নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বাংলা ভাষা অনেক সুন্দর একটি ভাষা। বাংলা আমার ভাষা। বাংলা আমার দেশ।

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন

আমি কেউ না। কবে যে কেউ হতে পারবো।

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন › বিস্তারিত পোস্টঃ

ব্যাভিচারের শাস্তি

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩৬

ব্যভিচার তথা ধর্ষন সমাজকে কুলষিত করে।

ব্যভিচারের কারণে সমাজে আল্লাহর লানৎ অবর্তীণ হয়।

ইসলামী জীবনে ব্যভিচার হারাম ও জঘন্য অপরাধ।

বিবাহিত ব্যক্তি ব্যভিচার করলে তার কি শাস্তি হবে তা কুরআন এবং হাদিসে সুস্পষ্ট করে বলে দেয়া হয়েছে।

আল্লাহ সুবহানাহু তাআলা বলেন, ‘তোমরা ব্যভিচারের নিকটবর্তী হইও না। এটা অশ্লীল কাজ এবং নিকৃষ্ট আচরণ।’ (সুরা বনি ইসরাঈল : আয়াত ৩২),

এখানে ব্যভিচারের শাস্তির দুটি হাদিস তুলে ধরা হলো-

আল্লাহ বলেন, ‘ব্যভিচারী ও ব্যভিচারিণী উভয়কে একশ’ ঘা করে বেত্রাঘাত কর। আল্লাহর বিধান কার্যকরী করবে। এদের প্রতি দয়া যেন তোমাদের অভিভূত না করে। যদি তোমরা আল্লাহ ও পরকালে বিশ্বাসী হয়ে থাক। ঈমানদারদের একটি দল যেন এদের শাস্তি প্রত্যক্ষ করে।’ (সুরা নুর : আয়াত ২)।

হাদিসে এসেছে- একবার বনি আসলাম গোত্রের এক ব্যক্তি হজরত আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহুর নিকট এসে বলল, আমি ব্যভিচারে লিপ্ত হয়েছি।

আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহু জিজ্ঞাসা করলেন, তুমি এ কথা আর কাউকে বলেছ?
সে উত্তর দিল, না।

তখন আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, তুমি আল্লাহর কাছে মাফ চাও এবং গোপনীয়তা রক্ষা কর। আল্লাহ তোমার দোষ গোপন রাখবেন এবং তোমার তাওবা কবুল করবেন।

এ কথায় আশ্বস্ত না হয়ে সে হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু নিকট গেল এবং পূর্বের মতো বলল। ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু তাকে আবু রাদিয়াল্লাহু আনহুর মতো বললেন। কিন্তু সে কিছুতেই আশ্বস্ত হতে পারল না।

অতঃপর সে হজরত রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকট এসে বলল আমার দ্বারা ব্যভিচার সংঘটিত হয়েছে।

রাসুল সা ঃঃ মুখ ফিরিয়ে নিলেন। যখন সে তার কথা ওপর জিদ ধরে রইল, তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তার পরিবারের লোকদের ডাকলেন এবং জিজ্ঞেস করলেন, ‌এ কি পাগল? এখনও কি পাগলামি করছে?

তারা উত্তর দিল না, হে আল্লাহর রাসুল!, সে সম্পূর্ণ সুস্থ।

রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকে জিজ্ঞেস করলেন, ‌তুমি কি বিবাহত না অবিবাহিত?

সে উত্তর দিল, আমি বিবাহিত।

তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকে পাথর নিক্ষেপে মৃত্যুদণ্ড (রজম) দিলেন।’

বাংলাদেশ একটি ইসলামী রাষ্ট্র। এখানে কেন ব্যভিচারী ধর্ষনকারীদেরকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা করা হয় না?

মন্তব্য ৭৮ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৭৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৪২

ডার্ক ম্যান বলেছেন: ব্যভিচার আর ধর্ষণে পার্থক্য আছে

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:১৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কি কি পার্থক্য আছে তাহা কুরআন ও হাদীসের আলোকে ব্যাখ্যা করুন।

২| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৪৩

নতুন বলেছেন: বিবাহ বহিরভুত যৌন কাজের জন্য কারুর জীবন পুরুপুরি শেষ করে দেওয়া ঠিক?

ঐ পুরুষ এবং নারী দুজনেরই সাজা হতে হবে। কারন তারা দুইটা পরিবারের মানুষের সাথে প্রতারনা করেছে। কিন্তু মৃত্যুদন্ড বেশি হয়ে যায়।

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:১৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আল্লাহ সুবহানাতায়ালা অবশ্যই সবার চেয়ে ভালো জানেন ও বুঝেন। তিনি নিশ্চয়ই সব কিছু বিবেচনা করেই ইহা নির্ধারণ করেছেন।

৩| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৪৮

ইব্‌রাহীম আই কে বলেছেন: বাংলাদেশ ইসলামি শাসনতন্ত্র অনুযায়ী চলে না, এজন্য...

