেন না।

৩) লেখার সাইজ: আজকালকার ব্যস্ত জীবনে কেউই ধৈর্য্য ধরে পুরো এক বই পড়তে চান না ব্লগ পোস্টে। লেখার সাইজ এমন করুন যাতে ফেবু স্ট্যাটাসের মতো নাহয়, আবার পুরো এক বই না হয়ে যায়। মাঝামাঝি রাখুন। নিজের পুরো বক্তব্য অল্পের মধ্যে বয়ান করা একটি শিল্প। চেষ্টা করুন তা শিখতে। গল্প, বক্তব্য অনেক লম্বা হলে পর্ব করে লিখুন দরকার হলে।

৪) প্রেসেন্টেশন: খাবার সুস্বাদু হলো কিন্তু সুন্দরভাবে পরিবেশিত হলোনা! কারোরই রুচি হবে না খেতে। তেমনি লেখারও মূল বক্তব্য ও মান ভালো হলেও, সহজবোধ্য ভাবে পরিবেশিত না হলে পাঠকের ভালো লাগবেনা।
কোন গল্প লিখলেন একটানে, কোন প্যারা নেই! পাঠকের পড়তে খুবই অসুবিধে হবে। দাড়ি, কমার মতো ঠিক সময়ে প্যারা বাই প্যারা লেখাও জরুরি। আবার কিছু কিছু লেখা পয়েন্ট আকারে লিখলে পাঠকের সুবিধা হয়। লেখার ধরণের ওপরে নির্ভর করে সিদ্ধান্ত নেবেন কিভাবে সেটাকে সাজাবেন? লেখাকে নানা অংশে ভাগ করুন। হেডিংস, সাবহেডিংস তৈরি করুন। জায়গাগুলো বোল্ড করুন বা আন্ডারলাইন করুন। যেন সহজেই পাঠকের চোখে পরে।

৫) প্রুফরিড: সবচেয়ে জরুরি! নিজের কোন লেখা পাঠককে পড়ানোর আগে নিজেই নিজের পাঠক বনে যান।
যেই পোস্টই করবেন না কেন সেটা বারবার পড়ুন। চোখে অনেক ভুল ধরা পরবে। যেমন কোন বাক্য বেশি বড় হয়ে যাওয়ায় হয়ত বক্তব্য বুঝিয়ে উঠতে পারেননি। বা কোথাও বর্ণনা ঠিকভাবে হয়নি। একদমই নিরপেক্ষভাবে পড়ুন নিজের লেখা। আর লেখার সাথে সাথেই পড়বেন না। একটু ব্রেইক নিয়ে পড়বেন। তখন শান্ত ব্রেইনে ভুলগুলো আরো চোখে পরবে। আর পাঠকের চোখে পড়ার আগে নিজেই ঠিক করে নিতে পারবেন।

ওপরের বিষয়গুলো কিভাবে করতে হবে তা বলে দিলাম। তবুও নতুনদের সমস্যা হবে। উদাহরণ হিসেবে গুণী ব্লগারদের লেখা পড়ুন। তখন নিজে নিজেই বুঝে যাবেন। আয়ত্বে এসে যাবে এসব ছোটখাট তবে ভীষনই জরুরি বিষয়গুলো। সিনিয়ারদের দেখে শিখুন। তারাও প্রথম পাতায় সুযোগ পেতেন না, তাদের লেখা কেউ পড়ত না, ধীরে ধীরে তারা এমন জায়গায় যে সবাই হুমড়ি খেয়ে তাদের লেখা পড়েন। হতাশ না হয়ে সিনিয়ারদের দেখুন।

এসব বিষয় মেনে চললে, পাঠকের সাথে সাথে মডুরও সুনজর পরবে। আর লেখাটি প্রাপ্য সম্মান পাবে। তবে হ্যাঁ, গ্যারান্টি নেই কোনকিছুরই। মাঝেমাঝে জনপ্রিয় ব্লগারের ভালো লেখাও পাঠকপ্রিয়তা পায় না। আর "আজ আমার মন খারাপ" টাইপের এক লাইনের পোস্টে মন্তব্যের পর মন্তব্য পরেই যায়। নির্বাচকদেরও চোখের আড়ালে পরে যায় উন্নতমানের কিছু লেখা। কেউই পারফেক্ট নন। এমন হতেই পারে, তবে কদাচিৎ হয়। তাই হতাশ না হয়ে ভালোভাবে লিখতে থাকুন। ভালো লেখা বারবার লিখলে, মানুষের চোখে এড়াবে না।



-------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------


মনে রাখবেন আজ যারা জনপ্রিয় ব্লগার, তাদের অনেকেই শুধু ব্লগিংই নয় লেখালেখির ক, খ, গ, ঘ ও সামু ব্লগ থেকেই শিখেছেন। দেশের জনপ্রিয় এবং প্রথম ব্লগ কত লেখক তৈরি করে দিয়েছে তার হিসেব নেই। আপনি কেন শিখতে পারবেন না তবে এই ব্লগে থেকে? তাই হতাশ হবেন না। ব্লগ ছাড়ার বা কমিয়ে দেবার কথা ভাববেন না। লেগে থাকুন।
অনেক বড় মাপের লেখকের সৃষ্টিকারী এই ব্লগের সদস্য হওয়া নি:সন্দেহে আনন্দের ব্যাপার। সেই আনন্দের সাথে আসা দায়িত্বকেও নতুনরা গুরুত্বের সাথে দেখবেন সেই কামনাই করি।

ব্লগ নিয়ে আরো কোন প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় করুন। পুরোন ব্লগারদেরও পোস্টে আমন্ত্রন জানাচ্ছি। আমি জানলে আমি উত্তর দেব, আর না জানলে অন্যরাও আপনার প্রশ্নের উত্তর আন্তরিকতার সাথেই দেবেন।

আর এত বকবকের পরে আসল কথা হচ্ছে নতুন, সেমি নতুন, পুরোন হতে থাকা নতুন সবাইকে স্বাগতম আমাদের ব্লগ পরিবারে। হ্যাপি ব্লগিং টু অল! :)



ছবি সূত্র: অন্তর্জাল।
তথ্য সূত্র: অভিজ্ঞতা!

মন্তব্য ১২৩ টি রেটিং +২১/-০

মন্তব্য (১২৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:০৯

শ্রোডিঙ্গার বলেছেন: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি ভাই না রে আপু। নামের কারণে কনফিউশন হয়েছে। ইটস ওকে।

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। আপনার ব্লগিং জীবনে লেখাটি সাহায্য করবে আশা করি।

ভালো থাকুন।
হ্যাপি ব্লগিং! :)

২| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৪

শ্রোডিঙ্গার বলেছেন: হাহাহাঃ
আমি আসলে জানতাম না। যাহোক, আপু আপনাকে আবারো ধন্যবাদ।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: ইটস কমপ্লিটলি ফাইন! এখন তো জেনে গেলেন! :)

ইউ আর মোস্ট ওয়েলকাম!

৩| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:২০

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: আবারো পূর্ণ মনোযোগের সাথৈই পাঠ করলাম এবং প্রভূত জ্ঞান আহরণ করিলাম।

ব্লগ বিশারদ বলা যেতেই পারে :) রিয়েলি ওয়েল সেইড!
এত সূক্ষাতিসূক্ষ ভাবে বিশ্লেষন করে লেখা যেন বা পড়েনা কোন কিছু।
সাথে ছবি গুলো কটেন্টেক যেন আরো জীভন্ত করে তুলেছে।

অভিবাদন সখি :)
আমিও শিখে গেলাম অনেক কিছু নতুন করে :)

শুভেচ্ছা শুভেচ্ছা এবং শুভেচ্ছা

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:২৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সখা! ভালো আছেন আশা করি!

ব্লগ বিশারদ! হাহা। থ্যাংকু থ্যাংকু! :)

চেষ্টা করেছি পয়েন্ট বাই পয়েন্ট নতুনদের সব ধরণের প্রশ্নের জবাব দিতে এবং ভুলগুলো ধরিয়ে দিতে। আশা করি তাদের সাহায্য হবে।

ইশ! ব্লগিং এ পারদর্শীর বিনয় দেখো! আপনার আর কিছু শেখার নেই। এখন সবাই শেখান। :)

পাঠ ও সুন্দর মন্তব্যে অনেক ধন্যবাদ। অনুপ্রাণিত হলাম।
শুভকামনা রইল। সখা সুখে থাকুক!

৪| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:২৩

তপোবণ বলেছেন: খুব ভালো লিখেছেন, অনেক অজানা বিষয় জানা হলো। লিখতেই তো পারিনা। কিভাবে লেখক হওয়া যাবে সেই বিষয়ে কখনো কোন টিপস দিলে ভালো লাগবে।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৩৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: ধন্যবাদ। অজানাকে জানাতে পারলে, নতুনদের সাহায্য করতে পারলেই পোস্ট সার্থক!

