নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সেলিম আনোয়ার

[email protected] Facebook-selim anwar বেঁচে থাকা দারুন একটা ব্যাপার ।কিন্তু কয়জন বেঁচে থাকে। আমি বেঁচে থাকার চেষ্টা করি।সময় মূল্যবান ।জীবন তার চেয়েও অনেক বেশী মূল্যবান।আর সম্ভাবনাময়।সুন্দর।ঢাকাবিশ্বদ্যিালয়ের পাঠ চুকিয়ে নিরস চাকুরীজীবন।সামনে আরও নিরস ভবিষ্যৎ। নিরস জীবন সরসভাবে কাটানোর প্রচেষ্টায় আমি সেলিম আনোয়ার।

সেলিম আনোয়ার › বিস্তারিত পোস্টঃ

একজন জনকের কথা..

২১ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:১৮


বাবা,
পড়ে তোমায় মনে— আজিকার এই দিনে..

খোকন সোনা এই আমাকে,
জড়িয়ে ধরে
যখন বাবা বলে ডাকে ,
প্রাণ জুড়িয়ে যায় আমার—
মনে পড়ে যায়, যে তোমাকে।

বাবা,
এখন আমি নই যে ছোট আর,
শুধু আছে ছোট বেলার সেইসব স্মৃতি;
তোমার কাছে আমার বায়নার।
পরীক্ষায় প্রথম হলে
আমার জন্য থাকত পুরস্কার।

প্রতি ঈদে নতুন জামা, আমায় তুমি কিনে দিতে,
তোমার উপহার, বাবার হওয়ার
গুরু দায়িত্ব শুধু— কড়ায়গণ্ডায় তুমি বুঝে নিতে!

মনে পড়ে— এই তো সেদিন
তুমি ছাড়া ঈদের গোসল হতো না আমার।
আমার এই অকালকুষ্মাণ্ড জীবন
নাকি তোমারই উপহার।

ছোট্ট বোনের কোলজুড়ে এসেছে ফুল পরী
তোমার নিষেধ করোনার এই দিনে
আমি যেন নিরাপদে
হোমকোয়ারেন্টাইনে থাকি।

বাবা মার অবাধ্য— আমার আর হয়ে ওঠে না
অন্তঃসত্ত্বা বোনও যে আছে তাদের সাথে
তাই বোনের এমন প্রয়োজনের দিনে
আমার পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ হয় না।

আমি শুধু মনে মনে ভাবি
ছোট্ট বোন আমার, ক্ষমা করে দিস—
এবারও পারিনি মেটাতে
তোর বড় ভাইয়ের দাবি।

তুই যেন বাবা মায়ের মতই
আমায় নিয়ে চিন্তিত খুব—ই।

আমিও যে— এক বাবা
সন্তানের দাবি পূরণে কখনো হইনা পিছপা।
থাকে যদি ঝুঁকি আমি হাসিমুখে ঠিকই
—গ্রহণ করি তা।

সব কিছুর দায় যায় এড়ানো
বাবার গুরু দায়ভার, করোনাও মানে না।

বাবা কী আর জানে ?
পুত্র তাঁর আত্নত্যাগের দৃষ্টান্ত যেন এক
দেশের জন্য দশের জন্য জীবন দিতে জানে
বাবাটার বুকে শুধু স্নেহ
সন্তান তার সর্বদা যেন— থাকে দুধে ভাতে ।

এমন বাবার কি আর হয় তুলনা?