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:১৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম।

৪| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


ইরান ও সৌদী আরব ব্যতিত কোন দেশ ইসলামী দেশ বলে মনে হয় না; বাংলাদেশ ইসলামী দেশ নয়; আপনার পোষ্ট অনুসারে, হযরত মোহাম্মদ (স: ) সামন্তবাদের সময় মদীনা দখল করে নিয়ে, উহার শাসক হয়ে যান; ইহা অবশ্যই সামন্তবাদ ছিল; উনার কোন লিখিত নিয়ম কানুন ছিলো বলে মনে হয় না; উনার মাথায় যা এসেছে, উনি তাই করেছেন; মানুষকে মৃতয়দন্ড দেয়া অনেক কঠিন সিদ্ধান্তের বিষয়; উনার সেই ধরণের ব্যাকগ্রান্ড ছিলো না।

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:১৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। সাংবিধানিকভাবেই ইহা একটি ইসলামী দেশ । এখানে ইসলামী নিয়ম-কানুন থাকাটাই স্বাভাবিক। বাংলাদেশ কোন ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ নয়।

৫| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৫৩

নতুন বলেছেন: ইসলাম ত্যাগের সাজা কি মৃত্যুদন্ড?

একটা বিশ্বাস থেকে সরে এলে একটা মানুষ তার বেচে থাকার অধিকার হারাতে পারে?

ধম এখনো প্রমানিত সত্য না। বিশ্বাসের ভিক্তি ৫০-৫০

কিন্তু এই বিশ্বাস ত্যাগ করলে ১০০% সত্য রক্তমাংসের মানুষের জীবন কেড়ে নেওয়া কেমন বিচার?

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:১৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কুরআন ও হাদিসের বাইরে ইসলামে আর কোন কথা থাকতে পারে না।

৬| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:২০

সুপারডুপার বলেছেন:



আল্লাহ সুবহানাতায়ালা এটাও বলেছেন : '' মুমিনগণ সফলকাম হয়ে গেছে, যারা নিজেদের নামাযে বিনয়-নম্র; যারা অনর্থক কথা-বার্তায় নির্লিপ্ত, যারা যাকাত দান করে থাকে, এবং যারা নিজেদের যৌনাঙ্গকে সংযত রাখে। তবে তাদের স্ত্রী ও মালিকানাভুক্ত দাসীদের ক্ষেত্রে সংযত না রাখলে তারা তিরস্কৃত হবে না। '' (সূরা মুমিনূন আয়াত ১-৬)

সুতরাং, ব্যাভিচারের দরকার কী ! সোজা আঙ্গুল একটু বাঁকাইয়া দাসীদের সাথে জিং জিং করা ইসলাম হালাল করেছে। মানে কেউ করে ফেললে ট্রিকি করে বলতে হবে, সে আমার দাসী। সব কিছুই মাফ হয়ে যাবে।

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:৫৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কোরআন ও হাদিস মেনে চললে আর কোন ঝামেলা থাকে না। উহাই ইসলামের মূল চাবিকাঠি।

৭| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: ক্যাচাল করতে চান কেন?
আপনি তো সাধারন মানুষ। ঝামেলায় যাবেন না।

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:৫৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কে কার সাথে ক্যাচাল করলো? বুঝতে পারিনি। আমি সাধারণ মানুষ। বেশীর ভাগ মানুষই সাধারণ । অসাধারণ মানুষ খুব কমই আছে। আমি ঝামেলা করি না। পছন্দও করি না।

৮| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:২৬

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: আপনাকে তো ধর্ম বিমূখ/অবিশ্বাসী বলেই মনে হয়েছে অনেক মন্তব্য পড়ে। আজকে হঠাৎ...

০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:৫৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কি ভাবে বুঝতে পারলেন? আমি তো কখনোই বলিনি।

৯| ০২ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৫:২৯

মীর আবুল আল হাসিব বলেছেন: মৃত্যুদন্ড, তাও আবার পাথর নিক্ষেপ করে .......... সব কিছু বেশি বেশি মনে হয় আমার কাছে।

০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: মুসলমানরা অবশ্যই কোরআন আর হাদিসের অনুসরণ করবে। এর বাইরে তাদের জন্য আর কোন বিধান থাকতে পারে না।

১০| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৫

ডার্ক ম্যান বলেছেন: কোরআন হাদিস খুব একটা বুঝি না ।
কারো মতের বিরুদ্ধে যৌন সঙ্গম করা ধর্ষণ । আর বিবাহ বহির্ভূত যৌন সঙ্গম ব্যভিচার বলে মনে হয় ।

০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: যেটাই হোক শাস্তি কিন্তু একই রকম। কোন মাফ নেই।