হুমম, আমি আলাদা করে সেটা নিয়ে লিখতে পারি সামনে। তবে এখন এই পোস্টটি পড়তে পারেন। view this link
যদিও এটি ব্লগিং ব্লক এর জন্যে। তবে ভেতরটা পড়লে বুঝতে পারবেন। একটি পোস্ট শুরু করা থেকে শেষ করা পর্যন্ত স্টেপ বাই স্টেপ গাইড! এতে কিছুটা হেল্প হবে আশা করি।

পাঠ ও মন্তব্যে অনেক ধন্যবাদ।
ভীষন ভালো থাকুন।

৫| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৩১

ফয়েজ উল্লাহ রবি (পারিজাত) বলেছেন: সালাম জানবেন, আমি অনেক আগে থেকেই ছিলাম সামুতে
যখন নতুন সাইডে আসলো আমার আইডিতে আর ডুকতে পারতেছিলাম না (প্রথম আইডি প্রথম পাতায় লেখা আসতো।)
তাই নতুন আইডি করেছি, এখন আর প্রথম পাতায় লেখা আসে না আর কেউ পড়েও না। তবু আছি এবং থাকবো।

আর একটি জানতে চাওয়া আমার প্রথম আইডিটি কি উদ্ধার করা যাবে।
যদি উদ্ধার করা যায় কী ভাবে জানাবেন প্লিজ (ইউজার /পাসওয়ার্ড ভুল বলতেছে)
ধন্যবাদ ভাল থাকবেন।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৫১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনার পাসওয়ার্ড হয়ত ভুল, অথবা সামু একাউন্ট ভেরিফিকেশন করতে চায়। এক কাজ করুন, পাসওয়ার্ড চেইন্জ করুন। তখন তারা আপনাকে ইমেল এডরেস দিতে বলবে। সেই ইমেইল এডরেস যেটা রেজিস্টারের টাইমে দিয়েছিলেন। সেটা মনে থাকলে পাসওয়ার্ড চেইন্জ করে চেষ্টা করুন। যদি সেই ইমেইল মনে না থাকে বা পাসওয়ার্ড চেইন্জেও কাজ না হয়, তবে অবশ্যই সামু কর্তৃপক্ষকে মেইল করুন। তারা নিশ্চই আইডি উদ্ধারে সাহায্য করবে।

পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন।

৬| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৩৬

তারেক ফাহিম বলেছেন: অবশ্যই উৎসাহমুলক পোষ্ট। তবে প্রীয় আমি যে শুরুতে সামুর বদনাম করে বসলাম আমার জেল হাজত হবে নাতো?

সময়মত নোটিফিকেশন পরিশোধ করুন

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৫২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা! না হবেনা! সামু এ ব্যাপারে বেশ উদার বোধ করি। নানা মতপ্রকাশের স্বাধীনতাই তো ব্লগিং! শালীন ভাষায় ব্লগের কোন সমস্যা নিয়ে লেখার অধিকার তো যেকোন ব্লগারেরই আছে।

নতুনদের উৎসাহিত করতে পারলেই পোস্ট সার্থক!
ধন্যবাদ পাঠ ও মন্তব্যে।
শুভেচ্ছা!

৭| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৩৮

ভ্রমরের ডানা বলেছেন:



সামু পাগলা,

আমার সমস্যা হল আমি হিট পাইনা। প্রচুর স্ট্রাগল করি। কিন্তু পাইনা। আমার লেখায় কেউ পাত্তা দেয় না। যারা একটু আধটু পড়ে আড়ালে আবডালে হাসে :(( :(( আমার দুঃখ দেখানোর মত কাউরে পাইতেছিও না। এখন আপনার দরদ ভরা লেখা পেয়ে কলিজায় কিছুটা হাওয়া পানি আইল! আপনি এই ব্লগের স্বনামধন্য বিখ্যাত ব্লগবাজ। সবাই একনামে আপ্নারে চিনে। আপনার ব্লগ আড্ডায় হাজার হাজার ব্লগার ও মডু এক প্লেটের খানা খায়। এখন কথা হইল কি উপায়ে হিট ব্লগার হতে পারি তার গোপন ( ;)) কোন ফর্মুলা থাকলে দেন। আপনি আমাগো নয়নের মনি, :-B কিছু করেন এই অভাগার লাইগা... . কোন মতে হিট কইরা দেন...

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৫৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা! আপনি যে এত বিরাট মাপের ফাজিল তা তো জানতাম না! ব্লগে এত ভালো পরিচিতি থাকার পরেও ন্যাকা কান্নার এক্টিং ভালোই করলেন! ;)

স্বনামধন্য বিখ্যাত ব্লগবাজ, নয়নের মনি! হাহাহাহা! ইহা আমি কি পড়িলাম? কেন পড়িলাম? আমি হাসতে হাসতে গড়াগড়ি। ভালোই পচালেন ও ক্ষেপালেন। :( :( ;)

এক কাজ করুন, ব্লগে হিট হবার কৌশল আমার চেয়েও ভালো যে বলতে পারবেন তার কাছে যান। ব্লগার ভ্রমরের ডানার তো প্রায় প্রতি পোস্টেই লাইকের বন্যা, কমেন্টের ঝড় দেখা যায়। তার কাছ থেকে বুদ্ধি নিন! ;)

এত দুষ্টুমি মাথায় নিয়ে চলেন আপনি! উফফ! আপনার এই সাইডটি আগে এভাবে দেখিনি। খুবই মজা পেলাম। অনেক ধন্যবাদ এতটা হাসানোর জন্যে।

মজার মন্তব্যে অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা।
ভীষন ভালো থাকুন।

৮| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:২০

জাহিদ অনিক বলেছেন: উল্লেখিত কোন পন্থাই কাজ না করলে শিব খেরার তুমিও পারবে বইটি ফুটপাত থেকে ৩০ টাকায় কিনে রোজ পড়বেন এতে করে মনোবল অক্ষুণ্ণ থাকবে।
এতেও কাজ না হলে ফেসবুকে মোটিভেশন নিবেন।
ফেসবুকে মোটিভেশনাল স্পিচের অভাব নেই।

মোদ্যা কথা আপনাকে লেগে থাকবে।
জানেনই তো, "সে সহে, সে রহে".

সর্বোপরি, কোন কিছুই ভাল না লাগলে আমার ব্লগ পড়বেন। আমি আপনাদের জন্য আবারো হাজির হব পরের পর্ব নিয়ে।


দ্রষ্টব্য : আমি বলেছি যে বড় পোষ মানুষ একটু কম পড়ে, কিন্তু আমার ব্যপারটা আলাদা। আমার এই সুবিস্তৃত পোষ্ট আপনার মত অনেকেই পড়বে, বেশ মন দিয়েই পড়বে কারন আপনার ব্লগ হিট নহে।

আর হ্যা, আমি এটাও জানি আমার এই পোষ্ট আলোচিত পাতা ও নির্বাচিত পোষ্ট উভয় স্থানেই যাইবে। এমনকি বিষয়ভিত্তিক ব্লগেও যেতে পারে।
এতে করে ঈর্ষান্বিত হইবেন না। ঈর্ষা করা ভাল না।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:৪৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা হিহিহি! উফফ! হাসলাম বটে তবে এত সিরিয়াস পোস্টটিকে নিয়ে ফাজলামি কেন করছ? আরেহ ভাই, আমি রম্য লিখিনি। সিরিয়াস মনে নতুনদের একটি দিক নির্দেশনা দেবার চেষ্টা করেছি। তাদের মনের কনফিউশন মিটিয়ে, ভুল ধরে দেবার চেষ্টা করেছি। কেননা আমি নতুন থাকাকালে পুরোনরা আমাকে সাহায্য করেছেন। এই পোস্টের উদ্দেশ্য সামুর নতুন ব্লগারদের সাহায্য করা ব্যাতীত আর কিছুই নয়! বুঝলে জংলী? ;)

মোদ্যা কথা আপনাকে লেগে থাকবে।
জানেনই তো, "সে সহে, সে রহে".

তোমার এই কথাটিই একদম ঠিক কথা। জীবনের যেকোন ক্ষেত্রেই ধৈর্য্য ধরে লেগে থাকলে সাফল্য আসবে!

ভালো থেকো আঁতেল কবি!

৯| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:৩৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সুন্দর পোস্ট। কাজে লাগবে।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:৪৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: কাজে লাগলেই পোস্ট সার্থক হবে।

পাঠ ও মন্তব্যে অনেক ধন্যবাদ।
শুভেচ্ছা!

১০| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:৪৯

জাহিদ অনিক বলেছেন: কেননা আমি নতুন থাকাকালে পুরোনরা আমাকে সাহায্য করেছেন। এই পোস্টের উদ্দেশ্য সামুর নতুন ব্লগারদের সাহায্য করা ব্যাতীত আর কিছুই নয়! বুঝলে জংলী? ;) আরে তাই তো ! ঠিক যেমন তোমার এই পোষ্টটাও আমাকে সাহায্য করছে নানাভাবে।

গতকাল নয়ন ভাই বলছিল যে সে ফোন থেকে ব্লগিং করে। তাই আমি আজ একটু আগে বাসে আসতে আসতে ভাবলাম ফোন থেকেই তোমার এই পোষ্টে মন্তব্যটা করি। ফলাফল দেখা গেল একটি বানান ভুল !

