নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

www.facebook.com/abdur.sharif

আবদুর রব শরীফ

বাধা বিঘ্ন না পেরিয়ে বড় হয়েছে কে কবে?

আবদুর রব শরীফ › বিস্তারিত পোস্টঃ

বেয়াদব

১৯ শে এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:৩০

আশি নব্বই দশকের একটা বেয়াদব ছিলো প্রাপ্ত বয়ষ্কের জন্য একটা অ্যালবাম করেছিলো নাম 'নিষিদ্ধ' প্রতিটা গান শুনে মনে মনে বেয়াদবটাকে ভালোবেসে ফেলেছিলাম,
.
এমন করে সত্য বলতে আর কোন শিল্পীকে তেমন দেখিনি যদিও হায়দার আলী মাঝে মাঝে একটু বলতে চেয়েও চুপ হয়ে যায়!
.
সেই সময় নাটকের বাকের ভাই নামক বেয়াদবকে বাঁচাতে মিছিল হয়েছিলো,
.
বেয়াদবকে ভালোবাসিলাম! একসময়ের বেয়াদবগুলোর কাছে কোন সাহায্য চাইলে চরকি ঘুরাইতে ঘুরাইতে কোমরে লুকিয়ে থাকা পিস্তল ন্যায়ের কথা বলতো!
.
বেয়াদবদের নিয়ে সিনেমা হতো, মানুষ মুগ্ধ হয়ে পাড়ার বেয়াদবের স্মৃতি মনে করে নয়ন ভেজাতো,
.
গরীবের রাজা রবিনহুডরা ছিলো!
.
বড়লোকদের থেকে টাকা ছিনিয়ে এনে গরীবদের মাঝে বিলি করা বেয়াদবগুলোর গল্প লোক মুখে মুখে প্রচলিত ছিলো,
.
এলাকার সুন্দর বেয়াদবের প্রেমে হাবুডুবু খেয়ে বালিশে এপাশ ওপাশ করতো
.
নজরুল ইসলামের বিদ্রোহীভাবের জন্য সে ও তখন অনেকের চোখে এমন ছিলেন!
.
বেয়াদবগুলো কোন অন্যায় কাজ দেখলে কিংবা শুনলে টুস টাস বলে প্রতিবাদ করতো, ভদ্র ছেলেদের মতো দেখেও না দেখার ভান করতো না!
.
চুলে সিধা সীতা কেটে দেখেও দেখেনি ভাব নিয়ে থাকতো না,
.
হোক বেয়াদব, চুলগুলো সব, পিছনের দিকে উঠানো, গুন্ডার মতো উড়ুক,
.
অদ্ভুত এক প্রজাতি ছিলো বলে ষাট সত্তর আশি নব্বইয়ের দশক ছিলো উত্তাল সংগ্রামে মুখর রাজপথ!
.
একের পর এক বিখ্যাত মনে রাখার মতো নেতার উত্থান হয়েছিলো!
.
আজকের বেয়াদবগুলো অন্যরকম, বড্ড অন্যরকম, তাদের দেখলে থু থু মারতে ইচ্ছে হয়, তাদের কারো ফাঁসি হলে উল্লাসে ফেটে উঠে দেশ,
.
তখন বেয়াদবগুলো থেকে দারুণ কিছু হতো এখন কেবলি গুম, হত্যা, ধর্ষণ, চুরি, ডাকাতি, রাহাজানি, টেন্ডার বাজি, অস্ত্রের ঝংকারসহ দুনিয়ার সব নষ্ট কাজ!
.
এই সমাজে ভদ্র ছেলেদের দিয়ে তেমন কিছু পরিবর্তন হয়না, বেয়াদব হতে হয়, তবে এমন বেয়াদব না!
.
বেয়াদবিরও একটা লিমিট থাকে,
.
এখনকার বেয়াদবগুলো লিমিটলেস্! মা বকলেই তোমায় ভুলবে!
.
দেশে এখন সত্যিকারের কিছু বেয়াদব দরকার! কঠিন বেয়াদব! দূর্নীতিবাজদের টেবিলের উপ্রে বসে বসে থাপ্রাবে এমন!
.
পাড়ায় পাড়ায় বেয়াদবরা দূর্গ গড়ে তুলবে! যা কিছু আছে তা নিয়ে উচিত শিক্ষা দিবে! দিনশেষে, পুলিশ এসে বলবে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না!
.
জনগন আইনের মায়েরে বাপ বলে চোখ মোচতে মোচতে বেয়াদবের জন্য প্রাণ খুলে দোআ করবে, সুন্দরীরা আবারও ক্রাশ খাবে!

মন্তব্য ৫ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৫) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১২:০০

রোকসানা লেইস বলেছেন: একমত তেমন কিছু বেয়াদবের খুব প্রয়োজন এ সময়ে

২| ২০ শে এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০২

রাজীব নুর বলেছেন: বেশ। তবে সবার চিন্তা ভাবনা এক রকম নয়।

৩| ২০ শে এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:৫৯

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: হুম...বেয়াদব

৪| ২০ শে এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:০৩

অজ্ঞ বালক বলেছেন: ভালো কথা কইসেন। এখনকার বেয়াদবগুলা তো টেহার আর টেন্ডারের পিছে দৌঁড়ায়, এইডাই সমিস্যা।

৫| ২০ শে এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৯:৩৭

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: এদের খুবই প্রয়োজন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.