১১| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩০

ডার্ক ম্যান বলেছেন: বাংলাদেশ নামে ইসলামী রাষ্ট্র । বাংলাদেশের আইনে ব্যভিচারের শাস্তি আছে বলে মনে হয় না ।

০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: নামে মুসলমান হলে লাভ কি? কাজে কর্মে মুসলিম হতে হবে।

১২| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৭

সত্যপীরবাবা বলেছেন: এই হাদিস বিষয়ে একটা প্রশ্ন আছে:
কোরানের আয়াতে আছে ১০০ বেত্রাঘাত, তাহলে আল্লাহর রসুল পাথর ছু্ঁড়ে হত্যা করার আদেশ দিলেন কেন? এটা কি আল্লাহের নির্দেশের বাইরে যাওয়া নয়?

আরো কিছু প্রশ্ন আর পর্যবেক্ষন আছে হাদিসটির বর্ণনা বিষয়ে। বাংলা লেখায় এখন সড়গড় হইনি। তাই পরে আসছি।

০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: এই বিষয়ে ফায়সালা হলো, অভিযুক্ত যদি বিবাহিত হয় তাহলে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা। আর যদি অবিবাহিত হয় তাহলে বেত্রাঘাত করে শাস্তি। আমার মনে হয় তাকে বিবাহ করার সুযোগ দেয়ার জন্যই পাথর না নিক্ষেপ করে বেত্রাঘাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

১৩| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০২

সুপারডুপার বলেছেন:



লেখক বলেছেন: কোরআন ও হাদিস মেনে চললে আর কোন ঝামেলা থাকে না। উহাই ইসলামের মূল চাবিকাঠি।

- হাঁ ঠিকই বলেছেন। টাকা থাকতে হবে এবং কোরআন ও হাদিস মেনে চলতে হবে। তাহলে লুইসদের আর কোন ঝামেলায় থাকবে না। এমনকি দাসীকে বাপে পুতে মিলে মার্ডার করে প্যাকেট করে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিলেও কিছু হবে না। টাকা থাকলে, ইসলাম যৌনতার ব্যাপারে অনেক লিবারেল। এছাড়াও, আমার কিছু পরিচিত ইরানিরা বলেছে, ইরানে ওয়ান নাইট হালাল বিয়ের ব্যবস্থাও আছে। কিন্তু এইগুলো না করে লুইস হইলে নিচের ইউটিউব ভিডিওর (AP ও FRANCE 24) মত অবস্থা হতে পারে :



০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:০৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: প্রতিটি ধর্মের জন্যই ধর্মগ্রন্থই হলো সর্বোচ্চ হয় সেই বিবেচনায় ইসলাম ধর্মের জন্য কুরআন ও হাদীসই হলো সর্বোচ্চ আইন।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:৩৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সুন্দর ভিডিও শেয়ার করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

১৪| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১০

নতুন বলেছেন: যারা বুঝতে চায় না তাদের বোঝাতে পারবেন না ভাই।

অনেক আরব দেশে ধষনের স্বীকার নারীকে বিবাহ বহিরভুত যৌন সম্পকের জন্য সাজা দেওয়া হয়েছে।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:০৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আল্লাহ সুবহানাতায়ালা সবাইকে হেফাজত করুন।

১৫| ০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


মালয়েশিয়াতে চাষ করার মতো খালি জমি দেখেছেন?

০২ রা জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: জমি আছে অনেক। অনেকেই লিজ নিয়ে চাষবাস করছেন। প্রচুর ফসল উৎপাদন হচ্ছে। বাঙালিরা উহতে কাজ করছেন।

১৬| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৮:০৬

সাইন বোর্ড বলেছেন: রিলিজিয়াস থিংকিং, ধর্ম নিয়ে আগে লিখেছেন বলে আমার পড়েনা ।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:০৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: ধর্ম নিয়ে প্রচুর পড়তে হবে । শুনতে হবে ওয়াজ।

১৭| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৮:২৮

ডার্ক ম্যান বলেছেন: ব্যাংকের সুদ বন্ধ করতে পারবেন

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৮:৫৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: দেখুন আমি কিন্তু আমজনতার একটি আম। বাস্তবায়ন করা আমার কাজ নয়। যিনি রাষ্ট্রের দায়িত্ব থাকবেন তার দায়িত্ব এটা। আমি এক জন জনগণের অংশ মাত্র।