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:৫৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনিক, তুমি বেশ ভালো ব্লগিং করছ। যত্ন নিয়ে, মজা করে। তোমার সাহায্যের দরকার আছে বলে মনে করিনা! এভাবেই ব্লগিং করতে থাকো। আরো অনেক ফেমাস হও ব্লগে! :)

হ্যাঁ, নয়নসাহেবের সেই পোস্ট ও কমেন্ট আমি পড়েছি। অবাক হয়েছি তার ধৈর্য্য দেখে। আমি তো পারিইনা ফোনে ব্লগিং করতে! পোস্ট লেখা তো দূরের, কমেন্টও লিখি না ফোনে। সত্যিই প্রশংসনীয় ওনার ব্লগিং ডেডিকেশন!

এত রাতে বাসে! জংগল থেকে শহরে ফিরলে নাকি? ;)

১১| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১০:০৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: এভাবেই ব্লগিং করতে থাকো। আরো অনেক ফেমাস হও ব্লগে! :)
আহ! আপনার আশীর্বাদ পেয়ে ধন্য মনে হচ্ছে হে বিজয়ালক্ষী নারী!
যাত্রার নায়কের মত গলা কাঁপিয়ে বলতে ইচ্ছে করছে,

হে মাতো আশীর্বাদ করুন,
জয়ো লোভে, যশ লোভে, রাজ্য লোভে হই,
যেন বীরের স্ব-জ্ঞাতি হতে ভ্রষ্ট নাহি হই।


এত রাতে বাসে! জংগল থেকে শহরে ফিরলে নাকি? ;) সেরক্মই বলা যায়। জঙ্গলের গাধা পিটিয়ে মানুষ করতে গিয়েছিলাম।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১০:১১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা হিহিহি! উফফ তুমি পারোও অনিক! অসাধারণ সেন্স অফ হিউমার! গ্রেইট! :)
আমি কিন্তু সিরিয়াসলিই বলেছিলাম সেই কথাগুলো! হুমম!

তুমি কি শিক্ষক? পড়াও? কোন বয়সীদের পড়াও?

১২| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১০:২৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: তুমি কি শিক্ষক? পড়াও? কোন বয়সীদের পড়াও? -
উত্তরঃ
১) হ্যাঁ আমি শিক্ষক, শুধু তাই না। আমার বাবা, মা, ভাই চৈদ্দ গুষ্ঠি শিক্ষক B-)
২) পড়াও? না তো- শিক্ষার্থীদের সাথে গল্প করি, আড্ডা দেই, হাডুডু খেলি।
৩) যাদের বয়স ১৩ থেকে ১৮

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৩৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: তোমার মতো ফেলু শিক্ষক! হোয়াট আ জোক! হাহাহা!

হ্যাঁ ফেলু তো তাই করবে। কাজের কাজ করবে না!

১৩-১৮! হুমম! তুমি কাদের পড়াও অনিক? রেগুলার কোন স্কুল নাকি...?

১৩| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১০:৫৬

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: পোস্টটি সুন্দর।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৪০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সুজন ভাই আপনাকে পোস্টে পেয়ে ভালো লাগল।

ধন্যবাদ মন্তব্যে।
ভালো থাকুন।

১৪| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১১:২৮

কালো আগন্তুক বলেছেন: ব্লগিং জানলাম, ব্লগার জানলাম, সামু পাগলার জেন্ডার জানলাম। তবে আরেকটা প্রশ্ন মাথায় আছে....

আমি যা লিখছি তা খুব কম সংখ্যকবার পাঠ হচ্ছে আর মতামত তো মাশাল্লা হচ্ছেই না। তো আমি কি করে বুঝব আমার লেখার মান ভাল কি না বা আমার লেখা অনন্য পাঠকরা আদৌ পাঠ করবে কি না?

আমি ইংরেজিতে ব্লগিং করেছি তবে বাংলায় এই প্রথম। তাই একটু আধটু খটকা লাগছে। আপনার ব্লগ নতুনদের জন্য খুবই সহায়ক । ধন্যবাদ এতটা হেল্পফুল হওয়ার জন্য।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৪৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা! বাহ অনেককিছু জেনে ফেলেছেন দেখছি!

আপনাকে লিখে যেতে হবে। অনেক জনপ্রিয় ব্লগারদের ব্লগিং স্মৃতিচারণে পড়েছি, যে প্রথম প্রথম কাকপক্ষীও তাদের ব্লগে আসত না! আসলে একটার পর একটা ভালো লেখা লিখে যেতেই হবে। আর লিখতে লিখতে হাত খুলবে। সে কেউ সমালোচনা পাক বা না পাক! যতো লিখবেন ততো হাত পাকবে। কমেন্টের সংখ্যা বাড়তে থাকবে। লেগে থাকতে হবে বেসিক্যালি। নিয়মিত সময় করে ব্লগে অনেক টাইম স্পেন্ড করতে হবে। সবার নজরে পরে গেলে আরো কমেন্ট পাবেন। তখন অন্যের চোখেও ভালো মন্দ বুঝতে পারবেন। প্রথম প্রথম নিজের চোখেই ভালোমন্দ টা দেখে উন্নতি করে যেতে হবে। সব কথার শেষ কথা ধৈর্য্য ধরে লেগে থাকুন। শিখবেন অনেককিছু!

এসবই পোস্টে বলেছি, আবারো বললাম।

হ্যাঁ স্বাভাবিক, ইংলিশ ও বাংলা ব্লগের পরিবেশ কিছুটা আলাদা। তবে মিলও কম নয়! আস্তে আস্তে ধরতে পারবেন। ব্লগিং ইজ ব্লগিং!

আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ। কারো হেল্প হলেই পোস্ট সার্থক।
হ্যাপি ব্লগিং!

১৫| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:০৫

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন: চমৎকার এডভাইস। নবীনদের জন্য শুভ কামনা। যদিও আমিও এখনো নতুন!

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৪৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহা সমস্যা কি? এক নবীন অন্য নবীন কে শুভকামনা দিতেই পারে।

ধন্যবাদ। এডভাইসগুলো কারো কাজে লাগলেই খুশি হবো।

পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ।
শুভকামনা!

১৬| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:১৮

মিঃ আতিক বলেছেন: আপনি ব্লগের কেও হলে ঠিক আছে, নচেৎ এসব নতুনদের সাথে উপহাস ছাড়া কিছু নয়। আপ্নারা লিখতে পারছেন লিখেন ভালো, নতুনদের জন্য পড়াই যথেষ্ট।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৫১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনার মন্তব্যটি বুঝে উঠতে পারলাম না। আমিও ব্লগে একদিন নতুন ছিলাম, সে সময়ে এধরণের হেল্প পোস্টগুলোকে উপহাস মনে হয়নি। হেল্পফুল মনে হয়েছে। নতুনেরা লিখবেন না? আমিও তো একদিন নতুন ছিলাম, ব্লগে লেখার আগে কোথাও লিখিনি। আমার তো লেখাই উচিৎ হয়নি তবে। আর ব্লগে সব ব্লগারই নতুন থাকে একসময়ে, অনেকে লেখালেখির জগতেও নতুন থাকেন, ব্লগে ধাক্কা খেয়ে খেয়ে শেখেন। সব নতুনেরা পাঠকই রয়ে গেলে তো কোন লেখাই থাকবে না পড়ার মতো!

যাই হোক ভালো থাকুন।
হ্যাপি ব্লগিং!

১৭| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৪৫

জাহিদ অনিক বলেছেন: এতো ইনফরমেশন চাও কেন ? কও তো ! এফ বি আই এজেন্ট নাকি তুমি ? B-)

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:৫৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হিহি! জাস্ট কিউরিয়াস। তুমি স্টুডেন্ট তাই জানতাম কোন এক মন্তব্য থেকে। কেমন শিক্ষক, কেমন বাচ্চাদের পড়াও তা জানতে কৌতুহল হচ্ছিল।
কিছু মনে করোনা ব্যক্তিগত ব্যাপার জানতে চেয়ে ফেলেছি বোধহয়!

আজ সারারাত জাগার প্ল্যান নাকি? নতুন কোন বিরহ কবিতা পেতে যাচ্ছি আমরা? হাহাহা।
ভালো থেকো অনিক।

১৮| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১:০০

জাহিদ অনিক বলেছেন: নতুন কোন বিরহ কবিতা পেতে যাচ্ছি আমরা? হাহাহা। তোমার দাঁত ভেঙে দিব ফের যদি হাসো।
কতক্ষণ জাগবো জানি না।

হুম। আমি এখনো স্টুডেন্ট। অনার্স করছি দীর্ঘ্য এক যুগ ধরে।
আমার স্টুডেন্ট এসেছে কোথা থেকে জানার কৌতুহল তাই না ? B-) আচ্ছা, বেশ বলে দিচ্ছি।
২ টা কোচিং একাডেমিতে পড়াই + টিউশনি। B:-)

কিছু মনে করোনা ব্যক্তিগত ব্যাপার জানতে চেয়ে ফেলেছি বোধহয়! এটা না লিখলে বোধহয় কিছু মনেটনে করতাম না।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১:০৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা হোহোহো! হাসলাম! আমার সব দাঁত জায়গামতোই আছে! হুমকি ধামকি ভীতুদের দাও। আমাকে দিলে হাফ থেকে পুরো কানাবাবা হয়ে যাবে! ;) :D

আচ্ছা আচ্ছা।
ওহ নাইস!

অনেক ব্যস্ত থাকো তো তুমি!

