নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সেলিম আনোয়ার

[email protected] Facebook-selim anwar বেঁচে থাকা দারুন একটা ব্যাপার ।কিন্তু কয়জন বেঁচে থাকে। আমি বেঁচে থাকার চেষ্টা করি।সময় মূল্যবান ।জীবন তার চেয়েও অনেক বেশী মূল্যবান।আর সম্ভাবনাময়।সুন্দর।ঢাকাবিশ্বদ্যিালয়ের পাঠ চুকিয়ে নিরস চাকুরীজীবন।সামনে আরও নিরস ভবিষ্যৎ। নিরস জীবন সরসভাবে কাটানোর প্রচেষ্টায় আমি সেলিম আনোয়ার।

সেলিম আনোয়ার › বিস্তারিত পোস্টঃ

কার সনে কহো কথা ...

২৬ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:২৯



কার সনে কহো কথা শুনি?
কীসের এত ব্যস্ততা প্রতিদিনে,
তোমার? কঠোর এই লক ডাউনে
সবারই তো গৃহবন্দী দশা।

কী করো সারারাত জেগে থেকে একা?
কেন এতো নিরবতা?
শ্রাবণ মেঘের এই ক্ষণে ।

অসীম আকাশ দেখে দেখেতো
বিশাল হৃদয় নিয়ে
আনন্দে সময় পার হবারই কথা ।

সারাদিন সারারাত কেবল মেঘেদের উড়োউড়ি
যেন মেঘ বৃষ্টির লুকোচুরি— খেলা।

শুধু অসীম আকাশটা বন্দী নয়
ঝিরিঝিরি বহে হাওয়া
উড়ে পাখি কিচির মিচির
যেন সদা ব্যস্ত তারা— আকাশে যেন পাখির মিছিল
স্বাধীনতা চাই! স্বাধীনতা চাই! সকল মানবের
লকডাউনে সকল গৃহবন্দীর।

শুধু মানুষের চোখে নেই ঘুম
দুঃস্বপ্নরা সতত তাড়িত করে
কোভিড নাইন্টিনের সাড়াশি আক্রমনে
ক্ষণে ক্ষণে রূপ তারা বদলায়
তোমার মতো করে
জ্ঞান বিজ্ঞান তাই হয়রান
কী করে জীবাণুদের নিয়ন্ত্রণে আনা যায়।

স্বাস্থ্য বিধি পরিপালনে যেন ব্যর্থ স্বদেশ
জনতার অজ্ঞতা-অসেচতনতার ফাঁক গলে
ঢুকে যায় মরণঘাতি করোনা বহুরূপীয়া মানুষের মাঝে;
বিষধর সাপের মতো দংশনে করে ক্ষত বিক্ষত
বিপর্ষস্ত তাই যেন স্থবির পৃথিবীর অর্থনীতি
দূর্ভিক্ষ নেমে আসে যদি ভেবে,
শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস প্রায়
অলসতা কুড়ে কুড়ে খায় মৃতপ্রায় জনতা।

এভাবে কীভাবে যে বেঁচে থাকা?
কে দেবে আশ্বাস?
কে দেবে ভরসা?
প্রয়োজন জনসচেতনতা স্বাস্থ্য বিধি মেনে
মুখপট্টি বেঁধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার মেখে।
চলছে সংকটকাল
তবু শঠ আর প্রবঞ্চকেরা ফায়দা লুটে নেয়
ঝোপ বুঝে কূপ মেরে স্বার্থ হাছিল করে কেটে পড়ে।

প্রিয়তমা,
তোমার আমার প্রেমে দিয়েছে যারা বাঁধা
দেখ আজ তারাও গৃহবন্দী— বিপন্ন মানবতা
চেয়ে দেখো ভেবে দেখো
তারাও লকডাউনে
করোনার সাথে করেছে সন্ধি
বেঁচে থাকার প্রচেষ্টায়
প্রলাপ বকে তারা—অজানা আশঙ্কায়
কবর শশ্মাণ থেকে মৃত্যুর ঘ্রাণ আসে..

তুমি+ আমি মিলে যেন সম্পূরক কাব্য
আমার যতটা . চাই তুমি যেন ততটাই নাব্য
খাট ভাঙা আদরে শ্রাবণ ভাদরে
চলো হই উদাসী দু’জনে প্রেমে
দূরে আর রেখো না
নিরেট মূর্খের প্রলাপে
বিভ্রান্তি মেলে শুধু মেলেনা যে প্রশান্তি।

এবার মাথা খাঁটাও কুচক্রী দূরে হটাও
এবার করো সুবিবেচনা তবে।
তোমার বুকে মৃগনাভীর গন্ধ শুঁকে
প্রেমে হবো মাতোয়ারা।

সৃষ্টি সুখের বৃষ্টির পরশ মেখে
এখনই নেমে পড়ো দাও সাঁড়া
মম প্রেমের উদাত্ত আহবানে
মঙ্গলদীপ জ্বেলে এই জীবনে—এসো গো এসো না
শ্রাবণ সন্ধ্যায় গভীর রাতে ভোরে ভর দুপুরে
বৃষ্টির নূপুর পড়ে।