১৮| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৮:৩২

সত্যপীরবাবা বলেছেন: @লেখক
খটকা তো আরো বাড়ায় দিলেন।
কোরানে আয়াতে যখন সুস্পষ্ট ১০০ বেত্রাঘাত, তখন আবার ফায়সালা কি? নবীরও তো যতদুর জানি আল্লাহের নির্দেশের বাইরে যাওয়ার ক্ষমতা নাই। এখানে সুস্পষ্ট নির্দেশ ১০০ বেতের বাড়ি। বেত লোহার, না সোনার নাকি বা্ঁশের, বা্ঁশের হলে সুদি আরব না ইরানের তেল মাখায় পাকা করতে হবে, বেতের বাড়ি আমার মত দুবলা পাতলা লোক নাকি আর্নল্ড সোয়ার্জনিগার দিবে এইগুলায় ফায়সালা লাগলেও লাগতে পারে।

কোরানের সুস্পষ্ট নির্দেশের উপর যদি ফায়সালা দেওয়াই যায়, তাহলে কে কয় ইসলাম rigid. এত রাবারের মত flexible. ফায়সালা দিয়া যা ইচ্ছা তাই করা যায়।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:০৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: যিনার শাস্তি হাদিস শরিফ থেকেঃ হযরত আবূ হুরায়রা (রাঃ) ও যায়দ ইবনে খালিদ (রাঃ) থেকে বর্ণিত। দুই ব্যক্তি রাসূলুল্লাহ ﷺ এর নিকট অভিযোগ উত্থাপন করল। একজন বলল, ইয়া রাসূলুল্লাহ ﷺ আমাদের মাঝে আল্লাহর কিতাব মোতাবেক ফয়সালা করে দিন। অপরজন ছিল অধিক বুদ্ধিমান।

সেও বলল, হ্যাঁ, ইয়া রাসূলুল্লাহ ﷺ আমাদের মাঝে আল্লাহর কিতাব মোতাবেক ফয়সালা করে দিন। রাসূলুল্লাহ ﷺ বললেন, আচ্ছা বল। লোকটি বলল, আমার ছেলে এই ব্যক্তির কাজ করত। সে তার স্ত্রীর সাথে যিনা করল। তখন তারা আমাকে বলল যে, আমার ছেলেকে প্রস্তর নিক্ষেপ করে হত্যা করা হবে।

তখন আমি আমার ছেলের মুক্তিপণ হিসেবে একশত বকরী ও আমার একটি বাঁদী দিয়ে দিলাম। তারপর আমি আলেমদের জিজ্ঞাসা করলাম। তাঁরা বলল, আমার ছেলেকে একশত বেত্রাঘাত করতে হবে এবং এক বছরের জন্য দেশান্তর করতে হবে। আর তার স্ত্রীকে প্রস্তর নিক্ষেপে হত্যা করতে হবে।


তখন রাসূলুল্লাহ ﷺ বললেন, শোন, আমার জান যার হাতে তার শপথ করে বলছি, আমি অবশ্যই তোমাদের মাঝে আল্লাহর কিতাব মোতাবেক ফয়সালা করব। তোমার বকরী এবং বাঁদী তোমার নিকট ফিরিয়ে দেয়া হবে।


তোমার ছেলেকে একশত বেত্রাঘাত করে হবে এবং এক বছরের জন্য দেশান্তর করা হবে। তারপর উনায়স আসলামী (রাঃ) কে বললেন, হে উনায়স! এই লোকের স্ত্রীর নিকট যাও।

যদি সে স্বীকার করে, তবে তাকে প্রস্তর নিক্ষেপ করে হত্যা করো। তারপর মহিলাটি যিনার কথা স্বীকার করলে তাকে প্রস্তর নিক্ষেপে হত্যা করা হল।” (বুখারী, মুসলিম, তিরমিযী, নাসাঈ, আবূ দাউদ, ইবনে মাজাহ, মুসনাদে আহমদ, মুয়াত্তা মালিক, দায়িমী

১৯| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:১৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ঘরে ইসলাম থাকলে সমাজেও ইসলাম কায়েম হবে। তাবলীগ জামাত এই কথা বলে

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:৩৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: এখন তো ঘরে ঘরে হুজুর আছে। নারীরা বোরখা পরছে । দেশটাই তো বদলে গেছে।

২০| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:৩৫

সত্যপীরবাবা বলেছেন: @লেখক
আমি দু:খিত যে আমার বক্তব্য বোঝাতে পারি নাই।
হাদিসে পাথর ছু্ঁড়ে হত্যার বিধান আছে কি নাই সেটা আমার প্রশ্ন নয়।

আমার খটকা এই নিয়ে যে কোরানের সুস্পষ্ট নির্দেশের বাইরে যাও্য়ার (কিছু যোগ করার বা বাদ দেবার) এখতিয়ার ইসলাম কাউকে দেয় কি না। কোরানের আয়াতে যখন সুস্পষ্ট ১০০ বেত্রাঘাত (কোনরকম ব্যতিক্রমের উল্লেখ নাই, লক্ষ্য করুন) সেখানে ব্যক্তির অবস্থা বিশেষে (বিবাহিত/অবিবাহিত) বেত বা পাথর শাস্তির উপাদান হিসেবে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত কি সহজ বাংলায় খোদার উপর খোদকারী না?