হাহা, আচ্ছা সরি। আর বলব না এমন কিছু। জিজ্ঞেস করেছি বেশ করেছি। আরো অনেককিছু জিজ্ঞেস করব। ;) :D
ঘুমাও যাও! রাত অনেক!

১৯| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১:১৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: এই ব্যস্ততাটুকু না থাকলে চলতে পারতাম না ।

জিজ্ঞেস করেছি বেশ করেছি। আরো অনেককিছু জিজ্ঞেস করব। ;) :D

করো, করো । প্রশ্ন না করলে উত্তর দিব কি করে !

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ ভোর ৬:২৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হুমম দিনের শেষে বিরক্তিকর ব্যস্ততাই বাঁচিয়ে রাখে, জিইয়ে রাখে!

আর কি প্রশ্ন করব? তুমি ফেলু, জংলী, ফাজিল এসব তো জানিই! দেখি সামনে তোমাকে আরো কোন বিশেষন দেবার হলে আরো প্রশ্ন করব! ;) :D

২০| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১:১৫

জেন রসি বলেছেন: অনেক কিছু শিখলাম। তবে পাশ করার মনে হয় কোন সম্ভাবনা নেই।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ ভোর ৬:২৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনি তো পরিচিত ব্লগার। পোস্ট দেবার অনেক আগেই পাশ! :)

পাঠ ও মন্তব্যে অনেক ধন্যবাদ।
শুভকামনা!

২১| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ৮:২১

এ্যান্টনি ফিরিঙ্গী বলেছেন: ধন্যবাদ আপু,
উপকৃত হলাম।
ভালো থাকবেন।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৪২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ পাঠ ও মন্তব্যে!

উপকৃত হয়েছেন জেনে ভীষন আনন্দিত বোধ করছি। পোস্টটি লেখার উদ্দেশ্য তো তাই ছিল!
আপনিও অনেক ভালো থাকবেন।

২২| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:২৫

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: পুরানো ব্লগার হিসেবে লেখাটি পড়ে অনেক কিছু শিখলাম। আপনার আসলেই ধৈর্য আছে।
এত সাবলীল ভাবে বলে গেলেন যে কারও বুঝতে সমস্যা হবে বলে মনে করি না।
লেখালেখিটা শখের বসে করা হয়। লেখালেখি নিয়ে কখনও সিরিয়াস ছিলাম না।
এস এসসির পরেই লেখা-লেখি শুরু।ইনকিলাব পত্রিকার ফান ম্যাগাজিন উপহারে লিখতাম।
এখনও মনে আছে মোট এগারোটি লেখা পাঠানোর পরে আমার প্রথম লেখা প্রকাশ হয়। কি সুন্দর ছিল সেই সব দিন।
একটা লেখা পাঠিয়ে অপেক্ষার পর অপেক্ষা করতাম। প্রকাশ হবে কিনা তা নিয়ে সন্ধেহে থাকতাম। এমনও হয়েছে একটি লেখা তিন-চার মাস পরেও ছেপেছে। একটি লেখা ছাপলে কি যে আনন্দ পেতাম তা এখন আর বুঝিয়ে বলতে পারব না।
আর এখন একটি লেখা লিখে একটা ক্লিক করলেই লেখা প্রকাশ হয়ে যায় । যখন তখন পাঠকদের প্রতিক্রিয়া জানা যায়।
সবাই এখন সেলিব্রেটি হতে আসে। কেউ পড়ে কিছু শিখতে আসে বলে মনে হয় না।সব জায়গাতে কেমন অস্থিরতা।
কারও ভাল দেখলে অন্যরা হিংসায় জ্বলে যায়। মাঝে মাঝে মনে হয় এই সব থেকে দূরে থাকব। কিন্তু ব্লগটাকে ভালবাসি বলেই হয়তো বারে বারে ফিরে আসি। ভার্চুয়াল এই জগৎটার প্রতি একটা টান হয়ে গেছে।তাই আর যাব যাব করেও যাওয়া হয় না।
# জাহিদ অনিকের এই কথাটি পড়ে মজা পেয়েছি, হুম। আমি এখনো স্টুডেন্ট। অনার্স করছি দীর্ঘ্য এক যুগ ধরে।
এখন তো শুনি সেশনজট কমে গেছেরে ভাই।তয় সমস্যা মনে হয় আপনার।
এই দেশে ছাত্র হয়েই থাকুননা আজীবন।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৫৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি কখনো পত্রিকায় লিখিনি। তবে একবার বইয়ের দোকানে গিয়েছিলাম কিছু বই কিনতে। তখন দেখি বেশ কিছু ছেলে এসে অনেকগুলো পেপার কিনছে। বেশ ভাব নিয়ে দোকানদারের সাথে কথা বলছে। তাদের সে কি উত্তেজনা আর আনন্দ! ফোনে ফোনে কথা হচ্ছে, হ্যাঁ দোস্ত নিচ্ছি আরো! তোর লেখার ছাপানোর ট্রিট দিস! মনে হলো বন্ধুর লেখা ছাপা হয়েছে! হয়ত সেই পেপার কাটিং নিয়ে সবাইকে দেবে! এত ভালো লেগেছিল দৃশ্যটি দেখে! ভাবছিলাম, যে মানুষটি কষ্ট করে লিখেছে এবং পেপারে নিজের নাম ও সৃষ্টি দেখছে তার আনন্দ না জানি কত!
আপনার অভিজ্ঞতায় সেদিনের স্মৃতি মনে পরে গেল। অনেক আগের কথা!

সবাই এখন সেলিব্রেটি হতে আসে। কেউ পড়ে কিছু শিখতে আসে বলে মনে হয় না।সব জায়গাতে কেমন অস্থিরতা।
কারও ভাল দেখলে অন্যরা হিংসায় জ্বলে যায়। মাঝে মাঝে মনে হয় এই সব থেকে দূরে থাকব

হুমম! ঠিক বলেছেন। আমিও অনুভব করি এটা। শুধু ব্লগেই নয় জীবনের ক্ষেত্রেও এটা অনুভব করি। একটি ছবিতে ডায়ালগ ছিল, তুমি তোমার জীবন অপছন্দ কর এ কারণে জীবন থেকে কিছুদিনের ভ্যাকেশন নিতে পারোনা! সত্যিই তো! পারিনা আমরা! জীবনের মায়ায় জীবন চলতেই থাকে। হাজারো অভাব অনটন, মান অভিমান, দুঃখ শোক এর পাশাপাশি স্বর্গীয় অনেক আনন্দময় মুহূর্ত নিয়ে বেঁচে থাকি সবাই! মাঝেমাঝে বিরক্ত হলেও, মায়া ছাড়তে পারিনা!

আরেহ অনিকের ব্যাপারটি অন্য। জট সেকশনের না ওর ব্রেইনের। ও ফেলু তো তাই এই অবস্থা! হাহা, জাস্ট কিডিং! :)

অনেক ধন্যবাদ, আবারো সুন্দর, সাবলীল একটি মন্তব্য করলেন। খুবই ভালো লাগে আপনার মন্তব্যগুলো।
ভীষন ভীষন ভালো থাকুন।

২৩| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:১২

বিজন রয় বলেছেন: আমি তো নতুন না।
তবে আমি যখন নতুন ছিলাম আপনার এই পোস্টের কথাগুলো আমার কোন কাজে লাগত না। এখনো লাগবে না।

তবে কেন জানি মানুষ আামর লেখা পড়ে, মন্তব্য করে।
আমার বেশি কিছু করার দরকার হয় না।

তবে আপনার এই পোস্টি ভাল হয়েছে।
অনেকের কাজে লাগবে।

আপনি ভাল আছেন তো????????

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:১৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনি ভালো লেখেন ও সুন্দর প্রতিমন্তব্য করেন। এর চেয়ে বেশি আর কি করবেন? আমি যা যা বলেছি তা আপনি নিজে থেকেই প্রথম থেকে করেন। তাই এ পোস্টটি আপনার তখন বা এখন কোন উপকারে লাগবে না সেটাই স্বাভাবিক। :)

যেসব নতুনদের এসব নিয়ে কনফিউশন, প্রশ্ন রয়েছে এবং নানা ভুল করছেন, তাদের জন্যে লেখা পোস্টটি। মানুষের কাজে লাগবে তাই আশা।

জ্বি ভীষন ভালো আছি। আপনি কেমন আছেন?

পাঠ ও মন্তব্যে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই। অনেকদিন পরে আপনাকে নিজের পোস্টে পেয়ে খুশি হলাম।
শুভেচ্ছা অজস্র!

২৪| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:২১

বিজন রয় বলেছেন: না আপনি ভাল নেই।

আপনি প্রতিদিন নিজেকে ঠকাচ্ছেন।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:২৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা! এটা এমন এক ডায়ালগ যদি জায়গামতো দিতে পারেন, তবে হিট! যাকে বলবেন সে আপনাকে জীবনভর ভুলবে না। আর যদি ভুল জায়গায় বলেন তবে হাসির পাত্র বনে যাবেন! ;) :D

কেন রে ভাই, হুট করে এ কথা বললেন কেন? আমি আমাকে ঠকাচ্ছি কেন মনে হলো তা?

