নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

জ্ঞান যেখানে সীমাবদ্ধ, বুদ্ধি সেখানে আড়ষ্ট, মুক্তি সেখানে অসম্ভব।

এম টি উল্লাহ

আমি এম টি উল্যাহ। আইনি উপন্যাস ‘‘অসমাপ্ত জবানবন্দী’’ ও ‘‘নিরু”, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই ‘‘মায়ের মুখে মুক্তিযুদ্ধ’’ ও ‘‘একাত্তরের অবুঝ বালক’’ এর লেখক। পেশায়-আইনজীবী।www.facebook.com/mohammad.toriqueullah , Email- [email protected]

এম টি উল্লাহ › বিস্তারিত পোস্টঃ

চেকের মামলায় রায় হওয়ার পর টাকা জমা না দিয়েও জামিন নেওয়ার বিধান

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ৯:৫৯


আমরা জানি চেকের মামলায় রায় হলে নালিশী চেকের ৫০% টাকা জমা দেওয়া ব্যতিত জামিন ও আপীল করা যায় না। অর্থাৎ আপনার বিরুদ্ধে যদি ১ (এক) লক্ষ টাকার চেকের রায় হয় সেক্ষেত্রে আপীল করার জন্য ৫০ হাজার টাকা রায় প্রদানকারী আদালতে জমা প্রদান করলেই আপনি আপীল দায়ের করতে পারবেন এবং জামিন পাবেন। এটাই রীতি। কিন্তু আইনে কি এমন কিছু আছে?

এক্ষেত্রে আইনের দুইটি ধারার দিকে নজর দেওয়া যেতে পারে। প্রথমটি হলো The Negotiable Instruments (Amendment) Act,1881 (amended as 2006) এর 138A ধারা। যেখানে বলা হয়েছে “ 138A. notwithstanding anything contained in the Code of Criminal Procedure, 1898, no appeal against any order of sentence under sub-section (1) of section 138 shall lie, unless an amount of not less than fifty per cent of the amount of the dishonoured cheque is deposited before filing the appeal in the court which awarded the sentence.”

অপরদিকে ফৌজদারি কার্বিধির ৪২৬ (২ক) ধারায় বলা হয়েছে, “When any person 1[is sentenced to imprisonment for a term not exceeding one year] by a Court, and an appeal lies from that sentence, the Court may, if the convicted person satisfies the Court that he intends to present an appeal, order that he be released on bail for a period sufficient in the opinion of the Court to enable him to present the appeal and obtain the orders of the Appellate Court under sub-section (1) and the sentence of imprisonment shall, so long as he is so released on bail, be deemed to be suspended.”

তাহলে The Negotiable Instruments (Amendment) Act,1881 (amended as 2006) এর 138A ধারায় ৫০% টাকা জমা ব্যতিত আপীল করা যাবে না বলা হলো কিন্তু জামিন দেওয়া যাবেনা সেটা বলা হয় নি।

অপরদিকে Code of Criminal Procedure এর 426 (2A) ধারায় বলা হয়েছে , যদি সাজাটি ১ বছরের বেশী না হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে রায় প্রদানকারী আদালত যদি সন্তুষ্ট হয় সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আদালত আপীল দায়েরের শর্তে অন্তবর্কালীন জামিন প্রদান করতে পারে। if the convicted person satisfies the Court that he intends to present an appeal, order that he be released on bail for a period sufficient in the opinion of the Court to enable him to present the appeal

দুইটি ধারা পাশাপাশি পড়লে সুষ্পষ্ট ৫০% টাকা জমা দেওয়াটি আপীলের শর্ত, জামিনের না। এখানে আরো একটি বিষয় হলো Code of Criminal Procedure এর 426 (2A) ধারটি সংযোজন করা হয়েছে ১৯৭৮ সালে, অপরদিকে The Negotiable Instruments (Amendment) Act,1881 (amended as 2006) এর 138A ধারাটি সংযোজন করা হয়েছে ২০০৬ সালে। অর্থাৎ ২০০৬ সালের Negotiable Instruments Act এর সংশোধনী আনা হলেও পূর্বের তথা Code of Criminal Procedure এর 426 (2A) ধারায় যে জামিনের সুবিধা রয়েছে সেটি রহিত করা হয় নি। ফলে, আইনের উদ্দেশ্যটি সুষ্পষ্ট।

হ্যাঁ, প্রচলিত চর্চা হলো ৫০% টাকা জমা না দিলে জামিন দেওয়া হয় না কিন্ত আইনানুগভাবে ৫০% টাকা জমা না দিয়েও আপনি আইনত জামিন পাওয়ার অধিকারী। কারণ, ৫০% টাকা সংগ্রহের জন্য ব্যক্তির সময় লাগতে পারে এবং আপীল দায়েরর জন্য কেন যুক্তিসঙ্গত সময় জামিন প্রয়োজন তা আদালতে উপস্থাপন করে অন্তবর্তীকালীন জামিন পেতে পারেন।


- মোহাম্মদ তরিক উল্যাহ
আইনজীবী
[email protected]







মন্তব্য ১০ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১০:২৭

রাজীব নুর বলেছেন: এর আগেও এই বিষয়টা নিয়ে লিখে ছিলেন।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১০:৪৭

এম টি উল্লাহ বলেছেন: চেকের মামলা নিয়ে লিখেছি কিন্তু রায়ের পর জামিন নিয়ে এটাই প্রথম লেখা। এমনকি এই বিষয়টি নিয়ে আদৌ কেউ লেখেনি। সে হিসাবে এটি একেবারেই নতুন টপিক।

২| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১০:৩৪

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: সম্ভবত চেকের মামলার ক্ষেত্রে কিছু পরিবর্তন এসেছে ইদানিং। আগের চেয়ে একটু নরম করা হয়েছে। জানলে একটু বলেন বিস্তারিত।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১০:৪৯

এম টি উল্লাহ বলেছেন: তেমন কোন পরিবর্তন হয় নি। তবে, মামলা করার ক্ষেত্রে পাওনা টাকার স্বপক্ষে/লেনদেনের স্বপক্ষে যথোপযুক্ত প্রমাণের বিষয় বিবেচনার বিষয়ে উচ্চ আদালত গুরুত্বারোপ করেছে।

৩| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১১:০৬

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: এখনও কি আসামিকে গ্রেফতার করার বিধান আছে? এই মামলা কি জামিন যোগ্য?

আগে তো ওয়ারেন্ট ইস্যু হলে পালিয়ে বেড়াতো।

১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১১:১৭

এম টি উল্লাহ বলেছেন: রায় হলে ৫০% টাকা জমা দিয়ে আপীল করতে হয় এবং জামিন নিতে হয়

৪| ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১১:১৯

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: রায়ের আগে ওয়ারেন্ট ইস্যু হতে পারে কি? সেই ক্ষেত্রে কি করনীয়?

১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ৯:৫১

এম টি উল্লাহ বলেছেন: সেক্ষেত্রে জামিন নিয়ে মামলায় ট্রায়ালে অংশগ্রহণ করতে হবে।

৫| ১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ১২:৫২

জ্যাক স্মিথ বলেছেন: কিছু মানুষের কাছে টাকা না থাকলেও শুধু চেক দিয়ে লাখ লাখ টাকার বানিজ্য করে।

১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ রাত ৯:৫১

এম টি উল্লাহ বলেছেন: তা ঠিক

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.