যদি বলেন যে ইসলাম সেই অধিকার দেয়, ইসলাম অতি নমনী্য় বলতেই হবে(?)।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ১০:৩৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনার প্রশ্নের উত্তর আগেই দেওয়া হয়ে গেছে।

২১| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ১০:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: ১৩ নং মন্তব্যকারী সুপারডুপার যে ভিডিও দুটা দিয়েছেন। সেটা দেখে প্রচন্ড মন খারাপ হয়েছে।

০২ রা জুন, ২০২০ রাত ১০:৩৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: মন খারাপ করবেন না । আল্লাহ সুবহানাতায়ালা আমাদের যে বিধান দিয়েছেন তা মানতেই হবে।

২২| ০২ রা জুন, ২০২০ রাত ১০:৫৭

সত্যপীরবাবা বলেছেন: আপনার ব্লগের লেখা আর কমেন্ট থেকে আপনি প্যাচালো মানুষ মনে হয় নাই। যা বিশ্বাস করেন তা বলতেও সংকোচবোধ করেন না বলেই ধারনা করি।

তাই সরাসরি উত্তরের অনুরোধ করছি
কোরানের সুস্পষ্ট নির্দেশের বাইরে যাও্য়ার (সংযোজনের বা বিয়োজনের) এখতিয়ার ইসলাম কাউকে দেয় কি না।

০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
আপনার কি মনে হয় যে, আমি ইসলামের মালিক? পড়াশোনা করুন। জানুন। ভালো থাকবেন সব সময়। ধন্যবাদ।

২৩| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ১:৩০

অনল চৌধুরী বলেছেন: বাংলাদেশ একটি ইসলামী রাষ্ট্র। এখানে কেন ব্যভিচারী ধর্ষনকারীদেরকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা করা হয় না?- কারণ এরশাদ নামে একটা অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী খুনী,লম্পট-ব্যাভিচারী,মদখোর,চোর,মিথ্যাবাদী ধর্ম ব্যবসায়ী ভন্ড ১৯৮৮ সালে দেশে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণা কররেছিলো,যার জীবনে ধর্মের কেনো প্রভাবই ছিলো না।

তাই সে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জনের জন্য দেশে রাষ্ট্র ধর্ম ঘোষণা করলেও ধর্মীয় কোনো আইন চালু করেনি। কারণ সেটা করলে তাকেই হাজারবার পাথর ছুড়ে হত্যা করা হতো আর চুরির অপরাধে হাত কেটে ফেলা হতো।

আর সেমেটিক সব ধর্মেই ব্যাভিচারের শাস্তি পাথর ছুড়ে হত্যা করা।

তবে যিশু খ্রিস্টের কাছে তার শিষ্যরা এক মহিলাকে পাথর ছুড়ে হত্যা করার দাবী জানালে যিশু বলেন,তোমাদের মধ্যে যে জীবনে কোনোদিন ব্যাভিচার করেনি,সেই এই মহিলাকে আগে পাথর মারো। কিন্ত শিষ্যরা সবাই মাথা নীচু করে চুপ করে ছিলো।
সুতরাং নিজের আচরণই অন্যকে শিখাতে হয়।

০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: অসাধারণ সুন্দর মন্তব্যের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন সব সময়।

২৪| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ২:৩৮

সুপারডুপার বলেছেন:



লেখক বলেছেন: সুন্দর ভিডিও শেয়ার করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ
- সুন্দর ভিডিও ? বলেন কী ? B:-) B:-) B:-)



মরমী সূফী মানসুর আল–হাল্লাজ একসময় ধ্যানরত অবস্থায়, তিনি উচ্চারণ করলেন ("আনাল্ হাক্ক";) "আমিই পরম সত্য"। এর কারণে তত্কালীন সময়ে এই ধারণা গড়ে উঠে যে, তিনি খোদাত্ব দাবি করছেন। আরেকটি চরম বিতর্কের তৈরী হয় যখন তিনি দাবি করেন যে, "আমার পাগড়িতে শুধু খোদা ছাড়া আর কোনো কিছুই প্যাঁচানো নেই" । এই ধরনের কথা উচ্চারণের কারণে তিনি লম্বা বিচারকার্যের সম্মুখীন হন এবং দীর্ঘ ১১ বছর বাগদাদ নগরে কারাবাস করেন। অবশেষে উনাকে আব্বাসীয় খলিফা আল মুকতাদির এর আদেশে ৯২২ খ্রিষ্টাব্দের ২৬শে মার্চে জানোয়াররা পাথর ছুড়ে ক্ষত বিক্ষত করে, এর পরে হত্যা করে তার দেহকে টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলে, তারপর সেই কাটা দেহাবশেষকে পুড়িয়ে ফেলে ।