দূরে করো সব অযাচিত জ্বালা যন্ত্রনা মম
কাছে এসো! আরও কাছে! আরও আরও…
বিনি সুতোয় গাঁথবো মালা
আমাকে ভলোবেসে দাও তুমি স্বর্গীয় সুখ
লহ মম প্রেম দ্রাক্ষাজল
সম্ভাবনার উদরে হে সুন্দরীতমা মম!
তব স্থান পদতলে নয় হে
আদরের চাদরে বাহুডোরে মম স্বপ্নসম।

তাই বলি এসো গো এসো কাছে
ফিসফিস হবে কথা
প্রগাঢ় উষ্ণ শ্বাস স্কন্ধে তোমার
সহস্র চুম্বনে ওষ্ঠ বক্ষ সুপ্তোত্থিত
উরু গ্রীবা কামনার আগুনে যেন অগ্নিস্ফুলিঙ্গ
ভালোবাসার পারদ তাই আকাশচুম্বী
এভাবেই এসো গো এসো না এইখানে
প্রেমে হংসমিথুন হয়ে মোরা হবো যুগলবন্দী
চিরন্তন শাশ্বত এক প্রেমে
বাকি সবই যে মেকী
যেন শুধু মরূভূমি ধুধু শুভঙ্করের ফাঁকি
ঘুঘুদের পাতা ফাঁদে পা তুমি ফেলো না।

টালবাহানা চলে না নৌকো নদী খেলায়
জীবন কাফেলায়—কতদূর যে পথ বাকি
কতটা পথ যে হয়েছি পাড় কে জানে
নির্মম পৃথিবীর খেলাঘরে।
চলো না, চলো না, দুজনে হবো প্রেম বন্দনা
পরস্পর ভালোবেসে দুজনায় প্রগাঢ় অনুভবে।

কথা দাও! কথা নাও!
আমায় ফেলে যাবে না অন্যথা প্রেমে
কহিবে না কথা অন্য কাহারো সনে।

অপ্রগলভ প্রেমে—চিরভাস্বর থেকে
চলো গড়ি হে আবাস নিকুঞ্জবনে
তুমি+ আমি প্রেমের দোসর গড়ে।

মৃত্যুশাসিত ক্ষণিকের এই জীবনে
মরণেরও পরে তুমি+আমি দুজনে
থেকে যাবো একই সাথে
চলো না চলো না চলো গো করি তার শুভ সূচনা।

তুমি আমি এক পাখির দুটি ডানা
অসীমের আকাশের নীড়ে
উড়িবার তাই নেই যে মানা ।

তুমি+আমি মুক্ত বিহঙ্গ যেন
জীবন চলার পথে
বন্ধুর পথ দুস্তর পথ
প্রেমের উদাত্ত আহবানে সোনা পাখি
ডাকিগো তোমায়—একাগ্রচিত্তে
ঢিব ঢিব করে বুক
প্রেমের অনুষঙ্গে।

দৃষ্টি প্রদীপ জ্বেলে প্রত্যাশার ভেলায় চড়ে
প্রেমের তাজমহল গড়ে
চলো দুজনায় হই ওগো উদাসী
চলো হই মাতোয়ারা পাগলপারা প্রেমে অনন্ত সঙ্গমে…






ছবি বাটুকেভ মালয়েশিয়া নিজস্ব অ্যালবাম থেকে নিয়ে পাওয়ার পয়েন্টে ও পেইন্টে করা

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:০৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


চাঁদ ও পদ্ম আজীবন ২জন ২জনকে দেখে যাবে?

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:০৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: হয়তো । হয়তো নয়।

মনুষ্য পৃথিবীতে মানুষ তাড়িত হয় প্রেমে মিলনে। মিলন হওয়াটাই্ কাম্য উপসংহার । কমেন্টে ধন্যবাদ। নিরন্তর শুভকামনা ।

২| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:০৭

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: বিশাল কবিতা।
সুন্দর হয়েছে

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:১২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আমাদের ভালোবাসাবাসি যে সুদীর্ঘ দিনের তাই বিশাল কবিতা। ধৈর্য্য ধরে পড়েছেন সেজন্য অশেষ কৃতজ্ঞতা । সুস্থ থাকুন সুন্দর থাকুন করোনা মুক্ত থাকুন এই শুভকামনা রইলো আপনার জন্য!!!

৩| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:৩৫

সুদীপ কুমার বলেছেন: আসলেই বিশাল।
তা চলুক প্রেম।
মানুষ হোক সচেতন।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:৩৭

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: প্রেম থেকে হয় যদি সচেতনতা মন্দ কী। করোনা মুক্ত পৃথিবীর স্বপ্ন এখেনো দেখি !!!

৪| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ১২:৩২

দেয়ালিকা বিপাশা বলেছেন: বরাবরের মতোই চমৎকার।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ১২:৩৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কমেন্টে এবং পাঠে অনেক ধন্যবাদ্ । নিরন্তর শুভকামনা ।

৫| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ১:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: সহজ সরল সুন্দর কবিতা।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ১:৩৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কমেন্টে এবং পাঠে অনেক ধন্যবাদ্ । নিরন্তর শুভকামনা ।

৬| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:২৩

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: বিশাল কবিতার জন্য শুভেচ্ছা...। রাত জেগে আর কী করবে কন আপনার কথা ভাবে

সুন্দর হয়েছে

২৭ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:৩৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: কমেন্টে এবং পাঠে অনেক ধন্যবাদ্ । নিরন্তর শুভকামনা ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.