২৫| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:৪৩

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: সুন্দর প্রতি মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ সামু পাগলা।
সত্যি পেপারে নিজের লেখা ও নাম দেখা খুবই আনন্দের।

বিজন দা কি জ্যোতিষি হয়ে গেলেন!
তবে আপনিও অনেক সুন্দর বলেছেন,এটা এমন এক ডায়ালগ যদি জায়গামতো দিতে পারেন, তবে হিট! যাকে বলবেন সে আপনাকে জীবনভর ভুলবে না। আর যদি ভুল জায়গায় বলেন তবে হাসির পাত্র বনে যাবেন!

যায় হোক এটি আপনার আর বিজন দার ব্যপার। তবুও একটু নাক গলিয়ে ফেললাম।
বিজন দা আমার প্রিয় ব্লগার। আশা করি উনি এমন কিছু করবেন না যা আমাদের কাছে খারাপ মনে হয়।
ভাল থাকুন।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:৫১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: ইউ আর মোস্ট ওয়েলকাম! :)

হুমম শুধু পেপারে কেন? প্রথমবার সামুর প্রথম পাতায় নিজের নাম দেখা কি কম আনন্দের? আর নির্বাচিত পাতায় লেখা উঠলে সে আনন্দ তো অন্যরকম! হাহা।

না না নাক গলানোর কিছু নেই। পাবলিক ব্লগ। সবাই আমরা পরিবারের মতোই। একজনের কথা নিয়ে অন্যজনের মতামত থাকতেই পারে।

আর উনি বিচক্ষন মানুষ। হাওয়ায় হাওয়ায় কথাটি বলেছেন বলে মনে হয়না। কোন কারণে, জীবনবোধেই বলেছেন। উনি আমাকে কারণটি বললে, আমি বুঝব ব্যাপারটি। এখানে একদমই আমার বা কারোর খারাপ মনে করার কোন প্রশ্নই ওঠেনা।

পুনরায় আগমনে অন্তহীন কৃতজ্ঞতা।
ভীষন ভালো থাকুন।

২৬| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:১৩

বিজন রয় বলেছেন: হা হা হা ........... কেন রে ভাই, হুট করে এ কথা বললেন কেন?

নিশ্চয়ই আপনাকে চমকে দেইনি।
তবে আপনার প্রতিক্রিয়াটি একটু বেশিই চোখে পড়ল।
সেটাই স্বাভাবিক। :)

@ মোস্তফা সোহেল....... আমি জ্যোতিষী না!!!

হা হা হা .......... আমি বলতে চেয়েছি, আমাদের সামুপাগলা০০৭ অত্যন্ত প্রতিভাধর।
লেখাপড়া বাদ দিয়ে শুধু ব্লগিংই করেন, তাই বলেছি তিনি নিজেকে ঠকাচ্ছেন।

কিন্তু সেটা সরাসরি ওনাকে বলতে তো পারি না, সেটা ভাল দেখায় না।
তবে আপনাকে বলতো তো কোন সমস্যা নেই। B-)

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:২৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: তেমন কোন প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছি বলে মনে হয়না। ব্যাস কৌতুহল বলতে পারেন!

আমাদের সামুপাগলা০০৭! আমাদের শব্দটি ভীষনই আপন, অনেক খুশি হলাম!
অত্যন্ত প্রতিভাধর? আমি? হাহা!

আমি লেখাপড়া বাদ দিয়ে ব্লগিং করি? হাহাহা! আমি ক্লাস চলাকালে একদমই ব্লগিং করিনা। শুধুমাত্র ছুটির সময়ে ব্লগিং করি। সামার ব্রেইক, উইন্টার ব্রেইক এসবে আরকি!

হাহা, লাস্টের লাইনটি জোশ! হুমম সেটাই আমাকে না বলে ভালোই করেছেন। মোস্তফা সোহেলই শুধু জানুক আমি কত্ত ফাঁকিবাজ ও ঠকবাজ! ;) :D

আন্তরিক মন্তব্যে ধন্যবাদ।
শুভকামনা!

২৭| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:১৮

নীল আকাশ ২০১৬ বলেছেন: এই প্রথম পাতা জিনিসটা কি? স্ক্রল করলে নিচে যে ১,২,৩<< দেখা যায় - এটা? তাহলে আমার লেখা ২ এ ক্লিক করলে দেখা যাবার কথা। কই, সেখানেও তো দেখা যায়না। কষ্ট করে একটা লেখা লিখলাম। তা যদি ২নং পাতায়ও দেখা না যায়, তাহলে লিখে লাভটা কি? কেউ যদি পড়তে নাই পারে, তবে লেখার দরকার কি?

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: না আসলে যতগুলো পেইজে স্ক্রল করে যেতে পারেন সবই প্রথম পাতার লেখা। প্রথম পাতায় যেসব লেখা আসে তা পুরোন হয়ে যথাক্রমে ২, ৩, ৪..... পাতায় যেতে থাকে। যারা সেইফ ব্লগার, যাদের লেখা প্রথম পাতায় আসে শুধুমাত্র তাদের লেখাই সেসব পেইজে দেখতে পারবেন।

আর ভালো লিখে প্রথমে পাঠকপ্রিয়তা নয় কর্তৃপক্ষের পরীক্ষায় পাশ করতে হয়। তারা পর্যবেক্ষন করেন যে এই ব্লগার ব্লগের সকল নীতিমালা অনুসরন করছেন, মোটামুটি ভালোই লিখছেন। তখন লেখা প্রথম পাতায় যায়। এতে ব্লগে সুস্থ ও সুন্দর পরিবেশ বজায় থাকে। এসব নিয়ে আমি বিস্তারিতভাবে পোস্টে বলেছি। বিশেষত ১ নাম্বার প্রশ্নে। আশা করি কিছু সাহায্য হবে।

মন্তব্যে ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন।
হ্যাপি ব্লগিং!

২৮| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৩০

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন:


অনেক দরদ দিয়ে লেখা পোস্টটি। সুন্দর উপস্থাপনা।
ভালো লেগেছে প্রতিটি কথা। এ পোস্ট সবারই কাজে আসবে।
আমি তাই মনে করি।

ভালো ব্লগার মানেই স্থায়ি ব্লগার। ব্লগিংয়ে দক্ষতা/আত্মবিশ্বাস/সুনাম অর্জন করলে সাধারণত অনিয়মিত হয় না।
অন্তত চিরবিদায় নেয় না। উদাহরণ: আপনি!

এভাবে সামু'র ব্লগারদেরকে ধরে রাখুন সম্পর্কের বাধনে।

অনেক ধন্যবাদ, সামু পাগলী... (আমি নাম নিয়ে কনফিউশনে থাকি না!) ;)

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকে পোস্টে পেয়ে ভালো লাগল।

ভালো লাগায় অনুপ্রাণিত হলাম। মানুষের কাজে লাগলেই পোস্ট সার্থক।

ভালো ব্লগার মানেই স্থায়ি ব্লগার।
একদম! ভীষনভাবে সহমত পোষন করছি!

তবে আপনার কথাটি সবার জন্যে খাটে না। অনেকেই ব্লগিং এর কাছ থেকে তেমন কিছুই পাননি, কিন্তু কোন এক মায়ার টানে পরে আছেন। তাদেরকে আরো উন্নত ব্লগিং এর কিছু টিপস দিয়েছি। যে ভুলগুলো হয়ত তাদেরকে অর্জনে বাঁধা দিচ্ছে সেগুলো ধরিয়ে দেবার চেষ্টা করলাম।
আর দূর্ভাগ্যবসত অনেক জনপ্রিয় ব্লগার ব্লগ ছেড়েছেন নানা অভিমানে। ব্লগ থেকে তাদের প্রাপ্তি অনেক, তবুও ছেড়েছেন। ভীষনই মিস করি তাদের।

তবে আপনার কথাটি ঠিকও কারো কারো জন্যে। আপেক্ষিক আসলে।

হাহাহা! হুমম!

ভীষনই সুন্দর, সাবলীল সব মন্তব্য করেন আপনি। আন্তরিক ধন্যবাদ।
অনেক ভালো থাকুন।

২৯| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৪

আজাবুল মরফুদ বলেছেন: ২১ আগস্ট আমার প্রথম লেখা কিন্তু নোটিশ ঝুলে আছে, ”সামহোয়্যার ইন ব্লগে... আপনাকে স্বাগতম। আপনাকে প্রথম পাতায় লেখার সুযোগ দেবার আগে আপনাকে ৩ দিন পর্যবেক্ষনে রাখা হবে। প্রথম পাতায় লেখা পোষ্ট করার সুবিধা পেতে ভালো লেখা পোষ্ট করুন এবং ব্লগের নিয়ম মেনে চলুন।”

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি এসব নিয়ে প্রশ্ন এক এ বলেছি। দয়া করে পড়ে নেবেন।

প্রথম কথা প্রতিদিন ব্লগে এতো নতুন সদস্যের আগমন ঘটছে যে মডারেশনের পক্ষে সবাইকে একটি নির্দিষ্ট টাইমে জেনারাল বা সেইফ করা কঠিন। আর প্রথম পাতায় সুযোগ দেবার আগে প্রত্যেক ব্লগারকে পর্যবেক্ষণ করা খুবই জরুরি। ব্লগের সুস্থ ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতেই এ নিয়মটি রয়েছে। এ নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধা হারাবেন না কখনোই।


মন্তব্যে ধন্যবাদ।
হ্যাপি ব্লগিং!