হাল্লাজকে যখন বিচারের কাঠগড়ায় নিয়ে যাওয়া হয়, একজন সূফি উনাকে জিজ্ঞেস করেন যে, "প্রেম কি?"। তিনি জবাব দেন যে, "তুমি আজ, কাল, আর পরশুদিন তা নিজ চোখেই দেখবে"। সেদিন তাকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়, তার পরের দিন তার দেহাবশেষ পোড়ানো হয়, আর তার পরের দিন তার দেহভস্ম বাতাসে মিলিয়ে ফেলা হয়।

(রেফঃ লিংক বাংলা উইকি মানসুর আল–হাল্লাজ)

নতুন ভাই, সাজ্জাদ ভাই ও ব্লগ কবিরা (বিশেষে করে কবি ইসিয়াক, কারণ একবার উনি কালী বন্দনা করেছিলেন) বুঝতেই পারছেন, শুধু ইসলাম ত্যাগ না, ভিন্ন চিন্তাধারার হলেও কী হতে পারে !

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

২৫| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৩:১৪

সুপারডুপার বলেছেন: উপরের রেফঃ লিংক কাজ করছে না। নিচেরটা কাজ করবে :
মানসুর আল–হাল্লাজ

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

২৬| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৩:১৯

সুপারডুপার বলেছেন: সাজ্জাদ ভাই , মন্তব্য ২৫ প্লিজ মুছে দেন। ঐখানেও লিংক কাজ করছে না।

(রেফঃ লিংক উইকি মানসুর আল–হাল্লাজ) । এর পরে Languages থেকে বাংলা সিলেক্ট করুন।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: ইংরেজি থাকলেও সমস্যা নাই। ইংরেজি ভাষা খুব ভালো একটি ভাষা। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

২৭| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৩:৪৯

কানিজ রিনা বলেছেন: আমাদের দেশে নব্বই ভাগ মুসলিমের বাস।
দেশ ইসলামিক হলে কি নাহলেই কি।
এখানে রাস্তায় ছিনতাইকারী ধরা পড়লে
সাপের মত পিটিয়ে মারে,শিশু চোরকেও
বেঁধে পিটানো হয়, যারা পিটায় তারা কেউই
ইসলামের ছাত্র না বা ইসলামে কি আছে
জানেনা।
অথচ ব্যাভিচারের বিচারতো হয়ই না, ধর্ষনেরও
বিচার হয়না,আমার মতে ধর্ষককে হাতে নাতে
ধরতে পারলে সেখানেই তাকে গাছে ঝুলিয়ে
ফাঁসী দেওয়া, কারন আমাদের দেশের
আইনে ধর্ষক টাকার জোরে বেঁচে যায়।

ব্যাভিচার হোল বিবাহীত পুরুষ অন্য নারীর
সাথে অবৈধ সম্পর্ক করে তা একের অধিক
হলে। আমাদের দেশে এর কোনই বিচার নাই।

ছবি দুইটা বিভৎস,


০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

২৮| ০৩ রা জুন, ২০২০ ভোর ৫:৩৩

সুপারডুপার বলেছেন:



