নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

হাজার হাজার ব্লগারের ভীড়ে আমি এক নগন্য ব্লগার।আমি ভালোবাসি কিছু লিখতে তাই বলে আমি লেখক নই।যখন যা দেখি,যা মনে দাগ কাটে তাই লেখার চেস্টা করি।

Subdeb ghosh

আমি খুব কল্পনাবিলাসী। কল্পনা নামের আলাদা একটা পৃথিবী আছে আমার। আমার এ পৃথিবীটা বাস্তবের পৃথিবী থেকে আলাদা। এখানে আমি যা খুশি কল্পনা করি। বাঁধা দেওয়ার কেউ নেই। কোন কষ্ট নেই, দুঃখ নেই এখানে। বই আর গান এ দুইটা আমার বন্ধু। বই আমার একাকীত্বের সাথী আর গান আমার সুখ দুঃখের সাথী। কোন কথা কে কি বলল??? তার চেয়েও কিভাবে বলল সেটাকেই বেশী গুরুত্ব দিই। সবচেয়ে বেশী কষ্ট হয় যখন কেউ ভুল বোঝে। সবকিছুতেই ভালোটা খোঁজার চেষ্টা করি। প্রিয় ফুল কৃষ্ণচূড়া। প্রিয় সময় গোধূলিবেলা। প্রিয় ঋতু বসন্ত।

Subdeb ghosh › বিস্তারিত পোস্টঃ

চলো বন্ধু

০৯ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১২:৩৬

একটি সময় থাকে যখন
বন্ধুরাই তো জীবন হয়ে ওঠে।
এই সব বন্ধুরাই তো আমাদের
জগৎ ও জীবন ছিল।
সে বন্ধুত্ব ছিল নির্মল,পবিত্র ও স্বার্থহীন।
সে সম্পর্কে 'আমার-তোমার'
বলে কোন ভেদাভেদ ছিল না,
ছিল না একজনকে ডিঙ্গিয়ে
অন্যের ওপরে ওঠার প্রয়াস।
বিশ্বাস আর আস্হার জায়গাটি এত সুদৃঢ়
ছিল যে সন্দেহ ঢোকে নি সেখানে।
গোপনতম কথার আধার ছিল তো বন্ধুরাই -
বহু খুশীর, আনন্দের আর সাফল্যের তারা যেমন ভাগীদার, তেমনি বহু দু:খের, কষ্টের আর
আশাভঙ্গেরও তো তারা স্বাক্ষী।
জীবনের বহু শিক্ষা,বহু রুচি,বহু মনন,
বহু অভিজ্ঞতা তো বন্ধুদের কাছ থেকেই পাওয়া।
আজ এ সব কথা নতুন করে মনে হল,
বন্ধুত্বের সম্পর্কের মধ্যেকার
পরিবর্তন তো সুস্পষ্ট।
বন্ধুত্বের যে ভূমিতে আমরা দাঁড়িয়েছিলাম,
সেখানে তো আমরা আর দাঁড়িয়ে নেই।
মুক্ত, নিষ্পাপ আর সদানন্দ চিত্তের মানুষ তো আমরা আর নই। আমরা এখন আত্ম-স্বার্থ সচেতন,
সন্দেহবাতিক,সাবধানী ঝানু
পরিপক্ক মানুষ এক এক জন।
আমরা আর ওড়ার স্বপ্ন দেখি না,
বাঁধভাঙ্গা হাসিতে ফেটে পড়ি না,
মনের দরজা বন্ধুর কাছে খুলে দেই না,
নিজের কথাটা শোনাতে যতটা উদ্যমী,
বন্ধুর কথা শুনতে ততটা আগ্রহী নই।
পথে-ঘাটে কালে ভদ্রে পুরোনো বন্ধুদের
সঙ্গে দেখা হলে বলি, কি খবর?
ভালো তো? মনে থাকে না,
এ মানুষটির সঙ্গেই কোন একদিন ঘন্টার পর ঘন্টা কথা বলেছি,কথা ফুরোতে চাই নি।
কখনও কখনও কোন বন্ধুর সাফল্যের কথা শুনলে ঈর্ষাণ্বিত হই - হায়, ওর কেন হলো?আমার কেন হলো না।
অথচ অতীতে কোন একদিন ঐ বন্ধুটির
সাফল্যকে নিজের বলে মনে হয়েছে,
আনন্দে দু'হাত তুলে নৃত্য করেছি।
কখনো কোন বন্ধুর চলে যাওয়ার সংবাদ শুনলে মুখে বলি,আহা,অমুকটা চলে গেল!
কিন্তু হৃদয়ে?
হৃদয়ে সে ক্ষতি কতখানি
দাগ কাটে?
এক সময়ে এই বন্ধুটির একদিনের অদর্শনেই
কি জগত-সংসার অন্ধকার মনে হতো না??
কোথায় গেল সে সব দিন?
কোথায় গেল সে মনটা??
সুতরাং আজ যে খুব দরকার কিছু পুরোনো
বন্ধুদের হৃদয়ে কড়া নেড়ে আসার -
সেই পুরোনো অর্গল কি খুলবে না খুলবে না??

মন্তব্য ৬ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৩:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


কবিতা লম্বা হয়ে গেছে!

২২ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:১৪

Subdeb ghosh বলেছেন: বড় হয়ে যায় ব্যাখা করলে।ধন্যবাদ!

২| ০৯ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৯:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর।

২২ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:১৫

Subdeb ghosh বলেছেন: ধন্যবাদ!

৩| ১৪ ই আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:০০

Dr.Ruhul Amin Chowdhury বলেছেন: (০১) এই জিবনের খাতার পাতায় যা লেখা সব ভুল - ভুল সবই ভুল - (০২) এই পৃথিবিতে সারটি জিবন কি পেলাম বলো হায় ? যা কিছু পাবার ছিলো সবই তার ভেসেছি আখি ধারায় - এই সব গানগুলোই সত্য - জিবনে ভালো করতে চাইনি - ন্যয়ের জন্যে লড়িনি - এমন কোনো মুহুর্ত নেই - তারপরও (০১) এই জিবনের খাতার পাতায় যা লেখা সব ভুল - ভুল সবই ভুল - (০২) এই পৃথিবিতে সারটি জিবন কি পেলাম বলো হায় ? সত্য বলে মনে হয় -

২২ শে আগস্ট, ২০২০ বিকাল ৩:২১

Subdeb ghosh বলেছেন: মিত্যু ব্যতিত জীবনের সব স্বাদ পূর্ন হবার নয়।
কি পেলাম?আর কি না পেলাম?
এ হিসেব কষে দেখবেন শূন্য ফলাফল।
সবকিছু পেয়ে গেলে বেঁচে থাকা অর্থহীন হয়ে পড়বে,
সব পেলে ব্যর্থ জীবন,
জীবনে অপূর্নতা থাকবেই,
তাই,বলে অতৃপ্তিতে ভোগার সব সময় প্রশ্ন আসে না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.