৩০| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৯

ধুতরার ফুল বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। দারুন!উপকারী পোস্ট । অনেক কিছু জানা গেল।
আসলে লিখতে গিয়ে আবার ব্যাকস্পেস চেপে সব কেটে ফেলি। মনে মনে ভাবি এই লেখা কেউ পরবে না।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ। নতুন ব্লগারের উপকারে লাগলে ভীষনই খুশি হবো।

আমিও এটা করি রে। লিখে নিজে পড়ি, মনে হয় এই জিনিস কেউ পড়বে না, আর পড়লে তো লজ্জার শেষ থাকবে না। কিসব ছাইপাশ লিখেছি! হাহা। পরে সাহস করে লেখা শেষ করে পোস্ট করেই ফেলি।

পাঠ ও মন্তব্য অনুপ্রাণিত করলেন। ধন্যবাদ।
হ্যাপি ব্লগিং!

৩১| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১:৫৮

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: হুম, খুব যত্নশীল ও কার্যকরী পরামর্শ দিয়েছেন আপু। আসল সমস্যা গুলো তুলে ধরে সুন্দর সমাধান রেখেছেন। ভালো লাগলো পোষ্ট পড়ে। পরামর্শ গুলো সবার জন্যই প্রযোজ্য আমার মতে, নতুনদের জন্য অবশ্যকরণীয়।
লম্বা পোষ্ট হয়ে গেছে আপু!

নতুনদের নিয়ে চিন্তাভাবনা করার জন্য কৃতজ্ঞতা রাখছি পোষ্টে।

শুভ হোক আপনার প্রতিক্ষণ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: নয়নসাহেব! পোস্টে পেয়ে খুশি হলাম।

ভালো লাগায় আনন্দিত।

কি করব বলুন? ৫ টি প্রশ্ন নিয়েই শুধু লিখেছি। এর চেয়ে কম প্রশ্ন নিয়ে তো লেখা যায় না। আর উত্তর? নতুনদের অনেক ভুল চোখে পরে। অনেক কনফিউশন চোখে পরে। সবকিছুরই উত্তর দেওয়া জরুরি বোধ করেছি। পোস্ট একটু লম্বা হলেও কারোর যদি কাজের হয়, তবে অবশ্যই পড়বেন। আর পাঠকের সুবিধার জন্যে প্যারা করে নয়, পয়েন্ট বাই পয়েন্ট সব লেখা। এসব পড়ে কারো উপকারে লাগবে সেটাই তো চাওয়া!

পাঠ ও মন্তব্যে কৃতজ্ঞতা!
আপনিও সুখী থাকুন আপনজনদের নিয়ে।
শুভেচ্ছা রাশি রাশি।

৩২| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ২:০৭

ঠ্যঠা মফিজ বলেছেন: খুবই ভালো একটা কাজ করেছেন । সময় উপযোগী এবং কষ্ট সাধ্য পোস্টির জন্য অনেক ধন্যবাদ । লেখাটি
আমাদের মত নবীন লেখকদের অনেক কাজে আসবে ।
সকল ব্লগারদের নজরে আনার জন্য কৃতপক্ষের কাছে অনুরোধ থাকল লেখাটি স্টিকি করা হোক।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য ভীষনভাবে অনুপ্রাণিত করল।

নবীন লেখকদের কাজে আসলে ভীষনভাবে সার্থক বোধ করব।

হ্যাপি ব্লগিং!

৩৩| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ২:৩৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: খুবই সুপরামর্শমুলক পোষ্ট । অভিনন্দন রইল ।
নতুন ও পুরাতন সকলের লেখার মান বাড়াতে সহায়তা করবে ।
আমি নীজেও চেষ্টা করব এ পোষ্টের মুল্যবান পরামর্শ অনুসরন করে
আমার লেখার দুর্বল দিকগুলি কাটিয়ে উঠার জন্য ।
অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকে পোস্টে পেয়ে ভীষনই খুশি হলাম।

ধন্যবাদ।

কারো উপকারে আসলেই পোস্ট সার্থক!

আপনার বিনয়! আপনি এমনিতেই অসাধারণ লেখনী ও মন্তব্যে ব্লগ ভরিয়ে রাখেন।

পাঠ ও মন্তব্যে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।
আপনার জন্যেও শুভেচ্ছা!

৩৪| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ২:৪১

উম্মে সায়মা বলেছেন: খুব ভালো ভালো পরামর্শ দিয়েছো। ফলো করতে হবে :-B

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপু! পোস্টে পেয়ে ভালো লাগল।

থ্যাংকু থ্যাংকু! ফলো করে লাভ হলে ট্রিট চাই! :) ;)

ভালো থেকো।

৩৫| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ বিকাল ৩:১৭

মঈনুদ্দিন অারিফ মিরসরায়ী বলেছেন: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি ভাই নারে আপু। নামের কারণে কনফিউশন হয়েছে, ইটস ওকে।

আপনাকেও পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ।
হ্যাপি ব্লগিং!

৩৬| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৪

নিয়াজ সুমন বলেছেন:
এক সাথে এত্তগুলো সুন্দর পরামর্শের জন্য আপনাকে ফুলের শুভেচ্ছা। এক রাশ মুগ্ধতা রইলো ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সকাল সকাল ব্লগে এসে, এধরণের ভীষন সুন্দর একটি গোলাপ পেয়ে মন আনন্দে ভরে উঠল। থ্যাংকস আ লট!

আপনার আন্তরিকতায় মুগ্ধ আমিও। :)
শুভেচ্ছা জানবেন!

৩৭| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩২

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: অনেক পরিশ্রম করে, অনেক তথ্য দিয়ে নতুন, পুরাতন সবাইকে সহায্য করার জন্য শুভকামনা রইল আপু। সুসময় আপনার জীবনের পরতে পরতে জড়িয়ে থাকুক।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: পরিশ্রম সার্থক হবে যদি সবার উপকারে আসে। ধন্যবাদ।

অনেক সুন্দর একটি শুভকামনা দিলেন! আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।
আপনার জীবনের প্রতি মুহূর্ত সুখের চাদরে জড়িয়ে থাকুক।

৩৮| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৮

জাহিদ অনিক বলেছেন: মোস্তফা সোহেল বলেছেন:

# জাহিদ অনিকের এই কথাটি পড়ে মজা পেয়েছি, হুম। আমি এখনো স্টুডেন্ট। অনার্স করছি দীর্ঘ্য এক যুগ ধরে।
এখন তো শুনি সেশনজট কমে গেছেরে ভাই।তয় সমস্যা মনে হয় আপনার।
এই দেশে ছাত্র হয়েই থাকুননা আজীবন।


সোহেল ভাই, সেশন জট নেই ঠিকই কিন্তু আমার ব্যপারটা ভিন্ন। আমি বেশ কয়েকটা ইউনিভার্সিটি ঘুরেছি। টো টো করে বেড়িয়েছি। মাঝখানে আড়াই বছর পড়ালেখা করিই নাই। এই জন্যই আদু ভাই হয়ে আছি।

লেখক বলেছেন:
আরেহ অনিকের ব্যাপারটি অন্য। জট সেকশনের না ওর ব্রেইনের। ও ফেলু তো তাই এই অবস্থা! হাহা, জাস্ট কিডিং! :)


বলছে তোমারে! নিজে আঁতেল তাই বাকী কেউ আঁতেল না হলে সবাইরে ফেলু মনে হয় !!!!

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:০৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনিক তুমি যে ফেলু সেটা তুমি নিজেই একদিন স্বীকার করেছ। আর আমি আঁতেল নাআআ!

আদু ভাই তোমার লাইফটা বেশ ইন্টারেস্টিং। সবার মতো একঘেয়ে নিয়মবাঁধা না! একদিন সময় করে তোমার ইন্টারেস্টিং লাইফের ইন্টারেস্টিং সব গল্প শুনব।

৩৯| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১০

জাহিদ অনিক বলেছেন: একদিন সময় করে তোমার ইন্টারেস্টিং লাইফের ইন্টারেস্টিং সব গল্প শুনব। ওরে বাবা ! আত্মজীবনী লিখতে বসে যেতে হবে তো তাহলে !

বাংলার শেষ স্বাধীন ব্লগার জাহিদ অনিকের জীবনী

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: লেখো লেখো। একই সাথে ফেলু, ফাঁকিবাজ, জংলী, ফাজিল সহ নানা গুণে গুনান্বিত তুমি। তোমার মতো মহান মানবের আত্মজীবনী পাবলিক গোগ্রাসে গিলবে! ;) :D

শেষ স্বাধীন ব্লগার? হাহাহা! মানে?

