নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার লেখা কারো ভালো লাগলে ০১৮১৫৩৩৮৩৭৫ নাম্বারে বিকাশ কিংবা লোড নতুবা ডাক বিভাগের সেবা নগদে মজুরি পাঠালে আমি গর্ববোধ করবো ৷ আমার জীবনের বেশীরভাগ সময় আমি লিখে কাটাতে চাই, আমার ফেসবুকের ঠিকানা, www.facebook.com/abdur.sharif

আবদুর রব শরীফ

আমার লেখা কারো ভালো লাগলে ০১৮১৫৩৩৮৩৭৫ নাম্বারে বিকাশ কিংবা লোড নতুবা ডাক বিভাগের সেবা নগদে মজুরি পাঠালে আমি গর্ববোধ করবো ৷ আমার জীবনের বেশীরভাগ সময় আমি লিখে কাটাতে চাই, আমার ফেসবুকের ঠিকানা, www.facebook.com/abdur.sharif অথবা Abdur Rob Sharif

আবদুর রব শরীফ › বিস্তারিত পোস্টঃ

দাদা বৃত্তান্ত

১৭ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:৪৫

ওরা চার ভাই ছিলো ৷ সিরাজুল হক, আবদুল খালেক, মোঃ হাবিবুল্লাহ এবং মাষ্টার মজিবুল হক ৷
.
আজকে আমি বাবার সাথে ছিলাম তার দাদা, তার দাদার খোঁজ করতে,
.
সিরাজুল হকের পাঁচ সন্তান যথাক্রমে তাজুল ইসলাম, মোঃ মোস্তান, প্রফেসর ইউনুস, ফখর ইসলাম এবং মোয়াজ্জেম মাস্টার ৷
.
আবদুল খালেকের দুই ছেলে, এমপি ওবায়দুল হক এবং মোঃ আবু বকর ৷
.
হাবিবুল্লাহ'র ছেলে আবদুল্লাহ, আবুল উল্লাহ, বোরহান উদ্দীন ৷
.
মাষ্টার মুজিবুল হকের তিন ছেলে, আবু সুফিয়ান, নোমান হোসেন ওরফে লেদু, আশরাফ উদ্দীন মন্টু ৷
.
ওরা সবাই আমার দাদা ৷ ওনাদের ছেলেরা হলো আমার বাবা এবং চাচারা ৷
.
আমাদের ১০০ বছরের ইতিহাস ঘেঁটে হাতের কড়ে গুণে দেখলাম ১৭ জন দাদা থেকে কেবলি মোঃ মোস্তান, প্রফেসর ইউনুস, ফখর ইসলাম, আশরাফ উদ্দীন মন্টু কেবলি চারজন বেঁচে আছে ৷ কত আপন মানুষ হারানোর বেদনা নিয়ে মানুষ বেঁচে থাকে ৷ থাকতে হয় ৷
.
কেমন্ আছে তারা ৷ এই চারজন আছে বলে পৃথিবীর বুকে আমার দাদারা সবাই জীবিত আছে ওদের মাঝে ৷
.
চারজনের একজন মন্টু দাদাকে একদিন ফোন করে বললাম, দাদা আমি শরীফ বলছি ৷ দাদা বলে, 'শরীফ না তুমি বলবে আমার নাতী বলছো ৷'
.
আরেকজন দাদাকে সন্দ্বীপ গেলে দেখি বিচানায় পিঠ ঠেকে আছে ৷ অসুস্থ ৷ কন্ঠ শুনলেই হাতে বিচানা ভার দিয়ে উঠতে গিয়ে পরে যায় ৷ তবুও কতটা ভালবাসা ৷ সে উঠবে ই ৷ জীবন অনুপ্রেরণার ৷ এসব ভালবাসা অমূল্য ৷
.
অন্যজন প্রফেসর ইউনুস দাদা, করোনার পর থেকে কেবলি ফোন করে কাঁদে ৷ ভয়ে থাকে কে যেনো চলে যায় ৷ অথচ সবাই ওনাকে নিয়ে ভয়ে আছে ৷
.
সবচেয়ে মজার যে দাদাটা বেঁচে আছে আমরা ডাকি মোস্তান দাদা ৷ জীবন সংগ্রামের এক কালজয়ী স্বাক্ষী ৷ এখনো সংগ্রাম মুখর জীবন ৷
.
কঠিন এক নিয়তি ৷ জানি একে একে সবার ফ্যামেলির চিত্র এই একটি ই ৷ লেখাটি আপনাকে ভাবাবে ৷ তবুও যেতে দিতে হয় মর্মে আপনিও উদাস্ মনোভাবে থাকবেন ৷ মন খারাপ হবে ৷ আমার বাবা আমাকে দায়িত্ব দিয়ে গেছে এগুলো তুলে ধরার জন্য ৷
.
আমি তুলে ধরতে গিয়ে বাবাকে আধ ঘন্টা জেরা করলাম ৷ সবশেষে যা পেলাম, এই পৃথিবীতে কেউ চিরদিন থাকবে না ৷ প্রত্যেকটা কর্ম সেটা ভেবে করা উচিত ৷ পাশাপাশি চিরস্থায়ী জীবনের জন্য কাজ করে যেতে হবে ৷ যাতে আবার ১৭ জন দাদা মিলে বেহেশতে একটি ফুলের বাগান হয় ৷

মন্তব্য ১ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১) মন্তব্য লিখুন

১| ১৭ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৯:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমরাও চার ভাই।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.