@সত্যপীরবাবা,
তোরাহ্ তে পাথর ছুড়ে মারার কথা আছে (https://en.wikipedia.org/wiki/Stoning)। তোরাহ্ও কিন্তু খোদার কথা। কুরআনে হাত কাটা ও হত্যার কথা বলা থাকলেও, কোন অপরাধের জন্য পাথর ছুড়ে হত্যার কথা বলা হয়নি। তবে, কোরআন অনুসারে নবীদের শত্রুরা, কাফের মুশরিক প্যাগানরা নবীদের পাথর ছুড়ে হত্যার থ্রেট মারছে (রেফঃ নিচে ):
----------------------------------------------------------------------------
আল -কোরআন অনুসারে :
* তারা বলল, হে নূহ যদি তুমি বিরত না হও, তবে তুমি নিশ্চিতই প্রস্তরাঘাতে নিহত হবে। (২৬:১১৬)
* পিতা বললঃ যে ইব্রাহীম, তুমি কি আমার উপাস্যদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছ? যদি তুমি বিরত না হও, আমি অবশ্যই প্রস্তরাঘাতে তোমার প্রাণনাশ করব। (১৯:৪৬)
*তারা যদি তোমাদের খবর জানতে পারে, তবে পাথর মেরে তোমাদেরকে হত্যা করবে, অথবা তোমাদেরকে তাদের ধর্মে ফিরিয়ে নেবে। (১৮:২০)
*তারা বলল, আমরা তোমাদেরকে অশুভ-অকল্যাণকর দেখছি। যদি তোমরা বিরত না হও, তবে অবশ্যই তোমাদেরকে প্রস্তর বর্ষণে হত্যা করব এবং আমাদের পক্ষ থেকে তোমাদেরকে যন্ত্রনাদায়ক শাস্তি স্পর্শ করবে। (৩৬:১৮)
* তারা বলল-হে শোয়ায়েব (আঃ) আপনি যা বলেছেন তার অনেক কথাই আমরা বুঝি নাই, আমরা তো আপনাকে আমাদের মধ্যে দূর্বল ব্যক্তি রূপে মনে করি। আপনার ভাই বন্ধুরা না থাকলে আমরা আপনাকে প্রস্তরাঘাতে হত্যা করতাম। (১১:৯১)
---------------------------------------------------------------------------------
কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে নবীদের অনুসারিরাই কাফের মুশরিক প্যাগান ভিন্ন চিন্তাশীলদের ও ব্যাভিচারীদের পাথর ছুড়ে হত্যা করার থ্রেট মারে ও করে দেখায়। হাদীস হয় নবী মোহাম্মদ (সঃ ) করে দেখিয়েছেন অথবা অনেক ঘাপলা আছে। কারণ হাদীস নবী মোহাম্মদের (স ) মৃত্যুর ২০০ বছর পরে লিপিবদ্ধ হয়। আপনি ঠিকই বলেছেন, ''তাহলে কে কয় ইসলাম rigid. এত রাবারের মত flexible. ''; যেখানে কোরআন হচ্ছে rigid, আর হাদিস হচ্ছে রাবারের মত flexible। আপনি নিজেও হাদিস লিখতে পারবেন ও করিয়ে দেখাতে পারবেন, এর পরে আপনার ফলোয়ার দ্বারা এপ্রুভড এন্ড একসেপ্টেড করে নিলেই কেল্লাফতে। যত বেশি ফলোয়ার, তত বেশি বিশুদ্ধ হাদিস।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

২৯| ০৩ রা জুন, ২০২০ ভোর ৬:৪২

কল্পদ্রুম বলেছেন: রেফারেন্সগুলোতে (বিশেষত ১৮ নম্বর কমেন্টের উত্তরে) দেখছি যিনি যীনা করেছেন সে নিজে স্বীকার করেছে।তারপর তার শাস্তি হচ্ছে।তার মানে স্বীকার না করলে শাস্তি হবে না।ধরা যাক কেউ যদি অন্য কারো বিরুদ্ধে ব্যভিচারের অভিযোগ করে।তাহলে অভিযোগকারীকেই তার অভিযোগ প্রমাণ করতে হবে।এর আগে মোল্লা মৌলভির জোর করে শাস্তি দেওয়ার সুযোগ নেই।তাই তো?

প্রথম ক্ষেত্রে।যিনি অপরাধ স্বীকার করেছেন তিনি কেন অপরাধ স্বীকার করবেন যখন শাস্তির কথা তিনি জানেন?বিচারিক আদালতে অপরাধী অপরাধের কথা কখন স্বীকার করে?নিশ্চয়ই স্বীকার করলে মুক্তি পাবে এই আশায় নয়।

এই শাস্তি বাংলাদেশে কেন হয় না?

প্রথমত বাংলাদেশ ইসলামিক দেশ না এইটা অন্য মন্তব্যে বলা হয়েছে।তাই ইসলামি আইন মানার জন্য দেশের কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

তবে বেশিরভাগ মানুষ মুসলিম দাবী করেন।তারা কেন মানে না?এইটার সোজা উত্তর জানি না।প্যাচানো উত্তর হলো— ধরা যাক।কেউ ব্যভিচার করছে এইটা প্রমাণ করা হলো।শরীয়াহ আইনে যা ব্যভিচার।সিভিল আইনে তা এডাল্টারি।এখন যাকে শাস্তি দিবেন সে যদি বলে আমি শরীয়াহ আইন মানি না।সিভিল আইনে বিচার হোক।তখন তো দেশের মানুষের কিছু করার নেই।

যা বুঝাতে চাচ্ছি তা লিখতে পারলাম কি না কে জানে!

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩০| ০৩ রা জুন, ২০২০ ভোর ৬:৪৯

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: ভিডিওগুলো সরিয়ে নেয়াই উচিত। কোনো মনুষ্যপ্রজাতি এই ধরণের পৈশাচিক ও বর্বর আচরণ করতে পারে না।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: এ সবই ধর্মের বিধান। ধর্ম মানতে হলে আর কি করা। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩১| ০৩ রা জুন, ২০২০ ভোর ৬:৫৭

কল্পদ্রুম বলেছেন: বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। সাংবিধানিকভাবেই ইহা একটি ইসলামী দেশ । এখানে ইসলামী নিয়ম-কানুন থাকাটাই স্বাভাবিক। বাংলাদেশ কোন ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ নয়।