৪০| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: চমৎকার পোস্ট। নতুনরা বিষয়গুলি মেনে চললে উন্নতি করবে।
উল্যেখ্য আমার প্রথম পোস্টে মন্তব্য এসেছিল দুই বছর পর। এই সময়ে পঠিত হয়েছিল ৫ বার =p~

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভাই। আপনার মন্তব্যে আনন্দিত হলাম।

হাহাহা! আপনার এই কথাটি নতুনদের ভীষনভাবে অনুপ্রাণিত করবে। আপনার মতো জনপ্রিয় ব্লগারের এমন শুরু তাদেরও নিশ্চই শেখাবে যে ব্লগে স্থান ধৈর্য্য ও পরিশ্রমে পেতে হয়। অনেক অনেক ধন্যবাদ।

শুভেচ্ছা অন্তহীন।

৪১| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৪

জাহিদ অনিক বলেছেন: শেষ স্বাধীন ব্লগার? হাহাহা! মানে? - ও কিছু না ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:১৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হুমম, আমিও পাগলী! জংলীর কথার মানে করতে চেয়েছিলাম! তোমার কথার মানে না থাকাই তো স্বাভাবিক! :D

৪২| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৫৮

শাহাদাৎ হোসাইন (সত্যের ছায়া) বলেছেন: নতুনদের নিয়ে আপনার ভাবনা, সাজেশন ইত্যাদি অনুপ্রাণিত করে। আমি নতুন, তাই আপনার পোষ্টে
ফলো করার মত কিছু বিষয় আছে।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:১২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনার মন্তব্যে আমিও অনুপ্রাণিত হলাম। যদি কিছু শেখার মতো পান, সাহায্য হয় তবেই সার্থক বোধ করব।

পাঠ ও মন্তব্যে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।
শুভেচ্ছা!

৪৩| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:১৯

জাহিদ অনিক বলেছেন: হু! আমার এসব অসংলগ্ন কথাবার্তার কোন মানে নেই ।
ধন্যবাদ। ঘোষণাটি শেষ হল ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:২৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: শেষ থেকেই নতুন শুরু হয় বৎস! ;) :D
ভালো থেকো অনিক!

৪৪| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৯:২৪

জাহিদ অনিক বলেছেন: ভালো থেকো
- হুমায়ুন আজাদ


ভালো থেকো ফুল, মিষ্টি বকুল, ভালো থেকো।
ভালো থেকো ধান, ভাটিয়ালি গান, ভালো থেকো।
ভালো থেকো মেঘ, মিটিমিটি তারা।
ভালো থেকো পাখি, সবুজ পাতারা।
ভালো থেকো।

২৯ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৩৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: একটা কবিতা শেয়ার করলে, সেটাতে এতকিছুকে ভালো থাকতে বলছে কিন্তু আমার কথাই বলছে না। এমন কবিতা শেয়ার করার মানে আছে? বুদ্ধু কোথাকার! :D

৪৫| ২৯ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:২৮

মোহেবুল্লাহ অয়ন বলেছেন: আফা , আমিও নতুন। একটা কবিতা পোস্ট করলাম :-B । দেখি ভাগ্যে কি হয়! দুয়া করবেন

২৯ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৩৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: স্বাগতম ব্লগে। আশা করি আপনার ব্লগিং যাত্রা শুভ ও আনন্দয়ময় হবে। :)
হ্যাপি ব্লগিং!

৪৬| ২৯ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৪৫

মোহেবুল্লাহ অয়ন বলেছেন: নতুন ব্লগারদের প্রতি দরদের জন্য আপনাকে বিশেষ ধন্যবাদ। B-)

২৯ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১০:৪৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকে বিশেষ ওয়েলকাম! :)

৪৭| ৩০ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪৩

অ্যাপল ফ্যানবয় বলেছেন: ৩ দিনের জায়গকয় ২ সপ্তাহ হতে চলল, কিন্তু দেখি আমাকে এখনো পর্যবেক্ষনে রেখেছে । ঘটনা কি ?

৩০ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১১:০০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: এসব নিয়ে পোস্টেই লিখেছি। পড়ে দেখার অনুরোধ রইল।
শুভকামনা!

৪৮| ৩১ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১:৫৭

অ্যাপল ফ্যানবয় বলেছেন: পড়েছি আপু , কিন্তু এতদিন কেন পর্যবেক্ষনে রাখবে ?

৩১ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: লেখার তৃতীয় প্যারাতেই ছিল।

প্রথম কথা প্রতিদিন ব্লগে এতো নতুন সদস্যের আগমন ঘটছে যে মডারেশনের পক্ষে সবাইকে একটি নির্দিষ্ট টাইমে জেনারাল বা সেইফ করা কঠিন। আর প্রথম পাতায় সুযোগ দেবার আগে প্রত্যেক ব্লগারকে পর্যবেক্ষণ করা খুবই জরুরি। ব্লগের সুস্থ ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতেই এ নিয়মটি রয়েছে। এ নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধা হারাবেন না কখনোই।

আশা করি প্রশ্নের উত্তর পেয়েছেন।
শুভেচ্ছা।

৪৯| ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২০

অ্যাপল ফ্যানবয় বলেছেন: ধন্যবাদ আপু ।

You promised me something, do you remember ?

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৪২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: ওয়েলকাম ভাই।

না রে, কি প্রমিজ করেছিলাম?

৫০| ০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:৪৯

মলাসইলমুইনা বলেছেন: এই লেখাটা সিনোনিম-এন্টোনিম শেখার দুর্ধর্ষ উদাহরণ | এই ব্লগের প্রথম পাতায় লেখা নিয়ে যে সিনোনিম-এন্টোনিমগুলো পেলাম সেগুলো হলো:
আশা -নিরাশা (সাথে কিছু হতাশাও)
আনন্দ-নিরানন্দ
সহজ-কঠিন
তিনদিন = তিনমাস (খানিকটা বেশিও হতে পারে) এবং ইত্যাদি |
তারপরও হতাশ না হয়ে পোড়ামাটি নীতি অনুসরণকারী কিছু ব্লগারের এলেখাটি খুবই কাজে আসবে | আমি সেই ব্লগারদের মধ্যে থাকতে পারবোকি না বুঝতে পারছি না | তবুও অনেক ধন্যবাদ নতুনদের জন্য ব্লগিঙের একটা রোড ম্যাপ দেবার জন্য |

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৪৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: না অবশ্যই কিছু কাঠিন্য পদে পদে থাকবে। কিন্তু ব্লগের নিয়মনীতি মেনে চললে সেই সমস্যাগুলো সলভ করতে পারবেন। ব্লগে নিজের শক্ত একটি অবস্থান তৈরি করতে পারবেন।

আপনাকেও পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ।
শুভকামনা।

৫১| ১৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৭ রাত ৯:৪৩

শ্রোডিঙ্গার বলেছেন: প্রথম পাতায় আসতে হলে কী কী করতে হয়?

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৪৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: এই পোষ্ট এবং এর আগের পর্বটি পড়লে হয়ত কিছু আইডিয়া পাবেন।
ধন্যবাদ।

৫২| ২৫ শে জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৩

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আমার জন্য এটা একটি দারুণ উপকারী পোষ্ট ভাইয়া,অনেক ভাল লাগলো, অনেক প্রশ্নের জবাব পেলাম।

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৪৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি কোন কারণে এই পোষ্টের কিছু মন্তব্য দেখতে পারিনি। এ কারণে দেরী হয়ে গেল প্রতিমন্তব্য করতে। সেজন্যে ক্ষমাপ্রার্থী!

আপনার মন্তব্যটি পড়ে অনেক খুশি লাগছে। নতুনদের প্রশ্নের জবাব দেবার জন্যেই পোষ্টটি লিখেছিলাম। উদ্দেশ্য সফল!
ধন্যবাদ আপনাকে।

শুভেচ্ছা।

৫৩| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৬

সায়েদুল ইসলাম এর বাংলা ব্‌লগ বলেছেন: অনেক তথ্য জানতে পারলাম। লেখক ভাইকে ধন্যবাদ। আপনার নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করব।

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৫০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি কোন কারণে এই পোষ্টের কিছু মন্তব্য দেখতে পারিনি। এ কারণে দেরী হয়ে গেল প্রতিমন্তব্য করতে। সেজন্যে ক্ষমাপ্রার্থী!

আমি ভাই না রে আপু। নামের কারণে ভুল হয়েছে, ইটস ওকে।

আর তথ্যগুলো আপনার ব্লগিং জীবনকে সহজ ও সফল করবে সে কামনাই করি।
ভালো থাকুন।

৫৪| ২৯ শে এপ্রিল, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: দারুণ পোস্ট। কাজে লাগবে সবার।

২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৮:৫১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি কোন কারণে এই পোষ্টের কিছু মন্তব্য দেখতে পারিনি। এ কারণে দেরী হয়ে গেল প্রতিমন্তব্য করতে। সেজন্যে ক্ষমাপ্রার্থী!

অনেক ধন্যবাদ। সবার কাজে লাগলেই পোষ্ট সার্থক।
শুভেচ্ছা অজস্র।

৫৫| ২৬ শে মে, ২০১৮ ভোর ৪:২৫

রাকু হাসান বলেছেন: মনে হচ্ছে সকল উত্তর পেয়ে গেলাম । টপিক টু টপিক খুব সুন্দর করে বুঝিয়েছেন । আমি একদম নতুন .স্বপ্ন দেখি শেখার .ভাল লেখার .।সবে সামুতে শুরু করলাম .যদি সময় থাকে ক্ষদ্র ব্লগারের আর্টিকেল টা পড়ার নিমন্ত্রণ জানাচ্ছি । মূলত কিছু পরামর্শ ,উপদেশ পাওয়ার জন্যই নিমন্ত্রণ টা করলাম শেরে বাংলা কি নজরুলের পাওনা শোধ করতে পারবেন !