আমার বাবার পিতৃঋণ শোধ হয়েছে— সেই কবে!
দাদা যখন মৃতপ্রায় শত্রুদের আক্রমণে,
নিজের জীবন বাজি রেখে শত আঘাত শয়ে
তিনিই তার নতুন জীবন দিয়ে ছিলেন যবে,
পাকিদোসরদের কড়াল গ্রাস থেকে।

এমনই আমার বাবা
নীতির প্রশ্নে তিনি যে, আজও আপোষহীন;
বাবার জন্য তাই বিনম্র শ্রদ্ধা
আমার— যেন অন্তহীন।



উৎসর্গঃ সকল বাবা।

ছোটবেলায় পড়েছিলাম ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুর অন্তরে । সকল বাবার জন্য শুভকামনা করোনার এইদিনে ।







মন্তব্য ১১ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (১১) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৩১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: একরাশ  মুগ্ধতা ।

২১ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৩৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কমেন্ট এবং পাঠে অনেক ধন্যবাদ।নিরন্তর শুভকামনা আপনার জন্য

২| ২১ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৫৬

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




বাবা যখন সকালে কাজের উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বাহির হোন। ছোট সন্তানগুলি পিছন থেকে কান্না করতে থাকে, বাবার সাথে যাওয়ার জন্য। না নিয়ে গেলে চিৎকার করে কাঁদতে থাকে। কতো কষ্ট করে সন্তানকে সত্য-মিথ্যা আশা দিয়ে যেতে হয়। রাস্তায় চলার পথে বার বার সন্তানের চোখে পানি সেই বাবার অন্তরে ভাসে। কিন্তু সেই সন্তান যখন বাড়িতে থাকেনা, তখন সেই বাবাদের বাড়ি হতে বের হওয়ার সময়, নিজ চোখের পানি নিজ হাতে মুছে বের হতে হয়! এটা যে বাবাদের জন্য কতো কষ্টের বিষয় তা বুঝানোর ভাষা আমার জানা নেই। দোয়া করি আল্লাহ যেন এমন বাবাদের দুঃখ অতি সত্বর দুর করে দিয়ে বাবা ও সন্তানের ভালোবাসা বৃদ্ধি করে দেয়। - হুমায়ূন আহমেদ।




২১ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৪:২৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কাণ্ডজ্ঞানহীন কিছু বাবাও আছেন। তারা বাবার মহান সত্ত্বাটাকে অপদস্ত করেন। এসব বাবা বোধোদয় হোক। ভাল থাকুন সবসময় এ শুভকামনার থাকলো ।

৩| ২১ শে জুন, ২০২০ দুপুর ২:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি শুধু আপনার বাবার কথা না- সবার বাবার কথাই লিখেছেন।

২১ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৪:৩০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: বাবারা এমনই হোন। আমার বাবার জন্ম সাল ১৯৫২ । হুমায়ূন ফরীদির জন্মসালও ১৯৫২ । দুজনই জাবি তে অধ্যায়ন করেন ।

৪| ২১ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৫:২৭

মিরোরডডল বলেছেন:



এতো রক্তের সাখে রক্তের টান
স্বার্থের অনেক উর্ধ্বে
হঠাৎ অজানা ঝড়ে তোমায় হারালাম
মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ল
বাবা কতদিন কতদিন দেখিনা তোমায়

২১ শে জুন, ২০২০ রাত ৮:২০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: জেমসের বিখ্যাত সেই গান। আমার অনেক প্রিয় ।

৫| ২২ শে জুন, ২০২০ রাত ১২:২০

মৃন্ময়ী শবনম বলেছেন: পৃথিবীতে অসংখ্য খারাপ মানুষ আছে কিন্তু একজনও খারাপ বাবা নাই। - লেখক হুমায়ূন আহমেদ। পৃথিবীর সকল বাবাকে বাবা দিবসের শুভেচ্ছা।

২২ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৫:৩৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কমেন্টে এবং পাঠে অনেক ধন্যবাদ।নিরন্তর শুভকামনা ।পৃথিবীর সকল বাবাকে বাবা দিবসের শুভেচ্ছা।

৬| ২২ শে জুন, ২০২০ রাত ১:২৩

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: মারহাবা!

চার নম্বর প্যারাগ্রাফে সম্ভবত একটা বানান ভুল আছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.