একমত নই।রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম মানেই আমরা ইসলামিক দেশ নই।আমাদের সংবিধান আছে।ইসলামিক দেশে অন্য কোন সংবিধান থাকতে পারে না।এদেশে শরীয়াহ আইন একমাত্র আইন না।খুব বেসিক পার্থক্যই যদি বলি।বাংলাদেশ ইসলামিক দেশ হলে তার তো জাতীয় সঙ্গীতই থাকার কথা ছিলো না।এখন অন্য ইসলামিক দেশের উদাহরণ দিতে পারেন।সেক্ষেত্রে বলবো চাঁদগাজির বক্তব্য বেশি সঠিক।পৃথিবীতে প্রকৃতপক্ষে ইসলামিক দেশ কোনটাই নাই।ইসলামিক দেশ একটি ইউটোপিয়ান আইডিয়া।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩২| ০৩ রা জুন, ২০২০ সকাল ৯:৩৯

সুপারডুপার বলেছেন:



ভিডিও ২টির , প্রথমটি নিউজ মিডিয়া Associated Press (AP) এর ও দ্বিতীয় টি France 24 এর প্রোগ্রাম। ভিডিও ২টি থাকলে ব্লগ নিয়ম লঙ্ঘন করার কথা না। পোস্টের গুরুত্ব বোঝার জন্য ভিডিও ২টি থাকা দরকার। তবে আমি ১৮+ যোগ করতে ভুলে গেছি। এইজন্য ক্ষমাপ্রাথী।

সবার জন্য জানাচ্ছি : ভিডিও ২টি ১৮+

সাজ্জাদ ভাই , প্লিজ ঐ মন্তব্যের প্রতিমন্তব্যেও ১৮+ ভিডিও বলে দেন।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার জানামতে কমবয়সীরা এই ব্লগ পড়ে না। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩৩| ০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ১২:১৬

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
প্রেম করলে পাথর ছুড়ে হত্যা।
ধর্ষনের কোন বিচার নেই।
সৌদি আরবে যে সব কাজের মহিলা ধর্ষিত হয়েছিল, বিচার চেয়ে কেউ বিচার পায় নি।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: তাদের বিচার হওয়া উচিত।
আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩৪| ০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ১:০৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ঐ মিয়া আপনি ধর্মের কিছু জানেন? ধর্মের প্রাথমিক জ্ঞান কি আছে আপনার? অযথা একটা ফেতনা সৃষ্টি করছেন। যত্তসব ফাউল লোক।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: কিছু না জানলেও চলবে।
এখানে সরাসরি হাদিস-কোরআনের সূত্র উল্লেখ করে বলা হয়েছে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩৫| ০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ১:৫৭

জিকরুল বারী তমাল বলেছেন: ব্যভিচার আর ধর্ষণ কখনোই এক নয়।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩৬| ০৩ রা জুন, ২০২০ দুপুর ২:৪১

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সমকামীতা ইসলামের দৃষ্টিতে আরও বড় পাপ। আল্লাহর গজব অবতীর্ণ হওয়ার ঘটনা কুরআনে আছে। লূত আঃ এর কওম যেখানে ডেড সী আছে।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩২

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সব ধরনের অনাচারের শাস্তি হওয়া দরকার।
আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

৩৭| ০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: মন খারাপ করবেন না । আল্লাহ সুবহানাতায়ালা আমাদের যে বিধান দিয়েছেন তা মানতেই হবে।

এরকম বিধান আমি মানি না।

০৩ রা জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: মহান আল্লাহ সুবহানাতায়ালা আপনাকে হেদায়েত দান করুন । আমীন।

৩৮| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৮:০৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: এদেশের ৯৫-৯৯% লোক একইসাথে দুর্নীতিবাজ এবং ( অথবা) ব্যাভিচারী।
তাই কোনোটারই শাস্তি হয়না।

০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:১৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বাংলাদেশে ধর্ম হচ্ছে সমাজের নিচু স্তরের মানুষকে দমিয়ে রাখার জন্য একটা হাতিয়ার মাত্র। উচু স্তরের মানুষেরা ইহাকে তাদের প্রয়োজন অনুসারে ব্যবহার করে। তাই দেখা যায় দরিদ্র ঘরের ছেলেমেয়েরাই মাদ্রাসায় পড়তে যায় । বড়লোকের ছেলে মেয়েরা পড়তে যায় অক্সফোর্ড , কেমব্রিজ , হাভার্ড ইত্যাদি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

ধর্ম এই শ্রেণীর মানুষগুলোকে কখনোই উপরে উঠতে দিবে না।

৩৯| ০৩ রা জুন, ২০২০ রাত ৯:২৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: মাদ্রাসা শিক্ষা বন্ধ করার দাবী করলে কালই আপনার ফাসী চাওয়া হবে যদিও নেতাদের কারো ছেলে-মেয়েরাই মাদ্রাসায় পড়ে না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.