২৬ শে মে, ২০১৮ ভোর ৬:৪৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্যে অনেক আনন্দিত বোধ করছি। পোষ্টটি নতুনদেরকে সহায়তা করবে সেটাই আমার আশা।

আমি আপনার পোষ্টে গিয়েছি, এবং মন্তব্য করে এসেছি।

আপনার স্বপ্নগুলো পূরণ হোক। ব্লগে প্রচুর সময় ও মনোযোগ দিন, সহব্লগারদের পাশেই পাবেন।
শুভকামনা।

৫৬| ২৬ শে মে, ২০১৮ ভোর ৬:৪৩

কিশোর মাইনু বলেছেন: আমার প্রিয় একজন ব্লগার ভাই আপনি।
বাট এতদিনে জানলাম আপনি ভাই না আপু। :|| :||

২৬ শে মে, ২০১৮ ভোর ৬:৫২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: জ্বি? প্রিয় হলে তো আমার লেখা পড়ার কথা। কিছু কিছু লেখায় নিজের জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করি, সেগুলো পড়লে বোঝার কথা আমি মেয়ে। অন্য লেখাগুলোতে হয়ত বোঝার কথা না, তবে পরিচিতরা আপু বলেছে সেটা তো চোখে পড়ার কথা! আমি এমনিতে অবাক হইনা, জানি নিকনেম দেখে বোঝা যায়না। প্রিয় বললেন তো, সেজন্যে এতদিনে জানলেন দেখে অবাক হলাম। :)

যাই হোক, আপনার মন্তব্যে উৎসাহিত হলাম। দোয়া করবেন সবার প্রিয় হয়ে থাকতে পারি যেন।
ভালো থাকুন।

৫৭| ২৬ শে মে, ২০১৮ সকাল ৭:০৬

কিশোর মাইনু বলেছেন: খুব একটা এক্টিভ ছিলাম না আপু আগে।
আগে স্রেফ পড়তাম।
কমেন্ট না করতাম,না দেখতাম।
ইদানিং এক্টিভ হয়েছি।
আমার বগ্ল থেকে ঘুরে আসলেই বুঝবেন।

২৬ শে মে, ২০১৮ সকাল ৭:০৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: ওহ আচ্ছা আচ্ছা! সেজন্যে!

ইদানিং একটিভ হয়েছেন জেনে আনন্দিত হলাম। আশা করি একটিভ থাকবেন সামনেও।
হ্যাপি ব্লগিং!

৫৮| ২৭ শে মে, ২০১৮ দুপুর ১২:৩২

ইব্‌রাহীম আই কে বলেছেন: আপনার বেশি লেখা পড়া যাবেনা। ;)
যেটা পড়ি সেটাই প্রিয়তে না নিয়ে পারিনা। :)

একটা ব্যাপার না বললেই নয়ঃ আমি ছোট ছোট বাক্য তৈরি করতে পারিনা। বাক্যগুলো অনেক বড় হয়ে যায়। এ দোষটা কোন ভাবেই ছাড়তে পারতেছিনা!

২৭ শে মে, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহা! আরেহ তাহলে তো বেশি বেশি পড়বেন। প্রিয়তে রাখার মতো পোষ্ট মিস করবেন কেন? ;)

হুমম, এই দোষে আমিও দোষী ছিলাম। পড়াশোনার খাতিরে কোন রিসার্চ রিপোর্ট লিখতে গেলে, ইনস্ট্রাকটরদের কাছে ফিডব্যাক পেতাম যে বেশি লম্বা সেন্টেন্স, ব্রেক দেম ডাউন! আমি বুঝতাম না কিভাবে? কেননা ন্যাচারালি লম্বা হয়ে যেত। আমি নিজের লেখাটি বারবার বারবার পড়তাম। একটা বাক্য তিনবার পড়ে পাঁচবার ভাবতাম কিভাবে ভাঙ্গা যায়? মাথায় এসেই যেত। প্রথম প্রথম ধৈর্য্য রেখে কাজটি কঠিন হতো, কিন্তু এখন সহজেই করতে পারি। আর না করতে পারলে, বাক্য কমা, ও সেমিকোলনের ব্যবহার সম্পর্কে জ্ঞান রাখতে হবে।

পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ। আশা করি পোষ্টটি আসলেই আপনাকে সাহায্য করবে।
শুভেচ্ছা।

৫৯| ২৭ শে মে, ২০১৮ রাত ১১:২৪

কিশোর মাইনু বলেছেন: আমি কিছুক্ষণ আগে বরাবর ১১টায় একটি পোস্ট করলাম।
কিন্তু সেখানে টাইম শো করছে ২টা।
২টায় পোস্টটি ড্রাফট করেছিলাম।
এইখানে সেই টাইম ই শো করছে।
ব্যাপারটা একটু বুঝিয়ে বলবেন আপু???

২৮ শে মে, ২০১৮ ভোর ৫:০০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: জ্বি বলছি। একটা পোষ্ট ড্রাফট করলেন একটা সময়ে, পরে ফিরে এসে কিছু পরিবর্তন করে সেটা পোষ্ট করলেন। সিস্টেমে সেই ড্রাফটের টাইমটাই সেভড থাকবে। টাইম আপডেট হবেনা। ইভেন অনেকের সাথে এমনও হয় যে বেশ কদিন আগের ড্রাফট পোষ্ট করল, পোষ্টটি লেটেস্ট পোষ্ট না হয়ে বেশ কয়েক পোষ্ট পেছনে গিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে!

এ সমস্যা থেকে বাঁচার জন্যে, পোষ্ট করার সময়ে, একটা ব্ল্যাংক "নতুন ব্লগ লিখুন" পেইজে কপি পেস্ট করুন আপনার কম্প্লিটেড পোষ্টটি, তাহলে একদম সেই টাইমেই পোষ্টটি প্রকাশিত হতে দেখবেন।

আশা করি বোঝাতে পেরেছি। ধন্যবাদ।

৬০| ০২ রা জুলাই, ২০১৮ সকাল ১০:৩৪

জহিরুল ইসলাম সেতু বলেছেন: পোস্টটি খুব ভাল লাগলো, তাই প্রিয়তে নিলাম।
উপকারী পোষ্ট।
আমি যখন সামুতে ঢুকি, তখন সেইফ জোন বা সবুজ বাতির মাহাত্ব কিছুই বুঝতাম না। তবে সৌভাগ্যক্রমে অতি অল্প সময়েই সেইফ জোনে নিয়েছিল আমাকে। খটকা ছিল আলোচিত ব্লগে আমার পোষ্ট যায়না কেন। পরে বুঝলাম মন্তব্যের সংখ্যাটা বাড়লেই কেবল তাতে যাওয়া যায়। ঠিক কি?
আমি সাধারণ পাঠক, ব্লগে ঢুকে পড়তেই স্বাচ্ছন্দ লাগে। মাঝে মধ্যে কিছু লিখি। আলোচিত না হলেও মনে কষ্ট নেই।
মাঝখানে পাসওয়ার্ড, এমন কি ইমেইল আইডিটা ভুলে যাওয়ায় দীর্ঘ এক বছর সাত মাস নির্বাসনে ছিলাম। ব্লগে ঢুকে শুধু পড়তে পারতাম, মন্তব্য করা বা পোষ্ট করতে পারতাম না। অনেকদিন পর পুরোনো ডায়রী থেকে ইমেইল আইডি আর পাসওয়ার্ড পুনরোদ্ধার করতে পেরে স্বতস্ফুর্তভাবে আপনাকে সাথে যোগ দিতে পেরে যারপরনাই আনন্দিত। ব্যাক্তিগত অনুভূতির কথাটুকু শেয়ারের লোভ সামলাতে পারলাম না, ক্ষমা করবেন।
শুভকামনা সব সময়।

০২ রা জুলাই, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩২

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আরেহ ক্ষমা চাচ্ছেন কেন? আমার তো বরং ভালো লাগে যখন কেউ অভিজ্ঞতা, আবেগ, অনুভূতি মিশিয়ে কমেন্ট করেন।

আলোচিত ব্লগের ওপরেই লেখা থাকে যে, "আলোচিত ব্লগের পোস্টগুলো সবচেয়ে বেশি পঠিত, মন্তব্য এবং পছন্দের ভিত্তিতে প্রতি তিন ঘণ্টা পর পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হয়। এখানে মডারেশনের কোন ভূমিকা নেই।"

আমিও ভীষনভাবে আনন্দিত যে আপনি আবারো ফিরে আসতে পেরেছেন, এখন চুটিয়ে ব্লগিং করুন। হ্যাপি ব্লগিং! :)

পাঠ, মন্তব্য ও প্রিয়তে নেবার জন্যে অজস্র ধন্যবাদ।
শুভেচ্ছা।

৬১| ০৭ ই আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:২০

sedative hypnosis বলেছেন: আমার কাছে নতুন পথ চলার পাথেয়। পথ নির্দেশক এর কাছে কৃতজ্ঞ।

১৭ ই আগস্ট, ২০১৮ রাত ১০:৩৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্যে।
ভালো থাকুন।

৬২| ০১ লা মে, ২০১৯ রাত ৯:৩৭

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: দেখে গেলাম B-))

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.